× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Fire at Royal Filling Station in Mohakhali
google_news print-icon

মহাখালীতে ফিলিং স্টেশনে আগুন, বিস্ফোরণে দগ্ধ ৮

মহাখালীতে-ফিলিং-স্টেশনে-আগুন-বিস্ফোরণে-দগ্ধ-৮
বুধবার সন্ধ্যা পৌনে আটটার দিকে এ আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। ছবি: নিউজবাংলা
বুধবার রাত ৭টা ৪৮ মিনিটে আগুন লাগার খবরে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট রওনা হয়। রাত ৮টা ৩৫ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

রাজধানীর মহাখালীর রয়েল সি এনজি পেট্রোল পাম্পে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা দগ্ধ হয়েছেন আটজন। তাদের শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

বুধবার রাত ৮টার দিকে বিস্ফোরণে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

দগ্ধরা হলেন- ২৮ বছর বয়সী মামুন শেখ, ৩০ বছর বয়সী মো. রানা, ২৬ বছর বয়সী জীবন, ৪৫ বছর বয়সী সালাউদ্দিন, ৩২ বছর বয়সী আমির হোসেন, ৫০ বছর বয়সী কামাল হোসেন, ৪০ বছর বয়সী আবুশ খায়ের এবং ২৪ বছর বয়সী মাসুম।

দগ্ধদের উদ্ধার করে নিয়ে আসা পাশের এবি সিএনজি পাম্পের ম্যানেজার শহিদুল ইসলাম জানান, এদের মধ্যে আবুল খায়ের পাম্পের ইঞ্জিনিয়ার ও আমির হোসেন পাম্পের ক্যাশিয়ার। তবে তারা সবাই পাম্পের কর্মচারী।

রাত ৮টার দিকে গ্যাস লাইনে কাজ করার সময় তখন পাম্পের ভেতর মেইন লাইনের গ্যাস পাইপে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক তরিকুল ইসলাম জানান, মহাখালী সিএনজি পাম্প স্টেশনে বিস্ফোরণে ৮ জন দগ্ধ পেশেন্ট শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে এসেছে। তাদের সকলের ইনহেলিসন বান্ড রয়েছে। সামান্য কাটাছেঁড়া ইনজুরি রয়েছে। এদের মধ্যে মোহাম্মদ মাসুমের শরীরের ৬০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে, আমির হোসেনের ৩৫ শতাংশ, কামাল আবেদিনের ১৫ শতাংশ এবং মোহাম্মদ সালাউদ্দিনের শরীরের ৬৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। বাকিরা সামান্য দগ্ধ হয়েছেন।

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Books that are selling well at book fairs

মেলায় যেসব বই ভালো বিক্রি হচ্ছে

মেলায় যেসব বই ভালো বিক্রি হচ্ছে
বইমেলায় নবীন ও তরুণ জনপ্রিয় লেখকদের বই বিক্রির শীর্ষে থাকলেও হারিয়ে যাননি কিংবদন্তি লেখকরা। তরুণ জনপ্রিয় লেখকের ভীড়ে ভালো বিক্রি হচ্ছে তাদের বইও।

নতুন করে দুইদিন সময় না বাড়ানো হলে বৃহস্পতিবারই হতো অমর একুশে বইমেলার শেষদিন। তবে সময় বাড়ানোয় আরও দুদিন চলবে বইমেলা। ইতোমধ্যে সব বই মেলায় চলে এসেছে। ফলে শেষ সময়ে এসে পাঠকরা সহজেই খুঁজে নিতে পারছেন তাদের পছন্দের বই।

বইমেলায় নবীন ও তরুণ জনপ্রিয় লেখকদের বই বিক্রির শীর্ষে থাকলেও হারিয়ে যাননি কিংবদন্তি লেখকরা। তরুণ জনপ্রিয় লেখকের ভীড়ে ভালো বিক্রি হচ্ছে তাদের বইও।

এবারের বইমেলায় কোন বইগুলো সবচেয়ে ভালো বিক্রি হয়েছে- জানতে চাইলে প্রথমা প্রকাশনীর বিক্রয় প্রতিনিধি মেহেদী হাসান বলেন, “সর্বোচ্চ বিক্রিত তিনটি বইয়ের নাম বলতে বললে যে তিনটি বইয়ের নাম আসবে, সেগুলো হলো- আনিসুল হক স্যারের ‘কখনো আমার মাকে’, আসিফ নজরুল স্যারের ‘আমি আবু বকর বলছি’, আনু মোহাম্মদ স্যারের ‘অর্থশাস্ত্র’ বইটি।

