বাল্টিমোরে সড়ক থেকে সরল জিয়ার নাম

বাল্টিমোরে সড়ক থেকে সরল জিয়ার নাম

যুক্তরাষ্ট্রের বাল্টিমোরে জিয়াউর রহমানের নামে হওয়া সড়ক থেকে নামফলক মুছে দেয়া হয়েছে। ছবি: নিউজবাংলা

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয়, “শুভ সন্ধ্যা। আজকে অত্যন্ত আনন্দের সাথে জানানো যাচ্ছে যে, ম্যারিল্যান্ডের বাল্টিমোর সিটিতে ‘জিয়াউর রহমান ওয়ে’ নামে যে রাস্তার নামকরণ করা হয়েছিল, তা আজ বাতিল ঘোষণা করে তাৎক্ষণিকভাবে সরিয়ে ফেলা হয়েছে।”

যুক্তরাষ্ট্রের ম্যারিল্যান্ডের বাল্টিমোরের একটি সড়ক থেকে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের নামফলক সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার নামফলক সরানোর সিদ্ধান্ত নেয় বাল্টিমোর সিটি কর্তৃপক্ষ।

ওই দিন সন্ধ্যায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ব্রিফিংয়ে বলা হয়, “শুভ সন্ধ্যা। আজকে অত্যন্ত আনন্দের সাথে জানানো যাচ্ছে যে, ম্যারিল্যান্ডের বাল্টিমোর সিটিতে ‘জিয়াউর রহমান ওয়ে’ নামে যে রাস্তার নামকরণ করা হয়েছিল, তা আজ বাতিল ঘোষণা করে তাৎক্ষণিকভাবে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। বাংলাদেশের স্বঘোষিত রাষ্ট্রপতি, সেনাপ্রধান ও প্রধান সামরিক আইন প্রশাসক জেনারেল জিয়াউর নামে রাস্তার নামকরণ হওয়ায় যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী পরিবার, কংগ্রেস অফ বাংলাদেশি আমেরিকান, শেখ হাসিনা মঞ্চ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিক লীগ, মহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সংগঠনসমূহের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

“বাল্টিমোর মেয়র অফিসে প্রতিবাদ জানিয়ে অসংখ্য ইমেইল, চিঠি ও ফোনকল করে অব্যাহত প্রতিবাদ জানানো হয় এবং একটি সাক্ষাৎকার চেয়ে আবেদন করা হয়।”

ব্রিফিংয়ে বলা হয়, ‘আজ ৯ সেপ্টেম্বর দুপুর ২ ঘটিকায় ভার্চুয়াল মিটিংয়ে খুনি জিয়ার সকল অপকর্ম প্রমাণসহ তুলে ধরা হয়। একজন ঠান্ডা মাথার খুনি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবার-পরিজন, জেলখানায় বন্দি জাতীয় চার নেতা হত্যা, হাজার হাজার সেনা, বিমান, নৌবাহিনীর কর্মকর্তা ও জওয়ানকে বিনা বিচারে হত্যা করে। সংবিধান স্থগিত করে দেশে জংলি শাসন কায়েম করে।

‘এমন একজন স্বৈরশাসকের নামে যুক্তরাষ্ট্রের মতো গণতান্ত্রিক দেশে কোনো স্থাপনার নাম হতে পারে না। ২০২০ সালের ১৬ জুন বাল্টিমোর সিটি কাউন্সিল কনফেডারেট সৈনিকদের প্লাক সকল স্থাপনা থেকে সরিয়ে দেয়ার আইন পাস হয়েছে। সেই শহরে সামরিক শাসক জিয়ার নামে রাস্তার নামকরণ হতে পারে না।’

ব্রিফিংয়ে উল্লেখ করা হয়, ‘মিটিং চলাকালেই বাল্টিমোর সিটি কর্তৃপক্ষ আমাদের দাবির সাথে একমত হয়ে জিয়ার নামে রাস্তার সাইন নামিয়ে ফেলার কথা বলেন। ইতোমধ্যেই তা নামিয়ে ফেলা হয়েছে।’

