× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
BNP will win the Dhaka game on December 30
google_news print-icon

‘৩০ ডিসেম্বর ঢাকার খেলায় বিএনপির জয় হবে’

৩০-ডিসেম্বর-ঢাকার-খেলায়-বিএনপির-জয়-হবে
বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘আগের নির্বাচন কমিশন ভোট ডাকাতি করেছে। এবারের এই নির্বাচন কমিশন আগের কমিশনের চেয়েও খারাপ।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর আবার খেলা হবে। সেই খেলায় বিএনপির জয় হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন।

নেতা-কর্মীদের মুক্তিসহ ১০ দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে নারায়ণগঞ্জে জেলা ও মহানগর বিএনপি আয়োজিত মিছিলের আগে এক সমাবেশে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘১০টি খেলায় বিএনপি জয় পেয়েছে। আগামী ৩০ ডিসেম্বর ঢাকায় আবার যে খেলা হবে, সেই খেলায়ও বিএনপির জয় হবে। বাংলাদেশের গণ মানুষের বিজয় হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশে এই সরকারের অধীনে কোনো নিবার্চন হবে না। হতে পারে না।’

বর্তমান কমিশনের অধীনে বিএনপি কোনো নির্বাচনে অংশ নেবে না জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আগের নির্বাচন কমিশন ভোট ডাকাতি করেছে। এবারের এই নির্বাচন কমিশন আগের কমিশনের চেয়েও খারাপ। তাই এই কমিশনের অধীনে আমরা কোনো নির্বাচন মানি না।’

কেন্দ্রীয় নেতাদের মুক্তি দাবি করে তিনি বলেন, ‘বিএনপির মহাসচিব ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান মির্জা আব্বাস, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীসহ যত নেতা-কর্মীকে রাজবন্দি করা হয়েছে তাদের মুক্তি দেয়ার জন্য সরকারকে আহ্বান জানাচ্ছি। না হলে জনগণ জেল ভেঙে তাদেরকে নিয়ে আসবে।’

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও সাবেক সাংসদ মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিনের সভাপতিত্বে গণমিছিলে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠিনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, কেন্দ্রীয় নেতা কাজী মনিরুজ্জামান, নজরুল ইসলাম আজাদ, আজহারুল ইসলাম মান্নান, মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান, সাধারণ সম্পাদক আবু আল ইউসুফ খান টিপুসহ অনেকেই।

এর আগে ঢাকা নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড শিবু মার্কেট এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে জামায়েত ইসলামের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা।

আরও পড়ুন:
দিনাজপুরে বিএনপি ও জামায়াতের পৃথক মিছিল, আটক ২০
শামীম ওসমানকে দেখেই কি বিএনপির মিছিল শেষ?
আন্দোলনেই জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত হবে: সিলেটে বিএনপি
গাজীপুরে বিএনপির মিছিলে পুলিশের হামলা, আটক ২০
সরকারের পতন ছাড়া বিএনপি ঘরে ফিরবে না: রাজশাহীতে গয়েশ্বর

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Import export closed for 7 days during Banglabandha 

বাংলাবান্ধায় ৭ দিন বন্ধ আমদানি-রপ্তানি 

বাংলাবান্ধায় ৭ দিন বন্ধ আমদানি-রপ্তানি  পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর। ছবি: নিউজবাংলা
বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অমৃত অধিকারী জানান, ‘ঈদ উপলক্ষে সাতদিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকলেও স্বাভাবিক থাকবে ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে যাত্রী পারাপার।’

ঈদুল আজহা উপলক্ষে ও সাপ্তাহিক ছুটিসহ দেশের একমাত্র চতুর্দেশীয় পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে চার দেশের সঙ্গে পাথরসহ সকল প্রকার পণ্য আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম সাতদিন বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

এ সময় বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে পণ্য আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকলেও ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে পাসপোর্টধারী যাত্রী পারাপার স্বাভাবিক থাকবে।

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক কুদরত-ই খুদা মিলন শুক্রবার সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে মঙ্গলবার চারদেশীয় বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম বন্ধের বিষয়ে নোটিশ জারি করে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর আমদানি রপ্তানিকারক গ্রুপ।

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর সূত্রে জানা যায়, ঈদুল আজহা উপলক্ষে ভারতের ফুলবাড়ী এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন, সিএন্ডএফ এজেন্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন ও ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের যৌথ সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক উল্লিখিত সাপ্তাহিক ছুটিসহ সাতদিন ব্যবসায়িক কার্যক্রম বন্ধের একটি চিঠি দেয়া হয়। সেখানে আগামী ১৫ জুন (শনিবার) থেকে ২০ জুন (বৃহস্পতিবার) পর্যন্ত টানা ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। ২১ জুন শুক্রবার ছুটি থাকায় আগামী শনিবার বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে যথারীতি কার্যক্রম স্বাভাবিক হবে।

