× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
Narayel attacked again on charges of defamation of religion on Facebook
hear-news
player
print-icon

ফেসবুকে ‘ধর্ম অবমাননা’র অভিযোগে নড়াইলে আবারও হামলা

ফেসবুকে-ধর্ম-অবমাননার-অভিযোগে-নড়াইলে-আবারও-হামলা
নড়াইলের লোহাগড়া থানার দিঘলিয়া গ্রামে শুক্রবার বিকেলে সাম্প্রদায়িক হামলা থামানোর চেষ্টা চালায় পুলিশ। ছবি: সংগৃহীত
ফেসবুকের পোস্টে ধর্মীয় অবমাননামূলক একটি মন্তব্য করা হয়েছে অভিযোগ তুলে শুক্রবার বিকেলে নড়াইলের লোহাগড়া থানার দিঘলিয়া গ্রামে সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষার্থী ও তার বাবাকে আটক করেছে পুলিশ।

নড়াইল সদরের মির্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজে সাম্প্রদায়িক হামলার রেশ না কাটতেই লোহাগড়া উপজেলায় একই ধরনের ঘটনায় হামলার ঘটনা ঘটেছে।

ফেসবুকের পোস্টে ধর্মীয় অবমাননামূলক একটি মন্তব্য করা হয়েছে অভিযোগ তুলে শুক্রবার বিকেলে নড়াইলের লোহাগড়া থানার দিঘলিয়া গ্রামে আবারও সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষার্থী ও তার বাবাকে আটক করেছে পুলিশ।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন লোহাগড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হারান চন্দ্র পাল।

তিনি জানান, ওই শিক্ষার্থী ১৪ জুলাই ফেসবুকে একটি পোস্টের নিচে মন্তব্য করেন। পরদিন বিকেলে এলাকার মানুষজন তার বাড়ির সামনে গিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। একপর্যায়ে তারা বাড়ির একটি ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। খবর পেয়ে ওই গ্রামে তাৎক্ষণিক পুলিশের একাধিক ইউনিট এবং পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা পৌঁছান।

পুলিশের পরিদর্শক হারান চন্দ্র পাল বলেন, ‘যে বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছিল, তা নেভানো সম্ভব হয়েছে। ওই শিক্ষার্থী ও তার বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তদন্তসাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এর আগে গত ১৮ জুন ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) বহিষ্কৃত মুখপাত্র নূপুর শর্মাকে সমর্থন করে এক হিন্দু শিক্ষার্থী ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন- এমন অভিযোগ তুলে কলেজে পুলিশের সামনেই শিক্ষক স্বপন কুমার বিশ্বাসকে অপদস্থ করা হয়। গুজব ছড়িয়ে দেয়া হয় ওই শিক্ষার্থীর পক্ষ নিয়েছেন স্বপন কুমার। মির্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজে এ নিয়ে দিনভর চলে উত্তেজনা।

এরপর পুলিশ পাহারায় স্বপন কুমার বিশ্বাসকে ক্যাম্পাসের বাইরে নিয়ে যাওয়ার সময় তাকে দাঁড় করিয়ে গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেন একদল ব্যক্তি। শিক্ষক স্বপন কুমার হাত উঁচিয়ে ক্ষমা চাইতে থাকেন। পরে তাকে তুলে নেয়া হয় পুলিশের গাড়িতে।

মোবাইল ফোনে ধারণ করা এ ঘটনার ভিডিও ফুটেজ ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। দেশজুড়ে তৈরি হয় ক্ষোভ।

কলেজে হামলা ও শিক্ষক হেনস্তার ঘটনার ৯ দিন পর গত ২৭ জুন দুপুরে নড়াইল সদর থানায় মামলা করেন পুলিশের উপপরিদর্শক ও মির্জাপুর ফাঁড়ির ইনচার্জ শেখ মোরছালিন। মামলায় অজ্ঞাতপরিচয় ১৭০ থেকে ১৮০ জনকে আসামি করা হয়। মামলায় এ পর্যন্ত পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন:
শিক্ষক লাঞ্ছনা: ওসির পর প্রত্যাহার ফাঁড়ির ইনচার্জও
শিক্ষক লাঞ্ছনা: সাম্প্রদায়িক উসকানি দেখছেন দীপু মনি
অধ্যক্ষকে জুতার মালা: ৪ আসামি রিমান্ডে
অধ্যক্ষকে জুতার মালা: ওসি শওকতের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা
অধ্যক্ষ লাঞ্ছিত: প্রশাসনের তদন্ত প্রতিবেদন জমা

