× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Mysterious death of expatriate father and son in police custody 12
hear-news
player
print-icon

প্রবাসী বাবা-ছেলের রহস্যজনক মৃত্যু, পুলিশ হেফাজতে ১২

প্রবাসী-বাবা-ছেলের-রহস্যজনক-মৃত্যু-পুলিশ-হেফাজতে-১২
এই কক্ষ থেকেই উদ্ধার করা হয় প্রবাসী পরিবারের ৫ সদস্যকে। ছবি: নিউজবাংলা
সিআইডি সিলেটের বিশেষ পুলিশ সুপার সুজ্ঞান চাকমা নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমরা বিভিন্ন আলামত জব্দ করে এনেছি। বিশেষত ওই বাসার সব খাবার নিয়ে এসেছি। এগুলো রাসায়নিক ল্যাবে পাঠিয়ে পরীক্ষা করা হবে।’

সিলেটের ওসমানীনগরে প্রবাসী পরিবারের ৫ জনকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধারের পর দুজনের মৃত্যুর ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের ১২ স্বজনকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।

তাদের মধ্যে রয়েছেন মৃত রফিকুল ইসলামের শ্বশুর আনফর আলী, শাশুড়ি বদরুন্নেছা, শ্যালক দেলোয়ার হোসেন ও শ্যালকের স্ত্রী শোভা বেগম। যে কক্ষে ওই ৫ জনকে অসুস্থ অবস্থায় পাওয়া গেছে, তার পাশের কক্ষেই ছিলেন এই স্বজনরা।

প্রাথমিকভাবে পুলিশ ধারণা করছে, বিষক্রিয়ায় অসুস্থতা ও মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

মারা যাওয়া দুজন হলেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী রফিকুল ও তার ছোট ছেলে মাইকুল ইসলাম। অসুস্থ হয়ে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রফিকুলের স্ত্রী হুছনারা বেগম এবং দুই ছেলে-মেয়ে সাদিকুল ইসলাম ও সামিরা ইসলাম।

ওসমানীনগরের তাজপুর ইউনিয়নের মঙ্গলচন্ডী সড়কের একটি বাসা থেকে মঙ্গলবার দুপুরে অচেতন অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে পুলিশ। হাসপাতালে নেয়ার পর রফিকুল ও তার ছোট ছেলে মাইকুল মারা যান।

এই প্রবাসীরা যে বাসায় ভাড়া থাকতেন সেটির মালিক স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান অরুনোদয় পাল ঝলক। ১৮ জুন দেশে এসে প্রবাসী পরিবারটি এ বাসা ভাড়া নেয় জানিয়ে ঝলক বলেন, ‘তাদের বাড়ি উপজেলার দয়ামীরে। কী কারণে এমন ঘটনা ঘটতে পারে তা কিছুই বুঝতেছি না।’

ঝলক জানান, পরিবারটি ১৮ জুন তার বাসায় ওঠে। পরদিন গ্রাম থেকে রফিকুলের শ্বশুর, শাশুড়ি, শ্যালক ও শ্যালকের স্ত্রী এসে সেখানে ওঠেন।

ঘটনার খবর পেয়ে রফিকুলের আরেক শ্যালক সেবুল আহমদ গ্রাম থেকে সেখানে আসেন। তিনি জানান, দীর্ঘদিন ধরে পরিবারটি যুক্তরাজ্যে বসবাস করছিল। ছোট ছেলে মাইকুল ছিলেন শারীরিক প্রতিবন্ধী। তার চিকিৎসা করাতে গত ১২ জুলাই স্বপরিবারে দেশে ফেরেন রফিকুল। এক সপ্তাহ ঢাকায় ছেলের চিকিৎসা শেষে ১৮ জুলাই তাজপুরের ওই বাসার দ্বিতীয় তলায় ভাড়া নিয়ে সেখানে ওঠেন।

সরেজমিনে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দেখা গেছে, ওই বাসায় ৩টি শয়নকক্ষ, ১টি রান্নাঘর ও ১টি খাবার কক্ষ রয়েছে। অচেতন অবস্থায় ৫ জনকে একটি শয়নকক্ষেই পেয়েছে পুলিশ। সেই কক্ষের আসববাপত্র এলোমেলো পড়ে আছে।

ওসমানীনগর থানার ওসি এস এম মাইনুল ইসলাম বলেন, ‘রফিকুল পরিবার নিয়ে যে বাসায় ভাড়া ছিলেন, সেই বাসাতেই অন্য কক্ষে তার শ্বশুর, শাশুড়ি, এক শ্যালক ও শ্যালকের স্ত্রী ছিলেন। তাদের আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করছি। এ পর্যন্ত ১২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এনেছি। তবে এখন পর্যন্ত কিছু পাওয়া যায়নি।’

ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) একটি দলও।

সিআইডি সিলেটের বিশেষ পুলিশ সুপার সুজ্ঞান চাকমা চিকিৎসকের বরাতে জানান, খাবারে বিষক্রিয়া থেকে এ ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তিনি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমরা বিভিন্ন আলামত জব্দ করে এনেছি। বিশেষত ওই বাসার সব খাবার নিয়ে এসেছি। এগুলো রাসায়নিক ল্যাবে পাঠিয়ে পরীক্ষা করা হবে।’

একই বাড়িতে খাবারে বিষক্রিয়ায় ৫ জন অসুস্থ হলেও অন্যরা সম্পূর্ন সুস্থ কীভাবে ছিলেন? এ প্রশ্নের জবাবে সুজ্ঞান বলেন, ‘এখন পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছি না। আমরা সবদিক বিবেচনা করেই তদন্ত করছি।’

সেবুল জানান, সোমবার রাতের খাবার শেষে রফিকুল তার স্ত্রী সন্তানসহ একটি কক্ষে এবং তার শ্বশুর, শাশুড়ি, শ্যালক, শ্যালকের স্ত্রী ও মেয়ে সাবিলা পাশের কক্ষে ঘুমিয়ে পড়েন। মঙ্গলবার সকালে তারা ডাকাডাকি করার পরও রফিকুল বা তার স্ত্রী-সন্তানদের কেউ রুমের দরজা না খোলায় ৯৯৯ নম্বরে কল করে পুলিশ ডাকা হয়।

দুপুর ১২টার দিকে ওসমানীনগর থানা পুলিশ গিয়ে কক্ষের দরজা ভেঙে ওই ৫ জনকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ওসমানী মেডিক্যালে পাঠায়। সেখানে চিকিৎসক রফিকুল ও মাইকুলকে মৃত ঘোষণা করেন।

সেবুল নিউজবাংলাকে জানান, পুলিশ ওই কক্ষের দরজা ভাঙার পর দেখা গেছে, দুই বিছানার মধ্যে একটিতে রফিকুল, হুছনারা ও তাদের মেয়ে সাবিরা ছিলেন। আরেক বিছানায় ছিলেন মাইকুল ও সাদিকুল। তাদেরকে স্বাভাবিকভাবে শুয়ে থাকা অবস্থায় পাওয়া গেলেও বিছানাদুটি ছিল এলোমেলো।

তিনি আরও জানান, প্রতিবন্ধী ছেলেকে নিয়ে হতাশ ছিলেন রফিকুল। তার চিকিৎসায় কোনো ফল পাচ্ছিলেন না। তবে এই মৃত্যুর ঘটনাটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড বলে তার ধারণা।

হুছনারার চাচাতো ভাই গোলাম হোসেন বলেন, ‘খবর পেয়ে আমরা এসেছি। কে বা কারা কীভাবে ঘটনাটি ঘটিয়েছে তা জানি না। আমার বোনের পরিবারের সঙ্গে কারও শত্রুতা নেই।’

আরও পড়ুন:
নিখোঁজের ৫ দিন পর নারীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার
লাশ নিলেন না স্বামী-স্বজনরা, দাফন ‘বেওয়ারিশ’ হিসেবে
নিখোঁজের পরদিন খালে মিলল হাজং নারীর মরদেহ
রডের ফাঁকে ঝুলছিল স্কুলছাত্রীর মরদেহ
তালাবদ্ধ ঘরে মায়ের মরদেহ, পাশে কাঁদছিল শিশু

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Journalist arrested along with Indian soap

ভারতীয় সাবানসহ সাংবাদিক আটক

ভারতীয় সাবানসহ সাংবাদিক আটক ৪৯৫ পিস ভারতীয় সাবান সহ মানিককে আটক করা হয়। ছবি: সংগৃহীত
ধোবাউড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জালাল উদ্দিন, মানিকের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদি হয়ে মামলা করবে।

ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় ভারতীয় সাবানসহ ইকবাল কবীর মানিক নামে এক সাংবাদিককে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে উপজেলার কলসিন্দুর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়।

৪০ বছর বয়সী মানিক একই এলাকার ইউসুফ আলীর ছেলে। তিনি ময়মনসিংহ থেকে প্রকাশিত একটি আঞ্চলিক দৈনিকে ধোবাউড়া উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেন।

নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ধোবাউড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জালাল উদ্দিন।

তিনি বলেন, ‘গোপনে জানতে পারি, মানিকের বাড়িতে চোরাচালানের মাধ্যমে ভারত থেকে আনা প্রসাধন সামগ্রী রয়েছে। পরে সন্ধ্যার তার বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়। এ সময় তিনটি প্লাস্টিকের বস্তা থেকে ভারতীয় ৪৯৫ পিস সাবান উদ্ধার করা হয়েছে।’

জালাল উদ্দিন জানান, মানিকের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদি হয়ে মামলা করবে।

