× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Job seekers wearing masks in front of PSC
google_news print-icon

মুলার পর মুখোশ পরে পিএসসির সামনে চাকরিপ্রার্থীরা

মুলার-পর-মুখোশ-পরে-পিএসসির-সামনে-চাকরিপ্রার্থীরা
পিএসসির সামনে চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন। ছবি: নিউজবাংলা
প্রতীকী মুখোশ পরে টানা সপ্তম দিনের মতো চাকরিপ্রার্থীরা পিএসসির সামনে অবস্থান করছে। বেলা ১১টা এবং দুপুর ২টার দিকে প্রার্থীরা মুখোশ পরে মিছিল করে পিএসসির চারপাশ প্রদক্ষিণ করে।

ননক্যাডার প্রার্থীদের নিয়ে বাংলাদেশ কর্ম কমিশনের (পিএসসি) নতুন নিয়মের বিরুদ্ধে এবার ‘প্রাপ্যতার মুখোশ’ পরে প্রতিবাদ করেছে ৪০তম বিসিএস নন ক্যাডার চাকরিপ্রার্থীরা।

সোমবার বেলা ১১টা থেকে তাদের পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি শুরু হয়। এসময় তারা ‘প্রাপ্যতার মুখোশ’ পরে পিএসসি নন-ক্যাডার বিষয়ে যে অযৌক্তিক ও অন্যায় সিদ্ধান্ত নিচ্ছে তার প্রতিবাদ জানায়।

প্রতীকী মুখোশ পরে টানা সপ্তম দিনের মতো চাকরিপ্রার্থীরা পিএসসির সামনে অবস্থান করছে। বেলা ১১টা এবং দুপুর ২টার দিকে প্রার্থীরা মুখোশ পরে মিছিল করে পিএসসির চারপাশ প্রদক্ষিণ করে।

পিএসসির পক্ষ থেকে লিখিত বক্তব্যের বিষয়ে আজও জোর দাবি জানায় প্রার্থীরা।

চাকরিপ্রার্থীরা বলেন, পিএসসির মতো একটি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের দিনের পর দিন এ সংকটে নিশ্চুপ থাকাটা অমানবিক। ৩০ অক্টোবর থেকে টানা সাত দিন পিএসসির সামনে লাগাতার অবস্থান ও শুক্রবার শহীদ মিনারে সাংস্কৃতিক প্রতিবাদসহ টানা ৮ দিন কর্মসূচি পালন করেও পিএসসি থেকে কোনো বক্তব্য পায়নি তারা।

৬ দফা দাবি বাস্তবায়নের মাধ্যমে নন-ক্যাডার নিয়োগে পূর্বের নিয়মে ফিরে না যাওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

আগামীকাল সকাল ১১টায় আবারও পিএসসির সামনে অবস্থান নিয়ে বৈচিত্র্যপূর্ণ কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন বলে জানান আন্দোলরত চাকরিপ্রার্থীরা।

আরও পড়ুন:
আবার পিএসসির সামনে বসবেন নন-ক্যাডার প্রার্থীরা
দাবি না মানলে রোববার থেকে পিএসসিতে অবস্থান
পিএসসিকে ‘মুলা’ দেখালেন নন ক্যাডার প্রার্থীরা
৪০তম বিসিএস থেকে ১৯২৯ জনকে নিয়োগ
নন-ক্যাডার প্রার্থীদের অবস্থান নিয়ে নীরব পিএসসি

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Khurshid and Habib are the new deputy governors of Bangladesh Bank

বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন ডেপুটি গভর্নর খুরশীদ ও হাবিব

বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন ডেপুটি গভর্নর খুরশীদ ও হাবিব মো. খুরশীদ আলম ও মো. হাবিবুর রহমান। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা
বাংলাদেশ ব্যাংকে ডেপুটি গভর্নরের চারটি পদেই নিয়োগ দেয় সরকার। ২ ফেব্রুয়ারি একেএম সাজিদুর রহমান এবং ২৩ ফেব্রুয়ারি আবু ফরাহ মোহাম্মদ নাসের অবসরে যাওয়ায় দুটি পদ শূন্য হয়। সেই শূন্য পদে এই দুই কর্মকর্তাকে নিয়োগ দেয়া হলো।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক মো. খুরশীদ আলম ও প্রধান অর্থনীতিবিদ মো. হাবিবুর রহমানকে ডেপুটি গভর্নর পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ থেকে এই দু’জনকে তিন বছরের জন্য ডেপুটি গভর্নর পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের আদেশ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, বর্তমান পদ থেকে স্বেচ্ছায় অবসরগ্রহণ ও অবসর-উত্তর ছুটি স্থগিতের শর্তে তাদের ডেপুটি গভর্নর পদে নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। যোগদানের তারিখ থেকে তাদের নিয়োগ কার্যকর হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকে ডেপুটি গভর্নরের চারটি পদেই নিয়োগ দেয় সরকার। ২ ফেব্রুয়ারি একেএম সাজিদুর রহমান এবং ২৩ ফেব্রুয়ারি আবু ফরাহ মোহাম্মদ নাসের অবসরে যাওয়ায় দুটি পদ শূন্য হয়। সেই শূন্য পদে এই দুই কর্মকর্তাকে নিয়োগ দেয়া হলো।

ডেপুটি গভর্নরের বাকি দুই পদে দায়িত্ব পালন করছেন কাজী ছাইদুর রহমান ও নুরুন নাহার।

নতুন ডেপুটি গভর্নর খুরশীদ আলম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাণিজ্য অনুষদ থেকে স্নাতকোত্তর শেষ করে পরে এমবিএ করেন। ১৯৮৮ সালে সহকারী পরিচালক হিসেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে যোগ দেন তিনি। তার বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে।

মো. হাবিবুর রহমানও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সন্তান। তিনি অর্থনীতিতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে। পরে যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার (ইউএসএইড) বৃত্তি নিয়ে মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায়োগিক অর্থনীতিতে মাস্টার্স ও পিএইচডি করেছেন।

১৯৯০ সালে গবেষণা বিভাগের সহকারী পরিচালক হিসেবে বাংলাদেশ ব্যাংকে যোগ দেন হাবিবুর রহমান। নির্বাহী পরিচালকের দায়িত্ব পাওয়ার আগে বাংলাদেশ ব্যাংকের গবেষণা বিভাগ এবং বর্তমানে মানিটারি পলিসি বিভাগে কাজ করেছেন তিনি।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Assistant Teacher Recruitment Second Phase Results Released

সহকারী শিক্ষক নিয়োগ: দ্বিতীয় ধাপের ফল প্রকাশ

সহকারী শিক্ষক নিয়োগ: দ্বিতীয় ধাপের ফল প্রকাশ ফাইল ছবি
উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষার সময় পরে জানানো হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার দ্বিতীয় ধাপের লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। এ ধাপে খুলনা, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের প্রার্থীদের লিখিত পরীক্ষায় ২০ হাজার ৬৪৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন।

মঙ্গলবার শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় (www.mopme.gov.bd) এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে (www.dpe.portal.gov.bd) পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া যাচ্ছে। উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীরা মোবাইলেও এসএমএস পাবেন।

গত ২ ফেব্রুয়ারি খুলনা, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের ২২ জেলার ৪ লাখ ৩৯ হাজার ৪৪৩ জন চাকরিপ্রত্যাশী পরীক্ষায় অংশ নেন।

উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষার সময় পরে জানানো হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

প্রাথমিকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগে তিন ধাপে পরীক্ষা হবে।

গত ৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত প্রথম ধাপের (বরিশাল, সিলেট, রংপুর বিভাগ) লিখিত পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৩ লাখ ৬০ হাজার ৬৯৭ জন। এর মধ্যে ৯ হাজার ৩৩৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
14 people jailed in Naogaon for device fraud in teacher recruitment exam

শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ডিভাইস জালিয়াতি, নওগাঁয় ১৪ জনের জেল

শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ডিভাইস জালিয়াতি, নওগাঁয় ১৪ জনের জেল কানে ইলেকট্রনিক ডিভাইসসহ আটক এক পরীক্ষার্থী। ছবি: নিউজবাংলা
শুক্রবার সকালে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা চলাকালে জেলার বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে তাদের আটক করা হয়।

