× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ পৌর নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য

বাংলাদেশ
Students will be in Rampura on Sunday with cartoons
hear-news
player
print-icon

ব্যঙ্গচিত্র নিয়ে রোববার রামপুরায় থাকবে শিক্ষার্থীরা

ব্যঙ্গচিত্র-নিয়ে-রোববার-রামপুরায়-থাকবে-শিক্ষার্থীরা রাজধানীর রামপুরায় ‌‌শনিবার সড়কের অব্যবস্থাপনাকে লাল কার্ড দেখায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। ছবি: সাইফুল ইসলাম/নিউজবাংলা
আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়া খিলগাঁও মডেল কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী সোহাগী সামিয়া বলেন, ‘আজকের মতো আমাদের কর্মসূচি এখানেই শেষ। আমরা আবার আগামীকাল (রোববার) দুপুর ১২টায় রামপুরা ব্রিজের ওপর মানববন্ধন করব। মানববন্ধনে আমরা সড়কের অব্যবস্থাপনার সঙ্গে যারা সংশ্লিষ্ট তাদের প্রতিবেদন চিত্র প্রদর্শন করব।’

নিরাপদ সড়কসহ ১১ দফা দাবি আদায়ে শনিবার রাজধানীর রামপুরা ব্রিজ এলাকায় দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনাকে ‘লাল কার্ড’ দেখিয়েছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

এ কর্মসূচি শেষে রোববার একই জায়গায় অব্যবস্থাপনায় জড়িতদের ব্যঙ্গচিত্র দেখানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা।

শিক্ষার্থীরা দুপুর সোয়া ১২টার দিকে রামপুরা ব্রিজে আসে। বেলা ১টা ১০ মিনিটে স্থান ছাড়ে তারা।

এর আগে নতুন কর্মসূচির ঘোষণা দেয় লাল কার্ড দেখানো ছাত্র-ছাত্রীরা।

আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়া খিলগাঁও মডেল কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী সোহাগী সামিয়া বলেন, ‘আজকের মতো আমাদের কর্মসূচি এখানেই শেষ। আমরা আবার আগামীকাল (রোববার) দুপুর ১২টায় রামপুরা ব্রিজের ওপর মানববন্ধন করব।

‌‘মানববন্ধনে আমরা সড়কের অব্যবস্থাপনার সঙ্গে যারা সংশ্লিষ্ট তাদের প্রতিবেদন চিত্র প্রদর্শন করব। এ ছাড়া আমাদের অভিভাবকসহ সকল মানুষজনকে আমরা আহ্বান জানাচ্ছি আগামীকালের আমাদের কর্মসূচিতে একাত্মতা প্রকাশ করার জন্য।’

বাস ভাড়া অর্ধেক করার দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মাঝে গত সোমবার রাতে রামপুরায় অনাবিল পরিবহনের বাসের ধাক্কায় এসএসসি পরীক্ষা দেয়া এক ছাত্রের প্রাণ যায়।

এর আগে ২৪ নভেম্বর রাজধানীর গুলিস্তানে সিটি করপোরেশনের একটি ময়লার গাড়ির ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন নটর ডেম কলেজের এক ছাত্র।

এ ঘটনার পর নানা দাবিতে প্রতিদিনই রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নিয়ে আন্দোলন করে শিক্ষার্থীরা। সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের পেছনে যারা জড়িত, তাদের বিচারের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের অন্যতম দাবি ছিল বাস ভাড়া অর্ধেক করা।

এমন অবস্থায় গত মঙ্গলবার ঢাকা পরিবহন মালিক সমিতির এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ছাত্রদের দাবি মেনে নিয়েছেন তারা।

