× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
The body of a German citizen was recovered in Uttara
hear-news
player
google_news print-icon

উত্তরায় জার্মানির এক নাগরিকের মরদেহ উদ্ধার

উত্তরায়-জার্মানির-এক-নাগরিকের-মরদেহ-উদ্ধার
পুলিশ কনস্টেবল সুজন কুমার সরকার বলেন, ‘জার্মানির ওই নাগরিক ট্যুরিস্ট ট্রান্সলেটর হিসেবে কাজ করতেন। আমরা খবর পেয়ে ওই বাসায় গিয়ে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে নিয়ে আসি। তিনি উত্তরা ৫ নম্বর সেক্টরে রোড নম্বর ২/বি ১০ নম্বর হোল্ডিংয়ের একটি ফ্ল্যাটে থাকতেন।’

রাজধানীর উত্তরায় একটি ফ্ল্যাট থেকে চেয়ারে বসা অবস্থায় হোলগার কাউসম্যান নামে জার্মানির এক নাগরিকের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ রোববার রাতে ওই ফ্ল্যাটে চেয়ারে বসা অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করে।

পুলিশ রাত সোয়া ৯টায় হোলগার কাউসম্যানকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে এলে চিকিৎসক জানান যে তিনি ইতোমধ্যে মারা গেছেন।

হাসপাতালে ওই জার্মানকে নিয়ে আসা কনস্টেবল সুজন কুমার সরকার বলেন, ‘জার্মানির ওই নাগরিক ট্যুরিস্ট ট্রান্সলেটর হিসেবে কাজ করতেন। আমরা খবর পেয়ে ওই বাসায় গিয়ে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে নিয়ে আসি। তিনি উত্তরা ৫ নম্বর সেক্টরে রোড নম্বর ২/বি ১০ নম্বর হোল্ডিংয়ের একটি ফ্ল্যাটে থাকতেন। তার বাবার নাম আরমিন কাউসম্যান।’

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া বলেন, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পুলিশ কর্মকর্তা
মিরপুর বেড়িবাঁধে দুর্ঘটনা: রবিউলের পর চলে গেলেন মিলনও
যাত্রাবাড়ীতে বাসের ধাক্কায় বাইক আরোহী নিহত
পুলিশের রেকার চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী কিশোর নিহত
পিকআপের ধাক্কায় নারীর মৃত্যু

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Death of a young man who jumped from the seventh floor of Dhaka Medical

ঢাকা মেডিক্যালে সাততলা থেকে লাফ দেয়া যুবকের মৃত্যু

ঢাকা মেডিক্যালে সাততলা থেকে লাফ দেয়া যুবকের মৃত্যু
রনির বাবা দুলাল ব্যাপারী বলেন, ‘গ্রামের লোকজন বলেছিল, আপনার ছেলেকে ঢাকা মেডিক্যালে নিলে সুস্থ হয়ে যাবে। নিয়তির খেলা আমার ছেলের লাশ আমাকেই কাঁধে নিতে হলো।’

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নতুন ভবনের সাত তলা থেকে লাফিয়ে পড়ে আহত রিয়াজুল ইসলাম রনি মারা গেছেন।

শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টায় তার মৃত্যু হয়।

জানা গেছে, মানসিক সমস্যার কারণে গত সোমবার রনিকে ঢাকা মেডিক্যালের নতুন ভবনের সাত তলায় মেডিসিন ৭০১ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে সাত তলা থেকে রনি নিচে লাফ দেন। সেখান থেকে তৃতীয় তালার সানশেডের উপর পড়ে এনাটমি বিভাগের বাউন্ডারির ভেতর পড়ন রনি। তাকে জরুরি বিভাগে নেয়া হয়। সেদিন রাত ১২টার দিকে তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেয়া হয়। শুক্রবার বিকেলে রনিকে মৃত বলে জানান চিকিৎসক।

রনির বাবা দুলাল ব্যাপারী বলেন, ‘গ্রামের লোকজন বলেছিল, আপনার ছেলেকে ঢাকা মেডিক্যালে নিলে সুস্থ হয়ে যাবে। নিয়তির খেলা আমার ছেলের লাশ আমাকেই কাঁধে নিতে হলো।’

রনির গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর সদরে।

ঢাকা মেডিক্যালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মোহাম্মদ বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘রনির মরদেহ স্বজনরা ময়নাতদন্ত ছাড়া গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাবেন।’

