× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Allegation of beating night watchman against UNO
hear-news
player
google_news print-icon

নৈশপ্রহরীকে মারধরের অভিযোগ ইউএনওর বিরুদ্ধে

নৈশপ্রহরীকে-মারধরের-অভিযোগ-ইউএনওর-বিরুদ্ধে
সমর কুমার পাল। ছবি: সংগৃহীত
শজিমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আলমগীর বলেন, ‘আমার বউয়ের কমপ্লেইনে ইউএনও স্যার আমাকে তার অফিসে ডাকেন। সেখানে গেলে আনসার সদস্যরা আমাকে ধরে তার (ইউএনও) কাছে নিয়ে যায়। ইউএনও স্যার এগিয়ে এসে আমাকে লাঠি দিয়ে মারতে শুরু করেন। ওই সময় তার দেহরক্ষী দুই আনসার সদস্য আমাকে ধরে রাখে।’

বগুড়ায় সদরের ইউএনও সমর কুমার পালের বিরুদ্ধে আলমগীর হোসেন নামে তৃতীয় শ্রেণির এক কর্মচারীকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ উঠেছে। মারধরের পর তাকে উপজেলা পরিষদের ক্যাম্পাসে ফেলে রাখা হয়।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে সদর উপজেলা পরিষদে এ ঘটনা ঘটে। পরে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করেন স্বজনরা।

স্বজনদের দাবি, সালিস বিচারের নামে ইউএনও ও তার ব্যক্তিগত প্রহরীরা আলমগীরকে বেধড়ক পিটিয়ে উপজেলা পরিষদের ক্যাম্পাসে ফেলে রাখেন।

আলমগীর হোসেন সদর উপজেলার স্থানীয় সরকার প্রকৌশল দপ্তরের নৈশপ্রহরী। তিনি সিরাজগঞ্জ সদরের মেহের আলীর ছেলে। বর্তমানে চাকরির সুবাদে উপজেলা পরিষদের কর্মচারীদের কোয়ার্টারে থাকেন।

এদিকে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে এক কর্মচারী অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকার একটি পোস্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

শজিমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আলমগীর বলেন, ‘আমার বউ গ্রামের বাড়িতে না থেকে আমার সঙ্গে থাকতে চায়। এ নিয়ে ১৫ দিন আগেও উপজেলা প্রকৌশলী স্যারের কাছে আমার নামে কমপ্লেইন দিয়েছে। এটা নিয়ে স্যার আমাকে তিনবার শো-কজ করেছেন। আমি জবাব দিছি। আজ ইউএনও স্যারের কাছে বউ গিয়ে আবার কমপ্লেইন দেয়।

‘এই কমপ্লেইনে ইউএনও স্যার আমাকে তার অফিসে ডাকেন। আমি গেলে আনসার সদস্যরা আমাকে ধরে তার (ইউএনও) কাছে নিয়ে আসে। মোটা মোটা লাঠিও আনে তারা।’

আলমগীর বলেন, ‘ইউএনও স্যার এগিয়ে এসে আমাকে লাঠি দিয়ে মারতে শুরু করেন। ওই সময় তার দেহরক্ষী দুই আনসার সদস্য আমাকে ধরে রাখে।

‘আমি অনেক কাকুতি-মিনতি করেছি। কিন্তু স্যার আমাকে মারতেই থাকেন। একবার অচেতনও হয়ে পড়ি। তারপরও মারছেন আমাকে।’

আহত আলমগীরকে হাসপাতালে নেন তার মেয়ে জামাতা মাসুদ রানা। তিনি ঠিকাদারির কাজ করেন এবং বগুড়ার শাজাহানপুরের দুবলাগাড়ীতে বসবাস করেন।

মাসুদ রানা বলেন, ‘আমার শাশুড়ি শহীদা বেগমের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সন্ধ্যায় ইউএনও সাহেব আমার শ্বশুর আলমগীর হোসেনকে ডাকেন। সেখানে গেলে তার কথা বিস্তারিত না শুনেই বেধড়ক মারধর করেন ইউএনও।’

