হাওরে নিখোঁজ দুই পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার

হাওরে নিখোঁজ দুই পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার

কিশোরগঞ্জের নিকলী হাওরে গোসল করতে নেমে দুই পর্যটক নিখোঁজ হয়েছেন। ছবি: নিউজবাংলা

নিকলী থানার ওসি মো. শামসুল আলম সিদ্দিকী জানান, শুক্রবার সকালে ঢাকা থেকে একটি বাসে ৫০ জনের একটি দল নিকলী বেড়িবাঁধ এলাকায় বেড়াতে যান। সেখানে দুটি নৌকা ভাড়া নিয়ে নিকলী হাওরে ঘুরতে বের হন তারা। পরে দুপুর ২টার দিকে বন্ধুদের সঙ্গে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হন আলমগীর ও রনি।

কিশোরগঞ্জের নিকলী হাওরে বন্ধুদের সঙ্গে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ দুই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস।

ফায়ার সার্ভিসের সহযোগিতায় শনিবার সকাল ১১টায় রনির এবং দুপুর দেড়টার দিকে আলমগীরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়৷

মৃত ২২ বছর বয়সী মো. রনি মিয়ার বাড়ি কুমিল্লা জেলার লাকসাম উপজেলার কোয়ালবাজার গ্রামে। আর ২০ বছর বয়সী আলমগীরের বাড়ি গাইবান্ধা সদর উপজেলার ভবানীপুর গ্রামে। তারা দুজনই ঢাকায় পিকআপ ভ্যান চালাতেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নিকলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শামসুল আলম সিদ্দিকী নিউজবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, শুক্রবার সকালে ঢাকা থেকে একটি বাসে ৫০ জনের একটি দল নিকলী বেড়িবাঁধ এলাকায় বেড়াতে যান। সেখানে দুটি নৌকা ভাড়া নিয়ে নিকলী হাওরে ঘুরতে বের হন তারা।

পরে দুপুর ২টার দিকে ঘোড়াদিঘা গ্রামের পাশে ঘোড়াউত্রা নদীর পাড়ে কেওড়া গাছতলায় বন্ধুদের সঙ্গে গোসল করতে নামেন আলমগীর ও রনি। গোসল শেষে নৌকায় উঠে আলমগীর ও রনিকে নৌকায় দেখতে না পেয়ে সবাই তাদেরকে আশেপাশে খোঁজাখুঁজি করেন।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করে রাত ১২টার পর তা বন্ধ ঘোষণা করে। পরে শনিবার সকাল ৯টার দিকে স্থানীয় জেলেদের নিয়ে দ্বিতীয় দফায় উদ্ধার অভিযানে মরদেহগুলো উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন:
হাওরে ঘুরতে এসে নিখোঁজ দুই পর্যটক 
এক দিনে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ
চার দিন ধরে নিখোঁজ মুরগি ব্যবসায়ী
দুই বোনের ‘আত্মহত্যায়’ সন্দেহ কেন
অর্ধগলিত সেই মরদেহ ‘বগুড়ার রেজাউলের’

শেয়ার করুন

মন্তব্য

মেঘনায় জেলেদের সঙ্গে সংঘর্ষে আহত ৫ পুলিশ

মেঘনায় জেলেদের সঙ্গে সংঘর্ষে আহত ৫ পুলিশ

মুন্সিগঞ্জের মেঘনা নদীতে অভিযানে গিয়ে জেলেদের সঙ্গে সংঘর্ষে চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। ছবি: নিউজবাংলা

নারায়ণগঞ্জ জোনের নৌপুলিশের এসপি মিনা মাহমুদ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘কতজন জেলে আহত হয়েছেন তা আমরা তাৎক্ষণিক জানতে পারিনি। তবে আমাদের চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এর মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।’

মুন্সিগঞ্জ সদরের মেঘনায় মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে গিয়ে জেলে ও এলাকাবাসীর হামলায় নৌপুলিশের পাঁচ সদস্য আহত হয়েছেন।

নদীর চরঝাপটা এলাকায় বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ জোনের নৌপুলিশের এসপি মিনা মাহমুদ।

