× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Festive vote in Rangpur CEC
google_news print-icon

রংপুরে উৎসবমুখর ভোট: সিইসি

রংপুরে-উৎসবমুখর-ভোট-সিইসি
নির্বাচন ভবনে ইসির অন্য কর্মকর্তাদের নিয়ে রংপুর সিটির ভোট পর্যবেক্ষণে সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল। ছবি: নিউজবাংলা
বেলা ১১টা ১০ মিনিটে সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘আমরা বলেছি এখন পর্যন্ত যথেষ্ট ভালো হয়েছে। আমরা দেখি যখন ভোট কার্যক্রম শেষ হবে তখন আপনারা জানবেন আমরাও জানব।’

রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট হচ্ছে বলে দাবি করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।

ভোটের আড়াই ঘণ্টার মধ্যে কোনো অভিযোগ পাননি বলেও জানিয়েছেন তিনি।

শেষ পর্যন্ত সুষ্ঠুভাবে এ সিটি ভোট শেষ হওয়ার আশাও প্রকাশ করেন সিইসি।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে মঙ্গলবার সিসিটিভি ক্যামেরা দিয়ে ভোট পর্যবেক্ষণের সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি এসব কথা বলেন।

রংপুরে উৎসবমুখর ভোট: সিইসি

সকাল সাড়ে ৮টায় রংপুর সিটির ভোট শুরু হয়, যা চলবে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত। ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট নেয়া হচ্ছে।

কনকনে শীত উপেক্ষা করে ভোটাররা কেন্দ্রে আসেন।

সুষ্ঠু ভোট নিশ্চিতে ২২৯টি কেন্দ্রের মধ্যে ১ হাজার ৮০৭টি সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করে ইসি, তবে গাইবান্ধা-৫ উপনির্বাচনে ভোটে সাংবাদিকরা মনিটরিং কক্ষে অবাধে প্রবেশ করতে পারলেও এবার তাদের প্রবেশাধিকার নিয়ন্ত্রণ করছে আউয়াল কমিশন।

নির্বাচনে দুই লাখ ১২ হাজার ৩০২ পুরুষ এবং দুই লাখ ১৪ হাজার ১৬৭ নারী ভোটার ২২৯টি কেন্দ্রে ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাবেন। ভোটে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে ১৬ জনের ফোর্স আর সাধারণ কেন্দ্রে রয়েছে ১৫ জনের ফোর্স।

সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট হচ্ছে। ভোটারদের উপস্থিতি আমাদের মতে সন্তোষজনক। সিসিটিভির মাধ্যমে মনিটরিং করছি।

‘ট্যাবের মাধ্যমে কক্ষে কক্ষে মনিটরিং করছি। ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে যতটা সুন্দরভাবে নির্বাচনটা পর্যবেক্ষণ করা সম্ভব।’

নির্বাচন সুষ্ঠু করতে ইসি কাজ করে যাচ্ছে জানিয়ে সিইসি বলেন, ‘আপনারা (সাংবাদিকরা) আরও অপেক্ষা করুন। পরবর্তী সময়ে আরও তথ্য জানতে পারবেন। দিন শেষে চূড়ান্ত কথাটা বলা যাবে।’

বেলা ১১টা ১০ মিনিটে হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘আমরা বলেছি এখন পর্যন্ত যথেষ্ট ভালো হয়েছে। আমরা দেখি যখন ভোট কার্যক্রম শেষ হবে তখন আপনারা জানবেন আমরাও জানব।’

শেষ পর্যন্ত সুষ্ঠুভাবে রংপুরে ভোট হবে আশা প্রকাশ করে কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘ভোটাররা নির্বিঘ্নে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবে। এখন যেটা দেখা যাচ্ছে সেটারই ইঙ্গিত।’

ভোটে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএমের) ধীরগতির বিষয়টি আপেক্ষিক বলে মনে করেন কাজী হাবিবুল আউয়াল।

তিনি বলেন, ‘শেষ পর্যন্ত দেখতে হবে কয়জন লোক ইভিএমে ভোট না দিয়ে চলে গেছে। আমরা সেটা মূল্যায়ন করব। এখন ধীরগতি হতে পারে, কিন্তু আমাদের কাছে যদি তথ্য আসে ব্যাপকসংখ্যক ভোটার ধীরগতির কারণে ভোটই দিতে পারে নাই, তখন সেটাকে সিরিয়াসলি আমরা গ্রহণ করব।’

