× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

বাংলাদেশ
I want to be champion in Youth World Cup IGP
google_news print-icon

যুব বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হতে চাই: আইজিপি

যুব-বিশ্বকাপে-চ্যাম্পিয়ন-হতে-চাই-আইজিপি
বুধবার পল্টন ময়দানে ‘আইজিপি কাপ জাতীয় যুব কাবাডি চ্যাম্পিয়নশিপ-২০২১ এর চূড়ান্ত পর্বের উদ্বোধন শেষে বক্তব্য দেন আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ। ছবি: নিউজবাংলা
যুব কাবাডি বিশ্বকাপের গত আসরে বাংলাদেশের সাফল্য তুলে ধরে আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘এবারের চ্যাম্পিয়নশিপের আয়োজন থেকে বাছাইকৃত খেলোয়াড়দের উন্নত প্রশিক্ষণের আওতায় আনা হবে। পর্যায়ক্রমে এ দলকে আসন্ন যুব কাবাডি বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত করা হবে। ২০১৮ সালের আইজিপি কাপ থেকে বাছাই করা খেলোয়াড়দের দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছিল। পরবর্তীতে ওই দলকে ইরানে যুব বিশ্বকাপে পাঠানো হয়েছিল। ওই আসরে ব্রোঞ্জ পাওয়া বাংলাদেশ এবার আরও ভাল করতে চায়। এ লক্ষ্যে ভারত থেকে দুজন বিশেষজ্ঞ কোচ আনা হয়েছে।’

জাতীয় যুব কাবাডি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী তরুণ খেলোয়াড়দের উদ্দেশে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, যুব বিশ্বকাপে সেরা হতে চায় বাংলাদেশ।

বুধবার বর্ণিল আয়োজনে শুরু হয়েছে ‘আইজিপি কাপ জাতীয় যুব কাবাডি চ্যাম্পিয়নশিপ-২০২১। ঐতিহাসিক পল্টন ময়দানে চূড়ান্ত পর্বের উদ্বোধন করে এ কথা বলেন পুলিশ প্রধান।

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা তৃতীয় হতে চাই না, রানার্সআপ হতে চাই না। আমরা চ্যাম্পিয়ন হতে চাই।’

যুব কাবাডি বিশ্বকাপের গত আসরে বাংলাদেশের সাফল্য তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘এবারের চ্যাম্পিয়নশিপের আয়োজন থেকে বাছাইকৃত খেলোয়াড়দের উন্নত প্রশিক্ষণের আওতায় আনা হবে। পর্যায়ক্রমে এ দলকে আসন্ন যুব কাবাডি বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত করা হবে।

‘২০১৮ সালের আইজিপি কাপ থেকে বাছাই করা খেলোয়াড়দের দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছিল। পরবর্তীতে ওই দলকে ইরানে যুব বিশ্বকাপে পাঠানো হয়েছিল। ওই আসরে ব্রোঞ্জ পাওয়া বাংলাদেশ এবার আরও ভাল করতে চায়। এ লক্ষ্যে ভারত থেকে দুজন বিশেষজ্ঞ কোচ আনা হয়েছে।’

নতুন প্রজন্মের সামনে অপেক্ষা করছে ধনী, আধুনিক বাংলাদেশ উল্লেখ করে, আইজিপি বলেন, ‘তোমাদের সামনে আগামীর বাংলাদেশ। আগামীর বাংলাদেশ মানে ধনী বাংলাদেশ, আধুনিক বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার ফলে এটি সম্ভব হয়েছে।’

দেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রার কথা তুলে ধরে আইজিপি বলেন, ‘৩০ লাখ শহীদের তাজা রক্তের বিনিময়ে আমরা এ ভূখণ্ড পেয়েছি। আমরা স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপন করছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন পৃথিবীর ৩৬তম অর্থনৈতিক শক্তি। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর প্রাজ্ঞ অর্থনৈতিক পরিকল্পনার ফলে আমরা দারিদ্র্যকে পরাজিত করতে পেরেছি।’

তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কাদামাটির গন্ধে সোঁদা গ্রাম বাংলার মানুষের খেলা কাবাডিকে আমাদের জাতীয় খেলা হিসেবে মর্যাদা দিয়েছেন। আমরা এ খেলাকে সারা বিশ্ব ছড়িয়ে দিতে চাই।’

ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘আমরা বিজয় অর্জন করবো। বিজয় ছিনিয়ে আনবো। আমরা কোনো পরাভব মানবো না। বিজয় ছিনিয়ে নিয়ে আসবো। বাংলাদেশের জন্ম হয়েছে বিশ্ব কাঁপানোর জন্য, মাথা উঁচিয়ে দাঁড়ানোর জন্য।’

বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশনের সভাপতি ও র‍্যাব মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (বিওএ) মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কাবাডি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক-১ ও অতিরিক্ত ডিআইজি গাজী মো. মোজাম্মেল হক, যুগ্ম সম্পাদক-২ ও টুর্নামেন্ট কমিটির সদস্য সচিব নেওয়াজ সোহাগ।

র‍্যাব মহাপরিচালক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কাবাডিকে জাতীয় খেলা হিসেবে ঘোষণা করেছেন। আমরা আমাদের জাতীয় খেলা কাবাডিকে দেশে-বিদেশে জনপ্রিয় করে তুলতে দেশব্যাপী জাতীয় যুব কাবাডি প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছি।’

চূড়ান্ত পর্বে বালক ও বালিকা বিভাগের ১৬টি করে ৩২ দল অংশগ্রহণ করছে। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের আগে নানা বর্ণের বেলুন হাতে খেলোয়াড়রা মার্চপাস্ট করেন। সেখানে ছিল আতশবাজির ঝলকানি ও মনোজ্ঞ ডিসপ্লে।

পরে আইজিপি বেলুন উড়িয়ে প্রতিযোগিতা উদ্বোধন করেন।

আঞ্চলিক পর্বে বালক বিভাগে ৫৮ ও বালিকা বিভাগে ৫১ জেলা দল অংশগ্রহণ করেছে।

অংশগ্রহণকারী দলগুলোকে আট অঞ্চলে ভাগ করে আয়োজিত হয় প্রাথমিক পর্বের খেলা। বালক বিভাগে ৫৮ জেলার ৪১৭ উপজেলার ৪১৭১ ইউনিয়ন ও বালিকা বিভাগে ৫১ জেলার ৩৯৮ উপজেলার ৩৮৯৭ ইউনিয়ন অংশগ্রহণ করেছে। বালক বিভাগে মোট খেলোয়াড় সংখ্যা ৫০ হাজার ৫২ জন, বালিকা বিভাগে ৪৬ হাজার ৭৬৪ জন খেলোয়াড় এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছে।

আরও পড়ুন:
চাঁদপুরে শুরু অনূর্ধ্ব ১৯ জাতীয় যুব কাবাডি
ফরিদপুরে বৃহস্পতিবার শুরু আইজিপি কাপ কাবাডি
ওসি হতে পারেন হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা: আইজিপি
পুলিশে শৃঙ্খলা ভাঙলে কঠোর ব্যবস্থা: আইজিপি
ভারতের প্রো কাবাডিতে এবার বাংলাদেশের তিনজন

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
5 marriages of security guards in police identity

পুলিশ পরিচয়ে ৫ বিয়ে নিরাপত্তা প্রহরীর

পুলিশ পরিচয়ে ৫ বিয়ে নিরাপত্তা প্রহরীর বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর মিরপুরের মনিপুর কাঠালতলা এলাকা থেকে তিনি গ্রেপ্তার হন শাকিল। ছবি: নিউজবাংলা
মিরপুর মডেল থানার ওসি মহসীন বলেন, ‘রাজধানীর বাড্ডা এলাকার এক মেয়েকে একইভাবে প্রেমের ফাঁদে ফেলে তিনি মিরপুর নিয়ে যান। বিয়ে করবেন বলে ৫০ টাকার নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে তার স্বাক্ষর নেন। এরপর নিজেই নিজের বিয়ে পড়েন।’

পুলিশ পরিচয়ে প্রতারণা করে ৫টি বিয়ের অভিযোগে শাকিল হোসেন নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ‘পুলিশ’ পরিচয় দিলেও পেশায় তিনি নিরাপত্তা প্রহরী (সিকিউরিটি গার্ড)।

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর মিরপুর মডেল থানার মনিপুর কাঠালতলা এলাকা থেকে তিনি গ্রেপ্তার হন।

