× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Investigation report against cricketer Al Amin has been delayed again
google_news print-icon

ফের পেছাল ক্রিকেটার আল আমিনের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন

ফের-পেছাল-ক্রিকেটার-আল-আমিনের-বিরুদ্ধে-তদন্ত-প্রতিবেদন
ক্রিকেটার আল আমিন হোসেন। ফাইল ছবি
স্ত্রী ইশরাত জাহানের অভিযোগ, তাকে অত্যাচার করে বাসা থেকে বের করে দেন আল আমিন। দীর্ঘদিন ধরে তার ওপর এমন অত্যাচার চালাচ্ছেন তিনি। তিনি আরও বলেন, ‘আল আমিন একটা মেয়ের সঙ্গে থাকে। এ জন্য তাকে বাসা থেকে বের করে দিয়েছেন।’

পারিবারিক সহিংসতা প্রতিরোধ আইনে স্ত্রী ইসরাত জাহানের করা মামলায় জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার আল আমিন হোসেনের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার তারিখ পিছিয়ে আগামী ২ জানুয়ারি ঠিক করেছে আদালত।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম আতাউল্লাহর আদালতে মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার জন্য দিন ঠিক ছিল। কিন্তু এদিন তদন্ত কর্মকর্তা প্রতিবেদন জমা দিতে না পারায় নতুন এ দিন ঠিক করেন বিচারক।

গত ২ সেপ্টেম্বর মিরপুর মডেল থানায় আল আমিনের বিরুদ্ধে স্ত্রী ইসরাত জাহানের করা অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা নথিভুক্ত করা হয়।

ইশরাত জাহানের অভিযোগ তাকে অত্যাচার করে বাসা থেকে বের করে দেন আল আমিন। দীর্ঘদিন ধরে তার ওপর এমন অত্যাচার চালাচ্ছেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, ‘আল আমিন একটা মেয়ের সঙ্গে থাকে। এ জন্য তাকে বাসা থেকে বের করে দিয়েছেন।’

মামলায় ইসরাত তার দুই সন্তানসহ বাসায় শান্তিপূর্ণভাবে থাকার অধিকারসহ মাসিক ভরণপোষণ দাবি করেছেন। জীবন ধারণের জন্য ৪০ হাজার, দুই সন্তানের ভরণ-পোষণ ও ইংলিশ মিডিয়ামে লেখাপড়া বাবদ মাসে ৬০ হাজার টাকা আল-আমিনের কাছে পাওয়ার হকদার বলে দাবি করেন তিনি।

মামলার বিবরণে বলা হয়, ২০১২ সালের ২৬ ডিসেম্বর ইসরাত জাহান ও আল আমিনের বিয়ে হয়। তাদের দুটি ছেলে রয়েছে। বেশ কিছুদিন ধরে আল আমিন স্ত্রী ও সন্তানদের খোঁজখবর নেন না এবং ভরণপোষণও দেন না।

এতে আরও বলা হয়, গত ২৫ আগস্ট রাত সাড়ে ১০টার দিকে আল আমিন বাসায় এসে স্ত্রীর কাছে যৌতুকের জন্য ২০ লাখ টাকা দাবি করেন। ইসরাত টাকা দিতে অস্বীকার করলে আল আমিন তাকে মারধর করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করেন, সংসার করবেন না বলেও জানান।

ইসরাত তখন ৯৯৯ নম্বরে কল করে সাহায্য চাইলে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে। পরে সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন ইসরাত জাহান। এ ঘটনায় ১ সেপ্টেম্বর মিরপুর মডেল থানায় মামলাও হয়।

মামলার বিবরণে উল্লেখ করা হয়, সর্বশেষ গত ৩ সেপ্টেম্বর আল আমিন তার মায়ের মাধ্যমে জানান, ইসরাতের সঙ্গে সংসার করবেন না; সন্তানদের ভরণপোষণও দেবেন না। প্রয়োজনে বাসা থেকে বের করে দিয়ে স্ত্রীকে তালাক দেবেন।

বিয়েবহির্ভূত সম্পর্কের কারণে আল আমিন এমনটি করেছেন বলে মামলার বিবরণে দাবি করেন ইসরাত জাহান।