আড়াই ঘণ্টায় কোনো অভিযোগ পাননি উল্লেখ করে সিইসি পাশে বসে থাকা নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব খানের কাছে এ বিষয়ে জানতে চান।

পরে সিইসি বলেন, ‘না, কোনো অভিযোগ আমরা পাই নাই৷’

আরও পড়ুন:
রংপুর সিটি নির্বাচনে ৮৬টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ: ইসি রাশেদা
রাত পোহালেই রংপুর সিটিতে ভোট, কেন্দ্রে যাচ্ছে উপকরণ
প্রচার শেষে পত্রিকার ভাঁজে ডালিয়ার ২৯ ইশতেহার
রংপুরের ভোটে সাংবাদিকদের ১৩ বিধিনিষেধ
বাড়িওয়ালা মোস্তফার ভাড়ায় লাফ, পরের টাকায় ভোট

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Started working on decentralization of healthcare Health Minister

স্বাস্থ্যসেবা বিকেন্দ্রীকরণ নিয়ে কাজ শুরু করেছি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্যসেবা বিকেন্দ্রীকরণ নিয়ে কাজ শুরু করেছি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী পিএইচএ গ্লোবাল সামিট-২০২৪-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন। ছবি: নিউজবাংলা
পিএইচএর চেয়ারপারসন ডা. তাসবিরুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের মেডিক্যাল চিকিৎসার শিক্ষাক্রমে যথেষ্ট দুর্বলতা রয়েছে। উন্নত দেশগুলোর তুলনায় আমাদের মেডিক্যাল শিক্ষা চার থেকে পাঁচ বছর পিছিয়ে রয়েছে। এ কারণে দেশে সম্প্রতি বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তি অস্বাভাবিক হারে কমে গেছে।’

স্বাস্থ্যসেবা শুধু শহরকেন্দ্রিক নয়, এর পরিধি গ্রাম পর্যায়ে পৌঁছে দেয়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন। তিনি বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও সেটাই চান।’

শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকা ইউনাইটেড কনভেনশন সেন্টারে ‘পিএইচএ গ্লোবাল সামিট-২০২৪’-এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘আমরা স্বাস্থ্যসেবাকে বিকেন্দ্রীকরণ নিয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছি। আমাদের স্বাস্থ্যসেবার মান নিয়ে কাজ করতে হলে চিকিৎসকদের সুযোগ-সুবিধাগুলোও ভাবতে হবে। নার্সদের নিয়ে আমাদের আরো পরিকল্পনা করতে হবে।

‘আজকের এই আয়োজন প্ল্যানেটারি হেলথ অ্যাকাডেমিয়া সরকারের কাজকে এগিয়ে নিতে সাহায্য করবে। এই প্রগ্রাম শুধু বাংলাদেশে নয়, বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্যসেবাকে এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে।’

ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, ‘চিকিৎসা প্রশিক্ষণার্থী বিনিময় কর্মসূচির মতো উদ্যোগগুলি শুধু আন্তঃসাংস্কৃতিক শিক্ষাকে উৎসাহিত করবে না, বরং আমাদের স্বাস্থ্যসেবার ক্ষেত্রে সম্মিলিত অভিজ্ঞতাকেও সমৃদ্ধ করবে। দেশে এবং দেশের বাইরে স্বাস্থ্যসেবা উন্নত করার জন্য এ ধরনের কর্মকাণ্ড সত্যিই অনুপ্রেরণাদায়ক।’

পিএইচএ গ্লোবাল সামিট-২০২৪-এ দুই হাজারের বেশি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, গবেষক, শিক্ষাবিদ ও মেডিক্যাল শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছেন। এতে স্পিকার হিসেবে রয়েছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ৫০ জন চিকিৎসা বিজ্ঞানী এবং দেশের ১০০ জনেরও অধিক খ্যাতিমান চিকিৎসা বিশেষজ্ঞ।

