× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ পৌর নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট

বাংলাদেশ
Declaration of 10 daily newspapers canceled
hear-news
player
print-icon

১০ দৈনিক পত্রিকার ডিক্লারেশন বাতিল

১০-দৈনিক-পত্রিকার-ডিক্লারেশন-বাতিল
প্রতীকী ছবি
ঘোষণাপত্র বাতিল করা দৈনিক পত্রিকাগুলো হলো গণ আওয়াজ, দৈনিক জনসেবা, ঢাকা প্রকাশ, জাতির কণ্ঠ, কিষাণ, এই দেশ এই দিন, পূর্ব আলো, সময়ের পাতা ও রিপোর্টার এবং দি ফাইনান্সিয়াল ডেইলি।

দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকায় ঢাকা থেকে প্রকাশিত ৯টি বাংলা ও একটি ইংরেজি দৈনিক পত্রিকার ঘোষণাপত্র (ডিক্লারেশন) বাতিল করেছে সরকার।

ঢাকার জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের সই করা এক প্রজ্ঞাপনে গত বুধবার পত্রিকাগুলোর ঘোষণাপত্র বাতিল করা হয় বলে মঙ্গলবার এক তথ্য বিবরণীতে জানিয়েছে তথ্য অধিদপ্তর।

ঘোষণাপত্র বাতিল করা দৈনিক পত্রিকাগুলো হলো গণ আওয়াজ, দৈনিক জনসেবা, ঢাকা প্রকাশ, জাতির কণ্ঠ, কিষাণ, এই দেশ এই দিন, পূর্ব আলো, সময়ের পাতা ও রিপোর্টার এবং দি ফাইনান্সিয়াল ডেইলি।

সরকারের এই সিদ্ধান্তে এই পত্রিকাগুলো প্রকাশ বা প্রচার বন্ধ করা যাবে না।

তথ্য বিবরণীতে বলা হয়, ১৯৭৩ সালের ছাপাখানা ও প্রকাশনা (ঘোষণা ও নিবন্ধন) আইনের ৯ (১) এর (৩) (ক) ধারা ভঙ্গ করায় এবং পত্রিকাগুলোর প্রকাশক ও সম্পাদক চুক্তিপত্রের শর্ত না মানায় এগুলোর ঘোষণাপত্র বাতিল করা হয়েছে।

নিয়মিত প্রকাশিত না হওয়া পত্রিকাগুলো বন্ধে সরকারের পদক্ষেপ নিয়ে আগস্টের শেষ দিকে কথা বলেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

এ ধরনের পত্রিকাগুলোকে ‘ভুতুড়ে’ উল্লেখ করে ২৪ আগস্ট তথ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘এখানে নিয়োগকৃতদের বেতন দেয়া হয় না, এরা চাঁদাবাজিসহ নানা কিছুতে লিপ্ত হয় এবং সেই বদনামটা সাংবাদিক সমাজের ওপর বর্তায়, যা কখনোই সমীচীন নয়।’

এসব ‘ভুতুড়ে পত্রিকার’ বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার শুরুর কথা তখনই জানিয়েছিলেন।

অন্যদিকে, মঙ্গলবার এক রিটের জবাবে অনিবন্ধিত সব অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।

এর আগে গত ১৬ আগস্ট অনলাইন পত্রিকার সাংবাদিকদের জন্য ‘নৈতিক নীতিমালা’ প্রণয়নে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিল আদালত।

সেই সঙ্গে ‘ন্যাশনাল অনলাইন মাস মিডিয়া পলিসি ২০১৭’ অনুযায়ী দেশে অননুমোদিত এবং অনিবন্ধিত অনলাইন পত্রিকাগুলোকে কেন বন্ধের নির্দেশ দেয়া হবে না জানতে চাওয়া হয়।

পাশাপাশি অপেক্ষমাণ থাকা অনিবন্ধিত পত্রিকাগুলোকে নিবন্ধনের আওতায় আনতে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না তাও জানতে চাওয়া হয়েছিল রুলে।