বুধবার থেকেই ঢাকা শহরে ছাত্রদের জন্য কার্যকর করা হয় হাফ পাস।

আরও পড়ুন:
ডেমু ট্রেন-বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষ, পুলিশসহ নিহত ৩
বাসচাপায় শিক্ষার্থী নিহত: সুপারভাইজার-হেলপারের স্বীকারোক্তি
বাসচাপায় শিক্ষার্থী নিহত: কনডাক্টর-হেলপার রিমান্ডে
রামপুরায় বাস পোড়ানোর ২ মামলায় আসামি ৭৫০
ছাত্রকে গাড়িচাপা পরিকল্পিত কি না প্রশ্ন তথ্যমন্ত্রীর

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Intercontinental engineers body

ইন্টারকন্টিনেন্টালে প্রকৌশলীর মরদেহ

ইন্টারকন্টিনেন্টালে প্রকৌশলীর মরদেহ ঢাকার পাঁচ তারকা হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল। ছবি: ফেসবুক
ওসি মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে খবর পাই হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে একজনের মরদেহ পড়ে রয়েছে। পরে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করে।’

রাজধানীর রমনার হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল থেকে সুব্রত সাহা নামে এক প্রকৌশলীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

রমনা পুলিশের ধারণা, ওই প্রকৌশলী হোটেলের ছাদ থেকে পড়ে মারা গেছেন। নিহতের বাড়ি চাঁদপুর সদরে।

রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে খবর পাই হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে একজনের মরদেহ পড়ে রয়েছে। পরে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করে।’

তিনি জানান, হোটেলের দ্বিতীয়তলার ছাদে পড়ে ছিল মরদেহ। ঘটনাস্থল থেকে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহে কাজ করছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের ক্রাইম সিন ইউনিট। মরদেহের সুরতহাল শেষে ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মৃত্যুর সুনির্দিষ্ট কারণ সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘সুব্রত সাহা নামে নিহত ওই প্রকৌশলী হোটেলেই চাকরি করতেন। ধারণা করা হচ্ছে, টপ ফ্লোর থেকে পড়ে তার মৃত্যু হয়েছে। পাশাপাশি মৃত্যুর সঠিক কারণ উদঘাটনে অন্যান্য কারণও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে কারণ জানা যাবে বলে জানান তিনি।

নিহতের ভাতিজির জামাই সুমন রায় অভিযোগ করে বলেন, ‘এটা একটি পরিকল্পিত হত্যা, তাকে উপর থেকে ফেলে হত্যা করা হয়েছে।’

তিনি জানান, নিহতের গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর সদরে। এখন কলাবাগান সেন্ট্রাল রোডের ১২২ নম্বর বাসায় পরিবার নিয়ে থাকতেন।

নিহতের সুদীপ্তা চন্দ্র সাহা নামে নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ে রয়েছে।

আরও পড়ুন:
কক্সবাজার সৈকতে দুই যুবকের মরদেহ
উত্তরায় তরুণীর মরদেহ উদ্ধার
স্ত্রী-দুই সন্তান হত্যা, পুলিশ হেফাজতে স্বামী-প্রতিবেশী
নিখোঁজের ২৪ ঘণ্টা পর নদীতে যুবকের মরদেহ
নদীতে যুবকের অর্ধগলিত মরদেহ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
6 kg gold seized in 6 hours operation

৭ ঘণ্টার অভিযানে জব্দ ৮ কেজি স্বর্ণ

৭ ঘণ্টার অভিযানে জব্দ ৮ কেজি স্বর্ণ স্বর্ণসহ আটক বিএফসিসির কর্মচারী। ছবি: নিউজবাংলা
‘দুপুর থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বিমানের ক্যাটারিং অফিসের গেটের সামনে কাস্টমসের দুই ব্যক্তিকে নজরদারিতে রাখা হয়। সাত ঘণ্টা পর রাত ৮টার দিকে আজিজ বিমানের ক্যাটারিং অফিসের গেটের সামনে আসেন। ওই সময় তাকে আটক করা হয়।’

