‘উঁচু ভবন করলে বাড়বে ডায়াবেটিস’

‘উঁচু ভবন করলে বাড়বে ডায়াবেটিস’

বেশি বেশি বহুতল ভবন করে যানজট বাড়িয়ে রাস্তায় বসে থাকলে নগরবাসীর ডায়াবেটিসসহ স্বাস্থ্য ঝুঁকি আরও বাড়বে বলে মত দিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। ফাইল ছবি

রাজধানীর নতুন ডিটেইল এরিয়া প্ল্যানে (ড্যাপ) বহুতল ভবন নির্মাণের দাবি প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘ড্যাপে উঁচু ভবন অন্তর্ভুক্ত করতে অনেকেই দাবি তুলছেন। আমি কেবল ভবন উঁচু করলাম আর রাস্তায় মানুষ ও যানবাহনের চাপ আরও বেড়ে গেল। এমন উঁচু ভবন করে যানজট বাড়িয়ে রাস্তায় বসে থেকে আমাদের ডায়াবেটিসসহ স্বাস্থ্যঝুঁকি আরও বাড়বে।’

রাজধানী ঢাকায় বহুতল ভবন আরও বেশি তৈরি করলে রাস্তায় মানুষ ও যানবাহনের চাপ ও জট বাড়বে। এতে দীর্ঘ সময় গাড়িতে অলসভাবে বসে থেকে ডায়াবেটিস আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা আরও বেড়ে যেতে পারে। এমন শঙ্কার কথা জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

রোববার রাজধানীর বারডেম হাসপাতাল অডিটরিয়ামে বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতি আয়োজিত বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসের আলোচনা সভায় মন্ত্রী এ কথা বলেন।

রাজধানীর নতুন ডিটেইল এরিয়া প্ল্যানে (ড্যাপ) বহুতল ভবন নির্মাণের দাবি প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘ড্যাপে উঁচু ভবন অন্তর্ভুক্ত করতে অনেকেই দাবি তুলছেন। উঁচু ভবন নির্মাণ করতে হলে সেখানে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, খেলার মাঠ এবং বিনোদন কেন্দ্রসহ অন্যান্য নাগরিক সেবাও নিশ্চিত করতে হবে।’

‘আমি কেবল ভবন উঁচু করলাম আর রাস্তায় মানুষ ও যানবাহনের চাপ আরও বেড়ে গেল। এমন উঁচু ভবন করে যানজট বাড়িয়ে রাস্তায় বসে থেকে আমাদের ডায়াবেটিস আরও বাড়বে। এতে সবার স্বাস্থ্যঝুঁকি আরও বাড়বে।’

তিনি বলেন, ‘রাজধানীতে জনসংখ্যার তুলনায় মাঠ ও পার্কের সংকট রয়েছে। তবে নতুন ড্যাপে পর্যাপ্ত পার্ক ও মাঠের জন্য জায়গা নির্দিষ্ট করা আছে।’

‘উঁচু ভবন করলে বাড়বে ডায়াবেটিস’

রোববার রাজধানীর বারডেম হাসপাতাল অডিটরিয়ামে বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতি আয়োজিত বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসের আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। ছবি: নিউজবাংলা

এ সময় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, ‘ঢাকা শহরে বসবাসরত মানুষের সংখ্যা বিশ্বের যেকোনো শহরের তুলনায় বেশি। যে কারণে রাজধানীবাসীর প্রাপ্য নাগরিক সেবা নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে না। সুস্বাস্থ্যের জন্য নিয়মিত শরীরচর্চা করা প্রয়োজন, কিন্তু এর জন্য পর্যাপ্ত খেলার মাঠ, পার্ক আমাদের নেই।

