× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
On the road in front of the shop the dead body of the young man with his throat cut
google_news print-icon

দোকানের সামনের সড়কে যুবকের গলাকাটা ক্ষতবিক্ষত মরদেহ

দোকানের-সামনের-সড়কে-যুবকের-গলাকাটা-ক্ষতবিক্ষত-মরদেহ
মরদেহ পেয়ে স্বজনদের আহাজারি। ছবি: নিউজবাংলা
গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার বৌলতলী পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান টিটো বলেন, ‘মরদেহের গলাকাটা এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে একাধিক কোপের চিহ্ন রয়েছে। কে বা কারা কী কারণে তাকে হত্যা করেছে সে বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।’

গোপালগঞ্জে সড়ক থেকে এক যুবকের ক্ষতবিক্ষত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সদর উপজেলার করপাড়া গ্রামের হাফিজের দোকানের সামনের সড়কের ওপর থেকে বুধবার ভোরে ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

৩৫ বছর বয়সী মেহেদী হাসান সাগর ওই একই এলাকার বাসিন্দা।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার বৌলতলী পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান টিটো নিউজবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ভোরে সড়কের ওপর মেহেদী হাসান সাগরের ক্ষতবিক্ষত মরদেহ দেখতে পায় এলাকাবাসী। পরে ৯৯৯ এ ফোন করলে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ ২৫০-শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

তিনি আরও বলেন, ‘মরদেহের গলা কাটা এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে একাধিক কোপের চিহ্ন রয়েছে। কে বা কারা কী কারণে তাকে হত্যা করেছে সে বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।’

নিহতের স্ত্রী রূপা বেগম জানান, মঙ্গলবার রাতে মেহেদীর মোবাইল ফোনে একটি কল আসে। এরপর সে রাত ১টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফেরেননি।

আরও পড়ুন:
স্বামীর ওপর রাগ করে সৎ ছেলেকে বালিশচাপায় হত্যার অভিযোগ
নদীতে গোসলে নেমে নিরাপত্তাকর্মীর মৃত্যু
ঢাকনাহীন সেপটিক ট্যাংকে পড়ে প্রাণ গেল শিশুর
৯৯৯-এ ফোন, মিলল তরুণীর মরদেহ
বাসায় যেতে চাওয়া রেজাকে মর্গে পাঠাল মধ্যরাতের ট্রাক

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Matichapa Bonjamai arrested after killing child

শিশুকে হত্যার পর মাটিচাপা, বোনজামাই গ্রেপ্তার

শিশুকে হত্যার পর মাটিচাপা, বোনজামাই গ্রেপ্তার শিশুকে হত্যার পর মাটিচাপা দেয়ার ঘটনায় গ্রেপ্তার তাহারুল মিয়া। ছবি: নিউজবাংলা
পুলিশের ভাষ্য, ভুক্তভোগী শিশুর চাচাতো বোন শারমিনের সঙ্গে দুই বছর আগে তাহারুলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তারা ভোগড়া পেয়ারা বাগান এলাকায় ভুক্তভোগী শিশুর পরিবারের পরিবারের সঙ্গে একই বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করতেন। স্ত্রী শারমিনের সঙ্গে দাম্পত্য কলহের জেরে তাহারুল গত ১৩ মার্চ বিকেলে শিশুটিকে অপহরণ করে ইসলামপুর এলাকায় নিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর মাটি চাপা দিয়ে চলে যান।

গাজীপুরে দাম্পত্য কলহের জেরে শিশুকে হত্যার পর মাটিচাপা দেয়ার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (গোয়েন্দা) মোহাম্মদ ইব্রাহিম খান।

গ্রেপ্তার তাহারুল মিয়া (৩৫) পেশায় একজন রাজমিস্ত্রী। তিনি রংপুরের পীরগঞ্জ থানার জামালপুর গ্রামের ইয়াসিন আলীর ছেলে।

