× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ পৌর নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট

বাংলাদেশ
Comilla City Election Nomination papers of 6 candidates for the post of Mayor submitted
hear-news
player
print-icon

কুমিল্লা সিটি নির্বাচন: মেয়র পদে ৬ জনের মনোনয়নপত্র জমা

কুমিল্লা-সিটি-নির্বাচন-মেয়র-পদে-৬-জনের-মনোনয়নপত্র-জমা
আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত বলেন, ‘দল মনোনয়ন দিয়েছে। আজ কুমিল্লা নির্বাচন অফিসে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছি। বিগত সময়ের চেয়ে মহানগর আওয়ামী লীগ এখন আরও আরও বেশি ঐক্যবদ্ধ। তাই নৌকা এখানে বিজয়ী হবে।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির দুজন করে মোট চারজন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এ ছাড়া ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের একজন, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে একজন মিলে মোট ছয়জন মেয়র প্রার্থী শেষ দিনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এসব তথ্য নিশ্চিত করে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী চৌধুরী বলেন, ‘মেয়র ছাড়াও কাউন্সিলর পদে ২৭টি ওয়ার্ডে ১২০ জন প্রার্থী ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৮ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন জমা দেন।’

মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাই শেষ হবে ১৯ মে জেলা শিল্পকলা অ্যাকাডেমিতে। মনোনয়ন প্রত্যাহার ২৬ মে এবং ২৭ মে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে।

মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরফানুল হক রিফাত, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী কুমিল্লা চেম্বার অফ কর্মাসের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির সদস্য মাসুদ পারভেজ খান ইমরান, কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য (অব্যহতিপ্রাপ্ত) ও সদ্য বিদায়ী মেয়র মনিরুল হক সাক্কু, নগর স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি নিজাম উদ্দিন কায়সার, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের রাসেদুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল আহসান বাবুল।

মঙ্গলবার দুপুরে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার পর আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত বলেন, ‘দল মনোনয়ন দিয়েছে। আজ কুমিল্লা নির্বাচন অফিসে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছি। বিগত সময়ের চেয়ে মহানগর আওয়ামী লীগ এখন আরও আরও বেশি ঐক্যবদ্ধ। তাই নৌকা এখানে বিজয়ী হবে।’

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মাসুদ পারভেজ খান ইমরানের পক্ষে মনোনয়নপত্র জমা দেন তার নির্বাচন সমন্বয়ক জসিম উদ্দিন আহমেদ।

বিকেল ৪টায় মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার পর তিনি বলেন, ‘কুমিল্লা সিটি করপোরেশনকে আধুনিক ও যুগোপযোগী করতে ইমরান খান প্রার্থী হয়েছেন।’

দলের প্রার্থীর পক্ষে না থেকে বিদ্রোহী হয়ে নির্বাচন করার বিষয়ে জসিম উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘এখানে দলীয় পরিচয় নয়, মূলত স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছি।’

বেলা ১২টায় মনিরুল হক সাক্কুর প্রতিনিধি হিসেবে তার ছোট ভাই আইনজীবী কাইমুল হক রিংকু মনোনয়নপত্র জমা দেন। সাক্কুর জনপ্রিয়তা এবং অসমপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করতেই নগরবাসী তাকে আবার বিজয়ী করবে বলে মনে করেন রিংকু।

দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন নগর স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি নিজাম উদ্দিন কায়সার।

দল নির্বাচনে যায়নি তবুও নির্বাচন করবেন কেন, এমন প্রশ্নের জবাবে নিজাম উদ্দিন কায়সার বলেন, ‘মূলত আমি একটি স্মার্ট সিটি গড়তে চাই। যেখানে নগরীর সব সুবিধা পাবেন নগরবাসী। এ ছাড়া জাতীয়তাবাদী দল মহানগরের অনেক নেতাকর্মী রয়েছেন, যারা উনার (মনিরুল হক সাক্কু) মামলা ও কারাবরণের শিকার। মনিরুল হক সাক্কু মূলত আওয়ামী লীগের মদদপুষ্ট প্রার্থী। কুমিল্লাবাসী সবাই জানে।’

