× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
After 29 years 3 convicts get life
hear-news
player
google_news print-icon

২৯ বছর পর ৩ আসামির যাবজ্জীবন

২৯-বছর-পর-৩-আসামির-যাবজ্জীবন
অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-২ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর গিয়াসউদ্দিন জানান, এ হত্যা মামলায় মোট আসামি ছিলেন ২৫ জন। তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়, মামলার বাকি আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের খালাস দেয়া হয়।

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার রায়লক্ষ্মীপুর গ্রামের কৃষক সুনীল কুমার দাসকে হত্যার দায়ে দুই ভাইসহ তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া তাদের প্রত্যেকের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে।

২৯ বছর পর অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ মাসুদ আলী বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে জনাকীর্ণ আদালতে আসামিদের উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ড পাওয়া আসামিরা হলেন আলমডাঙ্গার রায়লক্ষ্মীপুর গ্রামের কালু ফকিরের ছেলে সুলতান হোসেন, লালু মণ্ডলের ছেলে লিয়াকত আলী ওরফে ন্যাকো ও তার ভাই শওকত আলী।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, জমি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে ১৯৯৩ সালের ৯ ডিসেম্বর রাত ৮টার দিকে দণ্ডিত আসামিরাসহ অন্তত ১৫-১৬ ব্যক্তি সুনীলদের বাড়িতে গিয়ে সুনীলের গায়ে থাকা চাদর দিয়ে দু’হাত বেঁধে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। ঘটনাস্থলেই মারা যায় সুনীল। এ ঘটনার পরদিন সুনীলের ভাই অনিল কুমার দণ্ডিত আসামিসহ অজ্ঞাত আসামিদের নামে থানায় এজাহার করেন।

মামলায় মোট ১০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। সাক্ষ্য প্রমাণে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আদালতের বিজ্ঞ বিচারক আসামি সুলতান হোসেন, লিয়াকত আলী ও শওকত আলীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন।

একই সঙ্গে দণ্ড পাওয়া সবাইকে ১০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দেয়া হয়। অনাদায়ে আরও ছয় মাসের দণ্ডাদেশ দেয়া হয়।

অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-২ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর গিয়াসউদ্দিন জানান, এ হত্যা মামলায় মোট আসামি ছিলেন ২৫ জন। তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়, মামলার বাকি আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের খালাস দেয়া হয়।

আরও পড়ুন:
শাশুড়িকে হত্যার ১৩ বছর পর পুত্রবধূর যাবজ্জীবন
৭ মাসের শিশু হত্যায় দাদির যাবজ্জীবন
পাবনায় কৃষক হত্যায় ২১ জনের যাবজ্জীবন
সিলেটে সাংবাদিক হত্যার এক যুগ পর ৬ জনের যাবজ্জীবন
৭ বছর পর গ্রেপ্তার যাবজ্জীবন সাজা পাওয়া আসামি

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Allegations of gas theft worth one and a half crore rupees per month disconnected

মাসে দেড় কোটি টাকার গ্যাস চুরির অভিযোগ, সংযোগ বিচ্ছিন্ন

মাসে দেড় কোটি টাকার গ্যাস চুরির অভিযোগ, সংযোগ বিচ্ছিন্ন দুটি কারখানায় বছরের পর বছর অবৈধ উপায়ে গ্যাস ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। ছবি: নিউজবাংলা
সাভার আঞ্চলিক তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানীর ব্যবস্থাপক (বিপণন) আবু সাদাত মো. সায়েম জানান, মারহাবা সিনথেটিক স্পিনিং মিল থেকে গোপনে পার্শ্ববর্তী সুইচ কোয়ালিটি পেপার বিডি লিমিটেড কারখানায় অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ নেয়া হয়েছিল।

ঢাকার সাভারে একটি স্পিনিং মিল ও একটি পেপার তৈরির কারখানায় বছরের পর বছর অবৈধ উপায়ে প্রায় দেড় কোটি টাকার বেশি গ্যাস ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে।

তিতাস কর্তৃপক্ষের উপস্থিতি টের পেয়ে কারখানা দুটির কর্তাব্যক্তিরা পালিয়ে গেছেন, পরে কারখানা দুটির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানী।

