× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Plans to drill 46 new wells to meet gas demand
google_news print-icon

গ্যাসের চাহিদা পূরণে ৪৬টি নতুন কূপ খননের পরিকল্পনা

গ্যাসের-চাহিদা-পূরণে-৪৬টি-নতুন-কূপ-খননের-পরিকল্পনা
ভোলার ইলিশা-১ কূপ। ফাইল ছবি
পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান বলেন, ‘গ্যাসের সরবরাহ চাহিদার তুলনায় কম এবং ঘাটতি যে অবস্থায় আছে, তা সমাধানে আমরা ২০৪১ সাল পর্যন্ত পরিকল্পনা তৈরি করেছি। দেশীয় উৎস থেকে সর্বোচ্চ পরিমাণ গ্যাস যাতে পাওয়া যায়, সে জন্য আমাদের তিনটি কোম্পানিকে কাজে লাগিয়ে সেই পরিকল্পনা তৈরি করেছি।’

দেশে গ্যাসের ঘাটতি পূরণে আগামী বছরের মধ্যে নতুন আরও ৪৬টি কূপ খননের পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার।

হবিগঞ্জের রশীদপুর গ্যাস ক্ষেত্রে বুধবার বিকেলে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিফলক উন্মোচন শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান জনেন্দ্রনাথ সরকার।

পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান বলেন, ‘গ্যাসের সরবরাহ চাহিদার তুলনায় কম এবং ঘাটতি যে অবস্থায় আছে, তা সমাধানে আমরা ২০৪১ সাল পর্যন্ত পরিকল্পনা তৈরি করেছি। দেশীয় উৎস থেকে সর্বোচ্চ পরিমাণ গ্যাস যাতে পাওয়া যায়, সে জন্য আমাদের তিনটি কোম্পানিকে কাজে লাগিয়ে সেই পরিকল্পনা তৈরি করেছি।

‘আগামী বছরের মধ্যে ৪৬টি নতুন কূপ খননের পরিকল্পনা নিয়েছি। এ ছাড়া আরও ১০০টি লিডকে টার্গেট করে এগোচ্ছি, যাতে আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে আমরা কয়েক শত কূপ খনন করে ফেলতে পারি।’

তিনি বলেন, ‘দেশের শতভাগ বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণের জন্য গ্যাসের যে চাহিদা, সেটির জন্য আমাদের কিছু এলএনজি (তরল গ্যাস) আমদানি করতে হচ্ছে। দীর্ঘমেয়াদি চুক্তির মাধ্যমে সঠিক মূল্যে পর্যাপ্ত পরিমাণ এলএনজি যাতে আনা যায়, তা নিয়েও আমরা কাজ করছি। এ ব্যাপারে ২০৪১ সাল পর্যন্ত আমরা দীর্ঘমেয়াদি যে চুক্তির পরিকল্পনা নিয়েছি, সেটি দ্রুত বাস্তবায়নে কাজ করছি।’

পেট্রোবাংলার শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, ‘গভীর সমুদ্র থেকে গ্যাস আনার জন্য পিএসসি ডকুমেন্ট ২০২৩ অনুমোদন করেছে সরকার। আমরা দ্রুত সরকারের পরামর্শ ও পরিকল্পনায় এটি বাস্তবায়নের কাজে চলে যাব।’

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Qatar will cooperate in creating global media in Bangladesh Minister of State for Information

বাংলাদেশে বৈশ্বিক গণমাধ্যম তৈরিতে সহযোগিতা করবে কাতার: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

বাংলাদেশে বৈশ্বিক গণমাধ্যম তৈরিতে সহযোগিতা করবে কাতার: তথ্য প্রতিমন্ত্রী তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী আলী আরাফাতের সঙ্গে কাতার মিডিয়া করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকতা শেখ আবদুল আজিজ বিন থানি আল-থানি। ছবি: সংগৃহীত
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আল জাজিরার মতো বৈশ্বিক গণমাধ্যম তৈরির অভিজ্ঞতার আলোকে কীভাবে বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতার ক্ষেত্র গড়ে তোলা যায়, তা নিয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা করেন আলী আরাফাত এবং কাতারের মিডিয়া করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা।

