× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Electricity bills of Tk 2 crore are outstanding in municipality and SP office
hear-news
player
google_news print-icon

পৌরসভা ও এসপি কার্যালয়ে ২ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া

পৌরসভা-ও-এসপি-কার্যালয়ে-২-কোটি-টাকা-বিদ্যুৎ-বিল-বকেয়া
পৌর মেয়র পারভেজ রহমান বলেন, ‘দায়িত্ব বুঝে নিয়ে দেখি পৌরসভার ২ কোটি টাকার মতো বিল বকেয়া আছে। একসঙ্গে এত টাকা শোধ করা সম্ভব না। তাই কিস্তি করে কয়েক মাস অন্তর অন্তর কিছু কিছু করে বকেয়া শোধের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।’

শরীয়তপুর পৌরসভা ও জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের কাছে ২ কোটি টাকারও বেশি বিল পাওনা ওজোপাডিকোর। কর্তৃপক্ষ বলছে, বারবার চিঠি দিলেও বকেয়া শোধ করছে না সরকারি প্রতিষ্ঠান দুটি।

নিউজবাংলাকে এসব নিশ্চিত করেছেন জেলা ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির (ওজোপাডিকো) নির্বাহী প্রকৌশলী মো. কামাল উদ্দিন।

শরীয়তপুর পৌরসভার বকেয়া জমেছে ১ কোটি ৭৬ লাখ ও জেলা পুলিশের বকেয়া ৩৬ লাখ টাকা।

তিনি জানান, জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধিসহ নানা কারণে বিদ্যুতের উৎপাদন কিছুটা কমিয়ে আনা হয়েছে। বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে সরকারের পক্ষ থেকে নেয়া হচ্ছে নানা পদক্ষেপ। বকেয়া বিল উত্তোলনেও নেয়া হচ্ছে বিভিন্ন উদ্যোগ। অতিরিক্ত বকেয়া থাকা গ্রাহকদের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হচ্ছে। এর মধ্যে গত ৮ থেকে ১০ বছরের বেশি সময় ধরে শরীয়তপুর পৌরসভার বকেয়া জমেছিল ২ কোটিরও বেশি টাকা।

তিনি আরও জানান, একাধিকবার পৌর কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়েও কোনো সমাধান করা সম্ভব হয়নি। বর্তমান মেয়র দায়িত্ব বুঝে নেয়ার পর কয়েক ধাপে ২০ লাখ টাকার মতো বকেয়া শোধ হয়েছে। এখনও বাকি আছে ১ কোটি ৭৬ লাখ টাকার বেশি। জেলা পুলিশের পুলিশ লাইনস ও পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের ৩৬ লাখ টাকার বেশি বিদ্যুৎ বিল বকেয়া পড়েছে। তাদেরও একধিকবার চিঠি দেয়া হয়েছে।

পেছনের বিল বকেয়া থাকলেও চলতি বিলগুলো প্রতিষ্ঠান দুটি নিয়মিত শোধ করে যাচ্ছে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

পৌর মেয়র পারভেজ রহমান বলেন, ‘দায়িত্ব বুঝে নিয়ে দেখি পৌরসভার ২ কোটি টাকার মতো বিল বকেয়া আছে। একসঙ্গে এত টাকা শোধ করা সম্ভব না। তাই কিস্তি করে কয়েক মাস অন্তর অন্তর কিছু কিছু করে বকেয়া শোধের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

‘পুরো বিল শোধ করতে কয়েক বছর সময় লাগতে পারে। বিষয়টি নিয়ে বিদ্যুৎ বিভাগের সঙ্গে একাধিকবার সমন্বয় সভা করা হয়েছে।’

জেলা পুলিশ সুপার সাইফুল হক বলেন, ‘গত সপ্তাহে সবেমাত্র দায়িত্ব গ্রহণ করেছি। বিষয়টি জানা নেই। তবে বিস্তারিত খোঁজ নিয়ে দেখব। বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকলে তা শোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
All the achievements of the country are for Awami League Palak

দেশের যা কিছু অর্জন, সবই আওয়ামী লীগের জন্য: পলক

দেশের যা কিছু অর্জন, সবই আওয়ামী লীগের জন্য: পলক তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ছবি: নিউজবাংলা
পলক বলেন, ‘পদ-পদবি ক্ষণস্থায়ী। কিন্তু আওয়ামী লীগ নামের এই সংগঠন হচ্ছে স্থায়ী ঠিকানা। তাই যদি নিজেদের পদ ও স্বার্থের জন্য সংগঠনকে ভুলে যাই তাহলে পদও থাকবে না, আর সংগঠনও থাকবে না।’

