কর্মকর্তাদের ওপর সিসি ক্যামেরায় নজরদারি, ৫ শ দালাল ধরা

কর্মকর্তাদের ওপর সিসি ক্যামেরায় নজরদারি, ৫ শ দালাল ধরা

সারা দেশে র‍্যাব ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে আটক করা হয় ৪৯৭ দালালকে। ছবি: নিউজবাংলা

র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, চট্টগ্রামের পাঁচলাইশে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের বাইরে ক্লোজড সার্কিট টেলিভিশন (সিসিটিভি) ক্যামেরা লাগিয়ে দালালরা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের মনিটর করছে বলে সংবাদমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে সারা দেশে বিআরটিএ, পাসপোর্ট অফিস ও সরকারি হাসপাতালগুলোতে একযোগে অভিযান শুরু করে র‍্যাব।

সিসিটিভি ক্যামেরা লাগিয়ে প্রশাসনিক ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের ওপর নজরদারি করতে গিয়ে ধরা পড়েছে ৪৯৭ জন দালাল।

সারা দেশের বিভিন্ন জেলার পাসপোর্ট অফিস, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) ও সরকারি হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে রোববার তাদের আটক করেছে র‍্যাব ও ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আটকের পর ২৪৮ জনকে অর্থদণ্ড ও ২৪৯ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয়া হয়েছে।

র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন রোববার দুপুরে জানান, চট্টগ্রামের পাঁচলাইশে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের বাইরে ক্লোজড সার্কিট টেলিভিশন (সিসিটিভি) ক্যামেরা লাগিয়ে দালালরা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের মনিটর করছে বলে সংবাদমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে সারা দেশে বিআরটিএ, পাসপোর্ট অফিস ও সরকারি হাসপাতালগুলোতে একযোগে অভিযান শুরু করে র‍্যাব।

তিনি বলেন, ‘সকাল থেকে সারা দেশে অভিযান শুরু হয়। র‍্যাবের ১৫টি ব্যাটালিয়ন একযোগে অভিযানে নামে।

‘পাসপোর্ট অফিস, বিআরটিএ কার্যালয় ও সরকারি হাসপাতালসহ যেখানেই দালালদের দৌরাত্ম্য, সেখানেই অভিযান পরিচালনা করছে র‍্যাব। অভিযানে র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়।’

ঢাকা

দালালির অভিযোগে ঢাকা থেকে ৯৬ জন্য দালালকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব।

তাদের মধ্যে ১৫ জনকে আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিস এলাকা থেকে ও ১৫ জনকে কেরানীগঞ্জের পাসপোর্ট অফিস এলাকা থেকে আটক করে র‍্যাব-২ ও ১০।

কেরানীগঞ্জের বিআরটিএ অফিস থেকে র‍্যাব-১০ আটক করেছে ৩৬ জনকে।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল এলাকা থেকে দালাল সন্দেহে ৩০ জনকে আটক করেছে র‍্যাব-৩-এর একটি দল।

র‍্যাবের কর্মকর্তারা নিউজবাংলাকে আটকের বিষয়টি জানায়।

চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম নগরীর বালুচরা এলাকার বিআরটিএ অফিসে রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে অভিযান চালিয়ে ৩০ জনকে আটক করেছে র‍্যাব-৭।

র‍্যাব-৭-এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) নুরুল আবছার নিউজবাংলাকে বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে বিআরটিএর এই কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে দালাল ও প্রতারক চক্রের ৩০ সদস্যকে আটক করা হয়েছে।

‘তাদের কাছে লাইসেন্স সম্পর্কিত কিছু কাগজপত্র ও টাকা পাওয়া গেছে। তাদের যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। যাচাই শেষে আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

বরিশাল

বরিশাল নগরীর বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিস, শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও বরিশাল জেনারেল হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে ১৭ জনকে দালালকে আটক করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ দস্তগীরের নেতৃত্বে রোববার সকাল থেকে অভিযান চালানো হয়।

র‍্যাব-৮-এর উপপরিচালক মেজর জাহাঙ্গীর আলম জানান, দালাল প্রতিরোধে অভিযান চালিয়ে শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে পাঁচজনকে আটক করে একমাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

