ট্রাক-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ১

ট্রাক-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ১

প্রতীকী ছবি

রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি মাহবুব মিল্কি নিউজবাংলাকে জানান, সোমবার সকালে চন্দ্রঘোনা থেকে একটি অটোরিকশা বড়ইছড়ির দিকে যাচ্ছিল। শেখ রাসেল এভিয়ারি অ্যান্ড ইকো পার্ক এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই একজনের মৃত্যু হয়।

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় ট্রাক ও অটোরিকশার সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন তিনজন।

উপজেলার চন্দ্রঘোনা-কাপ্তাই সড়কে শেখ রাসেল এভিয়ারি অ্যান্ড ইকো পার্ক এলাকায় সোমবার সকাল পৌনে ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত রতন দাসের বাড়ি চন্দ্রঘোনার চৌধুরী গোট্টা এলাকায়। তাৎক্ষণিক আহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। হতাহতরা সবাই অটোরিকশার যাত্রী ছিলেন।

রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব মিল্কি নিউজবাংলাকে জানান, সোমবার সকালে চন্দ্রঘোনা থেকে একটি অটোরিকশা বড়ইছড়ির দিকে যাচ্ছিল। শেখ রাসেল এভিয়ারি অ্যান্ড ইকো পার্ক এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়।

এতে ঘটনাস্থলেই একজনের মৃত্যু হয়।

ওসি আরও জানান, অটোরিকশার চালকসহ আহত হয়েছেন তিনজন। আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ায় তাদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি।

মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ি দুটি জব্দ করা হলেছে। তবে ঘটনার পরপরই ট্রাকচালক পালিয়ে যাওয়ায় তাকে আটক করা যায়নি।

আরও পড়ুন:
বাইক চালানো শিখতে গিয়ে আ. লীগ নেতার মৃত্যু
লাউয়াছড়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল তরুণের
মহাসড়ক পারাপারের সময় গাড়ির চাকায় পিষ্ট নারী
ট্রলি উল্টে ২ নির্মাণ শ্রমিক নিহত
ঘুর‌তে গি‌য়ে ফেরার পথে গেল প্রাণ

শেয়ার করুন

মন্তব্য

ডাসারে সাপের কামড়ে বিজিবি সদস্যের মৃত্যু

ডাসারে সাপের কামড়ে বিজিবি সদস্যের মৃত্যু

প্রতীকী ছবি।

কাজীবাকাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ হাওলাদার মৃতের পরিবারের বরাতে বলেন, ‘ছুটিতে কয়েকদিন আগে গ্রামের বাড়িতে আসেন মিনহাজুল। সোমবার সন্ধ্যায় পুকুরে গোসল করতে গেলে বিষধর সাপ তাকে কামড়ায়।’

মাদারীপুরের ডাসারে সাপের কামড়ে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) এক সদস্যের মৃত্যু হয়েছে।

কালকিনি উপজেলার কাজীবাকাই ইউনিয়নের পশ্চিম মাইজপাড়া গ্রামে মঙ্গলবার ভোরে মৃত্যু হয় তার।

মৃতের নাম মিনহাজুল ইসলাম জামাল। তার বয়স ৩৩ বছর।

নিউজবাংলাকে এসব জানিয়েছেন কাজীবাকাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ হাওলাদার।

মৃতের পরিবারের বরাতে তিনি বলেন, ‘ছুটিতে কয়েকদিন আগে গ্রামের বাড়িতে আসেন মিনহাজুল। সোমবার সন্ধ্যায় পুকুরে গোসল করতে গেলে বিষধর সাপ তাকে কামড়ায়। গ্রামবাসী তাৎক্ষনিক তাকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

‘সেখানে অবস্থা খারাপ হলে ভোরে পাঠানো হয় বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। সেখানের চিকিৎসক মিনহাজুলকে মৃত ঘোষণা করেন।’

আরও পড়ুন:
বাইক চালানো শিখতে গিয়ে আ. লীগ নেতার মৃত্যু
লাউয়াছড়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল তরুণের
মহাসড়ক পারাপারের সময় গাড়ির চাকায় পিষ্ট নারী
ট্রলি উল্টে ২ নির্মাণ শ্রমিক নিহত
ঘুর‌তে গি‌য়ে ফেরার পথে গেল প্রাণ

