× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
The accused who escaped from the court was arrested again with drugs
hear-news
player
google_news print-icon

আদালত থেকে পালানো আসামি ফের মাদক নিয়ে গ্রেপ্তার

আদালত-থেকে-পালানো-আসামি-ফের-মাদক-নিয়ে-গ্রেপ্তার
আদালত থেকে পালানো মাদক মামলার আসামি শামসুল হক বাচ্চু। ছবি: নিউজবাংলা
গত ৫ জানুয়ারি চন্দনাইশ থেকে বাচ্চুকে এক হাজার পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করা হয়। পরদিন আদালতের হাজতখানা থেকে সবার চোখ ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যান তিনি। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে ভাটিয়ারী এলাকা থেকে রোববার ৩৭ পিস ইয়াবাসহ তাকে আবারও গ্রেপ্তার করা হয়। 

চট্টগ্রাম জেলা আদালত থেকে পালিয়ে যাওয়া মাদক মামলার আসামি শামসুল হক বাচ্চুকে ইয়াবাসহ আবারও গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জেলার সীতাকুণ্ড উপজেলার ভাটিয়ারী এলাকা থেকে রোববার সকালে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) আবু তৈয়ব মো. আরিফ হোসেন।

গ্রেপ্তার বাচ্চু কুমিল্লার কালীরবাজার ইউনিয়নের রহমত আলীর ছেলে।

পুলিশের ভাষ্য, গত ৫ জানুয়ারি চন্দনাইশ থেকে বাচ্চুকে এক হাজার পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করা হয়। পরদিন আদালতের হাজতখানা থেকে সবার চোখ ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যান তিনি। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে ভাটিয়ারী এলাকা থেকে রোববার ৩৭ পিস ইয়াবাসহ তাকে আবারও গ্রেপ্তার করা হয়।

চট্টগ্রাম জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) আবু তৈয়ব মো. আরিফ হোসেন জানান, বাচ্চুর বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় ৫ টি মাদক মামলাসহ মোট ৭ টি মামলা রয়েছে।

এর আগে আদালত থেকে বাচ্চুর পালানোর ঘটনায় সাত পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়। ঘটনা তদন্তে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শিল্পাঞ্চল ও ডিবি) আসাদুজ্জামানকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি কমিটিও গঠন করা হয়। পরবর্তীতে কমিটির তদন্ত প্রতিবেদনে এক পুলিশ সদস্যের দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পাওয়ার কথা জানানো হয়।

ওই পুলিশ সদস্যেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে বলে জানান চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) এস এম শফিউল্লাহ। তিনি বলেন, ‘সেসময় যারা দায়িত্ব পালন করছিলেন তাদের মধ্যে একজনের দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পাওয়ায় তাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে৷ ’

আরও পড়ুন:
যৌন হয়রানি: প্রধান শিক্ষকের সাজা চেয়ে মানববন্ধন 
চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের নেতৃত্বে সালাহউদ্দিন ও দেবদুলাল
যৌন হয়রানির অভিযোগে প্রধান শিক্ষক অবরুদ্ধ
ইয়াবাসহ আটক দুই রোহিঙ্গা
ফার্নিচারের আড়ালে ইয়াবা পাচার, ‘রোহিঙ্গা’ যুবক আটক

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Two drug students were arrested in Jabir Ambulance

জাবির অ্যাম্বুলেন্সে কেরুর মদ, দুই ছাত্র আটক

জাবির অ্যাম্বুলেন্সে কেরুর মদ, দুই ছাত্র আটক বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাম্বুলেন্সে মদ পরিবহনের ঘটনায় শনিবার রাতে বংশাল থানা পুলিশ জাবির দুই ছাত্রকে আটক করে। ছবি: নিউজবাংলা
বংশাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবুর রহমান বলেন, ‘জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজা-রানি নির্বাচন ও র‍্যাগ ডে উপলক্ষে দুই শিক্ষার্থী নিজেরা চিল করার জন্য এদিকে মাদক কিনতে এসেছিলেন। তখন জনতা তাদের আটকিয়ে টহল পুলিশকে খবর দিলে টহল পুলিশ তাদের থানায় নিয়ে আসে।’

