× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Evidence of BNP Jamaat separation in Rangpur vote?
hear-news
player
google_news print-icon

বিএনপি-জামায়াত বিচ্ছেদের প্রমাণ রংপুরের ভোটে?

বিএনপি-জামায়াত-বিচ্ছেদের-প্রমাণ-রংপুরের-ভোটে?
রংপুর মহানগর আমির মাহবুবার রহমান বেলাল। ছবি:নিউজবাংলা
রংপুর সিটি নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী না দিলেও সেখানে প্রার্থী হতে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন মহানগর জামায়াতের আমির মাহবুবার রহমান বেলাল। গত আগস্টে জামায়াতের আমির দলের কুমিল্লার একটি ইউনিট শাখার রুকন সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, তারা আর বিএনপির জোটে নেই। এরপর রংপুর সিটি নির্বাচন নিয়ে দুই দলের মধ্যে বিপরীত অবস্থান দেখা যাচ্ছে।

বিএনপির সঙ্গে জামায়াতের জোট ভেঙে গেছে বলে কুমিল্লার একটি ইউনিটের রুকন সম্মেলনে দলের আমির শফিকুল ইসলামের বক্তব্যের তিন মাসের মধ্যে রংপুর সিটি নির্বাচন নিয়ে দুই দলের দুই মেরুতে অবস্থানের প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে।

বর্তমান সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনে অংশ না নেয়ার ঘোষণা থাকা বিএনপি এই ভোট বর্জন করলেও জামায়াতে ইসলামীর একজন নেতা মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছেন।

নির্বাচন কমিশনে জামায়াতের নিবন্ধন বাতিল হওয়ায় দলটির পক্ষে দলীয় প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নেয়ার সুযোগ নেই। ফলে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটে অংশ নিতে হচ্ছে। তার পরও দলটির এই নেতার প্রার্থিতার বিষয়টি রাজনীতিতে ইঙ্গিতপূর্ণ হিসেবেই দেখা হচ্ছে।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আওয়ামী লীগ সরকারবিরোধী আন্দোলনের একপর্যায়ে ১৯৯৯ সালে জোটবদ্ধ হয় জামায়াত ও বিএনপি। এর পর থেকে নির্বাচন, রাজনীতিতে বিএনপি যে পথে চলেছে, একই পথে চলেছে জামায়াতও। বিএনপি ভোট বর্জন করলে তাতে যায়নি জামায়াত। বিএনপি ভোটে গেলে গেছে তারাও।

তবে এই সম্পর্ক যে আগের মতো নেই, সেটি প্রকাশ পায় গত আগস্টের শেষে।

কুমিল্লা জামায়াতের একটি ইউনিটের রুকন সম্মেলনে অনলাইনে যুক্ত হয়ে দলের আমির শফিকুর ইসলাম জানান, বিএনপির সঙ্গে তাদের জোট ভেঙে গেছে।

সেদিন তিনি বলেন, ‘আমরা এতদিন একটা জোটের সঙ্গে ছিলাম। আপনারা শুনে হয়তো ভাবছেন কী হয়েছে এখন। হ্যাঁ, হয়ে গেছে।

‘২০০৬ সাল পর্যন্ত এই জোট দেশের জন্য উপকারী একটা জোট ছিল। ৬ সালের ২৮ অক্টোবর এই জোট তার দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছে। এবং সেদিন বাংলাদেশ পথ হারিয়েছে। তার পরে আর ফিরে আসেনি।’

তিনি বলেন, ‘আমরা বহু চিন্তা করে দেখেছি, এর পর থেকে এই জোট বাংলাদেশের জন্য আর উপকারী জোট নয়।’

জামায়াত আমির সেদিন আরও বলেন, ‘এই জোটের সঙ্গে বিভিন্ন দল যারা আছে, বিশেষ করে প্রধান দল এই জোটকে কার্যকর করার তাদের চিন্তা নাই। তাদের যদি চিন্তা না থাকে, তাহলে তা হবে না।

‘এই বিষয়টি এখন আমাদের কাছে স্পষ্ট, দিবালোকের মতো পরিষ্কার এবং তারা আমাদের সঙ্গে বসে এটা স্বীকার করেছে। …বছরের পর বছর এই ধরনের অকার্যকর জোট চলতে পারে না।…একটা জোটের সঙ্গে কি কেয়ামত পর্যন্ত থাকব?... কোনো অ্যালায়েন্স আপনারা করবেন না, বাস্তবতাও নাই, পারবেনও না।’

বিএনপির পক্ষ থেকে এই বক্তব্যের বিপরীতে কোনো জবাব দেয়া হয়নি। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এ বিষয়ে তারা কিছুই বলবেন না। সাংবাদিকদের প্রশ্নে এও বলেছেন, কিছু না বলতে চাওয়া তার গণতান্ত্রিক অধিকার।

রংপুরে কাকে প্রার্থী করছে জামায়াত?

