× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Peoples welfare is your highest responsibility party MPs Sheikh Hasina
google_news print-icon

জনগণের কল্যাণই আপনাদের সর্বোচ্চ দায়িত্ব: দলীয় এমপিদের শেখ হাসিনা

জনগণের-কল্যাণই-আপনাদের-সর্বোচ্চ-দায়িত্ব-দলীয়-এমপিদের-শেখ-হাসিনা
বুধবার জাতীয় সংসদ ভবনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভায় বক্তব্য দেন শেখ হাসিনা। ছবি: পিআইডি
দ্বাদশ জাতীয় সংসদে আওয়ামী লীগ সংসদীয় দলের (এএলপিপি) প্রথম সভায় শেখ হাসিনা বলেন, ‘প্রত্যেক সংসদ সদস্যকে নিজ নিজ নির্বাচনি এলাকায় জনগণের জন্য কাজ করতে হবে। সুষম উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হবে।’

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘আপনাদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার হওয়া উচিত জনগণের কল্যাণ করা। তাই প্রত্যেক সংসদ সদস্যকে নিজ নিজ নির্বাচনি এলাকায় জনগণের জন্য কাজ করতে হবে। সুষম উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হবে।’

বুধবার জাতীয় সংসদ ভবনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের (এএলপিপি) প্রথম সভায় তিনি এসব কথা বলেন। সূত্র: ইউএনবি

শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের নেতা নির্বাচিত হওয়ার পরপরই বক্তব্য দেন। দুপুর ১২টার দিকে এ বৈঠক শুরু হয়ে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলে।

আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য তানভীর শাকিল জয় বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার ভাষণে বলেছেন, ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে গণতন্ত্র ও জনগণ বিজয়ী হয়েছে।’

তবে সংসদে বিরোধী দল কে হবে সে বিষয়ে তিনি কিছু বলেননি বলে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের জানান জয়।

জয় বলেন, ‘বৈঠকে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য শিরীন শারমিন চৌধুরীকে সংসদের স্পিকার, মতিয়া চৌধুরীকে সংসদ উপনেতা এবং নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটনকে সংসদের চিফ হুইপ মনোনীত করা হয়েছে।’

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Awami League is plotting against Sheikh Hasina and the country
শেখ হাসিনার প্রত্যাবর্তন দিবসের আলোচনায় সালমান এফ রহমান

আওয়ামী লীগ, শেখ হাসিনা ও দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে

আওয়ামী লীগ, শেখ হাসিনা ও দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ ভবনে রোববার আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন সালমান এফ রহমান। ছবি: সংগৃহীত
প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা বলেছেন, ‘গত নির্বাচন নিয়েও ষড়যন্ত্র হয়েছিল। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সেই নির্বাচন আমরা অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে করতে পেরেছি। আগামীতেও সব ষড়যন্ত্র ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবিলা করতে হবে। এখন থেকেই আগামী জাতীয় নির্বাচনে প্রস্তুতি নিতে হবে।’

আওয়ামী লীগ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে বলে মন্তব্য করেছেন সালমান ফজলুর রহমান এমপি।

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক এই উপদেষ্টা বলেছেন, ‘গত নির্বাচন নিয়েও ষড়যন্ত্র হয়েছিল। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সেই নির্বাচন আমরা অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে করতে পেরেছি। আগামীতেও সব ষড়যন্ত্র ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবিলা করতে হবে।’

রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ ভবনে রোববার আয়োজিত এক আলোচনা সভায় সালমান ফজুলর রহমান এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার ৪৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

সালমান এফ রহমান বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে আজকের অবস্থায় নিয়ে এসেছেন। যখনই বিদেশে যাই, সব জায়গা থেকেই জানতে চাওয়া হয়- বাংলাদেশ এত উন্নয়ন কীভাবে করতে পেরেছে? তাদের বলি- শেখ হাসিনার ম্যাজিকের কারণেই আমরা এই পর্যায়ে আসতে পেরেছি।

‘শেখ হাসিনা দেশে না ফিরলে আমাদের কী অবস্থা হতো, সেটা আমরা কল্পনাও করতে পারি না। তিনি দেশকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। আমাদের ভাগ্য ভালো- তার মতো একজন নেতা ও প্রধানমন্ত্রী আমরা পেয়েছি।’