নয় দিনের এ সম্মেলনে থাকছে ৩০টির বেশি কোর্স এবং সাইন্টিফিক সেশন। দেশে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত এই সম্মেলন শুধু বাংলাদেশে নয়, দক্ষিণ এশিয়ায়ই প্রথম।

পিএইচএ গ্লোবাল প্ল্যানেটারি হেলথ একাডেমিয়ার (পিএইচএ) চেয়ারপারসন ডা. তাসবিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য রাখেন- স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবিএম খুরশীদ আলম, জাতীয় অধ্যাপক এ কে আজাদ খান, দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকার সম্পাদক মতিউর রহমান, বিসিপিএস সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, ইউনাইটেড হেলথ কেয়ারের সিইও ডা. মোহাম্মদ ফয়জুর রহমান, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের ভাইস চেয়ারম্যান তানভীর আহমেদ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন পিএইচএর ট্রাস্টি ডা. নাসির খান।

সভাপতির বক্তব্যে পিএইচএর চেয়ারপারসন ডা. তাসবিরুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের মেডিক্যাল চিকিৎসার শিক্ষাক্রমে যথেষ্ট দুর্বলতা রয়েছে। উন্নত দেশগুলোর তুলনায় আমাদের মেডিক্যাল শিক্ষা চার থেকে পাঁচ বছর পিছিয়ে রয়েছে। এ কারণে দেশে সম্প্রতি বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তি অস্বাভাবিক হারে কমে গেছে।

‘আমরা স্বাস্থ্য ও শিক্ষা অধিদপ্তরের সঙ্গে মিলে কারিকুলাম উন্নয়নের চেষ্টা করছি। আশা করি, আগামী ৪-৫ বছরের মধ্যে একটি কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারব।’

সম্মেলনে রয়েল কলেজ অফ ফিজিশিয়ানস লন্ডন, রয়েল কলেজ অফ ফিজিশিয়ানস এডিনবার্গ, রয়েল কলেজ অফ অবস্টেট্রিশিয়ানস অ্যান্ড গাইনোকোলজিস্ট, ইন্টারন্যাশনাল ডায়াবেটিস ফেডারেশন, ওয়ার্ল্ড হার্ট ফেডারেশন, আমেরিকান কলেজ অফ কার্ডিওলজির প্রেসিডেন্টগণও উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের পুরস্কার বিতরণ করা হয়। পুরস্কৃতরা হলেন- রংপুর মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষার্থী মোহাম্মদ বায়েজিদ সরকার ও সজিব মিয়া, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজের পলাশ হোসেন, পাবনা মেডিক্যাল কলেজের তাহসিন আহমেদ আলভী ও রংপুরের শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজের মাহবুব আলম।

এছাড়া, ২০২৩ সালে শিক্ষা, চিকিৎসা শাস্ত্রে, স্বাস্থ্য সেবা তথা জনস্বার্থে বিশেষ অবদানের জন্য ৮ জন চিকিৎসককে সম্মানসূচক ফেলোশিপ দিয়েছে বাংলাদেশ কলেজ অফ ফিজিশিয়ানস অ্যান্ড সার্জনস।

ফেলোশিপ পাওয়া আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন চিকিৎসকগণ হলেন- ডা. সারাহ ক্যাথরিন ক্লার্ক, অধ্যাপক টিমোথি গ্রাহাম, ডা. রানী ঠাকুর, ডা. ফ্রাজ মীর, ডা. রোয়ান বার্নস্টেইন, অধ্যাপক ডেভিড ট্যাগার্ট, ডা. জগৎ নরুলা এবং ডা. সার্জিও লারাচ।

আরও পড়ুন:
স্বাস্থ্য খাতে উন্নয়নমূলক কাজের প্রশংসায় ব্রিটিশ হাইকমিশনার
অবৈধ হাসপাতাল-ক্লিনিক বন্ধ না করলে উপযুক্ত ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
বিদেশিরাও শিগগিরই দলে দলে চিকিৎসা নিতে আসবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Illegal hoarders of food are enemies of the country Food Minister