মাসুদ রানা অভিযোগ করে বলেন, ‘সালিসের বিষয়ে আগেই জানিয়েছিলেন শ্বশুর। কিন্তু আমরা আসার আগেই মারধর করেন ইউএনও সমর কুমার পাল। সহ্য করতে না পেরে আমার স্ত্রীকে ফোন দিয়ে তাড়াতাড়ি এসে বাঁচাতে বলেন শ্বশুর।’

আলমগীরের মেয়ে জামাই দাবি করেন, সন্ধ্যার পর উপজেলায় গেলে পরিষদের সামনে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখেন তার শ্বশুরকে। তখন প্রায় অচেতন ছিলেন আলমগীর।

মাসুদ রানা বলেন, ‘ওই সময় আমি ইউএনও সাহেবের সঙ্গে দেখা করতে যাই। তিনি তখন ব্যাডমিন্টন খেলার কোর্টে বসে ছিলেন। কিন্তু তার দেহরক্ষী আনসার সদস্যরা আমাকে দেখা করতে দেননি। পরে আমরা শ্বশুরকে হাসপাতালে নিয়ে আসি।’

তবে মারধরের অভিযোগ সত্য নয় বলে দাবি করেন সদর ইউএনও সমর কুমার পাল।

তিনি জানান, আলমগীর সদর উপজেলা প্রকৌশল অফিসের নৈশপ্রহরী পদে চাকরি করেন। বেশ কিছুদিন ধরে তার স্ত্রীর সঙ্গে ঝামেলা চলছে। আলমগীর তার বউকে উপজেলা ক্যাম্পাসে এনেছেন। রাতযাপন করেছেন। কিন্তু বউকে এখানে রেখে তিনি বিভিন্ন জায়গায় পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। বিষয়টি তিনি বুধবার জানতে পারেন।

ইউএনও বলেন, ‘গতকাল (বুধবার) রাত ১২টার দিকে আলমগীরের স্ত্রীকে উপজেলার সিঁড়ির কাছে একটি বেঞ্চে বসে থাকতে দেখি। পরে খোঁজখবর করে জানতে পারি তার মেয়ের বাড়ি মাঝিড়াতে। এ কথা শুনে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তাকে সেখানে পাঠিয়ে দিই।

‘ওই ঘটনার পর আজ বিকেলে দেখি আলমগীর কোথা থেকে এসেছে। আমি তাকে ডেকে ক্যাম্পাস থেকে বের করে দিয়েছি। আর তাকে বলেছি- তুমি এই সমস্যার সমাধান না করে এখানে আসবা না। এছাড়া উপজেলা প্রকৌশলীকেও বলে দিয়েছি- ভাই, এই ছেলেকে আপনি বদলি করেন।’

সমর কুমার পাল আরও বলেন, ‘এরপর দেখি সিমপ্যাথি নেয়ার জন্য আলমগীর আমগাছের নিচে শুয়ে পড়ে। সবাইকে বলছে তাকে মারধর করা হয়েছে। অনেকেই তার এ কাজে ইন্ধন দিচ্ছে। কিন্তু আমার দিক থেকে কোনো মারধরের ঘটনা ঘটেনি।’

আলমগীরের স্ত্রী কোনো অভিযোগ করেছেন কিনা- এমন প্রশ্নে ইউএনও বলেন, ‘তাকে তো আলমগীর ফেলে রেখে চলে গিয়েছিল। আমি পরিষদের নিরাপত্তার কারণে ও সুনাম রক্ষার স্বার্থে তাকে মেয়ের বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়েছি।’