আরও পড়ুন:
ক্রিকেটার আল-আমিনের আদালত বদলির আবেদন নাকচ
স্ত্রীর মামলায় ক্রিকেটার আল আমিনের তদন্ত প্রতিবেদন পেছাল
স্ত্রীর মামলায় আল আমিনের স্থায়ী জামিন

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
MTB cycle race in tea garden

চা বাগানে এমটিবি সাইকেল রেস

চা বাগানে এমটিবি সাইকেল রেস সিলেটের মালনিছড়া চা-বাগানের পাহাড়ি রাস্তায় শুক্রবার সকালে অনুষ্ঠিত হয় সাইকেল রেস প্রতিযোগিতা। ছবি; সংগৃহীত
সিলেটের মালনিছড়া চা বাগানের পাহাড়ি রাস্তায় এই প্রতিযোগিতায় দুই বিভাগে সারা দেশের ১৩৫ জন রেসার অংশগ্রহণ করেন। প্রতিযোগিতায় পুরুষদের জন্য ২৭ কিলোমিটার আর নারীদের জন্য ছিলো ১৭ কিলোমিটার।

সবুজ শ্যামল উঁচু-নিচু পাহাড়-টিলায় ঘেরা সিলেট। আর এই পাহাড়-টিলা জুড়ে রয়েছে অজস্র চা-বাগান। সেই চা বাগানের মাঝ পাশে ও মাঝখান দিয়ে থাকা পাহাড়ি পথে শুক্রবার অনুষ্ঠিত হলো রোমাঞ্চকর এমটিবি সাইকেল রেস প্রতিযোগিতা।

মাউন্টেন সাইক্লিং বিশ্বের বহু দেশে বেশ জনপ্রিয়। পাহাড়ের রাস্তায় বা উঁচু টিলায় আয়োজন করা হয় এই মাউন্টেন সাইক্লিং। সিলেট সাইক্লিং কমিউনিটির আয়োজনে শুক্রবার সকাল ৭টায় মালনিছড়া চা বাগানে এসসিসি এমটিবি চ্যালেঞ্জ-২০২৪ পাওয়ারড বাই গ্লোবাল হেলথকেয়ার সাইকেল রেস প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

দুই বিভাগে সারা দেশের ১৩৫ জন রেসার এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। নারী বিভাগে ৭ জন রেসার প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। পুরুষদের জন্য ২৭ কিলোমিটার আর নারীদের জন্য ছিলো ১৭ কিলোমিটার।

পুরুষ বিভাগে বিজয়ীদের মধ্যে প্রথম হয়েছেন কাওসার পয়দা, দ্বিতীয় এম ডি শহীদ হোসেইন ও তৃতীয় হয়েছেন এম ডি জালাল। আর নারী বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন তাবাসসুম এবং দ্বিতীয় হয়েছেন সানজিদা রহমান।

বিজয়ীদের ছাড়াও শীর্ষ ১০ জন রেসারকে নগদ অর্থ পুরস্কার দেয়া হয়।

প্রতিযোগিতায় বিচারকের দায়িত্বে ছিলেন সৈয়দ সুহাগ, মামুনুর রহমান, নুসরাত জাহান ও মোহাম্মদ আবদুল্লাহ।

সিলেট সাইক্লিং কমিউনিটির অ্যাডমিন এবং আয়োজক কমিটির সদস্য ডা. ওরাকাতুল জান্নাত বলেন, ‘আমরা সব সময় তরুণদের নিয়ে কাজ করতে চাই। আমরা চাই খেলাধুলায় তরুণদের আগ্রহ বাড়ুক।

‘সাইক্লিং করলে মানুষ শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকে। এটি একটি আন্তর্জাতিক ও জাতীয় পর্যায়ের খেলা। আমরা মনে করি সাইক্লিস্টরা এমন রেসের মাধ্যমে নিজেদের তৈরি করতে পারবে। তাই আমরা চেষ্টা করছি সাইক্লিংয়ে মানুষের অংশগ্রহণ বাড়ানোর।’

নারী বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হওয়া তাবাসসুম বলেন, ‘চা বাগানের ভেতরে এমন একটি সুন্দর প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হতে পেরে খুব ভালো লাগছে। এই রেসের মাধ্যমে আমার আত্মবিশ্বাস আরও বেড়েছে। আশা করছি ভবিষ্যতে আর ভালো কিছু করতে পারবো।’

সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন আয়োজনের পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল হেলথকেয়ার সেন্টারের হেড অফ মার্কেটিং এহতেশাম চৌধুরী।

রেস পরিচালনায় ছিলেন ডা. ওরাকাতুল জান্নাত। রেসের বিভিন্ন পর্যায়ে দায়িত্বে ছিলেন সিলেট সাইক্লিং কমিউনিটির অ্যাডমিন সৈয়দ সুহাগ ও হাসান আহমেদ।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Dani Alvez jailed for 4 and a half years for sexual harassment

যৌন হেনস্তায় সাড়ে ৪ বছরের জেল দানি আলভেজের

যৌন হেনস্তায় সাড়ে ৪ বছরের জেল দানি আলভেজের বার্সার জার্সিতে স্প্যানিশ ক্লাব ও ব্রাজিল জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার দানি আলভেজ। ছবি: গোল ডটকম
বার্সেলোনার একটি নাইট ক্লাবের বাথরুমে ২০২২ সালের ৩১ ডিসেম্বর ভোরে নারীকে যৌন হেনস্তার অভিযোগ ছিল আলভেজের বিরুদ্ধে, যার প্রমাণ পায় আদালত। ওই নারীর অভিযোগ, আলভেজ তাকে ধর্ষণ করেছেন।

স্পেনের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল কাতালোনিয়ার রাজধানী বার্সেলোনায় এক নারীকে যৌন হেনস্তার মামলায় ব্রাজিল জাতীয় দল ও বার্সেলোনার সাবেক ফুটবলার দানি আলভেজকে সাড়ে চার বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

বার্সেলোনার একটি আদালতের তিন বিচারকের প্যানেল বৃহস্পতিবার এ রায় বলে দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

সংবাদমাধ্যমটির খবরে বলা হয়, মামলার বিচারের সময় ৪০ বছর বয়সী আলভেজ কোনো ধরনের অপরাধ করেননি বলে দাবি করেছেন। এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবেন তিনি।

বার্সেলোনার একটি নাইট ক্লাবের বাথরুমে ২০২২ সালের ৩১ ডিসেম্বর ভোরে নারীকে যৌন হেনস্তার অভিযোগ ছিল আলভেজের বিরুদ্ধে, যার প্রমাণ পায় আদালত। ওই নারীর অভিযোগ, আলভেজ তাকে ধর্ষণ করেছেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলিরা আলভেজের ৯ বছর কারাদণ্ড চান, যেখানে মামলার বাদীর আইনজীবীরা ফুটবলারের ১২ বছরের কারাদণ্ডের আর্জি জানান। অন্যদিকে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা আলভেজের খালাস অথবা দোষী সাব্যস্ত হলে তাকে যেন এক বছরের কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার ইউরো জরিমানা করা হয়, সেই আবেদন করেছিলেন।

গত ২০ জানুয়ারি গ্রেপ্তারের পর থেকে কারাগারে রয়েছেন আলভেজ। তার জামিন আবেদন নাকচ করা হয়।

আরও পড়ুন:
ব্রাজিলে ভারি বর্ষণ, বন্যায় ৩৬ প্রাণহানি
ব্রাজিলে ভবন ধসে নিহত ১৪
ব্রাজিলে বছরের প্রথমার্ধে আমাজন উজাড়করণ কমেছে ৩৪%
সেনেগালের কাছে ৪-২ গোলে হারল ব্রাজিল
খেলায় হেরে যাওয়ায় হাসাহাসি, ৭ জনকে গুলি করে হত্যা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Chittagong District Police Team Champion in Kabaddi Tournament
চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি গোল্ডকাপ

কাবাডি টুর্নামেন্টে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ টিম চ্যাম্পিয়ন

কাবাডি টুর্নামেন্টে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ টিম চ্যাম্পিয়ন আয়োজক কর্তৃপক্ষ ও আমন্ত্রিত অতিথিদের সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ টিম। ছবি: নিউজবাংলা
চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলীর সাগরিকায় বিকেএসপি আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র মাঠে অনুষ্ঠিত ফাইনাল খেলায় চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ টিম ২৬-২২ পয়েন্টে চট্টগ্রাম রেঞ্জ পুলিশ টিমকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয়। টুর্নামেন্টে চট্টগ্রাম রেঞ্জের অধীন ১১টি জেলা ও চট্টগ্রাম রেঞ্জ পুলিশ দল অংশগ্রহণ করে।