“এছাড়া আরও দুইটি বইয়ের নাম বলা যাবে, মহিউদ্দিন আহমেদ স্যারের ‘প্লাবনভূমির মহাকাব্য পলাশী থেকে পাকিস্তান’ এবং জিয়াউদ্দিন এম চৌধুরী স্যারের ‘দুই জেনারেলের হত্যাকাণ্ড’।”

তিনি জানান, ‘দুই জেনারেলের হত্যাকাণ্ড’৭/৮ দিন আগে বইমেলায় এসেছে। এরই মধ্যে তিনবার স্টক আউটও হয়ে গেছে।

অন্বেষা প্রকাশনীর কর্মী আবদুল্লাহ বলেন, “ড. আমিনুল ইসলাম স্যারের ‘১০১ ইনট্রোডাকশন টু বাংলাদেশ’, ইসমত আর প্রিয়ার ‘আমার শুধু মানুষ হারায়’, সুজন দেবনাথের ‘হেমলকের নিমন্ত্রণ’, আরিফুর রহমানের ‘সাউদার্ন ভ্যালি ওয়ে’ আর জুনায়েদ ইসলামের ‘ক্রিমসন অ্যান্ড দ্য রেড ডোর’ সবচেয়ে ভালো বিক্রি হচ্ছে।”

মিজান পাবলিশার্সের বিক্রয়কর্মী ইমন বলেন, “নিমাই ভট্টাচার্যের ‘মেমসাহেব’, ফারজানা ছবির ‘জলছবি’ আর অভিনেত্রী রওনক বিশাখা শ্যামলীর ‘তুমি নয়নতারা’ বইগুলো সবচেয়ে ভালো বিক্রি হয়েছে।”

‘তুমি নয়নতারা’ বইয়ের স্টক শেষ হয়ে যাওয়া এবং মেলা বর্তমানে শেষ পর্যায়ে হওয়াতে প্রকাশনী নতুন কোনো মুদ্রণে যাচ্ছে না বলেও জানান তিনি।

অন্যপ্রকাশ প্রকাশনীর পরিচালক সিরাজুল কবীর চৌধুরী বলেন, ‘সবচেয়ে বিক্রিত বইগুলোর নির্দিষ্ট নাম না বলি। তবে উপন্যাসের কাটতি বেশি। আর কিংবদন্তি লেখক হুমায়ূন আহমেদের বই তো আছেই। এছাড়া সাদাত হোসাইন, মৌরি মরিয়মসহ আরও যেসব লেখক ফেসবুকে পজিটিভ লেখালেখি করেন, তাদের বই ভালো বিক্রি হচ্ছে।’

পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স-এর বিক্রয় প্রতিনিধি শারাফাত লস্কর বলেন, “অরুণ কুমার বিশ্বাসের ‘ব্রাউন পেপার’, দন্ত্যস রওশনের ‘নির্বাচিত কিশোর উপন্যাস’‘, মশিউর রহমান শান্তর ‘ঘোর’, ড. মোহাম্মদ আমীন স্যারের ‘যতিচিহ্নের গতি-প্রকৃতি’, সাগরিকা নাসরিনের ‘আধখানা বসতি তাহার’ এবং আবদুল গাফফার রনির ‘প্যারাডক্স’ বইগুলো আমাদের প্রকাশনী থেকে ভালো বিক্রি হচ্ছে।”

মাওলা ব্রাদার্সের মারিহা বিনতে আলী বলেন, “আমাদের প্রকাশনীর সব বই ভালো বিক্রি হচ্ছে। তবে আহমদ ছফার ‘যদ্যপি আমার গুরু’, ‘অর্ধেক নারী অর্ধেক ঈশ্বরী’, উপন্যাসসমগ্র, শাহাদুজ্জামানের ‘ক্রাচের কর্ণেল’ ও আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের ‘খোয়াবনামা’ বেশি বিক্রি হচ্ছে।”

ঐতিহ্য প্রকাশনীর এক বিক্রয়কর্মী বলেন, “আফতাব হোসেনের ‘বখতিয়ার’, ইফতেখার আমিনের অনুবাদ বই ‘ট্রাভেলস অব ইবনে বতুতা’, সাব্বির জাদিদের ‘আজাদির সন্তান’, মহিউদ্দিন আহমদের ‘চুয়াত্তরের দুর্ভিক্ষ’ আর ‘তেহাত্তরের নির্বাচন’ বইগুলো ভালো বিক্রি হচ্ছে।”

বইমেলা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানেই রাখার দাবি

আগামী বছর থেকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান প্রাঙ্গণে বইমেলা হবে না মর্মে একটি গুঞ্জন তৈরি হয়েছে।