এ ছাড়া তার সঙ্গে জড়িত হয়ে যারা ভারতীয় পণ্য চোরাচালান করছেন তাদের চিহ্নিত করে ধরার চেষ্টা চলছে।

আরও পড়ুন:
ফরিদপুরে সাংবাদিককে মারধর: গ্রেপ্তার মেয়রের ভাই
ডিবিসির সাংবাদিকদের মারধরের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৮
ডিবিসির সাংবাদিকের ওপর হামলা
ফরিদপুরে সাংবাদিক পেটানোর ঘটনায় মামলা
সাংবাদিককে বেধড়ক পেটালেন মেয়রের ভাই

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Arrested for rape of a schoolgirl visiting the tea garden 2

চা বাগানে ঘুরতে যাওয়া স্কুলছাত্রীকে ‘ধর্ষণ’, গ্রেপ্তার ২

চা বাগানে ঘুরতে যাওয়া স্কুলছাত্রীকে ‘ধর্ষণ’, গ্রেপ্তার ২
ওসি জানান, ওই ছাত্রী শনিবার নানা বাড়িতে বেড়াতে আসে। তাকে কল দিয়ে দেখা করতে যেতে বলেন প্রেমিক হাসান আলী। দেখা করতে গেলে মেয়েটিকে নিয়ে ওই চা বাগানে যান হাসান। সেখানে তিনি ও তার বন্ধু রাজু মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন। এরপর আরও ৪-৫ জন গিয়ে তাকে ধর্ষণ করে।

পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে চা বাগানে নিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আটোয়ারীর কাজী অ্যান্ড কাজী চা বাগানে শনিবার রাতে ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটেছে বলে অভিযোগ বাদীর। মামলার দুই আসামিকে রোববার সন্ধ্যায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে উপজেলার ধামোর ইউনিয়ন থেকে।

গ্রেপ্তার আসামিরা হলেন রাজু ইসলাম ও সাইফুল ইসলাম।

আটোয়ারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সোহেল রানা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ওই ছাত্রী শনিবার নানা বাড়িতে বেড়াতে আসে। তাকে কল দিয়ে দেখা করতে যেতে বলেন প্রেমিক হাসান আলী। দেখা করতে গেলে মেয়েটিকে নিয়ে ওই চা বাগানে যান হাসান। সেখানে তিনি ও তার বন্ধু রাজু মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন।

এজাহারের বরাতে ওসি আরও জানান, এ সময় ঘটনা টের পেয়ে সবুজ নামে স্থানীয় আরেক যুবক তার কয়েকজন বন্ধুকে ডেকে নিয়ে চা বাগানে যায়। তারা মেয়েটিকে আবার ধর্ষণ করে। অচেতন অবস্থায় মেয়েটিকে ফেলে রেখে সবাই পালিয়ে যায়। মধ্যরাতে জ্ঞান ফিরলে মেয়েটি চিৎকার করতে থাকে। আশপাশের লোকজন গিয়ে তাকে নানা বাড়ি পৌঁছে দেয়।

পরিবারের লোকজন তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করার পর ধর্ষণের বিষয়টি জানাজানি হয় বলে জানান ওসি। রোববার সকালে জেলা পুলিশ সুপার ইউনুস আলী হাসপাতালে গিয়ে কিশোরীর খোঁজখবর নিয়ে দ্রত আইনগত ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন ওসিকে।

রোববার কিশোরীর বাবা ৭ জনের নামে মামলা করেন। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলে জানান ওসি।

আরও পড়ুন:
সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় গ্রেপ্তার আসামি কারাগারে
জমির বিরোধে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ
সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ৩ আসামির যাবজ্জীবন
সংঘবদ্ধ ধর্ষণের দা‌য়ে ২ জ‌নের যাবজ্জীবন
তেলেঙ্গানায় সংঘবদ্ধ ধর্ষণ: ৬ জনই প্রভাবশালীর ছেলে

মন্তব্য

বাংলাদেশ
3 traders with diesel petrol stocks fined

ডিজেল-পেট্রল মজুত, ৩ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

ডিজেল-পেট্রল মজুত, ৩ ব্যবসায়ীকে জরিমানা ফুলবাড়ীয়ায় অবৈধভাবে ডিজেল ও পেট্রল মজুতের অপরাধে তিন ব্যবসায়ীকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। ছবি: নিউজবাংলা
ফুলবাড়ীয়ার ইউএনও বলেন, পেট্রোলিয়াম জাতীয় পদার্থ রাখার লাইসেন্স নেই তিন ব্যবসায়ীর। পেট্রোলিয়াম আইন ভঙ্গের দায়ে তাদের ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়ায় অবৈধভাবে ডিজেল ও পেট্রল মজুতের অপরাধে তিন ব্যবসায়ীকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

উপজেলার কেশরগঞ্জ বাজারে অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা আদায় করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ নাহিদুল করিম।