জেনারেল হাসপাতাল থেকে আটক পাঁচজনের মধ্যে একজনকে একমাসের কারাদণ্ড, একজনকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা ও বাকিরা ছাত্র হওয়ায় মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

পাসপোর্ট অফিস থেকে যে সাতজনকে আটক করা হয়েছে তাদের একজনের নামে মামলা হয়েছে। বাকিদের একমাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ দস্তগীর বলেন, ‘জেলা প্রশাসনের মাসিক সভায় দালাল নির্মূলে নাগরিক কমিটির নেতারা দাবি তোলেন। তাদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আমরা নগরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়েছি।’

ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহে বিআরটিএ অফিসে অভিযান চালিয়ে দালালির অভিযোগে ১৪ জনকে আটক করেছে র‍্যাব।

রোববার বেলা ১১টার দিকে এক ঘণ্টার অভিযানে তাদের আটক করা হয়।

র‍্যাব-১৪-এর ময়মনসিংহ কার্যালয়ের কোম্পানি কমান্ডার মেজর আখের মোহাম্মদ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আটক ব্যক্তিরা দীর্ঘদিন ধরে বিআরটিএর ড্রাইভিং লাইসেন্স ও গাড়ির ফিটনেস সনদ পাইয়ে দেয়ার কথা বলে গাড়িচালক ও মালিকদের কাছ থেকে টাকা নিতেন। এ সম্পর্কে আমরা তথ্য পাওয়ার পর তাদের আটক করতে অভিযান চালাই।’

জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মনোরঞ্জন বর্মনের নেতৃত্বে চালানো অভিযানে আটক ১৪ জনের মধ্যে ১১ জনকে ১১ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে। বাকিরা মোটর মালিক সমিতি ও মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন থেকে নিয়োগপ্রাপ্ত হওয়ায় তাদের মুচলেকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

ময়মনসিংহ বিআরটিএর মোটরযান পরিদর্শকের দাবি, ‘আমাদের কার্যালয়ের সঙ্গে কোনো ধরনের দালালের সম্পৃক্ততা নেই। এরা সাধারণ মানুষের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে বিআরটিএ কার্যালয়ের বাইরে অপতৎপরতা চালিয়ে আসছিল। আমরা কারো কাছ থেকে বাড়তি টাকা নেই না।’

টাঙ্গাইল

টাঙ্গাইল সদর হাসপাতাল, পাসপোর্ট অফিস ও বিআরটিএ অফিস থেকে ২৭ জনকে আটক করেছে র‍্যাব-১২।

র‍্যাব-১২-এর কোম্পানি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন নিউজবাংলাকে জানান, রোববার দুপুর থেকে অভিযান চালিয়ে টাঙ্গাইলের ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল থেকে ১২ জনকে, পাসপোর্ট অফিস থেকে আটজনকে ও বিআরটিএ অফিস থেকে সাতজনকে দালালির অভিযোগে আটক করা হয়।

এরপর ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জেলা সিনিয়র সহকারী কমিশনার গোলাম মাসুম তাদের সাতদিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন।

র‍্যাবের এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান কোম্পানি কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন।

কুমিল্লা

কুমিল্লায় পাসপোর্ট ও বিআরটিএ অফিসে দালালির অভিযোগে ১২ জনকে আটক করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

কর্মকর্তাদের ওপর সিসি ক্যামেরায় নজরদারি, ৫ শ দালাল ধরা
কুমিল্লায় দালালদের ধরতে পাসপোর্ট ও বিআরটিএ অফিসে অভিযান চালানো হয়

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গোলাম মোস্তফার ভ্রাম্যমাণ আদালত রোববার সকাল নয়টা থেকে বেলা সাড়ে তিনটা পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করেন।

র‍্যাব-১১-এর কোম্পানি কমান্ডার সাকিব হোসেন নিউজবাংলাকে জানান, বিআরটিএ অফিস, রেসকোর্স ও নোয়াপাড়া থেকে চারজন পাসপোর্ট দালাল ও আটজন বিআরটিএ দালালকে আটক করা হয়।

