× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
An old man was killed when a bus hit a microbus on the Padma Bridge
hear-news
player
print-icon

পদ্মা সেতু এলাকায় মাইক্রোবাসে বাসের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত

পদ্মা-সেতু-এলাকায়-মাইক্রোবাসে-বাসের-ধাক্কায়-বৃদ্ধ-নিহত
মাইক্রোর যাত্রী আবু তাহের শিকদার নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমরা ভৈরব থেকে পরিবার-পরিজন ও এলাকার বন্ধুবান্ধবদের নিয়ে পদ্মা সেতু দেখতে এসেছিলাম। সেতু দেখা শেষে বাড়ি ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। এমন সময় পেছন থেকে আমাদের মাইক্রোটিকে সজোরে ধাক্কা দেয় একটি বাস। এতে সেটি উল্টে আমাদের মুরুব্বি আব্দুল হক মোল্লা মারা যান।’

পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তের টোলপ্লাজার আগে মাইক্রোবাসে বাসের ধাক্কায় একজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ১৩ জন।

টোলপ্লাজার আগে নাওডোবা ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় শনিবার বেলা ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

৬০ বছর বয়সী নিহত আব্দুল মোল্লার বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার আগানগর থানার টাগাইয়া গ্ৰামে।

পদ্মা দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, পদ্মা সেতুর সংযোগ সড়কের নাওডোবা ব্রিজ এলাকায় রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি মাইক্রোকে সজোরে ধাক্কা দেয় কুয়াকাটা থেকে ঢাকাগামী অন্তরা ক্লাসিক পরিবহনের একটি বাস। এতে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান আব্দুল হক মোল্লা। এ ছাড়া মাইক্রোর ১৩ যাত্রী গুরুতর আহত হন। তাদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। মরদেহ উদ্ধার করেছে ফরিদপুর হাইওয়ে পুলিশের একটি দল।

মাইক্রোর যাত্রী আবু তাহের শিকদার নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমরা ভৈরব থেকে পরিবার-পরিজন ও এলাকার বন্ধুবান্ধবদের নিয়ে পদ্মা সেতু দেখতে এসেছিলাম। সেতু দেখা শেষে বাড়ি ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। এমন সময় পেছন থেকে আমাদের মাইক্রোবাসটিকে সজোরে ধাক্কা দেয় একটি বাস। এতে সেটি উল্টে আমাদের মুরুব্বি আব্দুল হক মোল্লা মারা যান।’

এর আগে পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই যুবক নিহত হন। তাদের একজন বাইক চালাচ্ছিলেন, অন্যজন আরোহী।

নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া।

তিনি জানান, পদ্মা সেতুতে বাইক দুর্ঘটনায় আহত দুইজনকে রোববার রাতে (সেুততে যান চলাচল শুরুর দিন) হাসপাতালে আনা হয়। চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতরা হলেন আলমগীর হোসেন ও মো. ফজলু।

এই দুর্ঘটনার ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার কিছুক্ষণ পরই পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল নিষিদ্ধ করে সরকার।

আরও পড়ুন:
পদ্মা সেতু দিয়ে বাসের ভাড়া বাড়ল দুই কারণে
পদ্মা সেতুতে বাইক দুর্ঘটনার রহস্য উন্মোচন
পদ্মা সেতুর নাট রেঞ্জ দিয়ে খুলে মাহদির ভিডিও: পুলিশ
পদ্মা সেতুর কাছে গাড়ির ধাক্কায় বৃদ্ধা নিহত
পদ্মা সেতু নিয়ে ইউনূস সেন্টারের ব্যাখ্যা সত্যের অপলাপ: তথ্যমন্ত্রী

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
UP member arrested in rape case

ধর্ষণ মামলায় ইউপি সদস্য গ্রেপ্তার

ধর্ষণ মামলায় ইউপি সদস্য গ্রেপ্তার
সাটুরিয়া থানার ওসি আশরাফুল আলম বলেন, ‘মামলার পরপরই দেলোয়ার হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।’

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণের মামলায় দেলোয়ার হোসেন নামের এক ইউপি সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

উপজেলার বরাইদ ইউনিয়নের সাভার এলাকা থেকে বুধবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

৩৫ বছর বয়সী দেলোয়ার হোসেনের বাড়ি একই এলাকায়। তিনি বরাই ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য।

নিউজবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল আলম।

এজাহারে বলা হয়, গত মঙ্গলবার রাতে ওই গৃহবধূকে ভিজিএফ (ভালনারেবল গ্রুপ ফিডিং) কার্ড দেয়ার কথা বলে ফোন করে তার বাড়িতে ডাকেন দেলোয়ার হোসেন। কিন্তু ওই নারী পরদিন সকালে যাওয়ার কথা বলে ফোনের লাইন কেটে দেন।

ওই রাতেই তিনি কার্ডের অজুহাতে গৃহবধূর বাড়ি এসে কেউ না থাকার সুযোগে তাকে ধর্ষণ করেন। এ সময় নারীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে দেলোয়ার হোসেনকে আটক করেন। পরে মীমাংসার কথা বলে স্থানীয় মাতব্বর তাকে ছাড়িয়ে নিয়ে আসেন।

এ ঘটনায় ওই নারী বুধবার রাতে সাটুরিয়া থানায় ইউপি সদস্যের নামে ধর্ষণ এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন।

ওসি আশরাফুল আলম বলেন, ‘মামলার পরপরই দেলোয়ার হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
চা বাগানে ঘুরতে যাওয়া স্কুলছাত্রীকে ‘ধর্ষণ’, গ্রেপ্তার ২
মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় গ্রেপ্তার ২
চলন্ত বাসে ধর্ষণ: পাঁচ আসামির স্বীকারোক্তি
স্কুলছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে কারাগারে বৃদ্ধ
ডাকাতদের হাতে বাসযাত্রী ‘ধর্ষণ’, আলামত যাচ্ছে ঢাকায়

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Motorcyclist killed after losing control and hitting the railing

নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রেলিংয়ে ধাক্কা, মোটরসাইকেলচালক নিহত

নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রেলিংয়ে ধাক্কা, মোটরসাইকেলচালক নিহত
হাঁসাড়া হাইওয়ে থানার ওসি আফজাল হোসেন বলেন, ‘খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধারের পর ফাঁড়িতে নিয়ে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরির কাজ করছে। অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।’

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যুবক নিহত হয়েছেন।

বঙ্গবন্ধু মহাসড়কের কেওয়াটখালী এলাকায় বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ২৮ বছরের মো. শামীম লৌহজং উপজেলার যশলদিয়া পুনর্বাসনকেন্দ্রের সিরাজ হাওলাদারের ছেলে।

নিউজবাংলাকে তথ্য নিশ্চিত করেন হাঁসাড়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আফজাল হোসেন।

তিনি জানান, সকালে কেওয়াটখালী এলাকায় মাওয়ামুখী রাস্তায় তার মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়ক বিভাজনের রেলিংয়ে সজোরে ধাক্কা লেগে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় শামীমের।

ওসি আফজাল হোসেন বলেন, ‘খবর পেয়ে হাঁসাড়া হাইওয়ে থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধারের পর ফাঁড়িতে নিয়ে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরির কাজ করছে। অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।’

আরও পড়ুন:
ইসরায়েলের হামলায় ৬ ফিলিস্তিনি শিশুসহ নিহত ২৪
বাসচাপায় ভ্যানচালকসহ নিহত ২
ব্রিজ থেকে খালে প্রাইভেট কার, বাবা-মেয়ে নিহত
পুলিশ কর্মকর্তার প্রাণ নেয়া বাসের চালক কারাগারে
জমি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Farewell to jackals by beating drums

ঢাকঢোল পিটিয়ে কাঁঠালের বিদায়

ঢাকঢোল পিটিয়ে কাঁঠালের বিদায় উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে বিদায় জানানো হয় কাঁঠাল। ছবি: নিউজবাংলা
যোশর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাসেল আহমদ বলেন, ‘শৈশব থেকে আমরা কাঁঠাল বিক্রির এ উৎসব দেখে আসছি। এ বছর কামারটেক বাজারে উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে ব্যাপারীরা কাঁঠাল বিক্রি করেছেন।’

প্রতি বছরের মতো এবারও মৌসুম শেষে নরসিংদীর শিবপুরের কামারটেক গ্রামে ঢাকঢোল পিটিয়ে জাতীয় ফল কাঁঠালকে বিদায় জানানো হয়।

এ উপলক্ষে স্থানীয় ব্যাপারী ও কৃষকরা বুধবার সকালে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে কাঁঠাল বিক্রির মহড়া দেন। মহাসড়কের পাশে সারা দিনব্যাপী চলে কাঁঠাল বিক্রির এই মহোৎসব।

