পরীমনিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

পরীমনিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

ঢাকাই চলচ্চিত্রের নায়িকা পরীমনি। ফাইল ছবি

অভিযোগপত্রে পরীমনি ছাড়া অন্য দুজন হলেন পরীমনির সহযোগী আশরাফুল ইসলাম দিপু ও পরীমনির খালু কবীর হাওলাদার। আসামিরা সবাই জামিনে আছেন।

রাজধানীর বনানী থানায় করা মাদক মামলায় চিত্রনায়িকা পরীমনিসহ তিনজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দিয়েছে সিআইডি।

সোমবার বিকেলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক কাজী গোলাম মোস্তফা ঢাকার মুখ্য মহানগর আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখায় এ অভিযোগপত্র জমা দেন।

অভিযোগপত্রে পরীমনি ছাড়া অন্য দুজন হলেন পরীমনির সহযোগী আশরাফুল ইসলাম দিপু ও পরীমনির খালু কবীর হাওলাদার। আসামিরা সবাই জামিনে আছেন।

সংশ্লিষ্ট থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখার কর্মকর্তা পুলিশের উপপরিদর্শক আলমগীর হোসেন নিউজবাংলাকে অভিযোগপত্র জমা দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আগামীকাল মঙ্গলবার অভিযোগপত্র আদালতে উপস্থাপন করা হবে বলেও জানান তিনি।

গত ৪ আগস্ট বিকেলে বনানীর ১২ নম্বর সড়কে পরীমনির বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় তার বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য জব্দ করা হয়।

পরের দিন রাজধানীর গুলশান থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে পরীমনির বিরুদ্ধে মামলা করে র‍্যাব। সেদিনই চার দিন এবং ১০ আগস্ট দুই দিনের রিমান্ড দেয়া আদালত।

১৩ আগস্ট রিমান্ড শেষে তাকে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে পাঠানো হয়। পরে তৃতীয় দফায় ১৯ আগস্ট এক দিনের রিমান্ড দেয় আদালত।

৩১ আগস্ট ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ পরীমনির জামিন দিলে তিনি মুক্ত হন।

পরীমনির বাসায় যেসব মাদক জব্দ করা হয়, সেসবের রাসায়নিক পরীক্ষায় মাদকের উপস্থিতি পাওয়া গেছে বলে তদন্তসংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান।

আরও পড়ুন:
রিমান্ড দেয়ার ব্যাপারে এখন সতর্ক আদালত
পরীমনির রিমান্ড: ফের ব্যাখ্যা দেবেন দুই বিচারক
শেখ হাসিনা, অনেক ভালোবাসি আপনাকে: পরীমনি
গাড়ি, ল্যাপটপ, মোবাইল ফেরত পাচ্ছেন পরীমনি
গাড়ি-মোবাইল ফেরত পেতে আদালতে পরীমনি

শেয়ার করুন

মন্তব্য

রাফির ‘রাস্তা’য় সিয়াম, পারিশ্রমিক ১ হাজার ১ টাকা

রাফির ‘রাস্তা’য় সিয়াম, পারিশ্রমিক ১ হাজার ১ টাকা

সিয়াম আহমেদ ও রায়হান রাফি। ছবি: সংগৃহীত

ঘোষণায় আরও বলা হয়, সিয়াম প্রতি সিনেমায় সম্মানী নেন ১৫ থেকে ২০ লাখ টাকা। কিন্তু জাজের ছেলে সিয়াম ‘রাস্তা’ সিনেমা বাবদ নিয়েছেন ১ হাজার ১ টাকা।

আবারও নতুন সিনেমার ঘোষণা দিল প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া। সিনেমার নাম রাস্তা। এটি পরিচালনা করবেন পোড়ামন-২দহন-খ্যাত পরিচালক রায়হান রাফি।

সিনেমার প্রধান পুরুষ চরিত্রে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন সিয়াম আহমেদ। বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন সিয়াম নিজেই।

তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, আমি রাস্তা সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছি এবং জানুয়ারি থেকে সিনেমাটির দৃশ্যধারণের কাজ শুরু হওয়ার কথা আছে।’

এ ব্যাপারে জাজ মাল্টিমিডিয়ার ফেসবুক পেজ থেকেও একটি ঘোষণা দেয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, সিনেমায় রাফির বিপরীতে অভিনয় করবেন নতুন কোনো অভিনেত্রী।

ঘোষণায় আরও বলা হয়, সিয়াম প্রতি সিনেমায় সম্মানী নেন ১৫ থেকে ২০ লাখ টাকা। কিন্তু জাজের ছেলে সিয়াম রাস্তা সিনেমা বাবদ নিয়েছেন ১ হাজার ১ টাকা।

এ ব্যাপারে সিয়াম নিউজবাংলাকে বলেন, ‘পারিশ্রমিক অন্য রকম একটি বিষয়। জাজ মাল্টিমিডিয়া বা রাফির কাজ মানে আমার কাছে অন্য কিছু। আমি পারিশ্রমিক নিতেও চাইনি কিন্তু চুক্তিপত্রে অর্থের পরিমাণ কিছু একটা লিখতে হয়, সে জন্য অর্থের পরিমাণটি উল্লেখ করা।’