বাল্টিমোরে সড়ক থেকে সরল জিয়ার নাম

ভার্চুয়াল মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলেন ড. প্রদীপ রঞ্জন কর, শামীম চৌধুরী, প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, অ্যাডভোকেট শাহ মো. বখতিয়ার, এস এ করিম জাহাঙ্গীর, মঞ্জুর চৌধুরী, জালাল উদ্দিন জলিল, টি মোল্লা, রুমানা আক্তার, সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দীন চৌধুরী মানিক, কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশের ট্রাস্টি বোর্ডের উপদেষ্টা মোহাম্মদ এ আরাফাত, সিটির প্রতিনিধি ক্যাটলিনা রড্রিগেজ, ডেভিড লিয়াম, শহীদুল ইসলামসহ অনেকে।

আরও পড়ুন:
ক্ষমতায় থাকতে হাজারও গাছ কাটেন জিয়া, দাবি তথ্যমন্ত্রীর
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে জবি ছাত্রদলের খাদ্য বিতরণ
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির ১৫ দিনের কর্মসূচি
‘জিয়ার খেতাব বাতিল করা মানে বঙ্গবন্ধুকে অপমান করা’
জিয়া পাকিস্তানের নাগরিক মন্তব্যে বিএনপির ক্ষোভ

শেয়ার করুন

মন্তব্য

মিশিগানে শুরু হচ্ছে মোটরসিটি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

মিশিগানে শুরু হচ্ছে মোটরসিটি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

মিশিগানের ওয়ারেন সিটির কারী এক্সপ্রেসের হলরুমে স্থানীয় সময় শনিবার ক্রিকেট একাডেমি অব ডেট্রয়েট, মিশিগানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে সংবাদ সম্মেলন হয়। ছবি: সংগৃহীত

টুর্নামেন্টে অংশ নিতে যাওয়া ১০টি দল হলো মিশিগান চিতাস, মিশিগান ঈগলস, এশিয়া ইউনাইটেড, রেপটার একাদশ, বাংলাদেশ টাইগার্স-ইউএসএ, ওজনপার্ক ইউনাইটেড, গ্ল্যাডিয়েটর, ডিসি রেজিমেন্ট, হার্নডন বেঙ্গল ও জর্জিয়া টাইগার্স।

যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানে বাংলাদেশি আমেরিকানদের আয়োজনে ৮ অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট।

এ উপলক্ষে স্থানীয় সময় শনিবার অঙ্গরাজ্যটির ওয়ারেন সিটির কারী এক্সপ্রেসের হলরুমে ক্রিকেট একাডেমি অব ডেট্রয়েট, মিশিগানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে সংবাদ সম্মেলন হয়।

এতে মোটরসিটি চ্যাম্পিয়নশিপ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট-২০২১ আয়োজনের ঘোষণা দেয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, মিশিগানের ডেট্রয়েট সিটির লাস্কি ক্রিকেট মাঠে ম্যাচগুলো হবে। মিশিগানসহ অন্যান্য অঙ্গরাজ্য থেকে আসা ১০টি দল নিয়ে এ টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হচ্ছে। এখানে বাংলাদেশি আমেরিকান ক্রিকেটার ছাড়াও ভারতীয় ও পাকিস্তানি আমেরিকান ক্রিকেটাররা অংশ নেবেন।

সংবাদ সম্মেলনে মোটর সিটি চ্যাম্পিয়নশিপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের সভাপতি মোশারফ চৌধুরী লিটু ও সাধারণ সম্পাদক তায়েফুর রহমান বাবু টুর্নামেন্টের যাবতীয় বিষয় নিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। তাদের সার্বিক সহযোগিতা করেন জগলুল হুদা ও ইফতেখার আহমেদ।

করোনাভাইরাসের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠান সিডিসি নির্ধারিত সব স্বাস্থ্যবিধি মেনে ডেট্রয়েট সিটির লাস্কি ক্রিকেট মাঠসহ পাঁচটি মাঠে টুর্নামেন্টের খেলাগুলো হবে। তবে সময়ের স্বল্পতার কারণে প্রতিদিন তিনটি করে খেলা চালিয়ে চার দিনের মধ্যে টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ হবে।