মদ কিনে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়ার সময় প্রতিষ্ঠানটির দুই ছাত্রকে আটক করেছে বংশাল থানার টহল পুলিশ।

বংশাল থানা রোডে ঢাকা ব্যাংকের সামনে থেকে শনিবার রাতে জাবির ৪৩ ব্যাচের রিপন সাহা ও ৪৪ ব্যাচের জুয়েল আহমেদকে আটক করা হয়।

নিউজবাংলাকে বিষয়টি বিষয়টি নিশ্চিত করে বংশাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবুর রহমান বলেন, ‘জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজা-রানি নির্বাচন ও র‍্যাগ ডে উপলক্ষে দুই শিক্ষার্থী নিজেরা চিল করার জন্য এদিকে মাদক কিনতে এসেছিলেন। তখন জনতা তাদের আটকিয়ে টহল পুলিশকে খবর দিলে টহল পুলিশ তাদের থানায় নিয়ে আসে।’

তিনি আরও বলেন, ‘তারা যেহেতু শিক্ষার্থী তাই আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরকে আসতে বলেছি। তিনি আসলে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের যে ব্যবস্থা আছে তারা সেই ব্যবস্থায় যাবে। অন্যথায় আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা নেব।’

দুজনের কাছ থেকে কেরু অ্যান্ড কোম্পানির মদ পাওয়া গেছে বলে জানান বংশাল থানার ওসি।

এদিকে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে অ্যাম্বুলেন্সের চালক আব্দুল্লাহ দুলালকেও আটক করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জাবির ৪৩তম ব্যাচের শিক্ষা সমাপনী উৎসব (র‌্যাগ ডে) উদযাপন উপলক্ষে বংশাল এলাকা থেকে মদ কেনার পরিকল্পনা করা হয়। পরিকল্পনা অনুযায়ী রোগী আনার কথা বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রের অ্যাম্বুলেন্স ব্যবহার করে মদ কিনে ক্যাম্পাসে ফিরছিলেন দুই ছাত্র। পথে ঢাকা ব্যাংকের কাছে পৌঁছানোর পর পুলিশ অ্যাম্বুলেন্সটি আটক করে।

আরও পড়ুন:
মাদক কারবারিদের তালিকা হাতে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ট্রাংকভর্তি মদ পাওয়ায় জাবির সাবেক ভিসির গাড়িচালক বরখাস্ত
ফেনসিডিলসহ বাবা-ছেলে গ্রেপ্তার  
হেরোইনসহ দুই মাদক কারবারি আটক
চলে গেলেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক শিক্ষা উপদেষ্টা ড. আলাউদ্দিন

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Two students were killed by a truck in Rajbari

রাজবাড়ীতে ট্রাকের ধাক্কায় দুই শিক্ষার্থী নিহত

রাজবাড়ীতে ট্রাকের ধাক্কায় দুই শিক্ষার্থী নিহত প্রতীকী ছবি
রাজবাড়ী সদর থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন জানান, দুর্ঘটনার পর চালক ট্রাকটি নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল। অভিযান চালিয়ে চালককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ট্রাকটিকে জব্দ করা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।  

রাজবাড়ীতে ট্রাকের ধাক্কায় বাইক আরোহী দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে।

সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়নের দয়াল নগর গ্রামে শনিবার দুপুর ২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো ১৩ বছর বয়সী সাকিব শেখ এবং ১৮ বছর বয়সী সিফাত শেখ।

সাকিব শেখ সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের ধাওয়াপাড়া গ্রামের শেখ আবদুর রবের ছেলে। সিফাত শেখ একই এলাকার লোকমান শেখের ছেলে। সাকিব ও সিফাত চাচাতো ভাই।

সাকিব চরপদ্মা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। সিফাত রাজবাড়ী সরকারি কলেজের উচ্চমাধ্যমিক শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