খাদ্যের অবৈধ মজুতকারীরা দেশের শত্রু: খাদ্যমন্ত্রী

খাদ্যের অবৈধ মজুতকারীরা দেশের শত্রু: খাদ্যমন্ত্রী শুক্রবার বিকেলে নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের রাধানগরে নির্বাচন-পরবর্তী সুধী সমাবেশে বক্তৃতা করেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। ছবি: নিউজবাংলা
অবৈধ মজুতকারীরা বিএনপির দোসর উল্লেখ করে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তারা শেখ হাসিনাকে উৎখাত করতে চায়, বেকায়দায় ফেলতে চায়। আমাদের দেশকে রক্ষা করতে হবে। আপনারা যে ভোট দিয়েছেন, তার মর্যাদা রক্ষা করতে হবে।’

খাদ্যের অবৈধ মজুত করে যারা সংকট তৈরি করে তাদের ‘দেশের শত্রু’ বলে আখ্যায়িত করেছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

শুক্রবার বিকেলে নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের রাধানগরে শিবনদীর উপরে ১৯২ মিটার দীর্ঘ নবনির্মিত সেতুর চলমান কার্যক্রম পরিদর্শন ও দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন-পরবর্তী সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

অবৈধ মজুতকারীরা বিএনপির দোসর উল্লেখ করে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তারা শেখ হাসিনাকে উৎখাত করতে চায়, বেকায়দায় ফেলতে চায়। আমাদের দেশকে রক্ষা করতে হবে। আপনারা যে ভোট দিয়েছেন, তার মর্যাদা রক্ষা করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচনের দুই দিন আগে হঠাৎ করে অসৎ ব্যবসায়ীরা চালের দাম ৮/১০ টাকা বাড়িয়ে দেয়। তারা মনে করেছিল, অন্য কেউ খাদ্যমন্ত্রী হলে বুঝতে বুঝতে একমাস পার হয়ে যাবে। যখন তারা দেখেছে মন্ত্রী সাধন মজুমদার হয়েছে, তখন তারা বেকায়দায় পড়েছে; আমাদেরও বেকায়দায় ফেলেছে।

‘চালের বাজার ঠিক রাখতে জেলায় জেলায় বৈঠক করতে হয়েছে। মজুতবিরোধী অভিযানও চালাতে হয়েছে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাস করে। ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে জনগণ সে চেতনার পক্ষে রায় দিয়ে শেখ হাসিনাকে আবারও প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘রাধানগর সেতু রাজশাহী ও নওগাঁ জেলার মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে ভূমিকা রাখবে। সবচেয়ে বড় পরিবর্তন হবে সড়ক যোগাযোগ ক্ষেত্রে। গ্রামের সঙ্গে শহুরের মানুষের যোগাযোগ সহজ ও দ্রুততর হওয়ার ফলে কৃষক সহজেই তার পণ্য বাজারজাত করতে পারবে।’

বাহাদুরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক, নিয়ামতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, জেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক সম্পাদক আবেদ হোসেন মিলন, সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ, সহ-সভাপতি ঈশ্বর চন্দ্র বর্মন, সাধারণ সম্পাদক নারায়ন চন্দ্র প্রামাণিকসহ প্রমুখ।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Minister of State for Information went to Türkiye to attend the OIC conference

ওআইসি সম্মেলনে যোগ দিতে তুরস্ক গেলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী

ওআইসি সম্মেলনে যোগ দিতে তুরস্ক গেলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত। ফাইল ছবি
তুরস্কে অনুষ্ঠেয় ওআইসি সদস্য দেশগুলোর তথ্যমন্ত্রীদের এবারের সম্মেলনের প্রতিপাদ্য ‘ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের দখলদারত্বের সময় সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ইসরায়েল সরকারের বিভ্রান্তি ও শত্রুতা’।

ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) সদস্য দেশগুলোর তথ্যমন্ত্রীদের সম্মেলনে যোগ দিতে ঢাকা ছেড়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত।

শুক্রবার সকালে তুর্কি এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে তুরস্কের ইস্তাম্বুলের উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন তিনি।

সফরকালে প্রতিমন্ত্রী শনিবার অনুষ্ঠেয় ওআইসি সদস্য দেশগুলোর তথ্যমন্ত্রীদের ইসলামিক সম্মেলনের বিশেষ অধিবেশনে যোগ দেবেন।