জাজ মাল্টিমিডিয়া সম্প্রতি বেশ কিছু ওয়েব কনটেন্টের ঘোষণা দিয়েছে। জাজের প্রযোজনায় রায়হার রাফির পরিচালানয় আরও একটি নতুন ওয়েব সিরিজ নির্মাণের ঘোষণা আছে। ওয়েব সিরিজটির নাম চক্র

সেটি নিয়ে এখনও বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

আরও পড়ুন:
রিমান্ড দেয়ার ব্যাপারে এখন সতর্ক আদালত
পরীমনির রিমান্ড: ফের ব্যাখ্যা দেবেন দুই বিচারক
শেখ হাসিনা, অনেক ভালোবাসি আপনাকে: পরীমনি
গাড়ি, ল্যাপটপ, মোবাইল ফেরত পাচ্ছেন পরীমনি
গাড়ি-মোবাইল ফেরত পেতে আদালতে পরীমনি

শেয়ার করুন

এবারও জামিন হলো না শাহরুখপুত্রের

এবারও জামিন হলো না শাহরুখপুত্রের

জামিন হলো না শাহরুখপুত্র আরিয়ান খানের। ছবি: সংগৃহীত

কারাগারেই থাকতে হচ্ছে আরিয়ানকে। তার সঙ্গে আরও দুই অভিযুক্ত আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুনের জামিন আবেদনও খারিজ হয়েছে।

দফায় দফায় আবেদন করেও জামিন পাচ্ছেন না শাহরুখপুত্র আরিয়ান খান। শেষ বুধবারও শাহরুখপুত্রের জামিনের আবেদন মঞ্জুর করল না মুম্বাইয়ের বিশেষ আদালত।

ফলে কারাগারেই থাকতে হচ্ছে আরিয়ানকে। তার সঙ্গে আরও দুই অভিযুক্ত আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুনের জামিন আবেদনও খারিজ হয়েছে।

বুধবার আরিয়ানের জামিন শুনানির আগে নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) কর্মকর্তারা আদালতের হাতে নতুন তথ্য তুলে দিয়েছেন। যেখানে জানা গেছে, প্রমোদতরির ওই পার্টিতে যোগ দেয়ার আগে উঠতি এক বলিউড অভিনেত্রীর সঙ্গে শাহরুখ খানের ছেলে মাদক বিষয়ে আলোচনা করেছিলেন।

গত সপ্তাহে অর্থাৎ ১৪ অক্টোবরেও আরিয়ানের জামিন আবেদন খারিজ হয়। আদালত ঘোষণা করেছিল, মামলার পরবর্তী শুনানি হবে বুধবার, ২০ অক্টোবর। সেই মতোই শুনানি হয় কিন্তু কারাগার থেকে বের হতে পারলেন না আরিয়ান।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, আরিয়ানের জন্য করা মানত এখনও ভাঙতে পারলেন না শাহরুখপত্নী গৌরী। অর্থাৎ তাদের বাড়ি ‘মান্নাত’-এর চুলায় এবারও মিষ্টি রান্না করার সুযোগ পেলেন না গৌরী খান।

আরও পড়ুন:
রিমান্ড দেয়ার ব্যাপারে এখন সতর্ক আদালত
পরীমনির রিমান্ড: ফের ব্যাখ্যা দেবেন দুই বিচারক
শেখ হাসিনা, অনেক ভালোবাসি আপনাকে: পরীমনি
গাড়ি, ল্যাপটপ, মোবাইল ফেরত পাচ্ছেন পরীমনি
গাড়ি-মোবাইল ফেরত পেতে আদালতে পরীমনি

শেয়ার করুন

আসছে ব্যান্ড অ্যাডভার্ব এর নতুন গান

আসছে ব্যান্ড অ্যাডভার্ব এর নতুন গান

অ্যাডভার্ব ব্যান্ড। ছবি: সংগৃহীত

ব্যান্ডের ভোকাল প্রান্ত জানান, অ্যাডভার্ব শ্রোতাদের ভালোবাসায় সিক্ত। তাই ভালো করার দায়িত্বটাও অনেক বেশি। করোনা ও নানা ঝামেলার কারণে চতুর্থ গান রিলিজের সময় পরিবর্তন হচ্ছিল। আরও কিছু এক্টিভিটিস আসবে গানটি প্রকাশের আগে।

২০১৪ সাল। প্রান্ত, সোহাগ, তুহিন মিলে গড়ে তোলেন ব্যান্ড অ্যাডভার্ব। ৬ বছর পর তারা প্রকাশ করে তাদের প্রথম গান ‘কতদূর’। ব্যান্ডটির আরও কিছু গান ‘অবসাদ’ ও ‘কে তোমাকে বাসবে ভালো’ শুনেছেন শ্রোতারা।

