× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
A young man was killed by a covered van
hear-news
player
print-icon

কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় যুবক নিহত

কাভার্ড-ভ্যানের-ধাক্কায়-যুবক-নিহত
প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে পুলিশের ইনচার্জ জানান, রণজিৎ দুপুরের খাবারের জন্য দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় মহাসড়কে চট্টগ্রামমুখী লেনে বেপরোয়া ও দ্রুতগতিতে আসা কাভার্ড ভ্যানকে একটি অজ্ঞাত গাড়ি পেছেন থেকে ধাক্কা দেয়। পরে কাভার্ড ভ্যানটি রাস্তার পাশে থাকা রণজিৎকে ধাক্কা দেয়।

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় এক যুবক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দুজন।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বালুয়াকান্দি এলাকায় সোমবার বেলা ২টার দিকে চট্টগ্রামমুখী লেনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

৩২ বছরের নিহত রণজিৎ বর্মণ বালিয়াকান্দি হিন্দুপাড়ার বাসিন্দা ছিলেন। তিনি স্থানীয় একটি বাজারের দোকানে কাজ করতেন।

ভবেরচর হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ মনিরুজ্জামান নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে তিনি জানান, রণজিৎ দুপুরের খাবারের জন্য দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় মহাসড়কে চট্টগ্রামমুখী লেনে বেপরোয়া ও দ্রুতগতিতে আসা কাভার্ড ভ্যানকে একটি অজ্ঞাত গাড়ি পেছেন থেকে ধাক্কা দেয়। পরে কাভার্ড ভ্যানটি রাস্তার পাশে থাকা রণজিৎকে ধাক্কা দেয়।

এ ঘটনায় আহত হন গাড়ির চালক ও হেলপার। গুরুতর জখম হয়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় রণজিৎয়ের। আহতদের স্থানীয় চিকিৎসা কেন্দ্রে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

পুলিশের ইনচার্জ মনিরুজ্জামান জানান, মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গাড়িটি জব্দ করা হয়েছে। রাস্তায় যান চলাচল স্বাভাবিক।

আরও পড়ুন:
বাসচাপায় মাইক্রোর ৬ যাত্রী নিহত: চালক গ্রেপ্তার
ট্রেন বাস পিকআপ প্রাইভেট কার ও অটোরিকশার দুর্ঘটনায় ৯ মৃত্যু
শ্রমিকবাহী বাসে ট্রেনের ধাক্কা: নিহত বেড়ে ৪
বাস-ট্রাক সংঘ‌র্ষে দুই চালক নিহত
দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে বাসের ধাক্কা, আহত ১৬

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Shelter project home fire

আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে আগুন!

আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে আগুন! কেন্দুয়ার বলাইশিমুল খেলার মাঠে নির্মাণাধীন আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর। ছবি: নিউজবাংলা
খেলার মাঠ দখল করে ঘর নির্মাণ করায় কেন্দুয়ায় আন্দোলন শুরু করেছে ৫০১ সদস্যের একটি গণকমিটি। তারা খেলার মাঠের বদলে আশপাশের অন্য কোনো খাসজমিতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণের দাবি জানাচ্ছেন।

নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলার বলাইশিমুল খেলার মাঠে নির্মাণাধীন আশ্রয়ণ প্রকল্পের দুটি ঘরে রহস্যজনক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৪টার দিকে ওই ঘটনা ঘটে। আগুনে ঘর দুটির কিছু টিন ও কাঠ পুড়ে গেছে।

এ ঘটনায় তিনজনকে আটকের খবর পাওয়া গেছে।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় বলাইশিমুল খেলার মাঠের খাসজমিতে ঘরগুলো নির্মাণ করা হচ্ছে।