বলা হচ্ছে, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানকে ঘিরে সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড তৈরির অংশ হিসেবে কিছু প্রকল্পের কাজ মার্চ মাস থেকেই শুরু করতে চাইছে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়। তাই বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ থেকে সরিয়ে পূর্বাচলে নিয়ে যাওয়া হবে বইমেলা।

যদিও মেলার আয়োজক প্রতিষ্ঠান বাংলা একাডেমি বা সরকারের পক্ষ থেকে এখনও কোনো ঘোষণা আসেনি, তবে প্রকাশকদের দাবি, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান প্রাঙ্গণ থেকে বইমেলা যেন না সরানো হয়। সরানো হলে বইমেলা না হওয়ারই নামান্তর সেটি।

এ বিষয়ে অন্বেষা প্রকাশনীর প্রধান নির্বাহী ফাতিমা বুলবুল বলেন, ‘অমর একুশে বইমেলা আমাদের ঐতিহ্য আর সংস্কৃতির অংশ। এর সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানসহ পুরো এলাকা জড়িয়ে আছে।

‘শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে সবাই বইমেলায় আসে। এখানে বইমেলা হওয়ায় আলাদা একটি আবহ অনুভূত হয়। তাই বইমেলার জন্য সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বিকল্প কোনো জায়গা থাকতে পারে না।’

তিনি বলেন, ‘বইমেলায় অন্যত্র সরিয়ে নিলে মেলার প্রাণটাই থাকবে না। তার চেয়ে বইমেলা না হওয়াই ভালো। বইমেলাকে তো আর বাণিজ্যমেলার সঙ্গে তুলনা করা যাবে না।’

বইমেলায় কবি সামাদের ‘সিলেক্টে‌ড পোয়ে‌মস’

অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে দে‌শব‌রেণ‌্য কবি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদের নতুন বই ‌‘সিলেক্টেড পো‌য়েমস’-এর তৃতীয় সংস্করণ। এবারের মেলায় অনন্য এ গ্রন্থটি প্রকাশ করেছে অন্যন্যা প্রকাশনী। উপমহা‌দে‌শের প্রখ‌্যাত চিত্রশিল্পী যো‌গেন চৌধুরীর চিত্রকর্ম অবলম্ব‌নে বইয়ের প্রচ্ছদ অংকন করেছেন খ্যাতিমান শিল্পী ধ্রুব এষ।

দ্বিভাষিক এই কাব‌্য সংকলন‌টি ইং‌রে‌জি ভার্সন নতুন ক‌রে সম্পাদনা ক‌রে‌ছেন যুক্তরা‌ষ্ট্রের বিখ‌্যাত দুই ক‌বি জে‌মি প্রক্টর শু এবং সাইমন জে অর্টিজ। আগের সংস্করণের স‌ঙ্গে তি‌রিশ‌টি নতুন অনুবাদ যুক্ত করা হ‌য়ে‌ছে বর্তমান সংস্কর‌ণে।

কবিতায় বিশেষ অবদানের জন্য অধ্যাপক সামাদ ২০২৪ সালে একুশে পদক, ২০২০ সালে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কারসহ নানা পুরষ্কারে ভূষিত হয়েছেন। জাতীয় কবিতা পরিষদের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা মুহাম্মদ সামাদ ২০১৭ সাল থেকে পরিষদের সভাপতির দায়িত্বও পালন করছেন।

২৯তম দিনে ১২৭টি নতুন বই

বইমেলার ২৯তম দিনে নতুন বই এসেছে ১২৭টি।

‘লেখক বলছি’ অনুষ্ঠানে নিজেদের নতুন বই নিয়ে আলোচনা করেন লেখক ও আলোকচিত্রশিল্পী নাসির আলী মামুন, পুঁথিগবেষক জালাল খান ইউসুফী, কথাসাহিত্যিক মাহমুদুন নবী রনি এবং কবি রনি রেজা।

শুক্রবারের কর্মসূচি

শুক্রবার অমর একুশে বইমেলার ৩০তম দিন। মেলা শুরু হবে সকাল এগারোটায় এবং চলবে রাত নয়টা পর্যন্ত।

আরও পড়ুন:
বইমেলায় ‍দৃষ্টিহীনদের বাতিঘর স্পর্শ ব্রেইল প্রকাশনা
জমে উঠেছে শেষ সময়ের বইমেলা
বইমেলা ২ দিন বাড়ল
ক্যাটালগ দেখে ‘পছন্দের’ বই সংগ্রহে বইপ্রেমীরা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A fire broke out at Kacchi Bhai Restaurant on Bailey Road

বেইলি রোডে কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টে আগুন, আটকা অনেকে

