× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
I won the game on December 10 I also won the final of the election Kader
hear-news
player
google_news print-icon

১০ ডিসেম্বরের খেলায় জিতেছি, নির্বাচনের ফাইনালেও জয়: কাদের

১০-ডিসেম্বরের-খেলায়-জিতেছি-নির্বাচনের-ফাইনালেও-জয়-কাদের
চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক কাউন্সিলে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন ওবায়দুল কাদের। ছবি: নিউজবাংলা
‘১০ ডিসেম্বরের খেলায় আমরা জিতে গেছি। খেলা হবে, নির্বাচনেই ফাইনাল খেলা হবে।… নির্বাচন হবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে। দুর্নীতিবাজ তারেক জিয়ার বিরুদ্ধে খেলা হবে। মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের দল আবারও সরকার গঠন করবে।

গত ১০ ডিসেম্বর রাজধানীতে বিএনপি জনসভাকে কেন্দ্র করে যেসব ঘটনা ঘটেছে, তাকে খেলা উল্লেখ করে তাতে জয় দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বলেছেন, এই খেলার ফাইনাল হবে আগামী জাতীয় নির্বাচনে।

সোমবার চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক কাউন্সিলে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এই কথা বলেন তিনি।

বিশ্বকাপের মৌসুমে গত কয়েক বছর ধরে নানা রাজনৈতিক কর্মসূচিকে ‘খেলা হবে’ বলে যে স্লোগান কাদের দিয়ে আসছেন, সেটির আরও একবার ব্যবহার দেখা গেল এখানে।

‘খেলা হবে’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এ খেলা হবে আগামী বছরের ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে। ফাইনাল খেলা… বঙ্গবন্ধু কন্যার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি আবার ক্ষমতায় আসবে।

১০ ডিসেম্বরের খেলায় জিতেছি, নির্বাচনের ফাইনালেও জয়: কাদের

তিনি বলেন, ‘১০ ডিসেম্বরের খেলায় আমরা জিতে গেছি। খেলা হবে, নির্বাচনেই ফাইনাল খেলা হবে।… নির্বাচন হবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে। দুর্নীতিবাজ তারেক জিয়ার বিরুদ্ধে খেলা হবে। মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের দল আবারও সরকার গঠন করবে।

বিএনপির চাওয়া তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা আর ফিরবে না বলেও সাফ জানিয়ে দেন আওয়ামী লীগ নেতা। তিনি বলেন, ‘বিএনপি এখনও তত্ত্বাবধায়ক সরকার চায়। আরে, তত্ত্বাবধায়ক সরকার মরে ভূত হয়ে গেছে। সংবিধান সংশোধন করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার আইন বাতিল করা হয়েছে। পাকিস্তান ছাড়া বিশ্বের কোনো দেশে তত্ত্বাবধায়ক সরকার নেই।’

বিএনপির সংসদ সদস্যদের পদত্যাগ নিয়েও কথা বলেন কাদের। বলেন, ‘বিএনপির সাত সংসদ সদস্য পদত্যাগ করলে সরকার পতন হয় না। ৩৫০ জন সদস্য নিয়ে সরকার গঠিত হয়েছে। জাতীয় পার্টি, বিকল্পধারা আছে।’

বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে ভোট চুরি করেছে বলেও অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগ নেতা। বলেন, ‘১৫ ফ্রেবুয়ারির নির্বাচনে বিএনপি ভোট ‘চুরি’ করেছে। তারা ১ কোটি ২৩ লাখ ভুয়া ভোটার বানিয়েছিল।’

সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফও। তিনি বলেন, ‘১০ তারিখ এমন একটা ভাব হয়েছিল, বাংলাদেশে যেন ভয়ঙ্কর কিছু ঘটতে যাচ্ছে। আমাকে একদিন একটি প্রভাবশালী বিদেশি দেশের রাষ্ট্রদূত জিজ্ঞেস করছিলেন, যে ১০ তারিখে কী হচ্ছে? আমি ভাবখানা এমন ছিল যেন ১০ তারিখে আকাশ মাথায় ভেঙে পড়ছে। আকাশের জায়গায় আকাশ আছে, আকাশ ভেঙে পড়ে নাই। যারা এই ১০ তারিখ নিয়ে আকাশ ভাঙার স্বপ্ন দেখেছিল, তারাই ভেঙে পড়েছে।’