জয়ীরা কী পাবে

স্থানীয়ভাবে আয়োজিত এ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের প্রাইজমানি থাকবে প্রায় ৩৫ হাজার ডলার। এর মধ্যে চ্যাম্পিয়ন দল পাবে ১৭ হাজার ডলারসহ দৃষ্টিন্দন ট্রফি। ফাইনাল ম্যাচে দর্শকদের জন্য রয়েছে আকর্ষণীয় পুরস্কার।

কারা খেলবে

টুর্নামেন্টে অংশ নিতে যাওয়া ১০টি দল হলো মিশিগান চিতাস, মিশিগান ঈগলস, এশিয়া ইউনাইটেড, রেপটার একাদশ, বাংলাদেশ টাইগার্স-ইউএসএ, ওজনপার্ক ইউনাইটেড, গ্ল্যাডিয়েটর, ডিসি রেজিমেন্ট, হার্নডন বেঙ্গল ও জর্জিয়া টাইগার্স।

কমিটি

টুর্নামেন্ট পরিচালনায় সম্প্রতি একটি কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর সহসভাপতি হাসান খান ও যুগ্ম সম্পাদক রুম্মান আহমেদ স্বাগত। সদস্যরা হলেন জুয়েল হুদা, অনুপম শর্মা, সেলিম আহমেদ, শাহাদাত হোসেন মিন্টু ও সাহেল হুদা।

কমিটির উপদেষ্টা হিসেবে আছেন মিশিগান ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সুশিল ভাট ও ডাইভার সিটি কাপের সভাপতি শাহিদ আহমেদ।

আরও পড়ুন:
ক্ষমতায় থাকতে হাজারও গাছ কাটেন জিয়া, দাবি তথ্যমন্ত্রীর
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে জবি ছাত্রদলের খাদ্য বিতরণ
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির ১৫ দিনের কর্মসূচি
‘জিয়ার খেতাব বাতিল করা মানে বঙ্গবন্ধুকে অপমান করা’
জিয়া পাকিস্তানের নাগরিক মন্তব্যে বিএনপির ক্ষোভ

শেয়ার করুন

মন খুলে গ্রাফিতি আঁকার গলি

মন খুলে গ্রাফিতি আঁকার গলি

যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড রাজ্যের বাল্টিমোরে রয়েছে মন খুলে গ্রাফিতি আঁকার গলি।

২০০৫ সালে ওয়্যারহাউস তাদের স্টুডিও সরিয়ে নেয় ঠিক গ্রাফিতি অ্যালের সামনে। রাজ্য সরকারের তরফ থেকেও নিয়ম করা হয়, মেরিল্যান্ডে কেউ গ্রাফিতি আঁকতে চাইলে সোজা চলে যাবেন ওখানে। যত খুশি বা যা খুশি আঁকা হোক না কেন, মানতে হবে না কোনো নিয়ম। পড়তে হবে না আইনের বেড়াজালে।

গ্রাফিতি বা দেয়ালচিত্র আঁকার মধ্য দিয়ে মনের চাপ কমানোর কথা কি আগে শুনেছেন? অথবা শুধু একটি গলি, যেটিকে পরিণত করা হয়েছে কেবল দেয়ালচিত্র আঁকার জন্য নির্দিষ্ট জায়গায়- শুনেছেন কি সেই জায়গার নাম?

যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড রাজ্যের বাল্টিমোর নগরীতে এই ‘গ্রাফিতি অ্যালি’ বা ‘দেয়ালচিত্রের গলি’র অবস্থান। প্রাচীন এই মার্কিন নগরী বহু কারণেই বিখ্যাত। তবে যে রাজ্যে দেয়ালে সামান্য আঁকিবুঁকিতেও পকেট থেকে খসতে পারে অন্তত আড়াই হাজার ডলার বা ক্ষেত্রবিশেষে আরও বেশি। সঙ্গে কারাদণ্ডও ভোগ করতে হতে পারে।

মন খুলে গ্রাফিতি আঁকার গলি

সেখানে কীভাবে একটি গলির সবগুলো দেয়াল পরিণত হলো কেবল গ্রাফিতি আঁকার জন্য?