পুলিশের ভাষ্য, গত ১৫ মার্চ বিকেলে মহানগরীর ইসলামপুর এলাকায় সদ্য ভরাট করা মাটিতে স্থানীয় লোকজন মৃত একটি শিশুর পা দেখতে পেয়ে জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ ফোন দেন। ফোন পেয়ে বাসন থানা পুলিশ মাটি চাপা অবস্থায় ৬ বছরের শিশু সাখাওয়াতের মরদেহ উদ্ধার করে। পরে খবর পেয়ে শিশুর বাবা জাফর আলী ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটির মরদেহ শনাক্ত করেন ও এ ঘটনায় বাসন থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার পর পুলিশ সিসিটিভির ফুটেজ বিশ্লেষণ ও তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় বুধবার গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থেকে হত্যায় অভিযুক্ত তাহারুল মিয়াকে গ্রেপ্তার করে। এর আগে, গত ১৩ মার্চ বিকেলে শিশুটি অপহরণ হয়।

পুলিশ আরও জানায়, ভুক্তভোগী শিশুর চাচাতো বোন শারমিনের সঙ্গে দুই বছর আগে তাহারুলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তারা ভোগড়া পেয়ারা বাগান এলাকায় ভুক্তভোগী শিশুর পরিবারের পরিবারের সঙ্গে একই বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করতেন। স্ত্রী শারমিনের সঙ্গে দাম্পত্য কলহের জেরে তাহারুল গত ১৩ মার্চ বিকেলে শিশুটিকে অপহরণ করে ইসলামপুর এলাকায় নিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর মাটি চাপা দিয়ে চলে যান। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাহারুলকে আদালতে তোলা হলে বিচারক কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।

আরও পড়ুন:
গাজীপুরে ট্রেনে কাটা পড়ে মানসিক প্রতিবন্ধীসহ দুজন নিহত
জাহাঙ্গীরকে মেয়র পদে ফেরাতে মন্ত্রণালয়ে ৬১ কাউন্সিলরের আবেদন
গাজীপুরে শিক্ষা সফরের বাসে আগুন, আহত ১০
পুলিশ পরিচয়ে অতিরিক্ত ডিআইজির বাড়িতে ডাকাতি
ঋণের দায়ে সন্তান বিক্রি, ফিরিয়ে দিল পুলিশ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The judge of Bogra lost his judicial power

বিচারিক ক্ষমতা হারালেন বগুড়ার সেই বিচারক

বিচারিক ক্ষমতা হারালেন বগুড়ার সেই বিচারক বিচারকের বিরুদ্ধে অভিভাবকদের লাঞ্ছনার অভিযোগ এনে মঙ্গলবার বগুড়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে সড়কে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। ফাইল ছবি
বগুড়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে শ্রেণিকক্ষ ঝাড়ু দেয়াকে কেন্দ্র করে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ রুবাইয়া ইয়াসমিনের মেয়ের সঙ্গে সহপাঠীদের বচসা ও ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট দেয়াকে কেন্দ্র করে ঘটনার সূত্রপাত হয়। এর জের ধরে মঙ্গলবার দুই ছাত্রীর মাকে অপদস্ত করার অভিযোগ ওঠে ওই বিচারকের বিরুদ্ধে। প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করে।

দুই ছাত্রীর মাকে অপদস্ত করার অভিযোগ ওঠার পর বগুড়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ রুবাইয়া ইয়াসমিনের বিচারিক ক্ষমতা কেড়ে নেয়া হয়েছে। তাকে বদলি করে মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত করা হয়েছে।

বদলি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, বগুড়ার অতিরিক্তি জেলা জজ রুবাইয়া ইয়াসমিনকে বদলি করে আইন ও বিচার বিভাগে সংযুক্ত করা হয়েছে।

বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ ঝাড়ু দেয়াকে কেন্দ্র করে বিচারকের অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ের সঙ্গে সহপাঠীদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট দেয়াকে কেন্দ্র করে এ ঘটনার সূত্রপাত।