নওগাঁয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে ১৪ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়া জরিমানা করা হয়েছে দুজনকে।

শুক্রবার সকালে পরীক্ষা চলাকালে তাদের আটক করা হয়। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে জেলা প্রশাসনের মিডিয়া সেলে এসব তথ্য জানান জেলা প্রশাসক মো. গোলাম মওলা।

জেলা প্রশাসক বলেন, ‘পরীক্ষা চলাকালে মান্দা উপজেলার মমিন শাহানা সরকারি ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে মিঠুন, সুলতান ও রবিউল ইসলাম নামে তিনজন চাকরিপ্রত্যাশীর কাছে ইলেকট্রনিক ডিভাইস পাওয়া যায়। এ অপরাধে মিঠুনকে ১ মাস, সুলতানকে ১ মাস এবং রবিউল ইসলামকে ১০ দিন বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। একই উপজেলার শহীদ কামরুজ্জামান টেক্সটাইল কেন্দ্র থেকে আটক নাইমুর রহমান ও মোস্তাফিজুর বিন আমিনকে ১৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

‘এ ছাড়া মান্দা থানা আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে আরও ৫ জনকে আটক করা হয়। যেখানে জারজিস আলমকে ১০ দিন, ফজলে রাব্বি মন্ডলকে ১ মাস, নুর আলমকে ৭ দিন, জামাল উদ্দিনকে ১০ দিন এবং আব্দুল্লাহ সাইরাফি ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড সাজা পেয়েছেন।’

কিনি আরও বলেন, ‘নওগাঁ সদর উপজেলার বশির উদ্দিন মেমোরিয়াল কলেজ (বিএমসি) কেন্দ্রে দুজনকে ৫০০ টাকা করে মোট ১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

‘সদর উপজেলার চক এনায়েত উচ্চ বিদ্যালয় এবং পাহাড়পুর জিএম হাইস্কুল কেন্দ্র করে ১ জন করে মোট দুজনকে ১০ দিনের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। মহাদেবপুর উপজেলায় একজনকে দেয়া হয়েছে ১৫ দিনের কারাদণ্ড।’

অন্যদিকে, বদলগাছী উপজেলার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে একজনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দের পর তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করা হয়েছে বলে জানান এ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন:
প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ: দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

মন্তব্য

বাংলাদেশ
One and a half million Bangladeshis work in 178 countries

‘১৭৮টি দেশে কাজ করেন দেড় কোটি বাংলাদেশি’

‘১৭৮টি দেশে কাজ করেন দেড় কোটি বাংলাদেশি’ কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে মঙ্গলবার সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: নিউজবাংলা
‘২০১৫ সাল থেকে কাজ হারিয়ে দেশে ফিরেছেন ৫ লাখ প্রবাসী। তাদের মধ্যে ২ লাখ প্রবাসী প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন প্রণোদনা পাচ্ছেন। বাকিদেরও প্রণোদনার আওতায় আনার জন্য কাজ করছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।’

বিশ্বের ১৭৮টি দেশে কাজ করেন দেড় কোটি বাংলাদেশি। আর ২০১৫ সাল থেকে কাজ হারিয়ে দেশে ফিরেছেন ৫ লাখ প্রবাসী। তাদের মধ্যে ২ লাখ প্রবাসী প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন প্রণোদনা পাচ্ছেন। বাকিদেরও প্রণোদনার আওতায় আনার জন্য কাজ করছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।

‘বিদেশ প্রত্যাগত অভিবাসী কর্মীদের পুনরেকত্রীকরণে রেইজ প্রকল্পের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারে এসব তথ্য জানানো হয়।

কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে মঙ্গলবার এই সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা প্রশাসক খন্দকার মু. মুশফিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন রেইজ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক যুগ্ম সচিব সৌরেন্দ্র নাথ সাহা।

ওয়েলফেয়ার সেন্টার কুমিল্লার উদ্যোগে আয়োজিত এ সেমিনারে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন ওয়েলেফেয়ার সেন্টার কুমিল্লার সহকারী পরিচালক মো. আলী হোসেন।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের প্রতিনিধি মো. আসাদুল ইসলাম।