কেন্দুয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদা বেগম ও থানার ওসি আলী হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়দের বরাতে ওসি জানান, রাত সাড়ে ৪টার দিকে বলাইশিমুল এলাকায় বিদ্যুৎ ছিল না। হালকা বৃষ্টিও হচ্ছিল। এই সুযোগে কিছু দুষ্কৃতকারী নির্মাণাধীন দুটি ঘরের পেছন দিকে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে কাছাকাছি এলাকায় অবস্থান করা কয়েক পুলিশ সদস্য জ্বলন্ত আগুন দেখে দৌড়ে এসে তা নিয়ন্ত্রণে আনেন।

ওসি বলেন, ‘এ ঘটনায় একটি মামলার প্রক্রিয়া চলছে।’

তবে কাউকে আটক করা হয়েছে কি-না সে বিষয়ে কোনো তথ্য দিতে চাননি ওসি।

এদিকে কেন্দুয়া উপজেলার ইউএনও মাহমুদা বেগম বলেন, ‘আমি তিনজনকে আটক করার খবর পেয়েছি। এ বিষয়ে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেশকাতুল কেন্দুয়া থানায় একটি মামলা করার প্রস্ততি নিচ্ছেন।’

অগ্নিকাণ্ডের বিষয়ে বলাইশিমুল মাঠ রক্ষা গণকমিটির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘আশ্রয়ণ প্রকল্পের এলাকায় ৮ জন পুলিশ সদস্য ২৪ ঘণ্টা পাহারা দেন। তাদের উপস্থিতিতে আগুন দেয়ার ঘটনাটি রহস্যজনক। আমাদের ধারণা, মাঠ রক্ষার দাবিতে আন্দোলনরতদের হয়রানি করতেই স্থানীয় প্রশাসন অথবা তৃতীয় পক্ষের কেউ আগুন লাগনোর ঘটনা ঘটিয়েছে।’

তিনি দাবি করেন, পুলিশ বিনা তদন্তে ওই এলাকাটিতে গণ গ্রেপ্তার অভিযান পরিচালনা করছে।

জানা গেছে, খেলার মাঠ দখল করে ঘর নির্মাণ করায় কেন্দুয়ায় আন্দোলন শুরু করেছে ৫০১ সদস্যের একটি গণকমিটি। তারা খেলার মাঠের বদলে আশপাশের অন্য কোনো খাসজমিতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণের দাবি জানাচ্ছেন। এ নিয়ে তারা বলাইশিমুল গ্রাম ছাড়াও ঢাকা, ময়মনসিংহসহ বিভিন্ন স্থানে একাধিক বিক্ষোভ মানববন্ধন, মিছিল ও সমাবেশ করেছেন।

গণ কমিটির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘আগুনের ঘটনার সঙ্গে আন্দোলনকারীদের কেউ সম্পৃক্ত নন। এর কোনো প্রমাণও নেই। এরপরও আমাদের লোকজনকে হয়রানি করা হচ্ছে।’

এদিকে ইউএনও মাহমুদা বেগম বলেন, ‘আশ্রয়ণ প্রকল্পের জন্য এটিই উপযুক্ত জায়গা। অল্প কিছু লোক ছাড়া সবাই ঘর নির্মাণের পক্ষে।’

আরও পড়ুন:
আশ্রয়ণের ৮ ঘরের পিলার ভাঙচুর, মামলা
উপহারের ঘরে এসি, আগে ‘গরিব ছিলেন’ ইকবাল সেপাই
আশ্রয়ণ প্রকল্প নিয়ে দুর্নীতি করলে ব্যবস্থা: আইনমন্ত্রী
টাকা নিয়ে আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাড়ি বরাদ্দের অভিযোগ
অনিয়মে ভেঙে ফেলা হলো আশ্রয়ণের ১৬০ ঘর

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A driver was killed and 15 passengers were injured in a bus truck collision