বাংলাদেশ পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি গোল্ডকাপ কাবাডি টুর্নামেন্ট-২০২৪ এ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ টিম। পুলিশের এই আয়োজনে পাশে ছিল দেশের অন্যতম ইস্পাত শিল্প প্রতিষ্ঠান কেএসআরএম।

মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলীর সাগরিকায় বিকেএসপি আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র মাঠে অনুষ্ঠিত ফাইনাল খেলায় চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ টিম ২৬-২২ পয়েন্টে চট্টগ্রাম রেঞ্জ পুলিশ টিমকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয়।

ফাইনাল খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে খেলা উপভোগ ও বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি নুরেআলম মিনার সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কেএসআরএম-এর পরিচালক (বিক্রয় ও বিপণন) মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন। তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ খেলায় চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স-আপ দলকে অভিনন্দন জানান ডিআইজি।

খেলা শুরুর ‌আগে বরেণ্য শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সঙ্গীত ও নৃত্য পরিবেশন এবং বিকেএসপির প্রশিক্ষণার্থীদের পরিবেশনায় মনোমুগ্ধকর ‘ডিসপ্লে’ প্রদর্শিত হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, ‘কাবাডির দেশ বাংলাদেশ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান খেলাধুলার প্রতি খুবই আন্তরিক ছিলেন। বঙ্গবন্ধু-কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও খেলাধুলাকে অন্তরে ধারণ করেন। কাবাডির মতো গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহী খেলাগুলো যাতে হারিয়ে না যায় সেজন্য তিনি সচেষ্ট আছেন।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কেএসআরএমের গণমাধ্যম ও জনসংযোগ উপদেষ্টা মিজানুল ইসলাম বলেন, ‘কাবাডি আমাদের জাতীয় খেলা হলেও এটি দিনে দিনে বিলুপ্তির পথে। আমরা চাই এই ঐতিহ্যবাহী খেলা তার হারানো অতীত ফিরে পাক।’

টুর্নামেন্ট উৎসবমুখর ও প্রাণবন্ত করতে সহযোগিতা করায় কেএসআরএম ও বিকেএসপিসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান ডিআইজি নুরেআলম মিনা।

বেলা ১১টায় গ্রুপ পর্বের শেষ খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় কুমিল্লা ৩৫-২২ পয়েন্টে ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে পরাজিত করে। গ্রুপ পর্বের সবশেষ ম্যাচটিতে প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন ‘দৈনিক আজাদী’র সম্পাদক এম এ মালেক।

প্রসঙ্গত, ১৮ ফেব্রুয়ারি রোববার পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি নুরেআলম মিনার উদ্যোগে ও কেএসআরএম-এর পৃষ্ঠপোষকতায় বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনায় চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি গোল্ডকাপ কাবাডি টুর্নামেন্ট-২০২৪ শুরু হয়।

টুর্নামেন্টে চট্টগ্রাম রেঞ্জের অধীন ১১টি জেলা ও চট্টগ্রাম রেঞ্জ পুলিশসহ মোট ১২টি দল অংশগ্রহণ করে।

চট্টগ্রাম রেঞ্জের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ, বিকেএসপির কর্মকর্তাবৃন্দ, অংশগ্রহণকারী খেলোয়াড় ও টিম ম্যানেজমেন্ট এবং বিপুলসংখ্যক ক্রীড়ামোদী খেলা উপভোগ করেন।

আরও পড়ুন:
বাংলাদেশের হ্যাটট্রিক শিরোপা
ইংল্যান্ডকে হারিয়ে সেমিতে বাংলাদেশ
বাংলাদেশের কাছে পাত্তাই পেল না মেসির দেশ
কাবাডি খেলতে ঢাকায় আর্জেন্টিনা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Mashrafe is at the height of the discussion