বাংলাদেশের গণমাধ্যমের উন্নয়নে ও বাংলাদেশে বৈশ্বিক গণমাধ্যম তৈরিতে কাতার সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত।

তুরস্কের ইস্তাম্বুলে স্থানীয় সময় শনিবার বিকেলে ইসলামি সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) সদস্য দেশগুলোর তথ্যমন্ত্রীদের ইসলামিক সম্মেলনের সাইডলাইনে তথ্য প্রতিমন্ত্রী আলী আরাফাত কাতার মিডিয়া করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকতা শেখ আবদুল আজিজ বিন থানি আল-থানির সঙ্গে সাক্ষাৎ করলে তিনি এ সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ বিভাগ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আল জাজিরার মতো বৈশ্বিক গণমাধ্যম তৈরির অভিজ্ঞতার আলোকে কীভাবে বাংলাদেশ ও কাতারের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতার ক্ষেত্র গড়ে তোলা যায়, তা নিয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা করেন আলী আরাফাত এবং কাতারের মিডিয়া করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা।

এ সময় গণমাধ্যম সেক্টরে দুই দেশের মধ্যে জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা বিনিময়ের পাশাপাশি সাংস্কৃতিক বিনিময়ের বিষয়ে উভয়ে একমত পোষণ করেন। এর মাধ্যমে দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের আরও উন্নয়ন ঘটবে বলে তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আরও পড়ুন:
শাহ আলমগীর জার্নালিজম এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেলেন বদরুল আহসান
বাংলাদেশে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা পর্যবেক্ষণ করবে ৯ দেশ
কাতার বিশ্বকাপ: বাংলাদেশি শ্রমিক নিহতের সংখ্যা জানতে চায় হাইকোর্ট
বিশ্বকাপের বাস লেবাননকে দেবে কাতার
বিশ্বকাপের পর এবার অলিম্পিকস আয়োজন করতে চায় কাতার

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Pilkhana Tragedy Home Minister hopes trial will end soon

পিলখানা ট্র্যাজেডি: বিচার দ্রুত শেষ হবে, আশা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

পিলখানা ট্র্যাজেডি: বিচার দ্রুত শেষ হবে, আশা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পিলখানায় ২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি বিডিআর বিদ্রোহ চলাকালে ৫৭ সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪ জনকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। ছবি: সংগৃহীত
বিডিআর বিদ্রোহ মামলার বিচার নিয়ে করা এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যা কিছুই হোক, এটা যেন অতি দ্রুতই হয়। আমরাও সেটাই আশা করি। কবে শেষ হবে, এটা বিচারকরাই জানেন।’

রাজধানীর পিলখানায় তৎকালীন বিডিআর সদরদপ্তরে নৃশংস হত্যার ঘটনা হওয়া দুটি মামলার বিচারকাজ দ্রুত শেষ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বিডিআর বিদ্রোহের ১৫তম বার্ষিকীর দিন রোববার এক প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিকদের কাছে এ আশার কথা জানান তিনি।

পিলখানায় ২০০৯ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি বিডিআর বিদ্রোহ চলাকালে ৫৭ সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪ জনকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়।

২০১৩ সালের ৫ নভেম্বর এ হত্যা মামলার রায় হয়। তাতে ১৫২ জনকে মৃত্যুদণ্ড, ১৬০ জনকে যাবজ্জীবন ও ২৫৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেয়া হয়।

মামলায় ২৭৮ জনকে খালাস দেয়া হয়। এ বিষয়ে আপিল সর্বোচ্চ আদালতে শুনানির অপেক্ষায়।