‘ক্লিনিক-হাসপাতাল, শিক্ষা, বিনোদনকেন্দ্র, খেলার মাঠ সবকিছু আমাদের নিশ্চিত করতে হবে। এ লক্ষ্যে কাজ চলছে’, যোগ করেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘ড্যাপে বহুতল ভবন অন্তর্ভুক্ত করতে অনেকেই দাবি তুলছেন। কিন্তু উঁচু ভবন করে শুধু মানুষ থাকলে হবে না, মানুষকে তো নিচে নামতে হবে। তাদের জন্য রাস্তাঘাট, পার্ক-মাঠ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, স্বাস্থ্যসেবাসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় সেবা দরকার।

‘ড্যাপ বাস্তবায়িত হলে এই সংকট কাটবে। এ ছাড়া ঢাকাকে আধুনিক-দৃষ্টিনন্দন ও বাসযোগ্য নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে হলে সবকিছু পরিকল্পিতভাবে গড়ে তুলতে হবে।’

তাজুল ইসলাম বলেন, ‘মানুষের মাথাপিছু আয় বা সক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়ায় ভোগের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে করে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা মোকাবিলা করা চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

‘এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে না পারলে পরিবেশের পাশাপাশি মানুষের স্বাস্থ্য ঝুঁকি দেখা দিবে। তাই সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় বিশেষ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।’

দেশে চারটি অসংক্রামক রোগের মধ্যে অন্যতম একটি ডায়াবেটিস। বর্তমানে ৮৪ লাখ মানুষ এই রোগে ভুগছেন। আগামী চার বছরে এই সংখ্যা দ্বিগুণ হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা। এই হিসাবে ২০২৫ সালের মধ্যে দেশে এই রোগে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা দেড় কোটি ছাড়াতে পারে।

বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস উপলক্ষে রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে ডায়াবেটিসের বর্তমান পরিস্থিতি এবং ভবিষ্যৎ দিকনির্দেশনা শীর্ষক এক সেমিনারে রোববার সন্ধ্যায় এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

আরও পড়ুন:
চার বছরে ডায়াবেটিস রোগী বেড়ে দ্বিগুণের শঙ্কা
শিশুদের ডায়াবেটিস বাড়ছে
ডায়াবেটিস আক্রান্তদের অর্ধেকই তা জানে না
প্রযুক্তির সাহায্যে একমির ডায়াবেটিস চিকিৎসা
ঘরবন্দি মানুষ, বাড়ছে ডায়াবেটিস

শেয়ার করুন

মন্তব্য

নারী নির্যাতন নির্মূল না হওয়ায় আক্ষেপ পরিকল্পনামন্ত্রীর

নারী নির্যাতন নির্মূল না হওয়ায় আক্ষেপ পরিকল্পনামন্ত্রীর

শনিবার মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর মিলনায়তনে নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে জাতীয় সম্মেলনে বক্তব্য দেন পরিকল্পনামন্ত্রী। ছবি: নিউজবাংলা

সুলতানা কামাল বলেন, 'দেশে নারীর ক্ষমতায়ন হলেও নারীর সম অবস্থান তৈরি হয়নি। অসাম্প্রদায়িক, নির্যাতনমুক্ত, সহিংসতাহীন, সভ্য, সব মানুষের জন্য সমমর্যাদার দেশ গড়ে তুলতে আমাদের মিলেমিশে কাজ করতে হবে।'

বহুমুখী প্রচেষ্টার পরও দেশে নারী নির্যাতন নির্মূল করতে না পারায় আক্ষেপ প্রকাশ করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

মন্ত্রী বলেছেন, 'সমাজের সব নির্যাতন ও অন্যায় দূর করতে সামাজিকভাবে এবং রাষ্ট্রীয়ভাবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। অনেক চেষ্টার পরও দারিদ্র্য, নিরক্ষরতা নির্মূলের মতো আমরা নারী নির্যাতন নির্মূল করতে পারিনি।

‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী নারী অধিকারসহ এসব বিষয়ে অনেক কাজ করতে চান। কিন্তু নানা ধরনের বাধা ও প্রতিকূলতায় সঠিকভাবে কাজগুলো হচ্ছে না। বাস্তবতা মেনে নিয়েই আমাদের কাজ করতে হবে।’

