× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Akkelgurum passengers arrive at the stalled Sadarghat
google_news print-icon

সদরঘাটে এসে আক্কেলগুড়ুম যাত্রীদের

সদরঘাটে-এসে-আক্কেলগুড়ুম-যাত্রীদের
রাজধানীর সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল। ছবি: নিউজবাংলা
'চাঁদপুর যাওয়ার জন্য এসেছিলাম। বাসে আসতে ২ ঘণ্টা লেগেছে। এসে দেখি লঞ্চ নেই। ঢাকায় এসেছি ডাক্তার দেখাতে। বাসে চড়তে পারি না। সঙ্গে ২ বছরের ছেলে রয়েছে, বাসে অস্থির হয়ে যায়। এখন কিছু করার নেই। যাত্রাবাড়ী গিয়ে বাস পাই কিনা দেখতে হবে।’

ন্যূনতম ২০ হাজার টাকা বেতনসহ ১০ দফা দাবিতে নৌ শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটে স্থবির হয়ে আছে ঢাকার প্রধান নদীবন্দর সদরঘাট। বন্ধ রয়েছে পণ্যবাহী নৌযানগুলোও। সকাল থেকে লঞ্চ ছেড়ে না যাওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা।

রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত লঞ্চ টার্মিনাল ঘুরে দেখা যায়, ফাঁকা পড়ে আছে পনটুন, শ্যামবাজার ঘাটে জড়ো করে রাখা হয়েছে লঞ্চ। অনেকটায় ফাঁকা পড়ে আছে টার্মিনাল এলাকা, নেই নৌশ্রমিকদের উপস্থিতিও।

ধর্মঘটের কথা জানা না থাকায় ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে এসে ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা। সদরঘাট থেকেই অনেকে বিকল্প বাহন হিসেবে পিকআপ ভ্যান ও মাইক্রোবাসে করে রওনা দিচ্ছেন গন্তব্যে। চাঁদপুরে মাইক্রোবাসে খরচ পড়ছে ৭০০টাকা ও পিকআপভ্যানে ৪০০ টাকা।

রাজধানীর মিরপুর-১২ থেকে আসা ইসমত আরা বলেন, 'চাঁদপুর যাওয়ার জন্য এসেছিলাম। বাসে আসতে ২ ঘণ্টা লেগেছে। এসে দেখি লঞ্চ নেই। ঢাকায় এসেছি ডাক্তার দেখাতে। বাসে চড়তে পারি না। সঙ্গে ২ বছরের ছেলে রয়েছে, বাসে অস্থির হয়ে যায়। এখন কিছু করার নেই। যাত্রাবাড়ী গিয়ে বাস পাই কিনা দেখতে হবে।’

মুগদা এলাকা থেকে আসা মেহেদী হাসান বলেন, ‘চাঁদপুর যাওয়ার জন্য এসেছিলাম। এখন বাসে যাব ভাবছি। আগেভাগে জানা থাকলে ভোগান্তি হতো না।’

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) পরিবহন পরিদর্শক হুমায়ূন আহমেদ জানান, রাতে থেকে বিভিন্ন রুটের ৩৫টি লঞ্চ সদরঘাটের পনটুনে ভিড়েছে। সকাল থেকে ১০ টি লঞ্চ ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল চাঁদপুর ও ইলিশায়, একটাও ছেড়ে যায়নি। শুধু সকালে একটি লঞ্চ ভোলার উদ্দেশে ছেড়ে গেছে।

দাবি আদায়ে কর্মসূচি চালু থাকবে বলে জানান নৌযান শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদের সদস্যসচিব আতিকুল ইসলাম টিটু। তিনি বলেন, ‘কর্মবিরতীতে সারাদেশের নৌযান শ্রমিকরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নিচ্ছেন, শতভাগ শ্রমিক অংশ নিয়েছেন। আমাদের যৌক্তিকতা দাবি, দাবিগুলো মেনে নেয়া হলে আমরা কর্মসূচি তুলে নেব।’

লঞ্চ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, ‘লঞ্চ না চললে তাদেরও লস, আমাদেরও ক্ষতি। এখনও আমাদের মধ্যে আলাপ আলোচনা হয়নি। আমরা চাচ্ছি দ্রুত পরিস্থিতি স্বাভাবিক হোক।’