সাভার পৌর এলাকার পূর্ব রাজাশনে মারহাবা সিনথেটিক স্পিনিং মিল ও সুইচ কোয়ালিটি পেপার বিডি লিমিটেড নামে মঙ্গলবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত দুটি কারখানায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।

সাভার আঞ্চলিক তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানীর ব্যবস্থাপক (বিপণন) আবু সাদাত মো. সায়েম জানান, মারহাবা সিনথেটিক স্পিনিং মিল থেকে গোপনে পার্শ্ববর্তী সুইচ কোয়ালিটি পেপার বিডি লিমিটেড কারখানায় অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ নেয়া হয়েছিল।

দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে পেপার মিলটিতে ১০ টন ওজনের ‍দুটি ব্রয়লার ও উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন তিনটি জেনারেটরের মাধ্যমে এই চোরাই গ্যাস ব্যবহার করা হচ্ছিল। এতে করে প্রায় এক কোটি ৫৮ লাখ টাকার সরকারি গ্যাস চুরি করে আসছিল ওই প্রতিষ্ঠানটি। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সকালে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানীর পক্ষ থেকে একটি দল রাজাশন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে।

এ সময় তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে কারখানা কর্তৃপক্ষ পালিয়ে যায়। পরে কাউকে না পেয়ে উভয় কারখানার গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

এ ঘটনায় সরকারি সম্পদ চুরির অভিযোগে বিধি মোতাবেক বিভাগীয় ব্যবস্থাসহ আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন:
ভোলা নর্থ-২ এ প্রতিদিন মিলবে ২ কোটি ঘনফুট গ্যাস
গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ব্যাখ্যা দিল সরকার
শিল্পে বাড়ল গ্যাসের দাম
কুমিল্লায় গ্যাসের অভাবে জ্বলে না চুলা
বিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম নির্ধারণ করতে পারবে সরকার

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The curtain of colorful Madaripur festival came down in Shivchar

বর্ণিল মাদারীপুর উৎসবের পর্দা নামলো শিবচরে

বর্ণিল মাদারীপুর উৎসবের পর্দা নামলো শিবচরে শিবচরে মঙ্গলবার রাতে মাদারীপুর উৎসবের পর্দা নামলো। ছবি: নিউজবাংলা
মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন জানান, জেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য ও শিল্প-সংস্কৃতিকে সারাদেশে পরিচয় করাই ছিল মাদারীপুর উৎসবের মূল উদ্দেশ্য।

মাদারীপুর সদরে জেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত ১২ দিনব্যাপী বর্ণিল মাদারীপুর উৎসবের পর্দা নামলো শিবচরে ।

শিবচরে মঙ্গলবার রাতে সেটির বর্ণিল পর্দা নামলো। শেষ দিনে গান গেয়ে মঞ্চ মাতান তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

এর আগে গত ২০ জানুয়ারি বিকেল ৫টায় মাদারীপুর আছমত আলী খান স্টেডিয়ামে ১২ দিনব্যাপী মাদারীপুর উৎসব ও মাসব্যাপী বাণিজ্যমেলার উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমীন চৌধুরী।

মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন জানান, উদ্বোধন থেকে শুরু করে সমাপনী পর্যন্ত দেশ বরেণ্য সব গুনীজনের অংশগ্রহণে জমকালো সব আয়োজন ছিল মনোমুগ্ধকর ও আকর্ষনীয়। জেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য ও শিল্প-সংস্কৃতিকে সারাদেশে পরিচয় করাই ছিল মাদারীপুর উৎসবের মূল উদ্দেশ্য।

২০ জানুয়ারী সন্ধা ৬টায় একুশে পদকপ্রাপ্ত প্রখ্যাত চিত্রশিল্পী কাজী আনোয়ার হোসেন আন্তর্জাতিক চারুকলা প্রদর্শনী শুরু হয় পৌর অডিটরিয়ামে।

জেলা সদরসহ ৫ উপজেলায় গৃহীত নানা কর্মসূচি পালনসহ ১২ দিনব্যাপী ‘মাদারীপুর উৎসব ২০২৩’ এর সমাপনী দিন মঙ্গলবার শিবচরে স্মার্ট শিবচর উদ্বোধন এফ.আর খান উদ্যোক্তা সম্মেলন ও জব ফেয়ার ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে শেষ হলো এবারের বর্ণিল আয়োজন।