এ সময় তার বাসা থেকে পুলিশের ১টি পরিচয়পত্র, ১টি ক্যাপ, ১ জোড়া জুতা, ১টি ওয়ারলেস সেট ও ১টি ৫০ টাকা সমমূল্যের নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্প জব্দ করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মিরপুর মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘শাকিল একজন প্রতারক। তার নাম শাকিল হলেও তিনি সবাইকে পরিচয় দেন রানা নামে।

‘একটি বেসরকারি কোম্পানিতে সিকিউরিটি গার্ডের চাকরি করলেও তিনি নিজেকে পরিচয় দেন পুলিশের এএসআই হিসেবে। মানুষ যাতে বিশ্বাস করে, তাই ওই নামে তিনি আইডি কার্ড ও পুলিশের ক্যাপ বানিয়েছেন, পুলিশের জুতা ও ওয়াকিটকিও কিনেছেন।’

তিনি বলেন, ‘ভুয়া পরিচয়েই তিনি বিভিন্ন মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে বিয়ের নামে স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বসবাস করেন। কিছুদিন থাকার পর পালিয়ে যান।’

এভাবে তিনি ৫টি বিয়ে করেছেন বলে জানান ওসি মহসীন।

ওসি বলেন, ‘রাজধানীর বাড্ডা এলাকার এক মেয়েকে একইভাবে প্রেমের ফাঁদে ফেলে তিনি মিরপুর নিয়ে যান। বিয়ে করবেন বলে ৫০ টাকার নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে তার স্বাক্ষর নেন। এরপর নিজেই নিজের বিয়ে পড়েন।

‘বিয়ের কিছুদিন পরই তার গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হয় মেয়েটির কাছে। এরপর তিনি পুলিশের কাছে বিষয়টি জানালে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে প্রতারণার কথা স্বীকার করেন শাকিল।’

তার বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী মেয়েটি ধর্ষণের মামলা করেছেন বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন:
ইউনিসেফের নাম করে চাকরির বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণা
ফেসবুকে নারী সেজে প্রতারণার মামলায় গ্রেপ্তার হাবিপ্রবির ছাত্র
বাংলাদেশিদের সঙ্গে নিয়ে ২ নাইজেরিয়ানের পার্সেল ফাঁদ
সরকারি কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা, অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে চক্র
‘র‌্যাপিড ক্যাশ’ চক্রের টার্গেটে বাংলাদেশসহ তিন দেশ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Awami Leagues joyous procession welcoming the budget

বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে আনন্দ মিছিল আওয়ামী লীগের

বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে আনন্দ মিছিল আওয়ামী লীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলের প্রধান কার্যালয়ের সামনে থেকে বৃহস্পতিবার বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে আনন্দ মিছিল বের করে। ছবি: নিউজবাংলা
সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গণমুখী বাজেট দেয়ায় কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানান বক্তারা।

২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে আনন্দ শোভাযাত্রা করেছে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ, কৃষক লীগ, তাঁতী লীগ, মৎস্যজীবী লীগ ও ছাত্রলীগ।

এ ছাড়া ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণের প্রতিটি থানা-ওয়ার্ডে আনন্দ মিছিল ও শোভাযাত্রা হয়।

বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলের প্রধান কার্যালয়ের সামনে মিছিল বের করে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ।

এতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গণমুখী বাজেট দেয়ায় কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানান বক্তারা।

বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে আনন্দ মিছিল আওয়ামী লীগের
বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে বৃহস্পতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মিছিল বের করে ছাত্রলীগ। ছবি: নিউজবাংলা

বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে দলের প্রধান কার্যালয়ের সামনে আনন্দ শোভাযাত্রা করেছে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন কৃষক লীগ।

একই দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের টানা ১৫তম বাজেট পেশ উপলক্ষ্যে রাজধানীতে আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ করেছে আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগ।

গুলিস্তান কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি মিছিল বের হয়ে আশপাশের সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ফের সেখানেই শেষ হয়।

বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে আনন্দ মিছিল করেছে স্বেচ্ছাসেবক লীগ।

ছাত্রলীগ বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন থেকে মিছিল বের করে।

মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে রাজু ভাস্কর্যের সামনে এসে শেষ হয়।

আরও পড়ুন:
আগামী অর্থবছর থেকেই সর্বজনীন পেনশন স্কিম: অর্থমন্ত্রী
আইন ও বিচার বিভাগে ১৯ কোটি টাকা বরাদ্দ বৃদ্ধির প্রস্তাব
১২ কেজির সিলিন্ডার গ্যাস এখন ১ হাজার ৭৪ টাকা
ম্যালেরিয়া ও যক্ষ্মার ওষুধের দাম কমতে পারে
স্বর্ণ আনতে দিতে হবে দ্বিগুণ শুল্ক