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Mourning procession in Chittagong to commemorate Karbala

কারবালা স্মরণে চট্টগ্রামে শোকের মিছিল

কারবালা স্মরণে চট্টগ্রামে শোকের মিছিল চট্টগ্রামে মঙ্গলবার শোক মিছিল করেছে শিয়া মতাদর্শী মুসলিম সম্প্রদায়। ছবি: নিউজবাংলা
শিয়া ইমামিয়া ইশনা আশারা সদরঘাট ইমাম বারগাহ’র ব্যানারে বন্দর নগরীর সদরঘাটে ইমামবাড়ি থেকে মিছিল বের হয়ে নিউমার্কেট মোড় প্রদক্ষিণ করে ফের ইমামবাড়িতে গিয়ে শেষ হয়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্যের উপস্থিতিতে মিছিলে খালি পায়ে শামিল হন কয়েক শ নারী-পুরুষ। 

পবিত্র আশুরা উপলক্ষে কারবালার মর্মান্তিক বিয়োগান্তক ঘটনা স্মরণে চট্টগ্রামে শোক মিছিল করেছে শিয়া মতাদর্শী মুসলিম সম্প্রদায়।

মঙ্গলবার শিয়া ইমামিয়া ইশনা আশারা সদরঘাট ইমাম বারগাহ’র ব্যানারে নগরীর সদরঘাটের ইমামবাড়ি থেকে এই মিছিল বের হয়।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্যের উপস্থিতিতে কড়া নিরাপত্তায় এই মিছিলে খালি পায়ে শামিল হন কয়েক শ নারী-পুরুষ। মিছিলে শোহাদায়ে কারবালা স্মরণে প্রতীকী কফিন বহন করেন অংশগ্রহণকারীরা।

মিছিলটি নগরীর সদরঘাট ইমামবাড়ি থেকে বের হওয়ার পর কালীবাড়ি মোড় হয়ে নিউমার্কেট মোড় প্রদক্ষিণ করে ফের ইমামবাড়িতে গিয়ে শেষ হয়। বরাবরের মতোই এবারও এ দিনে ইমামবাড়িতে নানা আচার অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রতিবছর ১০ মহরম আশুরার দিনে কারবালার ঘটনা স্মরণে নগরীর বিভিন্ন স্থানে এই মিছিলের আয়োজন করে শিয়া সম্প্রদায়। করোনার কারণে গত দুই বছর বড় মিছিল বের করা সম্ভব হয়নি। দুই বছর পর এবার সদরঘাট ইমামবাড়ি থেকে মাওলানা আমজাদ হোসেনের নেতৃত্বে বড় আকারের মিছিল বের হয়।

মাওলানা আমজাদ হোসেন বলেন, ‘বহু বছর ধরে এটা চলে আসছে আমাদের। এদিন মিছিল শেষে আমরা কারবালার শহীদদের জীবনী নিয়ে আলোচনা করি। কীভাবে তাদের অনুসরণ করা যায়, তা পরবর্তী প্রজন্মকে জানানোর চেষ্টা করি।’

মিছিলে কারবালার ঐতিহাসিক ঘটনা মানুষকে স্মরণ করিয়ে দিতে নানা স্লোগান দেন অংশগ্রহণকারীরা। এদিন নগরীর ঝাউতলা, শেরশাহ ও হালিশহর এলাকা থেকেও শোকমিছিল বের করার কথা রয়েছে।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
What is Umrah and why to perform it

ওমরাহ কী এবং কেন পালন করতে হয়

ওমরাহ কী এবং কেন পালন করতে হয়
ওমরাহ শব্দের আভিধানিক অর্থ হলো ভ্রমণ করা। জীবনে একবার ওমরাহ করা সুন্নতে মুয়াক্কাদা।

ওমরাহ শব্দের আভিধানিক অর্থ হলো ভ্রমণ করা। জীবনে একবার ওমরাহ করা সুন্নতে মুয়াক্কাদা। এটা যখনই করা হোক, তার জন্য প্রতিদান ও বরকত রয়েছে।