এ ছাড়া ১২ দিন জেলা সদর, শিবচর, কালকিনি, রাজৈর, ডাসারসহ ৫ উপজেলায় আলাদাভাবে উৎসবের বিভিন্ন পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ছিল গোল্ডকাপ দাবা, কাবাডি টেনিস, ক্রিকেট, হ্যান্ডবল ও ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট, পিঠা উৎসব, ম্যারাথন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘প্রজন্মকে জানি’ সাহিত্য সম্মেলনসহ ২৬টির বেশি অনুষ্ঠান হয়।

তিনি আরও জানান, গত ২১ জানুয়ারি জেলা প্রশাসক গোল্ডকাপ আন্তর্জাতিক দাবা টুর্নামেন্ট, আচমত আলী খান গোল্ডকাপ কাবাডি টুর্নামেন্ট, জেলা প্রশাসক জাতীয় লন টেনিস টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়।

২২ জানুয়ারী কালকিনিতে উপমহাদেশের প্রথম নারী চিকিৎসক ডা. জোহরা কাজী গোল্ডকাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট, রাজৈর উপজেলা পরিষদে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক আলোচনা অনুষ্ঠান ‘প্রজন্মকে জানি’ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

আর শেষ দিন মঙ্গলবার দুপুরে শিবচরের চৌধুরী ফাতেমা বেগম পৌর অডিটোরিয়ামে স্মার্ট শিবচর উদ্বোধন, এফ. আর. খান উদ্যোক্তা সম্মেলন ও জব ফেয়ার উদ্বোধন এবং সন্ধ্যায় হাতির বাগান মাঠে সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

আরও পড়ুন:
বড়আন বিলে ‘পলো উৎসব’
সুইজারল্যান্ডে বাঙালির পিঠা উৎসব
পুরান ঢাকায় সাকরাইনের আমেজ
নোয়াখালীতে হাশেম উৎসব শুরু
বইবাড়ি উৎসব হচ্ছে মানিকগঞ্জে

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Matichapa is given 15 5 maunds of jelly shrimp

জেলিযুক্ত সাড়ে ১৫ মণ চিংড়ি মাটিচাপা

জেলিযুক্ত সাড়ে ১৫ মণ চিংড়ি মাটিচাপা চাঁদপুরে ১৫.৫ মণ জেলিযুক্ত চিংড়ি জব্দ করেছে কোস্টগার্ড। ছবি: নিউজবাংলা
চাঁদপুর সদর উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান বলেন, ‘মধ্যরাত থেকে ভোর পর্যন্ত হরিণা ফেরিঘাটে যৌথ অভিযান পরিচালনা করে চাঁদপুর সদর উপজেলা মৎস্য বিভাগ ও কোস্টগার্ড। এ সময় খুলনা থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী বাসে তল্লাশি চালিয়ে ৬২০ কেজি জেলিযুক্ত চিংড়ি জব্দ করা হয়, যা সাড়ে ১৫ মণের সমান।’

চাঁদপুর সদর উপজেলার হরিণা ফেরিঘাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে সাড়ে ১৫ মণ জেলিযুক্ত চিংড়ি জব্দ করেছে কোস্টগার্ড।

জব্দ করা চিংড়ি কোস্টগার্ড চাঁদপুর স্টেশন এলাকায় মঙ্গলবার বিকেলে মাটিতে পুঁতে নষ্ট করা হয়।

চাঁদপুর সদর উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান সন্ধ্যায় নিউজবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘মধ্যরাত থেকে ভোর পর্যন্ত হরিণা ফেরিঘাটে যৌথ অভিযান পরিচালনা করে চাঁদপুর সদর উপজেলা মৎস্য বিভাগ ও কোস্টগার্ড। এ সময় খুলনা থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী বাসে তল্লাশি চালিয়ে ৬২০ কেজি জেলিযুক্ত চিংড়ি জব্দ করা হয়, যা সাড়ে ১৫ মণের সমান।’

সদর উপজেলা জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা মো. তানজিমুল ইসলাম ও কোস্টগার্ড চাঁদপুর স্টেশন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট মাশহাদ উদ্দিন নাহিয়ানের উপস্থিতিতে বিকেলে চিংড়িগুলো মাটিচাপা দেয়া হয়।