শেয়ার করুন

চকরিয়ায় বাস-ট্রাক সংঘর্ষ, আহত ২০

চকরিয়ায় বাস-ট্রাক সংঘর্ষ, আহত ২০

চকরিয়ায় মঙ্গলবার দুপুরে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। ছবি: নিউজবাংলা

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কক্সবাজারমুখী যাত্রীবাহী হানিফ বাস মালুমঘাট দরগাহ গেটের সামনে পৌঁছলে বেপরোয়া গতির চকরিয়ামুখী ডাম্পার ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে দুই গাড়ির চালকসহ ২০ জন আহত হন। গাড়ি দুটির সামনে অংশ দুমড়ে-মুচড়ে গেছে।

কক্সবাজারের চকরিয়ায় বাস-ট্রাক সংঘর্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে দুই চালসহ পাঁচ জনের অবস্থা গুরুতর।

মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়ার মালুমঘাট দরগাহ গেটের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কক্সবাজারমুখী যাত্রীবাহী হানিফ বাস মালুমঘাট দরগাহ গেটের সামনে পৌঁছলে বেপরোয়া গতির চকরিয়ামুখী ডাম্পার ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে দুই গাড়ির চালকসহ ২০ জন আহত হন। গাড়ি দুটির সামনে অংশ দুমড়ে-মুচড়ে গেছে।

পুলিশ পথচারীদের সহযোগিতায় আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে মালুমঘাট মেমোরিয়াল খ্রিষ্টান হাসপাতালে নিয়ে যায়। আহতদের মধ্যে বাস-ট্রাকের দুই চালক এবং এক নারী যাত্রীসহ পাঁচ জনের অবস্থা গুরুতর। তারা কক্সবাজারের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

দুর্ঘটনার পর ওই সড়কে এক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ ছিল।

এ বিষয়ে মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক (ইনর্চাজ) শেফায়েত হোসেন জানান, পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছি।

তিনি জানান, এখন পর্যন্ত কেউ মারা যায়নি। দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ি দুটি জব্দ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
বাইক চালানো শিখতে গিয়ে আ. লীগ নেতার মৃত্যু
লাউয়াছড়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল তরুণের
মহাসড়ক পারাপারের সময় গাড়ির চাকায় পিষ্ট নারী
ট্রলি উল্টে ২ নির্মাণ শ্রমিক নিহত
ঘুর‌তে গি‌য়ে ফেরার পথে গেল প্রাণ

শেয়ার করুন

পদ্মার ভাঙনে রাজবাড়ীতে ১০০ মিটার বিলীন

পদ্মার ভাঙনে রাজবাড়ীতে ১০০ মিটার বিলীন

জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আহাদ বলেন, ‘পদ্মায় পানি কমার সঙ্গে সঙ্গে প্রচণ্ড ঢেউয়ের সৃষ্টি হয়েছে। এর ফলে বেড ম্যাটেরিয়াল সরে গিয়ে ওপরের সিসি ব্লকগুলো দেবে ভাঙন শুরু হয়েছে। ভাঙনকবলিত স্থানে বালুভর্তি ব্যাগ ফেলা হচ্ছে।’

রাজবাড়ীতে পদ্মা নদীর ভাঙনে তীর রক্ষা বাঁধের প্রায় ১০০ মিটার বিলীন হয়ে গেছে।

পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডে মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে ভাঙন শুরু হয়। দুপুরের মধ্যে ১০০ মিটার ভেঙে যায়।

তীর রক্ষা বাঁধে ভাঙন শুরু হওয়ায় ঝুঁকিতে রয়েছে শহর রক্ষা বাঁধ। স্থানীয়রা অন্য জায়গায় সরে যাচ্ছেন।