কামারটেক বাজারের ফল ব্যবসায়ীরা জানান, কাঁঠালকে বিদায় জানানোর এ প্রথা দীর্ঘদিন ধরেই জেলার বিভিন্ন জায়গায় পালন করা হয়। এ বছর কামারটেক বাজারে ব্যাপারী সোহেল আহমেদ মৌসুমের শেষ কাঁঠাল বিক্রি করেন ঢাকঢোল বাজিয়ে, বাজার মাতিয়ে।

এ বিষয়ে সোহেল আহমেদ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ লটের কাঁঠাল বিক্রি আমাদের ঐতিহ্য। মৌসুমের শুরু থেকে শেষে জেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে কৃষকদের কাছ থেকে কাঁঠাল কিনে মজুত রেখে বিক্রি করি। আগামী মৌসুমে আরও ভালো কাঁঠাল প্রাপ্তির আশায় শেষটা জমজমাটভাবে করা হয়।’

ঢাকঢোল পিটিয়ে কাঁঠালের বিদায়

তিনি জানান, এই দিনে সকাল থেকে শহরের ব্যান্ডদল এনে ভ্যান গাড়িতে কাঁঠাল রেখে মহাসড়কে মহড়া দেয়া হয়। এ সময় আনন্দে মেতে ওঠেন স্থানীয়রা। পরে কামারটেক বাজারে শেষবারের মতো কাঁঠাল বিক্রি করা হয়। এ বছর শেষ হাটে ১৩৫০ টাকা দিয়ে সবচেয়ে বড় কাঁঠালটি বিক্রি করা হয়েছে। ছোট কাঁঠালের সর্বনিম্ন মূল্য ছিল ৫০০ টাকা।

স্থানীয় কয়েকজন জানান, প্রতি বছর কাঁঠালকে বিদায় জানানোর এই অনুষ্ঠানের সুনির্দিষ্ট কোনো দিনক্ষণ নেই। কৃষক ও কাঁঠালের ব্যাপারীরা সময় ও স্থান নির্ধারণের পর এ আয়োজন করে থাকে।

যোশর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাসেল আহমদ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘শৈশব থেকে আমরা কাঁঠাল বিক্রির এ উৎসব দেখে আসছি। এ বছর কামারটেক বাজারে উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে ব্যাপারীরা কাঁঠাল বিক্রি করেছেন।’

তিনি আরও জানান, মৌসুমে ব্যাপারীরা অনেক কাঁঠাল কেনেন স্থানীয় কৃষক ও বাগান মালিকদের কাছে থেকে। ১০ লাখ টাকার কাঁঠাল কিনলে তাদের লাভ হয় অনেক। লাভের পর মৌসুম শেষে যে কাঁঠাল থাকে সেগুলো নিয়ে উৎসবে মেতে ওঠেন তারা। এ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মৌসুমের কাঁঠাল বিক্রি বন্ধ করেন তারা।

আরও পড়ুন:
৫ হাজারের সুদ ৩ লাখ ৮ হাজার, দিতে না পারায় সন্তান বিক্রি
মন্ত্রণালয়ের ট্রাকে গরু ৫৫০, খাসি ৮০০ টাকা
জীবনযুদ্ধে আসিয়ার পার্টনার আসমা
অনলাইনে নারীদের নিলামের চেষ্টা; আটক ৩
কাঁঠালের দই আইসক্রিমে বিনিয়োগ করে দ্বিগুণ লাভ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The youth who insulted the Prime Minister on Facebook Live was arrested

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে গালি দেয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে গালি দেয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার গ্রেপ্তার আবু তালেবকে আজ আদালতে তোলা হবে। ছবি: সংগৃহীত
গাংনী থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘পুলিশ আবু তালেবের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও রাষ্ট্রদ্রোহী মামলা করেছে। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে তোলা হবে।’

মেহেরপুরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের লাইভে এসে প্রধানমন্ত্রীকে গালি দেয়ার অভিযোগে ব্যাক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

উপজেলার সহোগলপুর গ্রাম থেকে বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার আবু তালেব গাংনী উপজেলার গাড়াবাড়িয়া গ্রামের বাজারপাড়ার বাসিন্দা।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গাংনী থানায় তার নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও রাষ্ট্রদ্রোহী মামলা করা হয়েছে।

নিউজবাংলাকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেলা গোয়েন্দা শাখার ওসি সাইফুল ইসলাম।

ওসি সাইফুল জানান, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির কারণে দেশেও তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় গত ৬ আগস্ট আবু তালেব ফেসবুক লাইভে এসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গালিগালাজ করেন। পরে বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর নজরে আসে।