জানা যায়, ওয়েলফেয়ার সেন্টারের রেইজ প্রকল্পের মাধ্যমে কুমিল্লা জেলায় ৭ হাজার ৩০০ প্রত্যাগত প্রবাসী এখান থেকে সুবিধা নিতে রেজিস্ট্রেশন করেছেন। তাদের মধ্য থেকে জনপ্রতি ১৩ হাজার ৫০০ টাকা প্রণোদনা হিসেবে এ পর্যন্ত ১৮৪ জনকে দেয়া হয়েছে।

সেমিনারে বিভিন্ন উপজেলা থেকে প্রত্যাগত প্রবাসী, সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা এবং প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
মালয়েশিয়ায় ২৫২ বাংলাদেশি আটক
প্রবাসী দিবসে দুই দিনব্যাপী আয়োজন
প্রণোদনার অর্থ পেলেন বিদেশফেরত ৫১৬ কর্মী
প্রবাসী স্বামীর সঙ্গে ফোনে ঝগড়া: স্ত্রীর মরদেহ
মালয়েশিয়ায় ভবন ধসে নিহত সাইফুলের বাড়িতে মাতম

মন্তব্য

বাংলাদেশ
7 days jail to the young woman who was caught giving BCS proxy

বিসিএসে ছেলেবন্ধুর প্রক্সি দিতে গিয়ে ধরা, কারাগারে তরুণী

বিসিএসে ছেলেবন্ধুর প্রক্সি দিতে গিয়ে ধরা, কারাগারে তরুণী ফাইল ছবি
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জসিম উদ্দিন বলেন, ‘ওই ছাত্রী তার এক ছেলে বন্ধুর হয়ে পরীক্ষা দিতে এসেছিলেন। তিনি যেহেতু মেয়ে, তাই নিজের ছবি দিয়ে ভুয়া প্রবেশপত্রও তৈরি করেছিলেন। তবে হল পরিদর্শক স্বাক্ষর নেয়ার সময় দেখেন মেয়েটি ছেলের নামে স্বাক্ষর করেছেন। এতেই ধরা পড়েন তিনি।’

চট্টগ্রামে ছেলেবন্ধুর হয়ে ৪৫তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা দিতে গিয়ে ধরা পড়েছেন এক তরুণী। তৎক্ষণাৎ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তাকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন দায়িত্বরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

বুধবার সকাল ১০টার দিকে নগরীর ইস্পাহানি স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

দণ্ডিত ওই ছাত্রীর নাম প্রিয়তি জান্নাত। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, সকাল ১০টায় পরীক্ষা শুরুর পর স্বাক্ষরপত্রে গরমিল দেখে দায়িত্বরত হল পরিদর্শকের সন্দেহ হয়। পরে ওই ছাত্রীকে আটক করে দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তার জবানবন্দি ও পরিদর্শকের সাক্ষ্য নেন। পরীক্ষায় প্রক্সি দেয়ার বিষয়টি প্রমাণিত হলে সরকারি কর্ম কমিশন আইন-২০২৩-এর (১০) ধারা অনুযায়ী তাকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জসিম উদ্দিন বলেন, ‘ওই ছাত্রী তার এক ছেলেবন্ধুর হয়ে পরীক্ষা দিতে এসেছিলেন। তিনি যেহেতু মেয়ে, তাই নিজের ছবি দিয়ে ভুয়া প্রবেশপত্রও তৈরি করেছিলেন। তবে হল পরিদর্শক স্বাক্ষর নেয়ার সময় দেখেন মেয়েটি ছেলের নামে স্বাক্ষর করেছেন। এতেই ধরা পড়েন তিনি।’

জিজ্ঞাসাবাদে ওই তরুণী সব স্বীকার করেছে বলেও জানান তিনি।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The appointment board sat without expert members