শরিয়তের বিধান মতে, ওমরাহর নিয়ম হলো-আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশে সুন্নত বা নফল ওমরাহ পালনের নিয়ত করে হজের মতো ‘মিকাত’ তথা ইহরাম বাঁধার নির্ধারিত জায়গা থেকে বা তার আগেই ইহরামের নিয়ত করতে হয়।

অতঃপর বাইতুল্লাহ শরিফে এসে সাত চক্কর তওয়াফ করে সাফা-মারওয়া পাহাড়দ্বয়ের সাঈ করতে হয়। সর্বশেষ হলক (মাথা মুণ্ডানো) কিংবা কসর (চুল ছোট করা)-এর মাধ্যমে ইহরাম খুলতে হয়।

-

ওমরাহ কেন পালন করতে হয়

কোরআন ও হাদিসে ওমরাহর অনেক ফজিলত বর্ণিত হয়েছে। আল্লাহতায়ালা বলেন, ‘তোমরা আল্লাহর উদ্দেশে হজ ও ওমরাহ পরিপূর্ণভাবে পালন করো।’ (সুরা বাকারা: ১৯৬)।

আবু হুরায়রা (রা.) সূত্রে বর্ণিত; তিনি বলেন, রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘এক ওমরাহ থেকে পরবর্তী ওমরাহ পর্যন্ত মাঝখানের গোনাহগুলোর জন্য কাফফারা স্বরূপ।’ (বোখারি: ১৬৮৩, মুসলিম: ৩৩৫৫)।

ওমরাহ দারিদ্র্য বিমোচন করে। আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ (রা.) সূত্রে বর্ণিত; তিনি বলেন, রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘তোমরা হজ ও ওমরাহ আদায় করো। কেননা, হজ ও ওমরাহ দারিদ্র্য বিমোচন ও গোনাহ দূর করে দেয় ঠিক সেভাবে, যেভাবে হাঁপরের আগুন লোহা, সোনা ও রুপা থেকে ময়লা দূর করে দেয়।’ (তিরমিজি: ৮১০)।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Umrah pilgrims will get 3 months visa

৩ মাসের ভিসা পাবেন ওমরাহযাত্রীরা

৩ মাসের ভিসা পাবেন ওমরাহযাত্রীরা ওমরাহযাত্রীদের জন্য তিন মাসের ভিসা দিচ্ছে সৌদি আরব। ফাইল ছবি
এ বছর প্রথমবারের মতো তিন মাসের জন্য ভিসা পাবেন ওমরাহযাত্রীরা। ৯০ দিনের ভিসা দিয়ে সৌদি আরবের সব অঞ্চল ঘুরে দেখতে পারবেন ওমরাহ করতে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে যাওয়া লোকজন।

সৌদি আরবে শুরু হয়েছে ওমরাহর মৌসুম। শনিবার দেশটিতে যাবেন বিদেশি ওমরাহযাত্রীদের প্রথম দল।

ওমরাহ উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট কোম্পানি ও প্রতিষ্ঠানগুলো এরই মধ্যে ভিসা দেয়া শুরু করেছে।

সৌদির হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়ের নতুন নিয়ম অনুযায়ী, এ বছর প্রথমবারের মতো তিন মাসের জন্য ভিসা পাবেন ওমরাহযাত্রীরা।

সৌদি গেজেটের প্রতিবেদনে জানানো হয়, ৯০ দিনের ভিসা দিয়ে সৌদি আরবের সব অঞ্চল ঘুরে দেখতে পারবেন ওমরাহ করতে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে যাওয়া লোকজন।

দেশটির হজ ও ওমরাহ কার্যক্রম সংক্রান্ত জাতীয় কমিটির উপপ্রধান হানি আল-আমিরি বলেন, চলতি মৌসুমে ওমরাহযাত্রীদের বরণে প্রস্তুত স্থানীয় কোম্পানি ও প্রতিষ্ঠানগুলো।

তিনি জানান, ওমরাহযাত্রীদের নানা ধরনের সহায়তা দেবে এ কাজে সক্ষম পাঁচ শতাধিক কোম্পানি ও প্রতিষ্ঠান।