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Peoples suffering will be eased in the proposed budget Obaidul Quader

প্রস্তাবিত বাজেটে মানুষের কষ্ট লাঘব হবে: ওবায়দুল কাদের

প্রস্তাবিত বাজেটে মানুষের কষ্ট লাঘব হবে: ওবায়দুল কাদের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখে এ বাজেট প্রণীত হয়েছে।’

২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে সাধারণ মানুষের কষ্ট লাঘব হবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল প্রস্তাবিত বাজেট সংসদে পেশ করার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় ওবায়দুল কাদের এমন মন্তব্য করেন।

সংসদ থেকে বের হয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বাজেটটা এমনভাবে করা হয়েছে যে, মানুষের কষ্ট লাঘব হবে। দ্রব্যমূল্য মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকবে। সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখে এ বাজেট প্রণীত হয়েছে। এ জন্য এটাকে জনবান্ধব বলছি।’

এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর অনুমোদনক্রমে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সংসদে প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করেন।

আরও পড়ুন:
আইন ও বিচার বিভাগে ১৯ কোটি টাকা বরাদ্দ বৃদ্ধির প্রস্তাব
১২ কেজির সিলিন্ডার গ্যাস এখন ১ হাজার ৭৪ টাকা
ম্যালেরিয়া ও যক্ষ্মার ওষুধের দাম কমতে পারে
স্বর্ণ আনতে দিতে হবে দ্বিগুণ শুল্ক
দেশে তৈরি মোবাইল সেটের দাম বাড়ছে

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Youth killed by train in Khilkshet

খিলক্ষেতে ট্রেনের ধাক্কায় যুবক নিহত

খিলক্ষেতে ট্রেনের ধাক্কায় যুবক নিহত ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত যুবকের মরদেহ ঢামেক হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়। ফাইল ছবি
পুলিশ জানায়, ঘটনাস্থলের আশপাশের লোকজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, আজ সকালের দিকে যুবকটি রেললাইন দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন। ওই সময় ট্রেনের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন তিনি।

রাজধানীর খিলক্ষেত রেল ক্রসিংয়ের পাশে ট্রেনের ধাক্কায় এক যুবক নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৬টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ওই যুবকের পরিচয় জানা যায়নি।

নিহত যুবককে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া ঢাকা রেলওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. এমদাদ বলেন, ‘আজ সকালের দিকে আমরা খবর পেয়ে খিলক্ষেত রেল ক্রসিংয়ের উত্তর পাশ থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করি। পরে আইনি প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।’

তিনি আরও বলেন, ঘটনাস্থলের আশপাশের লোকজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, আজ সকালের দিকে যুবকটি রেললাইন দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন। ওই সময় ট্রেনের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন তিনি।

পুলিশের এ কর্মকর্তা জানান, সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিটকে খবর দেয়া হয়েছে। ফিঙ্গারপ্রিন্টের মাধ্যমে হয়তো তার পরিচয় জানা যেতে পারে।

আরও পড়ুন:
বালতিতে পড়ে শিশুর মৃত্যু
মদ্যপ তরুণ-তরুণী ঢামেকে যা করলেন
রাজধানীতে ২ হাসপাতালের সামনে মরদেহ
ইফতারে আপেলের টুকরো গলায় আটকে শিশুর মৃত্যু
প্রবাসীর অস্বাভাবিক মৃত্যু, স্ত্রী বলছেন ‘আত্মহত্যা’

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Councilor Mizan Rajib arrested according to law RAB

আইন মেনেই গ্রেপ্তার কাউন্সিলর মিজান-রাজীব: র‍্যাব

আইন মেনেই গ্রেপ্তার কাউন্সিলর মিজান-রাজীব: র‍্যাব র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন বাহিনীটির মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন। ছবি: নিউজবাংলা
র‌্যাবের মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, ‘তাদের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা তদন্তাধীন। আর আদালত বলতে পারবেন, কারা দোষী ছিলেন, কারা ছিলেন না। অভিযান আমরা পরিচালনা করেছি গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে এবং আইন মেনে।’