আগামী ২৭ ডিসেম্বরের ভোটে মেয়র পদে জাতীয় পার্টির গতবারের বিজয়ী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, আওয়ামী লীগের হোসনে আরা ডালিয়ার মোকাবিলায় মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন রংপুর মহানগর আমির মাহবুবার রহমান বেলাল।

তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষদিন ২৯ নভেম্বর। তবে এখন পর্যন্ত মেয়র পদে জমা পড়েছে ১৩টি আবেদন। তারা আগামী ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত মনোনয়ন প্রত্যাহার করতে পারবেন। ফলে শেষ পর্যন্ত জামায়াত ভোটে থাকছে কি না, সেটি নিশ্চিত হতে হলে সেদিন পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হবে।

অতীতের নানা ভোটের পরিসংখ্যানে রংপুর শহরে জাতীয় পার্টির শক্তিকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মতো আছে কেবল আওয়ামী লীগ। তবে জামায়াতে ইসলামীও নানা সময় উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ভোট পেয়ে আসছে।

২০১২ সালে সিটি করপোরেশনের প্রথম ভোট দলীয় প্রতীকে হয়নি। সেবার আওয়ামী লীগের সমর্থনে প্রার্থী হয়ে জেতেন প্রয়াত নেতা সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু। লড়াই হয় জাতীয় পার্টি সমর্থিত মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফার সঙ্গে।

ঝন্টু পান ১ লাখ ৬ হাজার ২৫৫ ভোট, মোস্তফা পান ৭৭ হাজার ৮০৫টি।

২০১৭ সালের দলীয় প্রতীকে দ্বিতীয় নির্বাচনে নৌকার ঝণ্টুকে উড়িয়ে দেন লাঙ্গলের মোস্তফা। আওয়ামী লীগ ভোট পায় ৬২ হাজার ৪০০, জাতীয় পার্টি পায় ১ লাখ ৬০ হাজার ৪৮৯ ভোট।

সেবার বিএনপি নেতা কাওসার জামান বাবলা স্বতন্ত্রের ব্যানারে অংশ নিয়ে ভোট পান ৩৫ হাজার ১৩৬ ভোট। তখন জোটের শরিক জামায়াত ভোটে অংশ না নিয়ে বাবলার পাশে থাকে।

এবারের ভোটে জাতীয় পার্টি ও আওয়ামী লীগে বিভেদ আছে। ঘোষিত প্রার্থীকে মেনে না নিয়ে দুই দলেরই একাধিক নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

জামায়াত নেতার বক্তব্য পাওয়া সহজ নয়

মনোনয়নপত্র জমা দিলেও জামায়াত নেতা আলী মাহবুবার রহমানের বক্তব্য পাওয়া সহজ নয়। তিনি তার ঘনিষ্ঠ কয়েকজন সাংবাদিকের সঙ্গেই কেবল কথা বলেন। তাদের মাধ্যমে যোগাযোগ করেই বক্তব্য পেয়েছে নিউজবাংলা। যদিও সব জিজ্ঞাসার জবাব মেলেনি।

সেই সাংবাদিককে তিনি বলেন, ‘এটা হলো লোকাল গভর্নমেন্ট, এখানে জনগণের সেবা দেয়া দরকার, উন্নয়নের দরকার। সেই লক্ষ্যে এখানে দলের অন্তর্ভুক্তিটা ক্ষতিকর। যখন দলীয় কোনো প্রার্থী এখানে নির্বাচিত হবেন, সঙ্গত কারণে দলীয় লোকজন সেখানে গিয়ে দাবি দাওয়া করবে, আবদার করবে, চাঁদা চাইবে। তাতে সিটি করপোরেশনের কাজ ব্যহত হবে, দুর্নীতির একটা রাস্তা খুলে যাবে।’

তিনি বলেন, ‘এজন্য আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী। বিভিন্ন দল মতের সমর্থনে আছি। ব্যানার, পোস্টার, হ্যান্ডবিলে কোথাও দলের উল্লেখ নাই। আমি জনগণের মেয়ের হতে চাই। জনগণের কল্যাণে কাজ করতে চাই।’

এই ভোটে অংশ নেয়ার ক্ষেত্রে দলের সম্মতি আছে কি না-এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘আমি ইতোমধ্যে বলেছি, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে দলের কোনো প্রশ্ন নাই, দলের কোনো গুরুত্ব নাই, দলের প্রয়োজনও নাই। কারণ, এখানে আইন প্রণয়ন হবে না, সংবিধান রচনা হবে না, মন্ত্রিপরিষদ গঠনও হবে না।’

জামায়াতের মহানগর সেক্রেটারি আনোয়ারুর ইসলাম বলেন, ‘এমনটা না যে তারা (বিএনপি) আমাদেক ভোট করতে কইছে। কারণ, তাদের একটা আদর্শ আমাদের একটা আদর্শ।’

সরকারের সঙ্গে কোনো সমঝোতার ভিত্তিতে এই নির্বাচন কি না- এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘সরকারের সঙ্গে আঁতাতের কোনো প্রশ্নই ওঠে না। আমরা দলীয় কোনো নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি না। কাজে এখানে কোনো কথাই আসে না যে আদর্শগত বা তাদের সঙ্গে আঁতাত করতে হবে।’