আরও পড়ুন:
হোটেলের ছাদ থেকে মাথায় পানির ট্যাংক পড়ে মৃত্যু
বাস-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে পুলিশ আহত
কাভার্ড ভ‍্যানের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
বাড্ডায় হাসপাতালকর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার
বাসায় ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার, হাসপাতালে মৃত্যু

মন্তব্য

বাংলাদেশ
DNCC offers 10 percent discount on online tax payment

অনলাইনে কর পরিশোধে ১০ শতাংশ ছাড় ডিএনসিসির

অনলাইনে কর পরিশোধে ১০ শতাংশ ছাড় ডিএনসিসির
বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, চলতি অর্থবছরের চার কিস্তির ওপর ১০ শতাংশ রেয়াতের সময়সীমা ও সারচার্জ ছাড়া ট্রেড লাইসেন্স নবায়নের সময়সীমা আগামী ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়িয়েছে ডিএনসিসি।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) নাগরিকরা ঘরে বসেই অনলাইনে ডিজিটাল পদ্ধতিতে হোল্ডিং ট্যাক্স, নতুন লাইসেন্স ও লাইসেন্স নবায়ন ফি পরিশোধ করতে পারছেন। ডিজিটাল এ পদ্ধতিতে ডিএনসিসি এলাকার করদাতা ও ব্যবসায়ীরা বকেয়াসহ চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের চার কিস্তি হোল্ডিং ট্যাক্স একসঙ্গে অনলাইনে পরিশোধ করলে দেয়া হবে ছাড়।

ডিএনসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা মকবুল হোসাইন শুক্রবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, চলতি অর্থবছরের চার কিস্তির ওপর ১০ শতাংশ রেয়াতের সময়সীমা ও সারচার্জ ছাড়া ট্রেড লাইসেন্স নবায়নের সময়সীমা আগামী ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়িয়েছে ডিএনসিসি।

বিজ্ঞপ্তিতে বর্ধিত সময়ের মধ্যে করদাতাদের বকেয়াসহ চলতি অর্থবছরের চার কিস্তি হোল্ডিং ট্যাক্স একত্রে পরিশোধ করে ১০ শতাংশ রেয়াতের সুযোগ নেয়ার ও ব্যবসায়ীদের সারচার্জ ছাড়া ট্রেড লাইসেন্স নবায়নের সুযোগ নেয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

ডিএনসিসির পক্ষ থেকে জানানো হয়, এতে ট্রেড লাইসেন্স, লাইসেন্স নবায়ন ও গৃহকর পরিশোধে নগরবাসীর হয়রানির নিরসন হবে। সেইসঙ্গে বাঁচবে সময়ও।

আরও পড়ুন:
সরু রাস্তায় টাকা দেবে না ডিএনসিসি
চার স্কুলে বাস চালু করছে ডিএনসিসি
স্কুলবাস চালু করতে চান মেয়র আতিকুল
তথ্য যাচাই করে সত্য প্রকাশের আহ্বান ডিএনসিসি মেয়রের
ঢাকাকে বাঁচাতে হলে গাছ লাগাতে হবে: আতিকুল

মন্তব্য

বাংলাদেশ
9000 crore EVM project is a waste of peoples tax money

‘৯ হাজার কোটির ইভিএম প্রকল্প মানুষের ট্যাক্সের টাকার অপচয়’

‘৯ হাজার কোটির ইভিএম প্রকল্প মানুষের ট্যাক্সের টাকার অপচয়’ বাম গণতান্ত্রিক জোটের মিছিল। ছবি: সংগৃহীত
দুর্গাপূজায় যেন কোনো ধরণের সাম্প্রদায়িক অপশক্তির আক্রমণ না আসে এবং হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা যাতে নির্বিঘ্নে ও নির্ভয়ে সম্পন্ন করতে পারে তার জন্য সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানান বাম জোটের নেতারা।

৯ হাজার কোটি টাকার ইভিএম প্রকল্প মানুষের ট্যাক্সের টাকার অপচয় উল্লেখ করে এই প্রকল্প বাতিলের দাবি জানিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট।

বাম জোটের নেতারা বলেছেন, নির্বাচন কমিশন সরকারের ইচ্ছে পূরণে কাজ করতে গিয়ে জনগণের আকাঙ্খার বিপরীতে অবস্থান নিচ্ছে। সরকারের নীল নকশা বাস্তবায়ন করতে গিয়ে দেশের রাজনৈতিক সংকট আরও গভীর করছে।