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর মিলনায়তনে শনিবার বিকেলে অনুষ্ঠিত নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে জাতীয় সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী এসব কথা বলেন। পারিবারিক নির্যাতন প্রতিরোধ জোট ‘আমরাই পারি’ এ সম্মেলনের আয়োজন করে।

জোটের চেয়ারপারসন সুলতানা কামাল বলেন, ‘দেশে নারীর ক্ষমতায়ন হয়েছে কিন্তু নারীর সম অবস্থান এখনও তৈরি হয়নি। একটি অসাম্প্রদায়িক, নির্যাতনমুক্ত, সহিংসতাহীন, সভ্য, সব মানুষের জন্য সমমর্যাদার দেশ গড়ে তুলতে আমাদের মিলেমিশে কাজ করতে হবে।’

সম্মেলন সঞ্চালনা করেন আমরাই পারি জোটের প্রধান নির্বাহী জিনাত আরা হক।

সম্মেলনে অক্সফামের হেড অফ জেন্ডার জাস্টিস এন্ড সোশ্যাল ইনক্লুশেন মাহমুদা সুলতানা, জোটের কো-চেয়ারপারসন শাহীন আনাম, সংসদ সদস্য অ্যারোমা দত্তসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা সম্মেলনে বক্তব্য দেন।

আলোচকরা বলেন, স্বাধীন দেশে একটি নির্যাতনমুক্ত পরিবেশ আমরা কামনা করতেই পারি। স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর পরও দেশে নারী নির্যাতনের পরিসংখ্যান আমাদের লজ্জিত করে। আমরা যদি নিজেদের পরিবর্তন না আনি তাহলে পুলিশ বা আইন দিয়ে কোন কিছুর পরিবর্তন সম্ভব নয়।

নারী-পুরুষ সমতা প্রতিষ্ঠা, নারী-শিশুদের জন্য নিরাপদ ও ন্যায়ভিত্তিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানান জোট নেতারা।

আরও পড়ুন:
চার বছরে ডায়াবেটিস রোগী বেড়ে দ্বিগুণের শঙ্কা
শিশুদের ডায়াবেটিস বাড়ছে
ডায়াবেটিস আক্রান্তদের অর্ধেকই তা জানে না
প্রযুক্তির সাহায্যে একমির ডায়াবেটিস চিকিৎসা
ঘরবন্দি মানুষ, বাড়ছে ডায়াবেটিস

শেয়ার করুন

উত্তরা থেকে যুবকের রহস্যজনক অন্তর্ধান

উত্তরা থেকে যুবকের রহস্যজনক অন্তর্ধান

আনিসুর রহমান। ছবি: সংগৃহীত

উত্তরায় বন্ধুর বাসা থেকে বেরিয়ে ১৩ দিন ধরে নিখোঁজ এক যুবক। অন্তর্ধানের আগে তিনি নিজের ফোন বিক্রি করে দিয়েছিলেন। স্ত্রী থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। 

রাজধানীর উত্তরা থেকে আনিসুর রহমান (৩৮) নামে এক ব্যক্তি গত ১৩ দিন ধরে নিখোঁজ। তিনি বারিধারা ডিওএইচএস এলাকার আর্থ ফ্যাশন লিমিটেড নামে একটি বায়িং হাউজের কোয়ালিটি (কিউসি) ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত।

গত ১৪ নভেম্বর রাতে উত্তরায় বন্ধুর বাসা থেকে বের হওয়ার পর থেকে তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। ১৮ নভেম্বর আনিসুরের স্ত্রী ফাতিহা ইয়াসমিন উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

জিডির তদন্ত কর্মকর্তা উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই বদরুল মিল্লাদ বলেন, ‘আনিসুর রহমানের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি আমরা উদ্ধার করেছি, যেটি তিনি বিক্রয় ডটকমের মাধ্যমে ১৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় বিক্রি করেছিলেন। এরপর থেকে ওনার ফোন বন্ধ। এরপর তিনি তার এক বন্ধুর বাসায় গিয়েছিলেন। সেই বন্ধুর বাসা থেকে আনিসুর তার নিজের বাসায় ফেরার জন্য বের হওয়ার পর থেকে নিখোঁজ।’