র‍্যাবের ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে কাউন্সিলর মিজান-রাজীবসহ অন্য যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল, সবই গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে আইন মেনে করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বাহিনীটির মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে র‍্যাবের মিডিয়া সেন্টারে ২০১৯ সালে র‌্যাবের ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান প্রশ্নবিদ্ধ জানিয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সাবেক দুই কাউন্সিলরের সংবাদ সম্মেলন বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

সাবেক দুই কাউন্সিলরের সংবাদ সম্মেলন বিষয়ে র‌্যাবের মন্তব্য কী জানতে চাইলে কমান্ডার মঈন বলেন, ‘সাবেক দুই কাউন্সিলরের যে অভিযোগ, তা সংক্ষুব্ধ হয়ে যে কেউ করতে পারেন। তবে আমাদের ক্যাসিনো অভিযান দেশবাসী দেখেছেন। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দুর্নীতিমুক্ত দেশগঠনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাজ করে যাচ্ছে। সেখানে একটি শ্রেণী দুর্নীতির মাধ্যমে মানুষের টাকা আত্মসাৎ করছে, এমন অভিযোগে আমাদের অভিযান ছিল। শুধু দুজনের বিরুদ্ধে অভিযান না, আমরা ওই সময় আরও অভিযান করেছি, কিন্তু কোনো প্রশ্ন ওঠেনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘২০১৯ সালে আমরা অভিযান চালিয়েছি। তাদের সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ থাকলে, এত দিনে র‌্যাব সদরদপ্তর, আদালত বা পুলিশ সদরদপ্তরে অভিযোগ জানাতে পারতেন। কিন্তু এত দিন পর তারা নিজেদের নির্দোষ দাবি করছেন! এটা সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি হিসেবে করতে পারেন।’

কমান্ডার মঈন বলেন, ‘তাদের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা তদন্তাধীন। আর আদালত বলতে পারবেন, কারা দোষী ছিলেন, কারা ছিলেন না। অভিযান আমরা পরিচালনা করেছি গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে এবং আইন মেনে।’

রোববার ডিআরইউতে সংবাদ সম্মেলন করেন সাবেক কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান মিজান ও তারেকুজ্জামান রাজীব।

তাতে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের নামে তাদের ফাঁসানো হয়েছে বলে দাবি করেন।

আরও পড়ুন:
সেলিম প্রধানের মুক্তির দাবিতে রুশ স্ত্রীর জামিন আবেদন
ক্যাসিনো ব্যবসা: সেলিম প্রধানের জামিন নাকচ
সেলিম প্রধানের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ পেছাল
ক্যাসিনোকাণ্ডে গ্রেপ্তার সেলিমের মুক্তি চাইলেন রুশ স্ত্রী
ক্যাসিনো সরঞ্জামসহ আটক ৫৩

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The court allowed the emperor to go abroad

সম্রাটকে বিদেশ যাওয়ার অনুমতি আদালতের

সম্রাটকে বিদেশ যাওয়ার অনুমতি আদালতের ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট। ফাইল ছবি
বৃহস্পতিবার ঢাকার বিশেষ আদালত-৬ এর বিচারক মো. মঞ্জুরুল ইমামের আদালতে মামলাটির অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য দিন ছিল। সম্রাটের আইনজীবী এহসানুল হক সমাজী অভিযোগ গঠন শুনানি পেছানোর আবেদন করেন। আবেদন মঞ্জুর করে আদালত আগামী ৬ জুলাই অভিযোগ গঠন শুনানির পরবর্তী তারিখ ধার্য করে এবং সম্রাটের বিদেশে গিয়ে চিকিৎসার আবেদন মঞ্জুর করে।

জ্ঞাত-আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটকে চিকিৎসার জন্য বিদেশ যাওয়ার অনুমতি দিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার ঢাকার বিশেষ আদালত-৬ এর বিচারক মো. মঞ্জুরুল ইমামের আদালতে মামলাটির অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য দিন ছিল। সম্রাটের আইনজীবী এহসানুল হক সমাজী অভিযোগ গঠন শুনানি পেছানোর আবেদন করেন। আবেদন মঞ্জুর করে আদালত আগামী ৬ জুলাই অভিযোগ গঠন শুনানির পরবর্তী তারিখ ধার্য করে এবং সম্রাটের বিদেশে গিয়ে চিকিৎসার আবেদন মঞ্জুর করে।