ব্যান্ডটি তাদের ‘পূর্বাপর’ অ্যালবামের চতুর্থ গান প্রকাশ করতে যাচ্ছে। গানের শিরোনাম ‘যেখানেই যাচ্ছি থেমে’। গানটির দৈর্ঘ্য ৮ মিনিট। এরই মধ্যে গানটির প্রচারণার শুরু হয়েছে।

ব্যান্ডের গিটারিস্ট রেক্স বলেন, ‘আমরা আমাদের নতুন গানের রের্কডিং শেষ করেছি। হয়ে গেছে মিউজিক ভিডিওর দৃশ্যধারণ। ফেসবুক, ইউটিউবসহ বিভিন্ন ডিজিটাল প্লাটফর্মে গানটির মিউজিক ভিডিও প্রকাশিত হতে যাচ্ছে ২৯ অক্টোবর।’

ব্যান্ডের ভোকাল প্রান্ত জানান, অ্যাডভার্ব শ্রোতাদের ভালোবাসায় সিক্ত। তাই ভালো করার দায়িত্বটাও অনেক বেশি। করোনা ও নানা ঝামেলার কারণে চতুর্থ গান রিলিজের সময় পরিবর্তন হচ্ছিল। আরও কিছু এক্টিভিটিস আসবে গানটি প্রকাশের আগে।

ব্যান্ডের অন্যান্য সদস্যরা হলেন, তুহিন পন্ডিত (বেজিস্ট), সোহাগ (ড্রামার), আব্বাসী লিংকন (গিটারিস্ট)।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তারা জানায়, বাংলাদেশি রক মিউজিক পশ্চিম বাংলায় বেশ জনপ্রিয়। ওপার বাংলায় জেমস, মাইলস, এলআরবি, হালের ওয়ারফেজ ও অন্যান্য ব্যান্ডের মতো অ্যাডভার্বও ছড়িয়ে পড়েছে তাদের গানে নিয়ে। আরও ভালো ভালো গান উপহার দেয়াই ব্যান্ড অ্যাডভার্বের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা।

আরও পড়ুন:
রিমান্ড দেয়ার ব্যাপারে এখন সতর্ক আদালত
পরীমনির রিমান্ড: ফের ব্যাখ্যা দেবেন দুই বিচারক
শেখ হাসিনা, অনেক ভালোবাসি আপনাকে: পরীমনি
গাড়ি, ল্যাপটপ, মোবাইল ফেরত পাচ্ছেন পরীমনি
গাড়ি-মোবাইল ফেরত পেতে আদালতে পরীমনি

শেয়ার করুন

সিনেমা ‘ঢাকাড্রিম’: বাস্তবের চেয়েও কঠিন যে স্বপ্ন

সিনেমা ‘ঢাকাড্রিম’: বাস্তবের চেয়েও কঠিন যে স্বপ্ন

ঢাকাড্রিম সিনেমার পোস্টার। ছবি: সংগৃহীত

পরিচালকের ভাষ্যে ঢাকাড্রিম সিনেমা হলো, ‘আমরা সবাই ঢাকায় আসতে চাই এবং তাদের অনেকে আসি জীবীকার প্রয়োজনে, উচ্চ শিক্ষার জন্য, উন্নত জীবনের আশায়। এ শহরে আসার কারণ অসংখ্য। সেই কারণ ও সংকট খোঁজার চেষ্টা করেছি আমরা।’

সিনেমার নাম ঢাকাড্রিম। নামের সঙ্গে যেমন স্বপ্ন ব্যাপারটি জড়িয়ে আছে, তেমনি সিনেমাতেও স্বপ্নের কথা বলা হয়েছে। তবে এই স্বপ্ন হাতে তুলে দেয়া স্বপ্ন নয়, এই স্বপ্ন পরিশ্রমের মাধ্যমে ছিনিয়ে নেয়ার।

সিনেমাটি দেশে মুক্তি পাচ্ছে ২২ অক্টোবর। সিনেমার পরিচালক সুতপার ঠিকানা খ্যাত প্রসূন রহমান।

তার ভাষ্যে ঢাকাড্রিম সিনেমা হলো, ‘আমরা সবাই ঢাকায় আসতে চাই এবং তাদের অনেকে আসি জীবিকার প্রয়োজনে, উচ্চ শিক্ষার জন্য, উন্নত জীবনের আশায়। এ শহরে আসার কারণ অসংখ্য। সেই কারণ ও সংকট খোঁজার চেষ্টা করেছি আমরা।’

সিনেমা ‘ঢাকাড্রিম’: বাস্তবের চেয়েও কঠিন যে স্বপ্ন
ঢাকাড্রিম সিনেমার দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

পরিচালক আরও বলেন, ‘আমরা তো ঢাকায় আসি দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে। তাদের একেক জনের একক রকম কারণ। আমরা সিনেমাটি করার আগে শতাধিক মানুষের সাক্ষাৎকার নিয়েছিলাম। সেখানে জানতে চেয়েছিলাম তাদের ঢাকায় আসার কারণ এবং আমরা অদ্ভুত সব কারণ পেয়েছি।

