× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Alleged rape of intellectually challenged girl in Natore Youth arrested
google_news print-icon

নাটোরে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

নাটোরে-বুদ্ধি-প্রতিবন্ধী-কিশোরীকে-ধর্ষণের-অভিযোগে-যুবক-গ্রেপ্তার
প্রতীকী ছবি
পুলিশ পরিদর্শক বলেন, ‘ঘটনা শুনে কিশোরির মা শরনখোলা থানায় মামলা করলে আমাদের অভিযানে গভীর রাতে অভিযুক্ত গ্রেপ্তার হয়। পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।’

বাগেরহাটে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী এক কিশোরিকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রতিবেশী এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জেলার শরণখোলায় বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ফয়জুল ইসলাম ওরফে মিজানকে গ্রেপ্তার করে।

ওই কিশোরীকে শুক্রবার দুপুরে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শরণখোলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুব্রত কুমার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, শরণখোলা উপজেলার একটি গ্রামে ওই কিশোরীর বাবা গত ২৩ সেপ্টেম্বর সুন্দরবনে মাছ ধরতে যায়। এ সময় তার মা তাকে পাশের ফুফুর বাড়িতে রেখে ছেলেকে নিয়ে চিকিৎসার জন্য খুলনায় যান।

এ সুযোগে গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাত ১০টার দিকে প্রতিবেশী ফয়জুল ইসলাম মিজান ওই কিশোরিকে ধর্ষণ করে। খুলনা থেকে তার মা বাড়িতে আসলে ওই কিশোরী ধর্ষণের কথা খুলে বলে।

পুলিশ পরিদর্শক বলেন, ‘ঘটনা শুনে কিশোরীর মা শরনখোলা থানায় মামলা করলে আমাদের অভিযানে গভীর রাতে অভিযুক্ত গ্রেপ্তার হয়। পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।’

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Jamaat leader in jail in Gaibandha sabotage case

গাইবান্ধায় নাশকতার মামলায় জামায়াত নেতা কারাগারে

গাইবান্ধায় নাশকতার মামলায় জামায়াত নেতা কারাগারে জামায়াতের লোগো। ফাইল ছবি
সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি আজমিরুজ্জামান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার সকালে উপজেলার ছাপড়হাটি গ্রাম থেকে আতাউরকে গ্রেপ্তার করা হয়। একই দিন বিকেলে তাকে আদালতে তোলা হলে বিচারক কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 

নাশকতার মামলায় গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলা জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি মো. আতাউর রহমানকে (৫৩) কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

আতাউর চলতি বছরের গত ২৯ অক্টোবর করা নাশকতার মামলার এজাহারভুক্ত আসামি।

সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি কেএম আজমিরুজ্জামান সোমবার রাত ১১টার দিকে জামায়াত নেতাকে আদালতের মাধ্যমে গাইবান্ধা জেলা কারাগারে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আতাউর স্থানীয় শোভাগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক। তিনি উপজেলার ছাপড়হাটি ইউনিয়নের পশ্চিম ছাপড়হাটি গ্রামের বাসিন্দা।

সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি আজমিরুজ্জামান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার সকালে উপজেলার ছাপড়হাটি গ্রাম থেকে আতাউরকে গ্রেপ্তার করা হয়। একই দিন বিকেলে তাকে আদালতে তোলা হলে বিচারক কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আরও পড়ুন:
ময়মনসিংহে বিএনপির ৮৬ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা
চাঁপাইনবাবগঞ্জ অফিসার্স ক্লাবের টেনিস কোর্টে ককটেল বিস্ফোরণ
পুলিশকে বাধা ও নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তার আরও ৬
বিএনপির মিছিল থেকে বাসে ‘আগুনের প্রস্তুতি’, গ্রেপ্তার ৩
চট্টগ্রামে দুই বাসে আগুন, চালক দগ্ধ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Case against 86 leaders and workers of BNP in Mymensingh