বেইলি রোডে কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টে আগুন, আটকা অনেকে রাজধানীর বেইলি রোডে গ্রিন কোজি কটেজ নামের ভবন থেকে বের হচ্ছে আগুনের শিখা (বাঁয়ে); আটকে পড়াদের উদ্ধার করছে ফায়ার সার্ভিস। কোলাজ: নিউজবাংলা
ফায়ার সার্ভিসের কেন্দ্রীয় মিডিয়া সেলের কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘বেইলি রোডে কাচ্চি ভাই রেস্তোঁরায় আগুন লাগার খবর পেয়েছি আমরা। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ১২টি ইউনিট কাজ করছে।’

রাজধানীর বেইলি রোডে আট তলাবিশিষ্ট একটি ভবনে আগুন লেগেছে। এই ভবনে ‘কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্ট’সহ একাধিক রেস্তোরাঁ ও দোকান রয়েছে।

গ্রিন কোজি কটেজ নামের ভবনটির দোতলায় বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১০টার দিকে আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিট রাত ৯টা ৫৬ মিনিটে ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নেভানোর তৎপরতা শুরু করে। পরে একে একে আরও ছয়টি ইউনিট তাদের সঙ্গে যোগ দেয়।

ফায়ার সার্ভিসের মোট ১২টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টার করছে। তবে রাত ১১টা ২৫ মিনিটেও আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়নি। এদিকে আগুন ক্রমশ উপরের দিকে ছড়িয়ে পড়ায় ভবনটির উপরের তলাগুলোর বাসিন্দাদের অনেকে আটকা পড়েছেন। রাত ১১টা পর্যন্ত ১৫ জনকে উদ্ধার করে মইয়ের সাহায্যে নিচে নামিয়ে এনেছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।

বেইলি রোডে কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টে আগুন, আটকা অনেকে
আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস। ছবি: নিউজবাংলা

ফায়ার সার্ভিসের কেন্দ্রীয় মিডিয়া সেলের কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘বেইলি রোডে কাচ্চি ভাই রেস্তোঁরায় আগুন লাগার খবর পেয়েছি আমরা। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ১২টি ইউনিট কাজ করছে।’

ঘটনাস্থলে উপস্থিত বেশ কয়েকজন জানান, ভবনটিতে কাচ্চি ভাই, ইলিয়েনসহ বেশ কয়েকটি দোকান আছে। ভবনটি থেকে দাউ দাউ করে আগুনের শিখা বের হচ্ছে। সঙ্গে ধোঁয়ার কুণ্ডলি। বাইরে রাস্তায় প্রচুর মানুষ ভিড় জমিয়েছে।

আট তলাবিশিষ্ট ভবনটির দ্বিতীয় তলায় কাচ্চি ভাই রেস্তোরাঁ। উপরের তলাগুলো আবাসিক।

পুলিশের রমনা জোনের সহকারী মোহাম্মদ সালমান ফার্সী জানান, বহুতল ওই ভবনের উপরের তলাগুলোর বাসিন্দারা আটকা পড়েছেন। তাদেরকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান, আগুন দ্বিতীয় তলায় লাগলেও তা উপরের দিকে ছড়িয়ে পড়ে। ভবনের অনেক বাসিন্দা আটকা পড়েছেন। ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা ক্রেনের সাহায্যে তিন দফায় উপরের তলাগুলো থেকে নারী ও শিশুসহ অন্তত ১৫ জনকে নামিয়ে এনেছেন। আরও বেশ কয়েকজন আটকা পড়ে আছেন। তাদের নামিয়ে আনার চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন:
বরিশালে রেস্তোরাঁয় আগুন, বিএম কলেজছাত্রী আহত
ভাসানচরে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, ছয় শিশুসহ দগ্ধ ৯
তিন ঘণ্টার চেষ্টায় গাজীপুরের ঝুট গুদামের আগুন নিয়ন্ত্রণে
গাজীপুরে জ্বলছে ঝুটের গুদাম
ডেমরায় পাটের সুতার কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণে

মন্তব্য

বাংলাদেশ
BNP favors genocide in Gaza Foreign Minister

গাজায় গণহত্যার পক্ষ নিয়েছে বিএনপি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

গাজায় গণহত্যার পক্ষ নিয়েছে বিএনপি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছবি: নিউজবাংলা
ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞের বিরুদ্ধে তো কিছু বলেইনি, বরং ইসরায়েলি বাহিনীর অনুকরণে তারা দেশে সহিংসতা ঘটিয়েছে; পুলিশের ওপর, হাসপাতালের ওপর হামলা করেছে। তারা ইসরায়েলের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে, ইসরায়েলের দোসরে পরিণত হয়েছে।’

ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞের বিরুদ্ধে বিএনপি-জামায়াত আজ পর্যন্ত একটি শব্দও উচ্চারণ করেনি মন্তব্য করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘চুপ থেকে তারা এই গণহত্যার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে।’

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে ফিলিস্তিনে নারী ও শিশুহত্যা বন্ধের দাবিতে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সমাবেশ ও মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘গাজায় প্রায় ত্রিশ হাজার মানুষকে হত্যা করা হয়েছে, এর বেশিরভাগ নারী ও শিশু। সেখানে হাসপাতালে হামলা করা হচ্ছে, অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে, হাসপাতালের বিদ্যুৎ লাইন ধ্বংস করা হয়েছে, যেসব কারণে অনেক মানুষ নিহত হয়েছে। ত্রাণের অপেক্ষায় থাকা মানুষের ওপর হামলা করা হয়েছে।

‘একবিংশ শতাব্দীতে এটি ভাবা যায় না। তবুও বিশ্ব মোড়লরা নির্বাক এবং আরব বিশ্বের যে ভূমিকা রাখার দরকার ছিল, তারা সেখানে সে ভূমিকা রাখেনি।’

দেশে রাজনীতির প্রসঙ্গ টেনে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞের বিরুদ্ধে তো কিছু বলেইনি, বরং ইসরায়েলি বাহিনীর অনুকরণে তারা দেশে সহিংসতা ঘটিয়েছে; পুলিশের ওপর, হাসপাতালের ওপর হামলা করেছে। তারা ইসরায়েলের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে, ইসরায়েলের দোসরে পরিণত হয়েছে।

‘জামায়াত নাকি ইসলাম কায়েম করতে চায়। অথচ তারা ফিলিস্তিনে গণহত্যার বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত একটা শব্দ বলল না কেন? তারা চেহারা দেখায় কী করে? এরা একটা শব্দ না বলে ইসরায়েলের পক্ষে হাত বাড়িয়েছে।’

গাজায় গণহত্যার পক্ষ নিয়েছে বিএনপি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তিনি বলেন, ‘তারা ভেবেছিল, নির্বাচনের পরে বিশ্ব শেখ হাসিনার সরকারকে স্বীকৃতি দেয় কি না! প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ৭৮টি দেশ ও জাতিসংঘসহ ৩২টি সংস্থা অভিনন্দন জানানোর পর এখন তাদের আর কোনো কথা নাই। এখন নিজেরা নিজেদের প্রশ্ন করে- ভাই কী হলো?

‘বিএনপি নেতারা এখন চ্যালেঞ্জের মুখে; তাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান চ্যালেঞ্জের মুখে। তাদের নেতাদের কর্মীরা জিজ্ঞেস করে বলে- আপনারা নেতৃত্ব দেয়ার অযোগ্য নেতা।’

বর্তমান শেখ হাসিনা সরকার বিগত যেকোনো সরকারের চেয়ে বেশি শক্তিশালী জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘শুধু দেশের উন্নয়নেই নয়, বঙ্গবন্ধুকন্যা বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা পালন করছেন। ৪ ও ৫ মার্চ আমি ওআইসির সম্মেলনে যোগ দেব। প্রধানমন্ত্রী আমাকে ওআইসির সম্মেলনে গিয়ে ফিলিস্তিনের পক্ষে বক্তব্য তুলে ধরতে বলেছেন।

‘ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি নিজে যেচে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। তাকেও প্রধানমন্ত্রী যুদ্ধ বন্ধ করতে বলেছেন। গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর হত্যাকাণ্ড বন্ধের কথা বলেছেন।’

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি ডা. অরূপ রতন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানার উপস্থাপনায় আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য বলরাম পোদ্দার, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম মুরাদ, স্বাধীন বাংলা বেতারকেন্দ্রের একুশে পদকপ্রাপ্ত শিল্পী মনোরঞ্জন ঘোষাল, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের অপর সহ-সভাপতি রেদওয়ান খন্দকার, সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন হালদার, প্রচার সম্পাদক মিজানুর রহমান, ডিইউজের সহ-সভাপতি মানিক লাল ঘোষ সমাবেশ ও মানববন্ধনে বক্তৃতা দেন।

আরও পড়ুন:
প্রধানমন্ত্রীর পূর্বপুরুষ এ দেশে ইসলাম প্রচারে এসেছিলেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
বিশৃঙ্খলা করতে ‘গণতন্ত্র মঞ্চ’ পুলিশের ওপর চড়াও হয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
5 students of DU were injured in the attack after catching the robber