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট ক্যাটারিং সেন্টারের (বিএফসিসি) এক কর্মচারীর কাছ থেকে ৮ কেজি স্বর্ণ জব্দ করেছে ঢাকা কাস্টম হাউস।

ওই কর্মচারীর নাম আব্দুল আজিজ আকন্দ। বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট ক্যাটারিং সেন্টারে কর্মরত তিনি।

তাকে আটক করতে গিয়ে বিএফসিসিতে ঢুকতে কাস্টমস কর্মকর্তাদের বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

ঢাকা কাস্টম হাউসের উপকমিশনার সানোয়ারুল কবির এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

যেভাবে আটক

অভিযানে অংশ নেয়া কাস্টমস কর্মকর্তারা জানান, ঢাকা কাস্টম হাউসের প্রিভেনটিভ ইউনিটের কাছে তথ্য ছিল বিমানের ক্যাটারিং সার্ভিসে কর্মরত এক ব্যক্তির মাধ্যমে স্বর্ণ পাচার হবে। সেই তথ্যের ভিত্তিতে দুপুর ১টার দিকে বিমানের ক্যাটারিং সেন্টারে যান কর্মকর্তারা।

তাদের ভেতরে ঢুকতে বাধা দেয় বিএফসিসি। এরপর একটি গোয়েন্দা সংস্থার সহযোগিতায় ভেতরে প্রবেশ করেন তারা। তখন ক্যাটারিং সেন্টার থেকে জানানো হয় আব্দুল আজিজ দুপুর ১টা ৪৯ মিনিটের দিকে অফিস থেকে বেরিয়ে গেছেন।

উপকমিশনার সানোয়ারুল কবির বলেন, ‘দুপুর থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বিমানের ক্যাটারিং অফিসের গেটের সামনে কাস্টমসের দুই ব্যক্তিকে নজরদারিতে রাখা হয়। সাত ঘণ্টা পর রাত ৮টার দিকে আজিজ বিমানের ক্যাটারিং অফিসের গেটের সামনে আসেন। ওই সময় তাকে আটক করা হয়।

‘তাকে তল্লাশি করে কালো স্কসটেপ দিয়ে মোড়ানো পাঁচটি স্বর্ণের বারের বান্ডিল জব্দ করা হয়। যার আনুমানিক ওজন প্রায় ৮ কেজি। এই স্বর্ণের বাজারমূল্য প্রায় সাড়ে ৬ কোটি টাকা। আটক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ফৌজদারি আইন ও কাস্টমস আইনে মামলা হবে।’

আরও পড়ুন:
স্বর্ণের দাম আরও কমল
ময়লার পলিথিনে ৭০ স্বর্ণের বার
শাহজালালে স্বর্ণসহ ৩ যাত্রী আটক
স্বর্ণ পাচারের শাস্তি: শুধু বেতন কমল বেবিচক কর্মকর্তার
বিমানবন্দরের টয়লেটে ৪৬টি স্বর্ণের বার

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Preserving digital information is important for sustainable development

‘টেকসই উন্নয়নে ডিজিটাল তথ্যের সংরক্ষণ গুরুত্বপূর্ণ’

‘টেকসই উন্নয়নে ডিজিটাল তথ্যের সংরক্ষণ গুরুত্বপূর্ণ’ রাজধানীর মোহাম্মদপুরে বুধবার ওয়াই ডব্লিউ সিএ কনফারেন্স হলে পঞ্চম ডব্লিউ এস ডব্লিউ ডি সম্মেলনে বক্তব্য দেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু। ছবি: নিউজবাংলা
‘একটি নতুন টেকসই সামাজিক বিশ্ব গড়তে এবং সমাজ উন্নয়নে অবদান রাখতে পারে এমন গঠনমূলক সামাজিক দক্ষতার সঙ্গে আমাদের মতামত ও ধারণা বিনিময় করতে হবে। বর্তমান সময়ে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