শুক্রবার বিকেলে পল্টন মোড়ে এক বিক্ষোভ সমাবেশে এই অভিযোগ করেন বাম জোটের নেতারা।

৯ হাজার কোটি টাকার ইভিএম প্রকল্প বাতিল, নির্দলীয় তদারকি সরকারের অধীনে নির্বাচন, দমন-পীড়ন, মামলা, বিরোধী মতামত দমন বন্ধ, লুটের টাকা উদ্ধার ও দুর্নীতিবাজ লুটেরাদের বিচার, নিত্যপণ্যের দাম কমাও, মানুষ বাঁচাও-দাবি নিয়ে এই সমাবেশ করেন বাম জোটের নেতাকর্মীরা।

জোটের নেতারা বলেন, দেশের মানুষ এমন একটা পরিবেশ চায় যেখানে তারা নিরাপদে ভোট দিতে পারবে, কিন্তু দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে ভোটারদের কোন নিরাপত্তা থাকবে না। আমরা দলীয় সরকারের অধীনে কোন নির্বাচন চাই না।

বক্তারা নির্বাচনের সময় সংসদ বাতিল ও সরকারের পদত্যাগ করতে হবে বলে দাবি জানান সমাবেশ।

তারা বলেন, নির্বাচন কমিশন দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন আয়োজনে তোড়জোড় করছে, একটা পূর্ব নির্ধারিত ফলাফলের জন্য নির্বাচন এর আনুষঙ্গিকতা করতে চাইছে।

বক্তারা দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনের আয়োজনকে রুখে দাঁড়াতে জনগণের প্রতি আহবান জানান।

নির্বাচন কমিশন জনগণকে প্রতিপক্ষ বানাচ্ছে যার জবাব জনগণ দেবে বলে জানান।

দেশের মানুষ ইভিএম চাইছে না, কারণ এর কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন আছে। এর আগে জনগণের টাকায় কেনা ২৮ হাজার ইভিএম নষ্ট হয়ে পড়ে আছে কিন্তু তারপরও সরকারের আকাঙ্খা পূরণে ৯ হাজার কোটি টাকা খরচের প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে, যা পুরোটাই অপচয় বলে উল্লেখ করেছেন নেতারা।

সমাবেশে বলা হয়, ‘ইডেন কলেজ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ এমন কোনো অপরাধ নেই যা করছে না, কিন্তু আইনের আওতায় না আনার একমাত্র কারন তারা আওয়ামী শাসনের সহযোগী।’

বক্তারা ইডেন কলেজের ছাত্রলীগের সভাপতি, সেক্রেটারিসহ অপরাধীদের গ্রেপ্তার দাবি করেন।

সমাবেশে জোট নেতারা আরও বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে হিন্দু ধর্মাবলবম্বীদের আসন্ন দুর্গাপূজার জন্য বানানো প্রতিমা ভাঙচুরের খবর আসছে।

দুর্গাপূজায় যেন কোনো ধরণের সাম্প্রদায়িক অপশক্তির আক্রমণ না আসে এবং হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা যাতে নির্বিঘ্নে ও নির্ভয়ে সম্পন্ন করতে পারে তার জন্য সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানান তারা।

পাশাপাশি সরকারকে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণেরও দাবি জানান।

সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

বাম গণতান্ত্রিক জোটের অন্যতম নেতা ও বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি মোহাম্মদ শাহ আলমের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ সাধারণ সম্পাদক বজলুর রশীদ ফিরোজ, বাংলাদেশের সামজতান্ত্রিক দলের (মার্কসবাদী) সমন্বয়ক মাসুদ রানা, বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাক সবুজ, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলী।

আরও পড়ুন:
টায়ার পোড়ানোর অভিযোগে ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আটক
হরতাল: পল্টনে বাম জোটের মিছিল-অবস্থান
দেশবাসীকে হরতাল পালনের আহ্বান বাম জোটের
বাম জোটের নতুন সমন্বয়ক প্রিন্স
বাম ভাইদের সম্মান করি: তথ্যমন্ত্রী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The idol artists are busy scratching the tuli at the last minute

