× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ পৌর নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য

বাংলাদেশ
Students will leave the hall on Wednesday Dhaka College Principal
hear-news
player
print-icon

ছাত্ররা হল ছাড়বেন বুধবার: ঢাকা কলেজ অধ্যক্ষ

ছাত্ররা-হল-ছাড়বেন-বুধবার-ঢাকা-কলেজ-অধ্যক্ষ ঢাকা কলেজের বাহিরে শিক্ষার্থীদের অবস্থান। ছবি: নিউজবাংলা
ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এটিএম মইনুল হোসেন বলেন, ‘অনেক ছাত্রের বাড়ি অনেক দূরে, কারও টাকা-পয়সা নাও থাকতে পারে, আবার কেউ কেউ আহত হয়েছেন। এ বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে আমরা গো স্লো যাচ্ছি। দেখা যাবে কাল হয়তো আমাদের ছেলেরা সবাই চলে যাবে।’

রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের ঘটনায় ঢাকা কলেজের হল বন্ধের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে ধীরে চলছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

কর্তৃপক্ষ মনে করে, আহত শিক্ষার্থীদের অবস্থা বিবেচনা করে এবং দূর-দূরান্তে অনেক শিক্ষার্থীর বাড়ি হওয়ায় মঙ্গলবারের মধ্যে হল ছাড়ার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি। তবে তারা আশা করছেন বুধবারের মধ্যে হল ছাড়বেন শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিউজবাংলাকে এ তথ্য জানান ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এটিএম মইনুল হোসেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা এ বিষয়গুলো (আজকের মধ্যে হল ছাড়ার সিদ্ধান্ত) ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। তারা যে সিদ্ধান্ত নেয়, সে অনুযায়ী আমাদের কাজ করতে হবে।’

আজকের মধ্যে হল ছাড়ার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অনেক ছাত্রের বাড়ি অনেক দূরে, কারও টাকা-পয়সা নাও থাকতে পারে, আবার কেউ কেউ আহত হয়েছেন। এ বিষয়গুলো বিবেচনায় নিয়ে আমরা গো স্লো যাচ্ছি।’

আগামীকালের মধ্যে শিক্ষার্থীরা হল ছাড়বে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। বলেন, ‘দেখা যাবে কাল হয়তো আমাদের ছেলেরা সবাই চলে যাবে।’

সংঘর্ষের ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা কলেজের হল বন্ধের ঘোষণা দেয়া হয়।

ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এ টি এম মইনুল হোসেনের সই করা অফিস আদেশ বলা হয়, ঢাকা কলেজের আবাসিক শিক্ষার্থীদের জানানো যাচ্ছে যে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ১৯ এপ্রিল থেকে ৫ মে পর্যন্ত ঢাকা কলেজের হলসমূহ বন্ধ ঘোষণা করা হলো। মঙ্গলবার বিকেলের মধ্যে ছাত্রাবাস খালি করার নির্দেশ দেয়া হলো।

অবরুদ্ধ করার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা যখন হল ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা শুনলো, তখন তারা বিক্ষুব্ধ হয়। সবাই এসে আমার রুমের সামনে বিক্ষোভ করে। বিষয়টি এমন না যে আমি অবরুদ্ধ ছিলাম। আমি ক্যাম্পাসেই আছি সারা দিন।’

সোমবার মধ্যরাতে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ হয়। সে রেশে রাতভর উত্তেজনা ছিল রাজধানীর নিউ মার্কেট এলাকায়।

মঙ্গলবার সকালে আবারও পথে নেমে আসেন শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ীরা। দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি অবস্থানে রণক্ষেত্রে পরিণত হয় পুরো এলাকা।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রড ও লাঠিসোটা হাতে দলবেঁধে নিউ মার্কেট এলাকায় আসতে থাকেন ঢাকা কলেজের ছাত্ররা। শুরু হয় ভাঙচুর। হাতে লাঠিসোটা নিয়ে বেরিয়ে আসেন ব্যবসায়ীরাও। বেধে যায় তুমুল সংঘর্ষ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ।

গতকাল থেকে এখন পর্যন্ত সংঘর্ষ চলছে।

আরও পড়ুন:
ঢাকা কলেজের ছাত্রদের পাশে ইডেন ছাত্রীরা
পুলিশ সামনে আসেনি ‘স্ট্র্যাটেজিক কারণে’
নিউ মার্কেটে সংঘর্ষ: ঢাকা মেডিক্যালে ৪১, আইসিইউতে ২
নিউ মার্কেট সংঘর্ষ: দিনে ক্ষতি শতকোটি টাকা