তবে নির্বাচন ও রাজনীতি নিয়ে কাজ করা বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা সুশাসনের জন্য নাগরিক বা সুজন এর রংপুর মহানগর কমিটির সভাপতি ফখরুল আনাম বেঞ্জু মনে করেন, জামায়াত নেতার ভোটে অংশগ্রহণ ইঙ্গিতবাহী। তিনি বলেন, ‘রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির অনুপস্থিতি জামায়াতকে উৎসাহিত করল, যেটা বাংলাদেশের জন্য আরেকটা সংকেত বহন করে।

‘বিগত দিনে বিশেষ করে রংপুর শহরে তাদের কার্যক্রম ছিল না। এই ভোটের মাধ্যমে তারা সুসংগঠিত হতে চাইছে যা আগামী দিনে রংপুর অঞ্চলের রাজনীতিতে প্রভাব ফেলতে পারে।’

বিএনপি কী করবে?

রংপুর সিটির আগের দুটি নির্বাচনে বিএনপি নেতা কাওসার জামান বাবলা অংশ নিলেও এবার তাকে ফেরানোর চেষ্টা করছে দল।

জেলা বিএনপির এক শীর্ষ নেতা নিউজবাংলাকে বলেন, ‘বাবলা নির্বাচন করতে চান স্বতন্ত্রের ব্যানারে। কিন্তু আমরা তাকে না করে দিয়েছি। এখন পর্যন্ত নির্বাচনে অংশ না নেয়ার সিদ্ধান্তই আছে।

‘স্বতন্ত্রের ব্যানারে করুক আর যেভাবে করুক, ব্যক্তিটি তো বিএনপি নেতা। তিনি নির্বাচনে অংশ নিলে দল বড় সমালোচনার মধ্যে পড়ে যাবে।’

মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক সামছুজ্জামান সামু নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমরা বলেই আসছি তত্ত্বাবধায়ক ছাড়া কোনো নির্বাচনে যাব না। আমরা এবং আমাদের দল সেই সিদ্ধান্তে আছি। আমরা কেউ এই সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাব না। কোনো নেতা যদি স্বতন্ত্রের নামে নির্বাচনে অংশ নেয় তাহলে দল তার বিরুদ্ধে কঠিন অ্যাকশনে যাবে।’

বিএনপি ভোটে না এলেও জামায়াত নেতার প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে রংপুর মহানগর বিএনপির সদস্যসচিব মাহফুজ উন নবী ডন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমাদের বক্তব্য স্পষ্ট। এই সরকারের অধীনে জনগণের ভোটাধিকার নেই। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া জাতীয় বা স্থানীয় কোনো নির্বাচনই এই সরকারের অধীনে যাব না, যাচ্ছি না। জামাত ভোট করছে সে বিষয়ে আমাদের সঙ্গে তাদের কোনো যোগযোগ নেই, হয়নি। সেটা তাদের বিষয়।’

গত আগস্টে জোট ছাড়ার বিষয়ে জামায়াত আমির যে বক্তব্য দিয়েছিলেন, তারপর রংপুর জামায়াতের এই আচরণে দুই দলের সম্পর্ক ছিন্নের প্রমাণ পাওয়া গেল কি না, এই প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘আমি আমার সংগঠনের বিষয়ে কথা বলতে পারি। অন্য সংগঠনের বিষয়ে কিছু জানি না। ভোট নিয়েও কোনো কথা হয়নি। জোটের বিষয়গুলো কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ আছেন বিষয়টি তারাই দেখেন।’

কেন্দ্রীয় বিএনপি কী বলছে

জামায়াত আমিরের জোট ছাড়ার বক্তব্যের পর রংপুরে বিএনপির সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে জামায়াতের প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে নিউজবাংলা কথা বলেছে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খানের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘এমন কোনো তথ্য (রংপুরে জামায়াতের প্রার্থী দেয়া) আমার জানা নেই। আর স্বতন্ত্র হিসেবে দাঁড়ালে তিনি তো আর দলীয় পরিচয় বহন করছে না।’

স্বতন্ত্র প্রার্থী দলীয় পরিচয় বহন করে না বললেও দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে সিটি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ায় নারায়ণগঞ্জে তৈমূর আলম খন্দকার ও কুমিল্লায় মনিরুল হক সাক্কুকে বহিষ্কার করেছে বিএনপি।

বিএনপির সঙ্গে জোট আর নেই বলে জামায়াতের আমিরের বক্তব্যের বিষয়ে নজরুল বলেন, ‘কথাবার্তা টুকটাক সবাই বলেন। আর জোট ছাড়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হলে সেটাতো আপনাদের দাওয়াত দিয়েই জানাব।’