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, আজকে এই বাংলাদেশের যা কিছু অর্জন, যা কিছু সাফল্য তার সব কিছুই দিয়েছে বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ।

তিনি বলেন, ‘পদ-পদবি ক্ষণস্থায়ী। কিন্তু আওয়ামী লীগ নামের এই সংগঠন হচ্ছে স্থায়ী ঠিকানা। তাই যদি নিজেদের পদ ও স্বার্থের জন্য সংগঠনকে ভুলে যাই তাহলে পদও থাকবে না, আর সংগঠনও থাকবে না।’

তাই সংগঠনকে শক্তিশালী করতে জনগণের উন্নয়নে কাজ করতে হবে। সেই ধারা অব্যাহত রাখতেই যোগ্য নেতৃত্ব নির্বাচিত করতে হবে বলে জানান তিনি।

শনিবার বিকেলে সিংড়া উপজেলা কোর্ট মাঠে সিংড়া পৌর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

সিংড়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সিংড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শফিকের সভাপতিত্বে সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে নেতারা বক্তব্য দেন।

এ সময় অন্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিংড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ ওহিদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ও সিংড়া পৌরসভার মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস।

২০১৩ সালে সিংড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। দীর্ঘ ৯ বছর পরে শনিবার আবার এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে সিংড়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ডালিম আহমেদ ডন ও সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেনের নাম ঘোষণা করা হয়।

আরও পড়ুন:
বিএনপি দেশকে সন্ত্রাসীদের অভয়ারণ্য করতে চায়: নাছিম
প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনের অনুষ্ঠানে মহিলা লীগের মারামারি
সহনশীলতা দুর্বলতা নয়: আ. লীগ
সংসদ উপনেতা: আলোচনায় আমু, তোফায়েল, মতিয়া
বাসায় ঢুকে আ.লীগ নেতাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Allegation of land grabbing against the judge

বিচারকের বিরুদ্ধেই জমি দখলের অভিযোগ

বিচারকের বিরুদ্ধেই জমি দখলের অভিযোগ জেলা জজ জুলফিকার আলী খান মাসুকের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগে মানববন্ধন।
জামালপুরের জেলা ও দায়রা জজ জুলফিকার আলী খান বলেন, ‘আমি আমার জমিতে ভবন নির্মাণ করতেছি। অভিযোগকারীরা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।’

ঝালকাঠির পোনাবালিয়া এলাকায় জোর করে জমি দখল, বাড়িঘর ভাঙচুর এবং অন্যের জমিতে স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে জামালপুরের জেলা ও দায়রা জজ জুলফিকার আলী খান মাসুকের বিরুদ্ধে।

ঘটনার প্রতিবাদে জুলফিকার আলীর গ্রামের বাড়ি ঝালকাঠিতে মানববন্ধন করেছেন ভুক্তভোগী স্বজনসহ জমির ওয়ারিশরা।

শনিবার দুপুর ১২টায় ঝালকাঠি শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামের সামনের সড়কে ওই মানববন্ধন হয়।

মানববন্ধন শেষে একটি লিখিত অভিযোগ সরবরাহ করেন অভিযোগকারীরা।

অভিযোগে উল্লেখ আছে- সদর উপজেলার পোনাবালিয়া ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের বাসিন্দা প্রয়াত শওকত আলী খানের পুত্র জুলফিকার আলী খান (মাসুক হুজুর) অবৈধভাবে অন্যের জমি দখল ও বাড়িঘর ভাঙচুর করে স্থাপনা নির্মাণ করছেন। জমির ওয়ারিশান মামুন খান, রেজা খান, সাইদ খান ও অভি খান জানান, বিরোধীয় সম্পত্তির ৩ এর ১ অংশের অংশীদারদের নিয়ে তারা গত ২৬ সেপ্টেম্বর ঝালকাঠির একটি আদালতে ১৪৫ ধারায় মামলা করেন। এরপরই ঝালকাঠি সদর থানার ওসির সহযোগিতায় অবৈধ নির্মাণকাজ বন্ধ করে দেয়া হয়। এ ছাড়া যেন বিশৃঙ্খলা না হয় সে জন্য পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় পক্ষকে নোটিশ দিয়ে আসে।