প্রধানমন্ত্রীর এই উপদেষ্টা বলেন, ‘বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে যুদ্ধের জন্য আমরা দায়ী না হলেও এর প্রভাব আমাদের ওপরও পড়েছে। এটা মোকাবিলা করতে হবে। আরেকটা চ্যালেঞ্জ হচ্ছে প্রযুক্তি। আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স আসছে। এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে এমন সব বক্তব্য প্রচার করা হবে, যেটা সম্পূর্ণ ভুয়া। এটাও বিরাট চ্যালেঞ্জ। এই প্রযুক্তি মোকাবিলায়, আমাদের তরুণ প্রজন্মকে এটা শিখতে হবে।’

আগামী জাতীয় নির্বাচনের জন্য এখনই প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান জানিয়ে সালমান রহমান বলেন, ‘পাঁচ বছর অনেক সময় মনে হলেও দেখতে দেখতে শেষ হয়ে যাবে। তাই এখন থেকেই আগামী জাতীয় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।

‘এদেশের সবাই আওয়ামী লীগ করে না। কেউ কেউ বিএনপি করে। আবার অনেকে নিরপেক্ষ আছে। আমাদের কাজ নিরপেক্ষদের মনজয় করা। এটা তখনই সম্ভব, যখন আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকব।’

সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি বলেন, দেশের মানুষ যখন স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখছে, তখনও বিএনপি-জামায়াত অপশক্তি ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। এরা গণতন্ত্র, দেশ ও জনগণের শত্রু। এদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।’

তিনি বলেন, উপজেলা নির্বাচনে বিএনপির যারা অংশ নিচ্ছেন তাদের বহিষ্কার করছে দলটি। এমনকি যারা জিতেছেন তাদেরও হুমকি দেয়া হচ্ছে। এরা গণতন্ত্র ও নির্বাচনে বিশ্বাস করে না, পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় আসতে চায়। তবে আন্দোলন করে সরকারের পতন ঘটানো যায় না। ক্ষমতায় আসতে হলে নির্বাচন করেই আসতে হবে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘১৫ বছর আগে আমরা কোথায় ছিলাম আর আজ কোথায় আছি। এই সবকিছুর কারিগর শেখ হাসিনা। সেদিন আর খুব বেশি দূরে নেই, বঙ্গবন্ধু-কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে আর কোনো হতদরিদ্র মানুষ থাকবে না। বছর পাঁচেকের মধ্যেই হতদরিদ্র মানুষ দেখতে হলে এদেশের তরুণ সমাজকে জাদুঘরে যেতে হবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি, এগিয়ে যাবো।’

ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজীর আহমেদ এমপির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক পনিরুজ্জামান তরুণের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন এমপি, মির্জা আজম এমপি, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য ও তথ্য প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী আরাফাত, ঢাকা-১৯ আসনের এমপি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডা. এনামুর রহমান, মাহবুবুর রহমান, নবাবগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন ঝিলু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফকরুল আলম সমর, সাংগঠনিক সম্পাদক হালিমা আক্তার লাবণ্য, হাবিবুর রহমান হাবিব, সাকুর রহমান সাকো, দোহার উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মিজানুর রহমান ভূঁইয়া প্রমুখ।

আরও পড়ুন:
ক্ষমতায় আসার জন্য বিদেশিদের পেছনে ঘুরেছে বিএনপি: সালমান এফ রহমান

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The story of Bangabandhu daughters struggle should be presented to the whole world Minister of State for Information

বঙ্গবন্ধু-কন্যার লড়াইয়ের গল্প সারা বিশ্বে তুলে ধরতে হবে: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু-কন্যার লড়াইয়ের গল্প সারা বিশ্বে তুলে ধরতে হবে: তথ্য প্রতিমন্ত্রী তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে রোববার আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত। ছবি: নিউজবাংলা
মোহাম্মদ আলী আরাফাত বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু-কন্যা শেখ হাসিনার লড়াইয়ের ইতিহাস, ত্যাগের ইতিহাস, প্রতিকূল পরিবেশে লড়াই করে বিজয়ী হওয়ার ইতিহাস গোটা বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে হবে। তা না হলে আমরা সবাই একসঙ্গে ব্যর্থ হয়ে যাব।’

বঙ্গবন্ধু-কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লড়াইয়ের গল্প গোটা বিশ্বের কাছে তুলে ধরাই তার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের অঙ্গীকার হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত।