বগুড়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, “এই বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে বগুড়ার জজ আদালতের এক বিচারকের মেয়ে। বিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী শিক্ষার্থীরা পালাক্রমে শ্রেণিকক্ষ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে থাকে। সোমবার ওই বিচারকের মেয়ের শ্রেণিকক্ষ ঝাড়ু দেয়ার কথা ছিল। তবে নিজেকে বিচারকের মেয়ে পরিচয় দিয়ে সে শ্রেণিকক্ষ ঝাড়ু দিতে অস্বীকার করে। এ নিয়ে সহপাঠীদের সঙ্গে তার বাকবিতণ্ডা হয়।

“ওই রাতেই বিচারকের মেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম মাধ্যমে মেসেঞ্জারে তার সহপাঠীদের বস্তির মেয়ে উল্লেখ করে পোস্ট দেয়। সে পোস্টে উল্লেখ করে, ‘তোরা বস্তির মেয়ে। আমার মা জজ। তোদের মায়েদের বল আমার মায়ের মতো জজ হতে।’

“ওই পোস্টে বিচারকের মেয়ের চার সহপাঠী পাল্টা উত্তর দেয়। এ নিয়ে ওই বিচারক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাবেয়া খাতুনকে মঙ্গলবার অভিভাবকদের ডাকতে বলেন। মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে প্রধান শিক্ষকের ডাকে ওই ৪ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা বিদ্যালয়ে আসেন। সে সময় ওই বিচারক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে জেলে দেয়ার হুমকি দেন। এ সময় দুই অভিভাবককে ওই বিচারকের পা ধরে ক্ষমা চাইতে বাধ্য করা হয়।”

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সহকারী শিক্ষিকা বলেন, ‘বিচারকের মেয়ে ও কিছু শিক্ষার্থী পাল্টাপাল্টি পোস্ট দেয়াকে কেন্দ্র করে প্রধান শিক্ষিকার কক্ষে বিচার বসানো হয়। এ সময় বিচারক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের জেলে দেয়ার হুমকি দিলে দুইজন অভিভাবক নিজে থেকেই পা ধরে ক্ষমা চান। তাদেরকে কেউ বাধ্য করেনি বা পা ধরতে বলেনি।’

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাবেয়া খাতুন বলেন, ‘বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। সরকারি চাকরিজীবীদের সন্তানদের সঙ্গে বেসরকারি চাকরিজীবী বা ব্যবসায়ীদের সন্তানদের মনস্তাত্ত্বিক দ্বন্দ্ব কাজ করে।

‘যতটুকু জেনেছি সোমবার বিচারকের মেয়ের ঝাড়ু দেয়ার কথা ছিল। তবে সে তিন মাস আগেই স্কুলে আসায় এই পরিবেশ হয়তো বুঝে উঠতে পারেনি। এজন্য সে ঝাড়ু দিতে প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে কাজটি সম্পন্ন করে। এ সময় অন্য শিক্ষার্থীরা তাকে ক্রিটিসাইজ করে। এ নিয়ে দ্বন্দ্ব শুরু হয়।’

প্রধান শিক্ষক আরও বলেন, ‘এ কারণে কয়েকজন শিক্ষার্থী ও অভিভাবককে ডাকা হয়। তাদের সঙ্গে কথা বলা হয়। কিন্তু অভিভাবকদের মাফ চাওয়াকে কেন্দ্র করে শিক্ষার্থীরা রাস্তা অবরোধ করে। অভিভাবকেরা ভয় পেয়ে এভাবে মাফ চেয়েছেন। তাদেরকে কেউ বাধ্য করেনি।’

এদিকে অভিভাবকদের লাঞ্ছনা ও শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধের খবর পেয়ে বগুড়ার জেলা প্রশাসক সাইফুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) নিলুফা ইয়াসমিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হেলেনা আকতার বিদ্যালয়ে আসেন। তারা আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি সুরাহা করার আশ্বাস দেন।