৯ নম্বর ওয়ার্ডের মাকসুদা আক্তার নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আগে নদী অনেক দূরে ছিল। ভাঙতে ভাঙতে এত কাছে চলে এসেছে যে আমাদের বসতভিটাও নদীতে চলে যাচ্ছে। আমাদের আর যাওয়ার কোনো জায়গা নেই।’

একই এলাকার রাসেল শেখ বলেন, ‘আমরা আতঙ্কে আছি কখন শহর রক্ষা বাঁধ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। স্থায়ী কোনো কাজ না হওয়ায় এ অবস্থা।’

জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আহাদ বলেন, ‘পদ্মায় পানি কমার সঙ্গে সঙ্গে প্রচণ্ড ঢেউয়ের সৃষ্টি হয়েছে। এর ফলে বেড ম্যাটেরিয়াল সরে গিয়ে ওপরের সিসি ব্লকগুলো দেবে ভাঙন শুরু হয়েছে। ভাঙনকবলিত স্থানে বালুভর্তি ব্যাগ ফেলা হচ্ছে।’

পাউবোর তথ্য অনুযায়ী, ১৯৮৫ থেকে ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত নদীতে বিলীন হয়েছে ৯ হাজার ৯৬০ হেক্টর জমি। এর মধ্যে আছে সদর উপজেলা থেকে গোয়ালন্দ উপজেলা পর্যন্ত ৮ হাজার হেক্টর, সদর থেকে কালুখালী পর্যন্ত ২৬০ হেক্টর, কালুখালী থেকে পাংশা উপজেলা পর্যন্ত ১ হাজার ৭০০ হেক্টর জমি।

২০০৮ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত স্থায়ীভাবে নদীভাঙন রোধে তিনটি প্রকল্পে ৫৫০ কোটি ৬৩ লাখ টাকা বরাদ্দ এসেছে।

আরও পড়ুন:
বাইক চালানো শিখতে গিয়ে আ. লীগ নেতার মৃত্যু
লাউয়াছড়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল তরুণের
মহাসড়ক পারাপারের সময় গাড়ির চাকায় পিষ্ট নারী
ট্রলি উল্টে ২ নির্মাণ শ্রমিক নিহত
ঘুর‌তে গি‌য়ে ফেরার পথে গেল প্রাণ

শেয়ার করুন

চট্টগ্রামে ফ্লাইওভারে ফাটল গুজব: প্রকল্প পরিচালক

চট্টগ্রামে ফ্লাইওভারে ফাটল গুজব: প্রকল্প পরিচালক

চট্টগ্রামের এম এ মান্নান ফ্লাইওভারের আরাকান সড়কমুখী র‍্যাম্পের পিলারে ফাটলের কারণে সোমবার রাত ১০টা থেকে যান চলাচল বন্ধ। ছবি: নিউজবাংলা

চট্টগ্রামের ফ্লাইওভারে ফাটলের অভিযোগ নাকচ করেছেন প্রকল্প পরিচালক মাহফুজুর রহমান। তিনি নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এটা যদি ক্র‌্যাক হতো, কলামই ভেঙে পড়ত, হেলে যেত। তবু একটা যেহেতু রিউমার উঠেছে, এটা ভালো করে চেক করে তারপর চালু করা হবে।’

ফ্লাইওভারে দেখা যাওয়া ফাটলকে গুজব বলে দাবি করেছেন চট্টগ্রাম নগর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) নির্বাহী প্রকৌশলী ও প্রকল্প পরিচালক মাহফুজুর রহমান।

নিউজবাংলাকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি বলেন, ‘যে ফাটলের কথা বলা হচ্ছে সেটি আসলে কোনো ফাটল না। যা দেখা যাচ্ছে তা আসলে ফলস কাস্টিং। কলাম যখন একটা লিফট থেকে আরেকটা লিফটে ঢালাই হয় তখন কিছু ফলস কাস্টিং বের হয়ে যায়। শাটারের ভেতর দিয়ে বা কোনো রকম গ্যাস-ট্যাস থেকে এ রকম কিছু ফলস কাস্টিং বের হতে পারে। এটা ফলস কাস্টিংয়েরই একটা ক্র‌্যাক দেখা যাচ্ছে। এটা কলামের ক্র্যাক না।’

তাহলে এটাকে বিপজ্জনক বলা হচ্ছে কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটা বিপজ্জনক না, কিছুই না। এটা কি ভেঙে পড়ছে? এটা তো ভেঙে পড়ে নাই। কোনো কিছু হেলে পড়ছে? কলামে কোনো ডিসমিস হয়েছে?’