রোববার বিকেলে রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু-কন্যা শেখ হাসিনার লড়াইয়ের ইতিহাস, ত্যাগের ইতিহাস, প্রতিকূল পরিবেশে লড়াই করে বিজয়ী হওয়ার ইতিহাস গোটা বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে হবে। তা না হলে আমরা সবাই একসঙ্গে ব্যর্থ হয়ে যাব।

‘আমরা অঙ্গীকার করতে চাই- শুধু বাংলাদেশে নয়, শুধু আমাদের আগামী প্রজন্মের কাছে নয়, গোটা বিশ্বের কাছে বঙ্গবন্ধু-কন্যার লড়াইয়ের গল্প আমরা তুলে ধরব। পুনরায় জাগরণের গল্প আমরা তুলে ধরব।’

মোহাম্মদ আলী আরাফাত বলেন, ‘অন্যায়ের সঙ্গে আপোষ না করে, অন্যায়ের কাছে পরাজিত না হয়ে, অন্যায়কে মোকাবিলা করে শত প্রতিকূলতার মধ্যে ন্যায্যতা প্রতিষ্ঠা করার যে লড়াই, সেই লড়াইয়ের শিক্ষা শিশুদের মাঝে ছড়িয়ে দেয়া প্রয়োজন। বঙ্গবন্ধু-কন্যার জীবনে বাস্তবে যে ঘটনাগুলো ঘটে গেছে সেটা ফিকশনকেও হার মানায়, গল্পকেও হার মানায়।’

ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা বেনজীর আহমদ এমপির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক পনিরুজ্জামান তরুণের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান এমপি।

বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন এমপি ও মির্জা আজম এমপি।

আরও পড়ুন:
সরকার ও নাগরিকের মধ্যে অংশীদারত্ব চান তথ্য প্রতিমন্ত্রী
পরিকল্পিত প্রক্রিয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য সহজলভ্য করা হবে: তথ্য প্রতিমন্ত্রী
সরকারের ব্যর্থতা ধরিয়ে দিন, সাংবাদিকদের তথ্য প্রতিমন্ত্রী
সরকারি কর্মকর্তাদের সর্বোচ্চ আনুগত্য নিয়ে কাজ করার তাগিদ তথ্য প্রতিমন্ত্রীর
অপপ্রচার রোধে প্রশিক্ষণের প্রয়োজনে ভারতীয় প্রতিষ্ঠানের সহায়তা নেব: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Moulvibazar sadar upazila election postponed

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার নির্বাচন স্থগিত

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার নির্বাচন স্থগিত
রিটার্নিং কর্মকর্তা ও মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আব্দুস সালাম চৌধুরী জানান, আপিল বিভাগের আদেশ পালনের সুবিধার্থে মৌলভীবাজার সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

মৌলভীবাজার সদর উপজেলায় সব পদে দ্বিতীয় দফার উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপসচিব মো. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে রোববার এ তথ্য জানানো হয়।

নির্বাচন স্থগিত করে ইতোমধ্যে গণবিজ্ঞপ্তিও জারি করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ও মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আব্দুস সালাম চৌধুরী।

রোববার রাত ৯টায় এই প্রতিবেদককে তিনি জানান, আপিল বিভাগের আদেশ পালনের সুবিধার্থে ষষ্ঠ ধাপে অনুষ্ঠেয় দ্বিতীয় ধাপে মৌলভীবাজার সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

আরও পড়ুন:
ভোট কম পড়ার বড় কারণ বিএনপির বর্জন: ইসি আলমগীর
উপজেলা নির্বাচন: দ্বিতীয় ধাপে ৪৫৭ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন
১৫৭ উপজেলায় রোববার মাঠে নামছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী
ঝিনাইদহ-১ উপনির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী আওয়ামী লীগের নায়েব
সামনের নির্বাচনগুলো আরও স্বচ্ছ হবে: ইসি

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Imprisoning opponents has become governments main program Fakhrul

বিরোধীদের কারাগারে পাঠানো সরকারের প্রধান কর্মসূচি হয়ে দাঁড়িয়েছে: ফখরুল

বিরোধীদের কারাগারে পাঠানো সরকারের প্রধান কর্মসূচি হয়ে দাঁড়িয়েছে: ফখরুল বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি
বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘দেশটা মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে। আওয়ামী শাসক গোষ্ঠী অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখতে দেশব্যাপী প্রতিদিনই বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ওপর অবর্ণনীয় নির্যাতন-নিপীড়ন চালাচ্ছে। একটাই উদ্দেশ্যই- বিরোধী দলগুলো যেন দখলদার সরকারের স্বৈরাচারী আচরণের সমালোচনা করতে না পারে।’