গ্রাফিতি কী, সেটা কমবেশি জানা থাকলেও আবার ঝালিয়ে নেয়া যেতে পারে। জনগণের দৃষ্টিসীমায় যেকোনো দেয়াল, সড়ক, বাড়ির দরজায় কিছু এঁকে রাখাকেই গ্রাফিতি বলা হয়। ধারণা করা হয়, প্রাচীন মিসর বা গ্রিসে এর জন্ম হাজার বছর আগে। (সূত্র:উইকিপিডিয়া)

যুক্তরাষ্ট্রে সাধারণত প্রতিবাদের ভাষা হিসেবেই গ্রাফিতির ব্যবহার হয়ে আসছে। বাল্টিমোরের গ্রাফিতি গলিকে ধারণ করছে ‘গ্রাফিতি ওয়্যারহাউস’ নামে একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান। যারা মূলত স্ট্রিট আর্টিস্ট বা পথশিল্পীদের নিয়ে কাজ করে থাকে।

বহুদিন থেকেই বাল্টিমোরের ওই জায়গাটি ছিল অপরাধী চক্রের দখলে। বিভিন্ন মাদক কারবারি দলের সদস্যরাই সেখানে গ্রাফিতি আঁকতেন। মানতেন না কোনো বিধিনিষেধ। এরই মধ্যে কিছু গ্রাফিতির দেখা মেলে যেগুলো ছিল দারুণ নান্দনিক। মেরিল্যান্ডের আর্টস অ্যান্ড এন্টারটেইনমেন্ট ইনস্টিটিউটসংলগ্ন হওয়ায় গলিটি সহজেই চোখে পড়ে যায় গ্রাফিতি ওয়্যারহাউস কর্তৃপক্ষের।

২০০৫ সালে ওয়্যারহাউস তাদের স্টুডিও সরিয়ে নেয় ঠিক গ্রাফিতি অ্যালের সামনে। রাজ্য সরকারের তরফ থেকেও নিয়ম করা হয়, মেরিল্যান্ডে কেউ গ্রাফিতি আঁকতে চাইলে সোজা চলে যাবেন ওখানে। যত খুশি বা যা খুশি আঁকা হোক না কেন, মানতে হবে না কোনো নিয়ম। পড়তে হবে না আইনের বেড়াজালে।

মন খুলে গ্রাফিতি আঁকার গলি

এখন এই গলিতে গ্রাফিতি আঁকতে আসেন বহু দূরের রাজ্যের বাসিন্দারা। মন খুলে এঁকে যান যা ইচ্ছা।

যা খুশি আঁকার বিষয়টি একটু ব্যাখ্যা করা যাক। গলিতে গিয়ে চোখে পড়ল যুক্তরাষ্ট্রের পপ তারকা বিয়ন্সের গ্রাফিতি। সঙ্গে রয়েছে বেশ কঠিন কিন্তু সরেস কোনো বার্তা। অথবা হিজাব পরিহিত মুসলিম নারী বন্দুক তাক করে রয়েছেন আপনারই দিকে। স্প্রে পেইন্টে নিচে লেখা ‘নো রুলস্’। যার বাংলা করলে বলা যেতে পারে ‘কোনো নিয়ম নয়’।

আছে বিখ্যাত কার্টুন চরিত্রে বাগস বানির বিশাল গ্রাফিতি। কিন্তু বাগসকে পরিণত করা হয়েছে আবেদনময়ী নারীতে। কারণ হিসেবে শিল্পী নিচে লিখে গেছেন, ‘শরীরই তো সবকিছু, তাই বাগসের এই দশা’।

মন খুলে গ্রাফিতি আঁকার গলি

ইংরেজি ‘এল’ আকৃতির এই গলির পুরোটাই রঙের ছড়াছড়ি। সঙ্গে আছে রঙের গন্ধ। গ্রাফিতি আঁকতে মূলত স্প্রে পেইন্ট ব্যবহার করা হয়। সঙ্গে ম্যাগাজিনের কাটা অংশ থেকে শুরু করে পানি নিরোধক মেকআপ ব্যবহার হয় সবকিছুই।