অভিযোগে আরও বলা হয়, জেলা জজ জুলফিকার আলী খান মাসুকের নির্দেশে তার ছোট ভাই আবু মইন খান (মামুন) ভাড়াটে মাস্তান নিয়ে জোর জবরদস্তি করে এবং আদালতের নিষেধ অমান্য করে বিরোধীয় সম্পত্তিতে নির্মাণকাজ শুরু করেন।

বিষয়টি ঝালকাঠি জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানালে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মইনুল হক এবং সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রশান্ত কুমার দে’র নির্দেশে পুলিশ গিয়ে আবারও কাজ বন্ধ করে দেয়।

লিখিত পত্রে আরও জানানো হয়, গত বছরও (২০২১ সাল) জুলফিকার আলী খান ক্ষমতার অপব্যবহার করে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী ঝালকাঠি জেলা শাখার সভাপতি গোলাম সাঈদ খানের বসতবাড়ি ভেঙে দিয়ে ৭ শতাংশ জায়গা দখল করে প্রাচীর নির্মাণ করেন। সে সময়ও তার বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছিল।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জামালপুরের জেলা ও দায়রা জজ জুলফিকার আলী খান বলেন, ‘আমি আমার জমিতে ভবন নির্মাণ করতেছি। অভিযোগকারীরা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।’

আরও পড়ুন:
নারী নির্যাতন মামলার আসামি জজের নিয়োগ স্থগিত
বিচারকদের ভাতা বাড়ানোর প্রস্তাব
বিচার বিভাগে রদবদল, ৬৫ বিচারকের পদোন্নতি
এবার কামরুন্নাহারের বিচারিক ক্ষমতা জব্দ করল আপিল বিভাগ
আপিল বিভাগের শুনানিতে বিচারক কামরুন্নাহার

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Bodies of mother and 2 children recovered in Belkuchi

বেলকুচিতে মা ও ২ সন্তানের মরদেহ উদ্ধার

বেলকুচিতে মা ও ২ সন্তানের মরদেহ উদ্ধার সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে মা ও দুই সন্তানের লাশ উদ্ধারের সময় এলাকাবাসী ভিড় জমায়। ছবি: নিউজবাংলা
স্থানীয় জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘মবুপুর গ্রামের বাসিন্দা সুলতান আলী বহু বিয়েতে আসক্ত। কিছুদিন আগে তিনি জেলখানা থেকে বেরিয়ে আসেন। তিনদিন আগেও তাকে আমরা এখানে দেখেছি। আমাদের ধারণা, সুলতান লোকজন নিয়ে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে হত্যা করেছেন।’

সিরাজগঞ্জে মা ও দুই সন্তানের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। বেলকুচি উপজেলার মবুপুরে নিজ বাড়ির তালাবদ্ধ ঘর থেকে শনিবার মরদেহগুলো উদ্ধার করে পুলিশ। তারা হলেন স্থানীয় সুলতান আলীর স্ত্রী রওশন আরা বেগম এবং তার দুই সন্তান জিহাদ ও মাহিম।

চল্লিশোর্ধ্ব রওশনের দুই সন্তানের মধ্যে একজনের বয়স ১০ ও আরেকজনের বয়স চার বছর।

স্থানীয় লোকজন ও রওশনের স্বজনদের দাবি, সুলতান আলী তার স্ত্রী ও দুই সন্তানকে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে পালিয়েছে।

স্থানীয় জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘মবুপুর গ্রামের বাসিন্দা সুলতান আলী বহু বিয়েতে আসক্ত। কিছুদিন আগে তিনি জেলখানা থেকে বেরিয়ে আসেন। তিন দিন আগেও তাকে আমরা দেখেছি। আমাদের ধারণা, সুলতান লোকজন নিয়ে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছেন।’

জাহিদুল জানান, সুলতানের বাড়ি ফাঁকা জায়গায় হওয়ায় ওদিকে মানুষের চলাফেরা কম। শনিবার বিকেলে রওশন আরার বোন বেলাল হোসেনের স্ত্রী লিলি খাতুন ওই বাড়িতে গিয়ে ঘরের দরজা তালাবদ্ধ দেখতে পান। তখন ঘরের ভেতর থেকে দুর্গন্ধ বের হচ্ছিল। পরে স্থানীয়দের ডেকে এনে তালা ভেঙে ভেতরে তার বোন ও দুই ভাগনের লাশ দেখতে পান। খবর পেয়ে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধারে তৎপর হয়।