আনিসুরের নিখোঁজ থাকাকে রহস্যজনক বলছেন তদন্ত সংশ্লিষ্ট পুলিশ সদস্যরা। এসআই বদরুল বলেন, ‘নিখোঁজ হওয়ার দিন কারো ফোন রিসিভ না করা, ফোনটি বিক্রি করে দেয়া, এরপর থেকে খোঁজ না পাওয়া বা বাসায় না ফেরা রহস্যজনক। তিনি নিজে থেকে নিখোঁজ রয়েছেন, না কোনো সমস্যা হয়েছে, তা আমরা তদন্ত করছি। আমরা আনিসুরকে উদ্ধারে চেষ্টা করছি।’

নিখোঁজের স্ত্রী ফাতিহা ইয়াসমিন বলেন, ‘ঘটনার দিন আমাদের কারও সঙ্গে উনি ফোনে কথা বলেননি। আমার সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে কথা হয়েছে। তিনি বাসায় ফিরবেন বলছিলেন, কিন্তু ফেরেননি।’

উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই বদরুল বলেন, যে বন্ধুর বাসায় আনিসুল সর্বশেষ গিয়েছিলেন, তাকে তারা জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন।

আরও পড়ুন:
চার বছরে ডায়াবেটিস রোগী বেড়ে দ্বিগুণের শঙ্কা
শিশুদের ডায়াবেটিস বাড়ছে
ডায়াবেটিস আক্রান্তদের অর্ধেকই তা জানে না
প্রযুক্তির সাহায্যে একমির ডায়াবেটিস চিকিৎসা
ঘরবন্দি মানুষ, বাড়ছে ডায়াবেটিস

শেয়ার করুন

নটর ডেমের ছাত্র নিহত: গ্রেপ্তার হারুন রিমান্ডে

নটর ডেমের ছাত্র নিহত: গ্রেপ্তার হারুন রিমান্ডে

নটর ডেম কলেজের ছাত্র নাঈম হাসানের লাইব্রেরি কার্ড। ফাইল ছবি

আসামি হারুন মিয়ার পক্ষে তার আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের বিরোধিতা করা হয়। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত হারুনকে দুই দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেয়।

গাড়িচাপায় নটর ডেম কলেজের ছাত্র নাঈম হাসান নিহত হওয়ার ঘটনায় করা মামলায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) পরিচ্ছন্নতাকর্মী হারুন মিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে দুই দিনের রিমান্ডে পেয়েছে পুলিশ।

ঢাকার মহানগর হাকিম মইনুল ইসলাম শনিবার রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পল্টন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আনিছুর রহমান সড়ক দুর্ঘটনা আইনে করা মামলায় আসামিকে আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদ করতে সাত দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন।

আসামির পক্ষে তার আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের বিরোধিতা করা হয়।

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত হারুন মিয়াকে দুই দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেয় বলে নিউজবাংলাকে জানান পল্টন থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখার কর্মকর্তা এসআই মো. মোতালেব হোসেন।

র‌্যাব শুক্রবার রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে হারুন গ্রেপ্তার করে। এ মামলায় বৃহস্পতিবার পরিচ্ছন্নতাকর্মী রাসেল খানকে তিন দিনের রিমান্ডে নেয়ার আদেশ দেয় আদালত।

গত বুধবার বেলা ১১টার দিকে গুলিস্তানের বঙ্গবন্ধু স্কয়ারের দক্ষিণ পাশে নটর ডেম কলেজের মানবিক বিভাগের ছাত্র নাঈম হাসানকে ধাক্কা দেয় ডিএসসিসির একটি ট্রাক। ওই সময় গাড়িটি চালাচ্ছিলেন সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতাকর্মী রাসেল খান।

গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন ও এলাকার টহল পুলিশ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের আওয়ামী লীগ অফিসের পূর্ব পাশ থেকে ট্রাক ও চালকের আসনে থাকা রাসেলকে গ্রেপ্তার করে।

এ ঘটনায় ওই শিক্ষার্থীর বাবা শাহ আলম দেওয়ান পল্টন থানায় মামলা করেন।

আরও পড়ুন:
চার বছরে ডায়াবেটিস রোগী বেড়ে দ্বিগুণের শঙ্কা
শিশুদের ডায়াবেটিস বাড়ছে
ডায়াবেটিস আক্রান্তদের অর্ধেকই তা জানে না
প্রযুক্তির সাহায্যে একমির ডায়াবেটিস চিকিৎসা
ঘরবন্দি মানুষ, বাড়ছে ডায়াবেটিস

শেয়ার করুন

পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় বউ-শাশুড়ি নিহত

পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় বউ-শাশুড়ি নিহত

নিহত গৃহবধূ মৌসুমী আক্তারের জা রুবিনা বেগম বলেন, ‘আমার শাশুড়ি রুপবানু ও আমার জা মৌসুমী সকাল ৮টার দিকে সিএনজি অটোরিকশায় ভ্যাকসিন নিতে মিটফোর্ড হাসপাতালে যায়। সেখান থেকে সাড়ে ১২টায় আবারও সিএনজিতে বাসায় ফেরার পথে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ বিআরটিএর সামনে রাস্তা পার হচ্ছিলেন। এ সময় একটি দ্রুতগামী পিকআপ দুজনকে ধাক্কা দেয়।’

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে করোনার টিকা নিয়ে বাসায় ফেরার পথে পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় বউ-শাশুড়ি নিহত হয়েছেন।

শনিবার দুপুর ১২টার দিকে দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহতরা হলেন মৌসুমী আক্তার এবং তার শাশুড়ি রুপবানু।

নিহত গৃহবধূ মৌসুমী আক্তারের জা রুবিনা বেগম বলেন, ‘আমার শাশুড়ি রুপবানু ও আমার জা মৌসুমী সকাল ৮টার দিকে সিএনজি অটোরিকশায় ভ্যাকসিন নিতে মিটফোর্ড হাসপাতালে যায়। সেখান থেকে সাড়ে ১২টায় আবারও সিএনজিতে বাসায় ফেরার পথে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ বিআরটিএর সামনে রাস্তা পার হচ্ছিলেন। এ সময় একটি দ্রুতগামী পিকআপ দুজনকে ধাক্কা দেয়।’

তিনি জানান, তাদের সঙ্গে থাকা মৌসুমী আক্তারের মেয়ে মোহনা আক্তার আহত হয়েছে।

আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে আদ দ্বীন হাসপাতাল নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক তার শাশুড়িকে মৃত ঘোষণা করেন। তার মরদেহ মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে বলে জানান রুবিনা বেগম।

পরে মৌসুমীকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে বেলা আড়াইটার দিকে তাকেও মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

রুবিনা জানান, মৌসুমীর স্বামী মোহন মিয়া সৌদী প্রবাসী।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘কেরানীগঞ্জের সড়ক দুর্ঘটনায় এক গৃহবধূকে হাসপাতালে আনার পর মৃত্যু হয়েছে। তার মরদেহ জরুরি বিভাগের মর্গে রাখা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট থানায় বিষয়টি জানানো হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
চার বছরে ডায়াবেটিস রোগী বেড়ে দ্বিগুণের শঙ্কা
শিশুদের ডায়াবেটিস বাড়ছে
ডায়াবেটিস আক্রান্তদের অর্ধেকই তা জানে না
প্রযুক্তির সাহায্যে একমির ডায়াবেটিস চিকিৎসা
ঘরবন্দি মানুষ, বাড়ছে ডায়াবেটিস