সেখানকার ময়লা ফেলার বাক্সগুলোতেও গ্রাফিতি আঁকা। বাদ পড়েনি সিউওয়্যারেজ পাইপ, মিটার বক্স, সুইচ বোর্ড বা রাস্তার একটি অংশও।

এখানে কিন্তু প্রতি সপ্তাহে পাল্টে যায় গ্রাফিতিগুলো। কখনও কখনও পাল্টে যায় এক দিনের ভেতরেই। ছুটির দিনে গ্রাফিতি অ্যালিতে দেখা মিলতে পারে শখের সংগীত শিল্পীর। এসেছেন দারুণ রঙিন এই জায়গায় মিউজিক ভিডিওর শুটিং করতে।

মন খুলে গ্রাফিতি আঁকার গলি

‘বি’ নামের এক শিল্পী জানান বেশির ভাগ শিল্পী এখানে আসেন মনের চাপ কমাতে। গ্রাফিতির সঙ্গে জুড়ে দেয়া বার্তা পছন্দ না হলে পাল্টে দিতে পারেন যে কেউ। কিন্তু চেষ্টা করা হয় সার্বিক পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখতে।

মনের কী কথা প্রকাশ করতে ইচ্ছা করছে? ক্ষুব্ধ হয়ে আছেন সরকারের ওপর? কোনো ব্যাপারই না। চলে আসুন বাল্টিমোরের গ্রাফিতি অ্যালিতে। এঁকে বা লিখে যান সবকিছু। কোনো সমস্যা নেই।

মন খুলে গ্রাফিতি আঁকার গলি

গভীর রাতে ডিজে পার্টি বা ব্রেক ডান্স গ্রুপ নিয়ে চলতে পারে জন্মদিনের উৎসবও। যুক্তরাষ্ট্রের শিল্পপ্রেমীদের মতে, জায়গাটি এই দেশের একটি 'লুকোনো রতনের' মতোই। (সূত্র: ইয়েল্প)

এটি শুধু শিল্পবোদ্ধাদেরই নয়; টেনে আনতে পারে যেকোনো পর্যটককেই।

আরও পড়ুন:
ক্ষমতায় থাকতে হাজারও গাছ কাটেন জিয়া, দাবি তথ্যমন্ত্রীর
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে জবি ছাত্রদলের খাদ্য বিতরণ
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির ১৫ দিনের কর্মসূচি
‘জিয়ার খেতাব বাতিল করা মানে বঙ্গবন্ধুকে অপমান করা’
জিয়া পাকিস্তানের নাগরিক মন্তব্যে বিএনপির ক্ষোভ

শেয়ার করুন

মেক্সিকোর স্বাধীনতার কুচকাওয়াজে বাংলাদেশ

মেক্সিকোর স্বাধীনতার কুচকাওয়াজে বাংলাদেশ

কুচকাওয়াজে অংশ নেওয়া বাংলাদেশি কন্টিনজেন্ট। ছবি: আইএসপিআর

গত ১০ সেপ্টেম্বর মেক্সিকোর সরকারের আমন্ত্রণে বাংলাদেশি একটি সামরিক কন্টিনজেন্ট মেক্সিকোর উদ্দেশ্যে রওনা দেয়।

মেক্সিকোর স্বাধীনতার ২০০ বছর উদযাপনে দেশটিতে আয়োজিত প্যারেডে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর একটি সমন্বিত কন্টিনজেন্ট।

বৃহস্পতিবার মেক্সিকো সিটিতে সেই প্যারেডে দেশটির প্রেসিডেন্টকে সামরিক সালাম প্রদর্শন করে কন্টিনজেন্টটি। এ দলের নেতৃত্বে ছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. সোলাইমান।

শুক্রবার এক সংবাদবিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়- সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর ৩৯ সদস্যকে নিয়ে গঠন করা হয় সশস্ত্র বাহিনীর চৌকস কন্টিনজেন্টটি। এদের মধ্যে আছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ২ কর্মকর্তা, ৩ জেসিও, অন্যান্য পদবীর ১৬ জনসহ মোট ২১ জন।

