× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Woman killed by BRTC bus in Gulistan
hear-news
player
google_news print-icon

গুলিস্তানে বিআরটিসির বাসের ধাক্কায় নারী নিহত

গুলিস্তানে-বিআরটিসির-বাসের-ধাক্কায়-নারী-নিহত
গুলিস্তানে বিআরটিসির দ্বিতল বাসের ধাক্কায় এক নারী নিহত হয়েছেন। ছবি: সংগৃহীত
এসআই আলামিন বলেন, ‘গুলিস্তান আহাদ পুলিশ বক্সের বিপরীতে ট্রেড সেন্টারের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন ৫০ বছর বয়সী হাসিনা। এ সময় বিআরটিসির একটি বাস তাকে ধাক্কা দেয়।’

রাজধানীর গুলিস্তানে বিআরটিসির দ্বিতল বাসের ধাক্কায় হাসিনা বেগম নামের এক নারী নিহত হয়েছেন।

রোববার দুপুর ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পল্টন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আলামিন বলেন, ‘গুলিস্তান আহাদ পুলিশ বক্সের বিপরীতে ট্রেড সেন্টারের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন ৫০ বছর বয়সী হাসিনা। এ সময় বিআরটিসির একটি বাস তাকে ধাক্কা দেয়। আহত অবস্থায় ওই নারীকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিলে চিকিৎসক দুপুর পৌনে ১টায় তাকে মৃত বলে জানান।’

এসআই আলামিন জানান, এ ঘটনায় বাসটির চালককে আটক ও জব্দ করা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

নিহতের খালাতো ভাই মো. শহিদুল্লাহ বলেন, ‘আমার খালা মাজার ভক্ত। তিনি গেন্ডারিয়া ঘুণ্টি ঘর মামার মাজারে থাকেন। ধারণা করছি, খালা গোলাপ শাহ মাজারে এসেছিলেন। সেখান থেকে গেন্ডারিয়া যাওয়ার পথে এই দুর্ঘটনা ঘটে। খালার গ্রামের বাড়ি পিরোজপুর।’

আরও পড়ুন:
কাভার্ড ভ্যান চাপায় ৪ মৃত্যু: ৩ চালকের নামে মামলা
বাস মালিকদের দাপটে অসহায় সরকারি সংস্থা
সড়কে মৃত্যু, অন্ধকারে আইন ও দায় স্বীকারের সংস্কৃতি

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Publication of the third merit list for admission to the post

জবিতে ভর্তির তৃতীয় মেধাতালিকা প্রকাশ

জবিতে ভর্তির তৃতীয় মেধাতালিকা প্রকাশ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। ফাইল ছবি
‘এ’ ইউনিটে নতুন করে মোট ৩১৮ শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য মনোনীত হয়েছেন। ‘বি’ ইউনিটে নতুন করে ১৫৬ জন এবং ‘সি’ ইউনিটে ৩৬ শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য বিষয় (সাবজেক্ট) পেয়েছেন।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) ও বিবিএ প্রথম বর্ষে ভর্তির তৃতীয় মেধাতালিকা ও দ্বিতীয় মাইগ্রেশনের তালিকা প্রকাশ হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান সোমবার নিউজবাংলাকে এ তথ্য জানিয়েছেন। বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটেও তিন ইউনিটের মেধাতালিকা পাওয়া যাবে।

‘এ’ ইউনিটে নতুন করে মোট ৩১৮ শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য মনোনীত হয়েছেন। ‘বি’ ইউনিটে নতুন করে ১৫৬ জন এবং ‘সি’ ইউনিটে ৩৬ শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য বিষয় (সাবজেক্ট) পেয়েছেন।

গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি কমিটির সূত্রে জানা যায়, ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে তৃতীয় মেধাতালিকায় বিষয়প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের আগামী ২৮ নভেম্বর দুপুর ১২টা থেকে ৩০ নভেম্বর রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে নির্ধারিত ওয়েবসাইট (http://gstadmission.ac.bd) এর মাধ্যমে কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে।