তাদের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানা থেকে আদায় করা হয়েছে ২ লাখ ৮৯ হাজার ৪৫০ টাকা।

মানিকগঞ্জ

মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে দালালির অভিযোগে নয়জনকে আটক করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

জেলা প্রশাসকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাহ মোহাম্মদ যোবায়ের রোববার সকালে তাদের আটক করেন।

র‍্যাব-৪-এর মানিকগঞ্জের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উনু মং নিউজবাংলাকে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সকালে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করা হয়। হাসপাতাল চত্বর থেকে চারজন পুরুষ ও পাঁচজন নারীকে আটক করা হয়।

এরপর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওই চার পুরুষকে সাতদিনের কারাদণ্ড ও পাঁচ নারীকে ৫ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দেন। একইসঙ্গে ওই নারীদের কাছ থেকে মুচলেকা নেয়া হয়েছে।

নোয়াখালী

নোয়াখালীতে পাসপোর্ট অফিসের সামনে থেকে আটজনকে আটক করেছে র‍্যাব। র‍্যাব জানিয়েছে, তারা সেখানে দালালি করেন।

বেগমগঞ্জ উপজেলার গাবুয়ায় রোববার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর পর্যন্ত র‍্যাবের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈকত রায়হান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে সে সময় পাসপোর্টের বিভিন্ন কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়। তারা দালালির কথা স্বীকারও করেছেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আরও জানান, ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের তিন থেকে সাতদিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

হবিগঞ্জ

হবিগঞ্জের পাসপোর্ট অফিসে দালালির অভিযোগে র‍্যাব ও জেলা প্রশাসনের অভিযানে আটক করা হয়েছে ছয়জনকে।

শহরের ২ নম্বর পুল এলাকায় পাসপোর্ট অফিসের সামনে থেকে রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত তাদের আটক করা হয়।

কর্মকর্তাদের ওপর সিসি ক্যামেরায় নজরদারি, ৫ শ দালাল ধরা
হবিগঞ্জে দালালির অভিযোগে আটক ছয়জন

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শামছুদ্দিন মো. রেজা নিউজবাংলাকে জানান, আটক ছয়জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও জরিমানা করা হয়েছে।

নীলফামারী

র‍্যাবের অভিযানে নীলফামারীর বিআরটিএ অফিসে দালালির অভিযোগে পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) রমিজ আলমের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে রোববার দুপুরে তাদের প্রত্যেককে ৫০০ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। একই সঙ্গে মুচলেকা নেয়া হয়েছে।

র‍্যাবের কোম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার সৈয়দ রফিকুল ইসলাম নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমাদের কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ ছিল। সে কারণে আজ সেখানে অভিযান পরিচালনা করা হয়।’

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, ‘আটক পাঁচজন বিআরটিএ অফিসে সেবা নিতে আসা বিভিন্ন যানবাহন মালিক ও চালকদের কাজ দ্রুত করে দেয়া ও বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য প্রলুব্ধ করে অর্থ আদায় করত। সবাই জরিমানা পরিশোধ করে মুচলেকা দিয়েছে।’

ভোলা

ভোলা সদর হাসপাতালে দালালির অভিযোগে চারজনকে আটক করে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুসরাত ফাতেমা চৌধুরীর আদালত রোববার দুপুরে তাদের কারাদণ্ড দেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বেঞ্চ সহকারী আব্দুল হাদি নিউজবাংলাকে জানান, দালালরা দীর্ঘদিন ধরে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের নানা রকম হয়রানি করছিল। সেই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে র‍্যাব ও পুলিশকে নিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালায়।

জয়পুরহাট

ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে র‍্যাব-৫ জয়পুরহাটের বিআরটিএ ও পাসপোর্ট অফিসের সামনে থেকে তিনজনকে আটক করেছে।

রোববার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

র‌্যাব-৫-এর কোম্পানি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মো. তৌকির নিউজবাংলাকে জানান, আটক দালালরা গাড়ি ও ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং পাসপোর্ট করে দেয়ার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নিতেন। অনেক সময় টাকা নিয়ে প্রতারণাও করতেন।