বিআইডব্লিউটিএর যুগ্ম পরিচালক শহীদ উল্লাহ বলেন, ‘হঠাৎ করেই নৌযান শ্রমিকরা এই কর্মবিরতিতে নেমেছেন। এতে যাত্রী ও পণ্যবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে যাত্রীদের দুর্ভোগ বেড়েছে। লঞ্চ না চলাচল করার বিষয়টি না জানার কারণে অনেক যাত্রী বন্দরে এসে আবার ফিরে যাচ্ছেন।’

সমাধানের পথে না হাঁটলে পরিস্থিতির দায় সরকার এবং মালিককে নিতে হবে বলে জানিয়ে নৌ-যান শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদের নেতারা দুপুর ১২ টায় বাংলাবাজারে বিক্ষোভ করে।

এতে সংগঠনের সদস্য আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘ন্যায়সঙ্গত দাবিতে চলমান শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে হামলা করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত চলছে। ২০১৬ সালের মজুরি দিয়ে বর্তমান বাজার দরে চলা সম্ভব নয়। শ্রমিকের দাবি যৌক্তিক। সরকার মালিকদের ভাষায় কথা বললে পরিস্থিতি খুবই খারাপ হবে।’

শনিবার নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামে নৌযান শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদের নেতা-কর্মীদের উপর হামলা হয়েছে অভিযোগ করে এরও নিন্দা জানানো হয় কর্মসূচিতে। অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিও জানান তারা।

যেসব দাবি

সর্বনিম্ন মজুরি ২০ হাজার টাকা নির্ধারণ ছাড়া নৌ শ্রমিকদের অন্য দাবিগুলো আছে, ভারতগামী শ্রমিকদের ল্যান্ডিংপাস দেয়া, বাল্কহেডের রাত্রীকালীন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা, বন্দর থেকে পণ্যপরিবহন নীতিমালা শতভাগ কার্যকর করা, চট্টগ্রাম বন্দরে প্রোতাশ্রয় নির্মাণ ও চরপাড়া ঘাটের ইজারা বাতিল করা, চট্টগ্রাম বন্দর থেকে পাইপলাইনে জ্বালানি তেল সরবরাহের চলমান কার্যক্রম বন্ধ করা।

কর্মস্থলে ও দুর্ঘটনায় মৃত্যুজনিত ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়া। কন্ট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড ও নাবিক কল্যাণ তহবিল গঠন, বন্দরগুলো থেকে পণ্য পরিবহন নীতিমালা ১০০ ভাগ কার্যকর করার দাবিও আছে শ্রমিকদের।

আরও পড়ুন:
ঢাকা-ব‌রিশালে চলবে ৩টি করে লঞ্চ
বাসের তুলনায় বেশি হারে কমল লঞ্চের ভাড়া
বরিশালে লঞ্চ শ্রমিকদের ১০ দাবি
মধ্যরাতে লঞ্চে বিভীষিকা, উদ্ধার ৭০ যাত্রী
মাঝনদীতে সন্তান প্রসব, লঞ্চে আজীবন ভাড়া ফ্রি

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Attack on Ghulam Mawla Ronis car in Dubai

ঢাবিতে গোলাম মওলা রনির গাড়িতে হামলা

ঢাবিতে গোলাম মওলা রনির গাড়িতে হামলা সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মওলা রনি। ফাইল ছবি
শাহবাগ থানার ওসি মোস্তাজিরুর রহমান নিউজবাংলাকে বলেন, ‘ওনার গাড়িতে হামলার ঘটনা শুনেছি। তবে উনি এখনও কোনো লিখিত অভিযোগ দেননি। তারপরও আমরা হামলার বিষয়টি নিয়ে কাজ করছি।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মওলা রনির গাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে। মোটরসাইকেলযোগে আসা হামলকারীরা গাড়িতে হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করেছে।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের দোয়েল চত্বর সংলগ্ন তিন নেতার মাজারের সামনে হামলার শিকার হয় রনির গাড়ি। তবে এই হামলায় তিনি আহত হয়েছেন কিনা তাৎক্ষণিকভাবে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

জানা যায়, মোটরসাইকেলযোগে কয়েকজন যুবক অতর্কিত এসে গাড়িতে হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। কারা কেন এই হামলা চালিয়েছে সে ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি। থানা পুলিশও কিছু বলতে পারেনি।