কুমিল্লায় আওয়ামী লীগের দুজন ও বিএনপির দুই প্রার্থী মনোনয়ন জমা দেয়াকে ঘিরে নগরজুড়ে আলোচনা চলছে। শেষ পর্যন্ত সবাই নির্বাচন করবেন, নাকি মাঝপথে কেউ মনোনয়ন প্রত্যাহার করবেন তা দেখার অপেক্ষায় সিটির জনগণ।

আরও পড়ুন:
১০ কোটি টাকার মানহানি মামলা ঠুকলেন রিফাত
কুমিল্লা সিটি নির্বাচন: মনোনয়নপত্র নিলেন আ.লীগের রিফাত
মেয়র যে-ই হোক, আপনারা সহযোগিতা করবেন: নগরবাসীকে সাক্কু
কুমিল্লা নির্বাচন অফিসে নিরাপত্তা জোরদার
কুমিল্লায় আ.লীগের ‘ভূত’ বিএনপির ঘাড়ে

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
The corpse of the farmer was hanging on the tree

গাছে ঝুলছিল কৃষকের মরদেহ

গাছে ঝুলছিল কৃষকের মরদেহ প্রতীকী ছবি
পরিবারের বরাতে ওসি বলেন, ‘তাপস পাল দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক সমস্যায় ভুগছিলেন। কিছুদিন আগে তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি আত্মহত্যা করেছেন।’

খুলনার রূপসায় এক ব্যক্তির ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

উপজেলার টিএসবি ইউনিয়নের গিলাতলা গ্রামে একটি গাছ থেকে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে তাপস পালের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

রূপসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরদার মোশারেফ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

৪০ বছর বয়সী তাপস পাল গিলাতলা গ্রামের গোপাল চন্দ্র পালের ছেলে।

ওসি জানান, প্রতিদিনের মতো শুক্রবার সকালেও জমিতে পানের বরজে কাজের উদ্দেশ্যে বের হন তাপস। বাড়ি ফিরতে দেরি করায় পরিবারের সদস্যরা তার খোঁজ নিতে গিয়ে দেখেন বাড়ির পাশের একটি বাগানের কড়ই গাছে ঝুলছে মরদেহ।

পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

পরিবারের বরাতে ওসি বলেন, ‘তাপস পাল দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক সমস্যায় ভুগছিলেন। কিছুদিন আগে তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি আত্মহত্যা করেছেন।’

এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন:
শাহবাগে ভবন থেকে পড়ে মৃত্যু
নদীতে ভাসছিল যুবলীগ নেতার বস্তাবন্দি মরদেহ
প্রবাসীর বাড়িতে ব্যবসায়ীর মরদেহ
মোবাইল হাতিয়ে নিতে কৌশলে ডেকে বন্ধুকে খুন
মহাসড়কের পাশে তরুণীর ক্ষতবিক্ষত মরদেহ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Chittagong Central Jail will be in Jungle Chhalimpur

জঙ্গল ছলিমপুরে হবে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার

জঙ্গল ছলিমপুরে হবে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার ফাইল ছবি
হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সলিমপুরে নতুনভাবে যেন কেউ সরকারি জায়গা দখল না করে। সরকারি জায়গা দখল বেআইনি। যারা দখল করেছে তাদের পুনর্বাসন করা হবে।’

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের জঙ্গল ছলিমপুরে স্থানান্তর করা হচ্ছে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার।

শুক্রবার বিকেলে এ কারাগার নির্মাণের জন্য প্রস্তাবিত সরকারি জায়গা পরিদর্শন করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

একই সঙ্গে এ এলাকায় একটি ইকোপার্ক, বিশ্বমানের একটি হাসপাতাল, আইকনিক মসজিদ, বেতার ভবন, জাতীয় তথ্যকেন্দ্র, নভোথিয়েটারসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা গড়ে তোলার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। মন্ত্রী এসব জায়গাও পরিদর্শন করেছেন।

এ সময় সংক্ষিপ্ত আলোচনায় সভায় হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সলিমপুরে নতুনভাবে যেন কেউ সরকারি জায়গা দখল না করে। সরকারি জায়গা দখল বেআইনি। যারা দখল করেছে তাদের পুনর্বাসন করা হবে।’