ওই র‌্যাম্প দিয়ে যান চলাচল বন্ধের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘তবু যেহেতু একটা কথা উঠছে, আমাদের এক্সপার্টরা আছেন, তারা দেখে মতামত দিলে তারপর ব্যবস্থা নেব।’

‘একটা ফ্লাইওভারে যদি ক্র‌্যাক দেখা দেয়, সেটাকে আনক্র‌্যাক বলতে পারবেন? আবার যদি আনক্র‌্যাক হয়, সেটাকে ক্র‌্যাক বলতে পারবেন? এটা সেনসিটিভ ব্যাপার। এটা যদি ক্র‌্যাক হতো, কলামই ভেঙে পড়ত, হেলে যেত। তবু একটা যেহেতু রিউমার উঠেছে, এটা ভালো করে চেক করে তারপর চালু করা হবে।’

চট্টগ্রামের এম এ মান্নান ফ্লাইওভারে আরাকান সড়কমুখী র‌্যাম্পের একটি পিলারে সোমবার ফাটল দেখা দেয়। এর পর থেকে আরাকান সড়কমুখী র‌্যাম্পে যান চলাচল বন্ধ করে দেয় পুলিশ।

ফ্লাইওভারের ফাটলস্থল পরিদর্শন করেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র রেজাউল করিম। এ সময় ফাটলের জন্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে (সিডিএ) দোষারোপ করে বলেন, ‘ফ্লাইওভারের মূল নকশায় র‍্যাম্পের অস্তিত্ব ছিল না। সিডিএ এটা যুক্ত করেছে। তাই তারা ত্রুটি বের করে ব্যবস্থা নেবে।’

ফাটলের ঘটনা তদন্তে সিটি করপোরেশন সহযোগিতা করবে জানিয়ে মেয়র বলেন, ‘যেসব ঠিকাদার এখানে কাজ করেছেন তাদের ত্রুটি আছে কি না তা খুঁজে বের করবে সিডিএ। আমাদের পক্ষ থেকে তাদের সহযোগিতা করা হবে।’

তবে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রধান প্রকৌশলী কাজী হাসান বিন শামস নিউজবাংলাকে বলেছেন, ‘ফ্লাইওভারটা আগের চেয়ারম্যানের সময় তৈরি করা হয়েছিল। তাই এ বিষয়ে কথা বলা যাচ্ছে না। ঘটনাস্থলে আমাদের লোক আছে। আমরা মন্ত্রণালয়ের একটি মিটিংয়ে যোগ দিতে ঢাকায় এসেছি। চট্টগ্রামে ফিরে পিলারগুলো পরীক্ষা করার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

আরও পড়ুন:
বাইক চালানো শিখতে গিয়ে আ. লীগ নেতার মৃত্যু
লাউয়াছড়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল তরুণের
মহাসড়ক পারাপারের সময় গাড়ির চাকায় পিষ্ট নারী
ট্রলি উল্টে ২ নির্মাণ শ্রমিক নিহত
ঘুর‌তে গি‌য়ে ফেরার পথে গেল প্রাণ

শেয়ার করুন

‘বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায়’ হত্যা, সহকর্মী কারাগারে

‘বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায়’ হত্যা, সহকর্মী কারাগারে

যশোর জেলা ও দায়রা জজ আদালত। ফাইল ছবি

কারখানার শ্রমিকরা জানান, সোমবার দুপুরে বিরতির সময় কারখানার ক্যানটিনে বসে ছিলেন কেয়া। এ সময় তাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন শামীম। প্রস্তাবে রাজি না হলে তাদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে শামীম একটি রড দিয়ে কেয়ার মাথায় আঘাত করেন। পরে কারখানার ভেতর থেকে এক মগ অ্যাসিড এনে তার শরীর ও মুখে ঢেলে দেন।