শাহবাগ থানার ওসি মোস্তাজিরুর রহমান গাড়িতে হামলার বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘ওনার গাড়িতে হামলার ঘটনা শুনেছি। তবে উনি এখনও কোনো লিখিত অভিযোগ দেননি। তারপরও আমরা হামলার বিষয়টি নিয়ে কাজ করছি।’

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Jubo League Chhatra League are collecting money from autorickshaw drivers Rizvi

অটোরিকশা চালকদের থেকে চাঁদা নিচ্ছে যুবলীগ-ছাত্রলীগ: রিজভী

অটোরিকশা চালকদের থেকে চাঁদা নিচ্ছে যুবলীগ-ছাত্রলীগ: রিজভী আন্তর্জাতিক চা দিবস উপলক্ষে সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তব্য দেন রুহুল কবির রিজভী। ছবি: সংগৃহীত
বিএনপির এই জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘সরকার নিজেই ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা আমদানির লাইসেন্স দিয়েছে। আর যারা এসব আমদানি করেছে তারা আওয়ামী লীগের। তাহলে এগুলো যারা পরিচালনা করছে তাদের কী অপরাধ?’

ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার গরিব চালকদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আন্তর্জাতিক চা দিবস উপলক্ষে সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে শ্রমিক দল আয়োজিত মানববন্ধনে এমন অভিযোগ করেন তিনি। সূত্র: ইউএনবি

ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চলাচল সীমিত করার সরকারি সিদ্ধান্তের নিন্দা জানিয়ে রিজভী বলেন, ‘এটি সমাজের নিম্নবিত্ত জনগোষ্ঠীকে তাদের বেঁচে থাকার উপায় থেকে বঞ্চিত করছে। প্রশাসনের কর্মকর্তা ও স্থানীয় যুবলীগ-ছাত্রলীগের লোকজনকে চাঁদা দিয়ে এসব অটোরিকশা দীর্ঘদিন ধরে চলছে। তবু সরকার এসব রিকশাচালকের ওপর স্টিমরোলার চালাচ্ছে।’

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা নিশ্চয়ই কোনো না কোনো দেশ থেকে আমদানি করা হয়েছে। এসব রিকশা আমদানির লাইসেন্স কে দিয়েছে এবং কে রাজধানী ও অন্যান্য শহরের সড়কে চলতে দিয়েছে?

‘সরকার নিজেই এই অনুমতি দিয়েছে। যারা এসব রিকশা আমদানি করেছে তারা আওয়ামী লীগের। তাহলে এগুলো যারা পরিচালনা করছে, তাদের কী অপরাধ?’

রিজভী বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের দামি ঘড়ি ও সানগ্লাস ব্যবহার করলে গরিবের দুর্দশা কিভাবে বুঝবেন। সরকার ব্যাপক লুটপাট চালিয়ে দেশের সব খাতকে ধ্বংস করে দিচ্ছে।’

গণআন্দোলনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দুঃশাসন থেকে মুক্তি পেতে সর্বস্তরের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

আরও পড়ুন:
সরকারের অন্যায়-নৃশংসতা ফাঁস করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদন: রিজভী
কারাগারগুলো বিএনপির অনেক নেতা-কর্মীর স্থায়ী আবাসস্থল: রিজভী
ওবায়দুল কাদের বেশি অবান্তর কথা বলেন: রিজভী
বিএনপি নেতা-কর্মীদের পরিবারে ঈদ আনন্দ নেই: রিজভী
দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে মানুষের ঈদের আনন্দ ম্লান: রিজভী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Only battery powered rickshaws allowed in Dhaka by Prime Minister Quader

ঢাকা শহরে ব্যাটারিচালিত রিকশা চলার অনুমতি প্রধানমন্ত্রীর: কাদের

ঢাকা শহরে ব্যাটারিচালিত রিকশা চলার অনুমতি প্রধানমন্ত্রীর: কাদের রাজধানীতে চলাচলকারী ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা। ফাইল ছবি
‘বিশ্ব পরিস্থিতি ও দ্রব্যমূল্যে স্বল্প আয়ের মানুষের কষ্টের কথা বিবেচনা করে শুধু ঢাকা শহরে ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচলের অনুমতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তবে ২২টি মহাসড়কে আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চলাচল বন্ধ থাকবে’, বলেন কাদের।