ময়মনসিংহে বিএনপির ৮৬ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

ময়মনসিংহে বিএনপির ৮৬ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা গ্রেপ্তার তিনজন। ছবি: নিউজবাংলা
ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ শাহ কামাল আকন্দ বলেন, ‘রোববার রাত পৌনে ৮টার দিকে নগরীর শম্ভুগঞ্জের রঘুরামপুর বরাইকান্দি এলাকায় বিএনপি-ছাত্রদলের একদল কর্মী অবস্থান নিয়ে নাশকতার চেষ্টা শুরু করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে নাশকতাকারীরা গাড়িতে ভাঙচুর ও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এ সময় পেট্রোল বোমাসহ ছাত্রদলের ওই তিন নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়। জড়িত অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

ময়মনসিংহে বিএনপির ৮৬ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই মো. মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৭০ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন। ওই মামলায় তিনজকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে বিকেলে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারবকৃতরা হলেন- ময়মনসিংহ মহানগর ছাত্রদলের সহ-সাধারণ সম্পাদক ৩০ বছর বয়সী খাইরুল আলম শাকিল, মহানগর ছাত্রদল নেতা ২৪ ৩০ বছর বয়সী আকরাম হোসেন, উত্তর জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক ৩০ ৩০ বছর বয়সী শুভ চন্দ্র দেবনাথ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ শাহ কামাল আকন্দ বলেন, ‘রোববার রাত পৌনে ৮টার দিকে নগরীর শম্ভুগঞ্জের রঘুরামপুর বরাইকান্দি এলাকায় বিএনপি-ছাত্রদলের একদল কর্মী অবস্থান নিয়ে নাশকতার চেষ্টা শুরু করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে নাশকতাকারীরা গাড়িতে ভাঙচুর ও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এ সময় পেট্রোল বোমাসহ ছাত্রদলের ওই তিন নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়। জড়িত অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

আরও পড়ুন:
চাঁপাইনবাবগঞ্জ অফিসার্স ক্লাবের টেনিস কোর্টে ককটেল বিস্ফোরণ
পুলিশকে বাধা ও নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তার আরও ৬
রিজভীকে গ্রেপ্তারে পরোয়ানা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Bangladeshi killed in BSF firing across Thakurgaon border

ঠাকুরগাঁও সীমান্তের ওপারে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

ঠাকুরগাঁও সীমান্তের ওপারে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া। ফাইল ছবি
কাঠালডাঙ্গী সীমান্ত চৌকির (বিওপি) বিজিবি কোম্পানি কমান্ডার এন্তাজুল হক বলেন, ‘ভারত সীমান্তের ভেতরে এক বাংলাদেশিকে গুলি করে বিএসএফ। পরে তাকে সেখানকার একটি হাসপাতালে নেয়া হয় এবং সেখানেই তার মৃত্যু হয়। তার লাশ এখনও বিএসএফের কাছে আছে।’  

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর সীমান্তে ভারতের অভ্যন্তরে বিএসএফের গুলিতে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

উপজেলার কাঠালডাঙ্গী সীমান্তে সোমবার ভোররাতে এ ঘটনা ঘটে।

প্রাণ হারানো বাংলাদেশির নাম জহিরুল ইসলাম (২৫), যিনি হরিপুর উপজেলার গেরুয়াডাঙ্গী গ্রামের বাসেদ আলীর ছেলে।

কাঠালডাঙ্গী সীমান্ত চৌকির (বিওপি) বিজিবি কোম্পানি কমান্ডার এন্তাজুল হক বলেন, ‘ভারত সীমান্তের ভেতরে এক বাংলাদেশিকে গুলি করে বিএসএফ। পরে তাকে সেখানকার একটি হাসপাতালে নেয়া হয় এবং সেখানেই তার মৃত্যু হয়। তার লাশ এখনও বিএসএফের কাছে আছে।’

ঠিক কী কারণে বিএসএফ গুলি চালিয়েছে, তা নিশ্চিত হতে পারেননি বিজিবির এ কর্মকর্তা।

সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে মরদেহ উদ্ধার

এদিকে হরিপুর থানার ওসি ফিরোজ ওয়াহিদ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘সোমবার ভোররাতে একজন ব্যক্তির গুলিবিদ্ধ লাশ নাগর নদীর উপশাখা শিরানী নদীতে ভাসমান অবস্থায় পাওয়া যায়। আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছি।’