আরও পড়ুন:
কুমিল্লার ভোটে সেই চার কেন্দ্রের ফলে কোনো গড়বড় নেই
কুমিল্লায় ২০ কাউন্সিলর আ.লীগের, বিএনপির ৪
কেন্দ্রে এজেন্টের সই করা ফলই ঘোষণা হয়েছে: রিটার্নিং কর্মকর্তা
রিটার্নিং কর্মকর্তার ফল পাল্টানোর সুযোগ নেই: ইসি
কুমিল্লায় ভোট সুষ্ঠু, বিএনপির অভিযোগ অভ্যাস: কাদের

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Prime Minister assured to allocate according to demand Rangpur City Mayor

প্রধানমন্ত্রী আমার চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন : রংপুর সিটি মেয়র

প্রধানমন্ত্রী আমার চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন : রংপুর সিটি মেয়র রংপুর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান নেতা-কর্মীরা। ছবি: নিউজবাংলা
নবনির্বাচিত মেয়র মোস্তফা বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার ওপর অত্যন্ত খুশি। তিনি বলেছেন যে প্রার্থীই নির্বাচিত হোক না কেন, উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে। আমার চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।’

প্রধানমন্ত্রী চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন রংপুর সিটি করপোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা।

রংপুর সিটি পরিষদ ও নগরবাসীর সহযোগিতা নিয়ে আগামী পাঁচ বছরে নগরীর বৈপ্লবিক পরিবর্তন ঘটানোর পরিকল্পনার কথা জানিয়ে মোস্তফা বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার ওপর অত্যন্ত খুশি। তিনি বলেছেন যে প্রার্থীই নির্বাচিত হোক না কেন, উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে। আমার চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।’

মেয়র নির্বাচিত হবার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে গত ৩১ জানুয়ারি শপথ শেষে বৃহস্পতিবার বিকেলে নগর ভবনে যান তিনি। এ সময় নেতা-কর্মী ও নগর ভবনের কর্মকর্তারা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

তিনি বলেন, ‘নগরবাসী আমার ওপর দ্বিতীয়বারের মতো আস্থা রেখে আমাকে সম্মানিত করেছেন, আমি তাদের আস্থার মান রক্ষার চেষ্টা করব।’

নবনির্বাচিত এ মেয়র বলেন, ‘আমি মনে করি দ্বিতীয়বার মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে আমার দায়িত্ব আরও বেড়ে গেছে। আমি সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে যাব।’

মোস্তফা বলেন, ‘নগরীর উন্নয়নের জন্য আমি এক হাজার ৬৮০ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনা দাখিল করেছি। চিকলী পার্কের জন্য ৪৯ কোটি টাকার একটি উন্নয়ন প্রকল্প জমা দেয়া হয়েছে। শ্যামাসুন্দরী খালের উন্নয়ন নিয়েও একটি প্রকল্প জমা দিয়েছি। বিগত সময়ে করোনার জন্য শ্যামাসুন্দরী খালের উন্নয়ন করা সম্ভব হয়নি। এবার বিভাগীয় প্রশাসনের সঙ্গে সেতু বন্ধনের মাধ্যমে আমরা শ্যামাসুন্দরী খালের উন্নয়ন করব।’

আরও পড়ুন:
প্রতি ওয়ার্ডে মুক্তিযোদ্ধাদের নামে সড়ক হবে: মেয়র আতিকুল
বুড়িগঙ্গা আদি চ্যানেলের প্রশস্ততা ১০ গুণ বেড়েছে: মেয়র তাপস
জাহাঙ্গীর মেয়র পদ হারাননি: এলজিআরডি মন্ত্রী
রংপুরে এক মঞ্চে ৯ মেয়র প্রার্থী, দুর্নীতিমুক্ত উন্নয়নের অঙ্গীকার
জাপায় নির্ভার মোস্তফা, মুকুট চায় আওয়ামী লীগ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
1300 kg of jatka was found in the train

ট্রেনে মিলল ১৩০০ কেজি জাটকা

ট্রেনে মিলল ১৩০০ কেজি জাটকা ট্রেনের বগি থেকে ১৩০০ কেজি জাটকা জব্দ করা হয়েছে। ছবি: নিউজবাংলা
কোস্টগার্ড ঢাকা জোন মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার খন্দকার মুনিফ তকি বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড স্টেশন চাঁদপুর ও উপজেলা মৎস্য অফিসের যৌথ অভিযানে চট্টগ্রামগামী সাগরিকা ট্রেনে তল্লাশি করে ১৩০০ কেজি জাটকা জব্দ করা হয়, যা ৩২.৫ মণের সমান।’

চাঁদপুরে কোস্ট গার্ডের অভিযানে ট্রেনের বগি থেকে ১৩০০ কেজি জাটকা জব্দ করা হয়েছে।

চাঁদপুর শহরের কোর্টস্টেশনে চট্টগ্রামগামী ট্রেনের মালবাহী একটি বগীতে তল্লাশি করে বৃহস্পতিবার দুপুরে মাছগুলো জব্দ করা হয়।