তিনি বলেন, ‘১০ তারিখের সমাবেশের মাধ্যমে বিএনপি প্রমাণ করেছে তারা একটা মিথ্যাচারীর দল। ভাঁওতাবাজির দল। দেশের জনগণের সঙ্গেও প্রতারণা করে, মিথ্যাচার করে, নিজের কর্মীদের সঙ্গেও মিথ্যাচার করে।

‘জিয়াউর রহমান এই দলটা তৈরি করেছিল ক্যান্টনমেন্টে বসে অবৈধ পন্থায়। যে দলের সৃষ্টিটাই অবৈধ, সে দলের কর্মকাণ্ড কখনো জনগণের কল্যাণে হতে পারে না।

সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেন হানিফ।

সকাল সাড়ে এগারোটার দিকে নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের সংলগ্ন খোলা জায়গায় জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে সম্মেলনের শুরু হয়। আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোশাররফ হোসেন এর উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, চট্টগ্রামের বিভিন্ন আসনের সাংসদ নজরুল ইসলাম চৌধুরী, মোস্তাফিজুর রহমান, সামশুল হক চৌধুরী আবু রেজা মো. নেজামুদ্দিন নদভীও অংশ নেন।

আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, অর্থ ও পরিকল্পনা সম্পাদক ওয়াসিকা আয়েশা খান, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ সালাম, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ টি এম পেয়ারুল ইসলামও এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

মোছলেম-মফিজই থাকছেন নেতৃত্বে

১৭ বছর পর হওয়া এই সম্মেলনে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে কোনো পরিবর্তন এলো না। আগের পূর্বের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকই ফের নেতৃত্বে এসেছেন।

সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মোছলেম উদ্দিন আহমেদ ও মফিজুর রহমানের নামই ঘোষণা করেন দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হানিফ।

দীর্ঘদিন পর এই সম্মেলনে তৃণমূলের নেতাকর্মীরা নতুন নেতৃত্ব আশা করলেও কৌশলগত কারণে পুরোনোদের কাঁধেই দায়িত্ব দেয়ার কথা জানান নেতারা।

এর আগে ২০০৫ সালে ২৩ জুলাই নগরীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই সম্মেলনে প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুকে সভাপতি ও মোছলেম উদ্দিন আহমদকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়।

২০১২ সালে বাবুর মৃত্যুর পর মোছলেম উদ্দিন আহমদকে সভাপতি ও মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মফিজুর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়।

আরও পড়ুন:
সাভারে আওয়ামী লীগের জনসভায় দলে দলে আসছেন নেতা-কর্মীরা
দুপুরে আ. লীগের সমাবেশ সাভারে
হামলা-মামলায় শাসনকে দীর্ঘায়িত করতে চাইছে সরকার: সাদা দল
গোলাপবাগে গিয়ে বিএনপির অর্ধেক পরাজয় হয়েছে: কাদের
শেখ হাসিনাই বিপুল ভোটে নির্বাচিত হবেন: সেলিম মাহমুদ

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Husband absconding after beating wife to death with hammer

স্ত্রীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার পর স্বামী পলাতক

স্ত্রীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার পর স্বামী পলাতক প্রতীকী ছবি
সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুব আলম জানান, ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত তার পলাতক স্বামীকে আটকের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় থানায় হত্যামামলা হবে।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে পারিবারিক কলহের জেরে গৃহবধূকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে।

উপজেলার চেঙ্গারকান্দি গ্রামে বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ৩২ বছর বয়সী আঁখি বেগম পিরোজপুর ইউনিয়নের চেঙ্গাকান্দি গ্রামের ইব্রাহিম প্রধানের মেয়ে। ঘটনার পর থেকে পলাতক আছেন তার স্বামী সাঈদুল ইসলাম। তিনি ওই একই গ্রামের বাসিন্দা।

সোনারগাঁ থানার পুলিশ পরির্দশক আহসান হাবিব নিউজবাংলাকে এসব তথ্য জানান।

স্থানীয় ও ওই গৃহবধূর শিশু সন্তানদের বরাতে তিনি জানান, পারিবারিক কলহের জেরে সাঈদুলের সঙ্গে প্রায় ঝগড়া হতো আঁখি বেগমের। বৃহস্পতিবার রাতেও তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে ঝগড়া হয়।

পরে আঁখিকে মারধর করে হাত-পা বেঁধে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায় সাইদুল। পরে ঘর থেকে তার দুই সন্তানের চিৎকার শুনে লোকজন গিয়ে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় তার রক্তাক্ত মুখ থেতলানো অবস্থায় দেখতে পায়। পরে স্থানীয়রা অচেতন অবস্থায় তাকে উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক ওই গৃহবধূকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