আরও পড়ুন:
ঘোড়াঘাটের ইউএনওকে হত্যাচেষ্টার রায় ৩ মাসের মধ্যে
আপনার আচরণ রাষ্ট্রের জন্য কলঙ্ক, ইউএনওকে হাইকোর্ট
ইউএনও-এসিল্যান্ডের নামে আদালতে মামলা
ইউএনওকে হত্যাচেষ্টা মামলা: তদন্ত কর্মকর্তার সাক্ষ্য নিতে সমন
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ২ ইউএনওর ওপর অসন্তুষ্ট ডিসি

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
2 passengers fined for carrying hilsa

ইলিশ বহনের দায়ে ২ বিমানযাত্রীকে জরিমানা

ইলিশ বহনের দায়ে ২ বিমানযাত্রীকে জরিমানা বিমানযাত্রীদের কার্টন থেকে উদ্ধার করা ইলিশ দুস্থদের মাঝে বিতরণ করেছেন বাবুগঞ্জের ইউএনও। ছবি: নিউজবাংলা
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও নুসরাত ফাতিমা দুই জনকে ৫ হাজার টাকা করে মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

বরিশালে নিষেধাজ্ঞার মধ্যে ইলিশ বহনের দায়ে দুই বিমান যাত্রীকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শুক্রবার বরিশাল বিমান বন্দর কর্তৃপক্ষ ইলিশসহ তাদেরকে আটক করে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা (ইলিশ) বিমল চন্দ্র দাস নিউজবাংলাকে এ তথ্য জানান।

জরিমানা দেয়া দুই বিমান যাত্রী হলেন আলমগীর ও মানষ।

বিমল চন্দ্র দাস বলেন, সকালে বরিশাল বিমান বন্দরে আসেন যাত্রী আলমগীর ও মানষ। তাদের কার্টন স্ক্যান করে আটটি ইলিশ পাওয়া যায়। নিষিদ্ধ সময়ে ইলিশ বহনের দায়ে দুই জনকে আটক করে বরিশাল মহানগরের এয়ারপোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

পুলিশ দুই যাত্রীকে বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও নুসরাত ফাতিমা দুই জনকে ৫ হাজার টাকা করে মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

কার্টন থেকে উদ্ধার করা আটটি ইলিশ দুস্থদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
ই‌লিশ শিকার: ৪ জ‌নকে এক বছ‌রের কারাদণ্ড
পদ্মা-মেঘনায় আজ থেকে ইলিশ ধরা বন্ধ
মধ্যরাত থেকে ২২ দিন নদীতে মাছ ধরা বন্ধ
নিষেধাজ্ঞায় ইলিশ বিক্রির শেষ দিনে বাজারে উপচে পড়া ভিড়
মা ইলিশ পাহারা দেবে দেড় হাজার পুলিশ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Stabbed while praying in the mosque

মসজিদে নামাজরত অবস্থায় ছুরিকাঘাত

মসজিদে নামাজরত অবস্থায় ছুরিকাঘাত বাঘা থানা। ছবি: সংগৃহীত
জমিসংক্রান্ত একটি মামলার সাক্ষী তাপস। এর জেরেই তার ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে জানান বাঘা থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন।

রাজশাহীর বাঘায় মসজিদের ভেতরে নামাজে দাঁড়ানো অবস্থায় এক যুবককে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। এতে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে সুচিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

৩৭ বছর বয়সী আহত আবু ফজল সিদ্দিক তাপস অগ্রণী ব্যাংকের বাজুবাঘা শাখার কর্মচারী এবং উপজেলার উত্তর কলিগ্রামের মরহুম মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেনের ছেলে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজের সময় তাপসকে ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

মামলায় অভিযুক্ত মনিরুল ইসলাম জমজমকে ইতোমধ্যেই গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার বাঘা থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কলিগ্রাম জামে মসজিদে মাগরিবের নামাজ পড়ছিলেন তাপস। ঈমামের পেছনে ফরজ নামাজ আদায় করার সময় তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়।

অভিযুক্ত মনিরুল ইসলাম জমজম মসজিদের ভেতরে প্রবেশ করে তাপসকে পেছন থেকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান। এতে তাপসের বাম হাতে মারাত্মক জখমের সৃষ্টি হয়।