স্বল্প আয়ের মানুষের কষ্টের কথা বিবেচনা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুধু ঢাকা শহরে ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচলের অনুমতি দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে সোমবার ওলামা লীগের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান।

‘বিশ্ব পরিস্থিতি ও দ্রব্যমূল্যে স্বল্প আয়ের মানুষের কষ্টের কথা বিবেচনা করে শুধু ঢাকা শহরে ব্যাটারিচালিত রিকশা চলাচলের অনুমতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তবে ২২টি মহাসড়কে আগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চলাচল বন্ধ থাকবে’, বলেন কাদের।

বিএনপির বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপির কোনো নেতা-কর্মীকে বিএনপি হিসেবে নয়, অপরাধী হিসেবে জেলে পাঠানো হয়েছে। অপরাধীদের কোনো দল নেই। তারা দুর্বৃত্ত, তারা সন্ত্রাসী।’

ওলামা লীগের সভাপতি কেএম আবদুল মমিন সিরাজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ এবং ওলামা লীগের নেতারা।

আরও পড়ুন:
শেখ হাসিনা বদলে যাওয়া বাংলাদেশের রূপকার: ওবায়দুল কাদের
ঢাকায় অটোরিকশা বন্ধে অভিযানে পুলিশ
যুক্তরাষ্ট্র আগের অবস্থানে আছে, ফখরুল কী করে জানলেন: কাদের
নো হেলমেট, নো ফুয়েল: কাদের
যুক্তরাষ্ট্রের স্যাংশন-ভিসানীতি সরকার কেয়ার করে না: কাদের

মন্তব্য

বাংলাদেশ
No one can stop BNPs boycott programme EC

ভোট বর্জনে বিএনপির কর্মসূচিতে কেউ বাধা দিতে পারবে না: ইসি

ভোট বর্জনে বিএনপির কর্মসূচিতে কেউ বাধা দিতে পারবে না: ইসি চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি ভোট বর্জনের দাবিতে রাজধানীর কারওয়ান বাজার এলাকায় মিছিল করেন বিএনপির নেতা-কর্মীরা। ফাইল ছবি
ইসি বলেন, ‘এটা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার অংশ। যেকোনো দল ভোটে অংশ নিতে পারে, বিরত থাকতে পারে, ভোটারদেরও আহ্বান করতে পারে, তবে সেটা যেন শান্তিপূর্ণভাবে হয়।’

ভোট বর্জনে বিএনপির শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে কেউ বাধা দিতে পারবে না বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর।

নির্বাচন ভবনে সোমবার দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বিএনপি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় থেকে ভোট বর্জনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। যার অংশ হিসেবে চলমান উপজেলা নির্বাচনও বর্জন করেছে।

ভোটারদেরও বর্জন করার জন্য লিফলেট বিতরণ করছে, এমন প্রশ্নের জবাবে মো. আলমগীর বলেন, ‘এটা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার অংশ। যেকোনো দল ভোটে অংশ নিতে পারে, বিরত থাকতে পারে, ভোটারদেরও আহ্বান করতে পারে, তবে সেটা যেন শান্তিপূর্ণভাবে হয়।’

তিনি বলেন, ‘ভোট বর্জনের জন্য সহিংস কর্মকাণ্ড করলে সেটা তো আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ব্যবস্থা নেবে। শান্তিপূর্ণভাবে তারা প্রচার করলে কেউ বাধা দিতে পারবে না।’

আরও পড়ুন:
মৌসুমী সাংবাদিকদের ভোট কেন্দ্রে প্রবেশের পাস নয়
সামনের নির্বাচনগুলো আরও স্বচ্ছ হবে: ইসি
প্রকাশ্যে ভোট: ক্ষমা চাওয়ায় এমপি হাফিজকে দায়মুক্তি ইসির
প্রবাসীদের এনআইডি কার্যক্রম দেখতে যুক্তরাজ্য যাচ্ছেন ইসি আলমগীর
প্রকাশ্যে ভোট, বরিশালের এমপি হাফিজ মল্লিককে ইসিতে তলব