স্বজনরা জানান, প্রায় ১৫ বছর আগে সাইদুলের সঙ্গে ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় আখিঁর। তাদের দুই ছেলে ও চার মাসের একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই স্বামী সাঈদুল তাকে নানা অজুহাতে মারধর করত। এ নিয়ে পরিবারের লোকজন শালিসও করেছে।

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুব আলম জানান, ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত তার পলাতক স্বামীকে আটকের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় থানায় হত্যামামলা হবে।

আরও পড়ুন:
বিকেলে মুক্তিপণ দাবি, রাতে মরদেহ উদ্ধার স্কুলছাত্রের
চুরির অভিযোগে খুঁটিতে বেঁধে দুই শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যা 
ছোট ভাইকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ
মুন্সীগঞ্জে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ
জমি নিয়ে বিরোধে বাবা-ছেলেকে হত্যা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Stolen machine recovered from thermal power plant in Rampal 4 arrested

রামপালে তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে চুরি হওয়া মেশিন উদ্ধার, আটক ৪

রামপালে তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে চুরি হওয়া মেশিন উদ্ধার, আটক ৪ বাগেরহাটের গ্রেডিং মেশিন চুরির ঘটনায় চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। ছবি: নিউজবাংলা
রামপাল থানার ওসি রাধে শ্যাম ব‌লেন, ‘বৃহস্পতিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র এলাকা থেকে চারজনকে আটক করা হয়। পরে আটকদের তথ্যের ভিত্তিতে ঢাকার যাত্রাবাড়ি থেকে চুরি হওয়া মেশিনটি উদ্ধার করে। গত ১৬ জানুয়ারি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে মেশিনটি চুরি হয়।’

বাগেরহাটের রামপাল তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে চুরি হওয়া প্রায় অর্ধকোটি টাকার কয়লা গ্রেডিং মেশিন উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে।

রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র এলাকা থেকে বৃহস্পতিবার ওই চারজনকে আটক করা হয়।

আটকরা হলেন রামপালের বর্ণী গ্রামের বাদশা শেখ, পিরোজপুরের নরখালি গ্রামের রাব্বি ইসলাম, ফকিরহাটের চিত্রা গ্রামের কার্তিক শীল ও খাজুরা গ্রামের আবুল কারিম।

রামপাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) রাধে শ্যাম সরকার নিউজবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

‌তি‌নি ব‌লেন, ‘বৃহস্পতিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র এলাকা থেকে চারজনকে আটক করা হয়। পরে আটকদের তথ্যের ভিত্তিতে ঢাকার যাত্রাবাড়ি থেকে চুরি হওয়া মেশিনটি উদ্ধার করে। গত ১৬ জানুয়ারি তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে মেশিনটি চুরি হয়।’

আরও পড়ুন:
রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের চুরির মালামাল উদ্ধার
রামপালের জন্য কয়লা এলো ইন্দোনেশিয়া থেকে
রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র: হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে ধোঁয়াশা
রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের চোরাই মালামাল উদ্ধার
রামপালে সরঞ্জাম পড়ে আছে, লোক নেই সংযোজনের

মন্তব্য

বাংলাদেশ
In the afternoon the ransom was demanded and the dead body of the schoolboy was recovered at night

বিকেলে মুক্তিপণ দাবি, রাতে মরদেহ উদ্ধার স্কুলছাত্রের

বিকেলে মুক্তিপণ দাবি, রাতে মরদেহ উদ্ধার স্কুলছাত্রের প্রতীকী ছবি
ডুমু‌রিয়া থানার ওসি সেখ ক‌নি মিয়া বলেন, ‘ওই ছাত্ররে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। তাদের বয়স ১২ থেকে ১৫ বছরের মধ্যে।’

খুলনার ডুমুরিয়ায় বিদ‌্যালয়ের একটি কক্ষ থেকে এক স্কুলছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরিবারের দাবি, ওই ছাত্রকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করেছিল কয়েকজন কিশোর, তা দিতে না পারায় তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

ডুমুরিয়া উপজেলার গুটু‌দিয়া এসিজিবি মাধ‌্যমিক বিদ‌্যালয়ের একটি কক্ষ থেকে বৃহস্প‌তিবার রাত ১টার দিকে ওই ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ছয়জনকে আটক করেছে পুলিশ।