একইসঙ্গে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) নিলুফা ইয়াসমিনকে তদন্ত করার জন্য নির্দেশ দেন জেলা প্রশাসক।

আরও পড়ুন:
বিচারকের পা ধরলেন অভিভাবকরা, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিচারক বদলির আল্টিমেটামের সময় বাড়ালেন আইনজীবীরা
বিচারককে গালির ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি দাবি নারী বিচারকদের
বিচারকের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের বিচার আদালত করবে: আইনমন্ত্রী
বিচারকের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা: খুলনার ৩ আইনজীবী নেতাকে ভর্ৎসনা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The bodies of the wife and children were hanging on the tree in the house of the husband

স্ত্রী-সন্তানের মরদেহ ঘরে, গাছে ঝুলছিল স্বামীর

স্ত্রী-সন্তানের মরদেহ ঘরে, গাছে ঝুলছিল স্বামীর প্রতীকী ছবি
ওসি রাশেদুল হক জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে চুনারুঘাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্বামী, স্ত্রী ও এক সন্তানের মরদেহ উদ্ধার করেছে।

হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে স্বামী-স্ত্রী ও তাদের এক সন্তানের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের কাজীশাইল গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশেদুল হক জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে চুনারুঘাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্বামী, স্ত্রী ও এক সন্তানের মরদেহ উদ্ধার করেছে।

তিনি জানান, এর মধ্যে স্ত্রী ও সন্তানের মরদেহ ছিল ঘরে এবং স্বামীর মরদেহ গাছে ঝুলছিল। ধারণা করা হচ্ছে, স্ত্রী-সন্তানকে খুন করে নিজে আত্মহত্যা করেছেন।

আরও পড়ুন:
ফ্লাইওভারের ঢালে বাসচাপায় গেল শিক্ষানবিশ আইনজীবীর প্রাণ
বরিশালে হোটেল কর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার
গোমতীতে ভেসে উঠল আনসার সদস্যের মরদেহ  

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Bangladesh need 102 to win the series

সিরিজ জয়ে বাংলাদেশের দরকার ১০২

সিরিজ জয়ে বাংলাদেশের দরকার ১০২
সিলেট স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে আইরিশ ব্যাটসম্যান। ছবি: ক্রিকইনফো
শেষ ওয়ানডেতে টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় আয়ারল্যান্ড। কিন্তু তাতে সফরকারীদের অবস্থা বেহাল। বাংলাদেশের পেস ব্যাটারির তোপে সফরকারীরা ২৮ ওভার ১ বলে ১০১ রান তুলেছে। ৫ উইকেট পেয়েছেন পেসার হাসান মাহমুদ।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ১০১ রানে অলআউট হয়ে গেছে সফরকারী আয়ারল্যান্ড। ঘরের মাঠে ওয়ানডে সিরিজ জয়ে বাংলাদেশের প্রয়োজন ১০২ রান।

সিরিজ জয়ের লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট হাতে নেমে বাংলাদেশ দল এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ২ ওভার ৪ বলে ২৩ রান তুলেছে। উদ্বোধনী জুটি হিসেবে ক্রিজে রয়েছেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল ও লিটন দাস।

বৃহস্পতিবার বৃষ্টির কারণে নির্ধারিত সময়ের আধ ঘণ্টা পর এই ম্যাচের টস অনুষ্ঠিত হয়। টসে জিতে ব্যাটিং বেছে নেয় সফরকারীরা।

বল হাতে মাঠে নেমে স্বাগতিকরা শুরু থেকেই আইরিশ ব্যাটসম্যানদের চেপে ধরে। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে ওপেনার স্টেফেন ডোহেনিকে উইকেটের পেছনে ক্যাচ বানিয়ে প্রথম আঘাত হানেন পেসার হাসান মাহমুদ। ডোহেনি ব্যক্তিগত ৮ রানে ফিরে যাওয়ার পর দলীয় ২৬ রানের মধ্যেই ৪ উইকেট হারায় আয়ারল্যান্ড। ডোহেনির পর অন্য ওপেনার পল স্টার্লিং ৭ রান করেন। চার নম্বরে নামা হ্যারি টেক্টর রানের খাতাই খুলতে পারেননি। একই ওভারে লেফ বিফোরের ফাঁদে ফেলে এই দুই ব্যাটারকে ফেরান এই বাংলাদেশি পেসার।

