× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Tofail Ahmed submitted nomination of Awami League for Bhola 1 seat
google_news print-icon

ভোলা-১ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন জমা দিলেন তোফায়েল আহমেদ

ভোলা-১-আসনে-আওয়ামী-লীগের-মনোনয়ন-জমা-দিলেন-তোফায়েল-আহমেদ
ভোলা-১ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন জমা দিলেন তোফায়েল আহমেদ। ছবি: নিউজবাংলা
তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘বিএনপি কি বলল না বলল এতে কিছু যায় আসে না। সকলের কাছে একটা গ্রহণযোগ্য, নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেই নির্বাচনে আমরা অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছি। এবং অনেকেই অংশগ্রহণ করবে সেই নির্বাচনে।’

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোলা-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা জেলা প্রশাসক আরিফুজ্জামানের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন তিনি।

মনোনয়নপত্র জমা দেয়া শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘বিএনপি কি বলল না বলল এতে কিছু যায় আসে না। সকলের কাছে একটা গ্রহণযোগ্য, নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেই নির্বাচনে আমরা অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছি। এবং অনেকেই অংশগ্রহণ করবে সেই নির্বাচনে।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আবদুল মমিন টুলু, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মইনুল হোসেন, ভোলা পৌরসভার মেয়র মো. মনিরুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি দোস্ত মাহামুদসহ আরও অনেক নেতা-কর্মীরা।

আরও পড়ুন:
সাদিকের পক্ষে একাট্টা মহানগর আওয়ামী লীগ, চিন্তিত নন জাহিদ
পিটার হাসকে হুমকি: আওয়ামী লীগ নেতাসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন
মাগুরায় সাকিবের নির্বাচনি আগমন
আজমকে নিয়ে স্ট্যাটাস, পপির ব্যাখ্যা চেয়েছে জেলা আওয়ামী লীগ
স্বতন্ত্র এমপি প্রার্থী হচ্ছেন সাবেক মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ 

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Autorickshaw driver killed after being hit by a bus in Kapasia

কাপাসিয়ায় বাসের ধাক্কায় অটোরিকশার চালক নিহত

কাপাসিয়ায় বাসের ধাক্কায় অটোরিকশার চালক নিহত গাজীপুরের কাপাসিয়ায় অটোরিকশায় বাসের ধাক্কায় একজন নিহত হয়েছেন। ছবি: নিউজবাংলা
গাজীপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপসহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফিন বলেন, “বুধবার সকালে টোক বাজার এলাকায় গাজীপুরগামী ‘পথের সাথী রাজদূত’ পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে কিশোরগঞ্জগামী সিএনজি চালিত অটোরিকশার সংঘর্ষ হয়। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে খবর পেয়ে ফায়ার কর্মীরা গিয়ে অটোরিকশাটির গ্রিল কেটে চালকের মরদেহ উদ্ধার করে।”

গাজীপুরের কাপাসিয়ায় একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশায় বাসের ধাক্কায় একজন নিহত হয়েছেন।

কাপাসিয়া-টোক সড়কের বাইপাসে টোক বাজার সংলগ্ন এলাকায় বুধবার সকাল ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রাণ হারানো মো. ফজলুর রহমান (৩৬) কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলার কৃষ্টপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি অটোরিকশাটির চালক ছিলেন।

টোক নয়ন বাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই সুজন রঞ্জন তালুকদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সংঘর্ষে অটোরিকশাটির সামনের অংশ দুমড়েমুচড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই চালকের মৃত্যু হয়। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা গিয়ে অটোরিকশাটির গ্রিল কেটে চালকের মরদেহ উদ্ধার করেন।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপসহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফিন বলেন, “বুধবার সকালে টোক বাজার এলাকায় গাজীপুরগামী ‘পথের সাথী রাজদূত’ পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে কিশোরগঞ্জগামী সিএনজি চালিত অটোরিকশার সংঘর্ষ হয়। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে কাপাসিয়া ফায়ার সার্ভিসের ওয়্যারহাউজ ইন্সপেক্টর মাহফুজুর রহমানের নেতৃত্বে ফায়ার কর্মীরা গিয়ে অটোরিকশাটির গ্রিল কেটে চালকের মরদেহ উদ্ধার করে।”