তিনি বলেন, ‘গোপনে জানতে পারি, জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় মজুতদাররা অবৈধভাবে ডিজেল ও পেট্রল মজুদ করেছেন। অভিযান চালিয়ে এর সত্যতা পাওয়া যায়। এ সময় মো. ইসমাইল, আলী হোসেন এবং ওমর ফারুকের দোকান থেকে ১২ হাজার লিটার ডিজেল ও ৩ হাজার লিটার পেট্রল জব্দ করা হয়।’

ইউএনও বলেন, ‘পেট্রোলিয়াম জাতীয় পদার্থ রাখার লাইসেন্স নেই তিন ব্যবসায়ীর। পেট্রোলিয়াম আইন ভঙ্গের দায়ে তাদের ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
চার্জার ফ্যানের দাম বেশি রাখায় জরিমানা
নষ্ট মিষ্টি খেয়ে দুই শিশু অসুস্থ, জরিমানা ১৫ হাজার
অতিরিক্ত ভাড়া আদায়: পাঁচ চালককে ৭ হাজার টাকা জরিমানা
বাড়তি ভাড়া আদায় সাড়ে ১১ হাজার, জরিমানা ৫০০
বেশি দামে সার বিক্রি, ১ লাখ টাকা জরিমানা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Robbery gang rape in moving bus 10 more arrested

চলন্ত বাসে ডাকাতি-সংঘবদ্ধ ধর্ষণ: গ্রেপ্তার আরও ১০

চলন্ত বাসে ডাকাতি-সংঘবদ্ধ ধর্ষণ: গ্রেপ্তার আরও ১০ ডাকাতি ও সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর বাসটিকে এভাবেই ফেলে রেখে যায় অভিযুক্তরা। ফাইল ছবি
মঙ্গলবার রাতে কুষ্টিয়া থেকে ঈগল এক্সপ্রেসের একটি বাসে ডাকাতি ও এক নারী যাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। পরে টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার রক্তিপাড়া জামে মসজিদের পাশে বালুর ঢিবির কাছে বাসের গতি থামিয়ে ডাকাতরা পালিয়ে যায়।

টাঙ্গাইলে নৈশ কোচে ডাকাতি ও সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় আরও ১০ জনকে গ্রেপ্তারের কথা জানিয়েছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। তাদের মধ্যে ডাকাতির মূল পরিকল্পনাকারী রতন হোসেনও আছেন।

রোববার রাতে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানানো হবে।

টাঙ্গাইলের মহাসড়কে চলন্ত বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণের ঘটনায় পরিকল্পনাকারী রতন হোসেনসহ ডাকাত চক্রের ১০ জনকে ঢাকা, গাজীপুর ও সিরাজগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে র‍্যাব জানায়।

এর আগে আলোচিত এ মামলার তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। তারা হলেন, রাজা মিয়া, মো. আব্দুল আউয়াল ও মো. নুরনবী। গ্রেপ্তার হওয়া তিন আসামি দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।

ধর্ষণের শিকার ওই নারী আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি দেন। ওইদিন তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। ওই নারীর শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায় বলে চিকিৎসকরা জানান।

এ ঘটনায় বাসের যাত্রী কুষ্টিয়ার হেকমত আলী বাদী হয়ে মধুপুর থানায় মামলা করেন।

মঙ্গলবার রাতে কুষ্টিয়া থেকে ঈগল এক্সপ্রেসের একটি বাসে ডাকাতি ও এক নারী যাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। পরে টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার রক্তিপাড়া জামে মসজিদের পাশে বালুর ঢিবির কাছে বাসের গতি থামিয়ে ডাকাতরা পালিয়ে যায়।

আরও পড়ুন:
এবার চলন্ত বাস থেকে স্বামীকে ফেলে দিয়ে ‘ধর্ষণ’
চলন্ত বাসে তরুণীকে ‘ধর্ষণচেষ্টা’, গ্রেপ্তার ২

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Penalty for low oil in the pump

পাম্পে পাম্পে হানা, কম তেলে জরিমানা

পাম্পে পাম্পে হানা, কম তেলে জরিমানা কুমিল্লার দুটি ফিলিং স্টেশনকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। ছবি: নিউজবাংলা
জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর মধ্যেই এবার দেশের বিভিন্ন জেলায় পেট্রল পাম্পগুলোতে অভিযান চালিয়েছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এসব অভিযানে পরিমাপে তেল কম দেয়ার অভিযোগে কিশোরগঞ্জ, কুমিল্লা, চুয়াডাঙ্গা, বরিশাল, হবিগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, শরীয়তপুর, ঠাকুরগাঁও ও নোয়াখালীর ১৬টি পেট্রল পাম্পকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করার খবর দিয়েছেন প্রতিনিধিরা।

মাপে তেল কম দেয়ার অভিযোগে দেশের বিভিন্ন জেলায় পেট্রল পাম্পকে জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এর মধ্যে কিশোরগঞ্জের দুটি ফিলিং স্টেশনকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