হাসান মাহমুদের উইকেট শিকারের উৎসবে এরপর শামিল হন তাসকিন আহমেদ। ইনিংসের দশম ওভারে তার বলে স্লিপে নাজমুল হোসেন শান্তর তালুবন্দি হন আইরিশ অধিনায়ক অ্যান্ডি বলবার্নি।

পাওয়ার প্লের মাঝে ৪ উইকেট হারানো আইরিশরা কিছুটা স্বস্তি পায় পঞ্চম উইকেটে উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান লরকান টাকার ও অলরাউন্ডার কার্টিস ক্যাম্ফারের জুটিতে। পঞ্চম উইকেটে এই জুটি থেকে আসে ৫৭ বলে ৪২ রান। তবে ১৯তম ওভারের শেষ দুই বলে টাকার (২৮) ও নতুন ক্রিজে আসা জর্জ ডকরেলকে (০) ফিরিয়ে আবারও আইরিশদের ব্যাকফুটে ঠেলে দেন ইবাদত হোসেন।

২২তম ওভারে ফের জোড়া উইকেট হারায় আয়ারল্যান্ড। এ যাত্রায় অ্যান্ডি ম্যাকব্রাইন (১) ও মার্ক এডেইরকে (০) ফেরান তাসকিন।

এক প্রান্ত আগলে ব্যাট করে যাওয়া ক্যাম্ফারকে (৩৬) ইনিংসে নিজের চতুর্থ শিকার বানান হাসান। আর নিজের নবম ওভারের প্রথম বলে গ্রাহাম হিউমকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে পেয়ে যান ওয়ানডে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ৫ উইকেট। ৮ ওভার ১ বল করে এক মেডেনসহ ৩২ রানে ৫ উইকেট পান তিনি। বাকি পাঁচ উইকেট ভাগাভাগি করে অন্য দুই পেসার তাসকিন (১০-১-২৬-৩) ও ইবাদত (৬-০-২৯-২)।

দ্বিতীয় ওয়ানডে একাদশে একটি পরিবর্তন এনেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। ব্যাটার ইয়াসির আলির পরিবর্তে একাদশে সুযোগ হয়েছে অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজের। আয়ারল্যান্ড একাদশ অপরিবর্তিত দল নিয়েই মাঠে নেমেছে।

সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে আয়ারল্যান্ডকে ১৮৩ রানে হারায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ওয়ানডে বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়। প্রথম ওয়ানডেতে জয়ের সুবাদে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ ও আয়ারল্যান্ড এ পর্যন্ত ১২ ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছে। এর মধ্যে আটটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। এর বিপরীতে দু’টিতে জয় পেয়েছে আয়ারল্যান্ড। বাকি ২টি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মেহেদি হাসান মিরাজ, তৌহিদ হৃদয়, তাসকিন আহমেদ, এবাদত হোসেন, নাসুম আহমেদ ও হাসান মাহমুদ।

আয়ারল্যান্ড একাদশ: অ্যান্ড্রু বলবির্নি (অধিনায়ক), পল স্টার্লিং, স্টেফেন ডোহেনি, হ্যারি টেক্টর, লরকান টাকার, ম্যাথিউ হামফ্রেস, জর্জ ডকরেল, কার্টিস ক্যাম্পার, অ্যান্ডি ম্যাকব্রিন, মার্ক অ্যাডায়ার ও গ্রাহাম হুম।