আল-আমিরি আরও জানান, কমিটির কাজ হলো হজ ও ওমরাহ খাত এবং সরকারি সংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয় করা। একই সঙ্গে সম্ভাব্য সমস্যার বিষয়ে বিভিন্ন সমাধান ও সুপারিশ করবে কমিটি।

আরও পড়ুন:
সৌদি দূতাবাসের রাস্তার নাম ‘খাশোগজি ওয়ে’
সৌদিতে ৩ মাস প্রখর রোদ থেকে রেহাই নির্মাণশ্রমিকদের
ওমরাহর ভিসা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে
সৌদিতে সিনেমা বানানোর খরচের অর্ধেক দেবে সরকার
সৌদিতে বিশ্ব সংস্কৃতি ও শিল্পকলা কমপ্লেক্সের নির্মাণ শুরু

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Holy Ashura 9 August

পবিত্র আশুরা ৯ আগস্ট

পবিত্র আশুরা ৯ আগস্ট ছবি: সংগৃহীত
সভায় জানানো হয়েছে, বাংলাদেশের আকাশে শুক্রবার কোথাও পবিত্র মহররম মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে শনিবার পবিত্র জিলহজ মাস ৩০ দিন পূর্ণ হবে। আগামী রোববার থেকে পবিত্র মহররম মাস গণনা শুরু হবে।

আগামী ৯ আগস্ট পবিত্র আশুরা পালিত হবে। জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের সভাকক্ষে শুক্রবার সন্ধ্যায় এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আউয়াল হাওলাদার।

সভায় জানানো হয়েছে, বাংলাদেশের আকাশে শুক্রবার কোথাও পবিত্র মহররম মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে শনিবার পবিত্র জিলহজ মাস ৩০ দিন পূর্ণ হবে। আগামী রোববার থেকে পবিত্র মহররম মাস গণনা শুরু হবে।

সভায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ফারুক আহম্মেদ, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা শাহেনুর মিয়া, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব মো. ছাইফুল ইসলাম, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠানের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মুহাম্মদ শহিদুল ইসলাম, ঢাকা জেলার এডিসি (সাধারণ) মো. ইলিয়াস মেহেদী, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক মুহা. আছাদুর রহমান, বাংলাদেশ টেলিভিশনের উপপরিচালক মো. সিরাজুল হক ভুঞা, বাংলাদেশ ওয়াকফ প্রশাসনের সহকারী প্রশাসক মো. শাহরিয়ার হক, বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, চকবাজার শাহী জামে মসজিদের খতিব মুফতি শেখ নাঈম রেজওয়ান, লালবাগ শাহী জামে মসজিদের খতিব মুফতি মুহাম্মদ নিয়ামতুল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
রাজধানীতে সীমিত পরিসরে তাজিয়া মিছিল
স্বাস্থ্যবিধি মেনে পালন হচ্ছে আশুরা
আশুরার ছুটি পুনর্নির্ধারণ
আশুরায় তাজিয়া মিছিল-শোভাযাত্রা বন্ধ
পবিত্র আশুরা ২০ আগস্ট

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Hindus in this country are inferior

‘এ দেশে থাকা হিন্দুরা নিকৃষ্ট’

‘এ দেশে থাকা হিন্দুরা নিকৃষ্ট’
ব‌রিশাল জেলা আওয়ামী লী‌গের সাংগঠ‌নিক সম্পাদক সাহাব আহ‌ম্মেদ বলেন, ‘আপনারা একটা জি‌নিস জা‌নেন, আমা‌দের দুর্ভাগ্য হ‌চ্ছে বাংলা‌দে‌শে স্বাধীনতার আগে একসময় অনেক হিন্দু ছি‌ল অর্থাৎ সনাতন ধর্মাবলম্বী ছি‌ল। এখা‌নে যারা উচ্চ সনাতন ধর্মাবলম্বী ছি‌লেন তারা সব কিন্তু প‌শ্চিমব‌ঙ্গে চ‌লে গি‌য়েছেন, আর যত নিকৃষ্টগুলা এখা‌নে থে‌কে গে‌ছেন।’