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
A pedestrian was killed when a bus hit him while crossing the road

রাস্তা পারের সময় বাসের ধাক্কায় পথচারী ‍নিহত

রাস্তা পারের সময় বাসের ধাক্কায় পথচারী ‍নিহত মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। ছবি: নিউজবাংলা
নিহত ব্যক্তির মেয়ে শিখা আক্তার বলেন, ‘আমার বাবা একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন। কর্মস্থল থেকে বাসায় ফেরার পথে যাত্রাবাড়ীর কুতুবখালী এলাকায় রাস্তা পারের সময় একটি যাত্রীবাহী বাস তাকে ধাক্কা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে চিকিৎসক মৃত বলে জানান।’

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী কুতুবখালী এলাকায় বাসের ধাক্কায় এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহত ব্যক্তির নাম আব্দুল মতিন মিয়া। তার বয়স ৫৫ বছর।

তার গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার মেঘনা থানায়। বর্তমানে যাত্রাবাড়ীর কুতুবখালী এলাকায় সপরিবার থাকতেন। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

নিহত ব্যক্তির মেয়ে শিখা আক্তার বলেন, ‘আমার বাবা একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন। কর্মস্থল থেকে বাসায় ফেরার পথে যাত্রাবাড়ীর কুতুবখালী এলাকায় রাস্তা পারের সময় একটি যাত্রীবাহী বাস তাকে ধাক্কা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে চিকিৎসক মৃত বলে জানান।’

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানায় জানানো হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
বাসের ধাক্কায় বাইকচালকের মৃত্যু
অটোরিকশার ধাক্কায় প্রাণ গেল বৃদ্ধার
আলমসাধুর ধাক্কায় মোটরসাইকেলচালক নিহত
মজুরির ধান নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে ২ শ্রমিক নিহত
বাসচাপায় কলেজছাত্র নিহত, শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
TIB calls for formation of economic committee

প্রধানমন্ত্রীকে সাধুবাদ টিআইবির

প্রধানমন্ত্রীকে সাধুবাদ টিআইবির ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা
খ্যাতিমান অর্থনীতিবিদ, সমাজবিজ্ঞানী এবং অন্য সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে জরুরি ভিত্তিতে একটি অর্থনৈতিক কৌশলবিষয়ক পরামর্শক কমিটি গঠন করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে টিআইবি।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ও ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে অস্থিতিশীলতা শুরু হয়েছে, দেখা দিয়েছে মন্দা। এমন প্রেক্ষাপটে সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের নেয়া নানা উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল, বাংলাদেশ (টিআইবি)।

শুক্রবার টিআইবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। একই সঙ্গে সরকারের সহায়ক হিসেবে জরুরি ভিত্তিতে স্বাধীন অর্থনৈতিক কৌশলবিষয়ক উপদেষ্টা কমিটি গঠনের আহ্বান জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

এতে বলা হয়েছে, গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী, নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যপণ্যের দামের ঊর্ধ্বগতি, ক্রমবর্ধমান মূল্যস্ফীতি, ডলারের বিপরীতে টাকার অবমূল্যায়ন ও রিজার্ভের ওপর সৃষ্ট চাপ এবং ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে অর্থনীতির ওপর বহুমুখী চ্যালেঞ্জ তৈরি হয়েছে।

সংকট মোকাবিলায় করণীয় ঠিক করতে অর্থ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ ব্যাংককে নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এমন পরিস্থিতিতে অহেতুক ব্যয় কমিয়ে সবাইকে সাশ্রয়ী ও যৌক্তিক হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সরকারপ্রধান। অর্থনৈতিক সংকট মোকাবিলায় এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানায় টিআইবি।

প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘ক্রমবর্ধমান মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ, বিপুল আমদানি ব্যয়, বৈদেশিক লেনদেনে ভারসাম্যহীনতা, রিজার্ভের ওপর তৈরি হওয়া চাপ মোকাবিলায় ব্যয় হ্রাস করতে হবে। জনকল্যাণ ও অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন সর্বোচ্চ প্রাধান্য দিয়ে সুচিন্তিত অর্থনৈতিক কর্মকৌশল নেওয়া এবং সাহসের সঙ্গে তা বাস্তবায়ন জরুরি।’