মন্তব্য

আরও পড়ুন

বাংলাদেশ
Student injured in bike collision 2 hours road blockade

বাইকের ধাক্কায় শিক্ষার্থী আহত, ২ ঘণ্টা সড়ক অবরোধ

বাইকের ধাক্কায় শিক্ষার্থী আহত, ২ ঘণ্টা সড়ক অবরোধ
সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী কামরুল হাসান সরকার বলেন, ‘সড়ক অবরোধের খবর পেয়ে আমি তাৎক্ষণিক কলেজ কর্তৃপক্ষকে সঙ্গে নিয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেছি। কলেজের সামনে ২টি ও হাসপাতালের সামনে ২টি নতুন স্পিডব্রেকার নির্মাণ করা হবে বলে তাদের জানিয়েছি। পরে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ তুলে নেন।’

দিনাজপুর শহরে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় এম. আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজের এক ছাত্রী আহতের ঘটনায় ২ ঘণ্টা ধরে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ সড়ক আটকে রাখে সহপাঠীরা।

এম. আব্দুর রহিম মেডিক্যালের সামনে সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিক্ষার্থীর নাম হুমায়রা ফেরদৌস প্রমি। তিনি ২৯তম ব্যাচের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী। ওই মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেই তিনি চিকিৎসাধীন।

দিনাজপুর কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (অপারেশন) গোলাম মওলা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে জানান, দুপুরে কলেজের ফটকের সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় বাইকের ধাক্কায় আহত হন প্রমি। তখনই অন্য শিক্ষার্থীরা বাইকচালক মোমিনুল ইসলামকে আটক করে। প্রমিকে হাসপাতালে পাঠানোর পর শিক্ষার্থীরা কলেজ ও হাসপাতালের সামনের স্পিডব্রেকারের দাবিতে সড়ক আটকে বিক্ষোভ করেন।

পরে কলেজের অধ্যক্ষ মোমেনুল হক, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী কামরুল হাসান সরকার ও দিনাজপুর কোতোয়ালি থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেন। দুই ঘণ্টা পর তারা সড়ক ছেড়ে চলে যান।

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী কামরুল হাসান সরকার বলেন, ‘সড়ক অবরোধের খবর পেয়ে আমি তাৎক্ষণিক কলেজ কর্তৃপক্ষকে সঙ্গে নিয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেছি। কলেজের সামনে ২টি ও হাসপাতালের সামনে ২টি নতুন স্পিডব্রেকার নির্মাণ করা হবে বলে তাদের জানিয়েছি। পরে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ তুলে নেন।’

আরও পড়ুন:
মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
নিরাপদ সড়কের দাবিতে উত্তরায় শিক্ষার্থীদের অবরোধ
বেতন-বোনাসের দাবিতে সড়ক অবরোধে উত্তরায় দীর্ঘ যানজট
ইজিবাইক আটকের প্রতিবাদে মহাসড়কে বিক্ষোভ
শ্রমিক নেতাদের মারধর, আড়াই ঘণ্টা সড়ক অবরোধ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The body of the missing child was recovered from the boat

নৌকা থেকে পড়ে নিখোঁজ শিশুর মরদেহ উদ্ধার

নৌকা থেকে পড়ে নিখোঁজ শিশুর মরদেহ উদ্ধার প্রতীকী ছবি
শিশুর বাবা মামুন সরদার বলেন, ‘রোববার সকাল সাড়ে ৯টায় নদীতে পেতে রাখা জাল তুলছিলাম। নৌকায় আমার স্ত্রী সুমী বেগম ও একমাত্র ছেলে হাসান ছিল। আমার সঙ্গে স্ত্রীও নৌকায় জাল তুলছিল। তখন খেলতে খেলতে হঠাৎ বাচ্চাটা পানিতে পড়ে যায়।’

নৌকা থেকে পড়ে ঝালকাঠির বাসন্ডা নদীতে ডুবে যাওয়া দেড় বছরের শিশু হাসানের মরদেহ মিলেছে।

পৌর এলাকার নেছারাবাদ মহিলা মাদ্রাসার সামনে বাসন্ডার তীরে সোমবার দুপুরে মরদেহটি ভেসে উঠলে স্থানীয়রা তা উদ্ধার করে।

পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্দুল কুদ্দুস হাওলাদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শিশুর বাবা মামুন সরদার বলেন, ‘রোববার সকাল সাড়ে ৯টায় নদীতে পেতে রাখা জাল তুলছিলাম। নৌকায় আমার স্ত্রী সুমী বেগম ও একমাত্র ছেলে হাসান ছিল। আমার সঙ্গে স্ত্রীও নৌকায় জাল তুলছিল। তখন খেলতে খেলতে হঠাৎ বাচ্চাটা পানিতে পড়ে যায়।’