শেষ মুহূর্তে তুলির আঁচড় দিতে ব্যস্ত প্রতিমা শিল্পীরা

শেষ মুহূর্তে তুলির আঁচড় দিতে ব্যস্ত প্রতিমা শিল্পীরা শেষ মুহূর্তে তুলির আঁচড় দিতে ব্যস্ত প্রতিমা শিল্পীরা। ছবি: নিউজবাংলা
দুর্গোৎসবকে ঘিরে নিরাপত্তার জোরদার ব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। শান্তিপূর্ণভাবে এই উৎসব শেষ করতে নেয়া হয়েছে কড়া নিরাপত্তা। এরই মধ্যে মণ্ডপে মণ্ডপে বসানো হচ্ছে সিসিটিভি ক্যামেরা।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। শনিবার থেকে মহাষষ্ঠীর মধ্যে দিয়ে শুরু হচ্ছে দুর্গাপূজা। শেষ মুহূর্তে তুলির আঁচড় দিতে ব্যস্ত প্রতিমা শিল্পীরা।

রাজধানীর পুরান ঢাকায় ইতোমধ্যে পূজার সব প্রস্তুতি শেষ করেছে উদযাপন কমিটি। যেকোনো বিশৃঙ্খলা এড়াতে নিরাপত্তা ব্যবস্থাও জোরদার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

সারা দেশে এ বছর ৩২ হাজার ১৬৮টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা হবে। শুধু রাজধানী ঢাকায় এ বছর ২৪১টি মণ্ডপে হবে দুর্গোৎসব। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি পূজা হবে পুরান ঢাকায়। এর মধ্যে সূত্রাপুর থানায় ২৫টি, কোতোয়ালি থানার ২০টি ও বংশাল থানায় দুইটি পূজা হবে।

পুরান ঢাকার শাঁখারিবাজার, কালী মন্দির, নর্থব্রুক হল রোড, মহাকাল শিব বিগ্রহ, তাঁতীবাজার, লক্ষ্মীবাজারসহ বেশ কয়েকটি জায়গায় শতাধিক প্রতিমা শিল্পী গত একমাস নির্ঘুম সময় কাটিয়েছেন প্রতিমা তৈরিতে। এখন অপেক্ষা শুধু মণ্ডপে নিয়ে যাওয়ার। তবে কিছু জায়গায় এখনও তুলির শেষ আঁচড় চালাতে দেখা গেছে শিল্পীদের। খুঁটিয়ে দেখে নিচ্ছেন কোনো ত্রুটি রয়ে গেল কিনা।

শনিবার মহাষষ্ঠীতে হবে মায়ের চক্ষুদান। সনাতন সম্প্রদায়ের এই উৎসব ঘিরে রাজধানীর পুরান ঢাকায়ও এখন উৎসবের আমেজ। দুর্গাপূজাকে আনন্দমুখর করে তুলতে এখানকার মণ্ডপগুলো সাজানো হয়েছে নানা সাজে। করোনা মহামারির কারণে গত তিন বছর বড় পরিসরে আয়োজন না হলেও এ বছর তা কাটিয়ে দুর্গোৎসবকে ঘিরে পুরান ঢাকার মণ্ডপে মণ্ডপে চলছে সাজ সাজ রব।

শেষ মুহূর্তে তুলির আঁচড় দিতে ব্যস্ত প্রতিমা শিল্পীরা

প্রতিমা শিল্পী মিন্টু চন্দ্র পাল বলেন, ‘দেড় মাস ধরে প্রতিমা তৈরি করেছি। গতকাল কাজ শেষ হয়েছে। অন্য বছরের চেয়ে এবার অর্ডার ভালোই পেয়েছি। বছরে এমনিতে ১৫-২০টি মূর্তি বানাই। এ বছর ৩৬টি বানিয়েছি। আগে একাই সব করতাম। এবার সঙ্গে দুজন সহকারীও নিয়েছি।’

দুর্গোৎসবকে ঘিরে নিরাপত্তার জোরদার ব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। শান্তিপূর্ণভাবে এই উৎসব শেষ করতে নেয়া হয়েছে কড়া নিরাপত্তা। এরই মধ্যে মণ্ডপে মণ্ডপে বসানো হচ্ছে সিসিটিভি ক্যামেরা।

পুরান ঢাকার ১৩৬, শাঁখারীবাজারে ৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে দুর্গাপূজার আয়োজন করে আসছে প্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব। ক্লাবটির সাধারণ সম্পাদক ও কোতোয়ালি থানা পূজা কমিটির সহসভাপতি উৎপল কুমার ঘোষ শেখর নিউজবাংলাকে জানান, ‘এখানে ২০টি পূজা হবে। এবার আমাদের ভলান্টিয়ার থাকবে, সিসিটিভি ক্যামেরা লাগানো হবে। নির্দেশনা আছে ব্যাগ বা বস্তা নিয়ে কেউ মণ্ডপে যেতে পারবে না। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে আমরাও সচেষ্ট থাকব।’