আরও পড়ুন:
২ টন সিলিকন জেলযুক্ত চিংড়ি যাচ্ছিল ঢাকায়
ওজন বাড়াতে চিংড়িতে জেলি, জড়িতদের দণ্ড
বাগেরহাটে চিংড়ির মড়ক কেন
প্রভাবশালীদের চিংড়ি ঘেরে লোনাপানি, বিলীন হাজার বিঘা কৃষিজমি
সুন্দরবনে ৮ মণ চিংড়ি জব্দ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Mongla EPZ fire under control after 8 hours

মোংলা ইপিজেডের আগুন ৮ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে

মোংলা ইপিজেডের আগুন ৮ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে দীর্ঘ ৮ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে এসেছে মোংলা ইপিজেডের আগুন। ছবি: নিউজবাংলা
খুলনা ফায়ার সার্ভিসের বিভাগীয় উপ-পরিচালক মো. মামুন মাহমুদ বলেন, ‘বিকেল সাড়ে ৩টার সময় আগুনের খবর পেয়ে নৌবাহিনীসহ ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজে অংশ নেয়। ফ্যাক্টরিতে ফ্যাব্রিক্স, পলিথিন, ফ্যাব্রিকেটেড পণ্য রয়েছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও বিচ্ছিন্নভাবে কোথাও কোথাও আগুন জ্বলছে।’

দীর্ঘ ৮ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্এণ এসেছে মোংলা রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলের (ইপিজেড) ভিআইপি-ব্যাগ কারখানার আগুন। ঘটনা তদন্তে ৪ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

মোংলা ইপিজেডের নির্বাহী পরিচালক মো. মাহাবুব আহম্মেদ সিদ্দিক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় আগুন লাগার পর নৌবাহিনী, খুলনা, বাগেরহাট ও মোংলা ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজে অংশ নেয়।

বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস। তবে আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও বিচ্ছিন্ন স্থানে আগুন জ্বলছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

তবে কারখানায় কর্মরত শ্রমিক এমাদুল শেখ বলেন, ‘কারখানায় ঝালাইয়ের কাজ চলছিল। এ সময় আগুনের ফুলকি এসে পড়ে ফোমের ওপর। সঙ্গে সঙ্গে কক্ষটি ধোঁয়ায় আচ্ছন হয়ে পড়ে এবং আগুন চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে।’

খুলনা ফায়ার সার্ভিসের বিভাগীয় উপ-পরিচালক মো. মামুন মাহমুদ বলেন, ‘বিকেল সাড়ে ৩টার সময় আগুনের খবর পেয়ে নৌবাহিনীসহ ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজে অংশ নেয়। ফ্যাক্টরিতে ফ্যাব্রিক্স, পলিথিন, ফ্যাব্রিকেটেড পণ্য রয়েছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও বিচ্ছিন্নভাবে কোথাও কোথাও আগুন জ্বলছে।

‘এখন পর্যন্ত কেউ হতাহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। ফায়ার ফাইটাররাও আহত বা নিহত কাউকে পাননি। তবে আগুন পুরোপুরি নেভানোর পর আমরা পুরো ফ্যাক্টরি তল্লাশি করব। তখন বোঝা যাবে যে আসলে কেউ হতাহত হয়েছে কি না।’

মোংলা ইপিজেডের নির্বাহী পরিচালক মো. মাহাবুব আহম্মেদ সিদ্দিক বলেন, ‘কারখানায় কোম্পানিটির ফোম ও ব্যাগ ছিল। অগ্নিকাণ্ডের সময় দ্রুত সেখানে কর্মরত শ্রমিকেরা বেরিয়ে আসেন। এ ঘটনায় ৪ সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ক্ষতির পরিমাণ এখনই নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না।

আরও পড়ুন:
মোংলা ইপিজেডে কারখানায় আগুন
বাসে হঠাৎ আগুন, পুড়ে ছাই যাত্রীদের মালামাল
চট্টগ্রামে নূপুর মার্কেটে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৮ ইউনিট
নিকুঞ্জে কলেজ হোস্টেলের আগুন নিয়ন্ত্রণে
নারায়ণগঞ্জে আগুনে পুড়ল ৬ দোকান

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Kidnapped and raped 2 young men for life