এসআই সুজন রঞ্জন তালুকদার সাংবাদিকদের জানান, বাস ও অটোরিকশাটি জব্দ করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ পুলিশের হেফাজতে রয়েছে এবং তার স্বজনদের জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন:
তেজগাঁওয়ে পড়ে গেছে যমুনা এক্সপ্রেসের বগি
বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা
ত্রাণের টিন আনতে গিয়ে হারিয়ে গেল পুরো পরিবার
ঈদ ছুটির তিনদিনে দুই শতাধিক দুর্ঘটনা, শীর্ষে মোটরসাইকেল
ফরিদপুরের দুর্ঘটনার যেসব কারণ জানা গেল

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Two people died due to lightning in Sunamganjs Dirai

দিরাইয়ে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু

দিরাইয়ে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু ফাইল ছবি
সুনামগঞ্জ দিরাই থানার ওসি (তদন্ত) রতন দেবনাথ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে বজ্রপাতে দুজনের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে বজ্রপাতে তাদের মৃত্যু হয়।

উপজেলার ভাটিপাড়া ইউনিয়নের মধুরাপুর গ্রামের মালেক নূর (৪৫) ও কুলঞ্জ ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামের আব্দুর নূর (৪০)।

দিরাই থানার ওসি (তদন্ত) রতন দেবনাথ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, উপজেলার মধুরাপুর মান্দার হাটির মৃত উকিল উদ্দিনের ছেলে মালেক নুর মধুরাপুর গ্রামের রমজানপুর হাওরে নিজের জমিতে ধান মাড়ার মেশিন নিয়ে ধান মাড়াই করতে যান। সন্ধ্যা ৭টার দিকে হঠাৎ বজ্রপাত শুরু হলে তিনি বজ্রাঘাতে আহত হন। পরে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

অন্যদিকে একই সময় কুলঞ্জ ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামের আব্দুর নূর বাড়ির পাশে কাজ করছিলেন। এ সময় বজ্রের আঘাতে তিনি মারা যান।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Reporter of fake milk production in Pabna allegedly beaten and broken leg

নকল দুধের সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকের পা ভাঙার অভিযোগ

নকল দুধের সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকের পা ভাঙার অভিযোগ আহত মানিক হোসেন। ছবি: নিউজবাংলা
ভাঙ্গুড়া থানার ওসি নাজমুল হক বলেন, ‘পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছিল। এ বিষয়ে মামলা রুজু হলে আসামিদের আটক করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া নকল দুধ তৈরির বিষয়টি বর্তমানে খুবই আলোচিত। এ বিষয়েও আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় সংবাদ প্রকাশের জেরে এক সাংবাদিককে পিটিয়ে পা ভেঙে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

উপজেলার পুঁইবিল গ্রামে মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আহত দৈনিক খোলা কাগজের প্রতিনিধি মানিক হোসেনকে গুরুতর অবস্থায় পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মারধরের সময় তার মোটরসাইকেল ও মোবাইল কেড়ে নেয়া হয়। মানিক ভাঙ্গুড়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

অভিযোগে জানা যায়, ভাঙ্গুড়া উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়নের চক লক্ষীকোল গ্রামের দুগ্ধ ব্যবসায়ী রাজীব আহমেদ এবং কৈডাঙ্গা গ্রামের আবুল বাশার দীর্ঘদিন ধরে নকল দুধ তৈরির করে বাজারজাত করে আসছেন। এ নিয়ে কিছুদিন আগে মানিক হোসেনসহ কয়েকজন সাংবাদিক নকল দুধ তৈরির ভিডিও ধারণ করেন।

এসব ভিডিও উপজেলা প্রশাসন ও থানা প্রশাসনকে দেখালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মতবিনিময় সভায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সুশীল সমাজের বক্তারা এদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রশাসনকে অনুরোধ করেন।