প্রত্যেক আবেদনকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রস্তুতকৃত মেধাক্রম ও প্রদত্ত বিভাগ অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি নির্দিষ্ট বিভাগে প্রাথমিক ভর্তির জন্য নির্বাচিত হবেন।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন ইউনিট এবং বিশেষায়িত বিভাগ মিলিয়ে সর্বমোট ৪৩ হাজার ৫৫১ জন শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য আবেদন করেছেন।

‘এ’ ইউনিটের জন্য ১৩ বিভাগে মোট ৮২৫টি এবং ‘বি’ ইউনিটে মোট ১ হাজার ২৭০ আসন রয়েছে৷ এর মধ্যে মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৮৫০টি, বিজ্ঞান বিভাগের জন্য ২৭০টি এবং বাণিজ্য ও অন্যান্য বিভাগের জন্য ১৫০টি আসন বরাদ্দ রয়েছে।

‘সি’ ইউনিটে মোট আসন সংখ্যা ৫২০টি। এর মধ্যে বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৪৬০ টি আসন এবং বিজ্ঞান ও অন্যান্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ৬০টি আসন বরাদ্দ রয়েছে।

তৃতীয় মেধাতালিকায় নতুন করে মনোনীত শিক্ষার্থীদের ভর্তির জন্য নির্দেশনা:

১. অনলাইনে প্রাথমিক ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন ও প্রাথমিক ভর্তি ফি ৫ হাজার টাকা ২৮ নভেম্বর দুপুর ১২টা থেকে ৩০ নভেম্বর রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে সম্পন্ন করতে হবে।

২. মূল কাগজপত্র জমা: ২৯ নভেম্বর থেকে ১ ডিসেম্বর প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টার মধ্যে এসএসসি ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষার মূল নম্বরপত্র আবেদনকারীর প্রাথমিক ভর্তির জন্য মনোনীত বিশ্ববিদ্যালয়ে জমা দিতে হবে। অন্যথায়, প্রাথমিক ভর্তি বাতিল হয়ে যাবে। মূল নম্বরপত্র দুটি আবেদনকারীর নাম ও GST রোল নম্বর লিখে একটি A4 সাইজের খামে করে জমা দিতে হবে।

ইতোমধ্যে প্রাথমিক ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের জন্য নির্দেশনা:

১. GST-ভুক্ত কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতোমধ্যে ভর্তি সম্পন্ন করে থাকলে পুনরায় ভর্তি হতে হবেনা।

২. কোনো আবেদনকারী একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি থাকা অবস্থায় অন্য এক বা একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি জন্য মনোনীত হলে পছন্দ অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ে মাইগ্রেশন করতে পারবেন।

৩. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে আবেদনকারীকে নিজ দায়িত্বে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা অনুসরণ করে https://gstadmission.ac.bd ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় মাইগ্রেশনের জন্য অনলাইনে ২৮ নভেম্বর দুপুর ১২টা থেকে ৩০ নভেম্বর রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে আবেদন করতে হবে।

৪. সেক্ষেত্রে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বশরীরে উপস্থিত হওয়ার প্রয়োজন নেই৷ মূল কাগজপত্র যে বিশ্ববিদ্যালয়ে আছে সেখানেই থাকবে।

মেধাতালিকাসহ ভর্তি সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে (http://admission.jnu.ac.bd) পাওয়া যাচ্ছে।

আরও পড়ুন:
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশ্বকাপ গ্রাফিতি
গবেষণা প্রকল্পে অনুদান পেলেন জবির ৩০ শিক্ষক
জবি ক্যাম্পাসে বদ্ধ নর্দমা, মশার রাজত্ব
জবির পরিসংখ্যান বিভাগে বিনা মূল্যে জরুরি স্বাস্থ্যসেবা
ডেঙ্গুতে জবি ছাত্রদল নেতার মৃত্যু

মন্তব্য

বাংলাদেশ
DSCCs eviction operation in Gulistan jails 5 shopkeepers

গুলিস্তানে ডিএসসিসির উচ্ছেদ অভিযান, ৫ দোকানিকে জেল

গুলিস্তানে ডিএসসিসির উচ্ছেদ অভিযান, ৫ দোকানিকে জেল গুলিস্তানে রেড জোনে সোমবার অভিযান চালায় ডিএসসিসির ভ্রাম্যমাণ আদালত। ছবি: নিউজবাংলা
ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে দোকান বসানোয় ‌একজনকে ১৫ দিন ও চারজনকে ৭ দিনের জেল দেয়া হয়। এছাড়া ৯ দোকানিকে ৬৮ হাজার টাকা জরিমানা এবং জব্দ মালামাল স্পট নিলামে ১ লাখ ৩ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়।