পরে মসজিদের মুসল্লিরা তাপসকে উদ্ধার করে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নিয়ে যান। কিন্তু আঘাত গুরুতর হওয়ায় রাতেই তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

বাঘা থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন জানান, এ ঘটনায় রাতেই আহতের ভাই আবু বাশার জমজমের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরে শুক্রবার ভোরে ওই গ্রামেরই একটি আম বাগান থেকে জমজমকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জমিসংক্রান্ত একটি মামলার সাক্ষী তাপস। এই বিরোধের জেরেই তার ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে জানান ওসি।

আরও পড়ুন:
যাত্রাবাড়ীতে চালককে ছুরিকাঘাত করে রিকশা ছিনতাই
‘মাদকসেবীর’ ছুরিকাঘাতে যুবক খুন
দ্বিতীয় স্ত্রীর ছুরিকাঘাতে তরুণ নিহত
বাড়ি ফেরার পথে চেয়ারম্যানকে ছুরিকাঘাত
জমি বিরোধের জেরে ছুরিকাঘাতে খুন

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Global food crisis will not harm Bangladesh Foreign Minister

বৈশ্বিক খাদ্য সংকটে বাংলাদেশের ক্ষতি হবে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বৈশ্বিক খাদ্য সংকটে বাংলাদেশের ক্ষতি হবে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবুল কালাম। ফাইল ছবি
দুইদিনের সফরে শুক্রবার বিকেলে সিলেটে আসেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবুল মোমেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবুল মোমেন বলেছেন, করোনা এবং রাশিয়া-ইউক্রেন পরিস্থিতির কারণে আগামীতে বৈশ্বিক খাদ্য সংকটের আশঙ্কা থাকলেও এতে বাংলাদেশের খুব ক্ষতি হবে না।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের এক ইঞ্চি জমিও খালি থাকবে না। সরকার খাদ্য নিশ্চয়তার চেষ্টা করছে। খাদ্য ম্যানেজ করতে পারলে অন্যকিছুও ম্যানেজ করা সম্ভব।’

শুক্রবার বিকেলে সিলেট নগরে সরকারের একটি উন্নয়নকাজের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বব্যাংক বলেছে, আমাদের জিডিপি খুব ভালো। বিশ্বের অন্যান্য দেশের জিডিপি যেখানে ৩ পার্সেন্টের মতো, সেখানে আমাদের ৬ এর ওপরে। বাংলাদেশ সবসময় বাস্তবতার নিরিখে কাজ করে। তাই দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই।’

এর আগে সিলেটের আম্বরখানা-টুকেরবাজার সড়কের সংস্কার ও ফোর-লেন কাজের উদ্বোধন করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সড়কটির ৬ কিলোমিটার অংশ সংস্কার ও পুনর্নির্মাণে প্রায় ৩৫ কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

দুইদিনের সফরে শুক্রবার বিকেলে সিলেট আসেন তিনি।

আরও পড়ুন:
হাই লেভেল ভিজিট সম্ভব ছিল না পররাষ্ট্রমন্ত্রীর: তথ্যমন্ত্রী
ভারত সফর থেকে কেন বাদ পররাষ্ট্রমন্ত্রী
মোমেনকে নিয়ে ভুল তথ্য ভারতীয় মিডিয়ায়
প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে নেই পররাষ্ট্রমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে হতে পারে ৭ চুক্তি

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Presidents Tribute at the Tomb of the Father of the Nation

জাতির পিতার সমাধিতে রাষ্ট্রপতির শ্রদ্ধা

জাতির পিতার সমাধিতে রাষ্ট্রপতির শ্রদ্ধা রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। ছবি: সংগৃহীত
বিকেল পৌনে ৫টার দিকে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ জাতির পিতার সমাধি সৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। পরে বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের শহীদ সদস্যদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাতে অংশ নেন।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ প্রথমবারের মতো পদ্মা সেতু পার হয়ে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া গেলেন।