আলোচনার তুঙ্গে মাশরাফি

আলোচনার তুঙ্গে মাশরাফি
মূলত সংসদের হুইপের দায়িত্ব ও রাজনৈতিক ব্যস্ততায় এমন সিদ্ধান্ত বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন মাশরাফি। সেখানে জানানো হয়েছে, তার অনুপস্থিতিতে সহ-অধিনায়ক মোহাম্মদ মিথুন সিলেটের নেতৃত্ব দেবেন।

চলমান বিপিএলের শুরু থেকেই আলোচনায় ছিলেন সিলেট স্ট্রাইকার্সের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। মূলত তার ফিটনেস কিংবা দলে তার ভূমিকা নিয়ে উঠছিল প্রশ্ন। এরপর টানা পাঁচ ম্যাচে সিলেটের হারের পর, এবার এ টুর্নামেন্ট থেকে অব্যাহতি নিয়েছেন ম্যাশ। রাজনৈতিক ব্যস্ততার কারণে আপাতত খেলাধুলার বাইরেই থাকছেন তিনি। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) শুরু থেকেই মাশরাফির খেলা নিয়ে চলছিল নানা আলোচনা-সমালোচনা। এরই মধ্যে তার দল সিলেট স্ট্রাইকার্সের বাজে ফলাফল এবং ফর্ম সেই সমালোচনা আরও উস্কে দিয়েছে। যেন কোনোভাবেই জয়ের ধারায় আসতে পারছিল না দলটি। এরই মাঝে বিপিএল ছাড়লেন মাশরাফি।

মূলত সংসদের হুইপের দায়িত্ব ও রাজনৈতিক ব্যস্ততায় এমন সিদ্ধান্ত বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন মাশরাফি। সেখানে জানানো হয়েছে, তার অনুপস্থিতিতে সহ-অধিনায়ক মোহাম্মদ মিথুন সিলেটের নেতৃত্ব দেবেন।

এখন পর্যন্ত এবারের বিপিএলে পাঁচ ম্যাচ খেলে কোনোটিতেই জেতেনি সিলেট স্ট্রাইকার্স। এ ছাড়া বল হাতে মোটেও নিজের চেনা ছন্দেই নেই তিনি, এখন পর্যন্ত ৫ ম্যাচ খেলে একটি উইকেট পেয়েছেন মাশরাফি।

কয়েকদিন আগেই দ্বাদশ জাতীয় সংসদে দ্বিতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন মাশরাফি। এরপর তার ঝুলিতে দেওয়া হয় হুইপের দায়িত্ব। এ ছাড়া সিলেট অধিনায়ক ৩০ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া সংসদ অধিবেশনের প্রথম দিনে উপস্থিত ছিলেন না। এদিন দলটির হয়ে ফরচুন বরিশালের বিপক্ষে মাঠে নামেন মাশরাফি। তবে এবার সংসদে যোগ দিতেই সিলেট স্ট্রাইকার্স ছেড়ে যাচ্ছেন দেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে সফল এই অধিনায়ক। সিলেটের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, মাশরাফির দলের প্রতি ‘কমিটমেন্টের’ জন্য তাকে অভিবাদন জানিয়েছেন সিলেট ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকরা। যদিও চলতি বিপিএলেই আবার দলে ফেরত পাওয়ার আশা তাদের।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Cricketer Swarnas Mobile Dollar Steals Roommates Husbands Champ

ক্রিকেটার স্বর্ণার মোবাইল-ডলার চুরি করে রুমমেটের স্বামীর চম্পট

ক্রিকেটার স্বর্ণার মোবাইল-ডলার চুরি করে রুমমেটের স্বামীর চম্পট জাতীয় দলের ক্রিকেটার স্বর্ণা আক্তার (বাঁয়ে); অভিযুক্ত আল আমিন দেওয়ান আযান। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা
স্বর্ণার বোন আতিকা হোসেন অনুরা নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমার বোনসহ এই বাসায় আমরা চারজন থাকতাম। কয়েকদিন হলো আমাদের রুমমেট তানিয়া ও আল-আমিন দেওয়ান আযান বিয়ে করেন। সে সূত্রে ওরা একসঙ্গে থাকতেন। সোমবার তানিয়ার স্বামী দুটি মোবাইল, ডলার, টাকাসহ গুরুত্বপূর্ণ জিনিস নিয়ে পালিয়ে গেছেন। আমরা তার বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছি।’