এ ঘটনার পর থেকেই গা ঢাকা দেন আবু তালেব। পরে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় পুলিশ অবস্থান জানতে পেরে তাকে গ্রেপ্তার করে।

গাংনী থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক নিউজবাংলাকে বলেন, ‘পুলিশ বাদী হয়ে আবু তালেবের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও রাষ্ট্রদ্রোহী মামলা করেছে। আজ (বৃহস্পতিবার) তাকে আদালতে তোলা হবে।’

আরও পড়ুন:
পুলিশের ওপর হামলার মামলা: কারাগারে বিএনপি নেতা
টিপু-প্রীতি হত্যা: গ্রেপ্তার আরও ২ জন রিমান্ডে
ডিবির ভুয়া পরিচয়ে ডাকাতি, গ্রেপ্তার ৬
টিপু-প্রীতি হত্যা: গ্রেপ্তার আরও ৪ জন রিমান্ডে
যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The childs leg is cut by a knife for not getting dowry

‘যৌতুক না পেয়ে’ সন্তানের পায়ে খুন্তির ছ্যাঁকা

‘যৌতুক না পেয়ে’ সন্তানের পায়ে খুন্তির ছ্যাঁকা যৌতুক না পেয়ে সন্তানের পায়ে খুন্তির ছ্যাঁকা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে যুবকের বিরুদ্ধে। ছবি: নিউজবাংলা
সাভার মডেল থানার ওসি কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, ‘ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত পলাতক রয়েছেন। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে। এ বিষয়ে দ্রুত আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

ঢাকার সাভারে যৌতুক চেয়ে না পেয়ে নির্যাতনের পর স্ত্রীকে তাড়িয়ে দুই সন্তানের পায়ে খুন্তির ছ্যাঁকা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে যুবকের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় ওই নারী তার স্বামীকে মাদকাসক্ত দাবি করে সাভার মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মাইনুল ইসলাম বুধবার রাতে অভিযোগের বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেন।

এর আগে বিকেলে পৌর এলাকার সবুজবাগ কোবা মসজিদের পাশের একটি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ৯ বছরের শিশু আরোবি ও তার ভাই ৫ বছর বয়সী আলিফ বর্তমানে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।

অভিযুক্ত নুর আলমের বাড়ি জয়পুরহাটের আক্কেলপুর থানার পূর্ব মাতাপুর গ্রামে।

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, ১১ বছর আগে নুর আলম ও জয়মেনা খাতুনের বিয়ে হয়। তাদের ঘরে এক মেয়ে ও ছেলের জন্ম হয়। মাদকাসক্ত নুর আলম কাজকর্ম না করে যৌতুকের জন্য দীর্ঘদিন ধরে স্ত্রীকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছিলেন।

গত ২৮ জুলাই যৌতুকের টাকার জন্য ছেলে ও মেয়েকে বাসায় আটকে রেখে জয়মেনা খাতুনকে বের করে দেন নুর আলম। জয়মেনা বাবার বাড়িতে আশ্রয় নেন।

পরে খেলতে যাওয়ায় মেয়ে আরোবি ও ছেলে আলিফকে মারধর করেন নুর আলম। এ সময় গরম খুন্তি চেপে ধরে মেয়ের ডান পায়ের তালু ও ছেলের বাঁ পায়ের তালু ঝলসে দেন। খবর পেয়ে জয়মেনা বেগম সন্তানদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

ওসি কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, ‘ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত পলাতক রয়েছেন। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে। এ বিষয়ে দ্রুত আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

আরও পড়ুন:
যুবলীগ নেতার রাইফেলটি থানায় জমা
যুবলীগ নেতার ওপর ‘হামলা’, অস্ত্র হাতে অভিযুক্তের ছবি ভাইরাল 
টোল কম দেয়ায় নসিমনচালককে ‘মারধর’
১১৬ শতাংশ জমি দখলের চেষ্টায় মহিলা লীগ নেত্রী
যৌতুকের মামলা: সাক্ষ্য দেয়ায় ছেলেকে পেটাল বাবা-চাচা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
1 person forced into prostitution by kidnapping arrested

অপহরণ করে যৌনবৃত্তিতে বাধ্য করার অভিযোগে আটক

অপহরণ করে যৌনবৃত্তিতে বাধ্য করার অভিযোগে আটক আটক সালাম হোসেন। ছবি: নিউজবাংলা
‘অপহরণের পর প্রথমে নওগাঁ শহরের পার-নওগাঁ এলাকার একটি বাসায় সালামসহ তার অপর দুই সহযোগী চয়ন উদ্দীন ও আলমগীর হোসেন ওই কিশোরীকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। পরে নওগাঁ শহরের কাঁঠালতলী এলাকায় একটি বাসা ভাড়া নিয়ে আটকে রেখে তাকে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করেন তারা।’