১৩ বছর বয়সী স্কুলছাত্র নিরব মন্ডল ওই এলাকার শেখর মন্ডলের ছেলে এবং একই বিদ্যালয়ের ছাত্র।

ডুমু‌রিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেখ ক‌নি মিয়া নিউজবাংলাকে এসব তথ্য জানান।

পরিবারের বরাতে তিনি জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে নিরব বাড়ি থেকে গুটু‌দিয়া মাধ‌্যমিক বিদ‌্যালয়ের দিকে যায়। পরে বিকেল ৪টার দিকে তার বাবার কাছে দুটি নাম্বর দিয়ে ফোন করে ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। বিষয়টি তিনি তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশকে জানান ও থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

পরে ওই নম্বর দুটিতে কল দিলে বন্ধ পাওয়া যায়। একপর্যায়ে, অনেক খোঁজাখুঁজির পর রাতে বিদ্যালয়ের পরিত্যাক্ত শ্রেণীকক্ষে তার মরদেহ পাওয়া যায়।

ওসি সেখ ক‌নি মিয়া বলেন, ‘ওই ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। তাদের বয়স ১২ থেকে ১৫ বছরের মধ্যে।’

আরও পড়ুন:
চুরির অভিযোগে খুঁটিতে বেঁধে দুই শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যা 
ছোট ভাইকে গলা কেটে হত্যার অভিযোগ
মুন্সীগঞ্জে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ
জমি নিয়ে বিরোধে বাবা-ছেলেকে হত্যা
যৌতুকের দাবিতে উর্মিকে হত্যা, মামলা নিচ্ছে না পুলিশ: পরিবার

মন্তব্য

বাংলাদেশ
If the book is late in reaching somewhere I will definitely look into it Education Minister

কোথাও বই পৌঁছাতে দেরি হলে অবশ্যই দেখব: শিক্ষামন্ত্রী

কোথাও বই পৌঁছাতে দেরি হলে অবশ্যই দেখব: শিক্ষামন্ত্রী চাঁদপুর সার্কিট হাউসে শুক্রবার সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ছবি: নিউজবাংলা
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘যে সকল শিক্ষার্থীকে বই দেয়া বাকি ছিল, তাদের ২৫ তারিখের মধ্যে সমস্ত বই দিয়ে দেয়ার কথা ছিল। কাজেই কোথাও যদি বই পৌঁছাতে দেরি হয়ে থাকে, অবশ্যই আমি তা দেখব।’

দেশের কোথাও বই পৌঁছাতে দেরি হয়ে থাকলে সে বিষয়ে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

চাঁদপুর সার্কিট হাউসে শুক্রবার এক প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের পাঠ্যবই না পাওয়া প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘যে সকল শিক্ষার্থীর বই দেয়া বাকি ছিল, তাদের ২৫ তারিখের মধ্যে সমস্ত বই দিয়ে দেয়ার কথা ছিল। কাজেই কোথাও যদি বই পৌঁছাতে দেরি হয়ে থাকে, অবশ্যই আমি তা দেখব।’

দীপু মনি বলেন, ‘ওয়েবসাইটে প্রতিটি বই দেয়া আছে। এরপরও যদি কোনো ব্যত্যয় ঘটে থাকে, তাহলে শিক্ষকরা সেখান থেকে শিক্ষার্থীদের পড়াতে পারেন। শুধু জ্ঞানভিত্তিক নয়; দক্ষতাভিত্তিক, সফট স্কিল ও মূল্যবোধ শেখার মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীরা স্মার্ট নাগরিক হয়ে উঠবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘২০৪১ সালের মধ্যে আমরা একটি উন্নত, সমৃদ্ধশালী, সুখী বাংলাদেশ হব। আর সেটি হবে স্মার্ট বাংলাদেশ। আমাদের সমস্ত সেবা, সমস্ত কাজ এবং বিজ্ঞান-প্রযুক্তি যা কিছু আছে, সকল প্রযুক্তি নিয়ে মানুষ দক্ষ হয়ে উঠবে।

‘যত স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা আছে, যত সেবার মান আছে, তা নিশ্চিত হবে। কাজেই স্মার্ট বাংলাদেশ মানে সেই বাংলাদেশ, যেখানে প্রত্যেকটি নাগরিকই স্মার্ট নাগরিক হবেন।’

ওই সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, অ্যাডভোকেট মজিবুর রহমান ভূইয়া, চাঁদপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর রনজিত রায় চৌধুরী।