বাংলাদেশ জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় স্বর্ণা আক্তারের দুটি মোবাইল ফোন খোয়া গেছে। এর মধ্যে একটি আইফোন ১৩ প্রো অন্যটি আইফোন ১৩ মিনি। একইদিন তার বাসায় চুরির ঘটনাও ঘটে।

রাজধানীর তেজকুনিপাড়া খেলার মাঠ থেকে সোমবার স্বর্ণার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন দুটি চুরি হয়। এর কিছু সময় পর তার বাসা থেকে বিদেশি মুদ্রা ও নগদ টাকা চুরি হয়। এই ঘটনায় শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা করেছেন তিনি। তাতে আল আমিন দেওয়ান আযান নামে এক যুবককে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

স্বর্ণার বোন আতিকা হোসেন অনুরা মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমার বোনসহ এই বাসায় আমরা চারজন থাকতাম। কয়েকদিন হলো আমাদের রুমমেট তানিয়া ও আল-আমিন দেওয়ান আযান বিয়ে করেন। সে সূত্রে ওরা একসঙ্গে থাকতেন।

‘সোমবার তানিয়ার স্বামী আল-আমিন দুটি মোবাইল, ডলার, টাকাসহ গুরুত্বপূর্ণ জিনিস নিয়ে পালিয়েছেন। পরে আমরা আল-আমিনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছি।’

মামলার এজাহারে স্বর্ণা লিখেছেন, ‘মো. আল-আমিন দেওয়ান আযানকে বাসায় রেখে আমিসহ আমার তিন রুমমেট ২৯ জানুয়ারি সকাল সাড়ে ৯টায় অনুশীলন করার জন্য তেজকুনীপাড়া খেলাঘর মাঠে যাই। সকাল সাড়ে ১১টায় আল-আমিন তেজকুনীপাড়া খেলাঘর মাঠে আসে এবং আমাকে বলে- তোমার মোবাইল ফোন কোথায়? আমি বলি যে আমার ব্যাগে। তারপর সে আমার ব্যাগ থেকে দুটি মোবাইল ফোন নিয়ে কিছুক্ষণ ছবি উঠিয়ে ১২টায় মাঠ থেকে চলে যায়।

আমি ব্যাগ চেক করে দেখি ব্যাগে থাকা আইফোন ১৩ প্রো ও আইফোন ১৩ মিনি নেই। অন্য রুমমেটের ফোন থেকে দুটি মোবাইল নম্বরে ফোন করলে আমি বন্ধ পাই।’

স্বর্ণা আরও লিখেছেন, ‘আমরা অনুশীলন শেষে আনুমানিক দুপুর সাড়ে ১২টায় বাসায় ফিরে দেখি ফ্ল্যাটের মূল দরজা লক করা। আমি বাসার দারোয়ানকে ফোন দেই। দারোয়ান এসে তালা ভেঙে দরোজা খুলে দেয়। আমরা বাসার ভেতরে প্রবেশ করে দেখতে পাই রুমের সব জিনিসপত্র এলোমেলো অবস্থায় পড়ে আছে। আমরা বিভিন্ন জায়গায় রাখা আমাদের বিভিন্ন মূল্যবান জিনিসপত্রের খোঁজ নিতে থাকি। আল-আমিন আমার ওয়ারড্রবের ড্রয়ারের তালা ভেঙে সাড়ে ৩ হাজার ডলার চুরি করে নিয়ে গেছে।

‘এছাড়াও আমার রুমমেট তানিয়ার ব্যাগে থাকা সাড়ে ৬ হাজার টাকা, জন্ম সনদ, প্রাইম ব্যাংকের চেক বই ও প্রাইম ব্যাংকের ভিসা কার্ডসহ ব্যাগ চুরি করে নিয়ে যায়। সব মিলিয়ে চুরির পরিমাণ ৫ লাখ ৫৫ হাজার ৫০০ টাকা।’