এদিকে হামলার সময় পুলিশ পাল্টা গুলি চালালে স্থানীয় দুই নারীসহ বেশ কয়েকজন আহত হন বলে জানান স্থানীয় আধারা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো. মন্টু।

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন গজারিয়া নৌপুলিশের ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সালাম, এসআই শাহ আলম, এএসআই ফয়সাল, কনস্টেবল ফয়সাল কবির, কনস্টেবল নজরুল। আহতদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কনস্টেবল ফয়সাল কবিরকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। অপর ৪ জনকে মুন্সিগঞ্জ সদর হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে।

আহত নারীরা কোথায় আছেন তা কেউ বলতে পারেনি।

নৌপুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সকালে মেঘনা নদীতে মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে অংশ নেয় গজারিয়া ও চর আব্দুল্লাহ নৌপুলিশ ফাঁড়ি। মাছ নিধনকারী জেলেদের ধরতে ধাওয়া করে নদীতীরে যান পুলিশ সদস্যরা।

তীরে পৌঁছালে পুলিশ সদস্যদের ওপর অতর্কিত হামলা চালান জেলে ও এলাকাবাসী। এ সময় প্রতিরক্ষায় পুলিশ পাল্টা ৪০ রাউন্ড গুলি করে। এতে দুই নারীসহ বেশ কয়েকজন আহত হন।

পুলিশের গুলি শেষ হয়ে এলে আবারও হামলা করে গ্রামবাসী। এতে আহত হয় গজারিয়া নৌপুলিশের ইনচার্জসহ পাঁচ সদস্য। পরে নৌপুলিশের অন্যান্য ফোর্স গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে।

নৌপুলিশের নারায়ণগঞ্জ অঞ্চলের পুলিশ সুপার মিনা মাহমুদা বলেন, ‘আমাদের অভিযান প্রতিদিনই চলছে। এর আগেও জেলেরা পুলিশের ওপর কয়েকবার হামলা চালিয়েছিলেন। আজকের হামলায় পাঁচজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। হামলাকারীদের ধরতে এলাকায় অভিযান চলছে।’

মুন্সিগঞ্জ সদর হাসপাতালের চিকিৎসক সোহাগ জানান, আহত অবস্থায় পাঁচ পুলিশকে হাসপাতালে আনা হলে চারজনকে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয়। অপর একজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিক্যালে পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন:
হাওরে ঘুরতে এসে নিখোঁজ দুই পর্যটক 
এক দিনে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ
চার দিন ধরে নিখোঁজ মুরগি ব্যবসায়ী
দুই বোনের ‘আত্মহত্যায়’ সন্দেহ কেন
অর্ধগলিত সেই মরদেহ ‘বগুড়ার রেজাউলের’

শেয়ার করুন

বাউলদের ধাওয়ায় নদীতে ঝাঁপ, যুবকের মরদেহ উদ্ধার

বাউলদের ধাওয়ায় নদীতে ঝাঁপ, যুবকের মরদেহ উদ্ধার

কুষ্টিয়ার কালীগঙ্গা নদী থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ছবি: নিউজবাংলা

কুমারখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, ১৯ অক্টোবর রাতে কালীগঙ্গা নদীসংলগ্ন মাঠে বাউল-সাধকদের আসর চলাকালে সেখানে চাঁদা নিতে যান তারিফ। এ সময় তাদের সঙ্গে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে বাউল-সাধুরা তাকে ধাওয়া করেন। তখন গায়ের গেঞ্জি খুলে নদীতে ঝাঁপ দেন তারিফ।

কুষ্টিয়ার ছেউড়িয়ায় লালনের আখড়াবাড়িসংলগ্ন কালীগঙ্গা নদী থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার ভোর ৬টার দিকে নদীতে ভাসমান অবস্থায় ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত ৩৪ বছর বয়সী তারিফের বাড়ি শহরের মিলপাড়া এলাকায়।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, লালনের তিরোধান দিবস উপলক্ষে আখড়াবাড়িতে ভিড় জমান বাউল-সাধুরা। ১৯ অক্টোবর রাতে কালীগঙ্গা নদীসংলগ্ন মাঠে বাউল-সাধকদের আসর চলাকালে সেখানে চাঁদা নিতে যান তারিফ।