রাজধানীর গুলিস্তান জিরো পয়েন্ট থেকে শুরু করে আহাদ পুলিশ বক্স, গুলিস্তান হল মার্কেট থেকে গোলাপ শাহ মাজার হয়ে বঙ্গ ভবন এলাকা পর্যন্ত ঘোষিত ‘রেড জোন’-এ আবারও উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত ডিএসসিসির সম্পত্তি কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মুনিরুজ্জামান এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আফিফা খানের নেতৃত্বে অষ্টম দিনের মতো গুলিস্তান রেড জোনে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে অন্যান্যের মধ্যে ২০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ রতন উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানকালে ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে দোকান বসানোয় মোহাম্মদ রুবেল, মাসুদ রানা, আরাফাত, সাকিব ও ফারুক নামে পাঁচজনকে কারাদণ্ড দেয়া হয়। তাদের মধ্যে মোহাম্মদ রুবেলকে ১৫ দিন এবং বাকি চারজনকে ৭ দিনের জেল দেয়া হয়।

এছাড়া ৯ দোকানিকে নয়টি মামলায় ৬৮ হাজার টাকা জরিমানা এবং অভিযানকালে জব্দকৃত মালামাল স্পট নিলামে ১ লাখ ৩ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেয়া হয়।

আরও পড়ুন:
বহুতল মার্কেট করতে গুলিস্তান হকার্সে উচ্ছেদ
ডিএসসিসির অভিযান: ৮ দশক পর মাইশা খালের জমি উদ্ধার
মহাসড়কের দুই পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ শুরু

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Bangladesh Luxembourg flight is starting

চালু হচ্ছে বাংলাদেশ-লুক্সেমবার্গ ফ্লাইট

চালু হচ্ছে বাংলাদেশ-লুক্সেমবার্গ ফ্লাইট সচিবালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। ছবি: নিউজবাংলা
মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘চুক্তির ফলে উভয় দেশেই ফ্লাইট চলাচল করতে পারবে। ইউরোপের অন্যান্য দেশের সঙ্গে যোগাযোগ আরো ভালো হবে। এখন চুক্তি হলো। এরপর বাজার সম্প্রসারণ করার চিন্তাভাবনা করে তারা বাস্তবায়নে যাবে।’

বাংলাদেশ-লুক্সেমবার্গের মধ্যে সরাসরি আকাশপথে যুক্ত হতে ফ্লাইট চলাচল চুক্তির খসড়ায় অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সোমবার মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘এর ফলে উভয় দেশেই ফ্লাইট চলাচল করতে পারবে। ইউরোপের অন্যান্য দেশের সঙ্গে যোগাযোগ আরো ভালো হবে। এখন চুক্তি হলো। এরপর বাজার সম্প্রসারণ করার চিন্তাভাবনা করে তারা বাস্তবায়নে যাবে।’

এর পাশাপাশি বৈঠকে বাংলাদেশ বিমান (রহিত বাংলাদেশ বিমান অর্ডার ১৯৭২ পুনর্বহাল এবং সংশোধন) আইন ২০২২ এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘১৯৭২ সালের ৪ নভেম্বরের আগে দেশ কিন্তু পিও অর্ডার বা প্রেসিডেন্ট অর্ডারে চলেছে। সে বছরের ৪ নভেম্বর যখন সংবিধান হলো, তখন থেকে পিও অর্ডারগুলো সংবিধানের আওতায় আইন হিসেবে পরিচালিত হচ্ছে।

‘সুতরাং পিও অর্ডার সংবিধানের অংশ। তখন কেবিনেটে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত হলো এগুলো বহাল রাখতে হবে। নইলে আমাদের সরকারের ইতিহাস থাকবে না। এরপর ১৯৭৭ সালে একটি কর্পোরেশন করে; ২০০৭ সালের ১১ জুলাই কোম্পানি করে দেয় বিমান।