ছিনতাইকারী ধরা নিয়ে হামলায় ঢাবির ৫ শিক্ষার্থী আহত

ছিনতাইকারী ধরা নিয়ে হামলায় ঢাবির ৫ শিক্ষার্থী আহত
ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ মোহাম্মদ বাচ্চু মিয়া বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মারামারির ঘটনায় পাঁচ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। তারা ঢামেকের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন।

রাজধানীর শনির আখড়ায় মোবাইল ফোন ছিনতাইকারী ধরাকে কেন্দ্র করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা হয়েছে, এতে পাঁচজন আহত হয়েছেন।

বুধবার রাত সাড়ে আটটার দিকের এ ঘটনায় আহতদেরকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

আহতরা হলেন ইমন, মাইনুল, জাহিদ হাসান, সৈকত হোসেন ও সাইমুন ইসলাম। এদের বয়স ২০ থেকে ২৪ এর মধ্যে। তারা প্রত্যেকেই ঢাবির গণিত বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

ঢাবির গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. শহিদুল ইসলাম জানান, নারায়ণগঞ্জের সুবর্ণ গ্রামে ট্যুরে গিয়েছিলেন গণিত বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। ট্যুরে মোট আটটি বাস ছিল।

তিনি জানান, নারায়ণগঞ্জ থেকে ফেরার পথে শনির আখড়ায় আসা মাত্র বাসে জানালার পাশ থেকে একজন ছাত্রীর ফোন ছিনিয়ে নেয় ছিনতাইকারীরা, পরে শিক্ষার্থীরা বাস থামিয়ে ছিনতাইকারী সন্ধেহে কয়েকজনকে ধরে ফেলে।

শহিদুল ইসলাম জানান, এ সময় তাদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে মারামারির ঘটনা ঘটে। এতে পাঁচ শিক্ষার্থী আহত হন। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরকে জানানো হয়েছে।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ মোহাম্মদ বাচ্চু মিয়া বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মারামারির ঘটনায় পাঁচ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। তারা ঢামেকের জরুরি বিভাগে চিকিৎসাধীন।

আরও পড়ুন:
ঢাবিতে ভাষা আন্দোলনের স্মৃতি জাদুঘর দেখতে চান প্রধান বিচারপতি
ঢাবির ব্যবসায় শিক্ষা ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু, আসনপ্রতি পরীক্ষার্থী ৩৬
ঢাবিতে ভর্তিযুদ্ধ শুরু

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Dhakas air will top dangerous lows on the last working day of the week

সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে ঢাকার বাতাস ‘বিপজ্জনক’, নিম্ন মানে শীর্ষে

সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে ঢাকার বাতাস ‘বিপজ্জনক’, নিম্ন মানে শীর্ষে রাজধানীতে ধুলায় আচ্ছন্ন সড়ক ধরে গন্তব্যে যাচ্ছেন যাত্রীরা। ছবি: গ্রিন ল্যাব
আইকিউ এয়ারের ডেটা অনুযায়ী, সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে সকাল পৌনে ১০টার দিকে ঢাকার বাতাসে অতি ক্ষুদ্র কণা পিএম২.৫-এর উপস্থিতি ছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) আদর্শ মাত্রার চেয়ে ৫৭ দশমিক ৩ গুণ বেশি।

বাতাসের নিম্ন মানের দিক থেকে আইকিউ এয়ারের তালিকায় ফের শীর্ষে উঠে এসেছে ঢাকা।

সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বাতাসের মানবিষয়ক প্রযুক্তি কোম্পানিটির র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা ৪৩ মিনিটে ৩৩৭ স্কোর নিয়ে বায়ুর নিম্ন মানে ১১১টি শহরের মধ্যে প্রথম অবস্থানে ছিল ঢাকা।

একই সময়ে বাতাসের নিম্ন মানে দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ ছিল ভারতের কলকাতা, পাকিস্তানের লাহোর ও ভারতের মুম্বাই।

সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে ঢাকার বাতাস ‘বিপজ্জনক’, নিম্ন মানে শীর্ষে

আইকিউ এয়ারের ডেটা অনুযায়ী, সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে সকাল পৌনে ১০টার দিকে ঢাকার বাতাসে অতি ক্ষুদ্র কণা পিএম২.৫-এর উপস্থিতি ছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) আদর্শ মাত্রার চেয়ে ৫৭ দশমিক ৩ গুণ বেশি।

নির্দিষ্ট স্কোরের ভিত্তিতে কোনো শহরের বাতাসের ক্যাটাগরি নির্ধারণের পাশাপাশি সেটি জনস্বাস্থ্যের জন্য ভালো নাকি ক্ষতিকর, তা জানায় আইকিউএয়ার।