বাস ও ট্রাকের ত্রিমুখী সংঘর্ষ, চালক নিহত, আহত ১৫

বাস ও ট্রাকের ত্রিমুখী সংঘর্ষ, চালক নিহত, আহত ১৫ তালায় শনিবার রাতে বাস-ট্রাকের ত্রিমুখী সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। ছবি: নিউজবাংলা
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তালার সুভাষিনী এলাকায় রাতে যাত্রীবাহী বাস ও দুটি ট্রাকের ত্রিমুখী সংঘর্ষ হয়। ট্রাকচালক শাহিনুর নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হন অন্তত ১৫ বাসযাত্রী। ঘটনাস্থলে মারা গেছে ট্রাকে থাকা ৯টি গরু।

খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কের তালায় বাস-ট্রাকের ত্রিমুখী সংঘর্ষে শাহিনুর মোড়ল নামের একজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ১৫ যাত্রী। এ সময় ট্রাকের অন্তত ৯টি গরু মারা গেছে।

শনিবার রাতে সাতক্ষীরার তালা উপজেলার সুভাষিনী এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

৪০ বছর বয়সী ট্রাকচালক শাহিনুর মোড়লের বাড়ি তালা উপজেলার লাউতাড়া গ্রামে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তালার সুভাষিনী এলাকা দিয়ে রাতে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ইমাদ পরিবহনের একটি বাস সাতক্ষীরার দিকে যাচ্ছিল। একই সময় বিপরীত দিক থেকে একটি মালবোঝাই ট্রাক যাচ্ছিল খুলনার দিকে। এ সময় পেছন দিক থেকে আরেকটি গরুভর্তি ট্রাক ওভারটেকের চেষ্টা করলে ত্রিমুখী সংঘর্ষ হয়। গুরুতর আহত হন ট্রাকচালক শাহিনুর। খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।
এ ঘটনায় আহত হন অন্তত ১৫ যাত্রী।

স্থানীয়রা জানান, ঘটনাস্থলেই ট্রাকের ৯টি গরুর মৃত্যু হয়েছে। গরুগুলো সাতক্ষীরা, তালা ও পাটকেলঘাটা থেকে পটুয়াখালীর বাউফল নিচ্ছিলেন ব্যাপারীরা।

আহতদের উদ্ধারে এলাকাবাসীর সঙ্গে চুকনগর হাইওয়ে পুলিশ সদস্যরা যোগ দিয়েছেন। আহতদের বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।

চুকনগর হাইওয়ে পুলিশের ওসি মেহেদী হাসান জানান, দুর্ঘটনাকবলিত বাস ও ট্রাক পুলিশের হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:
ট্রাকে ধাক্কা দিয়ে বাসচালক নিহত
বিজয় সরণিতে লরিচাপায় মোটরসাইকেলচালক নিহত
ইসরায়েলের হামলায় ৬ ফিলিস্তিনি শিশুসহ নিহত ২৪
বাসচাপায় ভ্যানচালকসহ নিহত ২
ব্রিজ থেকে খালে প্রাইভেট কার, বাবা-মেয়ে নিহত

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Father son dies in 2 bike collision mother in critical condition

২ বাইকের সংঘর্ষে বাবা-ছেলের মৃত্যু, আশঙ্কাজনক মা

২ বাইকের সংঘর্ষে বাবা-ছেলের মৃত্যু, আশঙ্কাজনক মা নিহত বাবা-ছেলের স্বজনদের আহাজারি। ছবি: নিউজবাংলা
মহাদেবপুর থানার ওসি আজম উদ্দিন মাহমুদ জানান, ঘটনাস্থল থেকে মোটরসাইকেল দুটি জব্দ করে থানায় নেয়া হয়েছে। অন্য মোটরসাইকেলের চালক ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলায় দুই মোটরসাইকেল সংঘর্ষে বাবা-ছেলে নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী পূজা রানী গুরুতর আহত অবস্থায় নওগাঁ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কের বলিহার বেলিব্রিজ সংলগ্ন রানিপুকুর নামক স্থানে ওই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহতারা হলেন- জেলার মান্দা উপজেলার সতিহাটের ঢেপড়া গ্ৰামের ৩৬ বছর বয়সী রথীন্দ্রনাথ ও তার ৬ বছরের ছেলে রাধাকান্ত।

বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন মহাদেবপুর থানার ওসি আজম উদ্দিন মাহমুদ।

নিহতের ফুফাতো ভাই সত্যম কুমার জানান, উপজেলার শিকারপুরে শ্বশুরবাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে চড়ে স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন রথীন্দ্রনাথ। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা আরেকটি মোটরসাইকেলের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়।

পরে তাদেরকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতাল নিয়ে আসলে রথীন্দ্রনাথ ও রাধাকান্তকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। একই হাসপাতালে বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন রথীন্দ্রনাথের স্ত্রী পূজা রানী।

২ বাইকের সংঘর্ষে বাবা-ছেলের মৃত্যু, আশঙ্কাজনক মা
এই বাইকেই স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে চড়েছিলেন নিহত রথীন্দ্রনাথ

মহাদেবপুর থানার ওসি আজম উদ্দিন মাহমুদ জানান, ঘটনাস্থল থেকে মোটরসাইকেল দুটি জব্দ করে থানায় নেয়া হয়েছে। অন্য মোটরসাইকেলের চালক ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

ওসি বলেন, ‘পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় এখনও কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

উল্লেখ্য, এর আগে দুপুর ১টার দিকে একই উপজেলার একই মহা-সড়কে ফয়েজ উদ্দিন কোল্ডস্টরের পাশে একটি প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে গেলে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন:
সীতাকুণ্ডে বাইক দুর্ঘটনায় ২ নারী নিহত
ফেরি দিয়ে বাইক পারাপারের উদ্যোগ
বাইক বন্ধে ফিরল বাসের টিকিটের দুর্ভোগ
বাইক নিয়ে পদ্মা সেতু পার হওয়ার চেষ্টা, চালক আটক
ঈদযাত্রায় বাইকারদের নিতে হবে মুভমেন্ট পাস

মন্তব্য

বাংলাদেশ
45 kg of heroin seized from drug dealers in the guise of farmers

কৃষক বেশে মাদকের কারবার, সাড়ে ৪ কেজি হেরোইন জব্দ

কৃষক বেশে মাদকের কারবার, সাড়ে ৪ কেজি হেরোইন জব্দ চাঁপাইনবাবগঞ্জের চরকোদালকাটি থেকে মাদক কারবারের অভিযোগে জিয়ারুল ইসলাম নামের একজনকে আটক করেছে র‍্যাব। ছবি: নিউজবাংলা
র‍্যাব কর্মকর্তা রিয়াজ শাহরিয়ার বলেন, ‘জিয়ারুলকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তিনি সংঘবদ্ধ মাদক চক্রের সঙ্গে জড়িত। এই চক্রের সদস্যরা বর্ডার এলাকায় কৃষি কাজের আড়ালে মাদক কারবার করে আসছেন। তারা সীমান্তের ওপার থেকে কৃষকের ছদ্মবেশে হেরোইন চোরাচালান করেন। এর আগেও বেশ কয়েকবার তারা এ পন্থায় মাদক সরবরাহ করেছেন বলে স্বীকার করেন জিয়ারুল।’

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরের চরকোদালকাটি এলাকায় অভিযান চালিয়ে ছদ্মবেশী মাদক কারবারি চক্রের হোতা অভিযোগে জিয়ারুল ইসলাম নামের একজনকে আটক করেছে র‍্যাব। তার ঘর থেকে ৪ কেজি ৪০০ গ্রাম হোরেইন জব্দ করা হয়েছে।

শনিবার দুপুরে র‍্যাব-৫ এর সদর দপ্তরে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান অধিনায়ক রিয়াজ শাহরিয়ার।