পরে এ নিয়ে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রাজিব আহমেদ ও আবুল বাশারের নেতৃত্বে বায়েজিদ, রাজিব ও মাহাতাবসহ ১০ থেকে ১২জন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী মঙ্গলবার সকালে পুঁইবিল সড়কে মানিককে একা পেয়ে পিটিয়ে পা ভেঙে দেযন।

পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে মানিককে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যায়। অবস্থা মুমূর্ষু হওয়ায় হাসপাতালের চিকিৎসকরা মানিককে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

আহত প্রতিনিধি মানিক বলেন, ‘সংবাদ প্রকাশের পর থেকে নকল দুধ তৈরির ব্যবসায়ীরা বাড়িতে এসে কয়েকদিন হুমকি দিচ্ছে। এ অবস্থায় আমাকে পিটিয়ে পা ভেঙে দিয়েছে এবং সেই পেটানোর ভিডিও করেছে তারা। আমার মোটরসাইকেল ও মোবাইল কেড়ে নিয়েছে। আমি আমার পরিবার নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন।’

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ইকরামুন নাহার শেলী বলেন, ‘এক্সরেতে দেখা যায় মানিকের পায়ের হার ডিসপ্লেস হয়ে গেছে। এর চিকিৎসা ভাঙ্গুড়ায় সম্ভব নয়। তাই পাবনা পাঠানো হয়েছে।’

ভাঙ্গুড়া থানার ওসি নাজমুল হক বলেন, ‘পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছিল। এ বিষয়ে মামলা রুজু হলে আসামিদের আটক করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া নকল দুধ তৈরির বিষয়টি বর্তমানে খুবই আলোচিত। এ বিষয়েও আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Youth arrested in case of rape of madrasa student

মাদ্রাসার ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় যুবক গ্রেপ্তার

মাদ্রাসার ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় যুবক গ্রেপ্তার ময়মনসিংহের গৌরীপুরে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। ছবি: নিউজবাংলা
এ বিষয়ে ময়মনসিংহ র‌্যাব-১৪ সদর দপ্তরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জুলফিকার আলী বলেন, ‘গত বছরের ৭ আগস্ট মেয়েটির বাবা বাড়িতে না থাকার সুযোগে সুমন মেয়ের ঘরে ঢুকে খাটের নিচে লুকিয়ে থাকে। পরে রাতে মেয়েটির মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে সুমন।

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে পঞ্চম শ্রেণির মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব।

গাজীপুরের টঙ্গী পূর্ব থানার হোসেন মার্কেট এলাকা থেকে সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ময়মনসিংহ র‌্যাব-১৪ সদর দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গ্রেপ্তার মহিদুল ইসলাম ওরফে সুমন (২৮) গৌরীপুরের মাওয়া ইউনিয়নের কুমড়ী গ্রামের বাসিন্দা।

এ বিষয়ে ময়মনসিংহ র‌্যাব-১৪ সদর দপ্তরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জুলফিকার আলী বলেন, ‘স্থানীয় একটি মহিলা মাদ্রাসায় পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে ওই শিক্ষার্থী। মাদ্রাসায় আসা-যাওয়ার পথে মেয়েটিকে বিরক্ত করত সুমন। কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সুমন ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। গত বছরের ৭ আগস্ট মেয়েটির বাবা বাড়িতে না থাকার সুযোগে সুমন মেয়ের ঘরে ঢুকে খাটের নিচে লুকিয়ে থাকে।

‘পরে রাতে মেয়েটির মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে সুমন। এ সময় ডাক-চিৎকারের একপর্যায়ে মেয়েটির মানসিক প্রতিবন্ধী মা এগিয়ে এলে সুমন দৌড়ে পালিয়ে যায়।’