শেয়ার করুন

৭ কোটি ৩৫ লাখ ভারতীয় জাল রুপিসহ গ্রেপ্তার ২

৭ কোটি ৩৫ লাখ ভারতীয় জাল রুপিসহ গ্রেপ্তার ২

জব্দ করা ভারতীয় রুপি। ছবি: নিউজবাংলা

পুলিশ বলছে, এসব মুদ্রা পাকিস্তান থেকে দেশটির দুই নাগরিকের মাধ্যমে আমদানি করা মার্বেল পাথরের সঙ্গে আনা হয়েছে। শ্রীলঙ্কা হয়ে বাংলাদেশে আনা হয় এসব মুদ্রা।

রাজধানীতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে ৭ কোটি ৩৫ লাখ ভারতীয় জাল রুপিসহ জালিয়াতি চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গুলশান বিভাগ।

রাজধানীর খিলক্ষেত ও ডেমরা থানা এলাকায় শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে শনিবার ব্রিফিংয়ে জানায় ডিএমপি।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন ফাতেমা আক্তার অপি ও শেখ মো. আবু তালেব।

ব্রিফিংয়ে ডিএমপির গুলশান বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. আসাদুজ্জামান জানান, খিলক্ষেত থানার বনরূপা আবাসিক এলাকার মেইন গেটের সামনে পাকা রাস্তার ওপর এক নারী ভারতীয় জাল রুপিসহ অবস্থান করছেন বলে তথ্য পায় খিলক্ষেত থানা পুলিশ। এর ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ফাতেমা আক্তার অপি নামের এক নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে ৫০ হাজার ভারতীয় জাল রুপি উদ্ধার করা হয়।

পরে ফাতেমার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে দক্ষিণখান থানার পন্ডিতপাড়া এলাকায় তার নিজ বাসা থেকে আরও ৭ কোটি ৩৪ লাখ ৫০ হাজার ভারতীয় জাল রুপি উদ্ধার করা হয়। পাশাপাশি ডেমরা থানার সারুলিয়া এলাকা থেকে জালিয়াতি চক্রের অপর সদস্য শেখ মো. আবু তালেবকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশের দাবি, গ্রেপ্তার ফাতেমা আন্তর্জাতিক সংঘবদ্ধ ভারতীয় জাল মুদ্রা পাচারকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য। তিনি দীর্ঘদিন ধরে পাকিস্তান থেকে আন্তর্জাতিক চক্রের মাধ্যমে ভারতীয় জাল মুদ্রা কৌশলে সংগ্রহ করে দেশীয় চক্রের অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের মাধ্যমে বিপণনসহ ভারতে পাচার করত। জব্দ করা মুদ্রা গত ২৩ নভেম্বর ফাতেমার কাছে হস্তান্তর করেছিলেন তালেব।

ব্রিফিংয়ে বলা হয়, তালেব পাকিস্তানি নাগরিক সুলতান ও শফির মাধ্যমে পাকিস্তান থেকে আমদানি করা মার্বেল পাথরের ৫০০টি বস্তার মধ্যে ৯৫টি বস্তায় করে ভারতীয় রুপিগুলো আনেন। এসব মুদ্রা শ্রীলঙ্কা হয়ে বাংলাদেশে আনা হয়।

পুলিশ জানায়, ফাতেমার বিরুদ্ধে আগেও মতিঝিল থানায় জাল টাকা সংক্রান্ত মামলা করা হয়েছিল। এবার তার বিরুদ্ধে খিলক্ষেত থানায় আরও একটি মামলা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
চার বছরে ডায়াবেটিস রোগী বেড়ে দ্বিগুণের শঙ্কা
শিশুদের ডায়াবেটিস বাড়ছে
ডায়াবেটিস আক্রান্তদের অর্ধেকই তা জানে না
প্রযুক্তির সাহায্যে একমির ডায়াবেটিস চিকিৎসা
ঘরবন্দি মানুষ, বাড়ছে ডায়াবেটিস