এর আগে ভোরে চরকোদালাকাটি জেলেপাড়া থেকে আটক করা হয় ৩৫ বছর বয়সী জিয়ারুলকে।

র‍্যাব কর্মকর্তা রিয়াজ বলেন, ‘গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাব-৫ এর গোয়েন্দা দল ভোরে দুর্গম চর এলাকায় অপারেশন পরিচালনা করে। তারা জিয়ারুলের বাড়ি ঘেরাও করে তল্লাশি চালায়। তাকে ধরে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তিনি হেরোইন মজুতের কথা স্বীকার করেন। তার ঘরে বাক্সে লুকানো অবস্থায় পাওয়া যায় ৪ কেজি ৪০ গ্রাম হেরোইন। অভিযানের সময় তার ঘর থেকে একজন পালিয়ে গেছে।’

তার বিরুদ্ধে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান এই র‍্যাব কর্মকর্তা।

তিনি বলেন, ‘জিয়ারুল কৃষক বেশে দীর্ঘদিন ধরে মাদক চোরাচালান করে আসছিলেন। তিনি নিজেই ভারত থেকে হেরোইন আনেন। মাদকদ্রব্য চোরাচালান করে তিনি রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ করে আসছিলেন।

‘তার বিরুদ্ধে আগের কোন মামলা নেই। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকাতেও তার নাম নেই। জিয়ারুলের পারিবারিক অবস্থা দেখে মনে হয়েছে, তিনি বিপুল টাকার মালিক নন।’

র‍্যাব কর্মকর্তা রিয়াজ শাহরিয়ার জানান, তার পেছনে কে বা কারা আছে তদন্ত করা হবে।

তিনি বলেন, ‘জিয়ারুলকে জিজ্ঞাসাবাদে আরও জানা যায়, তিনি সংঘবদ্ধ মাদক চক্রের সঙ্গে জড়িত। এই চক্রের সদস্যরা বর্ডার এলাকায় কৃষি কাজের আড়ালে মাদক কারবার করে আসছেন। তারা সীমান্তের ওপার থেকে কৃষকের ছদ্মবেশে হেরোইন চোরাচালান করেন। এর আগেও বেশ কয়েকবার তারা এ পন্থায় মাদক সরবরাহ করেছেন বলে স্বীকার করেন জিয়ারুল।’

আরও পড়ুন:
পুলিশ সুপারের গ্রামের বাড়ি থেকে ইয়াবা উদ্ধার
মাদক ‘গবেষক’ হতে গিয়ে মাদকসহ ধরা
শসার বস্তায় আফিম
তিন হাজার কেজি গাঁজা ধ্বংস করল বিজিবি
মাদকসেবীকে পুলিশে দিলেন এলাকাবাসী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
2 people died after jumping into the canal from the 5th floor and got stuck in the mud

৫ তলা থেকে খালে লাফ, কাদায় গেঁথে ২ জনের মৃত্যু

৫ তলা থেকে খালে লাফ, কাদায় গেঁথে ২ জনের মৃত্যু হৃদয় ও মামুন সহ ৫/৬ জন পাঁচতলা ভবন থেকে চাক্তাই খালে লাফ দিয়েছিলেন।
লামাবাজার ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান বলেন, ‘ডুবুরিরা পানির নিচে কাদায় গেঁথে থাকা অবস্থায় মরদেহ দুটি পেয়েছে।’

চট্টগ্রামের বাকলিয়া থানা এলাকায় খালের কাদায় গেঁথে দুই যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার বিকেল ৪টার দিকে খাতুনগঞ্জের লোহার ব্রিজ এলাকার চাক্তাই খাল থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।

নিহত দুজন হলেন- ওই এলাকার আলী আহমেদের ছেলে হৃদয় ও শাহাবুদ্দিনের ছেলে মো. মামুন। তারা দুজনই ১৮ বছর বয়সী।

বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন লামাবাজার ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান।

