× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ পৌর নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট

বাংলাদেশ
Prime Minister Aplut touches the World Cup trophy
hear-news
player
print-icon

বিশ্বকাপ ট্রফি ছুঁয়ে আপ্লুত প্রধানমন্ত্রী

বিশ্বকাপ-ট্রফি-ছুঁয়ে-আপ্লুত-প্রধানমন্ত্রী
ফুটবল হাতে নিয়ে উচ্ছ্বসিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিএমও
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রাজনীতির বাইরে ছিলেন একজন ফুটবলপ্রেমী। ১৯৪০ থেকে ১৯৪৮ সাল পর্যন্ত তিনি ঢাকা ওয়ান্ডারার্সের জার্সি গায়ে ফুটবল খেলেছেন। স্ট্রাইকার পজিশনে তার খেলা ছিল সে সময়ে প্রশংসিত। ১৯৪৩ সালে বগুড়ার একটি ফুটবল টুর্নামেন্টে বঙ্গবন্ধুর অধিনায়কত্বে শিরোপা জিতেছিল ওয়ান্ডারার্স। তার সন্তানরাও ফুটবলে অনুরক্ত। শেখ কামালের হাত ধরেই ফুটবলে আবাহনী ক্রীড়া চক্র শক্ত অবস্থানে পৌঁছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বকাপ ট্রফি ছুঁয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। স্মৃতিচারণ করেন নিজ পরিবার সদস্যদের ফুটবল প্রেমের। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একজন ফুটবলার ছিলেন, সে কথাও গর্ব নিয়ে বলেন তিনি।

জাতীয় সংসদ ভবনের লবিতে বুধবার রাতে ফিফা বিশ্বকাপ ট্রফি দেখেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, যুব ও ক্রীড়া সচিব মেজবাহ উদ্দিন, ট্রফির সঙ্গে ঢাকা সফররত ১৯৯৮ সালে ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী দলের মিডফিল্ডার ক্রিস্টিয়ান কারেম্বু, বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন, বাফুফে সাধারণ সম্পাদক মো. আবু নাইম সোহাগসহ ফিফা, কোকা-কোলা এবং বাফুফের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবল ২০২২-এর ট্রফির বাংলাদেশ ভ্রমণের মধ্য দিয়ে দেশের ক্রীড়াপ্রেমীরা, বিশেষ করে তরুণ প্রজন্ম উৎসাহিত হবে বলে অনুষ্ঠানে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
তিনি বলেন, ‘ফিফা ট্রফির বাংলাদেশ ভ্রমণের ফলে দেশের ক্রীড়াপ্রেমীরা, বিশেষ করে তরুণ প্রজন্ম উৎসাহিত হবে।’
প্রতিনিধি দলের সঙ্গে কুশল বিনিময় শেষে প্রধানমন্ত্রী তার পরিবারের সদস্যদের খেলাধুলায়, বিশেষ করে ফুটবলের সঙ্গে সম্পৃক্ততার ওপর স্মৃতিচারণ করেন।
নিজের পিতামহ, পিতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, ভাই, সন্তান এমনকি নাতি-নাতনিরাও অত্যন্ত ক্রীড়ামোদী এবং ক্রীড়ানুরাগী বলেও উল্লেখ করেন তিনি।
বাংলাদেশে বিশ্বকাপ ট্রফির আগমনে ফিফা, কোকা-কোলা এবং বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) কর্তৃপক্ষকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান শেখ হাসিনা।
তিনি বলেন, ‘ফুটবল বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা। আমরা আমাদের ছেলেমেয়েদের খেলাধুলায় সম্পৃক্ত করতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছি।’

বিশ্বকাপ ট্রফি ছুঁয়ে আপ্লুত প্রধানমন্ত্রী
বিশ্বকাপ ট্রফি ছুঁয়ে দেখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিএমও

রাতের এ আয়োজনে জাতীয় সংসদ ভবনের লবিতে রাখা ট্রফি ছুঁয়ে দেখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ফুটবল হাতে নিয়ে উপস্থিত অতিথিদের সঙ্গে আলাপ করেন ও উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। বাংলাদেশের ফুটবলে স্বর্ণালি দিনের স্বপ্নের কথা বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী তার পরিবারের ফুটবলপ্রীতি ও দেশবাসীর ফুটবল সমর্থন নিয়ে কথা বলেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রাজনীতির বাইরে ছিলেন একজন ফুটবলপ্রেমী। ১৯৪০ থেকে ১৯৪৮ সাল পর্যন্ত তিনি ঢাকা ওয়ান্ডারার্সের জার্সি গায়ে ফুটবল খেলেছেন। স্ট্রাইকার পজিশনে তার খেলা ছিল সে সময়ে প্রশংসিত। ১৯৪৩ সালে বগুড়ার একটি ফুটবল টুর্নামেন্টে বঙ্গবন্ধুর অধিনায়কত্বে শিরোপা জিতেছিল ওয়ান্ডারার্স। তার সন্তানরাও ফুটবলে অনুরক্ত। শেখ কামালের হাত ধরেই ফুটবলে আবাহনী ক্রীড়া চক্র শক্ত অবস্থানে পৌঁছে।

বিশ্বকাপ ট্রফি ছুঁয়ে আপ্লুত প্রধানমন্ত্রী
বাংলাদেশে বিশ্বকাপ ট্রফির আগমনে ফিফা, কোকা-কোলা এবং বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিএমও

বিশ্ব ভ্রমণের অংশ হিসেবে বুধবার ঢাকায় পৌঁছেছে কাতারে অনুষ্ঠেয় ফুটবল বিশ্বকাপের ট্রফি। কোকা-কোলার আয়োজনে বেলা ১১টা ২০ মিনিটে একটি চার্টার্ড বিমানে পাকিস্তান থেকে ঢাকায় পৌঁছায় ফিফা ট্রফি।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ট্রফি গ্রহণের পর তা প্রদর্শনের জন্য ঢাকায় রাখা হবে ৩৬ ঘণ্টা। ট্রফির সঙ্গে আছে ফিফার সাত সদস্যের প্রতিনিধি দল। কড়া নিরাপত্তাব্যবস্থায় এটি রাখা হবে র‌্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে।

তার আগে ট্রফি দেখানো হয় প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতিকে।

বিশ্বকাপের ঢাকা উপস্থিতি নিয়ে বেশ কিছু অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এ জন্য আয়োজন করা নৈশভোজে নিমন্ত্রণ করা হয়েছে পোশাকশিল্পে কর্মরত বেশ কয়েকজন শ্রমিককে। অনেক দলের জার্সি বাংলাদেশ থেকে তৈরি হয় বলে তাদের জন্য এ সম্মান।

র‌্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে বৃহস্পতিবার সকালে আয়োজন করা হয়েছে বাংলাদেশের ফুটবলের স্বর্ণযুগের ২০টি ছবির বিশেষ প্রদর্শনী। সেখানে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত থাকবেন।

কোকা-কোলার আয়োজনে বৃহস্পতিবার বেলা ৩টায় রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে আয়োজন করা হয়েছে জমকালো কনসার্টের। সেখানেই নির্দিষ্ট কিছু মানুষ সেই ট্রফির সঙ্গে সেলফি তোলার সুযোগ পাবেন। স্টেডিয়ামে ঢোকার সুযোগ পাবেন অনলাইনে নিবন্ধনকৃত ২৫ হাজার দর্শক।

কাতার বিশ্বকাপ সামনে রেখে ১২ মে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই থেকে শুরু হয় বিশ্বকাপের ট্রফির বিশ্বভ্রমণ। ৫৬টি দেশে যাবে সোনায় মোড়ানো এ ট্রফি।

২০১৩ সালেও বাংলাদেশে বিশ্বকাপ ট্রফি এসেছিল, তবে সেটি ছিল রেপ্লিকা। এবার আসছে ২০২২ সালের কাতার বিশ্বকাপজয়ী দলের হাতে উঠতে যাওয়া আসল ট্রফি।

বাংলাদেশের পর বিশ্বকাপ ট্রফিকে নেয়া হবে পূর্ব তিমুরে। বাংলাদেশ থেকে বৃহস্পতিবার রাত ১২টা ১০ মিনিটে উড়াল দেবে ট্রফিবাহী উড়োজাহাজ।

আরও পড়ুন:
ঢাকায় ফিফা বিশ্বকাপ ট্রফি
ফুটবল বিশ্বকাপের আসল ট্রফি আসছে ঢাকায়
দেশবাসীকে বিশ্বকাপ স্বপ্ন উৎসর্গ করল ইউক্রেন