তিনি জানান, স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে সোমবার দুপুরে গিয়ে ছেলের মরদেহ পায়।

আরও পড়ুন:
সিলেটে বেড়াতে গিয়ে হাওরে ডুবে মৃত্যু
নদীতে ডুবে স্কুলছাত্রীর মৃত্যু, নিখোঁজ বান্ধবী
নদীতে ঝাঁপ: মেয়ের মরদেহ উদ্ধার, মা নিখোঁজ
কাপ্তাই হ্রদে গোসলে নেমে দুই বন্ধুর মৃত্যু
খোঁজ মেলেনি সেই মা-মেয়ের, উদ্ধার অভিযান বন্ধ

মন্তব্য

বাংলাদেশ
5 injured in clashes and vandalism over eating jhalamuri

ঝালমুড়ি খাওয়া নিয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষ-ভাঙচুর, আহত ৫

ঝালমুড়ি খাওয়া নিয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষ-ভাঙচুর, আহত ৫
ওসি মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা জানান, ২ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মো. অলিউল্লাহ ও বর্তমান কাউন্সিলর হুমায়ুন কবিরের লোকজনের মধ্যে ঝালমুড়ি খাওয়াকে কেন্দ্র করে তর্ক-বিতর্ক হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়ায়।

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরের পৌর এলাকার ঝালমুড়ি খাওয়াকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

রোববার সন্ধ্যায় এবং সোমবার দুপুরে কুলিয়ারচর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের নোয়াগাঁও ও বেপারীপাড়ায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এ সময় বেশকিছু বাড়িঘর ও দোকানপাটে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ৫/৬ জন আহত হয়েছেন।

কুলিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা নিউজবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, রোববার সন্ধ্যায় ২ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মো. অলিউল্লাহ ও বর্তমান কাউন্সিলর হুমায়ুন কবিরের লোকজনের মধ্যে ঝালমুড়ি খাওয়াকে কেন্দ্র করে তর্ক-বিতর্ক হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়ায়।

পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে আজকে (সোমবার) দুপুরে আবারও তাদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পুলিশ উভয় পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ দেয়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কুলিয়ারচর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মো. অলিউল্লাহ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘রোববার সন্ধ্যায় বাড়ির পাশে একটি দোকানে আমার ছেলে আলভী ও ভাতিজা জনি ঝালমুড়ি খেতে যায়। এ সময় বর্তমান কাউন্সিলর হুমায়ুন কবিরের ভাতিজা হাবিব, মামাতো ভাই সুজনসহ বেশসহ কয়েকজন একই দোকানে ঝালমুড়ি খেতে আসে। পরে এসে তারা আগে খেতে চাইলে এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক হয়।

‘এক পর্যায়ে তারা আমার ছেলে এবং ভাতিজা ওপর হামলা করে। স্থানীয়রা এসে তাদের ধাওয়া দেয়। চলে যাওয়ার পথে আমার বড় ভাই জালালের দোকানে হামলা করে ভাঙচুর ও লুটপাট করে তারা।’

তিনি আরও বলেন, হুমায়ুন কবিরের সঙ্গে কোনো বিরোধ নাই। তাহলে কী নিয়ে ঝামেলা? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘তার লোকজন এলাকায় মাদক কারবার পরিচালনা করে আর আমরা সেগুলোর প্রতিবাদ করি। এ নিয়ে আমাদের প্রতি তাদের ক্ষোভ রয়েছে।’

এ বিষয়ে কুলিয়ারচর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর হুমায়ুন কবির বলেন, ‘তার লোকজনের সঙ্গে আমার লোকজনের কোনো সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি। সংঘর্ষ হয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে।

‘রোববার রাতে ঝালমুড়ি ও ফুচকার দোকানদার আল-আমিনের দোকানে বেশ কয়েকটি মেয়ে ফুচকা খেতে আসে। এ সময় সাবেক কাউন্সিলর অলিউল্লাহর ছেলে আর ভাতিজা এসে তাদেরকে উত্ত্যক্ত করে। দোকানদার বিষয়টিতে প্রতিবাদ করলে তার তাকে মারধর করে। এতে স্থানীয়রা উত্তেজিত হয়ে তাদেরকে ধাওয়া দেয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।’