নিউজবাংলাকে তিনি জানান, দুপুর ২টার দিকে জোয়ারের সময় হৃদয় ও মামুন সহ ৫/৬ জন লোহার ব্রিজ এলাকার একটি পাঁচতলা ভবন থেকে চাক্তাই খালে লাফ দেন। তখন সবাই উঠে এলেও মামুন ও হৃদয় উঠতে পারেননি।

কামরুজ্জামান বলেন, ‘আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ৪টার দিকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করি। ডুবুরিরা পানির নিচে কাদায় গেঁথে থাকা অবস্থায় মরদেহ দুটি পেয়েছে। তাই ধারণা করা হচ্ছে, পাঁচতলা থেকে লাফ দেয়ায় তারা খালের পানির নিচে কাদায় গেঁথে গিয়েছিল।’

নিহত হৃদয়ের খালা শেলী বেগম নিউজবাংলাকে বলেন, ‘হৃদয় আর মামুন আমার এক দূর সম্পর্কের আত্মীয়র দোকানে কাজ করত।’

আরও পড়ুন:
পল্টনে প্রিন্টিং প্লেটের বান্ডেল পড়ে যুবকের মৃত্যু
কবুতর ধরতে গিয়ে প্রাণ হারালেন তরুণ 
উঠানে খেলছিল ২ শিশু, মরদেহ মিলল পুকুরে
প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় হত্যা: যুবকের মৃত্যুদণ্ড
স্কুলের গেট ভেঙে পড়ে শিশুর মৃত্যু

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Noor is the best foodie in Chabi

চবিতে ‘সেরা খাদক’ নূর

চবিতে ‘সেরা খাদক’ নূর আগ্রহীদের মধ্য থেকে লটারির মাধ্যমে তিনজনকে প্রতিযোগিতার জন্য বাছাই করা হয়। ছবি: নিউজবাংলা
সেরা খাদকের ট্রফি বিজয়ের পর নূর বলেন, ‘আমি জানতাম যে আমি পারবো। আমি বংশগতভাবে ভোজনরসিক। আমার বংশ হচ্ছে খানেওয়ালা বংশ।’

এক কেজি চালের পোলাও, এক কেজি মুরগীর মাংস, সঙ্গে এক লিটার কোমল পানীয়। ২০ মিনিটের মধ্যে সবার আগে সব খেয়ে যিনি শেষ করতে পারবেন তিনিই জিতে নেবেন সেরা খাদকের ট্রফি।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শনিবার এমনই এক ব্যতিক্রম প্রতিযোগিতার আয়োজন করে ইতিহাস বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র আজহারুল ইসলাম আশিক ও তার কয়েক বন্ধু। তারা তাদের ইউটিউব চ্যানেলে প্রচারের উদ্দেশে প্রতিযোগিতাটির আয়োজন করলেও তা ক্যাম্পাসে বেশ আলোচনার খোরাক হয়।

আয়োজকরা জানান, লটারির মাধ্যমে বাছাই করা তিন প্রতিযোগীর মধ্যে সবার আগে খাবার শেষ করে শিরোপা জিতেছেন শিক্ষা ও গবেষণা ইনিস্টিটিউটের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র আব্দুল মোহাইমেন নূর। প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া বাকি দুজন হলেন- পরিসংখ্যান ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের রাহাতুল ইসলাম ও বাংলা ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের শুভ আহমেদ সাকিব।

এর আগে শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি ফেইসবুক গ্রুপে এই প্রতিযোগিতার জন্য আগ্রহীদের আহ্বান জানানো হয়। সেখান থেকে লটারির মাধ্যমে ৩ জনকে বাছাই করা হয়।

শনিবার বিকেল ৩টায় ক্যাম্পাসের বুদ্ধিজীবী চত্বরে এই প্রতিযোগীতা হওয়ার কথা থাকলে বাধ সাধে বৃষ্টি। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ প্রাঙ্গণে ৫টায় শুরু হয় সেরা খাদক প্রতিযোগীতা।