‘সেখান থেকে উল্লেখযোগ্য দশটি কারণ, তাদের সংকট-সংগ্রাম নিয়ে এ সিনেমাটি করা। আগামীকাল যিনি ঢাকায় আসবেন তার আজকের দিনটি কেমন, কেন, কোন আশায়, কোন প্রেক্ষাপটে তিনি ঢাকায় আসছেন, সেটি আমরা ক্যামেরায় তুলে আনার চেষ্টা করেছি।’

সিনেমায় অভিনয় করেছেন প্রয়াত এস এম মহসীন, ফজলুর রহমান বাবু, মুনিরা মিঠু, শাহাদাৎ হোসেন, শাহরীয়ার ফেরদৌস সজীব, পূর্ণিমা বৃষ্টিসহ অনেকে।

সিনেমা ‘ঢাকাড্রিম’: বাস্তবের চেয়েও কঠিন যে স্বপ্ন
ঢাকাড্রিম সিনেমার দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

অভিনেত্রী মুনিরা মিঠু শুটিংয়ের সময়ের কিছু স্মৃতিচারণা করে বলেন, ‘ঢাকাড্রিম সিনেমায় যে ধরনের চরিত্রে অভিনয় করেছি, তার আগে কখনও করা হয়নি। সিনেমাটি মুক্তি পাচ্ছে আমি খুবই খুশি।’

সিনেমাটির জন্য অনেক কষ্ট করতে হয়েছে উল্লেখ করে মুনিরা মিঠু বলেন, ‘মনে আছে, প্রচণ্ড কনকনে হাওয়ায় মানিকগঞ্জের একটি লোকেশনে সারা রাত আমরা গানের একটি দৃশ্যায়ন করেছিলাম। সেটি যখন শেষ হয়, তখন ভোর ৬টা। যখন গাড়িতে উঠলাম, তিন-চারটা কম্বল দিয়ে আমাকে জড়িয়ে ফেলা হলো।’

সিনেমা ‘ঢাকাড্রিম’: বাস্তবের চেয়েও কঠিন যে স্বপ্ন
ঢাকাড্রিম সিনেমার দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকাড্রিম সিনেমা স্বপ্নের কথা বলবে, সে স্বপ্ন পর্দায় দেখানো হলেও তা দেখতে বাস্তবের চেয়েও কঠিন, তেমনটাই জানিয়েছেন সিনেমার অন্য অভিনয়শিল্পীরা।

আরও পড়ুন:
রিমান্ড দেয়ার ব্যাপারে এখন সতর্ক আদালত
পরীমনির রিমান্ড: ফের ব্যাখ্যা দেবেন দুই বিচারক
শেখ হাসিনা, অনেক ভালোবাসি আপনাকে: পরীমনি
গাড়ি, ল্যাপটপ, মোবাইল ফেরত পাচ্ছেন পরীমনি
গাড়ি-মোবাইল ফেরত পেতে আদালতে পরীমনি

শেয়ার করুন

জন্মদিনে বিপদের সাথিদেরই ডাকবেন পরী

জন্মদিনে বিপদের সাথিদেরই ডাকবেন পরী

বিগত জন্মদিনে ময়ূর থিমে পরীমনির সাজপোশাক। ছবি: সংগৃহীত

ফেসবুকে একটি গল্প দিয়ে পরীমনি লিখেছেন, ‘যারা বিপদের সময় তোমার পাশে থাকেনি, তারা তোমার আনন্দের অংশীদার হওয়ার যোগ্যতাও রাখে না।’

আর কয়েক দিন পরই ঢাকাই সিনেমার আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনির জন্মদিন। জন্মদিন বেশ জমকালো করে উদযাপন করেন এ নায়িকা। একবার তো ময়ূরবেশেই এসেছিলেন তিনি।

জমকালো সে আয়োজনে যারা আমন্ত্রণ পান তাদের অনেকেই জানিয়েছেন, পরীমনির জন্মদিনের আয়োজনে অতিথিদের জন্যও থাকত ড্রেস কোড।

মূলত পরীমনি যে থিমে তার আয়োজন সাজান, সেই রঙের সঙ্গে মিল রেখে অতিথিদের সাজপোশাক পরতে বলেন।

সম্প্রতি মাদক মামলায় কারাগারে ছিলেন পরীমনি। এখন আছেন জামিনে এবং শুটিং করছেন গুনিন সিনেমার।

কারামুক্ত হওয়ার পর জন্মদিন নিয়ে পরীমনি গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, এবার আর নিজের খরচে জন্মদিনের জমকালো আয়োজন করবেন না তিনি। কোনো প্রতিষ্ঠান বা হোটেল-রেস্টুরেন্ট যদি পৃষ্ঠপোষকতা করে তবেই হবে জমকালো আয়োজন।

সিদ্ধান্ত এমনটাই থাকতে পারে, আবার পরিবর্তনও হতে পারে। এমনও হতে পারে যে পরীমনি শুটিংয়ের জন্য জমকালো আয়োজন করতেই পারলেন না। আবার পৃষ্ঠপোষকতা পেয়েও যেতে পারেন। এ ব্যাপারে জানা যাবে শিগগিরই।