এ সময় তাদের সঙ্গে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে বাউল-সাধুরা তাকে ধাওয়া করেন। তখন গায়ের গেঞ্জি খুলে নদীতে ঝাঁপ দেন তারিফ। পরে বাউলরা তারিফের বাড়িতে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের গেঞ্জি দেখিয়ে ঘটনা জানিয়ে আসেন।

এ ঘটনার পর বৃহস্পতিবার সকালে নদীতে ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ। এ ঘটনায় মামলা হবে বলেও জানান ওসি।

আরও পড়ুন:
হাওরে ঘুরতে এসে নিখোঁজ দুই পর্যটক 
এক দিনে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ
চার দিন ধরে নিখোঁজ মুরগি ব্যবসায়ী
দুই বোনের ‘আত্মহত্যায়’ সন্দেহ কেন
অর্ধগলিত সেই মরদেহ ‘বগুড়ার রেজাউলের’

শেয়ার করুন

বাস খাদে পড়ে নিহত যাত্রী

বাস খাদে পড়ে নিহত যাত্রী

সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় বাস খাদে পড়ে ১ জন নিহত হয়েছেন। ছবি: নিউজবাংলা

পাটকেলঘাটা থানার ওসি নাজমুল হুদা বলেন, খুলনাগামী বাসটি পাটকেলঘাটায় শাকদহ এলাকায় পৌঁছে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই রানা মারা যান।

সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় বাস খাদে পড়ে একজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও ১০ জন।

উপজেলার পাটকেলঘাটায় শাকদহ এলাকায় বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ৩০ বছর বয়সী রানা সরদারের বাড়ি জেলার কন্টাকটার ধুলিহর গ্রামে।

আহতরা হলেন, সাজ্জাত সরদার, মো. ফরহাদুজ্জামান, নওশের আলী, আল আমিন ও রনিজৎ কর্মকার। আহত বাকি পাঁচজনের পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

পাটকেলঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হুদা বলেন, খুলনাগামী বাসটি পাটকেলঘাটায় শাকদহ এলাকায় পৌঁছে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই রানা মারা যান। পরে স্থানীয়রা আহত ১০ জনকে উদ্ধার করে আশেপাশের বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করেন।

তিনি আরও জানান, দুর্ঘটনার পর থেকে চালক পলাতক। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে।

এ ঘটনায় মামলা হবে বলেও জানান ওসি।

আরও পড়ুন:
হাওরে ঘুরতে এসে নিখোঁজ দুই পর্যটক 
এক দিনে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ
চার দিন ধরে নিখোঁজ মুরগি ব্যবসায়ী
দুই বোনের ‘আত্মহত্যায়’ সন্দেহ কেন
অর্ধগলিত সেই মরদেহ ‘বগুড়ার রেজাউলের’

শেয়ার করুন

সশরীরে ক্লাস শুরু রাবিতেও

সশরীরে ক্লাস শুরু রাবিতেও

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সব বিভাগে সশরীরে ক্লাস শুরু হয়েছে। ছবি: নিউজবাংলা

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী ওমর ফারুক বলেন, ‘করোনার পরে আমরা সবাই যে আবার এক হতে পারব এটা ভাবিনি। আমাদের রবীন্দ্র ভবন আবার প্রাণ ফিরে পেয়েছে। আবার উল্লাস ফিরেছে ১২৩ নম্বর ক্লাসে।’

ক্লাসে ক্লাসে ফিরেছেন শিক্ষার্থী, শিক্ষকরাও প্রস্তুত। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সব বিভাগে সশরীরে ক্লাস শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিক থেকে ক্লাসে আসতে শুরু করেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয় একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১৭ অক্টোবর হলসমূহ খুলে দেয়া হয়।

ক্লাসে শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিতে সকল প্রকার প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগ ও অনুষদগুলো। এদিকে দীর্ঘদিন পর ক্লাসে ফেরার পর উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