আদালত সংশ্লিষ্টরা জানান, বিডিআর বিদ্রোহের ঘটনায় হওয়া দুটি মামলার মধ্যে হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড এবং যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের মধ্যে ১৮৪ জনের আপিল এখন দেশের সর্বোচ্চ আদালতে শুনানির অপেক্ষায়। আর বিস্ফোরকদ্রব্য আইনের মামলায় চলছে সাক্ষ্যগ্রহণ।

বিডিআর বিদ্রোহ মামলার বিচার নিয়ে করা এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যা কিছুই হোক, এটা যেন অতি দ্রুতই হয়। আমরাও সেটাই আশা করি। কবে শেষ হবে, এটা বিচারকরাই জানেন।

‘আমাদের মাননীয় কোর্ট থেকে যে সিদ্ধান্ত আসবে, সেটাই ফাইনাল সিদ্ধান্ত। সেখানে আমরা কিছু…আপনারা জানেন আমাদের কোর্ট স্বাধীন। কাজেই তারা তাদের ইয়ে অনুযায়ী একটা ন্যায্য বিচার করবে, এটাই আমাদের প্রত্যাশা।’

বিডিআর বিদ্রোহ মামলার বিচারে দীর্ঘসূত্রতার কারণ নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘এটাতে কারও গাফিলতি নাই। আমি আপনাকে আগেই বলেছি, একটা বিরাট ধরনের একটা কার্নেজ (হত্যাকাণ্ড) ছিল। সেগুলো সবগুলো এখানে সঠিকভাবে তদন্ত শেষে এবং বেশ ধরনের একটা বিচারকার্য ছিল। এ সবগুলো একটু সময় নিয়েছে। আমার মনে হয় শিগগিরই এটা শেষ হবে।’

আরও পড়ুন:
শতকণ্ঠে ‘বিদ্রোহী’
ইয়াসমিন ট্র্যাজেডির ২৭ বছর পরও থামেনি ধর্ষণ-হত্যা
আনসার বিদ্রোহ: খালাসপ্রাপ্তদের সুযোগ-সুবিধা নিয়ে আপিল নিষ্পত্তি
রূপগঞ্জ ট্র্যাজেডির ১ বছর: এখনও কাঁদেন নিহতের স্বজনরা
নজরুলের ‘বিদ্রোহী’ কবিতার শতবর্ষে ‘শতবর্ষে শতদৃষ্টি’

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Holy Shabbat today

পবিত্র শবে বরাত আজ

পবিত্র শবে বরাত আজ প্রতীকী ছবি
শবে বরাতের পরদিন বাংলাদেশে নির্বাহী আদেশে সরকারি ছুটি। এবার এই ছুটি পড়েছে ২৬ ফেব্রুয়ারি সোমবার।

সারা দেশে পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে আজ রোববার।

ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় মহান রাব্বুল আলামিনের রহমত কামনায় নফল ইবাদত-বন্দেগির মধ্যদিয়ে আজকের রাতটি অতিবাহিত করবেন।

বাংলাদেশের আকাশে ১১ ফেব্রুয়ারি হিজরি শাবান মাসের চাঁদ দেখা যায়। পরদিন থেকে শাবান মাস গণনা শুরু হয়। সে হিসাবে আজ ২৫ ফেব্রুয়ারি দিনগত রাতে পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম সভাকক্ষে শবে বরাতের তারিখ নির্ধারণে ১১ ফেব্রুয়ারি রোববার সন্ধ্যায় জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয় বলে ফাউন্ডেশনের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এ রাতে ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণ মহান আল্লাহর রহমত ও নৈকট্য লাভের আশায় নফল নামাজ, কোরআন তেলাওয়াত, জিকির, ওয়াজ ও মিলাদ মাহফিলসহ এবাদত-বন্দেগির মাধ্যমে কাটাবেন।

মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মুসলমানরা বিশেষ মোনাজাত করবেন।

শবে বরাতের পরদিন বাংলাদেশে নির্বাহী আদেশে সরকারি ছুটি। এবার এই ছুটি পড়েছে ২৬ ফেব্রুয়ারি সোমবার।

শাবান মাস শেষে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতরের আনন্দ বার্তা নিয়ে শুরু হয় সিয়াম সাধনার মাস পবিত্র রমজান।