জন্মদিন নিয়ে আগাম বার্তা দিয়েছেন পরীমনি। কারামুক্ত হয়ে পরী মেহেদিরাঙা হাতে দুইবার বার্তা দিয়েছেন। এবারের বার্তাটা অনেকটা তেমনি।

এবার পরীমনি সেই ইঙ্গিত দিয়েছেন একটি গল্প বলে। পরী তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে গল্পটিতে লিখেছেন- ‘এক লোক একটা আস্ত বড় গরু গ্রিল করে তার মেয়েকে বললেন, আমার শুভাকাঙ্ক্ষীদের ভোজের জন্য ডাকো।

‘মেয়েটি রাস্তায় গিয়ে চিৎকার করতে থাকল, আমাদের বাসায় আগুন লেগেছে কে কোথায় আছো আমাদের সাহায্য করো।

‘অল্প কিছুসংখ্যক মানুষ সাহায্যের জন্য এগিয়ে এলেন। বাকিরা এমন ভাব করলেন, যেন তারা কিছু শুনতেই পাননি! যারা সাহায্যের জন্য এলেন, তারা পেটপুরে মজাদার সেই খাবার খেলেন।’

পরী গল্পে আরও লেখেন, ‘বাবা আশ্চর্য হয়ে মেয়েকে জিজ্ঞেস করলেন- মা, যারা এসেছেন তাদের কাউকেই আমি চিনি না! আমাদের শুভাকাঙ্ক্ষীরা সব কোথায়?

‘মেয়েটি উত্তরে বলল- যারা এসেছেন তারাই আমাদের শুভাকাঙ্ক্ষী! তারা কিন্তু খাবার খেতে আসেননি। তারা এসেছেন আমাদের বাড়ির আগুন নেভাতে। এরাই আমাদের আপনজন।’

গল্প শেষে পরীমনি লেখেন, ‘যারা বিপদের সময় তোমার পাশে থাকেনি, তারা তোমার আনন্দের অংশীদার হওয়ার যোগ্যতাও রাখে না।’

কথাগুলো লেখার কারণ স্পষ্ট হয় একদম শেষের হ্যাশট্যাগের লেখা থেকে। পরী হ্যাশট্যাগ দিয়ে লিখেছেন ’২৪ অক্টোবর ফ্যাক্ট’। ২৪ অক্টোবর পরীমনির জন্মদিন।

আরও পড়ুন:
রিমান্ড দেয়ার ব্যাপারে এখন সতর্ক আদালত
পরীমনির রিমান্ড: ফের ব্যাখ্যা দেবেন দুই বিচারক
শেখ হাসিনা, অনেক ভালোবাসি আপনাকে: পরীমনি
গাড়ি, ল্যাপটপ, মোবাইল ফেরত পাচ্ছেন পরীমনি
গাড়ি-মোবাইল ফেরত পেতে আদালতে পরীমনি

শেয়ার করুন

প্রতি মাসে শ্রাবন্তী চান ৭ লাখ

প্রতি মাসে শ্রাবন্তী চান ৭ লাখ

কলকাতার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। ছবি: সংগৃহীত

রোশনের সঙ্গে সংসার করতে চান না, সে কথা আগেই জানিয়েছিলেন শ্রাবন্তী। কাগজে-কলমেও তা প্রতিষ্ঠিত করতে আলিপুর আদালতে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা করেন অভিনেত্রী।

কলকাতার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী শুধু ডিভোর্স নয়, গত মাসে স্বামী রোশনের বিরুদ্ধে করেছেন খোরপোশের মামলাও। এ খবর এখন সবারই জানা। এবার জানা গেল রোশনের কাছ থেকে শ্রাবন্তী প্রতি মাসে কত টাকা খোরপোশ হিসেবে দাবি করেছেন।

পরিমাণটা সত্যি চমকে দেয়ার মতো! সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, শ্রাবন্তী প্রতি মাসে ৭ লাখ রুপি দাবি করেছেন রোশনের কাছ থেকে।

এক বছর হলো আলাদা শ্রাবন্তী-রোশন। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে দুজনের দাম্পত্য কলহের কথা প্রকাশ্যে আসা শুরু করে।

রোশনের সঙ্গে সংসার করতে চান না, সে কথা আগেই জানিয়েছিলেন শ্রাবন্তী। কাগজে-কলমেও তা প্রতিষ্ঠিত করতে আলিপুর আদালতে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা করেন অভিনেত্রী। তবে শুধু বিচ্ছেদই না, ক্রিমিনাল প্রসিডিওর কোডের ১২৫ ধারা অনুযায়ী, রোশনের কাছ থেকে প্রতি মাসে ভরণপোষণের জন্য টাকাও দাবি করেছেন শ্রাবন্তী।

প্রতি মাসে শ্রাবন্তী চান ৭ লাখ
কলকাতার অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। ছবি: সংগৃহীত

এ বিষয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে রোশনের আইনজীবী শ্যামল মণ্ডল জানিয়েছেন, এই খবর সত্য। রোশনের কাছ থেকে খোরপোশ বাবদ প্রতি মাসে ৭ লাখ রুপি দাবি করেছেন শ্রাবন্তী, আগামী ১৫ ডিসেম্বর এই মামলার শুনানির দিন ধার্য হয়েছে।