কথা হয় ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী সারওয়ার হোসেনের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘যতটুকু সম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমরা ক্লাসে অংশ নিয়েছি। প্রায় দুবছর পর ক্লাসে এসেছি আজ। ক্লাসের সকল বন্ধুর সঙ্গে দেখা হয়েছে, কথা হয়েছে। বেশ ভালোই লাগছে দিনটি।’

সশরীরে ক্লাস শুরু রাবিতেও

শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী সুমন হাসান বলেন, ‘করোনাপরবর্তী ক্লাস আমাদের জন্য একটা ঐতিহাসিক মাইলফলক। অনেক দিন পর আমাদের বিভাগের শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা হলো। মনে হচ্ছে আগের দিনগুলোতে ফিরে এসেছি।’

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী ওমর ফারুক বলেন, ‘করোনার পরে আমরা সবাই যে আবার এক হতে পারব এটা ভাবিনি। আমাদের রবীন্দ্র ভবন আবার প্রাণ ফিরে পেয়েছে। আবার উল্লাস ফিরেছে ১২৩ নম্বর ক্লাসে।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘ক্লাস উপলক্ষে সকল বিভাগের কক্ষগুলো পরিষ্কার করা হয়েছে। এই অনুষদের প্রায় সব বিভাগে আজ সশরীরে ক্লাস চলছে। শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিও অনেক।’

বিশ্বিবদ্যালয় জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক আজিজুর রহমান জানান, শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করে সকাল ১০টায় প্রায় সব বিভাগে সশরীরে ক্লাস শুরু হয়েছে। তবে কিছু বিভাগে পরীক্ষার তারিখ থাকায় তাদের পরীক্ষা চলছে। ক্লাসে শিক্ষার্থীদের বরণ করে নিতে সকল প্রকার প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন বলেও জানান তিনি

করোনায় গত বছরের ১৭ মার্চ বন্ধ হয়ে যায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম। করোনার সংক্রমণ কমে আসলে এ বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের এক সভায় ২১ অক্টোবর সশরীরে ক্লাস নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন:
হাওরে ঘুরতে এসে নিখোঁজ দুই পর্যটক 
এক দিনে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ
চার দিন ধরে নিখোঁজ মুরগি ব্যবসায়ী
দুই বোনের ‘আত্মহত্যায়’ সন্দেহ কেন
অর্ধগলিত সেই মরদেহ ‘বগুড়ার রেজাউলের’

শেয়ার করুন

খালে মিলল নারীর মরদেহ

খালে মিলল নারীর মরদেহ

স্থানীয় বাসিন্দা কলিম উল্লাহ মিসবাহ বলেন, ‘বুধবার থেকে খাটখালী বাজারে ওই বৃদ্ধাকে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায়। সে সারা দিন বাজারের আশপাশে ঘুরেছে। বৃহস্পতিবার সকালে বাজারের পাশের জলকদর খালে তার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়া হয়।’

চট্টগ্রামের বাঁশখালী থেকে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

উপজেলার গণ্ডামারা ইউনিয়নের খাটখালী বাজারের পাশে জলকদর খাল থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয় বাসিন্দা কলিম উল্লাহ মিসবাহ বলেন, ‘বুধবার থেকে খাটখালী বাজারে ওই বৃদ্ধাকে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায়। সে সারা দিন বাজারের আশপাশে ঘুরেছে। বৃহস্পতিবার সকালে বাজারের পাশের জলকদর খালে তার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়া হয়।’

এ বিষয়ে গণ্ডামারা পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) প্রদীপ বলেন, ‘মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তার গায়ে আঘাতের কোনো চিহ্ন দেখা যায়নি। তার পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা চলছে।’

আরও পড়ুন:
হাওরে ঘুরতে এসে নিখোঁজ দুই পর্যটক 
এক দিনে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ
চার দিন ধরে নিখোঁজ মুরগি ব্যবসায়ী
দুই বোনের ‘আত্মহত্যায়’ সন্দেহ কেন
অর্ধগলিত সেই মরদেহ ‘বগুড়ার রেজাউলের’