বিজ্ঞান, শিক্ষা, সংস্কৃতি ও সমাজের টেকসই উন্নয়নের জন্য ডিজিটাল তথ্যের দীর্ঘমেয়াদী সংরক্ষণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু।

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে বুধবার ওয়াই ডব্লিউ সিএ কনফারেন্স হলে পঞ্চম ডব্লিউ এস ডব্লিউ ডি সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

কমিউনিটি সোশ্যাল ওয়ার্ক প্র্যাকটিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে ডব্লিউ এস ডব্লিউ ডি ২০২২: ‘কো-বিল্ডিং এ নিউ ইকো-সোশ্যাল ওয়ার্ল্ড : কাউকে পিছিয়ে না-এসডিজি এবং কমিউনিটি স্থিতিস্থাপকতা অর্জন’ শীর্ষক তিন দিনের এ সম্মেলন হচ্ছে।

সম্মেলনে ৩৫টি দেশের ১২০ জনেরও বেশি ব্যক্তিরা অংশ নেন। সেখানে তাদের ধারণা ও মতামত উত্থাপন করেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সম্মেলনের শিরোনাম বা থিম আমাদের সবার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের একজন সদস্য হিসেবে আমি দেখতে পাচ্ছি, এ আয়োজন বিবেকবান সমাজ পরিবর্তনে বিশ্বজুড়ে একটি বিশাল জ্ঞানভিত্তিক আয়োজন। টেকসই সমাজ ব্যবস্থা গঠনে আমি সুশীল সমাজের সঙ্গে এ বিষয়ে একযোগে কাজ করতে চাই।

‘একটি নতুন টেকসই সামাজিক বিশ্ব গড়তে এবং সমাজ উন্নয়নে অবদান রাখতে পারে এমন গঠনমূলক সামাজিক দক্ষতার সঙ্গে আমাদের মতামত ও ধারণা বিনিময় করতে হবে। বর্তমান সময়ে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি বক্তব্য দেন কোরিয়ার ডিএএসডব্লিউ’র সভাপতি সুগ পিয়ো কিম, ফিলিপাইন সাউদার্ন লেইট স্টেট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক আইভি জি ইয়েপেস, দ্য পিপলস ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবদুল মান্নান চৌধুরী।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Workers die after being electrocuted in the factory

কারখানায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শ্রমিকের মৃত্যু

কারখানায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শ্রমিকের মৃত্যু
‘কামরাঙ্গীরচর আফতাবনগর এলাকায় একটি প্লাস্টিক কারখানায় কাজ করার সময় কাওছার মেশিনের কাছে গেলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে নিলে চিকিৎসক মৃত বলে জানান।’

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে একটি প্লাস্টিক কারখানায় কাজ করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মো. কাওছার নামে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার বেলা ১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসার পর চিকিৎসক বলা ৩টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের সহকর্মী নাসিরউদ্দিন নাসির বলেন, ‘কামরাঙ্গীরচর আফতাবনগর এলাকায় একটি প্লাস্টিক কারখানায় কাজ করার সময় কাওছার মেশিনের কাছে গেলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে নিলে চিকিৎসক মৃত বলে জানান।’

তিনি জানান, নিহতের বাড়ি পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া থানার আমড়াগাছিয়া পাড়ার আব্দুল মালেকের ছেলে। বর্তমানে তিনি কামরাঙ্গীরচরে থাকতেন।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানায় জানানো হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
ডিশ সংযোগের সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু
লোহাগড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু
বিদ্যুৎস্পর্শে শ্বশুর-জামাইয়ের মৃত্যু
ইজিবাইকে চার্জ, বিদ্যুৎস্পৃষ্টে পথচারীর মৃত্যু
বিদ্যুৎস্পৃষ্টে কলেজছাত্রের মৃত্যু