সরকারি কাজে বিঘ্ন ঘটানো ও সরকারি আদেশ অমান্য করায় তাদের আটক করে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:
ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি ও দালালের দৌরাত্ম্যে অসহায় হাসপাতাল পরিচালক
মাদকসহ গ্রেপ্তার ৩ নারী
৬ আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২
বিদেশি বিয়ারসহ আটক ১
‘আপনার বাসায় অভিযানে কী পাওয়া যাবে’

শেয়ার করুন

মন্তব্য

নিজ বাড়ির সামনে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

নিজ বাড়ির সামনে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় কৃষককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। ছবি: নিউজবাংলা

লালমনিরহাট সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) তাপস সরকার নিউজবাংলাকে জানান, আব্দুল মালেক রোববার রাতে বাড়ির সামনে একটু অন্ধকারে একা বসে ছিলেন। এ সময় পেছন দিক থেকে দুর্বৃত্তরা তাকে কুপিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় এক কৃষককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

উপজেলার তিস্তা ব্যারাজের পাশে দোয়ানী এলাকায় নিজ বাড়ির সামনে রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আব্দুল মালেকের বাড়ি গড্ডিমারী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের দোয়ানী এলাকাতেই।

মালেকের পরিবারের দাবি জমি সংক্রান্ত মামলার জেরে তাকে হত‌্যা করা হয়েছে।

লালমনিরহাট সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) তাপস সরকার নিউজবাংলাকে জানান, আব্দুল মালেক রোববার রাতে বাড়ির সামনে একটু অন্ধকারে একা বসে ছিলেন। এ সময় পেছন দিক থেকে দুর্বৃত্তরা তাকে কুপিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

হত্যার কারণ জানতে চাইলে পুলিশ সুপার জানান, মালেকের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে তদন্ত করা হচ্ছে। এ ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।

পাশাপাশি অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন:
ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি ও দালালের দৌরাত্ম্যে অসহায় হাসপাতাল পরিচালক
মাদকসহ গ্রেপ্তার ৩ নারী
৬ আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২
বিদেশি বিয়ারসহ আটক ১
‘আপনার বাসায় অভিযানে কী পাওয়া যাবে’

শেয়ার করুন

বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে দুই শিশুসহ নিহত ৩

বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে দুই শিশুসহ নিহত ৩

হবিগঞ্জের মাধবপুরে বাসচাপায় অটোরিকশার তিনজন নিহত হয়েছেন। ছবি: নিউজবাংলা

হবিগঞ্জের মাধবপুরে অসুস্থ্য ছেলেকে হাসপাতালে নেয়ার পথে বাসচাপায় অটোরিকশার তিনজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও দুইজন।

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে উপজেলার আন্দিউড়া এলাকায় উম্মেতুনেছা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে সোমবার দুপুর ১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইনুল ইসলাম নিউজবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিস্তারিত আসছে…

আরও পড়ুন:
ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি ও দালালের দৌরাত্ম্যে অসহায় হাসপাতাল পরিচালক
মাদকসহ গ্রেপ্তার ৩ নারী
৬ আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২
বিদেশি বিয়ারসহ আটক ১
‘আপনার বাসায় অভিযানে কী পাওয়া যাবে’

শেয়ার করুন

অটোরিকশায় ট্রাকের ধাক্কা, রাজমিস্ত্রি নিহত

অটোরিকশায় ট্রাকের ধাক্কা, রাজমিস্ত্রি নিহত

জামালপুরে দুর্ঘটনার পর স্থানীয়রা ট্রাকটি আটক করলেও পালিয়ে যায় ট্রাকের চালক ও হেলপার। ছবি: নিউজবাংলা

জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মো. অনিক জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত চারজনকে ভর্তি করার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুরের দিকে রকিবুল মারা যান। বাকি তিনজন চিকিৎসাধীন।

জামালপুরের মেলান্দহে অটোরিকশায় ট্রাকের ধাক্কায় একজন নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন তিনজন।

উপজেলার চরবানি পাকুরিয়া ইউনিয়নের তালতলা এলাকায় সোমবার সকাল ৮টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত রাজমিস্ত্রি রকিবুল টিকাদারের বাড়ি মেলান্দহ উপজেলার সাধুপুর গ্রামে।