শেয়ার করুন

এক দিনের বন্যায় বিপর্যস্ত উত্তরের ৩ জেলা

এক দিনের বন্যায় বিপর্যস্ত উত্তরের ৩ জেলা

উজানের ঢলে এক দিনের বন্যায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে তিস্তার তীরবর্তী নিম্নাঞ্চল। ছবি: নিউজবাংলা

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নীলফামারীর ডালিয়ার বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ৬টার পর তিস্তার পানি বিপৎসীমার ৩০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এক দিনের বন্যা ও ভাঙনে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে তিস্তার তীরবর্তী নীলফামারী, লালমনিরহাট ও রংপুর জেলার নিম্নাঞ্চল। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে এসব এলাকার অর্ধলাখ মানুষ। চোখের সামনে ঘরবাড়ি, ফসল বন্যায় নষ্ট হতে দেখে বলার ভাষা হারিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্ত অনেকে।

নীলফামারী

উজানের ঢলে বুধবার ভোরে প্রথম বিধ্বস্ত হয় ভারত-বাংলাদেশের জিরো পয়েন্টে থাকা নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার পূর্বছাতনাই ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের গ্রোয়েন বাঁধ।

পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) জানায়, বাঁধের ৬০ মিটার ভেঙে যাওয়ায় তিন শতাধিক বসতঘরসহ কয়েক শ হেক্টর ফসলি জমি পানিতে তলিয়ে যায়।

বন্যায় চরের শত শত হেক্টরের ভুট্টা, উঠতি আমন ধান, শাকসবজি, পুকুরের মাছ, বসতঘর ভেসে প্রায় ২৫ হাজার পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এক দিনের বন্যায় বিপর্যস্ত উত্তরের ৩ জেলা

বন্যায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে পূর্বছাতনাই ঝাড় সিংহেশ্বর গ্রামের বৃদ্ধা মোহনা বেওয়ার। খোলা আকাশের নিচে কান্নাজড়িত কণ্ঠে তিনি বলেন, ‘মোর (আমার) সব শেষ হইল (হয়েছে)। ঘর, গরু-ছাগল সব মোর এই বন্যা নিয়ে গেইল। অ্যালা (এখন) কি হইবে মোর?’

একই গ্রামের রজব আলী বলেন, ‘ফজর নামাজ পড়ার জন্য মসজিদে যাই। তখন বাঁধ ভাঙার খবর পাই। নামাজ শেষে বের হয়ে দেখি নদীর পানি বাড়তাছে। ৩০ মিনিটের মধ্যে বাড়িতে কোমর পর্যন্ত পানি উঠে আসে।’

এক দিনের বন্যায় বিপর্যস্ত উত্তরের ৩ জেলা

বাঁধ ভাঙার পরপরই নীলফামারী জেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যসহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন দ্রুত উদ্ধারকাজ চালায়।

নীলফামারী জেলা প্রশাসক (ডিসি) হাফিজুর রহমান চৌধুরী জানান, প্রাথমিকভাবে ডিমলা উপজেলায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য জিআরের ৪০ টন চাল ও টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। শহর রক্ষা বাঁধসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আশ্রয় নেয়া বন্যা ও ভাঙন কবলিত পরিবারগুলোকে শুকনো খাবার বিতরণ করা হচ্ছে।

এক দিনের বন্যায় বিপর্যস্ত উত্তরের ৩ জেলা

ডিমলা উপজেলা ফায়ার সর্ভিসের ইনচার্জ এটি এম গোলাম মোস্তফা জানান, তিস্তার বন্যায় চর এলাকায় আটকে পড়া অসংখ্য পরিবারকে উদ্ধার করে নিরাপদে সরিয়ে আনা হয়েছে। এ কারণে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নীলফামারীর ডালিয়ার বন্যা পূর্বাভাস ও সর্তকীকরণ কেন্দ্রের কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ৬টার পর তিস্তার পানি বিপৎসীমার ৩০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এক দিনের বন্যায় বিপর্যস্ত উত্তরের ৩ জেলা