শেরেবাংলা নগর থানার ওসি আহাদ আলী বলেন, ‘সোমবার দুপুরের দিকে রাজধানীর পূর্ব রাজাবাজারে ক্রিকেটার স্বর্ণার ফ্ল্যাট থেকে একটি আইফোন ১৩ প্রো, একটি আইফোন ১৩ মিনি, সাড়ে তিন হাজার ডলার, সাড়ে ছয় হাজার নগদ টাকা, জন্মসনদ, প্রাইম ব্যাংকের চেক বই ও প্রাইম ব্যাংকের ভিসা কার্ডসহ ব্যাগ চুরি হয়েছে। এই অভিযোগে তিনি থানায় মামলা দায়ের করেছেন।’

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Russian athlete Valiva banned for four years

চার বছরের জন্য নিষিদ্ধ রাশিয়ান অ্যাথলেট ভ্যালিভা

চার বছরের জন্য নিষিদ্ধ রাশিয়ান অ্যাথলেট ভ্যালিভা
ভ্যালিভা বেইজিংয়ে ২০২২ সালের শীতকালীন অলিম্পিকের আগে ডোপিং বিরোধী নিয়ম লঙ্ঘনের জন্য দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন।

ড্রাগ পরীক্ষায় ব্যর্থ হওয়া রাশিয়ান ফিগার স্কেটার কামিলা ভ্যালিভার ওপর চার বছরের নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনার মধ্যদিয়ে সোমবার ১৭ বছর বয়সী এই অ্যাথলেটের দীর্ঘদিনের ‘ডোপিং কাহিনী’ একটি যুগান্তকারী মুহূর্তে পৌঁছাল বলে সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

বিবৃতিতে সুইজারল্যান্ডের কোর্ট অফ আরবিট্রেশন ফর স্পোর্ট (সিএএস) জানিয়েছে, ভ্যালিভা বেইজিংয়ে ২০২২ সালের শীতকালীন অলিম্পিকের আগে ডোপিং বিরোধী নিয়ম লঙ্ঘনের জন্য দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন।

যে সময়ে ভ্যালিভার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল সে সময় অর্থাৎ নিষেধাজ্ঞাটি কার্যকর হয়েছে ২০২১ সালের ২৫ ডিসেম্বর থেকে।

অবশ্য ২০২২ সালে ভ্যালিভাকে শীতকালীন অলিম্পিকে প্রতিদ্বন্দ্বিতার অনুমতি দেয়া হয়েছিল। তার আগে ড্রাগ পরীক্ষায় পজিটিভ হয়েছিলেন তিনি। এ ঘটনার এক পর্যায়ে তার ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

সেই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করার পরিপ্রেক্ষিতে রাশিয়ান অ্যান্টি-ডোপিং এজেন্সি (রুসাডা) সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়। তবে এবার নতুন করে নিষেধাজ্ঞা এলো তার ওপর।

ওয়ার্ল্ড অ্যান্টি-ডোপিং এজেন্সি এক বিবৃতিতে বলেছে, শিশুদের ডোপিং ক্ষমার অযোগ্য। ডাক্তার, প্রশিক্ষক বা অন্যান্য সহায়তাকর্মী যারা অপ্রাপ্তবয়স্কদের কর্মক্ষমতা-বর্ধক পদার্থ সরবরাহ করেছে বলে প্রমাণিত হয়েছে তাদের বিশ্ব ডোপিং বিরোধী কোডের সম্পূর্ণ শক্তির মুখোমুখি হওয়া উচিত।

ভ্যালিভার যখন ড্রাগ পরীক্ষা হয়, তখন তার বয়স মাত্র ১৫ বছর। ওই পরীক্ষার পরই বেইজিং শীতকালীন অলিম্পিকে ফিগার স্কেটিং টিম ইভেন্টের পর তার পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়।

ভ্যালিভা রাশিয়ান অলিম্পিক কমিটিকে (আরওসি) সেবার প্রথম স্থানে নিয়ে গিয়েছিলেন। তবে ডোপিং বিতর্কের কারণে পরবর্তীতে কোনো পদক দেয়া হয়নি তাকে।

আরও পড়ুন:
অ্যাথলেটিকসের চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় দ্বারার দুর্নীতির কলঙ্ক
অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনে নতুন সভাপতি

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Boxer Sura Krishna Chakmas unprecedented victory in Bangkok