সরকারি জায়গা যাতে কেউ নতুন করে দখল না করে সেজন্য জেলা প্রশাসনকে সলিমপুরে নোটিশ দেওয়ার নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

চট্টগ্রাম সিটি মেয়র মোহাম্মদ রেজাউল করিম চৌধুরী, চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান ও চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ২৩ জুন চট্টগ্রাম জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির মাসিক উন্নয়ন সমন্বয় সভায় সীতাকুণ্ডের জঙ্গল ছলিমপুরে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা গড়ে তোলার পরিকল্পনার কথা জানান চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক।

আরও পড়ুন:
সাম্প্রদায়িকতা: সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সতর্ক করলেন তথ্যমন্ত্রী
পদ্মা সেতু নিয়ে ইউনূস সেন্টারের ব্যাখ্যা সত্যের অপলাপ: তথ্যমন্ত্রী
বিএনপির রাজনীতি পদ্মায় ডুবে গেছে : তথ্যমন্ত্রী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The farmers hanging body was recovered

কৃষকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার

কৃষকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার ছবি: সংগৃহীত
কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি সাদেকুর রহমান জানিয়েছেন, কৃষকের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যর মামলা হবে।

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় এক কৃষকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। অভাব অনটনে ৩৮ বছর বয়সী ওই কৃষক গলায় ফাঁস দিয়েছেন বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

নিহত কৃষক হেলাল উদ্দিন উপজেলার চর এলাহী ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ফজল হকের ছেলে। ভাঙনের শিকার হয়ে হেলালের বাড়ি-ঘর নদীগর্ভে চলে গেলে তিনি ৪ নম্বর ওয়ার্ডে বসবাস শুরু করেছিলেন।

শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার চর এলাহী ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড থেকে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে। পুলিশের ধারণা, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে কোনো এক সময়ে গলায় ফাঁস দেন হেলাল।

কোম্পানীগঞ্জ থানার এসআই রেজাউল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এসআই বলেন, ‘স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বারের মাধ্যমে জেনেছি, নিহত হেলাল দুই সন্তানের জনক। পেশায় কৃষক ছিলেন। চাষাবাদে বারবার ক্ষতি হওয়ায় ধার-দেনায় পড়েন তিনি। কিছুদিন আগে নদী ভাঙ্গনে তার বাড়ি-ঘরও বিলীন হয়ে যায়। তাই অভাব-অনটনে ছিলেন।’

এসআই জানান, অভাব অনটনের কারণে দুই সন্তানকে নিয়ে কিছুদিনের জন্য বাবার বাড়িতে গিয়েছিলেন হেলালের স্ত্রী। এ অবস্থায় শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে বাড়ির পাশের লোকজন হেলালের ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়।

আরও পড়ুন:
গৃহবধূর ঝুলন্ত দেহ ঘরে, অভিযোগ হত্যার
ছাত্র ইউনিয়ন নেতা সাদাতের আত্মহত্যা
‘আত্মহত্যা’য় অভিযুক্ত সুদের কারবারি
গলায় ফাঁস দিয়ে তরুণের ‘আত্মহত্যা’
স্ত্রীর শোকে মুদি দোকানির ‘আত্মহত্যা’

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Bike rider killed in truck crash

ট্রাকচাপায় বাইকআরোহী নিহত

ট্রাকচাপায় বাইকআরোহী নিহত
ওসি জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক পলাশকে মৃত ঘোষণা করেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য আহত শিমুলকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রাকের চাপায় এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন আরও একজন।

সদর উপজেলার মহারাজপুর ঘোড়া স্ট্যান্ড এলাকায় শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহত ২৬ বছরের পলাশ আলী মহারাজপুর ইউনিয়নের ডালিম শেখের ছেলে। আহত ২৮ বছরের শিমুলকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

ওসি মোজাফফর জানান, শিবগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা একটি ট্রাক চাঁপাইনবাবগঞ্জের দিকে যাচ্ছিল। একই সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলকে চাপা দেয় ট্রাকটি। এতে বাইকের দুই আরোহী গুরুতর আহত হন।

তাদের উদ্ধার করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক পলাশকে মৃত ঘোষণা করেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য শিমুলকে পরে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