মন্তব্য

বাংলাদেশ
At least one public toilet in all wards of DSCC Tapas

ডিএসসিসির সব ওয়ার্ডে অন্তত একটি করে গণশৌচাগার: তাপস

ডিএসসিসির সব ওয়ার্ডে অন্তত একটি করে গণশৌচাগার: তাপস ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে নতুন একটি গণশৌচাগার উদ্বোধনে মেয়র তাপস। ছবি: সংগৃহীত
মেয়র তাপস বলেন, ‘আপনারা দেখেছেন, ৫০ নম্বর ওয়াার্ডে একটি আধুনিক গণশৌচাগার নির্মাণ করা হয়েছে। এখানে পুরুষ ও মহিলা আলাদা আলাদাভাবেই গণশৌচাগার ব্যবহার করতে পারবেন।’

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৭৫টি ওয়ার্ডেই ন্যূনতম একটি করে গণশৌচাগার নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ সিটির মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস।

বুধবার দুপুরে নগরীর যাত্রাবাড়ী এলাকার জনপথ মোড়ে একটি গণশৌচাগার উদ্বোধন শেষে মেয়র এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘ঢাকাবাসীর দীর্ঘদিনের একটি আকাঙ্ক্ষা ছিল, বিশেষ করে যে সব জায়গায় গণপরিসর ও মানুষের আনাগোনা বেশি সে সব স্থানে যেন পর্যাপ্ত গণশৌচাগার নির্মাণ করা হয়। সেই কার্যক্রম আরম্ভ করেছি। আমাদের লক্ষ্য ৭৫টি ওয়ার্ডে প্রথম পর্যায়ে ন্যূনতম যেন একটি করে গণশৌচাগার নির্মাণ করা যায়।

‘পরে আমরা জরিপ করে আরও চাহিদা অনুযায়ী সেটাকে বৃদ্ধি করব। তবে প্রাথমিক পর্যায়ে আমরা এই লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে চলেছি।’

অর্থ অপচয় না করেই ঢাকাবাসীর মৌলিক সেবা নিশ্চিত করতে কাজ করছেন উল্লেখ করে মেয়র তাপস বলেন, ‘আপনারা দেখেছেন, ৫০ নম্বর ওয়াার্ডে একটি আধুনিক গণশৌচাগার নির্মাণ করা হয়েছে। এখানে পুরুষ ও মহিলা আলাদা আলাদাভাবেই গণশৌচাগার ব্যবহার করতে পারবেন।

‘এটি অত্যন্ত নিয়ম ও শৃঙ্খলা অনুযায়ী পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণ করা হবে। আমাদের চলমান একটি প্রকল্প হতে অর্থ সাশ্রয় করে আমরা এই কাজটি করেছি। সুতরাং অর্থের অপচয় রোধ করেই যেন সঠিকভাবে জনগণের কল্যাণ হয়- সে দিকটা আমরা নজর দিয়েছি। পাশাপাশি আমরা ঢাকাবাসীর মৌলিক সেবা প্রদান নির্বিঘ্ন রাখতেও সজাগ রয়েছি।’

নগরে ছিন্নমূল মানুষদের সুবিধা নিয়ে করা সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র শেখ তাপস বলেন, ‘ছিন্নমূল ও ভবঘুরেদের জন্য আমাদের আশ্রয় কেন্দ্র রয়েছে। কিন্তু সেটা র‍্যাব দখল করে আছে। আমরা অনুরোধ করেছি সেটা ছেড়ে দিতে, কিন্তু এখনো তারা দখল ছাড়েনি। এ ছাড়া ভবঘুরে এবং ছিন্নমূলদের পূনর্বাসনের জন্য আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে।’

এর আগে মেয়র নগরীর মতিঝিল এলাকায় ৮ নম্বর ওয়ার্ডের অন্তর্বর্তীকালীন বর্জ্য স্থানান্তর কেন্দ্র ও পরে নগরীর ৭২ নম্বর ওয়ার্ডে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ৫৫ জন নারীর প্রত্যেকের মাঝে ১০ হাজার টাকা করে ৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা অনুদান বিতরণ করেন।