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ১ কর্মকর্তা, ১ জেসিও এবং অন্যান্য পদবির ৬ জনসহ মোট ৮ জন। আর বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ১ কর্মকর্তা, ১ জেসিও এবং অন্যান্য পদবির ৬ জনসহ মোট ৮ জন। এ ছাড়াও ছিলেন সশস্ত্র বাহিনীর বিভাগের ২ কর্মকর্তা।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে এ অনুষ্ঠানের সার্বিক দায়িত্ব প্রদান করা হয় বলে জানিয়েছে আইএসপিআর।

গত ১০ সেপ্টেম্বর মেক্সিকোর সরকারের আমন্ত্রণে সামরিক কন্টিনজেন্টটি মেক্সিকোর উদ্দেশ্যে রওনা দেয়।

আরও পড়ুন:
ক্ষমতায় থাকতে হাজারও গাছ কাটেন জিয়া, দাবি তথ্যমন্ত্রীর
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে জবি ছাত্রদলের খাদ্য বিতরণ
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির ১৫ দিনের কর্মসূচি
‘জিয়ার খেতাব বাতিল করা মানে বঙ্গবন্ধুকে অপমান করা’
জিয়া পাকিস্তানের নাগরিক মন্তব্যে বিএনপির ক্ষোভ

শেয়ার করুন

‘ব্রিটেনের রেড লিস্টে ভারত নেই, বাংলাদেশ কেন’

‘ব্রিটেনের রেড লিস্টে ভারত নেই, বাংলাদেশ কেন’

রাজধানীর এক হোটেলে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। ছবি: নিউজবাংলা

দেশে করোনাভাইরাসের আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট যে নাই, এ বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কথা বলা দরকার বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

করোনাভাইরাসের আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্টের দোহাই দিয়ে বাংলাদেশকে ব্রিটেনের রেড লিস্টে রাখা যুক্তিসম্মত নয় বলে মনে করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। তার মতে, যে রেড লিস্টে ভারতের নাম নেই সেখানে বাংলাদেশের নাম থাকাও যুক্তিসম্মত নয়।

এ প্রসঙ্গে বুধবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘বৃটিশরা বলছে আমাদের অবস্থা খারাপ। আমি বলেছি, আমাদের চেয়ে ভারতের অবস্থা আরও খারাপ। তাদের তোমরা রেড লিস্টে নাওনা অথচ আমাদের রেড লিস্টে রাখছো।’

রেড লিস্টে থাকার কারণে ব্রিটিশ নাগরিকত্ব থাকা ৫/৬ হাজার বাংলাদেশিও যুক্তরাজ্যে যেতে পারছেনা বলে দাবি করেন তিনি।

দেশে করোনাভাইরাসের আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট যে নাই, এ বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কথা বলা দরকার বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘ওরা আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্টের কথা বলে রেড লিস্টে রেখেছে। কিন্তু আমাদের এখানে আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট নাই। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এ নিয়ে কথা বলা দরকার।’

রাজধানীর এক হোটেলে ডাচ-বাংলা চেম্বার আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী টিকা প্রসঙ্গে জানান, আগামী মার্চের মধ্যে কেনা ও কোভেক্সের সহায়তা মিলে ২৪ কোটি টিকা দেশে এসে পৌঁছাবে। দেশে উৎপাদিত টিকা থেকে বাকি দুই কোটি ডোজের যোগান হবে।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ১৬ কোটি জনসংখ্যার আট কোটিই ২৫ বছরের নীচের। তাদের মধ্যে এমনিতেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা আছে। বাকি আট কোটি মানুষের জন্য দুই ডোজ করে ১৬ কোটি ডোজ টিকার প্রয়োজন।’

দেশে উৎপাদন কবে শুরু হচ্ছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা ইনসেপ্টা ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলতে পারবে।

আরও পড়ুন:
ক্ষমতায় থাকতে হাজারও গাছ কাটেন জিয়া, দাবি তথ্যমন্ত্রীর
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে জবি ছাত্রদলের খাদ্য বিতরণ
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির ১৫ দিনের কর্মসূচি
‘জিয়ার খেতাব বাতিল করা মানে বঙ্গবন্ধুকে অপমান করা’
জিয়া পাকিস্তানের নাগরিক মন্তব্যে বিএনপির ক্ষোভ