আরও পড়ুন:
ট্রাকের চাপায় পিষ্ট আওয়ামী লীগ নেতা
প্রশিক্ষণ নেয়া হলো না ৪ শিক্ষকের, আর্থিক সহায়তার ঘোষণা
ট্রাকচাপায় অটোরিকশার ৫ যাত্রী নিহত
স্কুল থেকে ফেরার পথে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট নাহিদ
ট্রাকচাপায় স্কুলছাত্র নিহত

মন্তব্য

বাংলাদেশ
A case of rape of a fifth class student

পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা প্রতীকী ছবি।
মামলার পর মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নওগাঁর রাণীনগরে পঞ্চম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় মেয়ের বাবা বাদী হয়ে সোহেল রানা নামে ৩৬ বছর বয়সী এক যুবকের বিরুদ্ধে এই মামলা করেন। অভিযুক্ত সোহেল উপজেলার কাশিমপুর ইউনিয়নের চাড়াপাড়া গ্রামের হানিফের ছেলে।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার প্রতিবেশী মেয়েটি সোহেলের বাড়ির পাশের পুকুর থেকে হাঁস নিয়ে বাড়ি ফিরছিল। পথে সোহেল রানা তাকে ডেকে বাড়ির ভেতরে নিয়ে যান।

এক পর্যায়ে মেয়েটির মুখে কাপড় গোজে তাকে ধর্ষণ করেন সোহেল। পরে মেয়েটি কান্না করতে করতে বাড়িতে গিয়ে তার মাকে জানায়। প্রায় তিন দিন ধরে বিষয়টি স্থানীয় কিছু মোড়ল ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু মেয়ের মা-বাবা সমঝোতায় রাজি না হয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় সোহেল রানাকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে রাণীনগর থানায় ধর্ষণ মামলা করেন।

মামলার পর মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকে সোহেল গা ঢাকা দেয়ায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

এ বিষয়ে রাণীনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। আসামিকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চলছে। খুব তাড়াতাড়ি তাকে গ্রেপ্তার করা হবে।’

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Pakistanis also want Sheikh Hasina as Prime Minister State Minister for Planning

‘পাকিস্তানিরাও শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চায়’

‘পাকিস্তানিরাও শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চায়’ রথযাত্রা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম। ছবি: সংগৃহীত
প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম বলেন, ‘ভারতের পার্লামেন্টে সুষমা স্বরাজ কয়েক বছর আগে বলেছেন, বাংলাদেশে গত এক দশকে ৮ শতাংশ হিন্দু বৃদ্ধি পেয়েছে। আগে ছিল ২ শতাংশ। এখন তা ১০ শতাংশ। এতে কি বোঝা যায়? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলে সকলেই একসাথে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে বাস করতে পারে। সুষমা স্বরাজের বক্তব্য অনুযায়ীই হিন্দু বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশ সকলের জন্য এখন নিরাপদ।’

পাকিস্তানিরাও তাদের দেশে শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চায় বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।

শুক্রবার বিকেলে ঢাকার ধামরাইয়ে শ্রী শ্রী যশোমাধবের রথযাত্রার রথটান উপলক্ষে আয়োজিত সভায় এ কথা বলেন তিনি।

শ্রী শ্রী যশোমাধব মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি মেজর জেনারেল (অব.) জীবন কানাই দাশের সভাপতিত্বে সভায় সঞ্চালনা করেন কমিটির সাধারণ সম্পাদক নন্দ গোপাল সাহা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম বলেন, ‘ভারতের পার্লামেন্টে সুষমা স্বরাজ কয়েক বছর আগে বলেছেন, বাংলাদেশে গত এক দশকে ৮ শতাংশ হিন্দু বৃদ্ধি পেয়েছে। আগে ছিল ২ শতাংশ। এখন তা ১০ শতাংশ। এতে কি বোঝা যায়? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলে সকলেই একসাথে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে বাস করতে পারে। সুষমা স্বরাজের বক্তব্য অনুযায়ীই হিন্দু বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশ সকলের জন্য এখন নিরাপদ।’

তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের এক রাজনীতিক পার্লামেন্টে বলেছেন, শেখ হাসিনাকে পাকিস্তানে এনে দাও। পাকিস্তানকে সে বাংলাদেশ বানিয়ে দিক এটাই আমাদের চাওয়া। কী বোঝায়? যে পাকি বাঙালিরা এখনো পাকিস্তানি কৃষ্টি-কালচার নিয়ে রাজনীতি করে। অথচ পাকিস্তানিরা চায় শেখ হাসিনা সেখানে প্রধানমন্ত্রী হোক। তাদের পরিবর্তন হোক। আর কী চান আপনারা?’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘স্বাধীনতার আগে পাকিস্তানের নাগরিকদের আয় পূর্ব পাকিস্তানের তুলনায় ৭৫ গুণ বেশি ছিল। এখন তাদের তুলনায় বাংলাদেশিদের আয় ৫০ গুণ বেশি। আমাদের মাথাপিছু আয় ২০২১ অর্থবছরে ছিল ২৫০০ ডলার, পাকিস্তানে ১৫৬০ ডলার। অর্থাৎ পাকিস্তানকে আমরা পেছনে ফেলেছি। শুধু তাই নয়। আমরা ভারতকেও গত ২-৩ বছরে মাথাপিছু আয়ে পেছনে ফেলেছি।’

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী জানান, দক্ষিণ এশিয়ার শিক্ষার হার বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি, গড় আয়ু বেশি, মাতৃমৃত্যু সবচেয়ে কম, শিশু মৃত্যু সবচেয়ে কম।

শামসুল আলম বলেন, ‘গোপাল কৃষ্ণ হত্যাকাণ্ড, মানিক সাহা হত্যাকাণ্ড, আহসান উল্লাহ মাস্টার, এসএম কিবরিয়াকে হত্যা করা হয়েছে। ২০০৪ সালের একুশে আগস্ট হামলা চালানো হয়েছে। তবুও শেখ হাসিনা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। একটা অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার জন্যই।’

এভাবে দেশ এগোলে ২০৪১ সালে উন্নত বাংলাদেশ হবে বলে দাবি করেন তিনি।

এ সময় রথযাত্রার প্রশংসা করে ড. শামসুল আলম বলেন, ‘এটা একটি স্মরণীয় অনুষ্ঠান। একটা পরম আকাঙ্খিত অনুষ্ঠান। আজকের এই আয়োজন স্বতঃস্ফূর্তভাবে আপনারা পালন করতে পারছেন। নির্বিঘ্নে পালন করতে পারছেন। এটা সরকারের অবদানের কারণে।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ধামরাইয়ের কয়েকটি উন্নয়নমূলক কাজের জন্য বরাদ্দের দাবি করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য বেনজীর আহমেদ। দাবিগুলো পূরণে যথাসাধ্য চেষ্টা করার কথা জানান পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার শ্রী বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী, ঢাকার জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম, ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন সরদার, ধামরাই পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব গোলাম কবির মোল্লাসহ অনেকেই।

আরও পড়ুন:
জনগণকে চা পান কমানোর পরামর্শ পাকিস্তানি মন্ত্রীর
বেলুচিস্তানে চীনা নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের আহ্বান বেইজিংয়ের
ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ক্লিন সুইপ পাকিস্তানের
১/১১-এর সরকার ও শেখ হাসিনার কারামুক্তি
দুরারোগ্য ব্যাধির সঙ্গে লড়ছেন পারভেজ মোশাররফ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Woman beaten in UP chairmans arbitration

ইউপি চেয়ারম্যানের সালিশে নারীকে মারধর

ইউপি চেয়ারম্যানের সালিশে নারীকে মারধর
মরিয়ম বেগম বলেন, ‘নবীপুর (পশ্চিম) ইউপি চেয়ারম্যান ভিপি জাকির হোসেনের সামনে তার ভাতিজা ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার দেলোয়ার হোসেন দলবল নিয়ে আমার ওপর চড়াও হয়। থানায় গেলে পুলিশ মামলা নিতে গড়িমসি করে। তাই মামলা করা হয়নি।’

কুমিল্লার মুরাদনগরে এক নারী মানবাধিকারকর্মীকে মারধর ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ ওঠেছে স্থানীয় এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। নবীপুর (পশ্চিম) ইউনিয়নের কোম্পানিগঞ্জ বাজারে ইউপি চেয়ারম্যানের সামনে ২৮ জুন রাতে এ ঘটনা ঘটে।