তাই খ্যাতিমান অর্থনীতিবিদ, সমাজবিজ্ঞানী এবং অন্যান্য সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে জরুরি ভিত্তিতে একটি অর্থনৈতিক কৌশলবিষয়ক পরামর্শক কমিটি গঠন করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দা ও দুর্ভিক্ষের আশঙ্কা করা হচ্ছে বলেও জানান ইফতেখারুজ্জামান।

তিনি বলেন, ‘অন্য সব দেশের মতো বাংলাদেশকেও সম্ভাব্য খাদ্য ঘাটতিসহ বহুমুখী সংকটের মুখোমুখি হতে হবে বলে উদ্বেগ বাড়ছে। সংকটে বৈশ্বিক অভিজ্ঞতা অনুযায়ী যেকোনো দেশেই সুশাসন অধিকতর ব্যাহত হয়। দুর্নীতি ও অর্থ পাচারসহ আর্থিক খাতের বহুমুখী অনিয়ম গভীর ও ব্যাপক হয়। আর্থসামাজিক বৈষম্য, দারিদ্র্য ও প্রান্তিকতার বিকাশ ঘটে। পাশাপাশি মৌলিক মানবাধিকার সুরক্ষা চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়।’

সংকট মোকাবিলায় কৌশল প্রণয়নে বস্তুনিষ্ঠ, পেশাগত উৎকর্ষ ও বিজ্ঞানভিত্তিক এবং নিরপেক্ষ দিকনির্দেশনা সরকারের জন্য বিশেষভাবে সহায়ক হবে বলে মনে করেন তিনি।

টিআইবির নির্বাহী পরিচালক বলেন, ‘এই কমিটি ২০২১-৪১ এর টার্গেট অনুযায়ী ২০৩১ সালের মধ্যে উচ্চ মধ্যম ও ২০৪১ সালের মধ্যে উচ্চ আয়ের দেশে পৌঁছাতে সহায়তা করবে। পাশাপাশি ২০৩১ সালের মধ্যে অতিদারিদ্র্য দূর এবং ২০৪১ সালের মধ্যে দারিদ্র্য শূন্যে নিয়ে আসার জন্য নির্দিষ্ট কৌশল প্রণয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।’

করোনাভাইরাস মহামারির অভিঘাত এবং ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযানের কারণে বিশ্বজুড়ে মন্দা ও দুর্ভিক্ষ পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার এই পরিস্থিতিতে জোর দিচ্ছে কৃচ্ছ্রসাধনে। বিলাসপণ্য আমদানিতেও নিরুৎসাহিত করতে হচ্ছে। পাশাপাশি আমদানিনির্ভর প্রকল্পও বেছে বেছে করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, দেশের অর্থনীতির গতি সচল রাখতে যেসব প্রকল্প অতি প্রয়োজনীয়, সেগুলোই কেবল চালিয়ে যাওয়া হবে। যেসব প্রকল্প এখনই না করলেও চলে, সেগুলো বাস্তবায়নে ধীরে চলার নির্দেশ দেন তিনি।

আরও পড়ুন:
তিন বিদ্যুৎকেন্দ্রে ৩৯০ কোটি টাকার দুর্নীতি: টিআইবি
উপাত্ত সুরক্ষা আইনের খসড়া নিয়ে টিআইবির উদ্বেগ
টিআইবির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থার পক্ষে তথ্যমন্ত্রী

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Gas shut off in Mirpur Pallabi on Saturday

মিরপুর, পল্লবীতে গ্যাস বন্ধ শনিবার

মিরপুর, পল্লবীতে গ্যাস বন্ধ শনিবার পুরো মিরপুর এলাকা ও পল্লবীতে থাকবে না গ্যাস। ফাইল ছবি/নিউজবাংলা
শনিবার সকাল ৯টা হতে রাত ৯টা পর্যন্ত ১২ ঘণ্টা রাজধানীর মিরপুর ১, ২, ৬, ৭, ১০, ১১, ১২, ১৩, ইস্টার্ন হাউজিং (পল্লবী), রূপনগর, আরামবাগ, আলুবদি, মিরপুর ডিওএসএইচ পর্যন্ত এলাকায় সব শ্রেণির গ্রাহকদের গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। সে সঙ্গে আশপাশের এলাকায় গ্যাসের স্বল্প চাপ থাকতে পারে।

পাইপলাইন সংস্কারের জন্য শনিবার মিরপুরে ১২ ঘণ্টা গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখবে তিতাস গ্যাস অ্যান্ড ট্রান্সমিশন কোম্পানি।