আরও পড়ুন:
দুই ফেরির সংঘর্ষ, গাড়িচাপায় যুবক নিহত
ঢাল-কাতরা নিয়ে সংঘর্ষ, থামাতে সাউন্ড গ্রেনেড
তিন গাড়ির সংঘর্ষে নিহত ১
সিদ্ধিরগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে এলাকাবাসীর সংঘর্ষ
বরিশাল-ভোলার সীমানায় সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধসহ আহত ১২

মন্তব্য

বাংলাদেশ
The IGP received the Shuddhachar award and the money will go to the flood victims

শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন আইজিপি, অর্থ যাবে বন্যার্তদের কাছে

শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন আইজিপি, অর্থ যাবে বন্যার্তদের কাছে আইজিপি বেনজীর আহমেদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। ছবি: সংগৃহীত
আইজিপি এই পুরস্কারকে পুলিশ বাহিনীর অর্জন হিসেবে দেখছেন। তিনি তার সব সহকর্মীর প্রতি কৃতজ্ঞতাও জানান। বলেন, ভবিষ্যতে এ ধরনের অর্জনের লক্ষ্যে সরকারের নেতৃত্বে পুলিশ বাহিনীর সব সদস্য জনকল্যাণে অধিকতর কর্মনিষ্ঠা, সততা ও দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন।

শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন পুলিশের প্রধান বেনজীর আহমেদ। এই পুরস্কারের অর্থ সিলেট ও সুনামগঞ্জে বন্যাকবলিত মানুষের জন্য অনুদান দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

সোমবার সকালে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আইজিপির হাতে পুরস্কার তুলে দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। পুরস্কার হিসেবে একটি সার্টিফিকেট, একটি ক্রেস্ট এবং এক মাসের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ দেয়া হয়েছে।

পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) মো. কামরুজ্জামান স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

আইজিপি এই পুরস্কারকে পুলিশ বাহিনীর অর্জন হিসেবে দেখছেন। তিনি তার সব সহকর্মীর প্রতি কৃতজ্ঞতাও জানান। বলেন, ভবিষ্যতে এ ধরনের অর্জনের লক্ষ্যে সরকারের নেতৃত্বে পুলিশ বাহিনীর সব সদস্য জনকল্যাণে অধিকতর কর্মনিষ্ঠা, সততা ও দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি (এপিএ) বাস্তবায়নে ২০২০-২১ অর্থবছরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের আওতাধীন দপ্তর/সংস্থার মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে প্রথম স্থান হয়েছে পুলিশ।

একই অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সঙ্গে আওতাধীন দপ্তর/সংস্থার বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তিও সই হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব আখতার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দপ্তরের প্রধান এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:
প্রধানমন্ত্রীর সাহসী সিদ্ধান্তে নিজস্ব অর্থায়নে হয়েছে পদ্মা সেতু: আইজিপি
পদোন্নতি পেলে দায়িত্ব বাড়ে: আইজিপি
পুলিশ অনেক দিয়েছে, এখন আপনাদের পালা: আইজিপি

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Permission to open 11 immigration checkposts closed in Corona

করোনায় বন্ধ ১১ ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট চালুর অনুমতি

করোনায় বন্ধ ১১ ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট চালুর অনুমতি
ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট চালুর জন্য চিঠির অনুলিপি বিজিবি মহাপরিচালক, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ছাড়াও মন্ত্রিপরিষদ সচিব, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব ও দপ্তর প্রধানদের দেয়া হয়েছে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে বন্ধ থাকা ভারতের সঙ্গে ১১টি চেকপোস্টে ইমিগ্রেশন কার্যক্রম পুনরায় চালুর অনুমতি দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগ।

রোববার চেকপোস্টে ইমিগ্রেশন কার্যক্রম ফের চালুর অনুমতি দিয়ে সংশ্লিষ্টদের চিঠি দিয়েছে বিভাগটি।