ওই মানবাধিকার কর্মীর নাম মরিয়ম বেগম। তিনি ইন্টারন্যাশনাল লিগ্যাল এইড ফাউন্ডশনের কর্মী। বর্তমানে তিনি দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছেন।

মরিয়ম বেগম বলেন, ‘নবীপুর (পশ্চিম) ইউপি চেয়ারম্যান ভিপি জাকির হোসেনের সামনে তার ভাতিজা ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার দেলোয়ার হোসেন দলবল নিয়ে আমার ওপর চড়াও হয়। থানায় গেলে পুলিশ মামলা নিতে গড়িমসি করে। তাই মামলা করা হয়নি।’

সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, দোকানের সামনে কয়েকজন মানুষের জটলা। এর মধ্যে থেকে তিন ব্যক্তি বোরকা পরা এক নারীকে ধরার চেষ্টা করলে, তিনি ওই দোকানের ভেতর ঢুকে পড়েন। এ সময় দেলোয়ারের লোকজন তার বোরকা ধরে টানাটানি করতে থাকলে, তাদের বাধা দেন জাকির। এক পর্যায়ে দেলোয়ার ও তার লোকজন দোকান থেকে ওই নারীকে টেনে-হিঁচড়ে বের করে নিয়ে যান।

মরিয়ম বেগম বলেন, ‘ভিপি জাকির পরিকল্পিতভাবে আমাকে ডেকে নিয়ে সালিশে বসেন‌। সেখানে তার ভাতিজা দেলোয়ার এবং তার দলবল আমাকে নির্যাতন করে। দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে তারা আমাকে ধরে এনে ফের মারধর করে। এক পর্যায়ে আমি অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয়রা উদ্ধার করে দেবীদ্বার উপজলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।’

তিনি আরও বলেন, ‘জাকির হোসেনের চাপে থানায় মামলা নিচ্ছে না পুলিশ। আমি এখন চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।’

এ বিষয়ে মরিয়মের ছেলে আরিফ হোসেন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘গত কয়েক বছর ধরে দেলোয়ার আমাদের জমি দখলের চেষ্টা করছে। আমার আম্মা আদালত থেকে স্টে অর্ডার আনে। এতে দেলোয়ার ও জাকির আমাদের জমি দখল করে স্থাপনা নির্মাণ করতে পারছিল না। এ নিয়ে আম্মাকে তারা হত্যার হুমকিও দেয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত ৩১ জানুয়ারি এই ইউনিয়নে উপনির্বাচন হয়। নির্বাচনে আম্মা দেলোয়ার মেম্বারের হয়ে কাজ করেনি। তাই গত ২৮ জুন রাতে সালিশের কথা বলে আম্মাকে ডেকে নিয়ে মারধর করে তারা।’

অভিযোগ মেনে নিয়েছেন অভিযুক্ত ইউপি সদস্য দেলোয়ার হোসেন। তার দাবি, গালাগালি করায় ওই নারীকে পিটিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন বলেন, ‘পুরোনো একটি বিরোধ নিয়ে আমরা বৈঠকে বসেছিলাম। বিষয়টি মীমাংসা করে দিয়েছি।’

মারধরের বিষয়ে জানতে চাইলে বিষয়টি তিনি এড়িয়ে যান।

মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাশিম বলেন, ‘এক নারী সাধারণ ডায়রি করতে এসেছিলেন। আমরা তাকে মামলা করার পরামর্শ দিই। তারপরও বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।’

আরও পড়ুন:
কিশোরীকে উঠিয়ে আনতে গিয়ে পিটুনির শিকার, আহত যুবকের মৃত্যু
পরীক্ষা চলাকালীন ৩ ছাত্রকে ‘পেটালেন’ নিরাপত্তা প্রহরী
ভাই-বোনকে মারধরের ঘটনায় মামলা
বোনকে ‘উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায়’ ভাইকে মারধর, আটক ২
ভাইরাল ভিডিও দেখে ১২ দিন পর পুলিশের টনক

মন্তব্য

p
উপরে