এ নিয়ে শ্রাবন্তী কোনো মন্তব্য করেননি। তিনি দিব্বি ঘুরে বেড়াচ্ছেন কখনও পাহাড়ে, কখনও আবার সমুদ্রে। বিয়ে ও মামলা প্রসঙ্গে রোশন আগেই জানিয়েছেন, এ বিষয়ে যা বলার তার আইনজীবী বলবেন।

আরও পড়ুন:
রিমান্ড দেয়ার ব্যাপারে এখন সতর্ক আদালত
পরীমনির রিমান্ড: ফের ব্যাখ্যা দেবেন দুই বিচারক
শেখ হাসিনা, অনেক ভালোবাসি আপনাকে: পরীমনি
গাড়ি, ল্যাপটপ, মোবাইল ফেরত পাচ্ছেন পরীমনি
গাড়ি-মোবাইল ফেরত পেতে আদালতে পরীমনি

শেয়ার করুন

‘অভিনয়টা আত্মার খোরাক, একটা সময় পর ডাক্তারি করব’

‘অভিনয়টা আত্মার খোরাক, একটা সময় পর ডাক্তারি করব’

অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা

‘অভিনয়টা আমার আত্মার খোরক হয়ে গেছে। সোল ফুড যে বিষয়টি, সেটা সংগ্রহ করতে আমার কাজটি করে যেতেই হবে। একটা নির্দিষ্ট সময়ের পর আমি ডাক্তারি শুরু করব। এখন আমি অভিনয়টাই নিয়মিত করতে চাইছি।’

তার নামের সঙ্গেই চমক শব্দটি জুড়ে আছে। যে কাজগুলো করছেন, সে কাজেও চমক দিচ্ছেন তিনি। তার অভিনয়ে চমকে যাচ্ছেন অনেকে। বিশেষ করে মহানগর ওয়েব সিরিজে অল্প সময়েই পর্দায় উপস্থিতিতেই দাপটের সঙ্গে মনোযোগ কেড়েছেন এই অভিনেত্রী।

তিনি রুকাইয়া জাহান চমক। টিভি নাটক, ওয়েব কনটেন্টে তুমুল ব্যস্ত এই অভিনেত্রী। এক বছরও হয়নি অভিনয় শুরু করেছেন। এরই মধ্যে নামকরা অনেক পরিচালকের সঙ্গেই কাজ করা হয়ে গেছে তার। সম্প্রতি অভিনয় করেছেন মোশাররফ করিমের বিপরীতে।

চিকিৎসাবিজ্ঞানের এই শিক্ষার্থী আপাতত অভিনয়টাই চালিয়ে যেতে চান। কারণ এটি তার আত্মার খোরাক হয়ে উঠেছে। অন্যদিকে পরিবার চায় চিকিৎসক হিসেবে নিয়মিত হোন চমক।

এমন সব বিষয় নিয়ে নিউজবাংলা কথা বলেছে রুকাইয়া জাহান চমকের সঙ্গে।

  • চমক, আপনার পরিবার ও বেড়ে ওঠা নিয়ে একটু জানতে চাই।

আমি সে রকম একটি পরিবার থেকে এসেছি, যেখানে লেখাপড়াকে খুব গুরুত্ব দেয়া হয়। ক্লাসে প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় হতে হবে এমন ফ্যামিলি আমার। তো সেভাবেই বেড়ে ওঠা।

ক্লাসে আমি প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয়র মধ্যেই থাকতাম সব সময়। এরপর সরকারি মেডিক্যালে ভর্তি হওয়া (কর্নেল মালেক মেডিক্যাল কলেজ, মানিকগঞ্জ)।

আমার বাবা ছিলেন বন বিভাগের সরকারি কর্মকর্তা। লেখাপড়ার বিষয়টাই আমার ফ্যামিলিতে বেশি ছিল। তারপরও কিছু এক্সট্রা কারিকুলাম তো ছিলই। আমি নৃত্য শিখেছি বুলবুল ললিতকলা একাডেমি (বাফা) থেকে। মেডিক্যালে আমি নৃত্যের জন্য অনেক পুরস্কার পেয়েছি। আবৃত্তি শিখেছিলাম। গানও করতাম টুকটাক। স্কুল-কলেজের কালচারাল অনুষ্ঠানগুলোতে আমি সব সময় চার-পাঁচটা করে পুরস্কার পেতাম।

অভিনয়ে একটা ঝোঁক ছিলই। নায়িকা হব- এমন ভাবতাম। এখন একটু চেঞ্জ হয়েছে ভাবনাটা। এখন কোনো কাজ দেখলে মনে হয় কীভাবে নিজেকে অভিনেত্রী হিসেবে গড়ে তোলা যায়। এটাই এখন আমার মেইন কনসার্ন।

  • মেডিক্যালে পড়ার ইচ্ছাটা কার? আপনার না পরিবারের?