রোববার দুপুরে জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক হৃদয় রঞ্জন বণিকের নেতৃত্বে বিভিন্ন পাম্পে অভিযান চালানো হয়।

অভিযানে কিশোরগঞ্জ সদরের পাবইকান্দি এলাকায় হিমু ফিলিং স্টেশনকে দেড় লাখ টাকা ও গোল্ডেন অয়েল কোং অ্যান্ড ফিলিং স্টেশনকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

হৃদয় রঞ্জন বণিক নিউজবাংলাকে জানান, গোপন সংবাদের ভিক্তিতে হিমু ফিলিং স্টেশনে গিয়ে দেখা যায়, তারা প্রতি পাঁচ লিটারে পেট্রল ২২০ মিলিলিটার, অকটেন ৮০ মিলিলিটার ও ডিজেল ৫০ মিলিলিটার কম দিচ্ছে।

অন্যদিকে গোল্ডেন অয়েল কোং অ্যান্ড ফিলিং স্টেশনে প্রতি পাঁচ লিটারে পেট্রল ৩৭০ মিলিলিটার, অকটেন ৩৭০ মিলিলিটার করে ক্রেতাদের কম দেয়া হচ্ছে।

এ অবস্থায় ওই দুটি পাম্পকে দেড় লাখ করে মোট ৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

এ ছাড়া জামান ফিলিং স্টেশন এবং বৈশাখী ফিলিং স্টেশনে অভিযান চালিয়ে কোনো অসংগতি পাওয়া যায়নি।

অভিযানের সময় জেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর শংকর চন্দ্র পাল এবং জেলা পুলিশের উপপরিদর্শক বদিউজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

পাম্পে পাম্পে হানা, কম তেলে জরিমানা
কিশোরগঞ্জে অভিযান পরিচালনা করেন জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক হৃদয় রঞ্জন বণিক

কুমিল্লা: প‌রিমাপে কারচুপি করায় কুমিল্লার দুই ফিলিং স্টেশনকেও দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার দুপুরে এ জরিমানা করেন জাতীয় ভোক্তা অ‌ধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কু‌মিল্লা জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আছাদুল ইসলাম।

তিনি জানান, কু‌মিল্লা বিএস‌টিআই অফিসের সহায়তায় জেলার পদুয়ার বাজার, আলেখারচর ও কালাকচুয়া বিশ্বরোড এলাকায় অন্তত ১২টি ফি‌লিং স্টেশনে অভিযান চালিয়ে তাদের সরবরাহ করা তেলের পরিমাপ করা হয়।

এ সময় পরিমাপে কারচুপি করায় সাওরাতলী পদুয়‌ার বাজার এলাকার রিভার‌ভিউ সিএন‌জি ফি‌লিং স্টেশনকে ১ লাখ টাকা এবং কালাকচুয়‌া এলাকার ইস্ট জোন ফি‌লিং স্টেশনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান আছাদুল ইসলাম।

চুয়াডাঙ্গা: তেল কম দেয়াসহ বিভিন্ন অপরাধে চুয়াডাঙ্গার দুটি ফিলিং স্টেশনকে ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার বেলা ২টার দিকে ওই অভিযান পরিচালনা করেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চুয়াডাঙ্গা জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সজল আহমেদ।

তিনি জানান, ফিলিং স্টেশনে কম তেল দিয়ে সাধারণ মানুষকে ঠকানো হচ্ছে- এমন সংবাদের ভিত্তিতে দামুড়হুদা উপজেলার লোকনাথপুরে মেসার্স কে এম ফিলিং স্টেশনে অভিযান চালানো হয়। সেখানে অভিযোগের সত্যতা মেলে এবং দেখা যায় প্রতি পাঁচ লিটার জ্বালানি তেলে ১০০ এমএল করে কম দেয়া হচ্ছিল। পরে ওই স্টেশনটিকে ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এ ছাড়া দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মেসার্স দামুড়হুদা ফিলিং স্টেশনকে আমদানিকারকের ট্যাগ ও মূল্যবিহীন মবিল বিক্রয়ের অপরাধে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

পাম্পে পাম্পে হানা, কম তেলে জরিমানা
চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার লোকনাথপুরে মেসার্স কে এম ফিলিং স্টেশনকে ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়

বরিশাল: পরিমাপে কম দেয়া ও যথাযথাভাবে সরবরাহ না করার অপরাধে বরিশাল নগরীর দুটি পেট্রল পাম্পকে দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর বরিশাল বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক মোহাম্মদ সেলিম ও জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক শাহ্ শোয়াইব এই জরিমানা করেন।