এবারের অধিবেশনের প্রতিপাদ্য হচ্ছে, ‘ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের দখলদারত্বের সময় সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ইসরায়েল সরকারের বিভ্রান্তি ও শত্রুতা’।

মোহাম্মদ আলী আরাফাত একই দিনে কাতার ও তুরস্কের তথ্যমন্ত্রীদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করবেন।

এছাড়া রোববার তিনি তুর্কি রেডিও ও টেলিভিশন অফিস পরিদর্শন করবেন।

প্রতিমন্ত্রী আরাফাত তুরস্ক সফর শেষে বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

আরও পড়ুন:
আরএসএফ প্রতিবেদনে বাস্তবতার প্রতিফলন নেই: তথ্য প্রতিমন্ত্রী
সাংবাদিকতার যোগ্যতা নির্ধারণ নিয়ে সাংবাদিকদেরই কথা বলতে হবে: আরাফাত
সোশ্যাল মিডিয়াকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে চান তথ্য প্রতিমন্ত্রী
সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে বেতারের ভূমিকা প্রশংসনীয়: তথ্য প্রতিমন্ত্রী
কল্যাণ ট্রাস্ট প্রমাণ করে প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিকবান্ধব: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Nothing will be lacking in Ramadan PM

রমজানে কোনো কিছুর অভাব হবে না: প্রধানমন্ত্রী

রমজানে কোনো কিছুর অভাব হবে না: প্রধানমন্ত্রী জার্মানিতে সাম্প্রতিক সফর নিয়ে সরকারি বাসভবন গণভবনে শুক্রবার সকালে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: বাসস
রমজানে চাহিদা বেশি থাকা পণ্য আমদানির উদ্যোগের কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ছোলা, খেজুর, চিনিসহ পর্যাপ্ত পরিমাণ পণ্য আমদানির ব্যবস্থা রয়েছে। সুতরাং এটি নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না। কারণ আমরা অনেক আগেই এর জন্য ব্যবস্থা করেছি।’

আসন্ন রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের সংকট হবে না বলে দেশবাসীকে আশ্বস্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জার্মানিতে সাম্প্রতিক সফর নিয়ে সরকারি বাসভবন গণভবনে শুক্রবার সকালে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ আশ্বাস দেন বলে বার্তা সংস্থা বাসসের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

রমজানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের সংকট নিয়ে করা প্রশ্নের উত্তরে সরকারপ্রধান বলেন, ‘রমজানে কোনো কিছুর (অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের) অভাব হবে না। ইতোমধ্যেই সব ব্যবস্থা করা হয়েছে। কোনো সমস্যা হবে না।’

রমজানে চাহিদা বেশি থাকা পণ্য আমদানির উদ্যোগের কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ছোলা, খেজুর, চিনিসহ পর্যাপ্ত পরিমাণ পণ্য আমদানির ব্যবস্থা রয়েছে। সুতরাং এটি নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না। কারণ আমরা অনেক আগেই এর জন্য ব্যবস্থা করেছি।’

আগামী পাঁচ বছরে সরকার কোন বিষয়গুলোতে প্রাধান্য দেবেন, তা নিয়ে সরকারপ্রধান বলেন, ‘আগামী পাঁচ বছর কাজ হবে যেহেতু আমাদের উন্নয়নশীল দেশের যাত্রা শুরু হবে ২০২৬ থেকে, কাজেই যে সময়টুকু পাব সেটাকে কাজে লাগিয়ে যথাযথভাবে এগিয়ে যাওয়া এবং সেদিকে আমরা মনোযোগ দিয়েছি। ইতোমধ্যে বিভিন্ন কমিটি গঠন করে আমরা সেভাবেই কাজ করে যাচ্ছি।’

উন্নয়ন টেকসই করার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, ‘আগামী পাঁচ বছরে সরকারের প্রধান গুরুত্বই থাকবে আমাদের আর্থ-সামাজিক উন্নতি যেটা হয়েছে, সেটা যেন টেকসই হয়। কারণ, যে পর্যায়ে থেকে আমরা উঠে এসেছি, সেটা টেকসই করে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