অপহরণের পর কিশোরীকে ধর্ষণ, ২ যুবকের যাবজ্জীবন

অপহরণের পর কিশোরীকে ধর্ষণ, ২ যুবকের যাবজ্জীবন নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালত। ফাইল ছবি
আদালত পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান জানান, ২০১২ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর রূপগঞ্জের পূবেরগাঁও এলাকা থেকে ওই কিশোরীকে জোরপূর্বক অপহরণ করে ধর্ষণ করেন আসামিরা। এরপর কিশোরীর পরিবারের কাছে মুক্তিপণ হিসেবে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করে তারা। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা রূপগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় কিশোরীকে অপহরণের পর ধর্ষণের দায়ে দুই যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক নাজমুল হক শ্যামল মঙ্গলবার দুপুরে এ রায় ঘোষণা করেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- জাফর ইসলাম রিজভী (৩৬) ও সজিব ভূঁইয়া বাবু (৩৬), তবে রায় ঘোষণার সময়ে আদালতে তারা অনুপস্থিত ছিলেন।

আদালত পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান জানান, ২০১২ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর রূপগঞ্জের পূবেরগাঁও এলাকা থেকে ওই কিশোরীকে জোরপূর্বক অপহরণ করে ধর্ষণ করেন আসামিরা। এরপর কিশোরীর পরিবারের কাছে মুক্তিপণ হিসেবে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করেন তারা। এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা রূপগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট রকিবউদ্দিন আহমেদ বলেন, তদন্তকারী কর্মকর্তাসহ পাঁচজন সাক্ষীর সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে আদালত এ রায় ঘোষণা করেছেন। আসামিরা পলাতক থাকায় তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
নারায়ণগঞ্জের এসপিসহ ৪২ জনের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন রিজভীর
বিএনপির বিরুদ্ধে মামলা ‘লিখে দিয়েছে পুলিশ’, লাপাত্তা শাওনের ভাই
দেশে ফিরে গ্রেপ্তার ‘নারায়ণগঞ্জের ত্রাস’ জাকির খান
শাওন যুবদলের নন, আ.লীগ নেতার ভাতিজা: তথ্যমন্ত্রী
হাসপাতাল নেই, বেতন নিচ্ছেন ৭ চিকিৎসক  

মন্তব্য

বাংলাদেশ
BNP is walking in Dum Furnoi Information Minister

দম ফুরনোয় হাঁটছে বিএনপি: তথ্যমন্ত্রী

দম ফুরনোয় হাঁটছে বিএনপি: তথ্যমন্ত্রী তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। ছবি: নিউজবাংলা
হাছান মাহমুদ বলেন, ‘ বিএনপিতো আগে মিছিল করত। এখন মিছিলের পরিবর্তে হাঁটা শুরু করেছে। দম ফুরিয়ে গেছে সম্ভবত।’

দম ফুরিয়ে যাওয়ায় বিএনপি হাঁটা শুরু করেছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

চট্টগ্রামে আরবান ট্রান্সপোর্টেশন মহাপরিকল্পনা প্রণয়ন এবং মেট্রোরেলের প্রাক-সম্ভাব্যতা যাচাই কার্যক্রম শুরুর অনুষ্ঠানে মঙ্গলবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘ বিএনপিতো আগে মিছিল করত। এখন মিছিলের পরিবর্তে হাঁটা শুরু করেছে। দম ফুরিয়ে গেছে সম্ভবত।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিএনপি যে পদযাত্রা শুরু করেছে, কারও কাছ থেকে নকল করছে সম্ভবত। আপনারা চোখ মেলে দেখুন, কারও কাছ থেকে নকল করছে কি না। তবে পদযাত্রা করুক আর যে যাত্রাই করুক, তাদের এই যাত্রায় তাদের কর্মীরাও নাই। জনগণ তো দূরের কথা, সাধারণ কর্মীরাও এই যাত্রায় শামিল হননি।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি ২০১৩, ২০১৪ ও ২০১৫ সালে মানুষের ওপর পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করেছে, জীবন্ত মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে, মানুষের মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে। আবার জনগণের কাছে যদি যেতে হয়, তাহলে সেগুলোর জন্য মানুষের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।’

বিএনপির নির্বাচনে না আসলে এতে কোনো প্রভাব পড়বে কি না জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘আমি আশা করি, তারা (বিএনপি) নির্বাচনে অংশ নেবে। আমরা চাই বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক। প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ সুন্দর ও সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের মানুষ আগামী দিনের সরকার পছন্দ করুক, সেটি আমরা চাই।’