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, ‘এ ঘটনায় ২২ আগস্ট মেয়েটির বাবা থানায় বাদী হয়ে সুমনকে আসামি করে ধর্ষণ মামলা করেন। ঘটনাটি র‌্যাবের নজরে আসলে ছায়াতদন্ত শুরু করা হয়। পরবর্তীতে বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ ও বিশ্লেষণের মাধ্যমে সুমনের পালিয়ে থাকার অবস্থান জানতে পেরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার সুমনকে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন:
নাটোরে ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি গ্রেপ্তার
বন কর্মকর্তা হত্যা মামলার প্রধান আসামি চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার
সাংবাদিককে মারধর: আওয়ামী লীগ নেতাসহ তিনজনের নামে মামলা
বান্দরবানে সোনালী ও কৃষি ব্যাংকে ডাকাতির ঘটনায় ৪ মামলা
চট্টগ্রামে শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, গ্রেপ্তার ১

মন্তব্য

বাংলাদেশ
In Munshiganj Awami Leagues two groups attacked and looted the marriage house of the cocktail explosion

মুন্সীগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৭

মুন্সীগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৭ হামলা, ঘরবাড়ি ভাঙচুর। ছবি: নিউজবাংলা
মুন্সীগঞ্জ থানার ওসি আমিনুল বলেন, আধিপত্য বিস্তার ও পূর্ববিরোধের জেরে এ সংঘাতের ঘটনা। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মাঠে কাজ করছে পুলিশ, জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে।
মুন্সীগঞ্জে পূর্ব বিরোধের জেরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের হামলা-পাল্টা হামলা হয়েছে। এতে একজন গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন সাতজন।
সদর উপজেলার মোল্লাকান্দি ইউনিয়নে এলাকায় মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টা থেকে এ ঘটনার শুরু, চলে বেশ কিছুক্ষণ। এ সময় উভয় পক্ষের ছোড়া ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।
প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে পুলিশ জানায়, ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রিপন হোসেন পাটোয়ারীর অনুসারী বাহাদুর মিয়া ও ইউপি সদস্য ডলি বেগম গ্রুপের সঙ্গে সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোহসিনা হক কল্পনার অনুসারী বাবু কাজী, শওকত ও ইউপি সদস্য সুমা গ্রুপের মধ্যে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও পূর্ব বিরোধের জেরে উভয় পক্ষ মঙ্গলবার সকাল থেকে এলাকায় উত্তেজনা ছড়াতে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটাতে থাকে। এ সময়ে গাবুয়া বাড়ি এলাকার বাবু কাজী নেতৃত্বে বিয়ে বাড়িতে হামলা করে করে নিয়ে যায় সবকিছু।
এক পর্যায়ে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে উভয় পক্ষ ধাওয়া- পাল্টা ধাওয়ায় জড়িয়ে পড়ে। থেমে থেমে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা চলতে থাকে এবং ওই ইউনিয়নের ঢালীকান্দি, মুন্সীকান্দি ও উত্তর বেহেরকান্দি গ্রামে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় উভয় পক্ষ গুলিবর্ষণ করে ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে একজন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত সাতজন আহত হন।
গুলিবিদ্ধ সিফাত (২০) ও ককটেল বিস্ফোরণে গুরুতর আহত আম্বিয়া খাতুনকে (৬০) মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল থেকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
সংঘাতের সময় মুন্সীকান্দি গ্রামে একটি বিয়ে বাড়িতে মালামাল লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বাহার উদ্দিনের ছেলে আশিকের বিয়ে সোমবার অনুষ্ঠিত হয়। বাহার উদ্দিনের ছেলে আশিকের বিয়েকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার বাড়িতে আনন্দ করছিলেন আত্মীয় স্বজনরা। এ সময় প্রতিপক্ষ বাবু কাজীর লোকজন অস্ত্র ও ককটেল নিয়ে বিয়ে বাড়িতে হামলা করে গুলিবর্ষণ করে বলে অভিযোগ।