অভিযানে নির্ধারিত মাপের চেয়ে কম দেয়ায় মেসার্স ইসরাইল তালুকদার ফিলিং স্টেশনকে ৫০ হাজার ও মেসার্স কলেজ রোড ফিলিং স্টেশনকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এ ছাড়া নগরীর কাশিপুর এলাকার সুরভী পেট্রল পাম্পে সবকিছু সঠিকভাবে সরবরাহ করা হচ্ছে বলে দেখা গেছে।

পাম্পে পাম্পে হানা, কম তেলে জরিমানা
বরিশালের একটি পাম্পে অভিযান পরিচালনা করছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের বাহুবলে তেল কম দেয়ায় দুই পাম্পকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার দুপুরে জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক দেবানন্দ সিনহা এ অভিযান চালান। তিনি জানান, পেট্রল ও অকটেন পরিমাপে কম দেয়ার অভিযোগে বাহুবলের চেরাগ আলী পেট্রল পাম্পকে ২০ হাজার টাকা এবং মিরপুরে নিরাপদ পেট্রল পাম্পকে একই অভিযোগে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযানে সহযোগিতা করে শায়েস্তাগঞ্জ র‌্যাব-৯-এর একটি দল।

নওগাঁ: জেলার নিয়ামতপুরে পেট্রল, অকটেন ও ডিজেল মাপে কম দেয়ায় এক ফিলিং স্টেশনকে ৩০ হাজার জরিমানা করা হয়।

রোববার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার বাদমালঞ্চি এলাকায় অবস্থিত সোনার ফিলিং স্টেশনে অভিযান চালিয়ে ওই জরিমানা করেন ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তর নওগাঁ কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক শামীম হোসেন।

তিনি জানান, জরিমানা করা পাম্পটিতে প্রতি পাঁচ লিটারে পেট্রল ২১০ মিলি, অকটেন ও ডিজেল ১৮০ মিলি করে কম দেয়া হচ্ছিল।

পাম্পে পাম্পে হানা, কম তেলে জরিমানা
নওগাঁয় অভিযান পরিচালনা করেন ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তর জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক শামীম হোসেন

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের একটি ফিলিং স্টেশনকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

সদর উপজেলায় ফতুল্লার আলীগঞ্জ এলাকায় মেসার্স জননী ফিলিং স্টেশনকে এই অর্থদণ্ড দেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর নারায়ণগঞ্জের উপপরিচালক সেলিমুজ্জামান।

তিনি জানান, জেলার চারটি ফিলিং স্টেশনে অভিযান চালিয়ে মেসার্স জননী ফিলিং স্টেশনে অনিয়ম পাওয়া যায়। সেখানে পাঁচ লিটার ডিজেলে ২৩০ মিলি করে কম দেয়া হচ্ছিল। পরে ওই পাম্পকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এর আগে পঞ্চবটি ও ফতুল্লা এলাকার তিনটি পাম্পে অভিযান চালিয়ে কোনো অনিয়ম পাওয়া যায়নি।

শরীয়তপুর: মাপে কম দেয়ায় জেলার দুটি ফিলিং স্টেশনকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

রোববার বেলা ২টার দিকে জেলা শহরের গ্লোরি ফিলিং স্টেশন ও হাজি আব্দুল জলিল ফিলিং স্টেশনকে এ জরিমানা করা হয়।

শরীয়তপুর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. সুজন কাজী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ন্যায্যমূল্যে জ্বালানি তেলের সরবরাহ নিশ্চিত করতে জেলার বিভিন্ন ফিলিং স্টেশনে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে দেখা যায়, হাজি আব্দুল জলিল ফিলিং স্টেশনের দুটি মেশিনে প্রতি পাঁচ লিটারে ৮০ মিলি এবং গ্লোরি ফিলিং স্টেশনের তিনটি মেশিনে ৮০ থেকে ১৭০ মিলি তেল কম দেয়ায় প্রমাণ পাওয়া যায়। পরে এ দুটি পাম্পকে ৫০ হাজার করে মোট ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

পাম্পে পাম্পে হানা, কম তেলে জরিমানা
শরীয়তপুরের দুটি ফিলিং স্টেশনকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়

ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈলে লিটারে ১৩০ মিলি করে কম দেয়ায় একটি ফিলিং স্টেশনকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তর।

রোববার দুপুরে উপজেলার গোগর ইউনিয়নের আব্দুর রহিম ফিলিং স্টেশনে অভিযান চালিয়ে ওই জরিমানা করা হয়।

ঠাকুরগাঁও ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক শেখ সাদি জানান, জনস্বার্থে এই অভিযান চলমান থাকবে।

নোয়াখালী: ১০ লিটারে ৬২০ মিলি অকটেন কম দেয়ায় জেলা শহরের একটি ফিলিং স্টেশনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