কোম্পানিটি শূন্য থেকে ৫০ স্কোরে থাকা শহরগুলোর বাতাসকে ‘ভালো’ ক্যাটাগরিতে রাখে। অর্থাৎ এ ক্যাটাগরিতে থাকা শহরের বাতাস জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর নয়।

৫১ থেকে ১০০ স্কোরে থাকা শহরগুলোর বাতাসকে ‘মধ্যম মানের বা সহনীয়’ হিসেবে বিবেচনা করে কোম্পানিটি।

আইকিউ এয়ারের র‌্যাঙ্কিংয়ে ১০১ থেকে ১৫০ স্কোরে থাকা শহরগুলোর বাতাসকে ‘সংবেদনশীল জনগোষ্ঠীর জন্য অস্বাস্থ্যকর’ ক্যাটাগরিতে ধরা হয়।

১৫১ থেকে ২০০ স্কোরে থাকা শহরের বাতাসকে ‘অস্বাস্থ্যকর’ ক্যাটাগরির বিবেচনা করা হয়।

র‌্যাঙ্কিংয়ে ২০১ থেকে ৩০০ স্কোরে থাকা শহরগুলোর বাতাসকে ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ ধরা হয়।

তিন শর বেশি স্কোর পাওয়া শহরের বাতাসকে ‘বিপজ্জনক’ হিসেবে বিবেচনা করে আইকিউএয়ার।

আজ দিনের ওই সময়ে ঢাকার বাতাসের স্কোর ছিল ৩৩৭। এর মানে হলো ওই সময়টাতে ‘বিপজ্জনক’ বাতাসের মধ্যে বসবাস করতে হয় রাজধানীবাসীকে।

আরও পড়ুন:
ঢাকার বাতাস অস্বাস্থ্যকর, নিম্ন মানে পঞ্চম
আজও ঢাকার বাতাস ‘অস্বাস্থ্যকর’
অস্বাস্থ্যকর বাতাসের চক্রে ঢাকা
ঢাকার বাতাস ‘অস্বাস্থ্যকর’, নিম্ন মানে চতুর্থ
ছুটির দিনে ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ ঢাকার বাতাস

মন্তব্য

বাংলাদেশ
50 injured including Jonaid Saki who was baton charged by the police in the democracy stage procession

গণতন্ত্র মঞ্চের মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ, জোনায়েদ সাকিসহ আহত ৫০

গণতন্ত্র মঞ্চের মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ, জোনায়েদ সাকিসহ আহত ৫০ বুধবার গুলিস্তানে জিরো পয়েন্টের কাছে গণতন্ত্র মঞ্চের মিছিলে বাধা দেয় পুলিশ। এ সময় জোনায়েদ সাকি মারধরের শিকার হন। ছবি: সংগৃহীত
বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেন, ‘আমরা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচিতে পুলিশ বাধা দিয়েছে। আমাদের অন্তত ৫০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকিকে অনেক মেরেছে পুলিশ।’

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, ব্যাংকের অর্থ লোপাট ও অর্থপাচারের প্রতিবাদে সচিবালয় অভিমুখে গণতন্ত্র মঞ্চের বিক্ষোভ মিছিলে দু’দফা লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। এ সময় গণতন্ত্র মঞ্চের অন্যতম নেতা জোনায়েদ সাকিসহ বেশকিছু নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে কয়েকজনকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ করে গণতন্ত্র মঞ্চ। সমাবেশ শেষে সচিবালয় অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি গুলিস্তানের জিরো পয়েন্টে পৌঁছলে পুলিশের ব্যারিকেডের মুখে পড়ে। মঞ্চের নেতাকর্মীরা ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দেয়।

এ সময় দু’পক্ষের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি এবং একপর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। মঞ্চের নেতা–কর্মীদের দাবি, পুলিশের লাঠিচার্জে সংগঠনের অন্তত ৫০ নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।

পুলিশের বাধা ও লাঠিচার্জের প্রতিবাদ জানিয়ে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেন, ‘আমরা শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালন করছিলাম। কিন্তু পুলিশ আমাদের বাধা দিয়েছে। আমাদের অন্তত ৫০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকিকে অনেক মেরেছে পুলিশ।’

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা জোনের এডিসি শাহ্ আলম মোহাম্মদ আক্তারুল ইসলাম বলেন, ‘ওনারা অনুমতি ছাড়াই এখানে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে এসেছেন। আমরা তাদের বার বার বলেছি যে তাদের এখানে অনুমতি নেই। কিন্তু তারা আমাদের কথা শোনেননি।