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Despite playing with an injury Nadal reached the Wimbledon semis

চোট নিয়েও উইম্বলডনের সেমিতে নাদাল

চোট নিয়েও উইম্বলডনের সেমিতে নাদাল স্পেনের রাফায়েল নাদাল কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচ চলাকালীন সময়ে মার্কিন খেলোয়াড় টেলর ফ্রিটজের বিপক্ষে জয় উদযানের একটি মুহূর্ত। ছবি: এএফপি
উইম্বলডনে আমেরিকান তারকা ফ্রিটজের টানা ২০ ম্যাচের জয়রথ থামিয়ে ৩-৬, ৭-৫, ৩-৬, ৭-৫, ৭-৬ (১০-৪) গেমে জিতে সেমিফাইনালে নিজের নাম লিখান নাদাল।

৪ ঘন্টা ২০ মিনিট লড়াই করে শেষ পর্যন্ত খেলা গড়ায় টাইব্রেকে। যুক্তরাষ্ট্রের তরুণ প্রতিদ্বন্দ্বী টেলর ফ্রিটজের সঙ্গে সেমিতে উঠার লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত জয় পান স্প্যানিশ তারকা রাফায়েল নাদাল।

টেলর ফ্রিটজকে উইম্বলডনের কোয়ার্টার ফাইনালে আরেকবার নিজের জাত চেনালেন নাদাল। দুবার এগিয়ে গিয়েও নাদালকে হারাতে পারেনি ২৪ বছর বয়সী এ তরুণ। টেলর ফ্রিটজের দারুণ গতিময় সার্ভ আর তারুণ্যের সঙ্গে লড়াই করে ৩৬ বছর বয়সী এই তারকা চোটকে সঙ্গে নিয়ে জায়গা করে নিয়েছেন শেষ চারে।

মঙ্গলবার উইম্বলডনে আমেরিকান তারকা ফ্রিটজের টানা ২০ ম্যাচের জয়রথ থামিয়ে ৩-৬, ৭-৫, ৩-৬, ৭-৫, ৭-৬ (১০-৪) গেমে জিতে সেমিফাইনালে নিজের নাম লিখান নাদাল।

সেমিতে উঠার লড়াইয়ে প্রথম সেটেই ৩-৬ ব্যবধানে হেরে বসেন নাদাল। দ্বিতীয় সেটের মাঝপথে চোটের কারণে কোর্ট ছেড়ে মেডিক্যাল টাইম-আউট নিতে হয় নাদালকে। সে সময় নাদালের বাবা ও চিকিৎসকরা খেলা চালিয়ে না যাওয়ার অনুরোধ করেন।

সায় না দিয়ে তিনি ফিরে আসেন কোর্টে। দ্বিতীয় সেটে ৭-৫ জিতে ম্যাচে সমতা টানেন স্প্যানিশ তারকা নাদাল। তৃতীয় সেটে অবশ্য ৩-৬ তে সহজেই জিতে নেন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্রিটজ।

চতুর্থ সেটে আবারও নাদাল পিছিয়ে যান, তবে সেটের শেষ মুহূর্তে ঘুরে দাঁড়িয়ে জয় ছিনিয়ে নেন নাদাল। এ সেটে ৭-৫ ব্যবধানে জয় নিয়ে ম্যাচ বাঁচিয়ে রাখেন তিনি।

অবশেষে নাদালকে টাইব্রেকারে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করতে হয় ফ্রিটজের বিপক্ষে। এক পর্যায়ে ৫-০ তে এগিয়ে যান নাদাল। ফ্রিটজ এরপর ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করলেও পেরে ওঠেননি। ভেঙে যায় তার প্রথমবার গ্র্যান্ড স্ল্যামের সেমিফাইনালে ওঠার স্বপ্ন। উইম্বডনের ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে নাদাল খেলবেন অস্ট্রেলিয়ার নিক কিরগিওসের বিপক্ষে।

২০১৯ সালের পর প্রথম উইম্বলডনে খেলছেন নাদাল। পায়ের চোট নিয়ে ম্যাচের আগেই জেগেছিল শঙ্কা। এর আগে তিনি এই চোট নিয়েই খেলেন এবারের ফরাসি ওপেনে। ব্যথানাশক ইনজেকশন নিয়ে খেলতে হয়েছিল সেই পর্বের ম্যাচগুলো।