শুক্রবার দুপুরে বঙ্গভবন থেকে সড়ক পথে টুঙ্গিপাড়ার উদ্দেশে রওনা হন তিনি। বিকেল ৪টা ৩৫ মিনিটে তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধ কমপ্লেক্সে পৌঁছেন।

সেখানে রাষ্ট্রপতিকে স্বাগত জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার ছোট বোন শেখ রেহানা ।

বিকেল পৌনে ৫টার দিকে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ জাতির পিতার সমাধি সৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। পরে বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের শহীদ সদস্যদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাতে অংশ নেন। এ সময় রাষ্ট্রপতির পরিবারের সদস্যরা তার সঙ্গে ছিলেন।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি বঙ্গবন্ধু ভবনে পরিদর্শন বইয়ে সই করেন।

রাষ্ট্রপতি বিকেল সোয়া ৫টায় টুঙ্গিপাড়া থেকে কাশিয়ানীর কালনা সেতুর উদ্দেশে যাত্রা করার কথা রয়েছে।

সন্ধ্যায় তিনি মধুমতী সেতু থেকে শিবচরের উদ্দেশে যাত্রা করবেন। সেখানে ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরীর কবর জিয়ারত ও ইলিয়াস আহমেদ চৌধুরী কলেজ মসজিদে যাবেন।

আরও পড়ুন:
রাষ্ট্রপতির কাছে পরিচয়পত্র দিলেন কুয়েত ও নেপালের দূত
মিঠামইনে নির্মাণাধীন সেনানিবাস পরিদর্শনে রাষ্ট্রপতি
হাওরের উন্নয়ন নিয়ে বিভ্রান্তিমূলক তথ্য প্রচার হচ্ছে: রাষ্ট্রপতি
৪ দিনের সফরে কিশোরগঞ্জে রাষ্ট্রপতি
চার দিনের সফরে কিশোরগঞ্জ যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Nephew killed in pickup motorcycle collision

পিকআপ-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে ভাগনে নিহত

পিকআপ-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে  
ভাগনে নিহত প্রতীকী ছবি
মস্তফাপুর হাইওয়ে থানার ওসি গোলাম রসুল জানান, পিকআপটি জব্দ করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মাদারীপুরের রাজৈরে মোটরসাইকেল-পিকআপ সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও একজন।

ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের কলাবাড়ি নামক স্থানে বৃহস্পতিবার রাতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত হন ৩৫ বছরের হিরু শেখ ও আহত হয় তার মামা আলমগীর শেখ। হিরু উপজেলার টেকেরহাট ঘোষালকান্দি গ্রামের বাসিন্দা।

মস্তফাপুর হাইওয়ে থানার ওসি গোলাম রসুল নিউজবাংলাকে বিষয়টি জানান।

স্থানীয়দের বরাতে তিনি জানান, মোটরসাইকেলে মাদারীপুর সদর থেকে টেকেরহাট যাচ্ছিলেন মামা আলমগীর ও তার ভাগনে হিরু। পথে বরিশালগামী একটি পিকআপের সঙ্গে তাদের মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হয়।

এ সময় প্রথমে রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। পরে চিকিৎসক হিরুকে গুরুতর অবস্থায় ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ওসি গোলাম রসুল জানান, পিকআপটি জব্দ করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন:
ট্রাকচাপায় অটোরিকশার দুই যাত্রী নিহত
গুলিস্তানে বিআরটিসির বাসের ধাক্কায় নারী নিহত
সাফজয়ীদের সংবর্ধনায় এসে দুর্ঘটনায় নিহত স্কুলছাত্র
ইলেকট্রিক মিস্ত্রিকে মৃত ঘোষণা, ঢামেকে লেগুনা ফেলে পালান চালক
দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে নিহত ২

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Ilisha hunting 4 people sentenced to one year in prison