আরও পড়ুন:
টস হেরে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ, শুরুতেই আউট তামিম
লিটনের ঝড়ো ব্যাটিং দেখে উদ্বিগ্ন ছিলেন প্রধানমন্ত্রী
বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হোয়াইটওয়াশ
‘বাংলাওয়াশ’ এড়াতে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ১৫৯
আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে দল থেকে বাদ মাহমুদউল্লাহ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
RAB found no evidence of explosives in Noakhali mosque

নোয়াখালীর মসজিদে বিস্ফোরকের আলামত পায়নি র‍্যাব

নোয়াখালীর মসজিদে বিস্ফোরকের আলামত পায়নি র‍্যাব  নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল মসজিদের একটি কক্ষে বিস্ফোরণ। ছবি: নিউজবাংলা
নোয়াখালীর এসপি মো. শহীদুল ইসলাম জানান, বিস্ফোরণস্থলে কোনো বিস্ফোরকের আলামত পাওয়া যায়নি বলে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে র‍্যাবের বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞ দল।

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ মডেল মসজিদের একটি কক্ষে বিস্ফোরণের ঘটনায় বিস্ফোরকের আলামত পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে র‍্যাবের বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞ দল।

বুধবার রাতে র‍্যাবের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দলের উপপরিচালক মেজর মশিউরের নেতৃত্বে একটি দল অত্যাধুনিক স্ক্যানার যন্ত্র নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এ তথ্য জানান।

এর আগে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে মসজিদের তৃতীয় তলার একটি কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে মসজিদের দায়িত্বে থাকা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ফিল্ড সুপারভাইজার আবদুল হালিমকে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে নোয়াখালী মুখ্য বিচারিক আদালতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তার আবদুল হালিম খাগড়াছড়ি জেলার দিঘিনালা উপজেলার বাসিন্দা। তার ব্যাগ থেকেই বিস্ফোরণ হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি জানান, ওই কক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ফিল্ড সুপারভাইজার আবদুল হালিমের রাখা ব্যাগ থেকে বিস্ফোরণটি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে হালিম দাবি, তার ব্যাগের ভেতর বডি স্প্রের একটি বোতল ছিল। এছাড়া অন্য কিছু ছিল না। বডি স্প্রের বোতল থেকে এ ধরনের বিস্ফোরণ ঘটতে পারে কি না সেটিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এজন্য ফিল্ড সুপারভাইজারকে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম জানান, বুধবার রাতে র‍্যাবের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দলের সদস্যরা অত্যাধুনিক স্ক্যানার যন্ত্র নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কিছু আলামত নিয়ে গেছেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর একটি প্রতিবেদন দিবেন।

তিনি আরও জানান, বিস্ফোরণস্থলে কোনো বিস্ফোরকের আলামত পাওয়া যায়নি বলে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছে র‍্যাবের ওই দল।

আরও পড়ুন:
নারায়ণগঞ্জে ভবনে বিস্ফোরণে একজনের মৃত্যু, আহত ৮
অক্সিজেন প্ল্যান্ট মালিকদের কর্মসূচি প্রত্যাহার
গুলিস্তানে বিস্ফোরণ: বার্ন ইনস্টিটিউটে কলেজ ছাত্রের মৃত্যু
সায়েন্স ল্যাব এলাকায় বিস্ফোরণ: বার্ন ইনস্টিটিউটে আরও একজনের মৃত্যু
সিদ্দিকবাজারে বিস্ফোরণ: স্বামীর ঘরে যাওয়ার আগেই বিধবা জিয়াসমিন

মন্তব্য

বাংলাদেশ
More than half a hundred shops were destroyed in the terrible fire

গৌরীপুরে ভয়াবহ আগুন, পুড়ল অর্ধশতাধিক দোকান

গৌরীপুরে ভয়াবহ আগুন, পুড়ল অর্ধশতাধিক দোকান
ফায়ারসার্ভিস ময়মনসিংহের বিভাগীয় উপপরিচালক মো. মতিয়ার রহমান বলেন, ‘মুহূর্তের মধ্যে আগুন এক দোকান থেকে অন্য দোকানগুলোতে দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছিল। বাজারে রেস্তোরাঁর পাশাপাশি, হার্ডওয়্যারের দোকানসহ বিভিন্ন দোকান রয়েছে। তবে ঠিক কোন দোকানটি থেকে আগুনের সূত্রপাত্র হয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।’