বিশেষজ্ঞ সদস্য ছাড়াই বসল চবির নিয়োগ বোর্ড

বিশেষজ্ঞ সদস্য ছাড়াই বসল চবির নিয়োগ বোর্ড
শিক্ষক নিয়োগের নির্বাচনি বোর্ডের রোববারের সভায় সভাপতিত্ব করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার। পদাধিকারবলে আরেকজন সদস্য হলেন বিভাগের সভাপতি শাকিলা তাসনিম। তবে এই নিয়োগ বোর্ডে সিন্ডিকেট মনোনীত বিশেষজ্ঞ দুই সদস্যের কেউই সভায় ছিলেন না।

বিশেষজ্ঞ সদস্য ছাড়াই চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) নাট্যকলা বিভাগে শিক্ষক নিয়োগ বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববারের এই সভায় অনুপস্থিত ছিলেন সিন্ডিকেট মনোনীত দুই বিশেষজ্ঞ সদস্য।

চার সদস্যের দু’জন অনুপস্থিত থাকা সত্ত্বেও শুধু বিভাগের সভাপতিকে নিয়ে নিয়োগ বোর্ডের সভা করেছেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার।

উপাচার্যের কার্যালয়ে রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় নাটক্যলা বিভাগের শিক্ষক নিয়োগ বোর্ডের নির্বাচনী সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, রোববার নাট্যকলা বিভাগের তিনটি পদের বিপরীতে শিক্ষক নিয়োগের নির্বাচনি বোর্ডের সভা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার। পদাধিকারবলে আরেকজন সদস্য হলেন বিভাগের সভাপতি শাকিলা তাসনিম।

এই নিয়োগ বোর্ডে সিন্ডিকেট মনোনীত বিশেষজ্ঞ সদস্য হলেন নাট্যকলা বিভাগের অধ্যাপক ড. কুন্তল বড়ুয়া ও বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আনোয়ার সাঈদ। তবে দুই সদস্যই সভায় অনুপস্থিত ছিলেন।

অনুপস্থিত থাকার বিষয়ে রোববার সকালে উপাচার্য বরাবর চিঠি দিয়েছেন অধ্যাপক ড. কুন্তল বড়ুয়া। তিনি চিঠিতে লেখেন, ‘নাট্যকলা বিভাগের তিনটি প্রভাষক (অস্থায়ী) পদের জন্য নির্বাচনি বোর্ডে নাট্যকলা বিভাগের প্ল্যানিং কমিটির সুপারিশ বা সিদ্ধান্তকে রেজিস্ট্রার অফিস কর্তৃক অগ্রাহ্য করার কারণে নাট্যকলা বিভাগের সিনিয়র মোস্ট শিক্ষক হিসেবে আমি সংক্ষুব্ধ।

‘তাছাড়া চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে উদ্ভূত পরিস্থিতির কারণে আমি শঙ্কা অনুভব করছি। ফলে উক্ত দিনে নাট্যকলা বিভাগের নির্বাচনি বোর্ডের বিশেষজ্ঞ সদস্য হিসেবে সভায় উপস্থিত থাকতে অপারগতা প্রকাশ করছি।’

এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘নাট্যকলা একটি প্রায়োগিক বিষয়। সেখানে বিশেষজ্ঞ শিক্ষক ছাড়া কীভাবে নিয়োগ হবে সেটা নিয়ে আমার প্রশ্ন হয়। আমরা চারজন বোর্ডের মেম্বার। সেখানে দু’জনই বোর্ডের সভায় উপস্থিত ছিলাম না।’

অপর সদস্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আনোয়ার সাঈদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এজন্য সভায় অনুপস্থিতি সম্পর্কে তার বক্তব্য জানা যায়নি।

এ বিষয়ে চবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবদুল হক বলেন, ‘ভিসি ও বিভাগের সভাপতি পদাধিকারবলে বোর্ডের মেম্বার। পদাধিকারবলে এক্সপার্টের কাজ করা কোনো অবস্থাতেই গ্রহণযোগ্য নয়। এখানে বিশেষজ্ঞ সদস্য ও নাট্যকলা বিভাগের অধ্যাপক ড. কুন্তল বড়ুয়া যাননি। আরেকজন সদস্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার সাইদও যাননি।