কোস্টগার্ড ঢাকা জোন মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার খন্দকার মুনিফ তকি বৃহস্পতিবার রাতে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড স্টেশন চাঁদপুর ও উপজেলা মৎস্য অফিস যৌথভাবে শহরের কালিবাড়ি রেলওয়ে কোর্ট স্টেশন এলাকায় একটি অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে চট্টগ্রামগামী সাগরিকা ট্রেনে তল্লাশি করে ১৩০০ কেজি জাটকা জব্দ করা হয়, যা ৩২.৫ মণের সমান।

‘পরে চাঁদপুর সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. তানজিমুল ইসলামের উপস্থিতিতে জব্দ করা জাটকা স্থানীয় এতিমখানা ও অসহায় মানুষদের মাঝে বিতরণ করা হয়।’

আরও পড়ুন:
জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ শুরু ৩১ মার্চ
নিষেধাজ্ঞার মধ্যে মেঘনায় অবাধে জাটকা নিধন
লঞ্চঘাটে পড়ে ছিল ১২ শ কেজি জাটকা
বাস থেকে জব্দ হাজার কেজি জাটকা
৪৫ মণ জাটকাসহ গ্রেপ্তার ছয়জন

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Late night protest in Jabi where student injured by bike

বাইকের ধাক্কায় ছাত্র আহত, গভীর রাতে জাবিতে বিক্ষোভ

বাইকের ধাক্কায় ছাত্র আহত, গভীর রাতে জাবিতে বিক্ষোভ উপাচার্য অধ্যাপক মো. নূরুল আলমের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে বিক্ষোভ করেন জাবি শিক্ষার্থীরা। ছবি: নিউজবাংলা
শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো দুর্ঘটনায় আহত ছাত্রের চিকিৎসা ও শিক্ষার ব্যয়ভার প্রশাসনের বহন, মোটরসাইকেল চালকের শাস্তি, মোটরসাইকেল ও অটোরিকশার গতি নিয়ন্ত্রণ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোর সামনে গতি নিরোধক নির্মাণ।

মোটরসাইকেলের ধাক্কায় এক ছাত্র গুরুতর আহত হওয়ার জেরে নিরাপদ ক্যাম্পাস নিশ্চিত, মোটরসাইকেল ও অটোরিকশার গতি নিয়ন্ত্রণসহ চার দফা দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষার্থীরা।

উপাচার্য অধ্যাপক মো. নূরুল আলমের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে এসব কর্মসূচি পালন করেন তারা।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো দুর্ঘটনায় আহত ছাত্রের চিকিৎসা ও শিক্ষার ব্যয়ভার প্রশাসনের বহন, মোটরসাইকেল চালকের শাস্তি, মোটরসাইকেল ও অটোরিকশার গতি নিয়ন্ত্রণ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোর সামনে গতি নিরোধক নির্মাণ।

বাইকের ধাক্কায় ছাত্র আহত, গভীর রাতে জাবিতে বিক্ষোভ

বিশ্ববিদ্যালয়ের মওলানা ভাসানী হল সংলগ্ন সড়কে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের প্রথম বর্ষের (৫১ ব্যাচ) ছাত্র জাহিদ হাসান। তাকে সাভারের এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, ‘আমি আহত শিক্ষার্থীকে দেখতে হাসপাতালে গিয়েছিলাম। তার অবস্থা এখনও শঙ্কামুক্ত নয়। আহত শিক্ষার্থীর চিকিৎসার দায়ভার বিশ্ববিদ্যালয় বহন করবে।

‘শিক্ষার্থীদের দাবির সঙ্গে আমরা সম্পূর্ণ একমত পোষণ করছি। আশা করছি সবাই মিলে একটি সুষ্ঠু সমাধানে পৌঁছাতে পারব।’

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে উপাচার্য নূরুল আলম বলেন, ‘আহত শিক্ষার্থীর সকল চিকিৎসার দায়ভার বিশ্ববিদ্যালয় গ্রহণ করবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যমান আইনে ৭ কর্মদিবসের মধ্যে আমরা ঘাতক চালকের বিচার নিশ্চিত করব।

‘বাইক, অটোরিকশার গতি নিয়ন্ত্রণে আমি নিরাপত্তাকর্মীদের নির্দেশ করব। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা চিহ্নিত করে স্পিডব্রেকার নির্মাণ করা হবে। এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে সকলের সহযোগিতা কাম্য।’

আরও পড়ুন:
জাবির প্রজাপতি মেলায় একঝাঁক শিশু
জাবিতে ‘প্রফেসর ড. হাফিজা খাতুন স্বর্ণপদক’ চালু
জাবিতে ‘প্রজাপতি মেলা’ এবার ২ ডিসেম্বর
মসজিদ নির্মাণের দাবিতে জাবিতে মানববন্ধন
ছাত্রকে থাপ্পড় দেয়া জাবির ২ ছাত্রীর বহিষ্কারাদেশ অবৈধ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Remembrance of the Rajbari womens group released after 4 months