বাহার উদ্দিনের ভাষ্য, ব্যাপক ভাঙচুর, নববধুর পরিহিত স্বর্ণালংকারসহ বাড়ির অন্যদের গহনা লুটপাট করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মুন্সিগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) থান্ডার খায়রুল হাসান বলেন, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুইপক্ষের উত্তেজনা সংঘর্ষে রূপ নেয়। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। কয়েকজন আহত হয়েছে শুনেছি।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ওসি আমিনুল বলেন, ‘আধিপত্য বিস্তার ও পূর্ববিরোধের জেরে এ সংঘাতের ঘটনা। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মাঠে কাজ করছে পুলিশ, জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে। বিয়ে বাড়িতে হামলা করে, ঘরবাড়ি ভাঙচুর করেছে। তবে এখানে কেউ আহত হয়নি। বিয়ে বাড়ির লোকজন অভিযোগ করেছে তাদের স্বর্ণালংকার, খাবার নিয়ে গেছে।’

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A Chinese engineer was killed and 5 injured in an explosion at a battery factory in Gazipur

গাজীপুরে ব্যাটারি কারখানায় বিস্ফোরণে চীনের প্রকৌশলী নিহত, আহত ৫

গাজীপুরে ব্যাটারি কারখানায় বিস্ফোরণে চীনের প্রকৌশলী নিহত, আহত ৫ গাজীপুরে বয়লার বিস্ফোরণে চীনের এক নাগরিক নিহত হয়েছেন। ছবি: নিউজবাংলা
গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার আবু তোরাব জানান, ব্যাটারি তৈরির কারখানাটি ঈদের ছুটির কারণে বন্ধ ছিল। মঙ্গলবার বন্ধ কারখানাটি চালু করার উদ্যোগ নেয়া হলে কারখানার বয়লার মেশিনটি চালু হচ্ছিল না। পরে চীনা নাগরিক ওই বয়লারটি চালু করার জন্য বয়লারের কাছে গেলে বিকট শব্দে বয়লারটি বিস্ফোরণ হয়ে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

গাজীপুরের কাশিমপুরে একটি ব্যাটারি তৈরির কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণে এক চীনা নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ৫ বাংলাদেশি।

নগরীর কাশিমপুর থানা এলাকার দক্ষিণ পানিশাইল পলাশ হাউজিংয়ের মৌসুমি গার্মেন্টসের নিচে চীনের মালিকানাধীন টং রুই দ্যা ইন্ডাস্ট্রি (স্থানীয় ভাবে চায়না ব্যাটারি ফ্যাক্টরি নামে পরিচিত) নামে ব্যাটারি তৈরির কারখানায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে এ বিস্ফোরণ ঘটে।

প্রাণ হারানো চীনের নাগরিক পুশুচি (৫৩) ওই কারখানার প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কাশিমপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মহিউদ্দিন।তিনি জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কাশিমপুরের পলাশ হাউজিং এলাকায় এক চায়না ব্যাটারি কারখানায় বিস্ফোরণে এক চীনা নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। ওই চীনা নাগরিকের মরদেহ বর্তমানে শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মেমোরিয়াল কেপিজে বিশেষায়িত হাসপাতাল ও নার্সিং কলেজে আছে।

স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে গাজীপুর মহানগরের কাশিমপুর থানা এলাকায় পলাশ হাউজিংয়ে টং রুইদা ইন্ডাস্ট্রির বয়লার সার্ভিসিং করা হচ্ছিল। এ সময় হঠাৎ বয়লারটিতে বিস্ফোরণ হয়। এতে পাঁচজন আহত হন। তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের উদ্ধার করে শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মেমোরিয়াল কেপিজে বিশেষায়িত হাসপাতাল ও নার্সিং কলেজে চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চীনের নাগরিকের মৃত্যু হয়।

গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ-উত্তর) আবু তোরাব মোহাম্মদ শামসুর রহমান জানান, ব্যাটারি তৈরির কারখানাটি ঈদের ছুটির কারণে বন্ধ ছিল। মঙ্গলবার বন্ধ কারখানাটি চালু করার উদ্যোগ নেয়া হলে কারখানার বয়লার মেশিনটি চালু হচ্ছিল না। পরে চীনা নাগরিক ওই বয়লারটি চালু করার জন্য বয়লারের কাছে গেলে বিকট শব্দে বয়লারটি বিস্ফোরণ হয়ে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে কাশিমপুর সারাবো ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে নির্বাপণের কাজ চালায় বলে জানান গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফিন।