তিনি জানান, উদ্ধার হওয়া ব্যক্তির নাম মকলেছ (২৫), যিনি হরিপুর উপজেলার গেরুয়াডাঙ্গী গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে।

মকলেছ কার গুলিতে নিহত হয়েছেন, সে বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারেননি ওসি। তার ভাষ্য, এ যুবক বিএসএফের গুলিতে নিহত হয়েছেন বলে ধারণা করছে পুলিশ।

আরও পড়ুন:
পঞ্চগড়ে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি যুবক আহত
ঘাস কাটতে গিয়ে বিএসএফের গুলিতে কিশোর নিহত
তেঁতুলিয়া সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত
ঠাকুরগাঁও সীমান্তের ওপারে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত 
দুদিন পর যুবকের মরদেহ ফেরত দিল বিএসএফ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Bus drivers attack Victoria College students

ভিক্টোরিয়া কলেজের শিক্ষার্থীদের ওপর বাসচালকদের হামলা

ভিক্টোরিয়া কলেজের শিক্ষার্থীদের ওপর বাসচালকদের হামলা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন আহত শিক্ষার্থীরা। ছবি: নিউজবাংলা
আহত ১৫ ছাত্রকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের কারো মাথা ফাটা, কারো শরীরে কোপের চিহ্ন দেখা গেছে।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ ছাত্রদের শাসনগাছা বাস টার্মিনালের চালক ও হেলপারদের বিরুদ্ধে ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে৷ এ ঘটনায় অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন।

সোমবার সন্ধ্যায় শাসনগাছা বাস টার্মিনাল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহত ১৫ ছাত্রকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের কারো মাথা ফাটা, কারো শরীরে কোপের চিহ্ন দেখা গেছে।

আহতরা হলেন- পরিসংখ্যান দ্বিতীয়বর্ষের শাকিল, রসায়ন তৃতীয়বর্ষের হাসান ও আরাফাত, বাংলা বিভাগের চতুর্থবর্ষের হাবিব, অর্থনীতি বিভাগের প্রথমবর্ষের ইমরান, ইসলামের ইতিহাস তৃতীয়বর্ষের কাহহার, গণিত চতুর্থবর্ষের রতন, রাষ্টবিজ্ঞান চতুর্থবর্ষের জামশেদ, ব্যবস্থাপনা দ্বিতীয়বর্ষের আরমান, অর্থনীতি চতুর্থ বর্ষের নিলয়, রাষ্টবিজ্ঞান চতুর্থ বর্ষের সাকিব এবং রাষ্টবিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী সানি।

আহত আব্দুল কাহহার জানান, সোমবার বিকেলে রাস্তা পারাপারের সময় তাকে বাস চাপা দেয়। এতে তিনি আহত হয়ে চালককে সাবধানে গাড়ি চালাতে বলেন। এ সময় সঙ্গে থাকা অপর ছাত্ররা তর্কে জড়িয়ে পড়েন বাসচালক ও হেলপাররা। এ সময় ওই দুই ছাত্রকে বাস স্ট্যান্ডে আটকে রাখে চালক ও হেলপাররা।

পরে আটকে থাকা ছাত্ররা সহপাঠীদের জানালে সহপাঠীরা তাদের উদ্ধার করতে যান। এদিকে বাস চালক ও হেলপাররা ছাত্রদের প্রতিহত করতে রাস্তায় দেশীয় অস্ত্র, লাঠি ও ইটপাটকেল নিয়ে অবস্থান নেয়। ছাত্ররা বাস স্ট্যান্ডে গিয়ে আহত ছাত্রদের আনতে গেলে অতর্কিত হামলা করে বাসের চালক ও হেলপাররা।

সরেজমিনে হাসপাতালে গিয়ে জানা যায়, আহত ৯ ছাত্র কুমিল্লা জেনারেল (সদর) হাসপাতালে বর্তমানে সেবা নিয়েছেন। এদের মধ্যে একজন হাসপাতালে ভর্তি। পাশেরর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন আরও ৫ জন।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ উপাধক্ষ্য মৃণাল কান্তি গোস্বামী বলেন, ‘আমাদের ১৫ ছাত্রের চিকিৎসা চলছে। একজনের মাথায় ১২টি সেলায় লেগেছে। কেউ হাতে, কেউ বা পায়ে মারাত্মক ব্যাথা পেয়েছে।’