‘উচ্চ হিন্দুরা প‌শ্চিমব‌ঙ্গে চ‌লে গি‌য়ে‌ছে, নিকৃষ্ট হিন্দু র‌য়ে গি‌য়ে‌ছে এখা‌নে।’ ব‌রিশাল জেলা আওয়ামী লী‌গের সাংগঠ‌নিক সম্পাদক সাহাব আহ‌ম্মেদের এই বক্তব‌্য সামাজিক যোগা‌যোগমাধ‌্যমে ভাইরাল হ‌য়ে‌ছে। এ নি‌য়ে জেলাবাসীর মধ্যে মিশ্র প্রতি‌ক্রিয়া সৃ‌ষ্টি হ‌য়ে‌ছে।

২৩ জুলাই ব‌রিশা‌লের মে‌হে‌ন্দিগ‌ঞ্জ সদ‌রে সংসদ সদস‌্য পঙ্কজ দেবনা‌থের বিরু‌দ্ধে বি‌ক্ষোভ সমা‌বে‌শে বক্তব‌্য দেন সাহাব আহ‌ম্মেদ। সেই বক্তব্যের ৩০ সে‌কেন্ড সোমবার ভাইরাল হয় সামা‌জিক যোগা‌যোগমাধ‌্যমে। ত‌বে নিউজবাংলার কা‌ছে সাহাব আহ‌ম্মে‌দের ওই বক্তব্যের ২ মি‌নিট ৫১ সেকেন্ডের একটি ভি‌ডিও ক্লিপ এসেছে।

এতে সাহাব আহ‌ম্মেদকে বলতে শোনা যায় (বাক্যরীতি অপরিবর্তিত), ‘আমি সাহাব আহ‌ম্মেদ। আমার বাবা ম‌হিউ‌দ্দিন আহ‌ম্মেদ আপনা‌দের এম‌পি ছি‌লেন। একজন এম‌পির বাংলা অর্থ হচ্ছে জাতীয় সংসদ সদস‌্য। জাতীয় সংস‌দের কাজ হ‌চ্ছে দে‌শের সং‌বিধান প্রণয়ন করা, দে‌শের আইন প্রণয়ন করা। একজন সংসদ সদস‌্য (পঙ্কজ দেবনাথ) যখন আরেকজন জনপ্রতি‌নি‌ধি‌কে ব‌লেন, তা‌কে রামদা দি‌য়ে কোপা‌বেন, ওই মুহূ‌র্তে তার সংসদ সদস‌্য প‌দে থাকার কো‌নো অধিকার নাই।’

তিনি বলেন, ‘আপনারা একটা জি‌নিস জা‌নেন, আমা‌দের দুর্ভাগ‌্য হ‌চ্ছে বাংলা‌দে‌শে স্বাধীনতার আগে একসময় অনেক হিন্দু ছি‌ল অর্থাৎ সনাতন ধর্মাবলম্বী ছি‌ল। এখা‌নে যারা উচ্চ সনাতন ধর্মাবলম্বী ছি‌লেন তারা সব কিন্তু প‌শ্চিমব‌ঙ্গে চ‌লে গি‌য়েছে, আর যত নিকৃষ্টগুলা এখা‌নে থে‌কে গে‌ছেন।

‘দে‌খেন বাংলা‌দেশ থে‌কে প‌শ্চিমব‌ঙ্গে যাইয়া জ্যোতি বসু মুখ‌্যমন্ত্রী হয়ে‌ছেন। সবাই ওনা‌কে চে‌নে, সবাই ওনা‌কে সম্মান ক‌রে। জ্যোতি বসুর মতো লোকরা বাংলা‌দেশ থে‌কে চ‌লে গি‌য়ে‌ছে, আর পঙ্কজ দেবনা‌থের মতো কীটগুলা বাংলা‌দে‌শে থে‌কে গে‌ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই মে‌হে‌ন্দিগঞ্জটা শা‌ন্তির জনপদ, সেই মেহে‌ন্দিগ‌ঞ্জকে এরা বারবার রক্তাক্ত কর‌ছে। তার (পঙ্কজ দেবনাথ) র‌ক্তের নেশা হ‌য়ে গে‌ছে। সে হত‌্যা কর‌তে‌ছে, লোকজন‌কে আহত কর‌তে‌ছে। আবার হুম‌কি দি‌চ্ছে, কামাল খা‌নের মতো জন‌প্রিয় জনপ্রতি‌নি‌ধি‌কে রামদা দি‌য়ে কোপা‌বে। আস‌লে ভাই এই নিকৃষ্ট পঙ্কজ দেবনা‌থের হাত থে‌কে বাঁচ‌তে হ‌লে আমা‌দের সবাইকে ঐক‌্যবদ্ধ থাক‌তে হ‌বে।’