৪ মাস পর কারামুক্ত রাজবাড়ী মহিলা দলের স্মৃতি

৪ মাস পর কারামুক্ত রাজবাড়ী মহিলা দলের স্মৃতি জামিনে মুক্তি পাওয়ার পর বিএনপি নেতা-কর্মীদের ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হন সোনিয়া আক্তার স্মৃতি। ছবি: নিউজবাংলা
মুক্তির পর স্মৃতি বলেন, ‘আমি সঠিক কথাই লিখেছিলাম। সত্যি কথা বলার অপরাধে চার মাস মাসুম দুটি বাচ্চা রেখে আমাকে জেল খাটতে হয়েছে। এতে আমার কোনো আফসোস নেই। কারণ আমি জানি পুরো বাংলাদেশের মানুষ আমার পাশে ছিল। আর আমার দলের জন্য চার মাস কেন, চার বছরও জেল খাটতে পারি।’

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তি ও ফুচকা উৎসবের নামে ‘অশ্লীল নৃত্য’ আয়োজনের অভিযোগে করা আলাদা দুটি মামলায় প্রায় চার মাস কারাগারে থাকা রাজবাড়ীর মহিলা দলের নেত্রী সোনিয়া আক্তার স্মৃতি জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।

রাজবাড়ী জেলা কারাগার থেকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মুক্তি পান তিনি।

মুক্তির পর স্মৃতি বলেন, ‘আমি সঠিক কথাই লিখেছিলাম। সত্যি কথা বলার অপরাধে চার মাস মাসুম দুটি বাচ্চা রেখে আমাকে জেল খাটতে হয়েছে। এতে আমার কোনো আফসোস নেই।

‘কারণ আমি জানি পুরো বাংলাদেশের মানুষ আমার পাশে ছিল। আর আমার দলের জন্য চার মাস কেন, চার বছরও জেল খাটতে পারি।’

স্মৃতি আরও বলেন, ‘একজন সমাজকর্মী হিসেবে মানুষের জন্য কাজ করি। রাত-বিরাতে মুমূর্ষু রোগীর জন্য বের হই; তাদের রক্ত জোগাড় করে দিই। এ জন্য অনেক খারাপ কথা শুনতে হয়েছে, কিন্তু যাদের উপকার হয়েছে, তাঁরা খুশি হয়েছেন।’

স্মৃতি রাজবাড়ী ব্লাড ডোনার্সের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। তিনি জেলা মহিলা দলের সদস্য। দুই সন্তানের এ জননী শহরের বেড়াডাঙ্গা এলাকায় থাকেন।

স্মৃতির ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ‘আপত্তিকর’ পোস্টের বিষয়ে রাজবাড়ী সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দেন সামসুল আরেফিন চৌধুরী নামের আওয়ামী লীগের স্থানীয় এক নেতা। পরে অভিযোগটি মামলা হিসেবে ৫ অক্টোবর রেকর্ড করা হয়। ওই দিনই স্মৃতিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অভিযোগ অনুযায়ী, গত বছরের ৩১ আগস্ট স্মৃতি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে একটি স্ট্যাটাস দেন, যাতে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি বক্তব্যের সমালোচনা করে ‘আপত্তিকর’ কথা লেখেন। অনেকে পোস্টটি দেখায় প্রধানমন্ত্রীর সুনাম ক্ষুণ্ন ও মানহানি হয়।

মামলায় রাজবাড়ী জেলা ও দায়রা জজ আদালতে জামিন চেয়ে বিফল হন স্মৃতি। এরপর ৩০ অক্টোবর হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করেন। এর শুনানি নিয়ে ৩১ অক্টোবর তাকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেয় হাইকোর্ট। এর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল করলে ২ নভেম্বর তার জামিন স্থগিত করে আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত।

চেম্বার আদালত বিষয়টি আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠায়। এর ধারাবাহিকতায় ২৮ নভেম্বর আপিল বিভাগে শুনানি হয়। পরে ১৫ জানুয়ারি প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ স্মৃতিকে ছয় মাসের জামিন দেয়।

স্মৃতির বাবা আবদুস সাত্তার মল্লিক বলেন, ‘বাংলাদেশে জামিন হয়, কিন্তু মুক্তি মেলে না। আমার বাচ্চা আমার কাছে ফিরে এসেছে। আমার বুকের মানিক। আমার খুব ভালো লাগছে।’

রাজবাড়ী জেলা বারের আইনজীবী ও স্মৃতির মনোনীত আইনজীবী নেকবর হোসেন মনি জানান, বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তির মামলা ও ফেসবুক গ্রুপ ‘খাদক বাঙ্গালী’র আয়োজনে রাজবাড়ী শিশু পার্কে অশ্লীল নৃত্য আয়োজন করার অভিযোগে মামলায় জামিন পান স্মৃতি। সন্ধ্যায় জেলা কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন তিনি।

সোনিয়া আক্তার স্মৃতি জামিন পেলে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা।

আরও পড়ুন:
রাজবাড়ীর মহিলা দলের সেই স্মৃতির জামিন বহাল
স্মৃতিসৌধের আশপাশের বাসিন্দাদের তথ্য নিচ্ছে পুলিশ
আপাতত জামিন পাচ্ছেন না সেই স্মৃতি
শিশুর স্মৃতিশক্তি বাড়াবে যে খাবারগুলো
স্মৃতিসৌধে গাছ পড়ে দর্শনার্থীর মৃত্যু