‘এরপর একটি অধ্যাদেশ করে ২০১১ সালের ২৫ জুলাই আবার এটিকে কোস্পানি হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। আইনে বলেছে, ২০০৭ সালের ১১ জুলাই পরে আবার বলে ২৫ জুলাই... এটা নিয়ে একটা বিরোধ তৈরি হচ্ছে। এ জন্য তারা (বিমান মন্ত্রণালয়) একটি সংশোধন নিয়ে আসছে। সেটা হলো, ১৯৭২ সালের পিও অর্ডারে ফিরে যাবে। কিন্তু ২০০৭ সালে ১১ জুলাই থেকে যে কোম্পানি করা হলো সেটা বজায় থাকবে। এই ছোট সংশোধন নিয়ে আসছে বেসরকারি বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রণালয়।’

আরও পড়ুন:
টেক্সাসে মাঝ আকাশে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন ২ বিমানের সংঘর্ষ
বিমানের সারচার্জ মওকুফ ঠিক হবে না: বেবিচক
তানজানিয়ার উড়োজাহাজ হ্রদে পড়ে নিহত ১৯
বিমানের ৩,৪৪৯ কোটি টাকার সারচার্জ মওকুফ
বিমানের প্রশ্নপত্র ফাঁস হয় এমডির কক্ষ থেকে

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Lack of qualified teachers Education Minister

উপযুক্ত শিক্ষকের অভাব আছে: শিক্ষামন্ত্রী

উপযুক্ত শিক্ষকের অভাব আছে: শিক্ষামন্ত্রী রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী। ছবি: নিউজবাংলা
দীপু মনি বলেন, ‘বিজ্ঞান নিয়ে কিছু শিক্ষার্থীর মধ্যে ভীতি কাজ করে বলে মানবিক বিভাগে শিক্ষার্থী বেশি হয়। অংক পারি না, বিজ্ঞান বুঝি না- এমন ধারণা অনেকের থাকে। উপযুক্ত শিক্ষকের অভাবে এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। শিক্ষকের ওপর আসলে অনেক কিছু নির্ভর করে।’

দেশে উপযুক্ত শিক্ষকের অভাব রয়েছে বলে মন্তব্য করছেন শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি। রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল ঘোষণা উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে সোমবার বেলা ১টার দিকে এ কথা বলেন মন্ত্রী।

দীপু মনি বলেন, ‘বিজ্ঞান নিয়ে কিছু শিক্ষার্থীর মধ্যে ভীতি কাজ করে বলে মানবিক বিভাগে শিক্ষার্থী বেশি হয়। অংক পারি না, বিজ্ঞান বুঝি না- এমন ধারণা অনেকের থাকে। উপযুক্ত শিক্ষকের অভাবে এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। শিক্ষকের ওপর আসলে অনেক কিছু নির্ভর করে।

‘নতুন কারিকুলামে পড়ে-বুঝেই পরের ক্লাসে যেতে হবে। আমরা মনে করি শিক্ষার্থী বিজ্ঞানে যেতে চাইলে তাকে পড়তে দেয়া উচিত। যদি সেখানে সে ভালো করতে না পারে তবে বিভাগ বদলাতে পারে। মানবিকে পড়লে যে আমি তথ্যপ্রযুক্তি বা বিজ্ঞানে যেতে পারব না, এখন আর সেটি নেই। মানবিকে পড়ে অনেকে তথ্যপ্রযুক্তিতে ভালো করছে। যে কোনো বিভাগ থেকে ডিপ্লোমা করার সুযোগ রয়েছে।’

উচ্চশিক্ষায় বয়সের বাধা তুলে দেয়া হবে জানিয়ে মন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা বয়সের বাধা তুলে দিতে চাই। আশা করি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো কাজটি দ্রুততার সঙ্গে করবে। তাহলে আমাদের সমস্যাগুলো অনেকাংশে আর থাকবে না।’