২২ বারের সর্বোচ্চ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী নাদাল এবার ছুটছেন ক্যালেন্ডার গ্র্যান্ড স্ল্যামের দিকে।

আরও পড়ুন:
টেনিস কিংবদন্তি বোরিস বেকারের জেল
অক্টোবরে কোর্টে ফিরছেন ফেডেরার
উইম্বলডনের সিদ্ধান্তের নিন্দা দুই শীর্ষ টেনিস সংস্থার
নারী এককের নতুন এক নম্বর স্ফিয়নটেক
টেনিস থেকে অবসরের ঘোষণা ওয়ার্ল্ড নাম্বার ওয়ান বার্টির

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The Walton BSJA Sports Carnival unfolds

ওয়ালটন-বিএসজেএ স্পোর্টস কার্নিভালের পর্দা নামল

ওয়ালটন-বিএসজেএ স্পোর্টস কার্নিভালের পর্দা নামল
১১টি ভিন্ন ইভেন্টে পদক পেয়েছেন ১৮ জন প্রতিযোগী, ৪০ পদক ভাগাভাগি করেন। প্রতি ইভেন্টের চ্যাম্পিয়ন, রানারআপ ও তৃতীয় স্থান অধিকারীকে আকর্ষণীয় মেডেল ও অর্থ পুরস্কার দেয়া হয়।

জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মধ্য দিয়ে পর্দা নামল পেশাদার ক্রীড়া সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ স্পোর্টস জার্নালিস্টস অ্যাসোসিয়েশন-বিএসজেএ আয়োজিত ওয়ালটন স্পোর্টস কার্নিভাল-২০২২ আয়োজনের।

পাঁচ দিনব্যাপী আয়োজনে সাতটি ডিসিপ্লিনে অর্ধশতাধিক প্রতিযোগী অংশ নেন।

১১টি ভিন্ন ইভেন্টে পদক পেয়েছেন ১৮ জন প্রতিযোগী, ৪০ পদক ভাগাভাগি করেন। প্রতি ইভেন্টের চ্যাম্পিয়ন, রানারআপ ও তৃতীয় স্থান অধিকারীকে আকর্ষণীয় মেডেল ও অর্থ পুরস্কার দেয়া হয়।

কার্নিভালের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন ফ্রিল্যান্সার মাহাবুব আলম খান। দুটি স্বর্ণ ও দুটি রৌপ্যসহ ১০ পয়েন্ট পেয়েছেন তিনি।

বুধবার জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে সমাপণী আয়োজনে পদকজয়ী খেলোয়াড়দের হাতে পুরস্কার তুলে দেন বিএসজেএর সভাপতি এটিএম সাইদুজ্জামান এবং স্পন্সর প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের সিনিয়র নির্বাহী পরিচালক এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার ডন।

এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন হ্যান্ডবল ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান কোহিনূর, সাঁতার ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক এমবি সাইফ, টেবিল টেনিস ফেডারেশনের সহ-সভাপতি খোন্দকার হাসান মুনীর, টুর্নামেন্ট কমিটির আহ্বায়ক রায়হান আল মুঘনি ও সদস্য সচিব রবিউল ইসলাম।

টুর্নামেন্ট কমিটির আহ্বায়ক রায়হান আল মুঘনির সঞ্চালনায় প্রাণবন্ত অনুষ্ঠানে শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিএসজেএর সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান। তিনি বলেন, ‘বিএসজেএর সদস্যদের জন্য বিনোদন ও হৃদ্যতা তৈরিতে এ কার্নিভালের আয়োজন করা হয়। আশা করছি ভবিষ্যতে আরও বড় পরিসরে এই কার্নিভাল আয়োজন করা হবে।’

এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার ডন বলেন, ‘বাংলাদেশের যে কোনো স্পোর্টসে ওয়ালটন থাকতে চায়। মাদকমুক্ত দেশ গঠনে করপোরেট প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমাদের অনেক দায়িত্ব। সুন্দর ও প্রতিযোগিতামূলক এই আয়োজনের জন্য বিএসজেএকে অভিনন্দন। ওয়ালটন পরিবার সবসময় বিএসজেএ’র যেকোনো আয়োজনে সম্পৃক্ত থাকতে চায়। আশা করছি, ভবিষ্যতেও আমাদের এই সুসম্পর্ক আরও দৃঢ় ও মজবুত হবে।’