শেয়ার করুন

আশ্বাস পেয়ে অনশন ভাঙলেন প্রবাসীরা

আশ্বাস পেয়ে অনশন ভাঙলেন প্রবাসীরা

মন্ত্রণালয়ের সামনে অনশনরত প্রবাসীরা। ছবি: নিউজবাংলা

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দ্রুততম সময়ের মধ্যে করোনা পরীক্ষা করার কোন ব্যবস্থা নেই। তাই ছুটিতে দেশে এসে বিপাকে পড়েছেন কয়েক হাজার সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী।

বিমানবন্দরে র‌্যাপিড পিসিআর টেস্টের মেশিন বসানোর দাবিতে মঙ্গলবার সকাল ১১টায় প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে অনশন শুরু করেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রবাসীরা। দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তারা সেখান থেকে না সরার ঘোষণা দেন।

শেষ পর্যন্ত কর্তৃপক্ষের আশ্বাস পেয়ে দুপুরের পর আনশন ভেঙেছেন প্রবাসীরা। বুধবারের মধ্যে পিসিআর টেস্টের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে প্রবাসীদের আশ্বস্ত করা হয় মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে।

এর আগে দাবি-দাওয়া নিয়ে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমেদের সঙ্গে প্রবাসীদের মধ্য থেকে চার জন বৈঠকে বসেন।

বৈঠক থেকে সিদ্ধান্ত আসার আগে সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী ও কুমিল্লায় বাড়ি কামাল হোসেন বলেন, দাবি পূরণ না হলে আমরা এখান থেকে যাব না। প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দেওয়ার ৯ দিন পরও আমাদের দাবি মানা হয় নি। এ জন্য আজ সকাল থেকে আমরা এখানে অনশন শুরু করেছি।

তিনি জানান, গত ৬ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী বিমানবন্দরে র‌্যাপিড পিসিআর টেস্টের মেশিন বসানোর ঘোষণা দেন। পরে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ৮ দিনের মধ্যে কাজ সমাপ্ত করার ঘোষণা দিলেও ৯ দিন হয়ে গেছে। এখনও র‌্যাপিড পিসিআর টেস্টের মেশিন বসানো হয় নি।

সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী নাজমুল বলেন, আমি ঈদে বাড়ি এসেছি। কিন্তু মে মাসের ১২ তারিখ ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আটকে গেছি। অগাস্টে ফ্লাইট চালু হলেও র‌্যাপিড পিসিআর মেশিন না থাকায় আমরা যেতে পারছি না।

তিনি জানান, দুবাইয়ে কাজ করেন এমন ৪০ থেকে ৫০ হাজার প্রবাসী বিমানবন্দরে র‌্যাপিড পিসিআর টেস্টের মেশিন না থাকায় কর্মস্থলে ফিরতে পারছেন না।

একই দাবিতে সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে করেন প্রবাসীরা।

আরও পড়ুন:
ক্ষমতায় থাকতে হাজারও গাছ কাটেন জিয়া, দাবি তথ্যমন্ত্রীর
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে জবি ছাত্রদলের খাদ্য বিতরণ
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির ১৫ দিনের কর্মসূচি
‘জিয়ার খেতাব বাতিল করা মানে বঙ্গবন্ধুকে অপমান করা’
জিয়া পাকিস্তানের নাগরিক মন্তব্যে বিএনপির ক্ষোভ

শেয়ার করুন

গ্রিস প্রবাসীদের জন্য ই-পাসপোর্ট

গ্রিস প্রবাসীদের জন্য ই-পাসপোর্ট

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী মুজিববর্ষে সাধারণ জনগণের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে ই-পাসপোর্ট। বাংলাদেশ সরকার ২০১০ সালে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট এবং বিদেশি নাগরিকদের মেশিন রিডেবল ভিসা দেয়। বর্তমানে ৭৩টি বিদেশি মিশনে এমআরপি ও এমআরভি সেবা চালু আছে।’