কুমিল্লা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) কামরান হোসেন জানান, ঘটনা শুনে তিনি নিজে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। অভিযোগের ভিত্তিতে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন তিনি।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Cocktail explosion at Chapainawabganj Officers Club tennis court

চাঁপাইনবাবগঞ্জ অফিসার্স ক্লাবের টেনিস কোর্টে ককটেল বিস্ফোরণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ অফিসার্স ক্লাবের টেনিস কোর্টে ককটেল বিস্ফোরণ ছবি: নিউজবাংলা
অফিসার্স ক্লাবের টেনিস কোর্টে খেলা খুব বেশি হতো না। বিস্ফোরণে কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের অফিসার্স ক্লাবের টেনিস কোর্টে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটছে।

সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

কয়েক মাস আগে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে নতুন টেনিস ক্লাব নির্মাণ ও উদ্বোধনের পর, অফিসার্স ক্লাবের টেনিস কোর্টে খেলা খুব বেশি হতো না। বিস্ফোরণে কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

ককটেল বিস্ফোরণের পর ওই এলাকার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে এই ঘটনার কিছুক্ষণ পরই শহরের শান্তিমোড় এলাকায় আরেও দুটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘অফিসার্স ক্লাবের টেনিস কোর্টে সন্ধ্যার দিকে দুটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটার পর পরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। আপরাধীদের শনাক্ত ও গ্রেপ্তারে আমরা কাজ করছি।’

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Show of guns in the boat rally mourns Shahjahan Omar

নৌকার সমাবেশে বন্দুক প্রদর্শন, শাহজাহান ওমরকে শোকজ

নৌকার সমাবেশে বন্দুক প্রদর্শন, শাহজাহান ওমরকে শোকজ ঝালকাঠি-১ আসনে আওয়ামী লীগের আলোচিত প্রার্থী ব্যারিস্টার মুহাম্মদ শাহজাহান ওমর। ফাইল ছবি
নৌকার সমাবেশে উপস্থিত অনেকে জানান, সোমবার বেলা ১১টার দিকে কাঁঠালিয়া উপজেলার সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিপুলসংখ্যক লোকজন নিয়ে এক পাশে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী, অন্যপাশে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বসিয়ে সমাবেশ করেন ব্যারিস্টার মুহাম্মদ শাহজাহান ওমর। সমাবেশে বিএনপির একাংশের সভাপতি আবদুল জলিল মিয়াজী একটি বন্দুক নিয়ে শাহজাহান ওমরের পাশে বসা ছিলেন। 

নৌকার সমাবেশে বন্দুক প্রদর্শন করে আচরণবিধি লঙ্ঘনের ঘটনায় ঝালকাঠি-১ আসনে আওয়ামী লীগের আলোচিত প্রার্থী ব্যারিস্টার মুহাম্মদ শাহজাহান ওমরকে শোকজ করেছে নির্বাচন অনুসন্ধান কমিটি।

ঝালকাঠি-১ আসনে নির্বাচন কমিশনের গঠন করা অনুসন্ধান কমিটির দায়িত্বপ্রাপ্ত বিচারক সিনিয়র সহকারী জজ পল্লবেশ কুমার কুন্ডু সোমবার সন্ধ্যায় এ আদেশ দেন।

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত শাহজাহান ওমরের বিরুদ্ধে কেন আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণসহ নির্বাচন কমিশনে রিপোর্ট পাঠানো হবে না, সে বিষয়ে আগামী বুধবারের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে।

শাহজাহান ওমরকে শোকজ করার বিষয়টি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন কাঁঠালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. নেছার উদ্দিন।

এ ঘটনায় নির্বাচন কমিশনের বিধিমালা অনুযায়ী তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার কথা নিউজবাংলাকে জানিয়েছেন নেছার উদ্দিন।

নৌকার সমাবেশে উপস্থিত অনেকে জানান, সোমবার বেলা ১১টার দিকে কাঁঠালিয়া উপজেলার সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিপুলসংখ্যক লোকজন নিয়ে এক পাশে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী, অন্যপাশে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বসিয়ে সমাবেশ করেন ব্যারিস্টার মুহাম্মদ শাহজাহান ওমর। সমাবেশে বিএনপির একাংশের সভাপতি আবদুল জলিল মিয়াজী একটি বন্দুক নিয়ে শাহজাহান ওমরের পাশে বসা ছিলেন।