সারা দেশে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান চলাকালে ২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর সম্রাট ও তার সহযোগী তৎকালীন যুবলীগ নেতা এনামুল হক ওরফে আরমানকে কুমিল্লা থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

ওই বছরের ১২ নভেম্বর সম্রাটের বিরুদ্ধে দুদকের করা মামলায় ২ কোটি ৯৪ লাখ ৮০ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়। পরের বছর অর্থাৎ ২০২০ সালের ২৬ নভেম্বর এ মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় দুদক।

অভিযোগপত্রে সম্রাটের বিরুদ্ধে ২২২ কোটি ৮৮ লাখ ৬২ হাজার ৪৯৩ টাকা জ্ঞাত-আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়।

আরও পড়ুন:
ধানমন্ডিতে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা, গ্রেপ্তার ২৭
নাইকো মামলায় খালেদার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য শুরু
প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি: নেত্রকোনায় বিএনপি কার্যালয়ে আগুন
প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকির অভিযোগে চাঁদের নামে মামলা
খুলনায় পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষ: ১৩০০ জনের নামে মামলা

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Dancer Evans Women Trafficking Case Report 19 June

নৃত্যশিল্পী ইভানের নারী পাচার মামলার প্রতিবেদন ১৯ জুন

নৃত্যশিল্পী ইভানের নারী পাচার মামলার প্রতিবেদন ১৯ জুন ইভান শাহরিয়ার সোহাগ। ফাইল ছবি
এ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমার জন্য দিন ধার্য ছিল বুধবার। কিন্তু মামলার তদন্ত সংস্থা সিআইডি প্রতিবেদন জমা করতে পারেনি। এতে ঢাকা মহানগর হাকিম মো. শাকিল আহাম্মদ নতুন এই দিন ঠিক করেন।

মানবপাচার আইনের মামলায় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নৃত্যশিল্পী ও কোরিওগ্রাফার ইভান শাহরিয়ার সোহাগের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন জমার জন্য আগামী ১৯ জুন দিন ঠিক করেছে আদালত।

এ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমার জন্য দিন ধার্য ছিল বুধবার। কিন্তু মামলার তদন্ত সংস্থা সিআইডি প্রতিবেদন জমা করতে পারেনি। এতে ঢাকা মহানগর হাকিম মো. শাকিল আহাম্মদ নতুন এই দিন ঠিক করেন।

২০২০ সালের ১১ সেপ্টেম্বর রাতে রাজধানীর নিকেতন থেকে ইভানকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। দুবাই পুলিশের দেয়া তথ্যে মানবপাচারকারী চক্রের সদস্য আজম খান ও তার চার সহযোগীকে গ্রেপ্তারের পর তাদের দেয়া তথ্যে ইভানকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সিআইডি সূত্রে জানা যায়, ২০২০ সালের ২ জুলাই চক্রের মূল হোতা আজম খানসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনে লালবাগ থানায় মামলা করেন সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার মৃণাল কান্তি শাহ।

মামলার বিবরণে বলা হয়, এ চক্রটি মূলত দুবাইসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের ড্যান্স বারে চাকরি দেয়ার কথা বলে নারী পাচার করত। দুবাইয়ে আজম খানের নিজস্ব হোটেল ও ড্যান্স বার আছে। দেশে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যারা নাচ-গান করেন তাদের বেশি আয়ের প্রলোভন দেখিয়ে পাচার করা হতো। সেখানে নিয়ে নৃত্যশিল্পীদের যৌনকর্মে বাধ্য করা হতো।

ইভান শাহরিয়ার সোহাগ নিজের নামে একটি প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করতেন। বিভিন্ন অনুষ্ঠানের নাচে অংশ নিত তার দল। ২০১৭ সালে নির্মিত ‘ধ্যাততেরেকি’ চলচ্চিত্রে নৃত্য পরিচালনার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান তিনি।

আরও পড়ুন:
অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ড. ইউনূসের নামে মামলা
জুয়ার টাকা ভাগাভাগি নিয়ে হত্যা, সব আসামি খালাস
ফালুর ত্রাণের টিন আত্মসাতের মামলা বাতিলের রায় বহাল
প্রধানমন্ত্রীকে হুমকি দেয়া চাঁদের বিরুদ্ধে রাজবাড়ীর আ.লীগ নেতা টিপুর মামলা
ধানমন্ডিতে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা, গ্রেপ্তার ২৭

মন্তব্য

p
উপরে