বাংলাবান্ধা ইমিগ্রেশন চেকপোস্টের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অমৃত অধিকারী জানান, ‘ঈদ উপলক্ষে সাতদিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকলেও স্বাভাবিক থাকবে ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে যাত্রী পারাপার।’

আরও পড়ুন:
বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ
বাংলাবান্ধায় আবারও তিন দিন বন্ধ পণ্য ও যাত্রী পারাপার
বাংলাবান্ধা দিয়ে পণ্য ও যাত্রী পারাপার তিন দিন বন্ধ
চারদেশীয় বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি শুরু
বিরল স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি শিগগিরই

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Dead dolphin washed up on Kuakata beach

কুয়াকাটা সৈক‌তে ভে‌সে এলো মৃত ডলফিন

কুয়াকাটা সৈক‌তে ভে‌সে এলো মৃত ডলফিন ভেসে এলো মৃত ডলফিন। ছবি: নিউজবাংলা
শুক্রবার সকালে জোয়ারে পানিতে কুয়াকাটা সৈকতের জিরো পয়েন্টের পূর্ব পাশে ডলফিনটি দেখতে পান স্থানীয়রা।

পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সৈকতে আবারও ভে‌সে এলো প্রায় ১০ ফুট লম্বা এক‌টি বোটলনোজ প্রজাতির মৃত্যু ডলফিন।

শুক্রবার সকালে জোয়ারে পানিতে কুয়াকাটা সৈকতের জিরো পয়েন্টের পূর্ব পাশে ডলফিনটি দেখতে পান স্থানীয়রা।

ডলফিন রক্ষা কমিটির সদস্য আবুল হোসেন রাজু বলেন, বঙ্গোপসাগর কিছুটা উত্তাল থাকায় ঢেউয়ের সাথে সৈক‌তের বালু‌তে এ‌সে আট‌কে প‌ড়ে ডলফিনটি। ধারণা করা হ‌চ্ছে, দুই থেকে তিন দিন আগে এ‌টি মারা যেতে পারে। এর শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখা গে‌ছে।

কুয়াকাটা ডলফিন রক্ষা কমিটির টিম লিডার রুমান ইমতিয়াজ তুষার বলেন, খবর পাওয়ার সাথে সাথে বনবিভাগ ও ব্লু-গার্ডের সহায়তায় আমাদের সদস্যরা নিরাপদ স্থানে ডলফিনটিকে মাটি চাপা দেয়ার ব্যবস্থা করেছে।

বনবিভাগের মহিপুর রেঞ্জ কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমাদের সদস্যদের পাঠিয়ে দ্রুত মৃত ডল‌ফিন‌টি‌কে মাটিচাপা দেয়ার ব্যবস্থা করা হ‌য়ে‌ছে, যাতে দুর্গন্ধ না ছড়ায়। যে‌হেতু আজ শুক্রবার দে‌শের বি‌ভিন্ন স্থান থে‌কে পর্যটকরা এখা‌নে আস‌বে তাই পর্যটক‌দের যা‌তে কোনো সমস‌্যা না হয় তাই দ্রুত ডল‌ফিন‌টি‌কে মা‌টি চাপা দেয়া হ‌য়ে‌ছে।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
5 killed including driver of private car in road accident in Tangail

টাঙ্গাইলে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাইভেট কারের চালকসহ নিহত ৫

টাঙ্গাইলে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাইভেট কারের চালকসহ নিহত ৫ দুর্ঘটনায় দুমড়েমুচড়ে যাওয়া প্রাইভেট কার। ছবি: নিউজবাংলা
এলেঙ্গা হাইওয়ে থানার ওসি মীর মো. সাজেদুর রহমান বলেন, ‘কালিহাতী উপজেলার বাগুটিয়া এলাকায় একটি গরু বোঝাই ট্রাকের সাথে একটি প্রাইভেট কারের সংঘর্ষ ঘটে। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর অবস্থায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে সাতজনকে নেয়া হয়। এ সময় জরুরি বিভাগে চিকিৎসক তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন।’

টাঙ্গাইলে আলাদা সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাইভেট কারের চালকসহ পাঁচজন নিহত হয়েছেন।