আরও পড়ুন:
এ বছর প্রায় ৩৫ কোটি বই পেয়েছে শিক্ষার্থীরা: শিক্ষামন্ত্রী
সংসারে সবচেয়ে কঠিন কাজ নারীরাই করেন: দীপু মনি
সরকারি স্কুলেই শিক্ষার্থীদের আগ্রহ বেশি: শিক্ষামন্ত্রী
সবাইকে নিয়েই আওয়ামী লীগের নতুন নেতৃত্ব: শিক্ষামন্ত্রী
ওসমান ফারুককে গ্রেপ্তারে আবেদন জানাবে তদন্ত সংস্থা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Kopal is the opponent of 8 people including women in the land dispute

জমি নিয়ে বিরোধে নারীসহ ৮ জনকে কোপাল প্রতিপক্ষ

জমি নিয়ে বিরোধে নারীসহ ৮ জনকে কোপাল প্রতিপক্ষ হাসপাতালে আহতদের স্বজনরা। ছবি: নিউjবাংলা
মাদারীপুর সদর মডেল থানার ওসি মনোয়ার জানান, হাসপাতাল ও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। এ ব্যাপারে তদন্তপূর্বক আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মাদারীপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে নারীসহ ৮ জনকে কুপিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের লোকজনের বিরুদ্ধে।

সদর উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের মিয়ারচর এলাকায় বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন ওই এলাকার সোহরাব সরদার, তার ছেলে আকাশ সরদার, একই এলাকার মাসুদ সরদার, খালেক সরদারের স্ত্রী জুলেখা বেগম, বাদশা সরদারের স্ত্রী মালা বেগম, হালান সরদারের ছেলে বিল্লাল সরদার, আসাদ সরদার ও তার স্ত্রী সোরেফা বেগম।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী নিউজবাংলাকে এসব তথ্য জানান।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে তিনি জানান, মিয়ারচর এলাকার আসাদ সরদারের সঙ্গে প্রতিবেশি জালাল সরদারের জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে মীমাংসার জন্য এলাকায় বেশ কয়েকবার সালিশী-বৈঠক করে স্থানীয় মাতবররা। এতে সমাধান না হলে ক্ষিপ্ত হয়ে আসাদ ও তার পরিবারের ওপর দুপুরে অতর্কিত হামলা চালায় জালাল ও তার লোকজন।

এ সময় দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করা হয় নারীসহ ৮ জনকে। পরে আহত অবস্থায় সবাইকে উদ্ধার করে ভর্তি করা হয় জেলা সদর হাসপাতালে। এদিকে অবস্থার অবনতি হওয়ায় দুইজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজে পাঠায় চিকিৎসক। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবী করেছেন স্বজন ও এলাকাবাসী।

ওসি মনোয়ার জানান, হাসপাতাল ও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। এ ব্যাপারে তদন্তপূর্বক আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন:
আদালতের বুঝিয়ে দেয়া জমিতে কাউন্সিলরের বাধার অভিযোগ
মানবতাবিরোধী অপরাধে ময়মনসিংহের ৬ জনের ফাঁসি
মানবতাবিরোধী অপরাধ: ত্রিশালের মুকুলসহ ছয়জনের রায় সোমবার
অধিগ্রহণের নামে ভাঙচুর, জানে না কর্তৃপক্ষ
প্রবাসীর জমি দখল করে বসতঘর নির্মাণের অভিযোগ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Prime Minister assured to allocate according to demand Rangpur City Mayor

প্রধানমন্ত্রী চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন: রংপুর সিটি মেয়র

প্রধানমন্ত্রী চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন: রংপুর সিটি মেয়র রংপুর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান নেতা-কর্মীরা। ছবি: নিউজবাংলা
নবনির্বাচিত মেয়র মোস্তফা বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার ওপর অত্যন্ত খুশি। তিনি বলেছেন যে প্রার্থীই নির্বাচিত হোক না কেন, উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে। আমার চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।’

প্রধানমন্ত্রী চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন রংপুর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা।

রংপুর সিটি পরিষদ ও নগরবাসীর সহযোগিতা নিয়ে আগামী পাঁচ বছরে নগরীর বৈপ্লবিক পরিবর্তন ঘটানোর পরিকল্পনার কথা জানিয়ে মোস্তফা বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার ওপর অত্যন্ত খুশি। তিনি বলেছেন যে প্রার্থীই নির্বাচিত হোক না কেন, উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে। আমার চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।’