রোববার দুপুরে জেলার দত্তেরহাট এলাকায় সাজ্জাদ ফিলিং স্টেশনে অভিযান চালিয়ে এই জরিমানা করা হয়।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর নোয়াখালীর সহকারী পরিচালক মো. কাউছার মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আরও পড়ুন:
লঞ্চ ভাড়া কতটা বাড়বে, সিদ্ধান্ত বিকেলে
ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে ধর্মঘটে ট্যাংকলরি মালিকরা
তেলের দামে যে সংস্কার চায় আইএমএফ
১৪ জেলায় জ্বালানি তেল পরিবহন বন্ধের ঘোষণা
কিলোমিটারে বাস ভাড়া বাড়ল ৪০ পয়সা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Fakhrul sustains BNP with statement Tofail

ফখরুল বিবৃতি দিয়ে বিএনপিকে টিকিয়ে রেখেছেন: তোফায়েল

ফখরুল বিবৃতি দিয়ে বিএনপিকে টিকিয়ে রেখেছেন: তোফায়েল ভোলার বাংলাবাজারে নিজ বাসভবনে রোববার সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তোফায়েল আহমেদ। ছবি: নিউজবাংলা
‘আওয়ামী লীগ সরকারের ১৪ বছরে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল একই গান গাইছেন, একই বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। তার বক্তব্য আমলে নেয়ার কিছু নেই। তিনি বিবৃতি দিয়েই তার দল বিএনপিকে টিকিয়ে রেখেছেন। রাজপথে তাদের কোনো আন্দোলন নেই।’

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিবৃতি দিয়েই বিএনপিকে টিকিয়ে রেখেছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

ভোলার বাংলাবাজারে নিজ বাসভবনে রোববার সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকারের ১৪ বছরে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল একই গান গাইছেন, একই বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। তার বক্তব্য আমলে নেয়ার কিছু নেই। তিনি বিবৃতি দিয়েই তার দল বিএনপিকে টিকিয়ে রেখেছেন। রাজপথে তাদের কোনো আন্দোলন নেই।

‘রাজপথ দখল করেছি আমরা, রাজপথ দখল এত সহজ না। ’৯৬ সালে নির্বাচনের আগে বিএনপি ১৫ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন করেছিল, তারা ক্ষমতায় ছিল দেড় মাস। আওয়ামী লীগের আন্দোলনে বিএনপি মাত্র দেড় মাসের মাথায় পদত্যাগ করেছে, এটাকে বলে আন্দোলন। মনে রাখতে হবে, আওয়ামী লীগ সবচেয়ে পুরোনো রাজনৈতিক দল।’

ভোলা-১ আসনের সংসদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিশ্বব্যাপী জ্বালানি সংকট চলছে। এই সংকটে আমরাও পড়েছি, তা অস্বীকার করার কিছু নেই। আমরা সব সময় চেষ্টা করি, নিত্যপণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখতে। আশা করি, সেপ্টেম্বর নাগাদ জ্বালানির এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণ মিলবে। এ ব্যাপারে সবার সহযোগিতা চাই।’

বিকেলে ঢাকা থেকে ভোলার ভেদুরিয়া ফেরিঘাটে পৌঁছলে নেতাকর্মীরা তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল মমিন টুলু ও সাধারণ সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব।

আরও পড়ুন:
একাত্তরে সামরিক আদালতের নির্দেশ ও জীবনের বাঁক বদল
বঙ্গবন্ধুকে দেখার জন্য মানুষ ব্যাকুল থাকত: তোফায়েল
বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের ফাঁসির রায় কার্যকর করাই লক্ষ্য: তোফায়েল
টিকা নিতে ও মাস্ক পরতে বাধ্য করার পক্ষে তোফায়েল
বিনা মূল্যে টিকাদান ঐতিহাসিক: তোফায়েল

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Kamal Baswara in Feni in the face of protests

প্রতিবাদের মুখে ফেনীতে কমল বাস ভাড়া

প্রতিবাদের মুখে ফেনীতে কমল বাস ভাড়া
আবদুর রহমান নামে এক যাত্রী বলেন, ‘আমার মেয়ে ঢাকায় বাংলামোটরে থাকে। আমি প্রায় সময় তাকে দেখতে যাই। আগে ৩০০ টাকা দিয়ে যাইতাম। আজ (রোববার) বলতেছে ৪০০ টাকা লাগবে। সরকার ডিজেলে প্রতি লিটারে বাড়িয়েছে ৩৪ টাকা আর বাস মালিকরা প্রতিজনে বাড়িয়েছে ১০০ টাকা। এটা ডাকাতি ছাড়া আর কিছু না।’

ফেনী থেকে ঢাকার দূরত্ব ১৫২ কিলোমিটার। সরকার নির্ধারিত ভাড়া (২ টাকা ৮০ পয়সা) অনুসারে এই পথে নন-এসি বাসে গন্তব্যে পৌঁছাতে যাত্রীকে গুনতে হবে ৩৩৪ টাকা। কিন্তু ঘোষণা দেয়া হয় আদায় করা হবে ৪০০ টাকা। এর প্রতিবাদ করতে থাকেন যাত্রীরা। একপর্যায় পুনর্নির্ধারণ করা হয় ভাড়া।