মন্তব্য

বাংলাদেশ
He went on a trip to Marine Drive and returned as a dead body

মেরিন ড্রাইভ ভ্রমণে গিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে

মেরিন ড্রাইভ ভ্রমণে গিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন মামুনুর রশীদ। ছবি: নিউজবাংলা
কক্সবাজার সদর হাসপাতালের নিরাপত্তা পুলিশ সদস্য মো. রিপন চৌধুরী বলেন, ‘রাত সাড়ে ৯টার দিকে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত দুইজনকে আনা হয়। এ সময় হাসপাতালের চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত অপরজন শহরে ফুয়াদ আল খতিব হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।’

কক্সবাজারে উখিয়ার মেরিন ড্রাইভ সড়কে মোটরসাইকেলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এক যুবক মারা গেছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও একজন।

উখিয়া উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের পাটুয়ারটেক এলাকায় বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

২৬ বছর বয়সী মামুনুর রশীদ কক্সবাজার পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের রুমালিয়ারছড়া সবুজবাগ এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। আহত যুবকের নাম ও পরিচয় জানাতে না পারলেও পুলিশ জানায় তিনি নিহত মামুনুরের বন্ধু।

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী নিউজবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

স্থানীয়দের বরাতে তিনি বলেন, ‘বিকেলে মামুনুর তার এক বন্ধু সঙ্গে নিয়ে মোটরসাইকেলে করে টেকনাফে বেড়াতে গিয়েছিল। রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের উখিয়া উপজেলার পাটুয়ারটেক এলাকায় পৌঁছালে গাড়ি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পড়ে যায়। এ সময় সড়কের ওপর তাদের পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের নিরাপত্তা পুলিশ সদস্য মো. রিপন চৌধুরী বলেন, ‘রাত সাড়ে ৯টার দিকে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত দুইজনকে আনা হয়। এ সময় হাসপাতালের চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত অপরজন শহরে ফুয়াদ আল খতিব হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।’

নিহতের মরদেহ হাসপাতালের মর্গে আছে বলেও জানান এ পুলিশ সদস্য।

আরও পড়ুন:
সুপ্রভাতের পর ভিক্টর: এবার‌ও ব্যানার পাল্টে পার?
ভিক্টরের বাস বন্ধের দাবি, সড়ক ছাড়লেন নাদিয়া হত্যায় বিক্ষুব্ধরা
মোটরসাইকেলে ধাক্কা, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর প্রাণ কেড়ে নিল বাস
সিলেটে অটোরিকশায় ট্রাকের ধাক্কা, নিহত ৩
সেতুর রেলিংয়ে বাইকের ধাক্কা, ২ কলেজছাত্র নিহত

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A child died after falling into an uncovered septic tank

ঢাকনাহীন সেপটিক ট্যাংকে পড়ে প্রাণ গেল শিশুর

ঢাকনাহীন সেপটিক ট্যাংকে পড়ে প্রাণ গেল শিশুর
ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। শিশুর পরিবারের কাছ থেকে অভিযোগ পেলে মামলা হবে।

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় সেপটিক ট্যাংকের ভেতর পড়ে এক শিশু মারা গেছে।

সদর উপজেলার কাশীপুর ইউনিয়নের উত্তর গোয়ালবন্দ ব্যাংককলোনী আবাসিক এলাকায় বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

সাড়ে ৫ বছর বয়সী মুশফিকা আক্তার ওই এলাকার মো. খলিলের মেয়ে। চলতি বছরের জানুয়ারিতে শিশুটি স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছিল।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামান নিউজবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়দের বরাতে তিনি জানান, নির্মাণাধীন একটি ভবনের সেপটিক ট্যাংকের ঢাকনা খোলা থাকায় ভেতরে পড়ে যায় মুশফিকা আক্তার নামে ওই শিশু। শিশুটির মা তাকে ভেতর থেকে বের করে আনে। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নির্মাণাধীন ভবনটির মালিক মোরশেদা বেগম বলেন, ‘দুপুর আড়াইটার দিকেও তিনি সেপটিক ট্যাংকের ঢাকনা লাগানো দেখেছেন। কেউ ঢাকনাটি চুরি করে নিয়ে গেছে বলে ধারণা করছি। বিকেল ৪টার দিকে ঘর থেকে বেরিয়ে সেপটিক ট্যাংকের ঢাকনা খোলা দেখি। পরে ট্যাংকের ভেতর উঁকি দিয়ে বাচ্চা বয়সী কারও টুপি ও জুতা ভাসতে দেখি। পরে আশেপাশের লোকজনকে ডাক দেই।

‘আশেপাশের লোকজনের সঙ্গে কথা বলার সময় পাশের বাসা থেকে বাচ্চার মা বেরিয়ে আসে। পরে টর্চলাইটের আলো জ্বেলে বাচ্চাটিতে ভাসতে দেখা যায়।’