নির্বাচনি সমাবেশে বন্দুক নিয়ে অবস্থানের কারণে ভোটারদের মনে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হওয়ায় সাংবাদিকরা বিষয়টি জানতে চান বিএনপি নেতা আবদুল জলিল মিয়াজীর কাছে। জবাবে বন্দুকটি শাহজাহান ওমরের লাইসেন্স করা বলে জানিয়েছেন বিএনপির এ নেতা।

সমাবেশে শাহজাহান ওমরের সঙ্গে কাঠালিয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল জলিল মিয়াজী ও সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির হোসেন কবির হাওলাদারসহ অনেক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন। একই সঙ্গে এতে উপস্থিত ছিলেন কাঠালিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আহ্বায়ক ও সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. গোলাম কিবরিয়া সিকদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবুল বসার বাদশা, শৌলজালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মাহমুদ হোসেন রিপন।

সমাবেশে আগ্নেয়াস্ত্র কেন নিয়েছেন, সে বিষয়ে জানতে রাত আটটার দিকে শাহজাহান ওমরের ব্যবহৃত নম্বরে একাধিকবার কল করা হয়। তিনি কখনও কল কেটে দেন, আবার কখনও রিসিভ করেননি।

আরও পড়ুন:
নির্বাচনের তফসিল স্থগিত চেয়ে রিটের আদেশ ১০ ডিসেম্বর
পাঁচ বছরে ইমরানের স্ত্রীর সম্পদ বেড়েছে দ্বিগুণের বেশি
মনোনয়ন বাতিল কৌতুক অভিনেতা চিকন আলীর
দ্বৈত নাগরিকত্ব: আওয়ামী লীগের শাম্মীর মনোনয়নপত্র বাতিল
ঢাকার দুটি আসনে মনোনয়ন বৈধ জিএম কাদের শেরীফা দম্পতির

মন্তব্য

বাংলাদেশ
6 more arrested in the case of obstruction and sabotage of the police

পুলিশকে বাধা ও নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তার আরও ৬

পুলিশকে বাধা ও নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তার আরও ৬ ফাইল ছবি
র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পচিালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, নাশকতার ঘটনায় সিসিটিভি ফুটেজ, গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ভিডিও ফুটেজ এবং সংশ্লিষ্ট তথ্য বিশ্লেষণ করে জড়িতদের আইনের আওতায় আনতে কাজ করছে র‌্যাব।

গত ২৮ অক্টোবরের সহিংসতা, পরবর্তী সময়ে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ও নাশকতার অভিযোগে রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

সোমবার দিনভর পৃথক অভিযানে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ নিয়ে ২৮ অক্টোবর থেকে এ পর্যন্ত মোট ৮২৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

সন্ধ্যায় র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পচিালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, ‘গত ২৮ অক্টোবর ও পরবর্তী সময়ে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গণপরিবহন ও ব্যক্তিগত পরিবহন ভাঙচুর এবং অগ্নিসংযোগসহ বিভিন্ন নাশকতা ঘটানো হয়। সিসিটিভি ফুটেজ, গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ভিডিও ফুটেজ এবং সংশ্লিষ্ট তথ্য বিশ্লেষণ করে জড়িতদের আইনের আওতায় আনতে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ায় র‌্যাব।

এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার রাজধানীর জুরাইন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে যানবাহনে অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুর ও নাশকতার মামলায় যাত্রাবাড়ী থানার ৫০ নম্বর ওয়ার্ড যুবদলের সভাপতি জাকির হোসেন গ্রেপ্তার হন। এ ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থান হতে গাড়ি ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও নাশকতার ঘটনার সঙ্গে জড়িত সর্বমোট ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

২৮ অক্টোবর হামলা ও নাশকতাসহ পরবর্তীতে দেশের বিভিন্ন স্থানে সহিংসতা ও নাশকতার সঙ্গে জড়িত সর্বমোট ৮২৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

মন্তব্য

p
উপরে