এ সময় অন্যদের মধ্যে ঢাকা-৫ আসনের সংসদ সদস্য কাজী মনিরুল ইসলাম, দক্ষিণ সিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমোডর সিতওয়াত নাঈম, প্রধান প্রকৌশলী সালেহ আহম্মেদ, সচিব আকরামুজ্জামান, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরিন, ও স্থানীয় কাউন্সিলর উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে ১৫ জুন থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালত: তাপস

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Government is trying to control commodity prices LGRD Minister

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে চেষ্টা করছে সরকার: এলজিআরডি মন্ত্রী

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে চেষ্টা করছে সরকার: এলজিআরডি মন্ত্রী বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনালসে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী ও বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য। ছবি: সংগৃহীত
মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, ‘করোনার মহাসংকট শেষ হতে না হতেই ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ পুরো বিশ্বে নতুনভাবে সংকট সৃষ্টি করেছে। আমাদের দেশের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বৃদ্ধি এবং দেশীয় খাদ্যপণ্য উৎপাদনে সরকার আগে থেকেই বিশেষ উদ্যোগ নেয়ার ফলেই এই সংকট মোকাবিলা করতে সক্ষম হচ্ছে।’

বিশ্বে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য ঊর্ধ্বমুখী হলেও দেশের মানুষের কথা ভেবে সরকার তা নিয়ন্ত্রণে প্রচেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

সংকট মোকাবিলায় দেশে খাদ্যপণ্য উৎপাদন বাড়াতে নানা পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

ঢাকার মিরপুর সেনানিবাসে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনাল (বিইউপি) আয়োজিত এনভায়রনমেন্টাল ফেস্ট-২০২২-এর এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

গত বেশ কিছুদিন দেশে দেশে প্রায় সব ধরনের পণ্যের দাম ঊর্ধ্বমুখী। এমন অবস্থায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। সরকারের তরফ থেকে নানান আশা দেয়া হলেও পণ্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে কার্যকর কোনো ভূমিকা রাখতে পারছে না সরকার।

সরকারের তরফ থেকে বলা হচ্ছে, বিশ্ববাজারে পণ্যের দাম বৃদ্ধির ফলেই দেশে দাম বাড়ছে।

মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, ‘করোনার মহাসংকট শেষ হতে না হতেই ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ পুরো বিশ্বে নতুনভাবে সংকট সৃষ্টি করেছে। আমাদের দেশের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বৃদ্ধি এবং দেশীয় খাদ্যপণ্য উৎপাদনে সরকার আগে থেকেই বিশেষ উদ্যোগ নেয়ার ফলেই এই সংকট মোকাবিলা করতে সক্ষম হচ্ছে।’

মানুষের ক্রয় ক্ষমতা বেড়েছে বলে ভোগের পরিমাণও বেড়েছে বলে মনে করেন এলজিআরডি মন্ত্রী।

এ সময় তিনি রাজধানীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিয়েও কথা বলেন। তিনি জানান, গৃহস্থালি ও শিল্প বর্জ্যের পাশাপাশি নির্মাণ বর্জ্যও সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার মধ্যে আনতে সরকার কাজ করছে।

মন্ত্রী বলেন, ‘ইতিমধ্যেই ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনসহ গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের কার্যক্রম শেষ পর্যায়ে রয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব সিটি করপোরেশন শহরাঞ্চলে বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে।’

পৌরসভাগুলোতেও ছোট প্ল্যান্টের মাধ্যমে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কাজ চলমান আছে বলেও জানান মন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘এসব উদ্যোগের মাধ্যমে দেশের বর্জ্য যেমন একটি সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার মধ্যে আসবে, একইভাবে পরিবেশ দূষণের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব হবে।’