বিএসজেএ সভাপতি এটিএম সাইদুজ্জামান বলেন, ‘আমাদের নিজেদের ঘরোয়া এই আয়োজনে ওয়ালটনের মতো প্রতিষ্ঠান পাশে থেকেছে এজন্য তাদেরকে ধন্যবাদ। দেশ ও দেশের বাইরে সকল জায়গায় ওয়ালটন বিস্তৃত। বিএসজেএর পক্ষ থেকে তাদের আরও সাফল্য কামনা করছি। স্পোর্টস কার্নিভালের সকল পদকজয়ীদের অভিনন্দন এবং অংশগ্রহণকারী সকলকে ক্রীড়াসুলভ মনোভাব দেখানোয় ধন্যবাদ।’

আরও পড়ুন:
‘রোসপা গোল্ড অ্যাওয়ার্ড' পেলো ওয়ালটন
ওয়ালটনের ওয়ার্ল্ড রেফ্রিজারেশন ডে উদযাপন
দক্ষিণ কোরিয়ায় ওয়ালটনের রিসার্চ সেন্টার
ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে ২০ লাখ টাকা পেলেন পারভিন
ওয়ালটনের পণ্য রপ্তানিতে সহায়তা দেবে ইপিবি

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The Olympics will provide financial assistance to Ukraine

ইউক্রেনের অ্যাথলিটদের জন্য তহবিল প্রস্তুত করছে আইওসি

ইউক্রেনের অ্যাথলিটদের জন্য তহবিল প্রস্তুত করছে আইওসি ইংল্যান্ড ও আইভরি কোস্টের মধ্যে প্রীতি ম্যাচের আগে ইউক্রেনের পতাকা ধরে আছেন ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়রা। ছবি: এএফপি
দেশটির অ্যাথলিটদের জন্য ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটির (আইওসি) তহবিলের পরিমান বাড়িয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন টমাস বাখ।

ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক আগ্রাসনের প্রভাব পড়েছে সারা বিশ্বে। এমন পরিস্থিতিতে ইউক্রেনের অর্থনীতির অবস্থাও খারাপ। তবে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিকে ২০২৪ সালের অলিম্পিকসে অংশগ্রহণের জন্য আর্থিক ভাবে সহযোগিতার করার আশ্বাস দিয়েছেন অলিম্পিকসের প্রধান টমাস বাখ।

কিয়েভ সফরে গিয়ে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদেমির জেলেনস্কির সঙ্গে সাক্ষাৎকারে বাখ জানান, রুশ আগ্রাসনের পরও ইউক্রেনের অ্যাথলিটরা অলিম্পিকসে অংশগ্রহণ করতে পারবে। দেশটির অ্যাথলিটদের জন্য ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটির (আইওসি) তহবিলের পরিমান বাড়িয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

২০২৪ সালের প্যারিস অলিম্পিক ও ২০২৬ সালের শীতকালীন অলিম্পিকসে ইউক্রেনের পতাকা উড়বে বলে নিশ্চত করেন অলিম্পিক প্রধান বাখ। তিনি বলেন, ‘রুশ আগ্রাসনের শুরুতে ২৫ লাখ ডলারের যে তহবিল ইউক্রেনীয়দের জন্য গঠন করা হয়েছিল সেটি তিনগুন বাড়িয়ে ৭৫ লাখ ডলার করা হবে।’

বাখের সঙ্গে বৈঠক শেষে অতিরিক্ত এই সমর্থনের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে জেলেনস্কি বলেন, ‘রুশ আগ্রাসন ইউক্রেনের ক্রীড়াঙ্গনের জন্য একটি নিষ্ঠুর আঘাত। ইউক্রেনের বিপুল সংখ্যক অ্যাথলেট আমাদের দেশকে রক্ষার জন্য সশস্ত্র বাহিনীতে যোগ দিয়েছেন। সামরিক যুদ্ধে ৮৯ ইউক্রেনীয় অ্যাথলেট ও কোচ প্রান হারিয়েছেন এবং ১৩জন আটক হয়ে রুশ বন্দীশালায় রয়েছেন।’

ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর আগ্রাসন শুরু করলে এর প্রতিক্রিয়া হিসেবে আইওসি রুশ ও বেলুরুশের অ্যাথলেটদের নিষিদ্ধ করার জন্য আন্তর্জাতিক ফেডারেশনগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল।

বাখ বলেন, ওই অবস্থান থেকে সরে আসবে না আইওসি। তিনি বলেন, ‘আমরা প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কিকে এই নিশ্চিয়তা দিতে চাই , শুরু থেকে যে অবস্থান আমরা নিয়েছিলাম, সেখানেই আছি। এটি একদম পরিষ্কার।’

আরও পড়ুন:
২০২৮ অলিম্পিকসে ক্রিকেটের অন্তর্ভুক্তি নিয়ে শঙ্কা
করোনায় আশা জাগানো অলিম্পিকসে বিদায়ের সুর
‘ম্যারাথনের রাজা’ কিপচোগে ধরে রাখলেন মুকুট

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The school based team chess competition started

শুরু হয়েছে দলগত স্কুল দাবা

শুরু হয়েছে দলগত স্কুল দাবা টুর্নামেন্টের ট্রফি উন্মোচন করছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। ছবি: সংগৃহীত
ট্রফি উন্মোচনের মধ্য দিয়ে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন ঘোষণা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

বর্ণাঢ্য আয়োজনে শুরু হয়েছে ‘মার্কস অ্যাকটিভ স্কুল চেজ চ্যাম্প’ টুর্নামেন্ট। দলগত স্কুলদাবার এ প্রতিযোগিতার ট্রফি উন্মোচন করা হয় সোমবার।

রাজধানীর একটি হোটেলে সকালে ট্রফি উন্মোচনের মধ্য দিয়ে টুর্নামেন্টের উদ্বোধন ঘোষণা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের আয়োজনে এ প্রতিযোগিতায় পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছে আবুল খায়ের গ্রুপ।

এর আগে অনলাইন দাবা গেমের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন স্কুল থেকে বাছাই করে সেরা ৫০ জন শিক্ষার্থী দেশের গ্র্যান্ডমাস্টারদের সঙ্গে একই সঙ্গে দাবা গেমে অংশ নেন।

টুর্নামেন্টে যারা অংশ নিয়েছেন, তাদের প্রত্যেককেই গ্র্যান্ডমাস্টারদের সই করা সনদ দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে দেশের সব জেলার পুলিশ সুপাররা ও দাবাড়ুরা অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
আন্তর্জাতিক রেটিং দাবায় চ্যাম্পিয়ন নৌবাহিনীর মিনহাজ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Archer Dia Siddiqui received the BKSP Blue Award

বিকেএসপি ব্লু পেলেন আর্চার দিয়া সিদ্দিকী

বিকেএসপি ব্লু পেলেন আর্চার দিয়া সিদ্দিকী আর্চারি দিয়া সিদ্দিকী। ফাইল ছবি
প্রথম বারের মত ব্লু পাওয়ার পর তিনি বলেন, প্রতি বছর এমন সম্মাননা দিলে শিক্ষার্থীরা আরও বেশি উৎসাহিত হবেন।

গতবছর থেকে ক্রীড়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে সেরা একজনকে ব্লু সম্মাননা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি)। এ বছর দেশসেরা নারী আরচার দিয়া সিদ্দিকী পেয়েছেন এ বিশেষ সম্মাননা।

বিকেএসপিতে বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ‘ব্লু’ সহ আরও দুই ক্যাটাগরিতে এ সম্মাননা তুলে দেন বিকেএসপির মহা পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম মাজহারুল হক।

সম্মাননা পেয়ে উচ্ছ্বাসিত দিয়া সিদ্দিকী। প্রথম বারের মত ব্লু পাওয়ার পর তিনি বলেন, প্রতি বছর এমন সম্মাননা দিলে শিক্ষার্থীরা আরও বেশি উৎসাহিত হবেন।