ব‌রিশাল জেলা আওয়ামী লী‌গের সা‌বেক সভাপ‌তি ও সা‌বেক সংসদ সদস‌্য ম‌হিউদ্দিন আহ‌ম্মে‌দের ছে‌লে ও আওয়ামী লী‌গের আন্তর্জা‌তিক বিষয়ক সম্পাদক শাম্মী আহ‌ম্মে‌দের ভাই সাহাব আহ‌ম্মেদ।

ছড়িয়ে পড়া বক্তব্যের বিষয়ে জানতে তাকে একাধিকবার ফোন দেয়া হলেও তিনি ধরেননি। পরিচয় জানিয়ে এসএমএস করা হলেও সাড়া দেননি তিনি।

তবে এ বিষ‌য়ে ব‌রিশাল-৪ (‌হিজলা ও মে‌হে‌ন্দিগঞ্জ) আস‌নের সংসদ সদস‌্য পঙ্কজ দেবনাথ ব‌লেন, ‘সাহাব আহ‌ম্মেদ যে সাম্প্রদা‌য়িক একটা লোক সেটা তো সবাই জা‌নে। আপনারা তো শুধু ওনার বক্তব‌্য শুনে‌ছেন। কিন্তু ওনার আরও অপকর্ম র‌য়ে‌ছে। সাহাব আহ‌ম্মেদ ব‌রিশাল নগরী‌র আলেকান্দা এলাকায় নির্যাতন ক‌রে অতুল মুখার্জীর মামাবা‌ড়ির জ‌মি দখল ক‌রে‌ছেন। নির্যাত‌ন সই‌তে না পে‌রে ওই হিন্দু প‌রিবার ভার‌তে চ‌লে যায়। এর পা‌শেই এক খ্রিষ্টান নারীকে হত‌্যা ক‌রে তার জ‌মিও দখল ক‌রেন সাহাব আহ‌ম্মেদ।’

‌বাংলা‌দেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক‌্য প‌রিষ‌দের কেন্দ্রীয় ক‌মি‌টির সহসাংগঠ‌নিক সম্পাদক ও ব‌রিশাল মহানগর পূজা উদযাপন প‌রিষ‌দের সা‌বেক সাধারণ সম্পাদক সুর‌ঞ্জিৎ দত্ত লিটু ব‌লেন, ‘একজন আওয়ামী লীগ নেতার কাছ থে‌কে আমরা এই ধর‌নের বক্তব‌্য কো‌নোভা‌বেই আশা ক‌রি না। আমরা ম‌নে কর‌ছি, সনাতন ধর্মাবলম্বীরা বাংলা‌দেশ ত‌্যাগ করার পেছ‌নে সাহাব আহ‌ম্মে‌দের ইন্ধন র‌য়ে‌ছে। উনি সাম্প্রদা‌য়িকতা‌কে যে লালন ক‌রেন তা ওনার বক্ত‌ব্যে প্রমাণ হ‌য়ে‌ছে।’

সংসদ সদস‌্য পঙ্কজ দেবনা‌থের সঙ্গে মে‌হে‌ন্দিগঞ্জ থানা পুলি‌শের প‌রিদর্শক তৌ‌হিদুজ্জামা‌নের কল রেকর্ড ফাঁস হয় সামা‌জিক যোগা‌যোগমাধ‌্যমে। ওই কল রেক‌র্ডে মে‌হে‌ন্দিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র কামাল উ‌দ্দিন খান‌কে কোপা‌নোর কথা ব‌লেন এমপি পঙ্কজ। এর প্রতিবা‌দে ২৩ জুলাই মে‌হে‌ন্দিগ‌ঞ্জে পঙ্কজ দেবনা‌থের বিরু‌দ্ধে প্রতিবাদ সমা‌বেশ ও বি‌ক্ষোভ ক‌রেন ব‌রিশাল জেলা আওয়ামী লী‌গের সভাপ‌তি সংসদ সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর অনুসারীরা। সেই সমা‌বে‌শে বক্তব‌্য দেন জেলা আওয়ামী লী‌গের সাংগঠ‌নিক সম্পাদক সাহাব আহ‌ম্মেদ।