শেয়ার করুন

ফের বিক্ষোভে শিক্ষার্থীরা

ফের বিক্ষোভে শিক্ষার্থীরা

ধানমন্ডির ২৭ নম্বর সড়কে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ। ছবি: নিউজবাংলা

শনিবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন ধানমন্ডি গভ. বয়েজ স্কুল, মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি স্কুল, রেসিডেনশিয়াল মডেল স্কুল ও সেন্ট জোসেফ স্কুলের কয়েক শ শিক্ষার্থী। বাসে হাফ পাস কার্যকর, নটর ডেমের নাঈম হাসানের নিহতের ঘটনায় বিচার চেয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন তারা।

সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় রাজধানীর গুলিস্তানে নটর ডেম কলেজের নাঈম হাসানের নিহতের ঘটনায় বিচার এবং বাসে হাফ পাস কার্যকরের দাবিতে ফের বিক্ষোভে নেমেছে শিক্ষার্থীরা। রাজধানীর ধানমন্ডি ২৭ নম্বর সড়ক অবরোধ করেছে তারা।

শনিবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে ধানমন্ডি গভ. বয়েজ স্কুল, মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি স্কুল, রেসিডেনশিয়াল মডেল স্কুল ও সেন্ট জোসেফ স্কুলের কয়েক শ শিক্ষার্থী। বাসে হাফ পাস কার্যকর, নটর ডেমের নাঈম হাসানের নিহতের ঘটনায় বিচার চেয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছে তারা।

তাদের অবস্থানের কারণে রাস্তায় যান চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে গেছে। এর প্রভাবে ধানমন্ডি ২৭ নম্বর ও এর আশপাশের সড়কে যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ছাত্রদের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন ডিএমপির তেঁজগাও বিভাগের উপকমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার।

নিউজবাংলাকে তিনি বলেন, ‘ছাত্ররা তাদের কয়েকটি দাবি নিয়ে রাস্তা অবরোধ করেছে। আমরা তাদের সাধারণদের ভোগান্তির কথা বুঝিয়ে বলেছি। তারা আর কিছুক্ষণ থেকে চলে যাবে বলেছে। কিছুক্ষণ পর আমরা তাদের আবার বোঝাব। এখানে যেন কোনো অপ্রীতিকর কিছু না ঘটে সে জন্য পুলিশ সতর্ক অবস্থানে আছে।’

সরকারের প্রতি শিক্ষার্থীদের আহ্বান, তাদের ৯টি দাবি যেন দ্রুত কার্যকর করে সরকার। তাদের দাবিগুলো হলো:

০১. দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে শিক্ষার্থীসহ সকল সড়ক হত্যার বিচার করতে হবে ও পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

০২. ঢাকাসহ সারা দেশে সকল গণপরিবহনে (সড়ক, নৌ, রেল ও মেট্রোরেল) শিক্ষার্থীদের হাফ পাস নিশ্চিত করে প্রজ্ঞাপন জারি করতে হবে।

০৩. গণপরিবহনে নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে এবং জনসাধারণের চলাচলের জন্য যথাস্থানে ফুটপাত, ফুটওভার ব্রিজ বা বিকল্প নিরাপত্তাব্যবস্থা দ্রুততর সময়ের মধ্যে নিশ্চিত করতে হবে।

০৪. সড়ক দুর্ঘটনায় আহত সকল যাত্রী এবং পরিবহন শ্রমিকের যথাযথ ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসন নিশ্চিত করতে হবে।

০৫. পরিকল্পিত বাস স্টপেজ ও পার্কিং স্পেস নির্মাণ ও যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। (এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে কঠোর আইন প্রয়োগ করতে হবে)।

০৬. দ্রুত বিচারিক প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ও যথাযথ তদন্ত সাপেক্ষে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের দায়ভার সংশিষ্ট ব্যক্তি বা মহলকে নিতে হবে।