সেই সঙ্গে মিরপুরের পার্শ্ববর্তী এলাকাগুলোতেও এ সময় গ্যাসের চাপ কম থাকবে।

শুক্রবার এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে সংস্থাটি।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জরুরি গ্যাস পাইপলাইন সংস্কার কাজের জন্য শনিবার সকাল ৯টা হতে রাত ৯টা পর্যন্ত ১২ ঘণ্টা রাজধানীর মিরপুর ১, ২, ৬, ৭, ১০, ১১, ১২, ১৩, ইস্টার্ন হাউজিং (পল্লবী), রূপনগর, আরামবাগ, আলুবদি, মিরপুর ডিওএসএইচ পর্যন্ত এলাকায় সব শ্রেণির গ্রাহকদের গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। সে সঙ্গে আশপাশের এলাকায় গ্যাসের স্বল্প চাপ থাকতে পারে।

গ্রাহকের সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে তিতাস।

আরও পড়ুন:
গ্যাসের লিকেজের আগুনে দগ্ধ আনোয়ারের মৃত্যু
কৈলাশটিলার ৭ নম্বর কূপ থেকে গ্যাস সরবরাহ শুরু
গ্রিডে দৈনিক যুক্ত হবে ২ কোটি ঘনফুট গ্যাস
ঈদে গ্যাসের চাপ কম থাকবে ঢাকার যেসব এলাকায়
গ্যাসের দাম বাড়লে আরও বাড়বে পণ্যমূল্য: ক্যাব

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The body of the housewife was hanging with the fan

ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছিল গৃহবধূর মরদেহ

ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছিল গৃহবধূর মরদেহ মরদেহ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। ছবি: নিউজবাংলা
কামরাঙ্গীরচর থানার এসআই ফাহমিদা ইয়াসমিন বলেন, ‘খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে কামরাঙ্গীরচর মধ্য ইসলামনগর মজিবর ঘাট এলাকার ৭ নম্বর রোডের একটি বাসা থেকে ওই গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করি। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া গেছে। তার নাম আলিফা আক্তার।

বৃহস্পতিবার রাতের দিকে এ ঘটনা ঘটে।

বরিশালের মুলাদী উপজেলার নন্দিরবাজার গ্রামের বাসিন্দা তিনি। বর্তমানে কামরাঙ্গীরচরের মধ্য ইসলামনগর মজিবর ঘাট এলাকার একটি বাসায় স্বামী আব্দুর রহিমকে নিয়ে থাকতেন।

কামরাঙ্গীরচর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ফাহমিদা ইয়াসমিন বলেন, ‘খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে কামরাঙ্গীরচর মধ্য ইসলামনগর মজিবর ঘাট এলাকার ৭ নম্বর রোডের একটি বাসা থেকে ওই গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করি। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

‘স্বামী-স্ত্রীর পারিবারিক কলহের জেরে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।’

আলিফার বাবা নান্নু মিয়া বলেন, ‘পাঁচ মাস আগে আমার মেয়ের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য আমার মেয়েকে বিভিন্ন সময়ে মানসিকভাবে নির্যাতন করা হতো। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া লেগেই থাকত।

‘কয়েক দিন আগে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে আমার বাসায় চলে আসে। পরে বুঝিয়ে তাকে আবার স্বামীর সঙ্গে পাঠিয়ে দেয়া হয়। গত রাতে স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়ার একপর্যায়ে অভিমান করে আমার মেয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।’

আরও পড়ুন:
‘বিদ্যুৎস্পর্শে’ যুবকের মৃত্যু 
ধান ক্ষেতের পাশে নারীর গলিত মরদেহ
ফ্যানে ঝুলছিল প্রাথমিক স্কুলছাত্রীর মরদেহ
মধুমতীতে হাত-পা বাঁধা মরদেহ
বিয়েবিচ্ছেদের প্রতিশোধ নিতেই শিশুকে খুন

মন্তব্য

বাংলাদেশ
There is no way for BNP without elections Nanak

নির্বাচন ছাড়া বিএনপির সামনে পথ নেই: নানক

নির্বাচন ছাড়া বিএনপির সামনে পথ নেই: নানক শুক্রবার ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে এক সমাবেশে বক্তব্য দেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক। ছবি: নিউজবাংলা
আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘বিএনপি অহেতুক অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করার চেষ্টা করছে। বিএনপির কর্মকাণ্ড মানুষ ভুলে নাই। তাদের নেতা নাই। নেতৃত্বশূন্য দল বিএনপি। তাই এখন পানি ঘোলা করে দেশে একটি অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করার চেষ্টা করছে। কোনো লাভ হবে না, বিএনপিকে নির্বাচনে আসতে হবে।’