পরিবারের একটা চাওয়া ছিল। লেখাপড়া ভালো করতে হবে, ও রকম একটা প্রেশার ছিল ফ্যামিলি থেকে। প্রেশার না থাকলে হয়তো আমি ফিল্ম মেকিং বা সিনেমাটোগ্রাফি বা লিটারেচার নিয়ে লেখাপড়া করতাম।

  • আপনি কী এটি বলতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করবেন যে, আপনি লেখাপড়ার কোন স্টেজে আছেন?

আমার ইন্টার্নশিপ বাকি এখনও। কী বলা যায়, আমি শেষ পর্যায়ে আছি এখন।

  • লেখাপড়া শেষ করেছেন বলেই কি এখন অভিনয়টা করতে পারছেন? আপনার শুরুটা জানতে চাই?

অবশ্যই লেখাপড়াটা শেষ করেছি। এখন নিচের যেটা ইচ্ছা সেটা করছি। আর আমার শুরুটা লেখালেখির মাধ্যমে। নাম বলব না, আমি একজনকে স্ক্রিপ্ট দিতে গিয়েছিলাম। যাকে স্ক্রিপ্টটা দিতে গিয়েছিলাম তিনি বললেন, কেন তুমি এটাতে অভিনয় করছ না?

আমি বলেছিলাম যে, না আমি আমার স্ক্রিপ্টে কাজ করব না। অন্য কারো ভালো গল্পে যদি আমাকে কাস্ট করা হয়, তাহলে আমি হয়তো কাজ করতে পারি এবং পরে আমি অভিনয় শুরু করি।

ইন্ডাস্ট্রিতে আমার বয়স আট থেকে নয় মাস। খুবই অল্প সময় হলো কাজ শুরু করেছি। খুবই ভালো লাগছে আমার। এরই মধ্যে আমি ৫০+ নাটকে অভিনয় করেছি কেন্দ্রীয় চরিত্রের অভিনেত্রী হিসেবে। ২০টার বেশি টিভি কমার্শিয়াল (টিভিসি) করে ফেলেছি। ওয়েব সিরিজ করা হয়ে গেছে, হাউস নম্বর ৯৬ নামের সিরিয়াল করা হয়েছে।

শিগগিরই মিজানুর রহমান আরিয়ানের পরিচালনায় একটি সিরিয়াল শুরু করতে যাচ্ছি। যার নাম শুভ রাত্রি। সেখানে নাম-ভূমিকায় কাজ করছি আমি।

‘অভিনয়টা আত্মার খোরাক, একটা সময় পর ডাক্তারি করব’
অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক। ছবি: সংগৃহীত

  • মহানগর ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন। দারুণভাবে সবার নজর কেড়েছেন আপনি।

আমি খুবই লাকি যে আমার অভিনীত প্রথম ওয়েব সিরিজটি এত জনপ্রিয় হয়েছে। পর্দায় আমার উপস্থিতি কম ছিল, তবু সবাই আমাকে নোটিশ করেছেন এবং সবাই আমাকে অনেক অনেক শুভকামনা জানিয়েছেন, ভালো বলেছেন।

অন্য যারা অভিনয়শিল্পী ছিলেন, তারা প্রত্যেকেই অনেক গুণী। তার মধ্যে আমাকেও খেয়াল করেছেন দর্শকরা। আমার কাছে এটা একটা অ্যাচিভমেন্ট।

  • বাংলাদেশের কনটেন্ট অনেকেই দেখেন না বলে শোনা যায়। এখানে কী ধরনের কাজ হয় তাও অনেকে জানেন না। আপনার চারপাশের মানুষজন কি এই প্রকৃতির?

আমি নিজেও কিন্তু আগে বাংলা কনটেন্ট তেমন দেখতাম না। নেটফ্লিক্সের এই যুগে বাংলা অ্যাপগুলো কতটুকু জনপ্রিয় হতে পারবে তা নিয়ে একটা প্রশ্ন ছিল।

এখন আমার মনে হয়, আমরা অনেক ভালো কনটেন্ট উপহার দিতে পারছি। যেমন, হইচই একটা বিদেশি ওটিটি প্ল্যাটফর্ম। সেখানে অন্যতম সফল প্রজেক্ট হলো মহানগর। আমার মনে হয় এটা গর্বের বিষয়। এখন বাংলা কনটেন্ট দেখছে সবাই।

আমার মনে হয় এখন আমাদের স্বর্ণযুগ এসেছে। ওটিটি প্ল্যাটফর্ম আসার পর বাংলা কনটেন্টের স্বর্ণযুগ এখন। দর্শকদের উচিত এই কনটেন্টগুলো দেশে শিল্পী-নির্মাতাদের উৎসাহ দেয়া।

  • আপনার পরিবার ও বন্ধুরা কি আপনার মতোই মনে করছেন?