নির্বিঘ্নে পূজা উদযাপনের লক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাজ করে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন কোতোয়ালি থানার উপপরিদর্শক মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, ‘আমাদের পক্ষ থেকে শতভাগ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। মোবাইল টিম এখন থেকেই কাজ করছে। আমরা পূজা উদযাপন কমিটির নেতাদের সঙ্গে মিটিং করে কিভাবে নির্বিঘ্নে আমরা পূজা শেষ করতে পারব সে ব্যাপারে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।’

দুর্গাপূজায় মণ্ডপে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে বংশাল থানার উপপরিদর্শক মো. শাহীন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমাদের সম্পূর্ণ প্রস্তুতি রয়েছে। কাউন্সিলর ও পঞ্চায়েতের মাধ্যমে পূজা সমন্বয়ক কমিটি করা আছে। তারা সার্বক্ষণিক দেখাশোনা করবে। আর ভলান্টিয়াররা তো আছেই। সিসিটিভি ক্যামেরাও রয়েছে।’

সূত্রাপুর থানার উপপরিদর্শক মুহাম্মদ মামুনুর রহমান বলেন, ‘দু ‘প্রতিটি মণ্ডপে আমাদের একজন অফিসার থাকবে। পূজা উদযাপন কমিটি ভলান্টিয়ার টিমসহ হিন্দু মুসলিম মিলে সম্প্রীতি টিম গঠন করা হয়েছে। মণ্ডপগুলোতে সিসিটিভি ক্যামেরা রাখা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘এবার প্রতিটি মণ্ডপে নির্দিষ্ট সংখ্যক আনসার সদস্যও থাকবে। একটি মণ্ডপের জন্য একজন পুলিশ অফিসার নির্ধারণ করা আছে এবং তার অধীনে পুলিশ টিম থাকবে।’

আরও পড়ুন:
পূজায় এবার যেতে হবে না ‘বাবার বাড়ি’
দেবীপক্ষের সূচনা
পুরান ঢাকায় দুর্গাপূজার প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত কারিগররা
চলছে প্রতিমায় রং তুলির আচড়
পূজার ছুটিতেও পরীক্ষা নেবে ঢাবির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A water tank fell on his head from the roof of the hotel and died

হোটেলের ছাদ থেকে মাথায় পানির ট্যাংক পড়ে মৃত্যু

হোটেলের ছাদ থেকে মাথায় পানির ট্যাংক পড়ে মৃত্যু
সৌরভ বলেন, ‘জামেলা হোটেলে বাসন ধোয়ার কাজ করছিলেন। হঠাৎ হোটেলের একতলা থেকে পানির ট্যাংক জামেলার মাথায় পড়ে। ঢাকা মেডিক্যালে ভর্তি করার পর তার মৃত্যু হয়।’

রাজধানীর কদমতলীতে হোটেলের ছাদ থেকে পানির ট্যাংক মাথায় পড়ে জামেলা আক্তার নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ওই নারীকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে দুপুর ২টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

জামেলাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা সৌরভ বলেন, ‘সাদ্দাম মার্কেটে খাজা হোটেল নামে একটি খাবার হোটেল সবেমাত্র চালু হয়েছে। ওই হোটেলে আমি ইলেকট্রিকের কাজ করছিলাম। আর জামেলা বাসন ধোয়ার কাজ করছিলেন। হঠাৎ হোটেলের একতলা থেকে পানির ট্যাংক জামেলার মাথায় পড়ে। ঢাকা মেডিক্যালে ভর্তি করার পর তার মৃত্যু হয়।’

জামেলার স্বামী কালু মিয়া বলেন, ‘আমাদের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার তাড়াইল উপজেলার হাটকাজলা গ্রামে। এখন আমি পরিবার নিয়ে কদমতলীর তুষারধারা এলাকায় থাকি। আমার স্ত্রী খাজা হোটেলে কাজ নেয়। সকাল থেকে হোটেলে কাজ করছিল সে।’

ঢাকা মেডিক্যালের পুলিশ ক‍্যাম্প ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
রাজধানীতে দেবরের বাসায় গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ
বনানীতে গাড়ির ধাক্কায় অটোরিকশাচালক নিহত
এজিবি কলোনিতে ফ্যানে ঝুলছিল স্কুলছাত্রীর দেহ
কুড়িলে ট্রেনের ধাক্কায় কনস্টেবল নিহত
অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে দুইজন

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A teenager was killed in a race between two buses in the capital