নির্বাচনে অংশ নেয়া ছাড়া বিএনপির সামনে আর কোনো পথ খোলা নেই বলে মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক।

শুক্রবার ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতির সামনে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে এক সমাবেশে অংশ নিয়ে তিনি এমন মন্তব্য করেন। সমাবেশের আয়োজন করে মহিলা আওয়ামী লীগ।

নির্বাচন ছাড়া বিএনপির সব পথ বন্ধ উল্লেখ করে নানক বলেন, ‘গত রমজান থেকেই বিএনপির প্রার্থীরা তাদের এলাকায় নির্বাচনি প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তারা আসলে আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন। এ ছাড়া তাদের কোনো পথ খোলা নেই। এখন হয়তো পানি ঘোলা করার চেষ্টা করছেন।’

আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘বিএনপি অহেতুক অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করার চেষ্টা করছে। বিএনপির কর্মকাণ্ড মানুষ ভুলে নাই। তাদের নেতা নাই। নেতৃত্বশূন্য দল বিএনপি। তাই এখন পানি ঘোলা করে দেশে একটি অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি করার চেষ্টা করছে। কোনো লাভ হবে না, বিএনপিকে নির্বাচনে আসতে হবে।’

মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিয়া খাতুনের সভাপতিত্বে সমাবেশের সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগম। এ সময় আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, মহিলাবিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকিসহ মহিলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

আরও পড়ুন:
দুই-এক মাসের মধ্যে বিএনপির সঙ্গে সংলাপ: সিইসি
নির্বাচন নিয়ে ফন্দিফিকির করে বিএনপি: হানিফ
নিউ মার্কেটে সংঘর্ষ: বিএনপি নেতা মকবুলের জামিন নাকচ
বিএনপি ক্ষমতালোভী ফ্যাসিবাদী: কাদের

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Peoples Commission has no legal basis Home Minister

গণকমিশনের আইনি ভিত্তি নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

গণকমিশনের আইনি ভিত্তি নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুক্রবার দুপুরে লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের ২৭তম বার্ষিক সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। ছবি: নিউজবাংলা
মন্ত্রী বলেন, ‘গণকমিশনের আইনি কোনো ভিত্তি নেই। তারা একটি বই প্রকাশ করেছে ২ হাজার দিন সন্ত্রাস নামে। বইয়ের ভেতরে কী লিখেছে, তা আমি জানি না। এগুলো আমাদের দেখতে হবে।’

দেশের এক হাজার মাদ্রাসা ও শতাধিক ইসলামি বক্তার বিভিন্ন তথ্য দিয়ে ‘ধর্ম ব্যবসায়ীদের’ দুর্নীতির তদন্তের আহ্বান জানানো গণকমিশনের আইনি ভিত্তি নেই বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুক্রবার দুপুরে লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের ২৭তম বার্ষিক সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘গণকমিশনের আইনি কোনো ভিত্তি নেই। তারা একটি বই প্রকাশ করেছে ২ হাজার দিন সন্ত্রাস নামে। বইয়ের ভেতরে কী লিখেছে, তা আমি জানি না। এগুলো আমাদের দেখতে হবে।

‘তারা কাদের নামে সন্ত্রাস ও দুর্নীতির দায় দিয়েছেন এগুলো আমরা কেউই কোনো তদন্ত করিনি। সুতরাং এ বিষয়ে আমরা কিছু বলতে পারব না। তারা দিয়েছেন। আমরা না দেখে বলতে পারব না। দেখে বলতে হবে।’

গণকমিশনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিলে হেফাজত আন্দোলনে নামার ঘোষণা দিয়েছে। তারা আন্দোলনে নামলে কী ব্যবস্থা নেয়া হবে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আইন কেউ হাতে নিলে আমাদের যা করণীয়, সেটাই করব। এটা স্পষ্ট করে বলে দিচ্ছি।

‘আমরা একটি কথা জোর দিয়ে বলতে চাই, যে অভিযোগের কোনো প্রমাণ নেই, সে অভিযোগ আমরা আমলে নিই না।’