আহতরা হলেন একই গ্রামের নুরু শেখ, সুরুজ মিয়া ও মিলন মিয়া। তারা সবাই জেলা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

মেলান্দহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি) এম এম মঈনুল ইসলাম জানান, সকালে মেলান্দহের ঝিনাই ব্রিজের পরে দেওয়ানগঞ্জগামী একটি ট্রাক জামালপুরগামী অটোরিকশাটিকে সামনে থেকে ধাক্কা দেয়। এতে অটোরিকশার চার যাত্রী গুরুতর আহত হন।

জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মো. অনিক জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত চারজনকে ভর্তি করার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুরের দিকে রকিবুল মারা যান। বাকি তিনজন চিকিৎসাধীন।

ওসি মঈনুল জানান, দুর্ঘটনার পর স্থানীয়রা ট্রাকটি আটক করলেও পালিয়ে যান ট্রাকের চালক ও হেলপার।

এই ঘটনায় পুলিশ কোনো অভিযোগ পায়নি বলেও জানান ওসি।

আরও পড়ুন:
ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি ও দালালের দৌরাত্ম্যে অসহায় হাসপাতাল পরিচালক
মাদকসহ গ্রেপ্তার ৩ নারী
৬ আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২
বিদেশি বিয়ারসহ আটক ১
‘আপনার বাসায় অভিযানে কী পাওয়া যাবে’

শেয়ার করুন

সাপের কামড়ে নারীসহ মৃত ২

সাপের কামড়ে নারীসহ মৃত ২

মৃত মোকাদ্দেস হোসেনের ছোট ভাই হাবিবুর রহমান জানান, ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে তার ভাই প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গেলে গোখড়া সাপ তাকে দংশন করে। আর দক্ষিণ মনোহরপুর গ্রামের গৃহবধূ রোকসানা বেগমকে গভীর রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় সাপ কামড় দেয়।

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় সাপের কামড়ে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে।

উপজেলার রঘুনন্দনপুর ও দক্ষিণ মনোহরপুর গ্রামে রোববার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

মৃতরা হলেন, রঘুনন্দনপুর গ্রামের মোকাদ্দেস হোসেন ও দক্ষিণ মনোহরপুর গ্রামের আজগার আলির স্ত্রী রোকসানা বেগম।

মৃত মোকাদ্দেস হোসেনের ছোট ভাই হাবিবুর রহমান জানান, ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে তার ভাই প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গেলে গোখড়া সাপ তাকে দংশন করে। প্রথমে তাকে স্থানীয় ওঝার কাছে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সকাল ৮টার দিকে তাকে শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে চিকিৎসক মোকাদ্দেসকে মৃত ঘোষণা করেন।

শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যালের অফিসার কনক জানান, তার পায়ে দুটি দংশনের চিহ্ন রয়েছে। স্থানীয় কবিরাজ দেখিয়ে রোগীকে অনেক দেরিতে হাসপাতালে আনা হয়েছে। হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে নিত্যানন্দপুর ইউনিয়নের ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য বলাই কুমার বিশ্বাস জানান, দক্ষিণ মনোহরপুর গ্রামের গৃহবধূ রোকসানা বেগম ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। গভীর রাতে তাকে সাপ কামড় দেয়।

পরে যন্ত্রণা শুরু হলে স্বজনরা তাকেও প্রথমে গ্রাম্য ওঝার কাছে নিয়ে যান। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান তিনি।

আরও পড়ুন:
ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি ও দালালের দৌরাত্ম্যে অসহায় হাসপাতাল পরিচালক
মাদকসহ গ্রেপ্তার ৩ নারী
৬ আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২
বিদেশি বিয়ারসহ আটক ১
‘আপনার বাসায় অভিযানে কী পাওয়া যাবে’

শেয়ার করুন

পানের বরজে বানের পানি, প্রণোদনা চান চাষিরা

পানের বরজে বানের পানি, প্রণোদনা চান চাষিরা

মাদারীপুরে পানের বরজ বৃষ্টির পানিতে ক্ষয়ক্ষতি হওয়ায় প্রণোদনা চেয়েছেন চাষিরা। ছবি: নিউজবাংলা