রাজধানীতে দুই বাসের প্রতিযোগিতায় কিশোর নিহত

রাজধানীতে দুই বাসের প্রতিযোগিতায় কিশোর নিহত রাজধানীর বিমানবন্দর এলাকায় বাসের ধাক্কায় নিহত কিশোরের মরদেহ রাখা হয় ঢামেক হাসপাতালের মর্গে। ফাইল ছবি
বিমানবন্দর থানার এসআই জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘ওই এলাকার সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করা হচ্ছে। বাস দুটি শনাক্তের চেষ্টা হচ্ছে।’

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে রাজধানীর বিমানবন্দর এলাকায় দুই বাসের প্রতিযোগিতার মধ্যে একটির ধাক্কায় কিশোর নিহত হয়েছে।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের নতুন ভবন সংলগ্ন রাস্তা পার হওয়ার সময় বাসের ধাক্কায় ঘটনাস্থলে নিহত হয় সে।

ওই কিশোরের নাম জানা যায়নি। তার বয়স আনুমানিক ১৪ বছর।

পুলিশের ভাষ্য, কিশোরটি বিমানবন্দর এলাকায় ভাসমান হিসেবে ছিল। তার গায়ে ডেনিমের প্যান্ট ও টি-শার্ট ছিল।

বিমানবন্দর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘ওই এলাকার সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করা হচ্ছে। বাস দুটি শনাক্তের চেষ্টা হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

রাজধানীতে দুই বাসের প্রতিযোগিতায় পথচারী নিহত হওয়ার ঘটনা নতুন নয়।

২০১৮ সালের ৩ এপ্রিল দুই বাসের প্রতিযোগিতার মধ্যে চাপা খেয়ে হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতকের ছাত্র রাজীব হোসেনের। ১৭ এপ্রিল ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যু হয় ২১ বছর বয়সী এ ছাত্রের।

সে সময় ঘটনাটি দেশজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি করে; বিভিন্ন মহল থেকে দাবি ওঠে বেপরোয়া গাড়ি চালানো বন্ধের।

আরও পড়ুন:
সাফজয়ীদের সংবর্ধনায় এসে দুর্ঘটনায় নিহত স্কুলছাত্র
ইলেকট্রিক মিস্ত্রিকে মৃত ঘোষণা, ঢামেকে লেগুনা ফেলে পালান চালক
দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে নিহত ২
বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেল শিশুর
অটোরিকশায় বাসের ধাক্কায় নিহত ৩

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Transgender killed by stabbing in Paribaug

পরীবাগে ছুরিকাঘাতে ট্রান্সজেন্ডার নিহত

পরীবাগে ছুরিকাঘাতে ট্রান্সজেন্ডার নিহত ট্রান্সজেন্ডার নীলাকে মৃত বলে জানান ঢামেক হাসপাতালের চিকিৎসক। ফাইল ছবি
২৪ বছর বয়সী নীলাকে নিয়ে ঢামেকে যাওয়া সাথী নামের ট্রান্সজেন্ডার জানান, পরীবাগ ফুটওভার ব্রিজের ওপর দুই যুবক নীলার গলায় ছুরিকাঘাত করেন। কী কারণে তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে, তা জানা যায়নি।

রাজধানীর পরীবাগ ফুটওভার ব্রিজের ওপর ছুরিকাঘাতে নীলা নামের এক ট্রান্সজেন্ডার নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১টার দিকে ছুরিকাহত হন নীলা। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে জানান।

২৪ বছর বয়সী নীলাকে নিয়ে ঢামেকে যাওয়া সাথী নামের ট্রান্সজেন্ডার জানান, পরীবাগ ফুটওভার ব্রিজের ওপর দুই যুবক নীলার গলায় ছুরিকাঘাত করেন।

তিনি আরও জানান, পরীবাগে ওই যুবকদের আগে দেখা যায়নি। কী কারণে নীলাকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে, তা জানা যায়নি।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া জানান, নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
জমি বিরোধের জেরে ছুরিকাঘাতে খুন
জেনেভা ক্যাম্পে ৩ যুবককে ছুরিকাঘাত
রাজধানীতে ছুরিকাঘাতে কিশোর নিহত
‘ঝগড়া না থামায়’ ছুরিকাঘাত, আহত বাবার মৃত্যু
বেঞ্চে বসা নিয়ে দ্বন্দ্ব, সহপাঠীকে স্কুলছাত্রের ছুরিকাঘাত

মন্তব্য

p
উপরে