যশোরের অভয়নগরে চামড়ার কারখানার এক নারী শ্রমিককে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত সহকর্মীকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

যশোর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে এ আদেশ দেন।

এর আগে সোমবার দুপুরে উপজেলার তালতলা এলাকায় যশোর-খুলনা মহাসড়কের পাশে এসএএফ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড নামে চামড়া কারখানার ওই নারীকে রড দিয়ে মাথায় আঘাত ও পরে মুখে অ্যাসিড নিক্ষেপ করেন অভিযুক্ত ব্যক্তি। সন্ধ্যায় খুলনার আদ্‌-দ্বীন হাসপাতালে মৃত্যু হয় তার।

নিহত নারীর নাম কেয়া খাতুন। তিনি অভয়নগর উপজেলার পায়রা ইউনিয়নের কাদিরপাড়া গ্রামের আবুল কালামের মেয়ে। আর আসামি শামীম হোসেনের বাড়ি উপজেলার রাজঘাট মাইলপোস্ট এলাকায়।

ঘটনার পরপরই শামীমকে আটক করে পুলিশে দেয় কারখানা কর্তৃপক্ষ। রাতে অভয়নগর থানায় তার বিরুদ্ধে মামলা করেন কেয়ার মামা হাবিবুর রহমান মজুমদার।

নিউজবাংলাকে এসব তথ্য জানান অভয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম শামীম হাসান।

কারখানার শ্রমিকরা জানান, সোমবার দুপুরে বিরতির সময় কারখানার ক্যানটিনে বসে ছিলেন কেয়া। এ সময় তাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন শামীম। প্রস্তাবে রাজি না হলে তাদের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে শামীম একটি রড দিয়ে কেয়ার মাথায় আঘাত করেন।

পরে কারখানার ভেতর থেকে এক মগ অ্যাসিড এনে তার শরীর ও মুখে ঢেলে দেন শামীম। কেয়ার চিৎকারে ক্যানটিনের শ্রমিকরা শামীমকে আটক করে কারখানা কর্তৃপক্ষকে খবর দেন। আর আহত কেয়াকে খুলনার আদ্‌-দ্বীন হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে শামীমকে অভয়নগর থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে কারখানা কর্তৃপক্ষ।

কেয়ার মামা হাবিবুর বলেন, ‘সোমবার সন্ধ্যায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় কেয়া মারা যায়। ১০ বছর আগে তার বিয়েবিচ্ছেদ হয়। ১১ বছরের মেয়েকে নিয়ে কেয়া বাবার বাড়িতেই থাকত। একই কারখানার সমকর্মী শামীম দীর্ঘদিন ধরে কেয়াকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। রাজি না হওয়ায় শামীম তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে।’

ওসি এ কে এম শামীম হাসান বলেন, ‘প্রেমের কারণে এ হত্যাকাণ্ড হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদে শামীম ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। তাকে আজ (মঙ্গলবার) কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে আদালত।’

আরও পড়ুন:
বাইক চালানো শিখতে গিয়ে আ. লীগ নেতার মৃত্যু
লাউয়াছড়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল তরুণের
মহাসড়ক পারাপারের সময় গাড়ির চাকায় পিষ্ট নারী
ট্রলি উল্টে ২ নির্মাণ শ্রমিক নিহত
ঘুর‌তে গি‌য়ে ফেরার পথে গেল প্রাণ

শেয়ার করুন

বিদ্যালয়ের প্রাচীরের গ্রিল চুরি করছে কারা

বিদ্যালয়ের প্রাচীরের গ্রিল চুরি করছে কারা

মানিকগঞ্জ বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠের পশ্চিম পাশের দেয়ালের অংশ। ছবি: নিউজবাংলা

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, মাঠের চারপাশের দেয়ালের ওপরে লাগানো লোহার গ্রিলগুলো নেই। এরই মধ্যে ৪৫টি গ্রিল চুরি হয়ে গেছে। সবচেয়ে বেশি চুরি হয়েছে পশ্চিম পাশের দেয়ালের অংশে।