ব্যাংককে বক্সার সুরা কৃষ্ণ চাকমার অভূতপূর্ব জয়

ব্যাংককে বক্সার সুরা কৃষ্ণ চাকমার অভূতপূর্ব জয় বিদ্যুৎগতির হাতের জন্য বিখ্যাত বাংলাদেশের বক্সার সুরা কৃষ্ণ চাকমা। ছবি: ইউএনবি
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘প্রাথমিকভাবে ছয় রাউন্ডের জন্য নির্ধারিত বাউটটি নাটকীয়ভাবে সংক্ষিপ্ত হয়ে যায়। কারণ দ্বিতীয় রাউন্ডের মাত্র ১ মিনিট ৫০ সেকেন্ডের মধ্যে নকআউট দেন সুরা কৃষ্ণ। তার শক্তিশালী ঘুসি এবং সূক্ষ্ণ ধাক্কা দেওয়ার দুর্দান্ত সংমিশ্রণ দর্শকদের মুগ্ধ করেছিল। এর মধ্যে দিয়েই ফুটে ওঠে তার বক্সিং দক্ষতা।’

থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে আন্তর্জাতিক এক ম্যাচে অভূতপূর্ব জয় পেয়েছেন বিদ্যুৎগতির হাতের জন্য বিখ্যাত বাংলাদেশের বক্সার সুরা কৃষ্ণ চাকমা।

বার্তা সংস্থা ইউএনবির প্রতিবেদনে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার স্পেসপ্লাস ভেন্যুতে থাইল্যান্ডের প্রধান প্রোমোটার হাইল্যান্ড প্রোমোশনস আয়োজিত বহুল প্রত্যাশিত ইভেন্ট ‘ওয়ে অফ দ্য চ্যাম্পিয়নস: রোয়ার অফ ড্রাগনস’ লাইটওয়েট বিভাগে থাই প্রতিযোগী সোরনরাম সোপাকুলের মুখোমুখি হন ‘জুম্মো রক’ নামে পরিচিত সুরা কৃষ্ণ।

এ সংক্রান্ত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘প্রাথমিকভাবে ছয় রাউন্ডের জন্য নির্ধারিত বাউটটি নাটকীয়ভাবে সংক্ষিপ্ত হয়ে যায়। কারণ দ্বিতীয় রাউন্ডের মাত্র ১ মিনিট ৫০ সেকেন্ডের মধ্যে নকআউট দেন সুরা কৃষ্ণ। তার শক্তিশালী ঘুসি এবং সূক্ষ্ণ ধাক্কা দেওয়ার দুর্দান্ত সংমিশ্রণ দর্শকদের মুগ্ধ করেছিল। এর মধ্যে দিয়েই ফুটে ওঠে তার বক্সিং দক্ষতা।’

এতে উল্লেখ করা হয়, এশিয়ান বক্সিং ফেডারেশনের অধীনে সুপার লাইটওয়েট আন্তমহাদেশীয় চ্যাম্পিয়নশিপে সুরা কৃষ্ণের বিজয় অর্জন এ জয়ের অনুপ্রেরণা জুগিয়েছে, যা বিশ্বব্যাপী বক্সিং আইকন হিসেবে তার অবস্থানকে আরও দৃঢ় করবে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বক্সিং ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আদনান হারুন ও ভাইস চেয়ারম্যান আরমান হকসহ আরও অনেকে। তারা সুরা কৃষ্ণের কীর্তি উদযাপন করেন।

হারুন তার বিবৃতিতে বলেন, ‘থাইল্যান্ডের সবচেয়ে বড় প্রচারে আমাদের দেশের সেরা লাইটওয়েট বক্সারের জয়ের সাক্ষী হওয়া আমাদের জন্য আনন্দের এবং গর্বের মুহূর্ত।’

টুর্নামেন্টে সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, ভারত, পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশের মতো বিভিন্ন দেশের বক্সারদের প্রতিভা তুলে ধরে ১০টি বাউট অনুষ্ঠিত হয়।

ওয়ার্ল্ড বক্সিং অ্যাসোসিয়েশন (ডব্লিউবিএ) এশিয়া ও এশিয়ান বক্সিং ফেডারেশন উভয়ই ইভেন্টটির প্রতিযোগিতায় ক্রীড়াবিদদের মান বজায় রেখেছিল।

মন্তব্য

p
উপরে