বিএনপির নেতাকর্মীদেরকে জামিন না দিয়ে কারাগারে পাঠানো ফ্যাসিস্ট আওয়ামী সরকারের প্রধান কর্মসূচি হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

পল্টন থানার একটি মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সিনিয়র সদস্য ইশরাক হোসেনের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে রোববার দেয়া এক বিবৃতিতে এমন মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব।

তিনি বলেন, ‘দেশটা মগের মুল্লুকে পরিণত হয়েছে। ৭ জানুয়ারি ডামি নির্বাচনের মাধ্যমে রাষ্ট্রক্ষমতা দখলকারী আওয়ামী শাসক গোষ্ঠী অবৈধ ক্ষমতা ধরে রাখতে দেশব্যাপী প্রতিদিনই বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ওপর নানা কায়দায় অবর্ণনীয় নির্যাতন-নিপীড়ন চালাচ্ছে। তাদের এ ধরনের অপকর্মের একটাই উদ্দেশ্যই- বিরোধী দলগুলো যেন দখলদার সরকারের স্বৈরাচারী আচরণের সমালোচনা করতে না পারে।

‘মিথ্যা মামলায় বিএনপি নেতাকর্মীদেরকে জামিন না দিয়ে কারাগারে পাঠানো যেন ফ্যাসিস্ট আওয়ামী সরকারের প্রধান কর্মসূচি হয়ে দাঁড়িয়েছে। ইশরাক হোসেনের জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানো সেই কর্মসূচিরই নিরবচ্ছিন্ন অংশ।

মির্জা ফখরুল বলেন, এ ধরনের অমানবিক ঘটনায় আমি গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি এবং অবিলম্বে ইশরাক হোসেনের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত বানোয়াট ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক মামলা প্রত্যাহারসহ তার নিঃশর্ত মুক্তির জোর আহ্বান জানাচ্ছি।’

আরও পড়ুন:
বাংলাদেশকে নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে ভারত: ফখরুল
যুক্তরাষ্ট্র আগের অবস্থানে আছে, ফখরুল কী করে জানলেন: কাদের
জনগণের শক্তিতে ভর করেই আন্দোলন করছি: ফখরুল
গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় বিভাজন ভুলে কাজ করা উচিত: ফখরুল
সংসদ নির্বাচনের পর সংকট আরও গভীর হয়েছে: ফখরুল

মন্তব্য

বাংলাদেশ
MP Anwarul Azim went missing while undergoing treatment in India

ভারতে চিকিৎসা করাতে গিয়ে এমপি আনোয়ারুল আজীম ‘নিখোঁজ’

ভারতে চিকিৎসা করাতে গিয়ে এমপি আনোয়ারুল আজীম ‘নিখোঁজ’ ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার। ছবি: সংগৃহীত
এমপি আনোয়ারুল আজীম আনারের মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরে বাবার সঙ্গে কোনো যোগাযোগ নেই। এজন্য আমরা দুশ্চিন্তায় আছি। আমরা সব উপায়ে যোগাযোগের চেষ্টা করছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো খোঁজ পাইনি।’

চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়ে ‘নিখোঁজ’ হয়েছেন ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ারুল আজীম আনার।

এমপি আনারের ব্যক্তিগত সহকারী (পিএস) আব্দুর রউফ রোববার গণমাধ্যমকে এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার চিকিৎসার জন্য ১১ মে ভারতে যান। এরপর দুদিন পরিবার ও দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে তার যোগাযোগ ছিল। ১৪ মে থেকে তার সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে আমাদের।

‘এমপি স্যারের ব্যবহৃত হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরটিও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। কোথায় আছেন, কীভাবে আছেন সেটা জানতে না পেরে আমরা উদ্বিগ্ন। ইতোমধ্যে বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে জানানো হয়েছে। এছাড়া সরকারের উচ্চপর্যায়ের বিভিন্ন দফতরকে বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।’

এমপি আনারের ছোট মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরে বাবার সঙ্গে কোনো যোগাযোগ নেই। এজন্য আমরা দুশ্চিন্তায় আছি। আমরা সব উপায়ে যোগাযোগের চেষ্টা করছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো খোঁজ পাইনি।’

ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম অপু বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে এখনও কিছু শুনিনি। ঘটনা যদি সত্য হয় তবে তা খুবই উদ্বেগের। দল ও সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানাবো।’