পানচাষি মজিবুর শেখ বলেন, ‘আমাদের পানের যে ক্ষতি হয়েছে তাতে সরকার যদি আমাদের দিকে না তাকায় তাইলে আমরা শেষ। আমাদের এলাকা পান চাষ করেই টিকে আছি। যদি আমরা আর চাষ না করতে পারি তাইলে এই অঞ্চলে আর পানচাষি থাকবে না।’

কয়েক দিনের টানা বৃষ্টিতে মাদারীপুরে আড়িয়াল খাঁ নদে পানি বেড়ে বন্যার দেখা দিয়েছে। হঠাৎ বেড়ে যাওয়া পানি নদীর দুই তীর উপচে বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

এতে কালকিনি উপজেলার কয়েকটি ইউনিয়নে পানের বরজে পানি ঢুকে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সরকারি প্রণোদনার দাবি পানচাষিদের। কিন্তু কৃষি কর্মকর্তা বলছেন, পানচাষিদের তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। তবে খোঁজ নিয়ে দেখবেন এমন কোনো ঘটনা ঘটেছে নাকি।

পানচাষিদের সঙ্গে কথা বলে জানান যায়, গেল কয়েক দিনের বৃষ্টি ও উজান থেকে আসা ঢলে কালকিনি পৌরসভার দক্ষিণ রাজদী, উত্তর রাজদী, পাতাবালি ঠেঙ্গামারা, বাশঁগাড়ি, এনায়েতনগর, রমজানপুরসহ অন্তত ১১টি ইউনিয়নে ফসলি জমিতে পানি উঠেছে।

এসব এলাকার পানের বরজে পানি ঢুকে গেছে। এ ছাড়া এসব এলাকার পুকুরের মাছ ভেসে গেছে। রোপা আমন ধানের চারা এখন পানিতে তলিয়ে আছে। তবে এসব অঞ্চলের প্রধান কৃষি ফসল পানের বরজে পানি ঢুকে ক্ষতির পরিমাণটা বেশি হয়েছে বলে দাবি কৃষকদের।

কালকিনি পৌরসভার উত্তর রাজদী গ্রামের পানচাষি ইকবাল হাওলাদার বলেন, ‘কয়েক দিনের বৃষ্টিতে পানের বরজে উজানের পানি ঢুকছে। সেচ পাম্প দিয়া বরজ থেইকা পানি সরানোর চেষ্টা করছি। কিন্তু পানির চাপ অনেক বেশি।

‘আমার দুই বিঘা জমির পানের বরজ নষ্ট হয়েছে। কৃষি অফিস থেকে লোকজন এসেও দেখে যায় নাই। এমনিতে একটু উচুঁ জমিতে পান চাষ করা হলেও পানি বেশি হওয়ায় ক্ষতিটা হয়েছে।’

পানচাষি মজিবুর শেখ বলেন, ‘আমাদের পানের যে ক্ষতি হয়েছে তাতে সরকার যদি আমাদের দিকে না তাকায় তাইলে আমরা শেষ। আমাদের এলাকা পান চাষ করেই টিকে আছি। যদি আমরা আর চাষ না করতে পারি তাইলে এই অঞ্চলে আর পানচাষি থাকবে না।’

সরকারি সহযোগিতার জন্য একই কথা বলেন আরও কয়েকজন পানচাষি।

এ ব্যাপারে কালকিনি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মিল্টন বিশ্বাস জানান, কালকিনি উপজেলায় মূলত পান আবাদ করা হয়। উপজেলায় এ বছর ১৯০ হেক্টর জমিতে পান চাষ করা হয়েছে। সম্প্রতি বন্যায় পানের বরজসহ বিভিন্ন ফসলের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

তবে পানের বরজ একটু উচুঁ জমিতে হওয়ায় তেমন প্রভাব পড়বে না। তারপরেও চাষিরা ক্ষতিগ্রস্ত হলে তাদের সহযোগিতা করা হবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন:
ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি ও দালালের দৌরাত্ম্যে অসহায় হাসপাতাল পরিচালক
মাদকসহ গ্রেপ্তার ৩ নারী
৬ আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২
বিদেশি বিয়ারসহ আটক ১
‘আপনার বাসায় অভিযানে কী পাওয়া যাবে’