আরও পড়ুন:
বিএনপির আন্দোলন পুরোনো গাড়ি স্টার্ট নেয়ার মতো: তথ্যমন্ত্রী
গুজব রোধে ডিসিদের তাৎক্ষণিক ব্যবস্থার নির্দেশ তথ্যমন্ত্রীর
বিএনপি আওয়ামী লীগকে দেখে ভয় পাচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী
জামায়াত ও হেফাজতের সঙ্গে সমঝোতার প্রশ্ন অবান্তর: তথ্যমন্ত্রী
ভোটে জনপ্রিয়তা যাচাইয়ে বিএনপিকে পরামর্শ তথ্যমন্ত্রীর

মন্তব্য

বাংলাদেশ
240 digit suffering in rural electricity recharge card

পল্লী বিদ্যুৎ রিচার্জ কার্ডে ২৪০ ডিজিট, ভোগান্তি

পল্লী বিদ্যুৎ রিচার্জ কার্ডে ২৪০ ডিজিট, ভোগান্তি প্রি-পেইড মিটার রিচার্জ কার্ডে ২৪০ ডিজিট নিয়ে ভোগান্তিতে গ্রাহকরা। ছবি: নিউজবাংলা
মাহমুদুল হাসান নামের এক শিক্ষক বলেন, প্রি-পেইড মিটার রিচার্জের সময় সংখ্যাগুলো কেবল একবারই প্রবেশ করাতে হবে। আরও সহজ সিস্টেম হলে প্রি-পেইড মিটার ব্যবহারে গ্রাহকদের আগ্রহ বাড়ত।

পল্লী বিদ্যুতের প্রি-পেইড মিটার রিচার্জ কার্ডে ২৪০ ডিজিট নিয়ে গ্রাহকদের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। ভোগান্তি থেকে রেহাই পেতে নরসিংদীতে দফায় দফায় প্রতিবাদ সভাসহ মানববন্ধন করা হলেও কোনো সুফল পাননি গ্রাহকরা।

সদর উপজেলার মেহেরপাড়া গ্রামের আহসান হাবীব রোমান সম্প্রতি বিদ্যুতের প্রি-পেইড মিটারে এক হাজার টাকা রিচার্জ করতে গেলে ভুল করেন দুইবার। শেষ পর্যন্ত আধা ঘণ্টার চেষ্টায় সফল হন তিনি।

নিউজবাংলাকে রোমান বলেন, ২৪০টি নম্বর চাপতে চাপতে আমি ক্লান্ত। ভুল হয়েছে দুবার , সময় লেগেছে আধা ঘন্টার ওপরে। এর মানেটা কী? এটা কেমন ডিজিটাল বাংলাদেশরে বাবা ?

আমিনুল নামের আরেক গ্রাহক বলেন, মিটার রিচার্জ করতে ঝামেলা হয়। পরে অফিসে গিয়ে অবগত করা হলে লোক এসে তা রিচার্জ করে দেয়। আমাদের ভোগান্তি দূর করতে রিচার্জ ব্যবস্থা আরও সহজ হওয়া দরকার।

মাহমুদুল হাসান নামের এক শিক্ষক বলেন, প্রি-পেইড মিটার রিচার্জের সময় সংখ্যাগুলো কেবল একবারই প্রবেশ করাতে হবে। আরও সহজ সিস্টেম হলে প্রি-পেইড মিটার ব্যবহারে গ্রাহকদের আগ্রহ বাড়ত।

প্রি-পেইড মিটারের রিচার্জ ভোগান্তির বিষয়ে নরসিংদী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার মো. সোহেল পারভেজ নিউজবাংলাকে বলেন, প্রি-পেইড মিটারের বাটন চেপে এতগুলো ডিজিট প্রবেশ করানো কঠিন কাজ। গ্রাহকদের অভিযোগের বিষয়টি বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডকে জানানো হয়েছে। তারা বলেছে যে, প্রি-পেইড মিটার রিচার্জ অফলাইন হওয়ায় বিকল্প আর কোনো উপায় নেই ।

আরও পড়ুন:
পল্লী বিদ্যুতের শ্রমিককে কুপিয়ে আহত
পল্লী বিদ্যুতের ১৩৯টি অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন

মন্তব্য

p
উপরে