আরও পড়ুন:
শবে বরাতের তারিখ নির্ধারণে চাঁদ দেখা কমিটির সভা রোববার

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Anna Buzzard MD of the World Bank in Dhaka

ঢাকায় বিশ্বব্যাংকের এমডি আন্না বেজার্ড

ঢাকায় বিশ্বব্যাংকের এমডি আন্না বেজার্ড বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আন্না বেজার্ড। ছবি: সংগৃহীত
একদিনের সফরে বেজার্ড প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীসহ সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সুশীল সমাজ ও বেসরকারি খাতের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) (অপারেশনস) আন্না বেজার্ড শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকায় এসেছেন। এটি তার প্রথম বাংলাদেশ সফর।

বিশ্বব্যাংক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, একদিনের সফরে বেজার্ড প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীসহ সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সুশীল সমাজ ও বেসরকারি খাতের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

এ সফরকালে আন্নার সঙ্গে সফরসঙ্গী হিসেবে আছেন বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ভাইস-প্রেসিডেন্ট মার্টিন রাইসার।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের প্রথম উন্নয়ন সহযোগীদের মধ্যে ছিল। এরপর আন্তর্জাতিক অর্থ সংস্থাটি বাংলাদেশকে ৪১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রদানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, যার অধিকাংশই অনুদান।

বাংলাদেশে বর্তমানে বিশ্বব্যাংক গ্রুপের ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইডিএ) সমর্থিত বৃহত্তম চলমান কর্মসূচি রয়েছে।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The US delegation will strengthen diplomatic relations with Dhaka

ঢাকার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারে বসবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দল

ঢাকার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারে বসবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দল
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, “তিন কর্মকর্তা বাংলাদেশ সরকারের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারের উপায়, বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা ও ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে পারস্পরিক স্বার্থের অগ্রগতির লক্ষ্যে অভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আলোচনা করবেন।”

ঢাকার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক আরও জোরদার করার উপায় নিয়ে আলোচনা করতে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ, স্টেট ডিপার্টমেন্ট ও ইউএসএআইডির উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে একটি প্রতিনিধিদল তিন দিনের সরকারি সফরে ঢাকা এসেছে।

শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। খবর বাসসের

প্রতিনিধি দলটির সদস্যরা হলেন-যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের বিশেষ সহকারী ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের (এনএসসি) দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক সিনিয়র ডিরেক্টর আইলিন লাউবাচার, ইউএসএআইডির এশিয়া বিষয়ক ব্যুরোর সহকারী প্রশাসক মাইকেল শিফার এবং যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক উপ-সহকারী সেক্রেটারি (এসসিএ) আফরিন আখতার। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদলের সদস্যরা ২৪ থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারি ঢাকা সফর করবেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, “তিন কর্মকর্তা বাংলাদেশ সরকারের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারের উপায়, বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা ও ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে পারস্পরিক স্বার্থের অগ্রগতির লক্ষ্যে অভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আলোচনা করবেন।”

তারা এই সফরকালে যুব কর্মী ও সুশীল সমাজের নেতারা, শ্রমিক সংগঠক এবং মুক্ত ও অবাধ মিডিয়া বিকাশে নিযুক্ত ব্যক্তিদের সাথে বৈঠক করবেন।

ঢাকাস্থ যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস জানিয়েছে,“মুক্ত ও উন্মুক্ত ইন্দো-প্যাসিফিকের জন্য আমাদের অভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি এগিয়ে নিতে, মানবাধিকারকে সমর্থন করতে, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলা করতে, আন্তর্জাতিক হুমকি মোকাবিলায় আঞ্চলিক টেকসইয়ত্ব জোরদার ও অর্থনৈতিক সংস্কার প্রচারের জন্য যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সাথে অংশীদারিত্ব করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।”

বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের বাংলাদেশ সফরে বাংলাদেশ-মার্কিন সম্পর্ক আরও গভীর ও মজবুত হবে। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে তিনি বলেন, “তাদের (যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের) বাংলাদেশে (আগামী দিনগুলিতে) সফর দু’দেশের সম্পর্ককে আরও গভীর ও বিস্তৃত করবে।’’ মাহমুদ বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে যে চিঠি পাঠিয়েছেন, দুই দেশের সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যেতে তা গুরুত্বপূর্ণ।

বাংলাদেশে ৭ জানুয়ারির জাতীয় নির্বাচনের পর, যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের এটাই প্রথম সফর।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
500 brick kilns to be completely closed in first phase Environment Minister

প্রথম ধাপে সম্পূর্ণ বন্ধ হবে ৫০০ ইটভাটা: পরিবেশ মন্ত্রী

প্রথম ধাপে সম্পূর্ণ বন্ধ হবে ৫০০ ইটভাটা: পরিবেশ মন্ত্রী লোকালয়ের কাছে ইটভাটা। ফাইল ছবি
মন্ত্রী বলেন, পর্যায়ক্রমে ইটভাটাগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রাথমিকভাবে ৫০০ ইটভাটা বন্ধ করে দেয়া হবে এবং সেগুলো যেন ফের চালু হতে না পারে, সে ব্যবস্থাও নেয়া হবে।

ইটভাটাগুলোর বিরুদ্ধে পর্যায়ক্রমে ব্যবস্থা নেয়া হবে জানিয়ে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছেন, প্রাথমিকভাবে ৫০০ ইটভাটা সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেয়া হবে।

ফেনী সার্কিট হাউসে শনিবার সকালে বন অধিদপ্তর ও পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শেষ সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, পর্যায়ক্রমে ইটভাটাগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রাথমিকভাবে ৫০০ ইটভাটা বন্ধ করে দেয়া হবে এবং সেগুলো যেন ফের চালু হতে না পারে, সে ব্যবস্থাও নেয়া হবে।

তিনি বলেন, ‘সরকার ধীরে ধীরে পুরোপুরি ব্লকে যেতে চায়। এ জন্য সরকার বিভিন্ন প্যাকেজ ঘোষণা করবে। ইটভাটা মালিকরা চাইলে প্যাকেজগুলো নিতে পারে।’

সভায় কর্মকর্তাদের বিভিন্ন বিষয়ে নির্দেশনা দেন মন্ত্রী। এতে উপস্থিত ছিলেন বন বিভাগের পরিচালক (ভূমি পরিমাপ) আনিস মাহমুদ, জেলা প্রশাসক শাহীনা আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীন মোহাম্মদসহ বিভিন্ন কর্মকর্তারা।

আরও পড়ুন:
পঞ্চগড়ে ছাড়পত্র ছাড়াই চলছে ৪১ ইটভাটা
কালিয়াকৈরে জরিমানার কয়েক দিন পরই চালু অবৈধ ইটভাটা
ভাষাশহিদ আবদুস সালাম পাঠাগার: বই আছে, নেই পাঠক
জরিমানার পর গুঁড়িয়ে দেয়া হলো অবৈধ চার ইটভাটা
কাঠ পোড়ানোয় তিন ইটভাটাকে ছয় লাখ টাকা জরিমানা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Government has ensured justice PM

সরকার ন্যায়বিচার নিশ্চিত করেছে: প্রধানমন্ত্রী

সরকার ন্যায়বিচার নিশ্চিত করেছে: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি
প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাধীন বিচার বিভাগ, শক্তিশালী সংসদ ও প্রশাসন একটি দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখে। বর্তমান সরকার ন্যায়বিচার নিশ্চিত এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করেছে, যাতে মানুষ বিচারহীনতায় কষ্ট না পায়।