গ্রিসের এথেন্সে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম উদ্বোধন করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।

বাংলাদেশ দূতাবাসে সোমবার অনুষ্ঠানিকভাবে প্রবাসীদের সুবিধায় এ কার্যক্রম চালু করা হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন পাসপোর্ট ও ইমিগ্রেশন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আইয়ূব চৌধুরী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী মুজিববর্ষে সাধারণ জনগণের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে ই-পাসপোর্ট। বাংলাদেশ সরকার ২০১০ সালে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট এবং বিদেশি নাগরিকদের মেশিন রিডেবল ভিসা দেয়। বর্তমানে ৭৩টি বিদেশি মিশনে এমআরপি ও এমআরভি সেবা চালু আছে।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের সব পাসপোর্ট অফিসে ই-পাসপোর্ট ইস্যু করা হচ্ছে। এ পর্যন্ত দশ লাখ ৬২ হাজার ই-পাসপোর্ট দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশের বিমানবন্দরে ই-গেইট স্থাপন করা হয়েছে, যা দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম।

এর আগে ৫ সেপ্টেম্বর প্রথম বৈদেশিক মিশন হিসেবে জার্মানির বার্লিনে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

এথেন্স থেকে দূরে বসবাসকারী প্রবাসীরা যেন সহজে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে পারেন সেজন্য যন্ত্রপাতিসহ একটি মোবাইল ইউনিট রাষ্ট্রদূতের কাছে হস্তান্তর করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। পরে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন মন্ত্রী।

আরও পড়ুন:
ক্ষমতায় থাকতে হাজারও গাছ কাটেন জিয়া, দাবি তথ্যমন্ত্রীর
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে জবি ছাত্রদলের খাদ্য বিতরণ
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির ১৫ দিনের কর্মসূচি
‘জিয়ার খেতাব বাতিল করা মানে বঙ্গবন্ধুকে অপমান করা’
জিয়া পাকিস্তানের নাগরিক মন্তব্যে বিএনপির ক্ষোভ

শেয়ার করুন

পানি উন্নয়ন বোর্ড নিচ্ছে ২২ সহকারী প্রকৌশলী

পানি উন্নয়ন বোর্ড নিচ্ছে ২২ সহকারী প্রকৌশলী

প্রার্থীকে এমএস ওয়ার্ড, পাওয়ার পয়েন্ট, এক্সেলসহ কম্পিউটার চালানোর অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড সহকারী প্রকৌশলী পদে জনবল নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে। আগ্রহী প্রার্থীকে ৫ অক্টোবরের মধ্যে অনলাইনে ফরম পূরণের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।

পদের নাম: সহকারী প্রকৌশলী (পুর)

পদের সংখ্যা: ২২টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: পুরকৌশল, পানিসম্পদ অথবা কৃষি কৌশলে স্নাতক।

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

প্রার্থীকে এমএস ওয়ার্ড, পাওয়ার পয়েন্ট, এক্সেলসহ কম্পিউটার চালানোর অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

প্রার্থীকে অনলাইনে ফরম পূরণের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। ফরম পূরণ করতে এখানে ক্লিক করুন।

২০২০ সালের ২৫ মার্চ প্রার্থীর বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে শারীরিক প্রতিবন্ধী, মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান-পোষ্যদের ক্ষেত্রে বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য। বয়স প্রমাণের ক্ষেত্রে এফিডেভিট গ্রহণযোগ্য হবে না।

পদের সংখ্যা কম / বেশি হতে পারে। এ ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষের যেকোনো সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে।

বিজ্ঞপ্তিটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

আরও পড়ুন:
ক্ষমতায় থাকতে হাজারও গাছ কাটেন জিয়া, দাবি তথ্যমন্ত্রীর
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে জবি ছাত্রদলের খাদ্য বিতরণ
জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির ১৫ দিনের কর্মসূচি
‘জিয়ার খেতাব বাতিল করা মানে বঙ্গবন্ধুকে অপমান করা’
জিয়া পাকিস্তানের নাগরিক মন্তব্যে বিএনপির ক্ষোভ

শেয়ার করুন