আয়োজকরা শুরুতে ২০ মিনিট সময় বেঁধে দিলেও পরে তা বাড়িয়ে ৩০ মিনিট করা হয়। প্রতিযোগিতার শুরুর ১০ মিনিট পর হার মেনে নেন পরিসংখ্যানের রাহাতুল ইসলাম। তবে শেষ পর্যন্ত খাওয়ার লড়াই চালিয়ে যান শুভ আহমেদ সাকিব ও আব্দুল মোহাইমেন নূর। প্রতিযোগিতা দেখতে এ সময় ভিড় জমান অসংখ্য শিক্ষার্থী।

হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে ৩০ মিনিটের মধ্যেই সব খাবার সবার আগে খেয়ে শেষ করে বিজয়ের শিরোপা জিতে নেন আব্দুল মোহাইমেন নূর।

চবিতে ‘সেরা খাদক’ নূর
জয়ের পর আয়োজকদের কাছ থেকে সেরা খাদকের ট্রফি নিচ্ছেন নূর

বিজয়ের পর নূর বলেন, ‘আমি জানতাম যে আমি পারবো। আমি বংশগতভাবে ভোজনরসিক। আমার বংশ হচ্ছে খানেওয়ালা বংশ। আমি প্রমাণ করেতে পেরেছি আমি খানেওয়ালা বংশের ছেলে।’

আয়োজক আজহারুল ইসলাম আশিক বলেন, ‘চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে এর আগে এমন প্রতিযোগিতা হয়নি। আমার চ্যানেলের জন্য এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছি। খাদক চেয়ে ফেইসবুকে পোস্ট করলে অনেকেই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তাদের থেকে ৩ জন কে আমরা লটারি করে নির্বাচন করেছি।’

আরও পড়ুন:
ঈদে বিদেশি খাবার
ডায়রিয়ার প্রকোপ বাইরের খোলা খাবারে: মেডিক্যাল টিম
কটকট শব্দ নেই, চাহিদা আছে
রাতের খাবারে মাংস বাড়ায় মৃত্যুঝুঁকি
দুপুরের খাবার ১৫ টাকায়

মন্তব্য

বাংলাদেশ
BNP is a party that came out of the barrel of a gun

‘বিএনপি বন্দুকের নল থেকে নির্গত দল’

‘বিএনপি বন্দুকের নল থেকে নির্গত দল’ রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি: নিউজবাংলা
তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘জিয়াউর রহমানের প্রতিষ্ঠা করা বিএনপি বন্দুকের নল থেকে নির্গত দল। তিনি বন্দুকের নল উঁচিয়ে ক্ষমতা দখল করেছিলেন, ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট বিলিয়ে বিএনপি গঠন করেন। সেই উচ্ছিষ্ট গ্রহণের জন্য মির্জা ফখরুল, খন্দকার মোশাররফ, গয়েশ্বর বাবুসহ যারা যোগদান করেছিলেন, তারাই এখন বিএনপির বড় বড় নেতা। তারা সবাই রাজনীতির কাক।’

বিএনপি বন্দুকের নল থেকে নির্গত দল বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শনিবার দুপুরে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘জিয়াউর রহমানের প্রতিষ্ঠা করা বিএনপি বন্দুকের নল থেকে নির্গত দল। তিনি বন্দুকের নল উঁচিয়ে ক্ষমতা দখল করেছিলেন, ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট বিলিয়ে বিএনপি গঠন করেন। সেই উচ্ছিষ্ট গ্রহণের জন্য মির্জা ফখরুল, খন্দকার মোশাররফ, গয়েশ্বর বাবুসহ যারা যোগদান করেছিলেন, তারাই এখন বিএনপির বড় বড় নেতা। তারা সবাই রাজনীতির কাক।’