‘অনেকগুলো বেআইনি ও প্রশ্নবিদ্ধ নিয়োগ তিনি (উপাচার্য) দিয়ে আসছিলেন। এটি তার ব্যতিক্রম কিছু না। তারা এ ধরনের কার্যক্রম গণহারে চালিয়ে আসছিলেন বলেই আমরা ভিসি-প্রোভিসির পদত্যাগ চাচ্ছি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার কে এম নুর আহমদ সভা অনুষ্ঠানের বিষয়ে বলেন, ‘কোরাম হয়েছে, তাই বোর্ড হয়েছে।’

এ বিষয়ে জানতে চবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতারকে একাধিকবার কল দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। নাট্যকলা বিভাগের সভাপতি শাকিলা তাসনিমও ফোন ধরেননি।

প্রসঙ্গত, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে চলছে অস্থিরতা। উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে লাগাতার আন্দোলনে চালিয়ে যাচ্ছে চবি শিক্ষক সমিতি।

এর আগে আইন ও বাংলা বিভাগে শিক্ষক নিয়োগ বোর্ড বাতিলের দাবিতে গত বছরের ১৭ ডিসেম্বর উপাচার্যের কাছে যায় চবি শিক্ষক সমিতি। তাদের অভিযোগ, শিক্ষক নিয়োগে বিভাগের পরিকল্পনা কমিটির সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশের লঙ্ঘন।

ওইদিন দাবি না মানায় পরদিন থেকে উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে টানা আন্দোলনের ঘোষণা দেয় শিক্ষক সমিতি। টানা তিন দিন অবস্থান কর্মসূচি শেষে চতুর্থ দিন প্রতীকী গণঅনশন করেন তারা। এরপর শীতকালীন ছুটি ও দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে আন্দোলন স্থগিত করেন তারা। ১৪ জানুয়ারি থেকে আবার লাগাতার কর্মসূচির ডাক দেয় শিক্ষক সমিতি।

আরও পড়ুন:
লাগাতার আন্দোলনে যাচ্ছে চবি শিক্ষক সমিতি
অবশেষে চবির শিক্ষক নিয়োগ স্থগিতের নির্দেশ
বছরজুড়ে চবির আলোচিত যত ঘটনা
চবিতে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ, তদন্তে কমিটি
চবি শিক্ষক সমিতির অনশন, উপাচার্যের সংবাদ সম্মেলন

মন্তব্য

বাংলাদেশ
46th BCS preliminaries on March 9

৪৬তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি ৯ মার্চ

৪৬তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি ৯ মার্চ ফাইল ছবি
পিএসসির বিজ্ঞপ্তির তথ্যমতে, ৪৬তম বিসিএসে বিভিন্ন ক্যাডারে শূন্য পদের সংখ্যা ৩ হাজার ১৪০টি। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি নেয়া হবে স্বাস্থ্য ক্যাডারে।

৪৬তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা আগামী ৯ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। এদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে এ পরীক্ষা।

বৃহস্পতিবার সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) পরীক্ষা নিয়ন্ত্রয়ক আনন্দ কুমার বিশ্বাসের সই করা বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ঢাকা, রাজশাহী, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ কেন্দ্রে একযোগে অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষার হল, আসন ব্যবস্থা এবং সংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনাগুলো যথাসময়ে পিএসসির ওয়েবসাইটে এবং টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেডের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

গত বছরের ৩০ নভেম্বর ৪৬তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি যার আবেদন চলে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। পরে ১০ ডিসেম্বর থেকে ৪৬তম বিসিএসের আবেদন শুরু হয়।

পিএসসির বিজ্ঞপ্তির তথ্যমতে, ৪৬তম বিসিএসে বিভিন্ন ক্যাডারে শূন্য পদের সংখ্যা ৩ হাজার ১৪০টি। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি নেয়া হবে স্বাস্থ্য ক্যাডারে।

আরও পড়ুন:
নিজের কাজের মাধ্যমে দেশ ও দেশের মানুষের জন্য অবদান রাখতে চাই
সাফল্যের গল্প শোনালেন ৪৩তম বিসিএসে ডাক ক্যাডারে প্রথম রিয়াজুল

মন্তব্য

p
উপরে