সাকিবের ছোট চাচা শেখ আবদুর রাজু জানান, সিফাত ও সাকিব মোটরসাইকেলে যাচ্ছিল। জৌকুরা বাজার এলাকায় নতুন রাস্তার কাছে পৌঁছালে পেছন থেকে একটি ট্রাক মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। পরে তাদের রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাদের মৃত বলে জানান।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ইনচার্জ আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, দুপুর আড়াইটার দিকে আহত দুজনকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই তাদের মৃত্যু হয়। তারা মাথায় আঘাত পেয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন জানান, দুর্ঘটনার পর চালক ট্রাকটি নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল। অভিযান চালিয়ে চালককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ট্রাকটিকে জব্দ করা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন:
বগুড়ায় কার-ট্রাক সংঘর্ষ, ভাই-বোন নিহত
জানুয়ারিতে দুর্ঘটনায় ৬৪২ প্রাণহানি, সর্বোচ্চ বাইকে
মেরিন ড্রাইভ ভ্রমণে গিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে
রেল ক্রসিংয়ে ট্রেনের ধাক্কায় গেল যুবকের প্রাণ
দুই ট্রাকের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৩

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Six domed mosque was visited by 28 foreign tourists

ষাট গম্বুজ মসজিদ ঘুরে দেখলেন ২৮ বিদেশি

ষাট গম্বুজ মসজিদ ঘুরে দেখলেন ২৮ বিদেশি  ষাট গম্বুজ মসজিদের কমপাউন্ডে অবস্থিত জাদুঘর ঘুরে দেখলেন ২৮ বিদেশি পর্যটক। ছবি: নিউজবাংলা
ষাট গম্বুজ মসজিদ ঘুরে দেখে মুগ্ধ হয়ে বিদেশি এক পর্যটক বলেন, ‘এটির স্থাপত্যশৈলী সত্যিই অসাধারণ। আমরা বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেছি। তবে এই মসজিদের স্বতন্ত্র স্থাপত্যশৈলী এবং ঐতিহাসিক গুরুত্ব বিবেচনায় এটি আমার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভ্রমণ। আমি বিশ্বের পর্যটকদের অনুরোধ করব, এই স্থাপনাগুলো ঘুরে দেখার জন্য।’

বাগেরহাটের ষাট গম্বুজ মসজিদের কমপাউন্ডে অবস্থিত জাদুঘর ঘুরে দেখলেন ২৮ বিদেশি পর্যটক।

২৭ জন সুইস ও একজন জার্মান পর্যটক নিয়ে মোংলা থেকে শনিবার বিকেল ৪টার দিকে ষাট গম্বুজ মসজিদের সামনে পৌঁছান। এ সময় বাগেরহাট জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমানসহ প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ২৮ জন বিদেশি পর্যটক নিয়ে ভারতের বানারস থেকে ছেড়ে আসা বিলাসবহুল প্রমোদতরী এমভি গঙ্গা বিলাস শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় মোংলা বন্দরের ৭ নম্বর জেটিতে এসে পৌঁছায়।

ষাট গম্বুজ মসজিদ ঘুরে দেখে মুগ্ধ হয়ে বিদেশি এক পর্যটক বলেন, ‘এটির স্থাপত্যশৈলী সত্যিই অসাধারণ। আমরা বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেছি। তবে এই মসজিদের স্বতন্ত্র স্থাপত্যশৈলী এবং ঐতিহাসিক গুরুত্ব বিবেচনায় এটি আমার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভ্রমণ। আমি বিশ্বের পর্যটকদের অনুরোধ করব, এই স্থাপনাগুলো ঘুরে দেখার জন্য।’

এমভি গঙ্গা বিলাসের ট্যুর অপারেটর জার্নি প্লাসের প্রধান নির্বাহী তৌফিক রহমান জানান, ১৩ জানুয়ারি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বানারাসে এর উদ্বোধন করেন। এটি পৃথিবীর সবচেয়ে লং ট্যুর রিভার ক্রুজ। এটি ৩২০০ কিলোমিটার নদীপথ পাড়ি দেবে। বাংলাদেশ-ভারতের ২৭টি নদী ও ৫০টি পর্যটন কেন্দ্রে যাবে।

শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মোংলা বন্দরে এসে পৌঁছায়। এরপর রোববার যাবে সুন্দরবন। পর্যায়ক্রমে দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান ভ্রমণ শেষে ১৭ ফেব্রুয়ারি কুড়িগ্রামের চিলমারী হয়ে ভারতের আসামে ঢুকবে। ১ মার্চ আসামের ধুপড়ি হয়ে আসামের শেষ সীমান্তের দিপড়ুগড়ে গিয়ে ৫১ দিনের ট্যুর শেষ হবে পর্যটকদের।

আরও পড়ুন:
জঙ্গিবিরোধী অভিযান : চট্টগ্রামের পাহাড়ি এলাকায় পর্যটক নিষিদ্ধ
বিদেশি মুদ্রায় ঋণের সুদহার বাড়িয়ে আগের অবস্থানে বাংলাদেশ ব্যাংক
সৈকতে পর্যটন মেলা, বিচ কার্নিভাল শুরু
পর্যটন দিবস: ৬ বলে ৩৬ রান চান প্রতিমন্ত্রী
শীতের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে কুয়াকাটা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Dhaka topped the ranking again with very unhealthy air

‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ বাতাস নিয়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে ফের শীর্ষে ঢাকা

‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ বাতাস নিয়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে ফের শীর্ষে ঢাকা দূষিত বাতাসের মধ্যে রাজধানীতে যান চলাচল। ফাইল ছবি
সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বাতাসের মানবিষয়ক প্রযুক্তি কোম্পানি আইকিউএয়ারের র‌্যাঙ্কিংয়ে রোববার সকাল ৯টা ৩২ মিনিটে দূষিত বায়ুর দিক থেকে ১০০টি শহরের মধ্যে প্রথমে ছিল বাংলাদেশের রাজধানী। আগের দিন শনিবার সকাল ৯টা ৩৩ মিনিটে বাতাসের নিম্নমানে শহরগুলোর মধ্যে ষষ্ঠ অবস্থানে ছিল ঢাকা।

বাতাসের নিম্নমানের দিক থেকে আইকিউএয়ারের তালিকায় নিয়মিত ওপরে থাকা ঢাকা ফের শীর্ষস্থানে উঠে এসেছে।

সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বাতাসের মানবিষয়ক প্রযুক্তি কোম্পানিটির র‌্যাঙ্কিংয়ে রোববার সকাল ৯টা ৩২ মিনিটে দূষিত বায়ুর দিক থেকে ১০০টি শহরের মধ্যে প্রথমে ছিল বাংলাদেশের রাজধানী।

আগের দিন শনিবার সকাল ৯টা ৩৩ মিনিটে বাতাসের নিম্নমানে ১০০টি শহরের মধ্যে ষষ্ঠ অবস্থানে ছিল ঢাকা।

ওই র‌্যাঙ্কিংয়ে শুক্রবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে দূষিত বাতাসে সপ্তম অবস্থানে ছিল বাংলাদেশের রাজধানী।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টায় বাতাসের নিম্নমানে শহরগুলোর মধ্যে ১১তম অবস্থানে ছিল ঢাকা।

আইকিউএয়ার জানিয়েছে, আজ সকালের ওই সময়ে ঢাকার বাতাসে মানবস্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ অতি ক্ষুদ্র কণা পিএম২.৫-এর উপস্থিতি ছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইও) আদর্শ মাত্রার চেয়ে ৩৬ গুণ বেশি। আগের দিন কাছাকাছি সময়ে সেটি ছিল ২৭ গুণ বেশি। শুক্রবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে সেটি ছিল ২১ দশমিক ২ গুণ বেশি।

‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ বাতাস নিয়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে ফের শীর্ষে ঢাকা

র‌্যাঙ্কিংয়ে বাতাসের নিম্নমানের দিক থেকে আজ সকাল ৯টা ৩২ মিনিটে দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানে ছিল ভারতের মুম্বাই ও চীনের চেংদু। চতুর্থ অবস্থানে ছিল পাকিস্তানের লাহোর।

‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ বাতাস নিয়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে ফের শীর্ষে ঢাকা

নির্দিষ্ট স্কোরের ভিত্তিতে কোনো শহরের বাতাসের ক্যাটাগরি নির্ধারণের পাশাপাশি সেটি জনস্বাস্থ্যের জন্য ভালো নাকি ক্ষতিকর, তা জানায় আইকিউএয়ার।

কোম্পানিটি শূন্য থেকে ৫০ স্কোরে থাকা শহরগুলোর বাতাসকে ‘ভালো’ ক্যাটাগরিতে রাখে। অর্থাৎ এ ক্যাটাগরিতে থাকা শহরের বাতাস জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর নয়।

৫১ থেকে ১০০ স্কোরে থাকা শহরগুলোর বাতাসকে ‘মধ্যম মানের বা সহনীয়’ হিসেবে বিবেচনা করে কোম্পানিটি।

আইকিউএয়ারের র‌্যাঙ্কিংয়ে ১০১ থেকে ১৫০ স্কোরে থাকা শহরগুলোর বাতাসকে ‘সংবেদনশীল জনগোষ্ঠীর জন্য অস্বাস্থ্যকর’ ক্যাটাগরিতে ধরা হয়।

১৫১ থেকে ২০০ স্কোরে থাকা শহরের বাতাসকে ‘অস্বাস্থ্যকর’ ক্যাটাগরির বিবেচনা করা হয়।

র‌্যাঙ্কিংয়ে ২০১ থেকে ৩০০ স্কোরে থাকা শহরগুলোর বাতাসকে ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ ধরা হয়।

তিন শর বেশি স্কোর পাওয়া শহরের বাতাসকে ‘বিপজ্জনক’ হিসেবে বিবেচনা করে আইকিউএয়ার।

সকাল ৯টা ৩২ মিনিটে ঢাকার বাতাসের স্কোর ছিল ২৩০। এর মানে হলো সে সময়টাতে খুবই অস্বাস্থ্যকর বাতাসের মধ্যে বসবাস করতে হয়েছে রাজধানীবাসীকে। আগের দিন কাছাকাছি সময়ে ঢাকার বাতাসের স্কোর ছিল ১৯২। এর অর্থ হলো গতকাল ওই সময়ে অস্বাস্থ্যকর বাতাসে ছিল রাজধানীবাসী।

শুক্র ও বৃহস্পতিবার কাছাকাছি সময়ে ঢাকার বাতাসের স্কোর ছিল ১৭৬ ও ১৬৩। এর অর্থ হলো দুই দিনই নির্দিষ্ট সময়ে অস্বাস্থ্যকর বাতাস নিতে হয়েছে ঢাকাবাসীকে।

আরও পড়ুন:
দূষিত বাতাসে ‘অদম্য’ ঢাকা
ঢাকার বাতাস আজ ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’
দূষিত বাতাসের শহরের তালিকায় ফের শীর্ষে ঢাকা
ঢাবিতে ভর্তির আবেদন শুরু ২৭ ফেব্রুয়ারি, ট্রান্সজেন্ডার কোটা
স্নাতক নয়, ঢাবিতে এবার ভর্তি পরীক্ষা আন্ডারগ্র্যাজুয়েট নামে

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A security guard died after bathing in the river

নদীতে গোসলে নেমে নিরাপত্তাকর্মীর মৃত্যু

নদীতে গোসলে নেমে নিরাপত্তাকর্মীর মৃত্যু নিরাপত্তাকর্মী ইয়াছিন আহম্মেদ আবিরের মরদেহ উদ্ধার। ছবি: সংগৃহীত
গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোল্লা সোহেব আলী বলেন, ‘গজারিয়া থানার পুলিশ এবং নৌ পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। নিখোঁজ নিরাপত্তাকর্মীর মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখব।’

মুন্সীগঞ্জে মেঘনা নদীতে গোসল করার উদ্দেশে পানিতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ এক নিরাপত্তাকর্মীর মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