কালিহাতী উপজেলার বাগুটিয়া এলাকায় বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল কলেজের সামনে শুক্রবার ভোরে ট্রাক ও প্রাইভেট কারের সংঘর্ষে প্রাইভেট কারের চালকসহ তিনজন নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হন চারজন।

নিহতদের পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি, তবে তাদের মধ্যে একজন প্রাইভেট কারের চালক ছিলেন বলে নিশ্চিত করেছেন এলেঙ্গা হাইওয়ে থানার ওসি মীর মো. সাজেদুর রহমান।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘কালিহাতী উপজেলার বাগুটিয়া এলাকায় একটি গরু বোঝাই ট্রাকের সাথে একটি প্রাইভেট কারের সংঘর্ষ ঘটে। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর অবস্থায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে সাতজনকে নেয়া হয়।

‘এ সময় জরুরি বিভাগে চিকিৎসক তিনজনকে মৃত ঘোষণা করেন। এখনও নিহত দুইজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।’

এদিকে ঢাকা- টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে কালিহাতী উপজেলার পৌলী নামক স্থানে শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে সিমেন্ট বোঝাই একটি ট্রাকের সঙ্গে যাত্রীবাহী বাসের সংঘর্ষে একজন নিহত হন।

এ ছাড়াও ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বাইক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আইল্যান্ডের সঙ্গে ধাক্কা লেগে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হন।

সংশ্লিষ্ট থানার কর্মকর্তারা ঘটনা দুটির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন:
শেরপুরে ট্রাকচাপায় পল্লী বিদ্যুতের মিটার রিডার নিহত 
অটোরিকশার চাকায় ওড়না পেঁচিয়ে এইচএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু
‘হামলায়’ শ্যালক নিহত, দুলাভাই গ্রেপ্তার
কুমিল্লায় গরু বোঝাই ট্রাক উল্টে নিহত ২
বিয়ের দাওয়াত না দেয়ায় দুই পরিবারের মারামারি, নিহত ১

মন্তব্য

বাংলাদেশ
7 tons of Indian cumin came through Akhaura

আখাউড়া দিয়ে এলো ৭ টন ভারতীয় জিরা

আখাউড়া দিয়ে এলো ৭ টন ভারতীয় জিরা ফাইল ছবি
আমদানিকারক সূত্র জানায়, প্রতি টন জিরার দাম পড়েছে ২ হাজার ৫০০ ডলার। যা স্থানীয় মুদ্রায় ২ লাখ ৯২ হাজার ৫০০ টাকার মতো।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে সাত টন জিরা এসেছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে একটি ট্রাকে করে জিরাগুলো বন্দরে পৌঁছায়। খবর বাসসের

হাইড্রোল্যান্ড সলিশন নামে ঢাকার একটি প্রতিষ্ঠান এ জিরা আমদানি করেছে। তবে শুক্রবার বন্দর ছুটি, তাই শনিবার জিরা খালাস করা হবে বলে আশা প্রকাশ করছে প্রতিষ্ঠানটি।

আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্থলবন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট মেসার্স শফিকুল ইসলাম আমদানি করা জিরার কাস্টমস ক্লিয়ারিংয়ের কাজ করবে।

আমদানিকারক সূত্র জানায়, প্রতি টন জিরার দাম পড়েছে ২ হাজার ৫০০ ডলার। যা স্থানীয় মুদ্রায় ২ লাখ ৯২ হাজার ৫০০ টাকার মতো।

আখাউড়া স্থলবন্দরের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মো. ছাগিরুল ইসলাম বলেন, হাইড্রোল্যান্ড সলিশন আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ৭ টন জিরা আমদানির জন্য এলসি খুলেছে। সন্ধ্যায় জিরা নিয়ে একটি ট্রাক বন্দরে প্রবেশ করেছে। প্রথমবারের মত এই স্থলবন্দর দিয়ে দেশে জিরা আমদানি হয়েছে।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Pressure increased on Bangabandhu Expressway congestion at toll plaza

এক্সপ্রেসওয়েতে বেড়েছে চাপ, পদ্মা সেতুর টোল প্লাজায় জট

এক্সপ্রেসওয়েতে বেড়েছে চাপ, পদ্মা সেতুর টোল প্লাজায় জট পদ্মা সেতুর টোল প্লাজা থেকে বঙ্গবন্ধু এক্সপ্রেসওয়ের ছনবাড়ি পর্যন্ত দীর্ঘ যানজট। ছবি: নিউজবাংলা
সরেজমিনে দেখা যায়, শুক্রবার সকালে পদ্মা সেতু হয়ে দূর পাল্লার যানবাহনের পাশাপাশি ব্যক্তিগত যান ও দুই চাকার মোটরসাইকেল করেও ঘরমুখো মানুষ ছুটছেন নিজ নিজ গন্তব্যে।