মন্তব্য

বাংলাদেশ
No need to worry if voter turnout is low EC Alamgir

ভোটের হার কম হলে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই: ইসি আলমগীর

ভোটের হার কম হলে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই: ইসি আলমগীর নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর।ফাইল ছবি
দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে ভোট কেমন পড়তে পারে, সে প্রশ্নের জবাবে ইসি আলমগীর বলেন, ‘২১ মে (মঙ্গলবার) কেমন আবহাওয়া থাকবে, প্রার্থীর জনপ্রিয়তা কেমন, এসবের ওপর নির্ভর করবে। ভোটের হার বেশি হলে আমরা খুশি, কিন্তু না হলে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।’ 

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে ভোট কম পড়লে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) মো. আলমগীর।

নির্বাচন ভবনে সোমবার দুপুরে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি সাংবাদিকদের কাছে এ মন্তব্য করেন।

আলমগীর বলেন, ‘আগের (প্রথম ধাপ) নির্বাচন যেহেতু শান্তিপূর্ণ হয়েছে, তাই দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে স্বাচ্ছন্দ্যে ভোট দিতে পারবে।’

দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে ভোট কেমন পড়তে পারে, সে প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘২১ মে (মঙ্গলবার) কেমন আবহাওয়া থাকবে, প্রার্থীর জনপ্রিয়তা কেমন, এসবের ওপর নির্ভর করবে। ভোটের হার বেশি হলে আমরা খুশি, কিন্তু না হলে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।’

ধান কাটা শেষে ভোট কম পড়বে বলে মনে করেন কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে এ কমিশনার বলেন, ‘আপনারা যেভাবে বলছেন, বিষয়টা তো এ রকম নয়। আরও তো কারণ আছে। ভারতের যে নির্বাচন হচ্ছে সেখানে সব দলগুলো অংশ নিয়েছে। তারপরও ৬০ শতাংশের মতো ভোট পড়েছে।

‘আমাদের যে প্রথম ধাপের নির্বাচন হলো ওই দিন সকালে বৃষ্টি ছিল, ধান কাটা ছিল। একটি বড় দল নির্বাচনে অংশ নেয়নি। এই তিনটা কারণ তো আছেই। এ ছাড়াও আরও অন্যান্য কারণ আছে হয়তো, সেগুলো হয়তো আমরা জানি না। আবার স্থানীয় নির্বাচনে অনেকেই কর্মস্থল থেকে এসে ভোট দিতে চান না। এটাও একটা কারণ।’

ভোটের হার দিন দিন নিচে নামছে। এর দায় ইসি দলগুলোর ওপর দিচ্ছে। সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটির কোনো দায় আছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে কিছুটা রসিকতার সুরে ইসি আলমগীর বলেন, ‘আমাদের প্রথমেই দায় দিতে হবে ভারতের ওপর। কেননা সেখানে সব দল অংশ নিচ্ছে, নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। নির্বাচন কমিশনের আন্তরিকতা নিয়ে কোনো সমস্যা নাই, কোনো বিতর্কও নাই, কিন্তু সেখানে ৬০ শতাংশ ভোট পড়ছে।

‘তাহলে এখানে কি নির্বাচন কমিশন দায়ী? সেটা আপনারা যদি বলতে পারেন ভারতের নির্বাচন কমিশন দায়ী, তাহলে আমরাও দায়ী। তাদের দায়ী না করলে আমরাও দায়ী না।’

আরও পড়ুন:
মৌসুমী সাংবাদিকদের ভোট কেন্দ্রে প্রবেশের পাস নয়
সামনের নির্বাচনগুলো আরও স্বচ্ছ হবে: ইসি
৬১৫ কেন্দ্রে ব্যালট যাবে আগের দিন, বাকিগুলোতে ভোটের সকালে
দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা ভোটের মাঠে ১৫৭ ম্যাজিস্ট্রেট
প্রার্থিতা বাতিল বহাল, সেলিম প্রধানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Awami League is plotting against Sheikh Hasina and the country
শেখ হাসিনার প্রত্যাবর্তন দিবসের আলোচনায় সালমান এফ রহমান

আওয়ামী লীগ, শেখ হাসিনা ও দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে

আওয়ামী লীগ, শেখ হাসিনা ও দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ ভবনে রোববার আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন সালমান এফ রহমান। ছবি: সংগৃহীত
প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা বলেছেন, ‘গত নির্বাচন নিয়েও ষড়যন্ত্র হয়েছিল। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সেই নির্বাচন আমরা অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে করতে পেরেছি। আগামীতেও সব ষড়যন্ত্র ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবিলা করতে হবে। এখন থেকেই আগামী জাতীয় নির্বাচনে প্রস্তুতি নিতে হবে।’

আওয়ামী লীগ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে বলে মন্তব্য করেছেন সালমান ফজলুর রহমান এমপি।

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক এই উপদেষ্টা বলেছেন, ‘গত নির্বাচন নিয়েও ষড়যন্ত্র হয়েছিল। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সেই নির্বাচন আমরা অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে করতে পেরেছি। আগামীতেও সব ষড়যন্ত্র ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবিলা করতে হবে।’

রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ ভবনে রোববার আয়োজিত এক আলোচনা সভায় সালমান ফজুলর রহমান এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার ৪৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

সালমান এফ রহমান বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করে শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে আজকের অবস্থায় নিয়ে এসেছেন। যখনই বিদেশে যাই, সব জায়গা থেকেই জানতে চাওয়া হয়- বাংলাদেশ এত উন্নয়ন কীভাবে করতে পেরেছে? তাদের বলি- শেখ হাসিনার ম্যাজিকের কারণেই আমরা এই পর্যায়ে আসতে পেরেছি।

‘শেখ হাসিনা দেশে না ফিরলে আমাদের কী অবস্থা হতো, সেটা আমরা কল্পনাও করতে পারি না। তিনি দেশকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। আমাদের ভাগ্য ভালো- তার মতো একজন নেতা ও প্রধানমন্ত্রী আমরা পেয়েছি।’

প্রধানমন্ত্রীর এই উপদেষ্টা বলেন, ‘বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে যুদ্ধের জন্য আমরা দায়ী না হলেও এর প্রভাব আমাদের ওপরও পড়েছে। এটা মোকাবিলা করতে হবে। আরেকটা চ্যালেঞ্জ হচ্ছে প্রযুক্তি। আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স আসছে। এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে এমন সব বক্তব্য প্রচার করা হবে, যেটা সম্পূর্ণ ভুয়া। এটাও বিরাট চ্যালেঞ্জ। এই প্রযুক্তি মোকাবিলায়, আমাদের তরুণ প্রজন্মকে এটা শিখতে হবে।’

আগামী জাতীয় নির্বাচনের জন্য এখনই প্রস্তুতি নেয়ার আহ্বান জানিয়ে সালমান রহমান বলেন, ‘পাঁচ বছর অনেক সময় মনে হলেও দেখতে দেখতে শেষ হয়ে যাবে। তাই এখন থেকেই আগামী জাতীয় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।

‘এদেশের সবাই আওয়ামী লীগ করে না। কেউ কেউ বিএনপি করে। আবার অনেকে নিরপেক্ষ আছে। আমাদের কাজ নিরপেক্ষদের মনজয় করা। এটা তখনই সম্ভব, যখন আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকব।’

সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি বলেন, দেশের মানুষ যখন স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখছে, তখনও বিএনপি-জামায়াত অপশক্তি ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। এরা গণতন্ত্র, দেশ ও জনগণের শত্রু। এদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।’

তিনি বলেন, উপজেলা নির্বাচনে বিএনপির যারা অংশ নিচ্ছেন তাদের বহিষ্কার করছে দলটি। এমনকি যারা জিতেছেন তাদেরও হুমকি দেয়া হচ্ছে। এরা গণতন্ত্র ও নির্বাচনে বিশ্বাস করে না, পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় আসতে চায়। তবে আন্দোলন করে সরকারের পতন ঘটানো যায় না। ক্ষমতায় আসতে হলে নির্বাচন করেই আসতে হবে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘১৫ বছর আগে আমরা কোথায় ছিলাম আর আজ কোথায় আছি। এই সবকিছুর কারিগর শেখ হাসিনা। সেদিন আর খুব বেশি দূরে নেই, বঙ্গবন্ধু-কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে আর কোনো হতদরিদ্র মানুষ থাকবে না। বছর পাঁচেকের মধ্যেই হতদরিদ্র মানুষ দেখতে হলে এদেশের তরুণ সমাজকে জাদুঘরে যেতে হবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি, এগিয়ে যাবো।’

ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজীর আহমেদ এমপির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক পনিরুজ্জামান তরুণের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন এমপি, মির্জা আজম এমপি, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য ও তথ্য প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী আরাফাত, ঢাকা-১৯ আসনের এমপি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডা. এনামুর রহমান, মাহবুবুর রহমান, নবাবগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন ঝিলু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফকরুল আলম সমর, সাংগঠনিক সম্পাদক হালিমা আক্তার লাবণ্য, হাবিবুর রহমান হাবিব, সাকুর রহমান সাকো, দোহার উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মিজানুর রহমান ভূঁইয়া প্রমুখ।

আরও পড়ুন:
ক্ষমতায় আসার জন্য বিদেশিদের পেছনে ঘুরেছে বিএনপি: সালমান এফ রহমান

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Inauguration of Bangbazar Bipani Bitan construction work on May 25

বঙ্গবাজার বিপণি বিতান নির্মাণ কাজ উদ্বোধন ২৫ মে

বঙ্গবাজার বিপণি বিতান নির্মাণ কাজ উদ্বোধন ২৫ মে বঙ্গবাজার নগর পাইকারি বিপণি বিতানের নকশা। ছবি: সংগৃহীত
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করবেন। একই দিন পোস্তগোলা থেকে রায়ের বাজার স্লুইস গেট পর্যন্ত ‘৮ সারির ইনার সার্কুলার রোড’ এবং ধানমন্ডি লেকের পাড়ে ‘নজরুল সরোবর’ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করবেন তিনি।

রাজধানীর বঙ্গবাজার নগর পাইকারি বিপণি বিতান নির্মাণ কাজ শুরু হচ্ছে ২৫ মে। এদিন সকাল ১১টায় নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী সেদিন ঢাকার পোস্তগোলা থেকে রায়ের বাজার স্লুইস গেট পর্যন্ত ‘৮ সারির ইনার সার্কুলার রোড’ এবং ধানমন্ডি লেকের পাড়ে ‘নজরুল সরোবর’ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করবেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) জনসংযোগ বিভাগ থেকে রোববার পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৪ এপ্রিল বঙ্গবাজার কমপ্লেক্সে সংঘটিত ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের পুনর্বাসনের লক্ষ্যে ডিএসসিসি সেখানে নতুন করে বঙ্গবাজার পাইকারি নগর বিপণি বিতান নির্মাণের উদ্যোগ নেয়।

এছাড়াও পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণের ফলে দক্ষিণবঙ্গের ২১টি জেলা এবং চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের ১৬ জেলা থেকে আসা উত্তরবঙ্গগামী বাসগুলোকে যেন রাজধানীর ভেতরে প্রবেশ করতে না হয়, সেজন্য পোস্তাগোলা ব্রিজ থেকে রায়েরবাজার স্লুইস গেট পর্যন্ত ৮ সারির ইনার সার্কুলার রোড নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এর অংশ হিসেবে প্রথম পর্যায়ে কামরাঙ্গীরচরের লোহার পুল থেকে রায়ের বাজার স্লুইস গেট পর্যন্ত ৮ সারির সড়ক নির্মাণ করা হবে। এই সড়কের মাঝের দুই-দুই চার সারি এক্সপ্রেসওয়ে এবং দুপাশে দুই-দুই চার সারি সার্ভিস লেন হিসেবে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
বঙ্গবাজারে ব্যবসায়ী চাচাকে খুঁজছেন আনোয়ারা
বঙ্গবাজার ধ্বংসস্তূপে এখনও আগুন-ধোঁয়া
বঙ্গবাজারের ব্যবসায়ীদের ১ কোটি টাকা অনুদান দেবে এফবিসিসিআই
ঈদ শপিং না করে বঙ্গবাজারের ব্যবসায়ীদের ২২ লাখ টাকা দিলেন ট্রান্সজেন্ডাররা
বঙ্গবাজারে আগুন, সার্ভার জটিলতায় জিডি নিতে দেরি

মন্তব্য

p
উপরে