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, হৈ-চৈ শুনে শিশুটির মা ঘর থেকে বেরিয়ে আসেন। বাচ্চাটিকে বের করার পর তার মুখ সাদা হয়ে গেছে। পরে শিশুটির পেটে চাপ দিয়ে পানি বের করার চেষ্টা করা হয়। পরে মুমূর্ষু অবস্থায় শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

নারায়ণগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার এস কে ফরহাদ জানান, শিশুটির মরদেহ তার পরিবারের লোকজন নিয়ে গেছে। হাসপাতাল থেকে পুলিশকে ঘটনা জানানো হয়েছে।

ওসি রকিবুজ্জামান জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। শিশুর পরিবারের কাছ থেকে অভিযোগ পেলে মামলা হবে।

আরও পড়ুন:
৯৯৯-এ ফোন, মিলল তরুণীর মরদেহ
বাসায় যেতে চাওয়া রেজাকে মর্গে পাঠাল মধ্যরাতের ট্রাক
নাটোরে আলাদা স্থান থেকে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার
খেলার সময় ছাদ থেকে পড়ে মারা গেল দুই শিশু
নির্মিত ভবনের বিম ভেঙে প্রাণ গেল শ্রমিকের

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Two workers were tied to a pole and beaten to death on the charge of theft

চুরির অভিযোগে খুঁটিতে বেঁধে দুই শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যা 

চুরির অভিযোগে খুঁটিতে বেঁধে দুই শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যা 
বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি বলেন, ‘ওই শ্রমিকদের পরিবারকে রাতেই খবর দেয়া হয়েছে। শুক্রবার সকালে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের ফরেনসিক বিভাগে ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।’

রাজশাহীতে একটি খাদ্যপণ্য প্রস্তুতকারী কোম্পানির মালিকের বাসায় দুই নির্মাণ শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত কারখানা মালিকসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।

মহানগরীর বিসিক শিল্প এলাকার মডার্ণ ফুড নামের কোম্পানির মালিকের বাসায় বৃহস্পতিবার বিকেলে ঘটে এ ঘটনা।

প্রাণ হারানো শ্রমিকদের একজন রেজাউল ইসলাম। তিনি নওগাঁর মান্দা থানার সুগনিয়া গ্রামের বাসিন্দা বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। অপর শ্রমিকের পরিচয় জানা যায় নি।

বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম নিউজবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

স্থানীয়দের বরাতে তিনি জানান, সপুরার মডার্ণ ফুডের মালিক আব্দুল মালেক হাজীর ছেলে মোহাম্মদ আব্দুল্লাহর কারখানা সংলগ্ন বাসায় রাজমিস্ত্রির কাজ করছিলেন দুই শ্রমিক। বৃহস্পতিবার দুপুরে ১০ লাখ টাকা চুরির অভিযোগে দুই শ্রমিককে খুঁটিতে বেঁধে লোহার রড ও লাঠি দিয়ে বেদম মারধর করা হয় সারা শরীরে।

চুরির স্বীকারোক্তি আদায়ে রাত সোয়া ৯টা পর্যন্ত দুই শ্রমিকের ওপর নির্যাতন চলে। নির্যাতনের সময় মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করা হয়। এমন দুটি ভিডিও পুলিশ উদ্ধার করেছে।

ওসি মাজহারুল জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে রাত সাড়ে ৯টার দিকে কারখানার সংলগ্ন মালিকের বাসায় অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় দুই শ্রমিককে মুমূর্ষু অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশ পিকআপ ভ্যানে তুলে তাদের দ্রুত রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হয়। এ সময় চিকিৎসকরা এক শ্রমিককে মৃত ঘোষণা করেন। আহত রেজাউলকে ৮ নম্বর ওয়ার্ডে পাঠানো হয়। কিন্তু ভর্তির কয়েক মিনিট পর তারও মৃত্যু হয়।

দুই শ্রমিককে উদ্ধারের সময় কারখানা মালিকের ছেলে আব্দুল্লাহ, আব্দুল্লাহর শ্বশুর মাসুম রেজা, শ্যালক মহিউদ্দিন রিয়াল ও ম্যানেজার এমরান হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ । তাদের বোয়ালিয়া থানায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

ওসি বলেন, ‘ওই শ্রমিকদের পরিবারকে রাতেই খবর দেয়া হয়েছে। শুক্রবার সকালে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের ফরেনসিক বিভাগে ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।’

আরও পড়ুন:
দুই শিশুকে হত্যার দায়ে এক নারীর মৃত্যুদণ্ড, আরেকজনের যাবজ্জীবন
নৌ-পুলিশকে গলাটিপে হত্যার অভিযোগ
ধলেশ্বরী নদীতে হাত-পা কাটা অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ
সাবেক ইউপি সদস্যকে টেঁটা দিয়ে হত্যা
জেল থেকে মায়ের সঙ্গে আসামির ফোনালাপে হত্যারহস্য উদঘাটন

মন্তব্য

p
উপরে