মাঠের চারপাশে জ্বলছে হাজার পাওয়ারের বাল্ব। তারপরও রাতে চুরি হচ্ছে মানিকগঞ্জ বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠের দেয়ালের গ্রিল।

বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছে, চুরির বিষয়ে পুলিশকে জানানোর পরেও হচ্ছে চুরি। তবে এ বিষয়ে দায়সারা কথা বলছে থানা পুলিশ।

বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, শহরের ভেতরের একমাত্র খেলার মাঠ রক্ষায় ২০০৮ সালে মাঠের চারপাশে দেয়াল নির্মাণ করা হয়। দেয়ালের ওপর দিয়ে কেউ যেন মাঠে ঢুকতে না পারে সে জন্য দেয়ালের ওপরে লাগানো হয় লোহার গ্রিল।

বিদ্যালয়ের প্রাচীরের গ্রিল চুরি করছে কারা

মাঠে প্রবেশের জন্য লাগানো হয়েছে বেশ কয়েকটি লোহার গেট। মানুষের যাতায়াত বন্ধে অধিকাংশ গেটে তালা দেয়া থাকে। কিন্তু গত এক মাস ধরে রাতের বেলায় চুরি হয়ে যাচ্ছে গ্রিলগুলো।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, মাঠের চারপাশের দেয়ালের ওপরে লাগানো লোহার গ্রিলগুলো নেই। এরই মধ্যে ৪৫টি গ্রিল চুরি হয়ে গেছে। সবচেয়ে বেশি চুরি হয়েছে পশ্চিম পাশের দেয়ালের অংশে।

সদরের জাগীর এলাকার শমসের আলী বলেন, ‘শহরের ভেতরে স্কুলের খেলার মাঠ। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত মাঠে মানুষ থাকে। রাতেও হাঁটাহাঁটি করে মানুষ। এর মধ্যে গ্রিল চুরি যাওয়া কেমন কথা। চুরির ঘটনা শুনে আমিও অবাক হয়ে গেছি।’

বিদ্যালয়ের প্রাচীরের গ্রিল চুরি করছে কারা

পৌর এলাকার ফজলুল হক বলেন, ‘কয়েক দিন আগে মানুষের মুখে শুনছি। তারপর নিজে দেখলাম। প্রশাসনের সবাই জানেন, তারপরেও কেমনে চুরি হয়।’

মানিকগঞ্জ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কাজী মাকসুদা ইয়াসমিন বলেন, ‘বিষয়টি জানার পর বিদ্যালয়ের দুই শিক্ষক সরেজমিনে গিয়ে দেখেছেন। গত ৭ অক্টোবর বিষয়টি লিখিতভাবে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসককে (শিক্ষা ও আইসিটি) জানানো হয়েছে। সেই সঙ্গে পুলিশকেও চুরির বিষয়টি জানানো হয়েছে।’

বিদ্যালয়ের প্রাচীরের গ্রিল চুরি করছে কারা

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) শুক্লা সরকার বলেন, ‘শিক্ষকরা বিষয়টি লিখিতভাবে জানিয়েছেন। চুরি বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা ও চুরির ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের জন্য সদর থানার ওসিকে জানানো হয়েছে। ওসিকে জানানো হয়েছে তাও প্রায় ১৯ দিনের মতো হবে।’

মানিকগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকবর আলী খান জানান, চুরির ঘটনা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানিয়েছেন। এ বিষয়ে পুলিশ তৎপর আছে ও কাজ করছে।

পুলিশকে জানানোর পরও চুরি হচ্ছে কীভাবে এমন প্রশ্নে কোনো উত্তর দিতে পারেনি তিনি।

আরও পড়ুন:
বাইক চালানো শিখতে গিয়ে আ. লীগ নেতার মৃত্যু
লাউয়াছড়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল তরুণের
মহাসড়ক পারাপারের সময় গাড়ির চাকায় পিষ্ট নারী
ট্রলি উল্টে ২ নির্মাণ শ্রমিক নিহত
ঘুর‌তে গি‌য়ে ফেরার পথে গেল প্রাণ