নওগাঁর পত্নীতলায় কিশোরীকে অপহরণ করে ধর্ষণ এবং যৌনবৃত্তিতে বাধ্য করার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

শহরের কাঁঠালতলী এলাকায় বুধবার রাত ৯টার দিকে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে র‍্যাব-৫। এ সময় তার বাড়ি থেকে অপহৃত কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়।

র‍্যাব-৫-এর জয়পুরহাট ক্যাম্পের অধিনায়ক সহকারী পুলিশ সুপার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আটক ৪০ বছরের সালাম হোসেনের বাড়ি সদর উপজেলার বর্ষাইল গ্রামে।

র‍্যাব কর্মকর্তা বলেন, ‘গত ১১ জুলাই পত্নীতলার কাদাইল বাজার এলাকা থেকে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই কিশোরীকে একটি সিএনজিতে করে তুলে নিয়ে যান সালাম হোসেন ও তার সহযোগীরা। পরে অপহরণকারীরা ফোন করে মেয়েটির বাবার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ আদায় করেন।

‘অপহরণের পর প্রথমে নওগাঁ শহরের পার-নওগাঁ এলাকার একটি বাসায় সালামসহ তার অপর দুই সহযোগী চয়ন উদ্দীন ও আলমগীর হোসেন ওই কিশোরীকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। পরে নওগাঁ শহরের কাঁঠালতলী এলাকায় একটি বাসা ভাড়া নিয়ে আটকে রেখে তাকে যৌনবৃত্তিতে বাধ্য করেন তারা।’

অপহরণের পর পত্নীতলা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন মেয়েটির বাবা। পাশাপাশি র‍্যাবের কাছে অভিযোগ করেন। তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় অপহৃত কিশোরীর অবস্থান নিশ্চিত হওয়ার পর অভিযান চালিয়ে তাকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় আটক করা হয় সালাম হোসেনকে।

সালামকে পত্নীতলা থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে জানিয়ে র‍্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘সালামের সহযোগীদেরও আটকের চেষ্টা চলছে।’

পত্নীতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসুল আলম শাহ্ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এ ঘটনায় ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করবেন।’

আরও পড়ুন:
নেত্রকোণা থেকে অপহৃত ছাত্রী গাজীপুরে উদ্ধার, গ্রেপ্তার ১
বস্তাবন্দি জীবিত কিশোরী উদ্ধার: ধর্ষণ-অপহরণের মামলা
নদীর পাড়ে বস্তাবন্দি জীবিত কিশোরী উদ্ধার
চট্টগ্রামে অপহৃত শিশু মাধবদী থেকে উদ্ধার
অপহৃত মাদ্রাসাছাত্রী ১ মাস পর উদ্ধার

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A farmer was electrocuted while irrigating

সেচ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে প্রাণ গেল কৃষকের

সেচ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে প্রাণ গেল কৃষকের প্রতীকী ছবি
কেন্দুয়া থানার উপপরিদর্শক মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘মনির হোসেনের মরদেহ ময়নাতদন্ত ছাড়াই পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।’

নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় ক্ষেতে পানি দিতে গিয়ে সেচ মোটরের বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার বলাইশিমুল ইউনিয়নের নোয়াদিয়া দরগাবাড়ি গ্রামের পাশের হাওরে বুধবার বিকেল ৫টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

কৃষক মনির হোসেনের বাড়ি একই গ্রামে।

নিউজবাংলাকে তথ্য নিশ্চিত করেছেন কেন্দুয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ আলী।

স্থানীয়দের বরাতে এসআই মোহাম্মদ আলী জানান, কৃষক মনির হোসেন বিকেলে জমিতে সেচ দেয়ার জন মোটর চালাতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হন। পরে স্বজনরা তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ‘মনির হোসেনের মরদেহ ময়নাতদন্ত ছাড়াই পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
বিদ্যুৎস্পৃষ্টে প্রাণ গেল গৃহবধূর 
মোটরের সুইচ দিতে গিয়ে প্রাণ গেল যুবকের
বিদ্যুৎস্পৃষ্টে প্রাণ গেল ২ কৃষকের
মধ্যরাতে এসি সারানোর সময় তরুণের মৃত্যু
সচিবালয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে টেকনিশিয়ানের মৃত্যু

মন্তব্য

p
উপরে