লিলি খাতুন বলেন, ‘আমার বড় বোন রওশন আরা পাশের গ্রামে তাঁত কারখানায় সুতা মরাইয়ের কাজ করতেন। তিন দিন ধরে তিনি কাজে না যাওয়ায় মহাজন আজ (শনিবার) সকালে আমাকে ফোন দিয়ে খোঁজ নিতে বলেন।

‘আমি বিকেলে বোনের বাড়িতে এসে দেখি ঘরে তালা। খোলা থাকা জানালা দিয়ে উঁকি দিলে দুর্গন্ধ ভেসে আসে। পরে পাশের কয়েকজনকে ডেকে এনে তালা ভেঙে দেখি আমার বোন আর ভাগনেদের লাশ পড়ে আছে।’

লিলি বলেন, ‘আমার বোনের জামাই খালি বিয়া করে। সে এখানে মাঝে মাঝে আসে। সে জেলে ছিল। কবে বের হয়েছে জানি না। তবে সবাই বলতেছে যে সে কয়েক দিন আগে এখানে এসেছিল। দুলাভাই মনে হয় লোকজন নিয়ে ওদেরকে মেরে ফেলেছে। আমি এই হত্যার বিচার চাই।’

বেলকুচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজমিলুর রহমান বলেন, ‘স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে আমরা পচে যাওয়া লাশগুলো উদ্ধারের চেষ্টা করছি। সিরাজগঞ্জ সদর থেকে সিআইডি টিম আসছে। তারা আসার পর লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠাব। ময়নাতদন্তের পর হত্যার কারণ জানা যাবে।’

আরও পড়ুন:
বাফুফের মাঠে যুবকের মরদেহ
মুগদায় বাসা থেকে শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার
উত্তরায় তরুণীর মরদেহ উদ্ধার
ফ্যানে ঝুলছিল প্রাথমিক স্কুলছাত্রীর মরদেহ
বাসায় নার্সের মরদেহ, স্বামী পলাতক

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Cow Lumpy Skin Disease Spread Fear of Farmers

গরুর লাম্পি স্কিন রোগ ছড়িয়ে পড়ায় খামারিদের আতঙ্ক

গরুর লাম্পি স্কিন রোগ ছড়িয়ে পড়ায় খামারিদের আতঙ্ক লাম্পি স্কিন ডিজিজে আক্রান্ত একটি গরু। ছবি: নিউজবাংলা
জেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাঈদুর রহমান জানান, রোগটি সাধারণত বর্ষাকালেই বেশি হয়। শীত এলে এর প্রকোপ কমে যাবে।

গত ঈদুল আজহায় প্রায় ১ হাজার ৮০০ কোটি টাকার গবাদিপশু বিক্রি করেছেন মেহেরপুর জেলার খামারি ও চাষিরা। তবে এসব খামারি ও চাষির কপালে এবার চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে লাম্পি স্কিন নামে গরুর একটি রোগ। ভাইরাসবাহিত লাম্পি স্কিন রোগের প্রাদুর্ভাবে এখন দিশেহারা তারা।

তবে জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা বলছেন, লাম্পি স্কিন ডিজিস নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। এটি মারাত্মক কোনো রোগ না। মশা-মাছিবাহিত এই রোগটি নিয়মিত ওষুধ খাওয়ালে তিন থেকে চার সপ্তাহের মধ্যে সেরে যায়।

রোগটির বর্ণনা দিয়ে গাংনী উপজেলার বালিয়াঘাট গ্রামের খামারি আব্দুল জাব্বার বলেন, ‘আমার খামারের গরুর শরীরে হঠাৎ করে টিউমারের মতো গুটি গুটি কী যেন বের হয়েছে! এটা হওয়ার পর থেকেই খাওয়া-দাওয়া কমিয়ে দিয়ে শুধু ঝিম ধরে দাঁড়িয়ে থাকে। পশু ডাক্তারকে দেখিয়েছি, তারা ওষুধ দিয়েছে। দেড় সপ্তাহ হয়ে গেছে। গরুর শরীরে কোনো পরিবর্তন হয়নি।’