তিনি বলেন, ‘বিএনপির পেট্রলবোমা সন্ত্রাসীরা আবার মাঠে নেমেছে। তাদের তাড়িয়ে দিতে হবে এবং প্রতিরোধ করতে হবে। বিএনপির সমাবেশে আমরা কখনো বাধা দিইনি, দেবও না। যদি পেট্রলবামা বাহিনীদের দেখি, তখন কিন্তু আমরা বসে থাকব না, প্রতিরোধ গড়ে তুলব।’

মন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির লাফালাফি হচ্ছে পুঁটি আর মলা মাছের মতো। তেলের দাম বাড়াতে ওরা একটু লাফাচ্ছে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর সারা পৃথিবীতে তেলের দাম দ্বিগুণ হয়েছে। ৬০ ডলারের তেল ১৭০ ডলারে গিয়েছে। এখন সেটি ১৩৮-১৪০ ডলার। দ্বিগুণের চেয়ে বেশি। আমাদের দেশে আমরা তেলের দাম দ্বিগুণ করি নাই। সব মিলিয়ে ৩৮-৪০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

‘আমরা দাম বাড়িয়ে পশ্চিমবাংলার সমান করেছি। বিশ্ববাজারে যদি তেলের দাম স্থিতিশীলভাবে কমে তাহলে আবার দাম সমন্বয় করা হবে। তাই বিএনপির এই পুঁটি ও মলা মাছের মতো এত লাফালাফির কোনো প্রয়োজন নেই।’

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের সবচেয়ে বড় সুবিধাভোগী জিয়াউর রহমান ও তার পরিবার উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার প্রসিডিং সংরক্ষিত আছে, সেই মামলার প্রসিডিংয়ে আসামি এবং সাক্ষীরা তাদের জবানবন্দিতে সবিস্তারে বলেছেন, কখন কোথায় কীভাবে জিয়াউর রহমানের সঙ্গে দেখা করেছিল, তিনি কীভাবে ষড়যন্ত্রে যুক্ত ছিলেন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর মেজর জেনারেল সফি উল্লাহকে সরিয়ে দিয়ে জিয়াউর রহমানকে সেনাবাহিনী প্রধান করেছিন খোন্দকার মোস্তাক।’

তিনি বলেন, ‘আমরা রাজপথে এখনো নামিনি, আগামী মাসে পরিপূর্ণভাবে নামব। রাজপথে নামলে বিএনপি পালানোর জায়গা পাবে না। বিএনপিকে অবশ্য এখনও সারা দেশে খুঁজে পাওয়া যায় না, বিএনপি আছে নয়াপল্টনের অফিস এবং প্রেস ক্লাবের সামনে। বিএনপির সমাবেশে এখন অনেক নেতাকর্মী দেখতে পাচ্ছি। তাদের কীভাবে গর্তে ঢুকাতে হয়, সেই ওষুধ আমাদের জানা আছে। প্রয়োজনে প্রয়োগ করা হবে।’

রাঙ্গুনিয়া পৌর অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবদুল মোনাফ সিকদার। যৌথভাবে সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন।

সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগ নেতা স্বজন কুমার তালুকদার, আবুল কাশেম চিশতি, জহির আহমদ চৌধুরী, মো. শাহজাহান সিকদার, নজরুল ইসলাম তালুকদার, ইদ্রিচ আজগর, বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার, আকতার হোসেন খান, জাহাঙ্গীর আলম তালুকদার, আবু তাহের, এমরুল করিম রাশেদ ও শেখ ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী।

আরও পড়ুন:
ভোলায় প্রাণহানির দায় বিএনপির: তথ্যমন্ত্রী
১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের প্রধান কুশীলব জিয়া: তথ্যমন্ত্রী
সরকারকে ধাক্কা দিতে গিয়ে বিএনপিই পড়ে গেছে: তথ্যমন্ত্রী
নির্বাচনি ট্রেন কারও জন্য থেমে থাকবে না: তথ্যমন্ত্রী
ফখরুল সাহেবরা রাজনৈতিক সংকটে: তথ্যমন্ত্রী

মন্তব্য

p
উপরে