মেয়র নির্বাচিত হবার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে গত ৩১ জানুয়ারি শপথ শেষে বৃহস্পতিবার বিকেলে নগর ভবনে যান তিনি। এ সময় নেতা-কর্মী ও নগর ভবনের কর্মকর্তারা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

তিনি বলেন, ‘নগরবাসী আমার ওপর দ্বিতীয়বারের মতো আস্থা রেখে আমাকে সম্মানিত করেছেন, আমি তাদের আস্থার মান রক্ষার চেষ্টা করব।’

নবনির্বাচিত এ মেয়র বলেন, ‘আমি মনে করি দ্বিতীয়বার মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে আমার দায়িত্ব আরও বেড়ে গেছে। আমি সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে যাব।’

মোস্তফা বলেন, ‘নগরীর উন্নয়নের জন্য আমি এক হাজার ৬৮০ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনা দাখিল করেছি। চিকলী পার্কের জন্য ৪৯ কোটি টাকার একটি উন্নয়ন প্রকল্প জমা দেয়া হয়েছে। শ্যামাসুন্দরী খালের উন্নয়ন নিয়েও একটি প্রকল্প জমা দিয়েছি। বিগত সময়ে করোনার জন্য শ্যামাসুন্দরী খালের উন্নয়ন করা সম্ভব হয়নি। এবার বিভাগীয় প্রশাসনের সঙ্গে সেতু বন্ধনের মাধ্যমে আমরা শ্যামাসুন্দরী খালের উন্নয়ন করব।’

আরও পড়ুন:
প্রতি ওয়ার্ডে মুক্তিযোদ্ধাদের নামে সড়ক হবে: মেয়র আতিকুল
বুড়িগঙ্গা আদি চ্যানেলের প্রশস্ততা ১০ গুণ বেড়েছে: মেয়র তাপস
জাহাঙ্গীর মেয়র পদ হারাননি: এলজিআরডি মন্ত্রী
রংপুরে এক মঞ্চে ৯ মেয়র প্রার্থী, দুর্নীতিমুক্ত উন্নয়নের অঙ্গীকার
জাপায় নির্ভার মোস্তফা, মুকুট চায় আওয়ামী লীগ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
1300 kg of jatka was found in the train

ট্রেনে মিলল ১৩০০ কেজি জাটকা

ট্রেনে মিলল ১৩০০ কেজি জাটকা ট্রেনের বগি থেকে ১৩০০ কেজি জাটকা জব্দ করা হয়েছে। ছবি: নিউজবাংলা
কোস্টগার্ড ঢাকা জোন মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার খন্দকার মুনিফ তকি বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড স্টেশন চাঁদপুর ও উপজেলা মৎস্য অফিসের যৌথ অভিযানে চট্টগ্রামগামী সাগরিকা ট্রেনে তল্লাশি করে ১৩০০ কেজি জাটকা জব্দ করা হয়, যা ৩২.৫ মণের সমান।’

চাঁদপুরে কোস্ট গার্ডের অভিযানে ট্রেনের বগি থেকে ১৩০০ কেজি জাটকা জব্দ করা হয়েছে।

চাঁদপুর শহরের কোর্টস্টেশনে চট্টগ্রামগামী ট্রেনের মালবাহী একটি বগীতে তল্লাশি করে বৃহস্পতিবার দুপুরে মাছগুলো জব্দ করা হয়।

কোস্টগার্ড ঢাকা জোন মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার খন্দকার মুনিফ তকি বৃহস্পতিবার রাতে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড স্টেশন চাঁদপুর ও উপজেলা মৎস্য অফিস যৌথভাবে শহরের কালিবাড়ি রেলওয়ে কোর্ট স্টেশন এলাকায় একটি অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে চট্টগ্রামগামী সাগরিকা ট্রেনে তল্লাশি করে ১৩০০ কেজি জাটকা জব্দ করা হয়, যা ৩২.৫ মণের সমান।

‘পরে চাঁদপুর সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. তানজিমুল ইসলামের উপস্থিতিতে জব্দ করা জাটকা স্থানীয় এতিমখানা ও অসহায় মানুষদের মাঝে বিতরণ করা হয়।’

আরও পড়ুন:
জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ শুরু ৩১ মার্চ
নিষেধাজ্ঞার মধ্যে মেঘনায় অবাধে জাটকা নিধন
লঞ্চঘাটে পড়ে ছিল ১২ শ কেজি জাটকা
বাস থেকে জব্দ হাজার কেজি জাটকা
৪৫ মণ জাটকাসহ গ্রেপ্তার ছয়জন

মন্তব্য

p
উপরে