তাজুল ইসলাম বলেন, ‘অতীতের তুলনায় বর্তমানে প্রচুর পরিমাণ বর্জ্য উৎপাদন হচ্ছে। আগে যে কোনো পণ্য কেনার সময় একটি ব্যাগের মধ্যেই সবকিছু নেয়া হতো। কিন্তু এখন প্রত্যেকটি জিনিসের জন্য আলাদা আলাদা ব্যাগ দেয়া হয়। ফলে গৃহস্থালিসহ অন্য বর্জ্য উৎপাদন বহুলাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে।’

জলবায়ু পরিবর্তনের পরিবেশ দূষণকেই দায়ী করেন তিনি। বলেন, ‘আর এই পরিবেশ দূষণে উন্নত দেশের তুলনায় বাংলাদেশের মত উন্নয়নশীল দেশগুলোর প্রভাব অনেক কম। এসব দেশের তুলনায় উন্নত দেশগুলো পরিবেশ দূষণের জন্য বেশি দায়ী। পৃথিবীকে বাঁচাতে হলে পরিবেশ দূষণ বন্ধ করতে হবে।’

বিউইপির এনভায়রনমেন্টাল ফেস্টে অংশ নিয়েছে দেশের ৩৫টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তাদের স্টলগুলো ঘুরে দেখেন তাজুল ইসলাম।

সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিইউপির উপাচার্য মেজর জেনারেল মো. মাহবুব উল আলম।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব ড. এস এম যোবায়দুল করিম।

আরও পড়ুন:
দ্রব্যমূল্যে বিশ্বের তুলনায় স্বস্তিতে বাংলাদেশ: বাণিজ্যসচিব
পণ্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে বাজার তদারকি বৃদ্ধির নির্দেশ মেয়র তাপসের
এলপিজির মূল্যবৃদ্ধি মন্ত্রী-উপদেষ্টাদের মুনাফা বাড়াতে: বিএনপি
চড়ামূল্যের বাজারে স্বস্তি পেঁয়াজে
দাম বেড়েছে সাবান-ডিটারজেন্টেরও

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The bodies of two friends were found at the house in Kamrangirchar

কামরাঙ্গীরচরে বাসায় মিলল দুই বন্ধুর মরদেহ

কামরাঙ্গীরচরে বাসায় মিলল দুই বন্ধুর মরদেহ প্রতীকী ছবি
ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘একজনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। আরেকজনের মরদেহ আছে কামরাঙ্গীরচর থানায়।’

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরের একটি বাসা থেকে দুই বন্ধুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার সকালে কামরাঙ্গীরচরের মুসলিমবাগ এলাকায় লবণ ফ্যাক্টরি গলিতে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, অচেতন অবস্থায় ২৫ বছর বয়সী মিরাজকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হলে চিকিৎসক দুপুর সোয়া ১২টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আর একই বয়সী রুবেল বাসাতেই মারা যান।

মিরাজের চাচাতো ভাই আয়নাল হোসেন জানান, দুই বন্ধু একটি প্লাস্টিক কারখানায় কাজ করতেন। মিরাজের বাবা-মা গ্রামের বাড়ি মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার-বিক্রমপুর গ্রামের বাড়ি গিয়েছিলেন। রাতে মেরাজ ও তার বন্ধু রুবেল বাসায় ছিলেন।

রাতে দুজন কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা তার।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া দুজনের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘একজনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। আরেকজনের মরদেহ আছে কামরাঙ্গীরচর থানায়।’

মিরাজের গ্রামের বাড়ি বিক্রমপুরে। তার বাবা মো. আবুল কালাম। মিরাজের আরেক ভাই এবং এক বোন রয়েছে। রুবেলের বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন:
ইবি শিক্ষকের স্ত্রীকে হত্যা, দাবি পরিবারের
৬ দিন পর বাঁশবাগানে মিলল স্কুলছাত্রের মরদেহ
লরি মেরামত করতে গিয়ে চাপায় যুবক নিহত

মন্তব্য

p
উপরে