এ সময় অন্যদের মধ্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. কামাল হোসেন এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আবু বকর ছিদ্দীক উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
পাসের হারে সিলেট কেন তলানিতে
এবার পরীক্ষার্থী কমলেও ফেল বেড়েছে লাখের বেশি
পাসের হারে শীর্ষে যশোর, তলানিতে সিলেট
জিপিএ ফাইভ বেড়েছে প্রায় ১ লাখ, এগিয়ে মেয়েরা
এসএসসিতে পাস কমেছে ৬ শতাংশ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Boat workers on strike at Sunsan Sadarghat

নৌযান শ্রমিক ধর্মঘটে সুনসান সদরঘাট

নৌযান শ্রমিক ধর্মঘটে সুনসান সদরঘাট ধর্মঘটে সদরঘাটে দেখা যায়নি চিরচেনা দৃশ্য। ফাইল ছবি/নিউজবাংলা
লঞ্চ টার্মিনাল ঘুরে দেখা যায়, সোমবারও ফাঁকা পড়ে আছে পন্টুন। শ্যামবাজার ঘাট ও বাবুবাজার ব্রিজের নিচে ভিড়িয়ে রাখা হয়েছে লঞ্চ। একদম ফাঁকা পড়ে আছে টার্মিনাল এলাকা, নেই নৌশ্রমিকদের উপস্থিতি। বিভিন্ন জায়গা থেকে কিছু যাত্রী এলেও ধর্মঘটের খবর শুনে ফিরে যাচ্ছেন তারা।

নৌযান শ্রমিকদের ন্যূনতম ২০ হাজার টাকা বেতনসহ ১০ দফা দাবিতে ডাকা ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিনেও স্থবির হয়ে আছে রাজধানী ঢাকার প্রধান নদীবন্দর সদরঘাট। বন্দরে কোনো লঞ্চ না থাকায় বিরাজ করছে শুনশান নিরবতা। ধর্মঘটের খবর জানা না থাকায় বিভিন্ন জায়গা থেকে কিছু যাত্রী এলেও ফটক থেকেই ফিরে যাচ্ছেন তারা।

সোমবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল ঘুরে দেখা যায়, ফাঁকা পড়ে আছে পন্টুন। শ্যামবাজার ঘাট ও বাবুবাজার ব্রিজের নিচে ভিড়িয়ে রাখা হয়েছে লঞ্চ। একদম ফাঁকা পড়ে আছে টার্মিনাল এলাকা, নেই নৌশ্রমিকদের উপস্থিতি।

বিভিন্ন জায়গা থেকে কিছু যাত্রী এলেও ধর্মঘটের খবর শুনে ফিরে যাচ্ছেন তারা। টার্মিনাল ফাঁকা পড়ে থাকলেও ফটকের বাইরে বেশ কিছু যাত্রীর ভিড় লক্ষ্য করা যায়। দক্ষিণাঞ্চলে নিয়ে যাওয়ার জন্য ঘাটে আনা বাণিজ্যিক পণ্য পড়ে আছে পন্টুনেই। কেউ কেউ পণ্য ফেরত নিয়ে যাচ্ছেন সড়কপথে কুরিয়ার করবেন বলে।

বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা যাত্রীদের অনেকে সদরঘাট থেকে বিকল্প বাহন হিসেবে পিকআপ ভ্যান ও মাইক্রোবাসে করে রওনা দিচ্ছেন গন্তব্যে। চাঁদপুরে মাইক্রোবাসে খরচ পড়ছে ৭০০ টাকা ও পিক-আপ ভ্যানে ৪০০ টাকা। লঞ্চ বন্ধ থাকায় অনেকেই যাত্রা বাতিল করে ফিরে যাচ্ছেন। বরিশালে যাওয়ার উদ্দেশ্যে আসা যাত্রীরা যাত্রাবাড়ীর দিকে ফিরে যাচ্ছেন বাসে যাওয়ার উদ্দেশ্যে।

মিরপুর-১০ থেকে আসা আব্দুল হক বলেন, ‘চাঁদপুর যাওয়ার জন্য এসেছিলাম। ধর্মঘটের বিষয়ে জানতাম না। জ্যাম ঠেলে সদরঘাটে এসে শুনি ধর্মঘট চলছে। এখন বাসে যাবো ভাবছি।’