প্রেক্ষাপট

গত ১১ মে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান মঈনউদ্দীন আবদুল্লার কাছে শ্বেতপত্র ও সন্দেহভাজন শতাধিক ব্যক্তির তালিকা হস্তান্তর করে ‘বাংলাদেশে মৌলবাদী ও সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস তদন্তে গণকমিশন’।

কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক ও সদস্যসচিব ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধিদল এ তালিকা হস্তান্তর করে।

গণকমিশনের তালিকায় সন্দেহভাজন হিসেবে ১১৬ জনের নাম রয়েছে। শ্বেতপত্র ও তালিকাটি একই সঙ্গে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনেও দেয়া হয়েছে।

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি এবং জাতীয় সংসদের আদিবাসী ও সংখ্যালঘুবিষয়ক ককাসের যৌথ উদ্যোগে গঠন করা হয় গণকমিশন।

এর আগে ‘বাংলাদেশে মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের ২০০০ দিন’ শীর্ষক শ্বেতপত্রটির মোড়ক উন্মোচন করা হয় ১২ মার্চ।

আরও পড়ুন:
আ.লীগের নেতৃত্বে থাকলে বাংলাদেশ এগিয়ে চলবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
হরতালে ভাঙচুর হলে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
কারও হুংকারে দেশ স্বাধীন হয়নি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
২৬ মার্চ সকালে আমিনবাজার সড়কে সাধারণ যানবাহন বন্ধ
খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের আবেদন আইন মন্ত্রণালয়ে

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Passengers arrested at the airport with 1258 grams of gold

বিমানবন্দরে ১২৫৮ গ্রাম স্বর্ণসহ যাত্রী গ্রেপ্তার

বিমানবন্দরে ১২৫৮ গ্রাম স্বর্ণসহ যাত্রী গ্রেপ্তার সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসা এক যাত্রীর লাগেজ থেকে ৮টি, প্যান্টের পকেট থেকে ২টি স্বর্ণের বারসহ ১.২৫৮ কিলোগ্রাম স্বর্ণালংকার পাওয়া যায়। ছবি: নিউজবাংলা
এয়ারপোর্ট কাস্টম হাউসের প্রিভেন্টিভ কর্মকর্তা প্রদীপ কুমার বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে যাত্রী ওমর ফারুক গ্রিন চ্যানেল পার হওয়ার সময় তার লাগেজ স্ক্যান করা হয় এবং তাকেও আর্চওয়ে দিয়ে পার করানো হয়। স্ক্যানের সময় ফারুকের লাগেজ ও প্যান্টের পকেটের ভেতর স্বর্ণের ইমেজ পাওয়া যায়।’

রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজাহ থেকে আসা এক যাত্রীকে ১.২৫৮ কিলোগ্রাম স্বর্ণসহ গ্রেপ্তার করেছে কাস্টম হাউসের ঢাকার প্রিভেন্টিভ টিম।

গ্রেপ্তার যাত্রীর নাম ওমর ফারুক। তার গ্রামের বাড়ি নোয়াখালী।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টার সময় এয়ার এরাবিয়ার জি-৯৫১৮ ফ্লাইটে বিমানবন্দরে নামার পর লাগেজ স্ক্যানের সময় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এয়ারপোর্ট কাস্টম হাউসের প্রিভেন্টিভ কর্মকর্তা প্রদীপ কুমার এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে যাত্রী ওমর ফারুক গ্রিন চ্যানেল পার হওয়ার সময় তার লাগেজ স্ক্যান করা হয় এবং তাকেও আর্চওয়ে দিয়ে পার করানো হয়। স্ক্যানের সময় ফারুকের লাগেজ ও প্যান্টের পকেটের ভেতর স্বর্ণের ইমেজ পাওয়া যায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘পরে কাস্টম ব্যাগেজ কাউন্টারে ফারুকের লাগেজ খুলে ৮টি, প্যান্টের পকেট থেকে ২টি স্বর্ণের বারসহ ৯৮ গ্রাম স্বর্ণালংকার পাওয়া যায়। যার ওজন ১.২৫৮ কেজি এবং বাজারমূল্য প্রায় ৯৩ লাখ টাকা।’

এ ঘটনায় ফৌজদারি মামলাসহ ওই যাত্রীর বিরুদ্ধে কাস্টম আইনে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:
বিমানবন্দরের টয়লেটে ৪৬টি স্বর্ণের বার
বিমানের ভেতর কাপড়ে লুকানো ছিল ১০ কেজি স্বর্ণ

মন্তব্য

উপরে