ই‌লিশ শিকার: ৪ জ‌নকে এক বছ‌রের কারাদণ্ড

ই‌লিশ শিকার: ৪ জ‌নকে এক বছ‌রের কারাদণ্ড
বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে অ‌ভিযান চালিয়ে ৫ হাজার মিটার অ‌বৈধ কা‌রেন্ট জাল জব্দসহ ৬ জেলেকে আটক করে নৌ পু‌লিশ ইউনিট। শুক্রবার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে চারজনকে এক বছর করে জেল দেয়া হয়।

ব‌রিশা‌লে নি‌ষেধাজ্ঞা অমান্য ক‌রে নদী‌তে মা ই‌লিশ ধরায় চারজন‌কে এক বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়া অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় মুচলেখা নিয়ে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে দুই কিশোরকে।

হিজলা নৌ পু‌লিশ ইউ‌নি‌টের প‌রিদর্শক বিকাশ চন্দ্র দে নিউজবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে অ‌ভিযান চালিয়ে ৫ হাজার মিটার অ‌বৈধ কা‌রেন্ট জাল জব্দসহ ৬ জেলেকে আটক করে নৌ পু‌লিশ ইউনিট। শুক্রবার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে চারজনকে এক বছর করে জেল দেয়া হয়।

দণ্ডিতরা হলেন হিজলা উপ‌জেলার পূর্ব খা‌গেরচর এলাকার সাইফুল মল্লিক, নাজমুল শিকদার, নুরুল ইসলাম তালুকদার ও চর বি‌শো‌রের কাওসার মোল্লা।

অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় দুইজনকে মুচলেখা নিয়ে অভিভাবকদের জিম্মায় ছেড়ে দেয়া হয়। এছাড়া পুড়িয়ে ফেলা হয় জব্দ হওয়া কারেন্ট জাল।

আরও পড়ুন:
মধ্যরাত থেকে ২২ দিন নদীতে মাছ ধরা বন্ধ
নিষেধাজ্ঞায় ইলিশ বিক্রির শেষ দিনে বাজারে উপচে পড়া ভিড়

মন্তব্য

বাংলাদেশ
He went out in the evening and found a dead body in the morning

সন্ধ্যায় বের হয়ে ভোরে মিলল গলা কাটা দেহ

সন্ধ্যায় বের হয়ে ভোরে মিলল গলা কাটা দেহ প্রতীকী ছবি
ওসি বলেন, ‘এ ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। হত্যায় জড়িতদের শনাক্ত ও গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযানে নেমেছে।’

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে এক ইজিবাইক চালকের গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সদর উপজেলার আটি গ্রামের ওয়াপদা কলোনি এলাকার একটি রাস্তার পাশ থেকে শুক্রবার ভোরে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহত ৪৫ বছরের সুজন মিয়া চাঁদপুরের গোবিন্দপুর গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে। সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি মনসুর মাস্টারের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন তিনি।

পরিবারের বরাতে ওসি বলেন, ‘প্রতিদিনের মতো বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায়ও ইজিবাইক নিয়ে বের হন সুজন। রাতে কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা তাকে হত্যা করে মরদেহ রাস্তারপাশে ফেলে যায়। তার পাশেই ইজিবাইকটি পড়ে ছিল। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

এ ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘হত্যায় জড়িতদের শনাক্ত ও গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযানে নেমেছে।’

আরও পড়ুন:
মা ও দুই ছেলের মরদেহ উদ্ধার, রহস্যের জট খোলেনি
নিজ ঘরে বৃদ্ধের মরদেহ
জঙ্গল থেকে হলমার্কের নিরাপত্তাকর্মীর মরদেহ উদ্ধার
বেলকুচিতে মা ও ২ সন্তানের মরদেহ উদ্ধার
হাত-পা বাঁধা অটোচালক কিশোরের মরদেহ উদ্ধার

মন্তব্য

p
উপরে