বাড্ডা থেকে দুই সন্তান ও অসুস্থ স্বামী সাথে নিয়ে আসা স্বর্ণা আক্তার বলেন, ‘আমার স্বামী অসুস্থ থাকায় বাসে চলাচল করতে পারে না। সে জন্য বরিশালে লঞ্চে যাওয়ার জন্য এসেছিলাম। এসে শুনি লঞ্চ বন্ধ। এখন বাসে যাওয়া ছাড়া আর উপায় দেখছি না।’

টঙ্গী থেকে ভোলা যাওয়ার উদ্দেশ্যে মালামালসহ সদরঘাটে এসেছেন ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন। তিনি বলেন, ‘ব্যবসার কারণে আমি নিয়মিতই লঞ্চে যাতায়াত করি। পরশু দিনও ভোলা থেকে ঢাকায় এসেছি মালামাল কেনার জন্য। এখন মালামাল নিয়ে ঘাটে এসে শুনি লঞ্চ বন্ধ। অনেকটা বিপদে পড়ে গেছি।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নৌযান শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদের সদস্য আতিকুল ইসলাম টিটু বলেন, ‘দ্বিতীয় দিনের মতো শতভাগ ধর্মঘট চলছে। যতক্ষণ পর্যন্ত শ্রমিকদের দাবিদাওয়া পূরণ না হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত তারা ধর্মঘট চালিয়ে যাবে। আমরা আশা করছি অতি দ্রুতই উভয় পক্ষ সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে একটা ফয়সালায় চলে আসবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের দাবিগুলোর মধ্যে মজুরির বিষয়গুলো শ্রমমন্ত্রণালয়, কিছু বিষয় নৌমন্ত্রণালয় এবং ডাকাতি ও চাঁদাবাজির বিষয়গুলো স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জানিয়েছি। আর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ভারতীয় নাগরিকদের ল্যান্ডিং পাশের বিষয়টি জানিয়েছি।'

এ বিষয়ে জানতে চাইলে লঞ্চ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন,‘আমরা শ্রমিকদের সাথে একটা মিটিংয়ে বসেছি। তাদের সাথে আলোচনা করে সমাধানের চেষ্টা চলছে।'

নৌ শ্রমিকদের দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে নৌযান শ্রমিকদের সর্বনিম্ন মজুরি ২০ হাজার টাকা নির্ধারণ, ভারতগামী শ্রমিকদের ল্যান্ডিং পাস দেয়া, বাল্কহেডের রাত্রীকালীন চলাচলের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা, বাংলাদেশের বন্দরগুলো থেকে পণ্যপরিবহন নীতিমালা শতভাগ কার্যকর করা, চট্টগ্রাম বন্দরে প্রোতাশ্রয় নির্মাণ ও চরপাড়া ঘাটের ইজারা বাতিল করা। এছাড়া চট্টগ্রাম বন্দর থেকে পাইপলাইনে জ্বালানি তেল সরবরাহের চলমান কার্যক্রম বন্ধ করার দাবি জানিয়েছেন শ্রমিকরা। কর্মস্থলে দুর্ঘটনায় মৃত্যুজনিত ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ, কন্ট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড ও নাবিক কল্যাণ তহবিল গঠনেরও দাবি শ্রমিকদের।

আরও পড়ুন:
থানায় বাস, প্রতিবাদে পরিবহন ধর্মঘট সুনামগঞ্জে
হবিগঞ্জে চলছে বাস ধর্মঘট, চার দিনে ক্ষতি ৫ কোটি
বরিশালের লঞ্চে ‘তালা’, কারণ ‘অজানা’
বরিশাল-ঢাকায় লঞ্চ বন্ধের কারণ ‘যাত্রী সংকট’
পরিবহনসহ অত্যাবশ্যকীয় সেবায় ধর্মঘট ডাকলে সাজা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Unbridled euphoria over SSC success

এসএসসির সাফল্যে বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস

এসএসসির সাফল্যে বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশের পর রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুলের শিক্ষার্থীরাও আনন্দ-উচ্ছ্বাস মেতে ওঠে। ছবি: পিয়াস বিশ্বাস/নিউজবাংলা
ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের শিক্ষার্থী শাহারিয়ার রেজা নিলয় বলে, ‘গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েছি। বন্ধুরা সবাই ভালো করেছে। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পরীক্ষা দিয়েছিল ৪৫০ জন। এর মধ্যে জিপিএ ফাইভ পেয়েছে ৪৩৩ জন।’

মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশের পরপরই রাজধানীসহ সারা দেশে বইছে আনন্দ-উচ্ছ্বাস।

রাজধানীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে আনন্দ-উল্লাসে মেতে উঠেছে শিক্ষার্থীরা। অতি আনন্দে কেউ কেউ আবার সহপাঠীদের জড়িয়ে ধরে কেঁদেও ফেলে।

উচ্ছ্বসিত অভিভাবকরাও এসেছেন ঢাকা রেসিডেনসিয়াল কলেজ প্রাঙ্গণে। তারাও খুশি সন্তানের রেজাল্ট পেয়ে।

রেসিডেনসিয়াল কলেজ ছাড়াও রাজধানীর বিভিন্ন স্কুল ঘুরে দেখা গেছে, রেজাল্ট পেয়ে সবাই অনেক খুশি। সবাই স্কুল প্রাঙ্গণে এসে বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করছে। এক কথায় এটি যেন মিলনমেলা।

এইচএসসি পরীক্ষা থাকায় দুপুর ১টা পর্যন্ত এসএসসি পরীক্ষার্থীদের কলেজের ভেতরে ঢুকতে দেয়া হয়নি। এসএসসি পরীক্ষা শেষ হয়ে যাওয়ার পরে তারা একে একে কলেজের ভেতরে ঢোকে। এরপর থেকেই তারা আনন্দ-উল্লাসে মেতে ওঠে।

সোমবার বেলা ১১টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফল প্রকাশ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

দুপুর ১২টা থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে ফল পাওয়া যাচ্ছে।

১টার দিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি ফলের বিস্তারিত তুলে ধরেন।

ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের শিক্ষার্থী সাফওয়ান ইসলাম নিউজবাংলাকে বলে, ‘গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েছি। বন্ধুরা সবাই মিলে স্কুলে এসেছি। অনেকদিন পরে সবার সঙ্গে দেখা। এখন খুব ভালো লাগছে। স্কুলের বাইরে প্রতিদিন ছয় ঘণ্টা পড়াশোনা করেছি। সেটা সার্থক হয়েছে।’

একই কলেজের এসএসসি পরিক্ষার্থী শাহারিয়ার রেজা নিলয় বলে, ‘গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েছি। বন্ধুরা সবাই ভালো করেছে। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পরীক্ষা দিয়েছিল ৪৫০ জন। এর মধ্যে জিপিএ ফাইভ পেয়েছে ৪৩৩ জন।’

এসএসসির সাফল্যে বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস

এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশের পর ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজের শিক্ষার্থীরাও আনন্দ-উচ্ছ্বাস মেতে ওঠে। ছবি: পিয়াস বিশ্বাস/নিউজবাংলা

সেন্ট যোসেফ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ঘুরে দেখা যায়, এখানেও শিক্ষার্থীরা জড়ো হয়েছে। বন্ধুরা মিলে আনন্দ ভাগাভাগি করছে। একে অপরকে আনন্দে জড়িয়ে ধরছে, কোলাকুলি করছে।

এখানে ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে এবার এসএসসি পরিক্ষার্থী তানভিরুল ইসলাম বলে, ‘জিপিএ ফাইভ পেয়েছি। বন্ধুরা কম এসেছে। সবাই অনলাইনে রেজাল্ট দেখেছে বাসায় বসে। বিকেলের দিকে আসবে সবাই।’

এসএসসির সাফল্যে বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস

একই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী তাহসিন মাহমুদ বলে, ‘পরীক্ষা ভালো দিয়েছিলাম। তাই রেজাল্ট নিয়ে অতটা চিন্তায় ছিলাম না। গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েছি। তবে কাল রাত থেকে টেনশন লাগতেছিল। ফাইনালি এখন ভালো লাগছে।’