না না, আমার পরিবার এখনও মনে করছেন ‘তুমি ডাক্তারি করো’। তাদের মাইন্ডসেট হচ্ছে যে, ভালো করে লেখাপড়া করে সুন্দর কিছু করা।

মানুষের হয়তো এমন মনে হতে পারে যে বাংলাদেশের মিডিয়াতে কেমন কাজ হয়, কী হয়। সে ক্ষেত্রে আমি বলব যে, মিডিয়াতে এখন অনেক ভালো কাজ হচ্ছে, কোয়ালিটি ওয়ার্ক হচ্ছে এবং আমরা তো সুন্দর-সুস্থভাবে কাজ করে যাচ্ছি। আমার তো কোনো সমস্যা ফেস করতে হচ্ছে না।

  • মেডিক্যালের লেখাপড়াও অনেক কষ্টের শুনেছি, সেটি শেষ করে অভিনয় করছেন, সেটিও অনেক কষ্টের। মেনে নিচ্ছেন কীভাবে?

ঠিক বলেছেন। তবে কাজ শেষে আমার ফেসবুক পেজে ঢুকে যখন দেখি যে পোস্ট করা ছবির নিচে সবাই এত এত ভালোবাসা জানিয়েছে, ভালো লাগার কথা লিখেছে, তখন কষ্ট অনেকটা কমে যায়। কোথাও গেলে যখন মানুষ বলে যে আপনার অভিনয় ভালো লাগে, তখন মনে হয় পরিশ্রমটা ঠিকমতো করছি। কষ্টটা তখন জাস্টিফাই হয়ে যায়।

  • আপনি কখনও চিকিৎসা পেশায় যাবেন কি না?

অবশ্যই করব, কিন্তু এখন অভিনয়টা আমার আত্মার খোরক হয়ে গেছে। সোল ফুড যে বিষয়টি, সেটা সংগ্রহ করতে আমার কাজটি করে যেতেই হবে। একটা নির্দিষ্ট সময়ের পর আমি ডাক্তারি শুরু করব। এখন আমি অভিনয়টাই নিয়মিত করতে চাইছি।

‘অভিনয়টা আত্মার খোরাক, একটা সময় পর ডাক্তারি করব’
অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক। ছবি: সংগৃহীত

  • বিজ্ঞাপন, নাটক, ওটিটিতে কাজ করলেন। এখন কোন ধরনের কাজ আপনাকে বেশি টানছে।

যদি নির্মাতারা আমাকে নিয়ে সেভাবে ভাবেন, তাহলে অবশ্যই আমি কাজ করব। এমন চরিত্র যা আমি কখনও চিন্তাই করতে পারিনি, সেই চরিত্র চ্যালেঞ্জ নিয়ে করার চেষ্টা আমার থাকবে। নিজেকে ভেঙে যে কাজগুলো করতে হবে, সেগুলো করতে চাই। অফট্র্যাক কাজ করতে আমি বেশি পছন্দ করব।

  • বলছিলেন খুব অল্প সময় ধরে কাজ করছেন আপনি। এই সময়ের মধ্যে যতটুকু দেখলেন, তাতে মিডিয়ার পরিবেশ কেমন লাগছে আপনার?

এটা এখন আমার আরেকটা পরিবার হয়ে গেছে। আমি আমার বাবা-মায়ের সঙ্গে যতটা না সময় কাটাই, এখানকার মানুষদের সঙ্গে তার চেয়ে বেশি সময় কাটাতে হয়।

  • কাজ করতে করতে কখনও মনে হয়, কোনো একটা বিষয় যেটা পরিবর্তন হলে ভালো হতো।

হ্যাঁ, কিছু সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো উচিত। আমার মনে হয় শিল্পীদের কাজের সময়টা কমানো দরকার। আমরা কাজ করি অনেক বেশি সময়। সকাল থেকে অনেক রাত পর্যন্ত। এত বেশি সময় যে ইফিসিয়েন্ট ওয়ার্ক তখন দেয়া যায় না আসলে। এটা মাথায় রেখে কাজ করলে মনে হয় আরও ভালো কাজ করা সম্ভব।

আর ভালো কাজ করার জন্য প্রতিদিন শেখার চেষ্টা করছি। আমি শিখতে পছন্দ করি। আমি সিনেমাটোগ্রাফি নিয়ে বই পড়ার চেষ্টা করি। ফিল্ম মেকিং নিয়ে আমার আগ্রহ আছে। ইউটিউবে অ্যাক্টিং স্কুলের ভিডিও পাওয়া যায়। সেগুলো দেখে নিজেকে একটু একটু করে গ্রুম করার চেষ্টা করছি।

একজন অভিনয়শিল্পী জীবন থেকে বেশি শেখে। অভিনয়ের কোনো ব্যাকরণ নেই। অভিনয় হতে হবে স্বতঃস্ফূর্ত, অভিনয় মানেই প্রতিক্রিয়া এবং অভিনয় না করাটাই অভিনয়। আমি শিখছি এবং মজা করে শিখছি।

আরও পড়ুন:
রিমান্ড দেয়ার ব্যাপারে এখন সতর্ক আদালত
পরীমনির রিমান্ড: ফের ব্যাখ্যা দেবেন দুই বিচারক
শেখ হাসিনা, অনেক ভালোবাসি আপনাকে: পরীমনি
গাড়ি, ল্যাপটপ, মোবাইল ফেরত পাচ্ছেন পরীমনি
গাড়ি-মোবাইল ফেরত পেতে আদালতে পরীমনি

শেয়ার করুন