গাভী নিয়ে একই সমস্যায় পড়েছেন বাওট গ্রামের গরু পালনকারী জায়েদা খাতুন। তার গাভী প্রতিদিন দেড় কেজি দুধ দেয়। কিন্তু ছয় দিন ধরে গাভীটির চামড়ায় ছোট ছোট টিউমারের মতো গুটি বের হয়েছে এবং যথারীতি খাওয়া-দাওয়াও কমিয়ে দিয়েছে। এতে কমে গেছে দুধের পরিমাণও।

সদর উপজেলার গরু চাষি রিপন আলীও এ ধরনের সমস্যার কথা জানিয়ে বলেন, ‘এক মাস ধরে আমার গাভীর গায়ে গুটি বের হয়েছে। ডাক্তার প‍্যারাসিটামল আর হিস্টাসিন বড়ি দিয়েছেন। তা-ই খাওয়াচ্ছি। তবে এক সপ্তাহ হয়ে গেলেও এখনও সারেনি।’

বামন্দী গ্রামের পল্লি চিকিৎসক ইউসুফ আলী বলেন, ‘আমাদের কাছে প্রায় প্রতিদিনই লাম্পি স্কিন রোগে আক্রান্ত গরু নিয়ে আসছেন খামারিরা। আমরা চিকিৎসা দিচ্ছি। তবে সেরে উঠতে মাসখানেক সময় লাগছে। এ রোগে আক্রান্ত গরুর শরীরে ব‍্যথা অনুভূত হয়।’

জেলার ঐতিহ্যবাহী পশুহাট ইজারাদার সিরাজুল ইসলাম নিউজবাংলাকে জানান, সোম ও শুক্রবার হাট বসে। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে এখানে গরু-ছাগল কিনতে আসেন বেপারিরা। তবে বতর্মানে হাটে প্রচুর পরিমাণে লাম্পি স্কিন রোগে আক্রান্ত গরু আসছে। সেই গরুগুলো বাইরের বেপারিরা কিনতে চাইছেন না।

তবে এই রোগ নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই বলে মন্তব্য করেছেন জেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাঈদুর রহমান।

তিনি জানান, দেশের অনেক জেলার মতো মেহেরপুরেও সম্প্রতি লাম্পি স্কিন ডিজিস দেখা দিয়েছে। মূলত রোগটি মশা, মাছি, আক্রান্ত পশুর ব্যবহৃত নিডল ও সিরিঞ্জের মাধ্যমে গরু থেকে গরুতে ছড়িয়ে পড়ে। তাই আক্রান্ত গরুটিকে অবশ‍্যই কোয়ারেন্টিন করে চিকিৎসা নিতে হবে।

তিনি আরও জানান, রোগটি সাধারণত বর্ষাকালেই বেশি হয়। শীত এলে এর প্রকোপ কমে যাবে। আক্রান্ত গরুর চিকিৎসা শুরুর ২৫ দিনের মধ‍্যে রোগটি সেরে যায়। সচেতনতার মাধ্যমেই এ রোগটিকে এড়ানো সম্ভব।

আরও পড়ুন:
৩০ মণের ইউটিউবার, ৩২ মণের চিরকুমার
দাম শুনে, ছবি তুলে চলে যাচ্ছেন ক্রেতারা
গোখাদ্যের দাম বৃদ্ধিতে লোকসানের শঙ্কায় খামারিরা
প্রাইভেটকারে গরু চুরি, গাড়ি জব্দ
অজানা রোগে মরছে গরু, দুগ্ধ গ্রামে আতঙ্ক

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Attempt to rob a businessman

ব্যবসায়ীকে গুলি, ছিনতাইয়ের চেষ্টা

ব্যবসায়ীকে গুলি, ছিনতাইয়ের চেষ্টা গুলিবিদ্ধ শামসকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ছবি: নিউজবাংলা
পাবনা সদর থানার ওসি জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। শামসের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি আশংকামুক্ত। ছিনতাই চেষ্টার ঘটনা তদন্তে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নেমেছে।

পাবনা সদরে শামস ইকবাল নামে এক ব্যবসায়ীকে গুলি করে ১৫ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেছে ছিনতাইকারীরা। ব্যবসায়ীর সাহসিকতায় তারা টাকা নিতে পারেনি। গুলিবিদ্ধ শামসকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার রাত ৮টার দিকে সদর উপজেলার রাজাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