‘একটা হচ্ছে জাতিসংঘের এসডিজি বাস্তবায়ন ২০৩০ সালের মধ্যে। সেটা আমরা সময় পেয়েছি ২০৩২ সাল পর্যন্ত এবং এর মধ্যে যেগুলো আমাদের দেশের জন্য প্রযোজ্য, সেগুলো আমরা ইতোমধ্যে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি।’

গত ১৬-১৮ ফেব্রুয়ারি জার্মানির মিউনিখ শহরে ৬০তম মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সম্মেলনে মূলত রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থার কর্মকর্তা, সংবাদমাধ্যম, সুশীল সমাজ, সরকারি ও বেসরকারি খাতের শীর্ষস্থানীয় প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

এটি সমকালীন ও ভবিষ্যৎ নিরাপত্তার স্বার্থে উচ্চ পর্যায়ের নিয়মিত আলোচনার একটি শীর্ষস্থানীয় ফোরাম হিসেবে বিবেচিত।

এ বছরের ফোরামে ৩৫ জনেরও বেশি রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান অংশ নেন।

আরও পড়ুন:
মাতৃভাষা আমাদের শিক্ষার মাধ্যম হওয়া উচিত: প্রধানমন্ত্রী
প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে আসছেন শুক্রবার
ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই স্বাধিকার ও স্বাধীনতা: প্রধানমন্ত্রী
বিজয়ীদের হাতে একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
India has given permission to export 50000 tons of onions to Bangladesh

বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি ভারতের

বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি ভারতের ফাইল ছবি
ভারতের ভোক্তাবিষয়ক অধিদপ্তরের সচিব রোহিত কুমার সিং বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ, মরিশাসে এক হাজার ২০০ টন, বাহরাইনে তিন হাজার টন এবং ভুটানে ৫৬০ টন পেঁয়াজ অবিলম্বে রপ্তানির অনুমতি দিয়েছি।’

বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিয়েছে ভারত।

রপ্তানিকারকরা ৩১ মার্চ পর্যন্ত এই পেঁয়াজ বাংলাদেশে রপ্তানি করতে পারবেন। দ্রুতই রপ্তানি কার্যক্রম শুরু হবে। খবর বাসসের

ভারতের ভোক্তাবিষয়ক অধিদপ্তরের সচিব রোহিত কুমার সিং বৃহস্পতিবার নয়াদিল্লিতে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ, মরিশাসে এক হাজার ২০০ টন, বাহরাইনে তিন হাজার টন এবং ভুটানে ৫৬০ টন পেঁয়াজ অবিলম্বে রপ্তানির অনুমতি দিয়েছি।’

তিনি বলেন, ব্যবসায়ীদের ৩১ মার্চ পর্যন্ত এই পরিমাণ রপ্তানি করার অনুমতি দেয়া হয়েছে এবং এই লক্ষ্যে কাজ চলছে।

সিং সংবাদ সংস্থাকে বলেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুপারিশের ভিত্তিতে বাংলাদেশে রপ্তানির অনুমতি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

ভারতের অভ্যন্তরীণ সরবরাহ বাড়াতে এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে গত বছরের ডিসেম্বরে পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে দেশটি।

এদিকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এ মাসের শুরুর দিকে ভারত সফরের সময় পবিত্র রমজান মাসের আগে বাংলাদেশের স্থানীয় বাজারে তাদের দাম স্থিতিশীল রাখতে বাংলাদেশে পেঁয়াজসহ কিছু নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার জন্য ভারতকে অনুরোধ করেছিলেন।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস. জয়শঙ্কর এবং বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের সঙ্গে বৈঠকের সময় ড. হাছান ওই পণ্যগুলো বাংলাদেশে রপ্তানির জন্য আবেদন করেন।

আরও পড়ুন:
চট্টগ্রামে কমছে পেঁয়াজের দাম
বাংলাদেশে সীমিত আকারে পেঁয়াজ রপ্তানি করবে ভারত
ভারতের চিনি-পেঁয়াজ আসতে পারে রোজার আগেই
ভারত থেকে দেড় লাখ টন পেঁয়াজ চিনি কিনতে চায় সরকার
বেনাপোলে পেঁয়াজের দামে আগুন কেন