পাউবোর প্রধান প্রকৌশলী (উত্তরাঞ্চল) জ্যোতি প্রসাদ ঘোষ বলেন, ‘এই বন্যায় তিস্তা ব্যারেজ ও নদী রক্ষার প্রায় ৯টি স্পার্ক, ক্রস ও গ্রোয়েন বাঁধ বিধ্বস্ত হয়ে ৫০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।’

লালমনিরহাট

দেশের সর্ববৃহৎ সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারেজের লালমনিরহাট অংশে প্রচণ্ড পানির চাপে ফ্লাড বাইপাস বাঁধের ৩০০ মিটার ভেঙে যায়।

জেলা পাউবো সংশ্লিষ্টরা জানায়, ৬৯৬ মিটার দীর্ঘ এই ব্যারেজ রক্ষা বাঁধের ৩০০ মিটার ভেঙে যাওয়ায় নীলফামারী ও লালমনিরহাট জেলার সড়ক পথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

এক দিনের বন্যায় বিপর্যস্ত উত্তরের ৩ জেলা

পাউবোর উত্তরাঞ্চলীয় প্রধান প্রকৌশলী জ্যোতি প্রসাদ ঘোষ বলেন, ‘অনেক জায়গায় ভাঙন দেখা দিয়েছে; আমরা প্রটেক্টশন দেয়ার চেষ্টা করছি। এখনও আমাদের কাজ চলছে।’

রংপুর

তিস্তায় হঠাৎ পানি বেড়ে যাওয়ায় রংপুরের গংগাচড়া উপজেলার তিন ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। বানভাসীরা কেউ সড়কে, কেউ বাঁধে, কেউ বা আবার অস্থায়ী তাঁবুতে রাত কাটিয়েছেন। গৃহপালিত পশু রাখা হয়েছে সড়কের ওপর। বন্যা কবলিত এলাকায় দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানি ও শুকনো খাবারের সংকট।

হঠাৎ বন্যায় শত শত একর ফসলি জমির আবাদ নষ্ট হয়েছে। পানির তোড়ে কাঁচা রাস্তা বিলীন হয়ে যাওয়ায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা।

এক দিনের বন্যায় বিপর্যস্ত উত্তরের ৩ জেলা

বানভাসী মজনু মিয়া বলেন, ‘নদী তো শুকনে ছিল। শুকনে নদীত হঠাৎ পানি। সেই পানি বাড়িঘর ভাসি গেইল। গরু-ছাগল, বাচ্চা নিয়ে আস্তাত আছি। খুব ক্ষতি হইচে।’

আরেক বাসিন্দা শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘পানিতে বাড়ি যাওয়ার রাস্তা নাই। কষ্ট করি রাস্তার উপরে আছি। রান্না নাই, খাওয়াও নাই।’

সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘হঠাৎ করি বন্যা আসি, ধান চাল সোগ শ্যাষ। ৬ দোন মাটির ধান কাটি থুচি আর সব ভাসি গেইচে। ছৈল পৈল নিয়ে কি খামো। কপাল নিয়ে গেইচে পানি।’

এক দিনের বন্যায় বিপর্যস্ত উত্তরের ৩ জেলা

আব্দুল মজিত বলেন, ‘হামার আবাদি জমি সোগ তলে গেইচে। হঠাৎ এমন করি ভারত পানি ছাড়লে হামরা বাঁচমো ক্যামন করি? একে তো এবারের বানোত (বন্যা) হামার মেলা ক্ষয়ক্ষতি হইছে। তার ওপর এই অসময়ে ফির বান! নদীপাড়োত হামার সুখ-শান্তি নাই।’

বন্যাকবলিত এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, গংগাচড়ার নোহালী, আলমবিদিতর, কোলকোন্দ, গজঘণ্টা লক্ষ্মীটারী ও মর্ণেয়া ইউনিয়নের কোথাও আংশিক, কোথাও ৩ থেকে ৫টি পাড়াসহ তিস্তা নদীর উত্তরে গংগাচড়া উপজেলার সব মানুষ এখন পানিবন্দি হয়ে মানবতার জীবন যাপন করছেন। বিভিন্ন এলাকায় দেখা দিয়েছে ভাঙন।