এদিকে ভারতে গিয়ে এমপি আনারের ছয় দিন ধরে কোনো যোগাযোগ না থাকার বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে নানা গুঞ্জন চলছে। ফেসবুকে নেতাকর্মী ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা তার সুস্থতা কামনা করে পোস্ট দিচ্ছেন।

এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ থানার ওসি আবু আজিফ বলেন, ‘বিষয়টি লোকমুখে শুনেছি। এ ব্যাপারে এখন পর্যন্ত এমপির স্বজনরা থানায় অভিযোগ দেননি।’

এদিকে বাবার খোঁজ পেতে সংসদ সদস্যের মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন রোববার বিকেলে রাজধানীর মিণ্টো রোডে অবস্থিত ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) কার্যালয়ে আসেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ডিবির এক কর্মকর্তা বলেন, ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনারের মেয়ে ডিবি কার্যালয়ে এসেছেন তার বাবা নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি অবহিত করতে।

প্রসঙ্গত, আনোয়ারুল আজীম আনার ঝিনাইদহ-৪ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য। তিনি ২০১৪, ২০১৮ ও ২০২৪ সালে টানা তিনবার আওয়ামী লীগ থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Boycott of BNP is the main reason for low vote EC Alamgir
উপজেলা নির্বাচন

ভোট কম পড়ার বড় কারণ বিএনপির বর্জন: ইসি আলমগীর

ভোট কম পড়ার বড় কারণ বিএনপির বর্জন: ইসি আলমগীর নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর। ফাইল ছবি
নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর বলেন, ‘বিএনপি ভোট বর্জন করায় তাদের কর্মী-সমর্থকরা ভোট দিতে কেন্দ্রে যাননি। তবে বিএনপিই একমাত্র কারণ নয়। বিশেষ করে আরেকটা বড় কারণ হলো স্থানীয় নির্বাচনে ভোটাররা চাকরিস্থল থেকে ভোট দিতে আসতে চান না।’

চলমান উপজেলা নির্বাচনে ভোট কম পড়ার বড় কারণ হলো বিএনপির ভোট বর্জন। কেননা দলটি ভোট বর্জন করায় তাদের কর্মী-সমর্থকরা ভোট দিতে কেন্দ্রে যাননি। তবে বিএনপিই একমাত্র কারণ নয়। বিশেষ করে আরেকটা বড় কারণ হলো স্থানীয় নির্বাচনে ভোটাররা চাকরিস্থল থেকে ভোট দিতে আসতে চান না।

নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর রোববার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য করেন।

নির্বাচন ভবনের নিজ দপ্তরে ইসি বলেন, ‘২১ মে অনুষ্ঠেয় দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনে ভোটাররা যাতে ভোট দিতে পারেন সে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তবে কত ভোট পড়বে তা বলা কঠিন। যেহেতু সব দল নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না, তাই ভোটের হার নিয়ে বলা যাবে না।’

তিনি বলেন, ‘ধান কাটার মৌসুম ভোট কম পড়ার প্রধান কারণ বিষয়টা এমন নয়। আপনারা কেন বিষয়টা ওইদিকে নিয়ে আমাদের খোঁচা দেন। প্রথম ধাপের নির্বাচনে (৮ মে অনুষ্ঠিত) তাৎক্ষণিক কারণ ছিল সকালে বৃষ্টি। অন্যান্য কারণের মধ্যে ধান কাটা ছিল, বড় দল অংশ নেয়নি, এসব কারণে ভোট কম পড়েছে।’

সাবেক এই ইসি সচিব বলেন, ‘বিএনপি ভোট বর্জনের কথা বলতে পারে। তবে জোর করে কাউকে ভোট দিতে যেতে বাধা দিতে পারবে না। ভোট কম পড়ার পেছনে একটি বড় কারণ বিএনপি। কারণ তারা ভোট বর্জন করায় তাদের কর্মী-সমর্থকরা ভোট দিতে কেন্দ্রে আসছেন না।’

‘এখন ৬০ শতাংশের বেশি ভোটার কেন্দ্রে আসতে চায় না। এটা সারা পৃথিবীতেই এমন। ভারতে সব দল অংশ নিলেও ৬০ শতাংশ ভোট পড়েনি।’