শামস গ্রামীণ ফোনের আঞ্চলিক ডিলার। তার বাড়ি সদর উপজেলার মালঞ্চি গ্রামে।

গুলিবিদ্ধ শামস জানান, রাতে তিনি আতাইকুলা এলাকা থেকে ব্যবসায়িক লেনদেনের ১৫ লাখ টাকা নিয়ে মোটরসাইকেলে পাবনায় ফিরছিলেন। রাজাপুর এলাকায় একটি এলপিজি গ্যাস স্টেশনের সামনে পেছন থেকে হানা দেয়া মোটরসাইকেল আরোহীরা তার টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। তিনি দ্রুত সামনে এগিয়ে গেলে ছিনতাইকারীরা কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এতে তার বাম হাতে গুলিবিদ্ধ হয়। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তিনি না থেমে সামনে এগিয়ে গেলে ছিনতাইকারীরা সরে পড়ে।

স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।

পাবনা সদর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম জুয়েল জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। শামসের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি আশংকামুক্ত। ছিনতাই চেষ্টার ঘটনা তদন্তে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নেমেছে। সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

স্থানীয়রা জানান, সম্প্রতি পাবনায় ছিনতাইকারীদের তৎপরতা বেড়েছে। এক মাসে আলাদা ঘটনায় কয়েকজন ব্যবসায়ীর ১৩ লাখ টাকা ছিনতাই হয়েছে। শহরের শিবরামপুর, কালাচাঁদপাড়া ও শালগাড়ীয়া এলাকায় দিনে দুপুরেও ঘটছে ছিনতাইয়ের ঘটনা।

আরও পড়ুন:
অনুশীলনকালে গুলিবিদ্ধ হয়ে বিজিবি সদস্যের মৃত্যু
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গুলি, এপিবিএন সদস্য গুলিবিদ্ধ
কাপ্তাইয়ের জঙ্গলে গুলিবিদ্ধ লাশ
ধনবাড়ীতে বিএন‌পি-পুলিশ সংঘর্ষ গুলি, আহত ৮
উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হেড মাঝিসহ ৩ জন গুলিবিদ্ধ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Papon target final

পাপনের টার্গেট ফাইনাল

পাপনের টার্গেট ফাইনাল থাইল্যান্ডকে ৯ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ। ছবি: নিউজবাংলা
‘আমাদের প্রথম টার্গেট সেমিফাইনাল, এরপর ফাইনাল। ফাইনালেও ভালো খেলার আশা করছি। এশিয়া কাপ জয়ের পথে ভারত বড় বাধা হতে পারে, গত এক বছরে তারা অনেক ইম্প্রুভ করেছে। বাংলাদেশও অনেক ইম্প্রুভ করেছে। তাই বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচটা টাইট হবে।’

থাইল্যান্ডকে ৯ উইকেটে হারিয়ে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বড় জয় তুলে নিয়েছে নিগার সুলতানা জ্যোতি বাহিনী। নারী ক্রিকেটারদের এমন জয়ে বেজায় খুশি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তবে তার লক্ষ্য ফাইনাল, এশিয়া কাপ জয়।

শনিবার সিলেটে উদ্বোধনী ম্যাচের পর সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘আমরা যদি র‍্যাঙ্কিং দেখি সেখানে বাংলাদেশের অবস্থান ৯ নম্বরে। এরপর আয়ারল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, থাইল্যান্ড ও জিম্বাবুয়ে কাছাকাছি মানের।

‘থাইল্যান্ড শক্তিশালী প্রতিপক্ষ। তাদের নিয়ে একটু ভয় পাচ্ছিলাম, টাইট ম্যাচ হবে মনে করেছিলাম। কিন্তু আমাদের মেয়েরা যেভাবে খেলেছে, আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেলেছে, তা দেখে খুবই ভালো লাগছে।’

উদ্বোধনের পর বিসিবি সভাপতি পুরো ম্যাচ দেখেন গ্যালারিতে বসে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের মেয়েরা অনেকদিন ধরেই ভালো খেলছে। এর আগেও কোয়ালিফাই চ্যাম্পিয়ন হয়ে বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছে, এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে, সাফ গেমসে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। তারাতো ধারাবাহিকভাবে ভালো করছে।’

এশিয়া কাপে বাংলাদেশ দলের ফাইনালে খেলার সম্ভাবনার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রথম টার্গেট সেমিফাইনাল, এরপর ফাইনাল। ফাইনালেও ভালো খেলার আশা করছি। এভাবে ভালো খেলতে থাকলে সফলতা আসবেই।