এক দিনের বন্যায় বিপর্যস্ত উত্তরের ৩ জেলা

লক্ষ্মীটারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল হাদি বলেন, ভয়াবহ এ বন্যায় ইউনিয়নের কেল্লারপাড়, শংকরদহ, বাগেরহাটসহ বেশ কিছু গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। তিস্তার ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার মানুষজনকে নিরাপদ স্থানে নিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এখন যে পরিস্থিতি, তাতে আর দু-এক দিন এভাবে পানি বাড়তে থাকলে স্মরণকালের বন্যা হবার সম্ভাবনা রয়েছে।

রংপুর জেলা প্রশাসক আসিব আহসান বলেন, ‘বুধবার বন্যাকবলিতদের ২০ টন চাল ও ৫০০ প্যাকেট শুকনা খাবার দেয়া হয়েছে। আমাদের কাছে পর্যাপ্ত ত্রাণ রয়েছে। প্রয়োজনে সেগুলো বিতরণ করা হবে।’

আরও পড়ুন:
হাওরে ঘুরতে এসে নিখোঁজ দুই পর্যটক 
এক দিনে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ
চার দিন ধরে নিখোঁজ মুরগি ব্যবসায়ী
দুই বোনের ‘আত্মহত্যায়’ সন্দেহ কেন
অর্ধগলিত সেই মরদেহ ‘বগুড়ার রেজাউলের’

শেয়ার করুন

ছাত্রদল থেকে অনুপ্রবেশ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে বহিষ্কার

ছাত্রদল থেকে অনুপ্রবেশ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে বহিষ্কার

সদ্য বহিস্কার হওয়া গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল্লাহ আল মেহেদী রাসেল। ছবি: নিউজবাংলা

স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক আজিজুল হক আজিজ মুঠোফোনে নিউজবাংলাকে বলেন, ‘রাসেল মূলত জাতীয়তাবাদে বিশ্বাসী। তিনি মুজিব আদর্শের সৈনিক নন। তিনি বিভিন্ন অপরাধ থেকে বাঁচতে ছাত্রদল থেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগে ঢুকে পড়েন।’

ছাত্রদল থেকে আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠন স্বেচ্ছাসেবক লীগে অনুপ্রবেশ করায় আব্দুল্লাহ আল মেহেদী রাসেলকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের দপ্তর সম্পাদক আজিজুল হক আজিজ স্বাক্ষরিত অব্যাহতিপত্রে ২০ অক্টোবর রাতে এই ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

রাসেল গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন।

ওই চিঠিতে বলা হয়, রাসেলের বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও গঠনতন্ত্র বিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার সুস্পষ্ট অভিযোগ রয়েছে। এতে সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে।

চলতি মাসে সংগঠনটির জেলা সভাপতি ও সম্পাদকের লিখিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

এ বিষয়ে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক আজিজুল হক আজিজ মুঠোফোনে নিউজবাংলাকে বলেন, ‘রাসেল মূলত জাতীয়তাবাদে বিশ্বাসী। তিনি মুজিব আদর্শের সৈনিক নন। তিনি বিভিন্ন অপরাধ থেকে বাঁচতে ছাত্রদল থেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগে ঢুকে পড়েন।’

এসব কারণে রাসেলকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

ছাত্রদল থেকে অনুপ্রবেশ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে বহিষ্কার

রাসেল ২০০১ সালে বামনডাঙ্গা আঞ্চলিক ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক এবং ২০০৩ সালে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সহসাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন বলে জানা গেছে।

২০১০ সালে স্থানীয় আজেপাড়া দাখিল মাদ্রাসায় কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙচুরের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলাও হয়।

আরও পড়ুন:
হাওরে ঘুরতে এসে নিখোঁজ দুই পর্যটক 
এক দিনে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ
চার দিন ধরে নিখোঁজ মুরগি ব্যবসায়ী
দুই বোনের ‘আত্মহত্যায়’ সন্দেহ কেন
অর্ধগলিত সেই মরদেহ ‘বগুড়ার রেজাউলের’

শেয়ার করুন