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে ভয়াবহ আগুনে অর্ধশতাধিক দোকান পুড়ে ছাঁই হয়ে গেছে। এতে কয়েক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ব্যবসায়ীদের।

উপজেলার শ্যামগঞ্জ মধ্যবাজারে বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

ফায়ারসার্ভিস ময়মনসিংহের বিভাগীয় উপপরিচালক মো. মতিয়ার রহমান নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে নেত্রকোণার পূর্বধলা ও ময়মনসিংহ ফায়ারসার্ভিসের ১২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে রাত ১টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে আগুন নিয়ন্ত্রণের আগেই ৫০টির বেশি দোকান পুড়ে যায়। সকালে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি এখনো ধোয়া বের হচ্ছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কয়েক কোটি টাকা হবে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।’

উপপরিচালক মো. মতিয়ার রহমান বলেন, ‘মুহূর্তের মধ্যে আগুন এক দোকান থেকে অন্য দোকানগুলোতে দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছিল। বাজারে রেস্তোরাঁর পাশাপাশি, হার্ডওয়্যারের দোকানসহ বিভিন্ন দোকান রয়েছে। তবে ঠিক কোন দোকানটি থেকে আগুনের সূত্রপাত্র হয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।’

আরও পড়ুন:
সীতাকুণ্ডে বিস্ফোরণ: তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে ৯ সুপারিশ
কুনিপাড়ায় আগুন: কারণ খুঁজছে ফায়ার সার্ভিস, বিমান বাহিনী
কুনিপাড়া বস্তির আগুন নিয়ন্ত্রণে
সিলিন্ডার বিস্ফোরণে মাইক্রোবাসে আগুন, নিহত ৪
২০ ঘণ্টা পর তুলার গুদামের আগুন নিয়ন্ত্রণে

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Gold bar in the belly of the passenger returning to Dubai

দুবাই ফেরত যাত্রীর পেটে সোনার বার

দুবাই ফেরত যাত্রীর পেটে সোনার বার
শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর চট্টগ্রামের যুগ্ম পরিচালক সাইফুর রহমান জানান, উদ্ধার করা মোট ৩২টি সোনার বারের ওজন ৩ কেজি ৭৩২ দশমিক ৫ গ্রাম। তার বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে দুবাই ফেরত এক যাত্রীর পেট ও শরীরের বিভিন্ন জায়গা থেকে ৩২টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার করা এসব স্বর্ণের ওজন প্রায় পৌনে চার কেজি।

বাংলাদেশ বিমানের বিজি-১৪৮ ফ্লাইটে আসা যাত্রীর শরীর স্ক্যানিংসহ তল্লাশী চালিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে এ সোনার বার উদ্ধার করা হয়।

আটক মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন হাটহাজারীর এনায়েতপুর এলাকার বাসিন্দা।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর চট্টগ্রামের যুগ্ম পরিচালক সাইফুর রহমান নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দুবাইফেরত ওই যাত্রীর শরীর তল্লাশী করে শুরুতে ২৩টি সোনার বার পাওয়া যায়। পরে তার মলদ্বারে আরও স্বর্ণ থাকতে পারে বলে সন্দেহ হয় গোয়েন্দাদের। এতে তার শরীর স্ক্যানিং করে পেটে আরও কিছু সোনার বারের উপস্থিতি পাওয়া যায়। পরবর্তীতে মলদ্বার দিয়ে বের হওয়া আরও ৯টি সোনার বার পাওয়া যায়।’

উদ্ধার করা মোট ৩২টি সোনার বারের ওজন ৩ কেজি ৭৩২ দশমিক ৫ গ্রাম। তার বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

মন্তব্য

p
উপরে