আরও পড়ুন:
আমরা নিঃশ্বাস নিতে পারব তো?
প্রধান বিচারপতির উদ্বেগ ও সাম্প্রদায়িকতা বিনাশে করণীয়
ছোট সংখ্যার ভয়
ইকবাল যেন না হন জজ মিয়া
আলোকিত হোক মানবাত্মা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The cost of the Ministry of Religion to increase harmony is 25 crores

সম্প্রীতি বাড়াতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের খরচ ২৫ কোটি

সম্প্রীতি বাড়াতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের খরচ ২৫ কোটি
ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতা বৃদ্ধি করতে মিডিয়া পরামর্শক হিসেবে বাংলাঢোল লিমিটেড ও আইসিটি পরামর্শক হিসেবে রিভ সিস্টেম লিমিটেডকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

দেশের সাধারণ মানুষের মধ্যে ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতা বাড়াতে দুটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ২৫ কোটি টাকার চুক্তি সই করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। সচিবালয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ে বৃহস্পতিবার এ চুক্তি সই হয়।

চুক্তির আওতায় ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতা বৃদ্ধি করতে মিডিয়া পরামর্শক হিসেবে বাংলাঢোল লিমিটেড ও আইসিটি পরামর্শক হিসেবে রিভ সিস্টেম লিমিটেডকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

চুক্তির বিষয়ে জানতে চাইলে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান সাংবাদিকদের বলেন, ‘এটার আওতায় মিডিয়া ও আইসিটি- দুটি গ্রুপ কাজ করবে। তাদের কর্মসূচিতে অনেক কিছু থাকতে পারে। এখানে লিফলেট, পোস্টার, বিজ্ঞাপন থাকবে। নিউজ লেটার, টিভি চ্যানেলের মাধ্যমে বিভিন্ন ড্রামা থাকতে পারে। জনসচেতনতা বাড়াতে আমরা টকশো, ডকুমেন্টারিসহ নানা কিছু নিয়ে এগিয়ে যেতে চাচ্ছি।

‘অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের চেতনা রক্ষায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বদ্ধপরিকর। যে ধরনের ঘটনা মাঝেমধ্যে ঘটে, এগুলোর ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স। কোনো অবস্থাতেই কোথাও যেন এ ধরনের ঘটনা না ঘটে সে জন্য সম্প্রীতি বাড়াতে ধর্ম মন্ত্রণালয় কর্মসূচিগুলো হাতে নিয়েছে।’

নড়াইলে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের ওপর হামলার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এখানে কারা দায়ী, এটা তো আপনারা মিডিয়ায় দেখেছেন। তাদেরকে বিচারের আওতায় আনা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে যে বা যারা অন্যায় করেছে তাদের শাস্তি হবে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী নির্বাচন ব্যাহত করার জন্যই মাঝে মাঝে কিছু দুষ্ট প্রকৃতির লোক এ ধরনের ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করছে। প্রধানমন্ত্রী নেতৃত্বে, তার নির্দেশে তাৎক্ষণিকভাবে সেগুলো মিনিমাইজ করার চেষ্টা করছি।’

আরও পড়ুন:
মসজিদে নামাজ পড়া নিয়ে নতুন নির্দেশনা নেই
ধর্ম নিয়ে ফেসবুকে মতপ্রকাশে সতর্ক থাকার পরামর্শ প্রতিমন্ত্রীর
কল্পনাও করিনি মন্ত্রী হব: ফরিদুল
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী হচ্ছেন ফরিদুল

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Whoever disturbs communal harmony will be brought under the law

‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী যে-ই হোক, আইনের আওতায় আনা হবে’

‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী যে-ই হোক, আইনের আওতায় আনা হবে’ নড়াইলের লোহাগড়ার দিঘলিয়া গ্রামের সাহাপাড়ায় পুড়িয়ে দেয়া হিন্দু বাড়ি। ছবি: নিউজবাংলা
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টে স্বাধীনতাবিরোধী চক্র ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এটি কঠোর অপরাধ। সম্প্রীতি বিনষ্টে যে-ই অপরাধী হোক, তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।’

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী যে-ই হোক, তাকে আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক।