অনুমতি পাওয়া চেকপোস্টগুলো হলো শেরপুরের নাকুগাঁও চেকপোস্ট; সিলেটের জকিগঞ্জ; মৌলভীবাজারের চাতলাপুর, জুরি বটুলী ও কুমারঘাট; হবিগঞ্জের বাল্লা, কুমিল্লার বিবির বাজার; ফেনীর বিলোনিয়া; ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট রেলওয়ে ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট; কুড়িগ্রামের রৌমারী স্থলবন্দর এবং যশোরের বেনাপোল রেলওয়ে ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট।

চিঠির অনুলিপি বিজিবি মহাপরিচালক, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ছাড়াও মন্ত্রিপরিষদ সচিব, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব ও দপ্তর প্রধানদের দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:
দর্শনা দিয়ে দেশে ফিরলেন ১৩ বাংলাদেশি
দেশে ফিরলেন আরও ১৯ বাংলাদেশি
হিলি দিয়ে ভারতফেরত ৯ জন করোনায় আক্রান্ত
দর্শনা চেকপোস্ট দিয়ে ফিরলেন ১০ বাংলাদেশি
দর্শনা চেকপোস্ট দিয়ে ফিরলেন আরও ১১ বাংলাদেশি

মন্তব্য

বাংলাদেশ
This time Corona has been vaccinated for 5 years

এবার ৫ বছর থেকেই করোনার টিকা

এবার ৫ বছর থেকেই করোনার টিকা ফাইল ছবি
প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডাঃ এবিএম আব্দুল্লাহ বলেন, ‘শিগগির ৫ থেকে ১২ বছর বয়সী শিশুদের করোনা ভাইরাসের টিকার আওতায় নিয়ে আসার বিষয়টি সরকারের পরিকল্পনায় রয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যে ফাইজার টিকার একটি বড় চালান দেশে আসার কথা রয়েছে। টিকা দেশে আসলে নিবন্ধন অনুযায়ী টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে।’

এখন থেকে করোনার টিকা পাবে ৫ বছরের শিশুরাও। ৫ থেকে ১২ বছর বয়সী সবাইকে দেয়া হবে ফাইজারের টিকা।

শিশুদের জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকায় তাদের টিকা দেয়া হবে জন্ম নিবন্ধন কার্ডের মাধ্যমে।

টিকা পেতে সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন করতে হবে। কিছুদিনের মধ্যে এই কার্যক্রম শুরু হবে।

রাজধানীর একটি হোটেলে সোমবার দুপুরে ক্যানসার, অটিজম শব্দদূষণ মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ক কর্মশালায় এ তথ্য নিশ্চিত করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

তিনি বলেন, ‘করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে পাঁচ থেকে ১২ বছর বয়সী শিশুদের নিবন্ধন কার্ডের মাধ্যমে এই টিকা দেয়া হবে।’

মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে আগের চেয়ে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। এখন যারা করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন তাদের উপর্সগ প্রকাশ পাচ্ছে না তাই, সামাজিক দূরুত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা জরুরি।’

প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও ইমেরিটাস অধ্যাপক এবিএম আব্দুল্লাহ বলেন, ‘শিগগির ৫ থেকে ১২ বছর বয়সী শিশুদের করোনা ভাইরাসের টিকার আওতায় নিয়ে আসার বিষয়টি সরকারের পরিকল্পনায় রয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যে ফাইজার টিকার একটি বড় চালান আসার কথা রয়েছে। টিকা দেশে আসলে নিবন্ধন অনুযায়ী টিকাদান কার্যক্রম শুরু হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) আয়োজিত ‘করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধি ও করণীয়’ শীর্ষক সেমিনারে রোববার দুপুরে মূল আলোচক হিসেবে দেয়া বক্তব্যে তিনি এ তথ্য জানান।

মন্তব্য

বাংলাদেশ
Bayazid remanded in custody

পদ্মা সেতুর নাট খুলে গ্রেপ্তার বাইজীদ রিমান্ডে

পদ্মা সেতুর নাট খুলে গ্রেপ্তার বাইজীদ রিমান্ডে পদ্মা সেতুতে উঠে রেলিংয়ের নাট খুলে টিকটক ভিডিও বানান বাইজীদ। ছবি: সংগৃহীত
পদ্মা সেতুতে যান চলাচল শুরুর দিন রোববার রেলিংয়ের নাট খোলার ভিডিও টিকটকে ছড়িয়ে সন্ধ্যায় সিআইডির হাতে গ্রেপ্তার হন এক যুবক। পরে জানা যায়, তিনি বায়েজিদ তালহা নামে পরিচিত, তবে তার জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম মো. বাইজীদ। তার বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা হয়েছে।