সাবিহা খান নামে এক অভিভাবক বলেন, ‘সন্তানকে নিয়ে আশা করেছিলাম সে ভালো কিছু করবে। সে গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েছে। আমি আর ওর বাবা অনেক খুশি হয়েছি। অন্য অভিভাবকদের সঙ্গে দেখা হয়েছে অনেক দিন পর।’

এ বছরের পরীক্ষায় পাস করেছে ৮৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ শিক্ষার্থী। এবার জিপিএ ফাইভ পেয়েছে ২ লাখ ৬৯ হাজার ৬০২ জন।

এসএসসির সাফল্যে বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস
এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশের পর সেন্ট যোসেফ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আনন্দ প্রকাশ। ছবি: পিয়াস বিশ্বাস/নিউজবাংলা

এ বছরে পরীক্ষা গত ১৯ জুন শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সিলেটসহ কয়েকটি জেলায় বন্যার কারণে গত ১৭ জুন পরীক্ষা স্থগিত করে সরকার।

এরপর প্রায় তিন মাস পর ১৫ সেপ্টেম্বর শুরু হয় চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষা। এবারের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন। ৩ হাজার ৭৯০টি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয় এ পরীক্ষা। এতে অংশ নেয় ২৯ হাজার ৫৯১টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরীক্ষার্থীরা।

আরও পড়ুন:
পাসের হারে সিলেট কেন তলানিতে
এবার পরীক্ষার্থী কমলেও ফেল বেড়েছে লাখের বেশি
পাসের হারে শীর্ষে যশোর, তলানিতে সিলেট

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A young man was killed by a train in Mohakhali

মহাখালীতে ট্রেনের ধাক্কায় যুবক নিহত

মহাখালীতে ট্রেনের ধাক্কায় যুবক নিহত ফাইল ছবি
রাত সাড়ে ৯টার দিকে নিহত ব্যক্তির ভাগনে আতিকুল ইসলাম ঢাকা মেডিক্যালের জরুরি বিভাগে এসে তার মামা বদরুল আলমকে চিনতে পারেন।

রাজধানীর মহাখালী রেলক্রসিংয়ে ট্রেনের ধাক্কায় বদরুল আলম নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন।

রোববার রাত সাড়ে ৭টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় মেহেদী হাসান নামের এক পথচারী তাকে উদ্ধার করে রাত ৯টায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকাল ৭টার দিকে মারা যান তিনি।

মহাখালীতে দায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্ট মো. রবিউল ইসলাম মোবাইল ফোনে বলেন, ‘রোববার রাতে কমলাপুরগামী একটি ট্রেনের সঙ্গে ধাক্কা লেগে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ৩২ বছর বয়সী বদরুল আলম নামের ওই যুবক। এরপর আমি একজন পথচারী মেহেদী হাসানের মাধ্যমে সিএনজি অটোরিকশাযোগে তাকে ঢাকা মেডিক্যালে পাঠিয়ে দিই। তবে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।’

রাত সাড়ে ৯টার দিকে নিহত ব্যক্তির ভাগনে আতিকুল ইসলাম ঢাকা মেডিক্যালের জরুরি বিভাগে এসে তার মামা বদরুল আলমকে চিনতে পেরে বলেন, ‘তার বাড়ি নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার কাঞ্চনপুর গ্রামে। তার বাবার নাম আবদুস সবুর। দুই ভাই দুই বোনের মধ্যে তিনি ছিলেন তৃতীয়। তিনি বেকার (কর্মহীন) ছিলেন এবং তিনি নেশা-পানি (মাদকাসক্ত) করতেন।’

ঢামেক পুলিশ ক‍্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মোহাম্মদ বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘মহাখালীতে ট্রেনের ধাক্কায় এক যুবক নিহত হয়েছেন। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি ঢাকা রেলওয়ে থানাকে জানানো হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
থামা ট্রাকে ট্রাকের ধাক্কায় চালক-হেলপার নিহত
তেজগাঁওয়ে দুর্ঘটনায় চালকের মৃত্যু
মেয়েকে মাদ্রাসায় দিতে গিয়ে বাসচাপায় মা-বাবাও নিহত
বাইকে ট্রলির ধাক্কায় প্রাণ গেল তিনজনের

মন্তব্য

p
উপরে