মঙ্গলবার বেলা ৩টার দিকে নড়াইলের লোহাগড়ার দিঘলিয়ায় দুষ্কৃতকারীদের হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির, বাড়িঘর পরিদর্শনের সময় তিনি এ কথা বলেন।

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টে স্বাধীনতাবিরোধী চক্র ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এটি কঠোর অপরাধ। সম্প্রীতি বিনষ্টে যে-ই অপরাধী হোক, তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।’

তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতাবিরোধী চক্র দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে অগ্নিসংযোগ, হামলাসহ নানা অরাজকতা সৃষ্টি করে। তারা দেশকে সব সময় অস্থিতিশীল পরিবেশে রাখতে চায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বন্ধন অটুট রাখার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।’

প্রতিমন্ত্রী ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও মন্দিরের পুরোহিতদের উদ্দেশে বলেন, ‘আপনাদের ভয় পাবার কোনো কারণ নেই। ১৫ জুলাইয়ের ঘটনায় আপনারা যারা ক্ষতির শিকার হয়েছেন, সবাইকে পুনর্বাসন করা হবে। যেসব মন্দির ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, সেসব পুনর্নির্মাণ করা হবে।’

সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মোর্ত্তজার ভূমিকার প্রশংসা করে তিনি বলেন, ‘আপনাদের এমপি আমাদের গর্ব। মাশরাফি দৃঢ়তার সঙ্গে উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবিলা করেছেন। তিনি আপনাদের পাশে এসে সাহস জুগিয়েছেন ।’

প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য, সংসদ সদস্য বীরেন শিকদার, অসীম কুমার উকিল, মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা, পংকজ নাথ, পঞ্চানন বিশ্বাস, নড়াইলের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায়, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলু।

বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে প্রতিমন্ত্রী, সংসদ সদস্যরা লোহাগড়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ধর্মীয় সম্প্রীতি রক্ষায় মতবিনিময় সভা হয়।

মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে একটি ফেসবুক পোস্টে এক কলেজছাত্রের ফেসবুক আইডি থেকে বৃহস্পতিবার কটূক্তির কমেন্ট করার অভিযোগ ওঠে।

এর জেরে শুক্রবার বিকেলে হামলা চালানো হয় দিঘলিয়া গ্রামের সাহাপাড়ায়।

হামলাকারীরা গোবিন্দ সাহা ও দিলীপ সাহার বাড়ি, অভিযুক্ত শিক্ষার্থীর বাবার দোকানসহ ১০টির বেশি বাড়ি-দোকান ভাঙচুর করে। একটি বাড়িতে আগুনও দেয়া হয়।

বিক্ষোভকারীরা ইট-পাটকেল নিক্ষেপের পাশাপাশি সাহাপাড়া মন্দিরের প্রতিমা, চেয়ার ও সাউন্ড বক্স ভাঙচুর করে।

হামলার ঘটনায় লোহাগড়া থানার এসআই মাকরুফ রহমান রোববার রাতে মামলা করেন। তাতে ২০০ থেকে ২৫০ অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিকে আসামি করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মিজানুর বলেন, ‘ঘটনার দিন জনরোষ সৃষ্টি ও হামলার ঘটনায় ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রিমান্ডে তাদের কাছ থেকে আরও তথ্য পাওয়া যাবে। তখন বোঝা যাবে তাদের মূল উদ্দেশ্য কী ছিল।’

এ নিয়ে হামলার ঘটনায় দুটি মামলা হয়েছে। ১৬ জুলাই রাতে দিঘলিয়া গ্রামের সালাহউদ্দীন কচি অভিযুক্ত ছাত্রের বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে মামলা করেন। এ মামলায় তাকেও গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন:
শিক্ষক নিগ্রহ পরিকল্পিত, জড়িতদের রেহাই নেই: দীপু মনি
নড়াইলে লাঞ্ছিত অধ্যক্ষ স্বপন এখনও আত্মগোপনে
নড়াইলে সাম্প্রদায়িক হামলায় মামলা, আসামি ২৫০
রাষ্ট্রীয় মদদে সাম্প্রদায়িক হামলার অভিযোগ ৮ ছাত্র সংগঠনের
হামলার শিকার পরিবারের পাশে মাশরাফি

মন্তব্য

p
উপরে