এক প্রশ্নের জবাবে মো. আলমগীর বলেন, ‘হলফনামায় ভুল কিছু বলা হলে আইনে শাস্তির কিছু বলা নেই। তবে এখানে প্রার্থী শপথ করেন। কেউ মিথ্যা তথ্য দিলে যেকোনো নাগরিক আদালতে যেতে পারবেন। আদালত তখন শাস্তি দিতে পারে প্রমাণ হলে। তবে ইসির কিছু করার নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা আশা করি আমাদের দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হবে। ছোটখাটো যেসব সমস্যা মাঠে আছে সেগুলো যাতে না হয় সেজন্য প্রশাসন অত্যন্ত সতর্ক রয়েছে। দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচন প্রথম ধাপের নির্বাচনের চেয়েও সুষ্ঠু হবে।’

গোপালগঞ্জে একজন মারা গেছেন, সেখান থেকে কী শিক্ষা নিচ্ছে কমিশন- এমন প্রশ্নের জবাবে মো. আলমগীর বলেন, ‘নির্বাচনের কয়দিন পর ঘটনা ঘটেছে। তবে সেটা নির্বাচনের কারণে নাকি ব্যক্তিগত কারণে সেটাও দেখতে হবে। তদন্ত না হলে তো মূল কারণ বলা যায় না। এছাড়া নির্বাচন না থাকলে এদেশে সহিংসতা হয় না তা তো নয়। এখন পুলিশ যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছে কিনা সেটা দেখতে হবে।’

ভোটের মাঠে অস্ত্রবাজি হচ্ছে- কী ব্যবস্থা নিচ্ছে কমিশন- এমন প্রশ্নের জবাবে এই নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘পুলিশ প্রশাসন ভোটের পর ৪৮ ঘণ্টা মাঠে থাকে। সে সময়ের মধ্যে তো কিছু হয়নি।’

আরও পড়ুন:
উপজেলা নির্বাচন: দ্বিতীয় ধাপে ৪৫৭ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

মন্তব্য

বাংলাদেশ
I will fight anti national forces with my life Nashim

জীবন দিয়ে দেশবিরোধী অপশক্তি মোকাবেলা করব: নাছিম

জীবন দিয়ে দেশবিরোধী অপশক্তি মোকাবেলা করব: নাছিম আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে শনিবার রাজধানীতে শোভাযাত্রা বের করে স্বেচ্ছাসেবক লীগ। ছবি: নিউজবাংলা
আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি বলেন, ‘বিদেশি প্রভুদের কাছে যারা নালিশ করে এবং ধরনা দিয়ে গণতন্ত্র নষ্ট করে ক্ষমতায় যেতে চায়, তাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের শান্তিপ্রিয় গণতন্ত্রকামী মানুষ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আছে।’

দেশবিরোধী অপশক্তি, সাম্প্রদায়িক শক্তি, স্বৈরাচারী শক্তি, বিরাজনীতিকরণের শক্তিকে জীবন দিয়ে হলেও প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা-৮ আসনের সংসদ সদস্য আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম।

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে শনিবার স্বেচ্ছাসেবক লীগ আয়োজিত আনন্দ শোভাযাত্রায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ ঘোষণা দেন।

নাছিম বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থাকে যে কোনো মূল্যে রক্ষা করতে চাই। বিদেশি প্রভুদের কাছে যারা নালিশ করে এবং ধরনা দিয়ে গণতন্ত্র নষ্ট করে ক্ষমতায় যেতে চায় তাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের শান্তিপ্রিয় গণতন্ত্রকামী মানুষ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ আছে।’

শোভাযাত্রাটি ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন থেকে শুরু হয়ে ঐতিহাসিক ধানমণ্ডি ৩২ নম্বর বঙ্গবন্ধু ভবন পর্যন্ত গিয়ে শেষ হয়।

আনন্দ শোভাযাত্রায় সভাপতিত্ব করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু। সঞ্চালনায় ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু।

স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ, ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন ওয়ার্ড, ইউনিট থেকে আগত নেতা-কর্মীরা এই কর্মসূচিতে অংশ নেন।

আরও পড়ুন:
ঢাকা-৮ আসনে জনগণের সঙ্গে মতবিনিময় বাহাউদ্দিন নাছিমের
স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি এখনও ষড়যন্ত্র করছে: বাহাউদ্দিন নাছিম
ইফতারের নামে দামি হোটেলে বসে ষড়যন্ত্র করে বিএনপি: বাহাউদ্দিন নাছিম
সাশ্রয়ী হতে লোডশেডিংয়ের সিদ্ধান্ত: শিক্ষামন্ত্রী
বিএনপি-জামায়াত শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চায়: নাছিম

মন্তব্য

p
উপরে