০৭. বৈধ ও অবৈধ যানবাহন চালকদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বৈধতার আওতায় আনতে হবে এবং বিআরটিএর সকল কর্মকাণ্ডের ওপর নজরদারি ও জবাবদিহি নিশ্চিত করতে হবে।

০৮. আধুনিক বাংলাদেশ বিনির্মাণে ঢাকাসহ সারা দেশে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা অবিলম্বে স্বয়ংক্রিয় ও আধুনিকায়ন এবং পরিকল্পিত নগরায়ন নিশ্চিত করতে হবে।

০৯. ট্রাফিক আইনের প্রতি জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য একে পাঠ্যসূচির অন্তর্ভুক্ত করতে হবে এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়ার মাধ্যমে সচেতনতামূলক অনুষ্ঠান সম্প্রচার করতে হবে।

দাবিগুলোর বাস্তবায়ন না হলে নিয়মিত আন্দোলন চালিয়ে যাবার হুঁশিয়ারি দিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

গত বুধবার বেলা ১১টার দিকে গুলিস্তান বঙ্গবন্ধু স্কয়ারের দক্ষিণ পাশে নটর ডেম কলেজের মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী নাঈম হাসানকে ধাক্কা দেয় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের একটি ময়লাবাহী ট্রাক। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনার বিচার, বাসে হাফ পাস কার্যকর এবং নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন করে আসছে শিক্ষার্থীরা। ঢাকার বিভিন্ন পয়েন্টে টানা দুই দিন বিক্ষোভের পর শুক্রবার বিরতি দিয়ে ফের রাস্তায় নেমেছে তারা।

আরও পড়ুন:
চার বছরে ডায়াবেটিস রোগী বেড়ে দ্বিগুণের শঙ্কা
শিশুদের ডায়াবেটিস বাড়ছে
ডায়াবেটিস আক্রান্তদের অর্ধেকই তা জানে না
প্রযুক্তির সাহায্যে একমির ডায়াবেটিস চিকিৎসা
ঘরবন্দি মানুষ, বাড়ছে ডায়াবেটিস

শেয়ার করুন

ওয়ারী থেকে উদ্ধার নবজাতকের মৃত্যু

ওয়ারী থেকে উদ্ধার নবজাতকের মৃত্যু

রাজধানীর ওয়ারীর নাভানা টাওয়ারের পাশের রাস্তা থেকে উদ্ধার নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে এক পথচারী ওই নবজাতককে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ৭টার দিকে মারা যায় নবজাতক।

উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা পথচারী স্বামী-স্ত্রী ঝিনুক রবিদাস ও রাজেন্দ্র রবিদাস জানান, তারা দুজন ওয়ারী নাভানা টাওয়ারের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় কোনো কিছু পড়ার শব্দ পান। পরে কান্নার শব্দ শুনতে পেয়ে রাস্তার পাশে গিয়ে দেখেন, কাপড়ে মোড়ানো অবস্থায় এক নবজাতক মেয়ে পড়ে আছে।

তারা নবজাতককে নিয়ে পাশেই নিবেদিতা নামের একটি হাসপাতালে যান। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিক্যালের ২১১ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করেন।

তারা জানান, রাস্তার পাশে থাকা ভবনের ৪/৫ তলা থেকে হয়তো ফেলে দেয়া হয় নবজাতককে।

ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া বলেন, ‘ওয়ারী থেকে উদ্ধার করা নবজাতক চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। ময়নাতদন্তের জন্য এখন মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানায় জানানো হয়েছে।’

আরও পড়ুন:
চার বছরে ডায়াবেটিস রোগী বেড়ে দ্বিগুণের শঙ্কা
শিশুদের ডায়াবেটিস বাড়ছে
ডায়াবেটিস আক্রান্তদের অর্ধেকই তা জানে না
প্রযুক্তির সাহায্যে একমির ডায়াবেটিস চিকিৎসা
ঘরবন্দি মানুষ, বাড়ছে ডায়াবেটিস

শেয়ার করুন