আরও পড়ুন:
টেইলার্সে এসি বিস্ফোরণে আটজন আহত
নিজ ফ্ল্যাটে ‘আদম’ পরিচালকের মরদেহ
পাবনায় ভুল চিকিৎসায় দুই প্রসূতির মৃত্যু, হাসপাতাল সিলগালা
টিকটকের ভিডিও বানাতে গিয়ে তিস্তায় নিখোঁজ কিশোরের মৃত্যু
পানিতে ডুবে তিন জেলায় পাঁচ শিশুর মৃত্যু, নিখোঁজ ১

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Called from home hacked and shot dead

বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা প্রতীকী ছবি
ওসি বলেন, ঘটনায় অপর আহত শফিউল আলমের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে নেয়া হচ্ছে।

কক্সবাজারের চকরিয়ায় বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের এক সদস্য প্রার্থীকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার সুরাজপুর মানিকপুর ইউনিয়নের মানিকপুর উত্তরপাড়া স্টেশনে দোকানের ভেতরে ঢুকে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তি হলেন মোহাম্মদ সেলিম (৪৩)। হামলায় তার সঙ্গে আহত হয়েছেন চৌকিদার শফিউল আলম (৩৮) নামের আরও একজন।

নিহত মোহাম্মদ সেলিম উপজেলার মানিকপুর ১ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তরপাড়া এলাকার নুর মোহাম্মদের ছেলে। আহত শফিউল আলম একই এলাকার মৃত আবু ছালাম সওদাগরের ছেলে।

চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে সেলিমের বৃদ্ধ বাবা নুর মোহাম্মদ বলেন, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে চৌকিদার শফিউল আলম কথা আছে অজুহাত দেখিয়ে মোবাইলে আমার ছেলেকে বাড়ি থেকে ঢেকে নিয়ে যায়। এর ৩০ মিনিট পর স্থানীয় উত্তরপাড়া স্টেশনে দোকানে বসাবস্থায় অর্তকিত সেখানে এসে একাধিক মামলার আসামি জাহেদুল ইসলাম সিকদার ওরফে জাহেদ মেম্বার আমার ছেলেকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

তিনি বলেন, ঘটনার সময় এক সঙ্গে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে সেলিমের পাশে বসা চৌকিদার চৌকিদার শফিউল আলমকে।

নিহতের বাবা নুর মোহাম্মদ দাবি করেন, গত ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে মানিকপুর ১ নম্বর ওয়ার্ডে বর্তমান মেম্বার জাহেদ সিকদারের বিরুদ্ধে ভোট করে আমার ছেলে সেলিম। নির্বাচনে আমার ছেলে অল্প ভোটে পরাজিত হলেও সেই থেকে তাকে (আমার ছেলেকে) মারবে কাটবে বলে নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছে জাহেদ মেম্বার। এরই জের ধরে স্থানীয় চৌকিদার শফিউল আলমকে দিয়ে আমার ছেলেকে বাড়ি থেকে ঢেকে নিয়ে জাহেদ মেম্বার কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করেছে।

এলাকাবাসী জানিয়েছেন, হামলার ঘটনায় নিহত মোহাম্মদ সেলিম, আহত চৌকিদার শফিউল আলম ও হামলায় নেতৃত্বদানকারী ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান মেম্বার জাহেদ সিকদার তিনজনই মানিকপুরের যুবলীগ নেতা আবু বক্কর হত্যা মামলার আসামি।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়া হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় দুইজনকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা সরকারি হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মোহাম্মদ সেলিম নামের একজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি বলেন, ঘটনায় অপর আহত শফিউল আলমের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে নেয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসীদের ধরতে পুলিশের একাধিক টিম অভিযান শুরু করেছেন।

মন্তব্য

p
উপরে