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Bangladeshs commitment to world peace reflected in Munich Prime Minister

বিশ্বশান্তির প্রতি বাংলাদেশের অঙ্গীকারের প্রতিফলন মিউনিখে: প্রধানমন্ত্রী

বিশ্বশান্তির প্রতি বাংলাদেশের অঙ্গীকারের প্রতিফলন মিউনিখে: প্রধানমন্ত্রী মিউনিখে তিন দিনের সফরের বিষয়ে জানাতে শুক্রবার সকালে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: ইয়াসিন কবির জয়/ফোকাস বাংলা
প্রধানমন্ত্রী বলেন, বন্ধুপ্রতিম দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের মাধ্যমে সম্পর্কের ধারাবাহিকতা আরও দৃঢ় হয়েছে। একই সঙ্গে উন্মোচন হয়েছে সহযোগিতার নতুন দিগন্ত।

জার্মানির মিউনিখে ‍গত সপ্তাহে নিরাপত্তা সম্মেলনে অংশগ্রহণ শান্তি, সার্বভৌমত্ব ও সার্বিক বিশ্ব নিরাপত্তার প্রতি বাংলাদেশের দৃঢ় অঙ্গীকারের প্রতিফলন বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মিউনিখে তিন দিনের সফরের বিষয়ে জানাতে শুক্রবার সকালে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন সরকারপ্রধান।

প্রধানমন্ত্রী ১৫ ফেব্রুয়ারি মিউনিখ গিয়ে ১৯ ফেব্রুয়ারি দেশে ফেরেন। মিউনিখে অবস্থানকালে তিনি সম্মেলনের ফাঁকে বিশ্ব নেতাদের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন।

বার্তা সংস্থা ইউএনবির প্রতিবেদনে জাননো হয়, লিখিত বক্তব্যে শেখ হাসিনা তার এ সফরকে সফল বলে উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, তিনি বিশ্ব নেতাদের বলেছেন, আকার নয়, একটি দেশের নীতির শক্তিই হচ্ছে রাজনৈতিক ও আর্থ-সামাজিক মুক্তির পথ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বন্ধুপ্রতিম দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের মাধ্যমে এ সম্পর্কের ধারাবাহিকতা আরও দৃঢ় হয়েছে। একই সঙ্গে উন্মোচন হয়েছে সহযোগিতার নতুন দিগন্ত।

আরও পড়ুন:
প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে আসছেন শুক্রবার
ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই স্বাধিকার ও স্বাধীনতা: প্রধানমন্ত্রী
বিজয়ীদের হাতে একুশে পদক তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী
একুশে পদক বিতরণ আজ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Rain with thunder may occur in six divisions including Dhaka

বজ্রবৃষ্টি হতে পারে ঢাকাসহ ছয় বিভাগে

বজ্রবৃষ্টি হতে পারে ঢাকাসহ ছয় বিভাগে ঢাকাসহ দেশের ছয়টি বিভাগে বৃষ্টি হতে পারে। ফাইল ছবি/রয়টার্স
পূর্বাভাসে বৃষ্টিপাত নিয়ে বলা আছে, শুক্রবার ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দু এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

ঢাকাসহ দেশের ছয়টি বিভাগে বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

রাষ্ট্রীয় সংস্থাটি শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এমন বার্তা দিয়েছে।

পূর্বাভাসে বৃষ্টিপাত নিয়ে বলা আছে, শুক্রবার ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দু এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

এ ছাড়া দেশের অন্য জায়গায় আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

সিনপটিক অবস্থান নিয়ে পূর্বাভাসে বলা হয়, পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে, যার বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

তাপমাত্রার বিষয়ে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সারা দেশে রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে।

আরও পড়ুন:
দেশজুড়ে কমতে পারে রাতের তাপমাত্রা
দেশজুড়ে কমতে পারে রাতের তাপমাত্রা
বৃষ্টি হতে পারে, কমবে রাতের ঠান্ডা
বসন্তের প্রথম দিনে ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ ঢাকার বাতাস, বের হলেই আছে স্বাস্থ্যঝুঁকি
দেশের তিন বিভাগে ঝরতে পারে বৃষ্টি

মন্তব্য

p
উপরে