‘ওনারা আমাদের কথা দিয়েছিলেন যে সচিবালয়ের সামনে এসে শান্তিপূর্ণ মিছিল করে চলে যাবেন। কিন্তু আমাদের দেয়া ব্যারিকেড অতিক্রম করে সচিবালয়ে ঢোকার চেষ্টা করেছেন তারা। আমরা বার বার বোঝানোর চেষ্টা করলেও ওনারা ব্যারিকেড ভেঙে ভেতরে ঢুকতে চেয়েছেন।’

তিনি বলেন, ‘পুলিশ অতর্কিত হামলা করেনি। উল্টো তারাই (গণতন্ত্র মঞ্চ) পুলিশের ওপর হামলা করেছে। পুলিশ বাঁশি দিয়ে তাদের সরিয়ে দিয়েছে।’

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘ব্যারিকেডে যারা ধাক্কাধাক্কি করছিল তাদের দেখেই মনে হচ্ছিল এরা ব্যারিকেড ভাঙার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত লোক। আমাদের মনে হয়েছে এদের ভাড়া করে নিয়ে আসা হয়েছে।’

কতজনকে আটক করা হয়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘যারা লাঠি হাতে নিয়ে পুলিশের ওপর আক্রমণ করার চেষ্টা করেছে আমরা তাদের মধ্য থেকে দু-একজনকে আটক করেছি। তবে কতজন এখন পর্যন্ত আটক হয়েছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।’

মিছিলের আগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘একটি মহল এই সরকারকে ক্ষমতায় টিকিয়ে রাখতে মরিয়া হয়ে আছে। সরকার মেগা প্রকল্প করে মেগা লুটপাটের জন্য। এই লুটের টাকা সবাই ভাগবাটোয়ারা করে নিচ্ছে।

‘মাঠে না নামলে এই সরকারকে হটানো যাবে না। বিদেশিদের ওপর ভরসা করবেন না। তারা শুধু সুবিধা নেয়। জনগণের আন্দোলনের মধ্য দিয়েই এই সরকারকে বিদায় করে আমাদের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে হবে।’

নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘সরকার যতই হাবভাব দেখাক না কেন রোজায় পণ্যের দাম কমাতে পারবে না। বাংলাদেশ এখন যেভাবে চলছে এর থেকে খারাপভাবে একটা দেশ চলতে পারে না।’

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A League MP Kamal Mazumder wants the trial of the former education minister

সাবেক শিক্ষামন্ত্রীর বিচার চান আ.লীগের এমপি কামাল মজুমদার

সাবেক শিক্ষামন্ত্রীর বিচার চান আ.লীগের এমপি কামাল মজুমদার বুধবার সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগ দলীয় সদস্য কামাল আহমেদ মজুমদার। ছবি: সংগৃহীত
সংসদে ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে ঢাকা-১৫ আসনের এই সংসদ সদস্য বলেন, ‘জানি না কী কারণে স্কুলটির প্রতি সাবেক শিক্ষামন্ত্রীর কুনজর পড়েছে। আমি তার বিচার চাই।’

রাজধানীর মনিপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজকে রক্ষা করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার। একই সঙ্গে সাবেক শিক্ষামন্ত্রীর বিচার চেয়েছেন তিনি। বলেছেন, ‘জানি না কী কারণে স্কুলটির প্রতি সাবেক শিক্ষামন্ত্রীর কুনজর পড়েছে। আমি তারও বিচার চাই।

বুধবার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন ঢাকা-১৫ আসনের এই সংসদ সদস্য।

আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নির্বাচিত সাংসদ কামাল আহমেদ মজুমদার সংসদে তার বক্তব্যে সাবেক শিক্ষামন্ত্রীর নাম উল্লেখ করেননি। আওয়ামী লীগ সরকারের গত মেয়াদে শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন বর্তমান সমাজকল্যাণমন্ত্রী দীপু মনি। আর শিল্প প্রতিমন্ত্রী ছিলেন কামাল আহমেদ মজুমদার।

সংসদে দেয়া বক্তব্যে কামাল আহমেদ মজুমদার অভিযোগ করেন, মনিপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ এখন ধ্বংসের মুখে। প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনায় বিদ্যালয়টি পরিচালিত হয়ে আসছিল। হঠাৎ করে সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ও ঢাকার জেলা প্রশাসকের কারসাজিতে জামায়াতকে তার গড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির ক্ষমতায় বসানো হয়। গত শিক্ষাবর্ষে এখানে ফল বিপর্যয় হয়েছে।

আরও পড়ুন:
শপথ নিলেন সংরক্ষিত ৫০ নারী আসনের এমপি
চাঁদাবাজি সমাজে সংস্কৃতিতে পরিণত হয়েছে
সংরক্ষিত আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা
ডেঙ্গুতে দেশে এক বছরে ১৭২১ জনের মৃত্যু হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মন্তব্য

p
উপরে