গজারিয়া উপজোর গুয়াগাছিয়া ইউনিয়নের নতুন চর চাষী এলাকায় মেঘনা নদী থেকে শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

মৃত ২১ বছর বয়সী ইয়াছিন আহম্মেদ আবির ঢাকা আজিমপুর এলাকার মাজেদ মিয়ার ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার দুপুর আড়াইটার সময় উপজেলার নতুন চর চাষী সংলগ্ন মেঘনা নদীতে গোসল করতে যায় ইয়াসিন আহম্মমেদ আবির, বিশাল আহমেদ, রাফি আহমেদ নামে তিন তরুণ। তারা তিনজনই গুয়াগাছিয়া ইউনিয়নের নতুন চাষী এলাকার ন্যাশনাল ডেভলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ারিং নামে একটি প্রতিষ্ঠানে নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে চাকরি করত।

প্রত্যক্ষদর্শীরা আরও জানায়, নদীতে গোসল করতে গিয়ে তারা তিনজনই নোঙ্গর করে রাখা একটি বাল্কহেডে উপর ওঠে। এ সময় ইয়াসিন বাল্কহেডের উপর থেকে পানিতে ঝাঁপ দেয়। বেশ কয়েক সেকেণ্ড অতিবাহিত হওয়ার পরেও সে ভেসে না ওঠলে তার সঙ্গে আসা বিশাল ও রাফি নদীতে ঝাঁপ দিয়ে তাকে খোঁজা শুরু করে। বেশ কিছু সময় খোঁজাখুঁজি করেও তাকে না পেয়ে বিষয়টি তারা কোম্পানির প্রতিনিধির মাধ্যমে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসকে জানায়।

গজারিয়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন টিম লিডার দুলাল ব্যানার্জি জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে ফায়ার সার্ভিস উদ্ধার অভিযান শুরু করে। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল সন্ধ্যা ছয়টার সময় মরদেহ উদ্ধার করে।

গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোল্লা সোহেব আলী বলেন, ‘গজারিয়া থানার পুলিশ এবং নৌ পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। নিখোঁজ নিরাপত্তাকর্মীর মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখব।’

আরও পড়ুন:
নির্মিত ভবনের বিম ভেঙে প্রাণ গেল শ্রমিকের
মধ্যরাতে ঢাকার রাস্তায় মোটরসাইকেল উল্টে গেল যুবকের প্রাণ
সারবোঝাই কার্গো থেকে নদীতে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু
মালয়েশিয়ায় কনটেইনারে পাওয়া কিশোরের বাড়ি কুমিল্লায়
ইন্টার্ন চিকিৎসকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, কক্ষে চিরকুট

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Case against 16 people including UP Chairman in Brahmanbaria

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১৬ জনের নামে মামলা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১৬ জনের নামে মামলা চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, ব্রাহ্মণবাড়িয়া। ফাইল ছবি
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ওসি মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম জানান, মামলাগুলো তদন্ত করা হচ্ছে। এক মাসের মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরে নারীকে মারধর ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যানসহ ১৬ জনের নামে দ্রুত বিচার আইনে মামলা হয়েছে।

উপজেলার সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ ভূঁইয়া ও তার সমর্থকদের নামে এ মামলা করেন ভুক্তভোগী নারী।

ভুক্তভোগী নারী সৈয়দা বদরুননেছা সুহিলপুর ইউনিয়নের হিন্দুপাড়ার বাসিন্দা মো. সারওয়ারের স্ত্রী। ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ ভূঁইয়াও একই গ্রামের বাসিন্দা।

গত মঙ্গলবার বদরুননেছা চেয়ারম্যান ও তার লোকজনের নামে দ্রুত বিচার আইনে আদালতে একটি মামলা করেন। বুধবার তিনি অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আসামিদের বিরুদ্ধে বিরোধপূর্ণ জায়গায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার আদেশ চেয়ে আরেকটি মামলা করেন। বৃহস্পতিবার বদরুননেছার শ্বশুর সামছুল হুদা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আরেকটি মামলা করেন।

মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী মাসুদুর রহমান জানান, আদালত দ্রুত বিচার আইনের ধারার মামলাসহ দুটি মামলা তদন্ত করে এক মাসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে জমা দিতে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন।

অভিযুক্ত আবদুর রশিদ ভূঁইয়া সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান। তিনি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগেরও সদস্য। ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা হওয়ায় পুলিশ উল্টো মামলার বাদীদের হয়রানি করছে বলে অভিযোগ করেছেন মামলার বাদী। মামলার বাদী সম্পর্কে ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রশীদের চাচি।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি ওই নারী ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রশিদের চাচা আনোয়ার হোসেনের কাছ থেকে ১৯৬৯ নম্বর দলিলমূলে দেড় শতক এবং তার স্বামী ১৩৩২৩ নম্বর দলিলমূলে ৫ শতক জায়গা কেনেন। গত ইউপি নির্বাচনের আগে তাদের সেই জায়গার পেছনে ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রশিদের আরেক চাচা রেনু ভূঁইয়ার কাছ থেকে ৫ থেকে ৭ শতকের একটি জায়গা কিনে নেন স্থানীয় কালু মিয়া। ওই জায়গায় যাওয়ার রাস্তা না থাকলেও বিক্রির সময় চেয়ারম্যানের আত্মীয় ওই দম্পতির জায়গা দেখিয়ে নির্ধারিত দাম থেকে দ্বিগুণ মূল্যে দলিল করেন।

এরপর ওই জায়গায় যাওয়ার জন্য রেনু ভূঁইয়া ও কালু মিয়ার পক্ষ হয়ে চেয়ারম্যানসহ তার লোকজন ওই নারীর জায়গার ওপর দিয়ে রাস্তা তৈরি করতে যায়। এতে ওই নারী বাধা দেন। পরে চেয়ারম্যানসহ তার লোকজন জোরপূর্বক ওই দম্পতির জায়গার ওপর দিয়ে রাস্তা তৈরি করার হুমকি দেন। এ সময় তাদের হত্যার হুমকিও দেয়া হয়।

গত ৩০ জানুয়ারি সকাল ৮টার দিকে ইউপি চেয়ারম্যান ও তার লোকজন দা, লাঠি, রড, কুড়াল, কোদাল ও শাবল নিয়ে ত্রাস সৃষ্টি করে ওই দম্পতির জায়গার গাছপালা কাটতে শুরু করে। ওই সময় মামলার আসামি রুবেল ভূঁইয়া ওই নারীকে মাটিয়ে ফেলে টানা হেঁচড়া করে কিল, ঘুষি ও লাথি মেরে তার শ্লীলতাহানি করেন।

চেয়ারম্যানের চাচাতো ভাই মমিন ভূঁইয়া ও লিটন মিয়া ভুক্তভোগী নারীর এক আত্মীয়াকে মাটিতে ফেলে চুলে ধরে টানাহেঁচড়া করেন। এরপর তাদের দুইজনের কাছ থেকে মোট সাড়ে তিন ভরি ওজনের স্বর্ণাংলকার ছিনিয়ে নেন তারা। এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান ও তার লোকজন তাদের কাছে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। নিরুপায় হয়ে সকাল সোয়া ৯টার দিকে ৯৯৯ এ ফোন করে সাহায্য চান ওই নারী।

মামলার বাদী সৈয়দা বদরুননেছা বলেন, ‘প্রতিপক্ষ চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা ও তার লোকজন অত্যন্ত প্রভাবশালী। আদালতে মামলার করার পর উল্টো পুলিশের হয়রানির শিকার হচ্ছি। টাকা দিয়ে জায়গা কিনে এখন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছি।’

সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ ভূঁইয়া বলেন, ‘সেখানে আমার পারিবারিক জায়গা রয়েছে। দুই চাচা আনোয়ার হোসেন ও রেনু ভূঁইয়া দুইজনের কাছে জায়গা বিক্রি করে। ২০০৭ সালে আমাদের একটি পারিবারিক বন্টকনামা করা হয়। সেখানে পেছনের জায়গায় যেতে তিন ফুট দৈর্ঘ্যের একটি রাস্তার বিষয় উল্লেখ করা হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘ঘটনার দিন কয়েকজন গিয়ে গাছপালা কেটে ফেলে। সে সময় টানাহেঁচড়া হয়ে থাকতে পারে। তবে আমি দেখিনি। জানতে পেরে আমি ঘটনাস্থলে পৌঁছে মাটিতে একটি দা পড়ে থাকতে দেখি। দুর্ঘটনা এড়াতে আমি সেটি হাতে নেই।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম জানান, মামলাগুলো তদন্ত করা হচ্ছে। এক মাসের মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

তিনি আরও জানান, পুলিশ বাদীপক্ষকে কোনো ধরনের হয়রানি করেনি। এ অভিযোগ সত্য না।

আরও পড়ুন:
লালমনিরহাটে হামলায় বীর মুক্তিযোদ্ধা নিহতের ঘটনায় মামলা
সীমান্ত দিয়ে পালানোর সময় হত্যা মামলার আসামি গ্রেপ্তার
মিথ্যা মামলা করায় ৩ বছরের কারাদণ্ড
শেরপুরে বিএনপির ১৫ নেতা-কর্মী কারাগারে
শিশু ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Brother and sister killed in car truck collision in Bogra

বগুড়ায় কার-ট্রাক সংঘর্ষ, ভাই-বোন নিহত

বগুড়ায় কার-ট্রাক সংঘর্ষ, ভাই-বোন নিহত বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের মোকামতলা চকপাড়ায় ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া প্রাইভেট কার। ছবি: নিউজবাংলা
এস আই রাসেল আহম্মেদ জানান, প্রাইভেট কারে তিনজন ছিলেন। তারা রংপুরের দিকে যাচ্ছিলেন। মহাসড়কের চকপাড়া এলাকায় আসার পর প্রাইভেট কারের চাকা ফেটে নিয়ন্ত্রণ হারালে বিপরীত দিক থেকে আসা বগুড়াগামী এক ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়৷

বগুড়ার শিবগঞ্জে ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে প্রাইভেটকারের যাত্রী ভাই ও বোন প্রাণ হারিয়েছেন। এ ঘটনায় বোনের স্বামী হুমায়ূন আহত হয়েছেন।

শনিবার রাত সোয়া ৯টার দিকে বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের মোকামতলা চকপাড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন সিয়াম ও তার বোন কুহেলী আক্তার। তারা লালমনিরহাটের বাসিন্দা। আর হুমায়ূন বরিশালের হিজলা উপজেলার হোসেন আহম্মেদের ছেলে।

ছিলিমপুর পুলিশ ফাঁড়ির এস আই রাসেল আহম্মেদ জানান, প্রাইভেট কারে তিনজন ছিলেন। তারা রংপুরের দিকে যাচ্ছিলেন। মহাসড়কের চকপাড়া এলাকায় আসার পর প্রাইভেট কারের চাকা ফেটে নিয়ন্ত্রণ হারালে বিপরীত দিক থেকে আসা বগুড়াগামী এক ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়৷

দুর্ঘটনার পর তিনজনকে উদ্ধার করে শজিমেক হাসপাতালে পাঠানো হলে চিকিৎসক ভাই ও বোনকে মৃত ঘোষণা করেন। আর বোনের স্বামী হুমায়ূনের চিকিৎসা চলছে।

গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘খবর পেয়ে আমাদের একটি টিম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। দুর্ঘটনাকবলিত কার ও ট্রাক পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
জানুয়ারিতে দুর্ঘটনায় ৬৪২ প্রাণহানি, সর্বোচ্চ বাইকে
মেরিন ড্রাইভ ভ্রমণে গিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে
রেল ক্রসিংয়ে ট্রেনের ধাক্কায় গেল যুবকের প্রাণ
দুই ট্রাকের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৩
পেরুতে বাস খাদে পড়ে গেল ২৪ প্রাণ

মন্তব্য

p
উপরে