ঈদে ঘরমুখো মানুষ বাড়ি ফিরতে শুরু করেছেন। এ কারণে রাজধানী ঢাকা থেকে দক্ষিণবঙ্গের প্রবেশপথ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এক্সপ্রেসওয়ে হয়ে পদ্মা সেতুতে যানবাহনের চাপ বেড়েছে। পদ্মা সেতুর টোল প্লাজা থেকে বঙ্গবন্ধু এক্সপ্রেসওয়ের ছনবাড়ি পর্যন্ত প্রায় ৮ কিলোমিটারজুড়ে যানবাহনের জট দেখা দিয়েছে।

সেতু কর্তৃপক্ষ জানায়, শুক্রবার ভোর থেকে যানবাহন চাপ বাড়তে থাকে।

এদিকে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে যানবাহনের চাপ বেড়ে যাওয়ায় পদ্মা সেতুর টোল প্লাজায় যানবাহনগুলোকে টোল গ্রহণে কিছুটা সময় অপেক্ষা করতে হচ্ছে। এ কারণে সেতু এলাকায় যানবাহনের কিছুটা ধীরগতি রয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, শুক্রবার সকালে পদ্মা সেতু হয়ে দূর পাল্লার যানবাহনের পাশাপাশি ব্যক্তিগত যান ও দুই চাকার মোটরসাইকেল করেও ঘরমুখো মানুষ ছুটছেন নিজ নিজ গন্তব্যে।

মাওয়া ট্রাফিক ইন্সপেক্টর জিয়াউল ইসলাম বলেন, ‘টোল প্লাজা থেকে প্রায় ছনবাড়ি পর্যন্ত ৮ কিলোমিটার এই জট রয়েছে। ভোরবেলায় অনেক গাড়ি একসাথে আসায় এ জট বেঁধে ছনবাড়ি পর্যন্ত ৮ কিলোমিটার গাড়ির ধীর গতি লক্ষ্য করা যায়।’

আরও পড়ুন:
বিআরটিসির ঈদ স্পেশাল বাস সার্ভিস ১৩ জুন থেকে
বঙ্গবন্ধু সেতুর টোলে ঈদযাত্রার হাওয়া
ঈদযাত্রায় ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু
ঈদযাত্রায় ট্রেনের অগ্রিম টিকিট ২ জুন থেকে
ঈদের আগে পরে ৭ দিন ফেরিতে ট্রাক-কাভার্ডভ্যান পারাপার বন্ধ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Traffic jam on Dhaka Tangail Bangabandhu Bridge highway for 10 kilometers

ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়‌কে ১০ কি‌লো‌মিটার জুড়ে যানজট

ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়‌কে ১০ কি‌লো‌মিটার জুড়ে যানজট ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে এলেঙ্গা থেকে আশেকপুর পর্যন্ত অংশে শুক্রবার ভোরে যানজট দেখা দেয়। ছবি: নিউজবাংলা
বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে এই মহাসড়কে যানবাহনের চাপ বাড়তে থাকে। এক পর্যায়ে শুক্রবার ভোরে এলেঙ্গা থেকে সদর উপজেলার আশেকপুর বাইপাস এলাকা পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার এলাকায় থেমে থেমে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

যানবাহনের বাড়তি চাপ ও একাধিক দুর্ঘটনার কারণে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়‌কে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে এই মহাসড়কে যানবাহনের চাপ বাড়তে থাকে। এক পর্যায়ে শুক্রবার ভোর থেকে এই যানজট শুরু হয়।

কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গা থেকে সদর উপজেলার আশেকপুর বাইপাস এলাকা পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার এলাকায় থেমে থেমে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে অনেকেই ব্যক্তিগত যানবাহন, মোটরসাইকেল ও খোলা ট্রাকে করে গন্তব্যে যাচ্ছেন। যানজট আর বৃষ্টিতে যাত্রীদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

এলেঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ সাজেদুর রহমান জানান, মধ্যরাত থেকে যানবাহনের চাপ বেড়ে গেছে এই মহাসড়কে। তাছাড়া মহাসড়কের বিভিন্ন জায়গায় একাধিক দুর্ঘটনা ঘটেছে। তবে কেউ মারা যায়নি। দুর্ঘটনাকবলিত যানবাহন সরিয়ে নিতে কিছুটা সময় লেগে যাওয়ায় ধীরগতিতে যানবাহন চলাচল করছে। মহাসড়কে পর্যাপ্ত পুলিশ কাজ করছে।

ওদিকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপাড়ে টোলপ্লাজার আগে হালকা যানজট তৈরি হয়েছে।

আরও পড়ুন:
ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে যান চলাচলে ধীরগতি
বনানীর আগে বাসে যাত্রী তুললেই মামলা: ডিএমপি কমিশনার
বজ্রপাত: পদ্মা সেতুর টোল প্লাজার সামনে গাড়ির দীর্ঘ সারি
চাপ নেই ঢাকা-টাঙ্গাইল বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে
ঈদযাত্রা: পদ্মা সেতু দিয়ে নির্বিঘ্নে যান চলাচল

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Toll collection in 24 hours at Bangabandhu Bridge is Tk 3 crore 21 lakh

বঙ্গবন্ধু সেতুতে ২৪ ঘণ্টায় টোল আদায় ৩ কোটি ২১ লাখ টাকা

বঙ্গবন্ধু সেতুতে ২৪ ঘণ্টায় টোল আদায় ৩ কোটি ২১ লাখ টাকা বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব টোলপ্লাজা।। ছবি: নিউজবাংলা
বঙ্গবন্ধু সেতু সাইট অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসানুল কবীর পাভেল জানান, বুধবার রাত ১২টা থেকে বৃহস্পতিবার রাত ১২টা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে ৩ কোটি ২১ লাখ ৯৭ হাজার ৩০০ টাকা টোল আদায় করেছে সেতু এবং এর বিপরীত ৪০ হাজার ৯০৬টি যানবাহন পারাপার হয়েছে।

ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে বেড়েই চলছে যানবাহন চলাচলের সংখ্যা। এর পাশাপাশি প্রতিদিনই টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতুতে বাড়ছে টোল আদায়ে টাকার পরিমাণ।

গত ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ একদিনে বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে ৩ কোটি ২১ লাখ ৯৭ হাজার ৩০০ টাকা টোল আদায় করেছে সেতু কর্তৃপক্ষ এবং এর বিপরীত ৪০ হাজার ৯০৬টি যানবাহন পারাপার হয়। এর মধ্যে কোরবানির পশু ও পণ্যবাহী পরিবহন বেশি পারাপার হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু সেতু সাইট অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসানুল কবীর পাভেল শুক্রবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বুধবার রাত ১২টা থেকে বৃহস্পতিবার রাত ১২টা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে ৩ কোটি ২১ লাখ ৯৭ হাজার ৩০০ টাকা টোল আদায় করেছে সেতু এবং এর বিপরীত ৪০ হাজার ৯০৬টি যানবাহন পারাপার হয়েছে।

এরমধ্যে টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব অংশে ২২ হাজার ৬৪৫টি যানবাহন পারাপার হয়। এ থেকে টোল আদায় হয় এক কোটি ৫৮ লাখ ৮১ হাজার ৪০০ টাকা এবং সিরাজগঞ্জ সেতু পশ্চিম অংশে ১৮ হাজার ২৬১টি যানবাহন থেকে টোল আদায় হয়েছে এক কোটি ৬৩ লাখ ১৫ হাজার ৯০০ টাকা।

তিনি বলেন, ‘মহাসড়কে যানজট নিরসনে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব ও পশ্চিম উভয় অংশে ৯টি করে ১৮টি টোল বুথ স্থাপনসহ মোটরসাইকেলের জন্য চারটি বুথ স্থাপন করা হয়েছে। এবারও ঘরমুখো মানুষের ঈদযাত্রা স্বস্তিদায়ক হবে বলে আশা করছি।’

এদিকে শুক্রবার ভোর থেকেই ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব টোল প্লাজা থেকে টাঙ্গাইলের রাবনা বাইপাস এলাকাজুড়ে কোথাও কোথাও থেমে থেমে ও ধীরগতিতে যানবাহন চলাচল করছে।

আরও পড়ুন:
প্রথম ব্যক্তি হিসেবে বঙ্গবন্ধু টানেলের টোল দিলেন প্রধানমন্ত্রী
পদ্মা সেতুতে পরীক্ষামূলক ইলেকট্রনিক টোল আদায় শুরু
বঙ্গবন্ধু সেতুতে সর্বোচ্চ যানবাহন পারাপার, টোল আদায়ে রেকর্ড
বঙ্গবন্ধু সেতুতে এক দিনে সোয়া ৩ কোটি টাকার টোল
বঙ্গবন্ধু সেতুতে এক দিনে আড়াই কোটি টাকার বেশি টোল

মন্তব্য

p
উপরে