বিকেএসপির শিক্ষার্থীদের মধ্যে যারা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন তাদেরকে এ সম্মাননা দেয়া হয়েছে। দিয়া ২০২১ সালে টোকিও অলম্পিকে অংশগ্রহণের মাধ্যমে দেশের হয়ে বিকেএসপির মর্যাদা বৃদ্ধি পেয়েছে। যে কারনেই তাকে বিশেষ এ সম্মাননা দেয়া হয়।এছাড়াও দিয়া ২০২১ সালে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশের হয়ে দারুণ পার্ফরম করেন।

দিয়া ছাড়া অন্য ৩ ক্রীড়াবিদকেও ব্লু দেয়া হয়েছে। তারা হলেন-দেশের দ্রুততম মানবী সুমাইয়া দেওয়ান এবং দুই সাঁতারু মো. হোসাইন ও আমিরুল ইসলাম।

আরও পড়ুন:
রোমান-নাসরিনদের নিয়ে জাতীয় আর্চারি শুরু ২৭ মার্চ
আর্চারিতে বাংলাদেশের তিন স্বর্ণ
দিয়া-নাসরিন-নিশায় দ্বিতীয় স্বর্ণ বাংলাদেশের
রোমান-নাসরিন জুটিতে প্রথম স্বর্ণ বাংলাদেশের
আর্চারিতে স্বর্ণ নিশ্চিত বাংলাদেশের

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Serenas departure from the first round of Wimbledon

উইম্বলডনের প্রথম রাউন্ডেই সেরিনার বিদায়

উইম্বলডনের প্রথম রাউন্ডেই সেরিনার বিদায় উইম্বলডনের প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে সেরিনা উইলিয়ামস। ছবি: সংগৃহীত
ম্যাচের শুরু থেকেই চিরচেনা ফর্মে ছিলেন ছয়বারের উইম্বলডনজয়ী সেরিনা। প্রথম সেটে তিনি এগিয়ে ছিলেন ৪-২ গেমে। পরে ফরাসি তানের সঙ্গে এমন কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে, তা ভাবেনি কেউ।

এক বছর পর উইম্বলডনে ফেরাটা সুখের হয়নি আমেরিকান তারকা সেরিনা উইলিয়ামসের। ২৩টি গ্র্যান্ড স্ল্যামজয়ী ৪০ বছর বয়সী সেরিনা উইম্বলডনের প্রথম রাউন্ডেই ফ্রান্সের হার্মনি তানের কাছে ধরাশায়ী হয়ে ছিটকে গেছেন টুর্নামেন্ট থেকে।

আমেরিকান এ তারকা গত বছর পরাজিত হয়ে এই সেন্টার কোর্ট থেকেই বিদায় নিয়েছিলেন। মঙ্গলবার সেই সেন্টার কোর্টেই নেমেছিলেন তিনি।

গ্রাস কোর্টের রানিখ্যাত সেরিনা নিজের প্রথম রাউন্ডের ম্যাচেই হোঁচট খেয়েছেন। অল ইংল্যান্ড ক্লাবের সেন্টার কোর্টে ফরাসি তানের সঙ্গে ৩ ঘণ্টা ১৪ মিনিটের লড়াইয়ে ২-১ সেট ব্যবধানে হেরে উইম্বলডন থেকে বিদায় নেন তিনি।

ম্যাচের শুরু থেকেই চিরচেনা ফর্মে ছিলেন ছয়বারের উইম্বলডন বিজয়ী সেরিনা। প্রথম সেটে তিনি এগিয়ে ছিলেন ৪-২ গেমে। পরে ফরাসি তানের সঙ্গে এমন কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে, তা ভাবেনি কেউ।

তান প্রথম সেটেই দুর্দান্তভাবে ম্যাচে ফিরলে ৭-৫ গেমে সেটটি জিতে নেন তিনি। দ্বিতীয় সেটে নিজের স্বভাবসুলভ টেনিস খেলেন সেরিনা। আবারও পুরোনো আগ্রাসী টেনিস দেখতে পেলেন সেন্টার কোর্টের দর্শকরা।

দ্বিতীয় সেটে একচেটিয়া আধিপত্য বিস্তার করে ৬-১ গেমে সেটটি জিতে সমর্থকদের জানান দেন তিনি এখনও ফুরিয়ে যাননি।

তৃতীয় সেটে শুরুতে প্রথমেই সার্ভ ব্রেক করেন সেরিনা। ৩-১ গেমে এগিয়ে থাকা এই আমেরিকান তারকা হঠাৎ নিজের ছন্দ হারান।