‘এশিয়া কাপ জয়ের পথে ভারত বড় বাধা হতে পারে, গত এক বছরে তারা অনেক ইম্প্রুভ করেছে। তারা ক্রিকেটের পরাশক্তি অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের মতো দলকে হারাচ্ছে। বাংলাদেশও অনেক ইম্প্রুভ করেছে। তাই বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচটা টাইট হবে।’

আরও পড়ুন:
পরিকল্পনা কাজে লাগিয়েছেন বোলাররা: জ্যোতি
জয় দিয়ে এশিয়া কাপ শুরু টাইগ্রেসদের
শনিবার শুরু হচ্ছে নারী এশিয়া কাপ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Transport workers blockade in Tongi vandalized police cars

টঙ্গীতে পরিবহন শ্রমিকদের অবরোধ, পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর

টঙ্গীতে পরিবহন শ্রমিকদের অবরোধ, পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর অবরোধ চলার সময় পুলিশের একটি টহল গাড়িতে ভাঙচুর চালায় পরিবহন শ্রমিকরা।
পুলিশের উপকমিশনার (ট্রাফিক) আলমগীর হোসেন বলেন, ‘সড়কের ওপর গাড়ি পার্কিং নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি থেকে অনাকাক্ষিত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।’

গাজীপুরের টঙ্গীতে সড়কের ওপর অবৈধ গাড়ি পার্কিং উচ্ছেদের জেরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ ও ভাঙচুর চালিয়েছে ট্রাক-কাভার্ডভ্যান শ্রমিকরা।

শনিবার বিকেলে টঙ্গীর চেরাগআলী ট্রাক স্ট্যান্ড এলাকায় অবরোধের সময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা পুলিশের একটি টহল গাড়িও ভাঙচুর করে। এতে পুলিশের এক এসআই ও দুই কনস্টেবল আহত হয়েছেন। গাজীপুর মহানগর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

শ্রমিকদের ঘণ্টাব্যাপী অবরোধের কারণে মহাসড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

পরিবহন শ্রমিক ও প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে জানা গেছে, টঙ্গীর মেঘনা রোডে অবৈধভাবে ট্রাক-কাভার্ডভ্যান পার্কিং করে রাখায় প্রায়ই যানজটের সৃষ্টি হয়। শনিবার দুপুরে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার মেহেদি হাসান ওই সড়ক দিয়ে যাওয়ার পথে যানজট দেখে অবৈধ পার্কিং করে রাখা গাড়িগুলো সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেন।

কিন্তু শ্রমিকরা নির্দেশ অমান্য করে সময়ক্ষেপণ করায় পুলিশ কর্মকর্তা মেহেদি হাসান নিজে দাঁড়িয়ে থেকে ২৫ থেকে ৩০টি গাড়ির গ্লাস ও হেডলাইট ভাঙচুর করেন। এ খবর ট্রাক স্ট্যান্ডের শ্রমিকদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত শ্রমিকরা বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত মহাসড়কের দুই পাশ অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এতে মহাসড়কের দুই পাশেই ভয়াবহ যানজট সৃষ্টি হয়।

এ সময় টঙ্গী পূর্ব থানার টহল গাড়ি আটকে রেখে ভাঙচুর চালায় উত্তেজিত শ্রমিকরা। এতে পুলিশের এসআই কায়সার হাসান, কনস্টেবল মাসুদ রানা ও ড্রাইভার আনিসুল আহত হন। তাদেরকে উদ্ধার করে রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে শ্রমিকদের বুঝিয়ে মহাসড়ক থেকে সরিয়ে দেন।

পুলিশের উপ-কমিশনার (ট্রাফিক) আলমগীর হোসেন বলেন, ‘সড়কের ওপর গাড়ি পার্কিং নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি থেকে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। এ ঘটনার জন্য যারা দায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। পাশাপাশি পুলিশের গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

আরও পড়ুন:
‘বঙ্গবন্ধু মহাসড়কে’ টোল আদায় করবে কেইসি
বরিশালে ৩৬ ফুট প্রশস্ত হবে মহাসড়কের ১১ কিলোমিটার
মহাসড়কে বালুর ব্যবসা
মধ্যরাতে মহাসড়কে ডাকাতির অভিযোগ
কুমিল্লায় গাড়িচাপায় নিহত ২

মন্তব্য

p
উপরে