ভাড়া কমানো স্টারলাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষ বলছে, ফেনী থেকে রাজধানীর সায়েদাবাদ পর্যন্ত নন-এসি গাড়িতে যাত্রীপ্রতি তারা ৪০০ টাকা ভাড়া নির্ধারণ করেছিল শনিবার। তবে রোববার দুপুরে পুনর্নির্ধারিত ভাড়ায় এখন দিতে হবে ৩৭০ টাকা। এই পথে এসি বাসের ভাড়া ঠিক করা হয়েছিল ৪৬০ টাকা। তবে যাত্রীরা ৪৩০ টাকা দিয়ে গন্তব্যে যেতে পারবেন।

প্রতি ঘণ্টায় ফেনী থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পর্যন্ত ছেড়ে যাওয়া নন-এসি বাসে ভাড়া ঠিক করা হয়েছিল ৪৪০ টাকা। তবে পুনর্নির্ধারিত ভাড়ায় এখন দিতে হবে ৩৮০ টাকা। এই পথে এসি বাসে ৪৭০ টাকা দিয়ে গন্তব্যে যাওয়া যাবে। যদিও ভাড়া ঠিক করা হয়েছিল ৫০০ টাকা।

স্টারলাইন পরিবহনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ফেনী জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি জাফর উদ্দিন বলেন, ‘আমরা ভাড়া বেশি নয় কম রাখছি। ভাড়া ৪০০ টাকা হলেও তা সরকার নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে ২৯ টাকা কম। তার পরও যাত্রীদের কথা বিবেচনা করে আমরা ভাড়া ফের পুনর্নির্ধারণ করেছি। এখন ফেনী থেকে ঢাকা পর্যন্ত নন-এসি ভাড়া ৩৮০ টাকা।’

পুনর্নির্ধারিত এই ভাড়াও তো কিলোমিটারপ্রতি হিসাবের চেয়ে বেশি- এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘আমাদের ৪০ সিটের গাড়ি এবং পথে টোল পরিশোধ করতে হয়। এই হিসাবে ভাড়া অনেক কম।’

আবদুর রহমান নামে এক যাত্রী বলেন, ‘আমার মেয়ে ঢাকায় বাংলামোটরে থাকে। আমি প্রায় সময় তাকে দেখতে যাই। আগে ৩০০ টাকা দিয়ে যাইতাম। আজ (রোববার) বলতেছে ৪০০ টাকা লাগবে। সরকার ডিজেলে প্রতি লিটারে বাড়িয়েছে ৩৪ টাকা আর বাস মালিকরা প্রতিজনে বাড়িয়েছে ১০০ টাকা। এটা ডাকাতি ছাড়া আর কিছু না।’

রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ফেনীর মহিপালের বিভিন্ন কাউন্টার ঘুরে দেখা গেছে, অন্যদিনের তুলনায় যাত্রী কম। যারা যাচ্ছেন তাদের বেশির ভাগেরই জরুরি কাজ পড়েছে।

মোহাম্মদ আলী নামে এক যাত্রী বলেন, ‘আমার ভাই বিদেশ যাচ্ছে। তার সঙ্গে আমারও যাওয়ার কথা ছিল। তবে ভাড়া বেশি হওয়ায় আমার ভাই এখন একা একা যাচ্ছে।’

শুক্রবার মধ্যরাতে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো হয়। এরপর বাস মালিকদের সঙ্গে বসে কিলোমিটারপ্রতি নতুন ভাড়া ঠিক করা হয়।

বর্ধিত ভাড়া নিয়ে পরিবহনসংশ্লিষ্টদের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়াচ্ছেন যাত্রীরা। ঘটছে হাতাহাতি ও মারামারির ঘটনাও।

বারইয়ারহাট এক্সপ্রেসের চালক নুর মোহাম্মদ বলেন, ‘জ্বালানি তেলের দাম বাড়তি। তবুও মানুষের কাছে ভাড়া বেশি চাইলে অনেকে দেয় না। কেউ কেউ মারতে আসে। এখন নিরুপায় হয়ে পেটের দায়ে গাড়ি চালাচ্ছি।’

আরও পড়ুন:
জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদ মহাসড়কে
বাস ভাড়ায় স্বল্প দূরত্বে স্বস্তি দিল বিআরটিএ
সুদিনের অপেক্ষায় জ্বালানির সাময়িক মূল্যবৃদ্ধি মেনে নিন: বাণিজ্যমন্ত্রী
যুক্তরাষ্ট্রে তেলের দাম ৭৮ শতাংশ কমার তথ্য দিলেন ফখরুল
লঞ্চ ভাড়া কতটা বাড়বে, সিদ্ধান্ত বিকেলে

মন্তব্য

p
উপরে