শেয়ার করুন

শুঁটকি আহরণে দুবলার পথে জেলেরা

শুঁটকি আহরণে দুবলার পথে জেলেরা

শুঁটকি আহরণে সুন্দরবনের দুবলার চরের উদ্দেশে উপকূল ছেড়েছেন জেলেরা। ছবি: নিউজবাংলা

পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন নিউজবাংলাকে বলেন, অন্যান্য বছর নভেম্বর থেকে শুরু হলেও এ বছর ইলিশের প্রজনন রক্ষায় নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ায় আজ থেকে সুন্দরবনে শুঁটকি আহরণ মৌসুম শুরু হয়েছে। এবারের মৌসুমে দুবলার চরে জেলেদের জন্য ৯৮০টি ঘর ও ৬৬টি ডিপোর তৈরির অনুমোদন দেয়া হয়েছে

সুন্দরবনের দুবলার চরে শুরু হয়েছে শুঁটকি আহরণ মৌসুম, যা চলবে ৩১ মার্চ পর্যন্ত।

মৌসুম ঘিরে সুন্দরবনের দুবলার চরের উদ্দেশে উপকূল ছেড়েছেন জেলে-মহাজনরা। বন বিভাগ বলছে, শুধু বাগেরহাট থেকেই দুবলার চরে যাবেন ৮ থেকে ১০ হাজার জেলে। সব মিলে উপকূলীয় এলাকা থেকে সেখানে সমাগম হবে ২০ হাজারের বেশি মানুষের।

বন বিভাগের কাছ থেকে অনুমতি পাওয়ার পর অনেক জেলে মঙ্গলবার সকালেই চরের উদ্দেশে রওনা দেন। কেউ কেউ আবার যাত্রা করেছেন রাত ১২টার দিকে।

বাগেরহাট পূর্ব সুন্দরবন বিভাগ সূত্রে জানা যায়, প্রতিবছর শীত মৌসুমে সুন্দরবনের দুবলা, মেহের আলীর চর, আলোরকোল, অফিস কিল্লা, মাঝের কিল্লা, শেলার চর, নারিকেলবাড়িয়া, ছোট আমবাড়িয়া, বড় আমবাড়িয়া, মানিক খালী, কবরখালী, চাপড়াখালীর চর, কোকিলমনি ও হলদাখালীর চরে জেলে ও মহাজনরা জড়ো হন সমুদ্রে মাছ ধরতে। এসব চরে অস্থায়ী ঘর নির্মাণ করেন জেলেরা। পরে সুন্দরবনের চরগুলোতে শুরু করেন শুঁটকি তৈরির কাজ। পরে তা দেশের বিভিন্ন এলাকাসহ বিদেশেও পাঠানো হয়।

পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন নিউজবাংলাকে বলেন, অন্যান্য বছর নভেম্বর থেকে শুরু হলেও এ বছর ইলিশের প্রজনন রক্ষায় নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ায় আজ থেকে সুন্দরবনে শুঁটকি আহরণ মৌসুম শুরু হয়েছে। এবারের মৌসুমে দুবলার চরে জেলেদের জন্য ৯৮০টি ঘর ও ৬৬টি ডিপোর তৈরির অনুমোদন দেয়া হয়েছে। মৌসুমজুড়ে চরে প্রায় ১০ হাজার জেলের সমাগম থাকবে।

তিনি আরও বলেন, গত বছর শুঁটকি মৌসুম থেকে ৩ কোটি ২২ লাখ টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছিল। এবার যেহেতু একটু আগেভাগে মৌসুম শুরু হয়েছে, তাই এবার ৪ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন:
বাইক চালানো শিখতে গিয়ে আ. লীগ নেতার মৃত্যু
লাউয়াছড়ায় ট্রাকচাপায় প্রাণ গেল তরুণের
মহাসড়ক পারাপারের সময় গাড়ির চাকায় পিষ্ট নারী
ট্রলি উল্টে ২ নির্মাণ শ্রমিক নিহত
ঘুর‌তে গি‌য়ে ফেরার পথে গেল প্রাণ

শেয়ার করুন