টানা তিনটি গেম জিতে ৪-৩ গেমে এগিয়ে যান হার্মনি তান। শেষ পর্যন্ত ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকে। শেষ দিকে সেন্টার কোর্টের সমর্থকদের হতাশ করে ১০-৭ পয়েন্টে ম্যাচ জিতে নেন তান।

আর তাতেই ছয়বারের উইম্বলডনজয়ী তারকা প্রথম রাউন্ড থেকে ছিটকে যান।

এটাই তার শেষ উইম্বলডন কি না ম্যাচ শেষে জানতে চাইলে সেরিনা বলেন, ‘এটি এমন একটি প্রশ্ন যার উত্তর আমি দিতে পারব না। আমি আবার ঘুরে দাঁড়াতে পারব না, এমনটা তো নয়।’

বর্তমানে র‍্যাংকিংয়ে ১২০৪তম স্থানে থাকা সেরিনা খেলতে নেমেছিলেন ওয়াইল্ডকার্ড নিয়ে।

ম্যাচ শেষে র‍্যাংকিংয়ে ১১৫তম স্থানে থাকা তান বলেন, ‘আমার প্রথম উইম্বলডনের জন্য এটা দারুণ। খুবই দারুণ!’

‘আমার জন্য এটা স্বপ্নের মতো। আমি যখন ছোট ছিলাম, তখন সেরিনাকে টিভিতে দেখতাম। তিনি একজন কিংবদন্তি। তার সঙ্গে খেলতে আমি ভয় পাচ্ছিলাম, তবে ম্যাচ জেতার পর সত্যিই খুব খুশি হয়েছি।’

আরও পড়ুন:
উইম্বলডন থেকে বিদায় ফেডেরারের
উইম্বলডন খেলছেন না চ্যাম্পিয়ন হালেপ
উইম্বলডনের জন্য প্রস্তুত ৩০ টন স্ট্রবেরি
চ্যাম্পিয়নদের প্রাইজমানি কমাচ্ছে উইম্বলডন
দর্শকশূন্য হতে পারে ২০২১ উইম্বলডন

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Mushfiqur next to the flood victims in Sylhet

সিলেটের বন্যার্তদের পাশে মুশফিক

সিলেটের বন্যার্তদের পাশে মুশফিক সিলেটের বন্যার্তদের সাহায্য হাত বাড়িয়ে দিলেন মুশফিক। ফাইল ছবি
আশা করা হচ্ছে, অন্তত দেড় হাজার পরিবারের কাছে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা সম্ভব হবে মুশির অনুদানের অর্থ দিয়ে।

সিলেটের বন্যার্তদের সাহায্যার্থে হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটার মুশফিকুর রহিম। নিজের এক মাসের বেতনের পুরোটাই তিনি অনুদান হিসেবে দিয়েছেন বন্যার্তদের সাহায্যার্থে।

জানা গেছে, মুশফিকের এই অনুদান দিয়ে সিলেটের স্থানীয় একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ হিসেবে বিতরণ করবে। আশা করা হচ্ছে, অন্তত দেড় হাজার পরিবারের কাছে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা সম্ভব হবে মুশির অনুদানের অর্থ দিয়ে।

বর্তমানে পবিত্র হজ্ব পালনের জন্য ছুটিতে রয়েছেন জাতীয় দলের অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার। কিছুদিনের মধ্যেই হজ্ব পালনের উদ্দেশে দেশ ত্যাগ করবেন ডানহাতি এই ব্যাটার।

এর আগে সিলেটের বন্যা কবলিত অঞ্চলের মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি। পাঁচ হাজার মানুষকে খাদ্য সরবরাহ করেছিল দেশের ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

এ ছাড়া তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকারও হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন বন্যার্তদের সাহায্যার্থে।

আরও পড়ুন:
বিশ্ব টিকাদান সপ্তাহে মুশফিকের বার্তা
সোবার্স, শচীন, ইমরানের সঙ্গে এক দলে মুশফিক
‘অস্ত্রে’ শাণ দিচ্ছেন মুশফিক
আচরণের জন্য শাস্তি পেলেন মুশফিক
ক্ষমা চেয়ে মুশফিক বললেন, ভবিষ্যতে আর হবে না

মন্তব্য

p
উপরে