স্বাধীন বিচার বিভাগ, শক্তিশালী সংসদ ও প্রশাসন একটি দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার ন্যায়বিচার নিশ্চিতের পাশাপাশি আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করেছে।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শনিবার সকালে ‘দক্ষিণ এশিয়ার একবিংশ শতাব্দীর সাংবিধানিক আদালত: ভারত-বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাধীন বিচার বিভাগ, শক্তিশালী সংসদ ও প্রশাসন একটি দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখে। বর্তমান সরকার ন্যায়বিচার নিশ্চিত এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করেছে, যাতে মানুষ বিচারহীনতায় কষ্ট না পায়।

সরকারপ্রধান বলেন, তার সরকার চায় দেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার এবং অর্থনৈতিক-সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অধিকার সুনিশ্চিত করতে। বাংলাদেশ যেন এগিয়ে চলে এবং ভারত-বাংলাদেশ বন্ধুত্ব যেন চিরস্থায়ী হয়, সে চাওয়া সরকারের।

আওয়ামী লীগ সরকারের নেয়া নানান উদ্যোগ তুলে ধরে দলটির সভাপতি বলেন, ‘আমরা সরকারে আসার পর থেকে মানুষ যাতে ন্যায়বিচার পায়, তার জন্য আমরা বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন শুরু করি। আজ আমরা মানবাধিকারের কথা শুনি, ন্যায়বিচারের কথা শুনি।

‘সেই ন্যায়বিচার পাওয়ার অধিকার কি আমাদের ছিল না? আমি অনেকবারই হাইকোর্টে গিয়েছি; অনেক অনুষ্ঠানে গেছি। আমি যখন গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম করি, আমি বারবার এ প্রশ্নটাই করেছি, বিচারের বাণী নিভৃতে কাঁদে। আমরা বিচার পাব না?’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজ দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নতি হচ্ছে। সেটা গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত আছে বলে এবং একটা স্থিতিশীল পরিবেশ আছে বলেই। এটা প্রমাণিত সত্য যে, মানুষের জীবনে ন্যায়বিচার প্রাপ্তি, আর্থ-সামাজিক উন্নতি, এটা একমাত্র হতে পরে যখন মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণ করার সুযোগ হয় এবং দেশটা উন্নয়নের পথে এগিয়ে যেতে পারে।’

আওয়ামী লীগ সরকারই বিচার বিভাগ ও নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীন করেছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমাদের সংবিধানে তো বিচার পাওয়ার অধিকার সকলেরই আছে, কিন্তু সেখানে আমাদের প্রশ্ন যে, আমরা কী অপরাধ করেছিলাম? ১৯৮১ সালের আগে ছয় বছর আমাকে প্রবাসে থাকতে হয়। কারণ তখনকার মিলিটারি ডিক্টেটর আমাকে আসতে দেবে না দেশে। রেহানাকেও আসতে দেবে না এবং তার পাসপোর্টটাও রিনিউ করতে দেয়নি।’

তিনি বলেন, ‘সে অবস্থায় আমাকে যখন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি আমার অবর্তমানে নির্বাচিত করা হয়, একরকম জোর করে, জনগণের সমর্থন নিয়েই আমি দেশে ফিরে আসি। আমি যখন আমার বাবা-মা, ভাইয়ের হত্যার বিচারের জন্য মামলা করতে যাই, সেখানে মামলা করা যাবে না। ইনডেমনিটি অর্ডিন্যান্স দিয়ে খুনিদের বিচারের হাত থেকে মুক্তি দেয়া হয়েছে। এটা কেমন ধরনের কথা?’

সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ভারতের প্রধান বিচারপতি ধনঞ্জয় যশবন্ত চন্দ্রচূড় (ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়) এবং বাংলাদেশের আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

আরও পড়ুন:
রমজানে কোনো কিছুর অভাব হবে না: প্রধানমন্ত্রী
বিশ্বশান্তির প্রতি বাংলাদেশের অঙ্গীকারের প্রতিফলন মিউনিখে: প্রধানমন্ত্রী
জার্মানি সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী
সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী
একটা শ্রেণি ভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধুর অবদান মুছতে চেয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী

মন্তব্য

p
উপরে