পদ্মা সেতুর নাট খুলে টিকটক করা যুবক বাইজীদকে সাত দিনের রিমান্ডে পেয়েছে পুলিশ।

শরীয়তপুরের মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক মো. সালেহুজ্জামান সোমবার বিকেলে তাকে রিমান্ডে পাঠান।

আদালতের কোর্ট পরিদর্শক মো. জাহাঙ্গীর নিউজবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পদ্মা সেতুতে যান চলাচল শুরুর দিন রোববার রেলিংয়ের নাট খোলার ভিডিও টিকটকে ছড়িয়ে সন্ধ্যায় সিআইডির হাতে গ্রেপ্তার হন এক যুবক। পরে জানা যায়, তিনি বায়েজিদ তালহা নামে পরিচিত, তবে তার জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম মো. বাইজীদ। তার বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা হয়েছে।

আইনটির যে ধারায় তার নামে মামলা হয়েছে, সে ধারায় এ ধরনের অপরাধের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড।

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) মনে করছে, সেতুর ওপরের রেলিংয়ের ইস্পাতের পাতের সংযোগস্থলের নাট খোলা নিছক খেয়ালের ছলে হয়নি; এটা পরিকল্পিত।

কী আছে বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫ ধারায়

বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫ ধারায় ‘অন্তর্ঘাতমূলক’ (স্যাবোটাজ) কর্মকাণ্ডের ব্যাখ্যা ও শাস্তির উল্লেখ রয়েছে।

এই আইনের ১৫(খ) ধারায় বলা হয়, কোনো রেলপথ, রোপওয়ে, রাস্তা, খাল, সেতু, কালভার্ট, বন্দর, ডকইয়ার্ড, লাইটহাউস, বিমানবন্দর, টেলিগ্রাফ বা টেলিফোনের লাইন অথবা টেলিভিশন বা বেতার স্থাপনার দক্ষতা বিনষ্ট বা ক্ষতিসাধনের মতো কাজ করা যাবে না।

এ ধরনের অপরাধের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড। এ ছাড়া যাবজ্জীবন বা ১৪ বছর পর্যন্ত সশ্রম কারাদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে আইনে।


আরও পড়ুন:পদ্মা সেতুতে নাট খোলা বাইজীদ পটুয়াখালীর, করতেন ছাত্রদ

বাইজীদ তালহার বাড়ি পটুয়াখালী সদর উপজেলার তেলীখালী গ্রামে। একসময়ের ছাত্রদলকর্মী বাইজীদ বর্তমানে ঢাকায় ব্যবসার সঙ্গে জড়িত বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী ও পটুয়াখালী বিএনপিসংশ্লিষ্টরা।

তারা বলছেন, বাইজীদ অতীতে ছাত্রদলের সক্রিয় কর্মী ছিলেন। পটুয়াখালী জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপ‌তি গাজী আশফাকুর রহমান বিপ্লবের সময়ে বিএন‌পি ও ছাত্রদলের মি‌ছিল-মি‌টিংয়ে নিয়মিত অংশ নিতেন তিনি।

পটুয়াখালী জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আল-হেলাল নয়ন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘বাইজীদ আগে পটুয়াখালীতে ছাত্রদলের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তবে তিনি অনেক দিন ধরে এলাকায় নেই। এখন ঢাকায় রাজনীতি করেন কি না তা জা‌নি না। ব্যক্তির অন্যায় অপরাধ দল কখনই দায় নেবে না।’

আরও পড়ুন:
শুধু হাত দিয়ে পদ্মা সেতুর নাট খোলা অসম্ভব: সিআইডি
শরীয়তপুর থেকে ফিরতি পথে বিপাকে ঢাকার বাইকাররা
পদ্মা সেতু জাতীয় সম্পদ, বিরোধীরা জাতির শত্রু: হাইকোর্ট
নিষেধাজ্ঞার পরও বাইকে পদ্মা সেতু পাড়ি দেয়ার চেষ্টা
প্রথম দিনে পদ্মা সেতুতে টোল ২ কোটি ৯ লাখ টাকা

মন্তব্য

p
উপরে