শেয়ার করুন

করোনায় প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু

করোনায় প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু

হাটহাজারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সাইদা আলম জানান, ফেরদৌসি বেগম ছাড়াও উপজেলার আরও তিন সহকারী শিক্ষক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তারা সবাই এখন পর্যন্ত সুস্থ আছেন। তাদেরকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে।

হাটহাজারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সাইদা আলম বেলা ১টার দিকে বিষয়টি নিউজবাংলাকে নিশ্চিত করেছেন।

ফেরদৌসি বেগম রোববার বিকেল ৪টার দিকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

তিনি হাটহাজারীর ছিপাতলী আলী মোহাম্মদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। তার বাড়ি পটিয়ার ধলঘাট ইউনিয়নের সমুরা এলাকায়।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সাইদা আলম বলেন, ‘ফেরদৌসি বেগম ১৫ সেপ্টেম্বর করোনার উপসর্গ দেখা দিলে আমাকে জানান। আমরা তাকে স্কুলে না যাওয়ার পরামর্শ দিই। ২০ সেপ্টেম্বর তার করোনা পজিটিভ আসে। শারীরিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় এর আগেই হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। রোববার বিকেলে তার মৃত্যু হয়।’

তিনি আরও জানান, ফেরদৌসি বেগম ছাড়াও উপজেলার আরও তিন সহকারী শিক্ষক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

তারা হলেন হাটহাজারী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সাহিনা আক্তার, উত্তর বুড়িশ্চর রশিদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক স্মৃতি দত্ত এবং উত্তর মাদার্শা মাহলুমা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সঞ্চিতা বড়ুয়া।

তারা সবাই এখন পর্যন্ত সুস্থ আছেন। তাদেরকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

শিক্ষকরা করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরও স্কুল বন্ধ ঘোষণা না করার বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আশরাফুল আলম সিরাজী নিউজবাংলাকে বলেন, ‘স্কুল খোলার পর ফেরদৌসি বেগম সম্ভবত দুদিন স্কুলে এসেছিলেন। এরপর অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় আর স্কুলে আসেননি।

‘তখন থেকে এখন পর্যন্ত স্কুল স্বাভাবিক নিয়মে চলছে। স্কুলের অন্য শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা সুস্থ আছেন। এ ছাড়া অন্য যে শিক্ষকরা করোনা আক্রান্ত হয়ে আইসোলেশনে আছেন, তাদের স্কুলও চলছে।’

আরও পড়ুন:
ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি ও দালালের দৌরাত্ম্যে অসহায় হাসপাতাল পরিচালক
মাদকসহ গ্রেপ্তার ৩ নারী
৬ আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২
বিদেশি বিয়ারসহ আটক ১
‘আপনার বাসায় অভিযানে কী পাওয়া যাবে’

শেয়ার করুন

পিটিয়ে জখমের পর পায়ের ‘রগ কর্তন’

পিটিয়ে জখমের পর পায়ের ‘রগ কর্তন’

মান্নান বলেন, ‘চেয়ারম্যানের বোন হাসি যখন লোকজন নিয়া আমারে রাস্তায় আটকাইয়া দাড়াইছে তহন চেয়ারম্যান পল্টু হাসিরে ফোনে কইতেছিল, ওর হাত পায়ের রগ কাইট্টা দে, তাইলেই মইরা যাইবে আনে। হেইয়ার পরই মোর মাতায় পিছন দিয়া পিডান দেয়। আর কিছু মনে করতে পারছি না।’

বরগুনার পাথরঘাটায় এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে জখমের পর পায়ের রগ কেটে দেয়ার খবর পাওয়া গেছে।

পাথরঘাটা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল বাশার নিউজবাংলাকে বলেন, কাকচিড়া ইউনিয়নের বাইনচটকি গ্রামে সোমবার সকাল ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে বলে তারা জেনেছেন।

আহত আবদুল মান্নান ফকিরকে উদ্ধার করে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

মান্নান কাকচিড়া ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বাইনচটকি গ্রামের লেহাজ উদ্দীনের ছেলে। তিনি পেশায় ইজিবাইক চালক।

মান্নানের মেয়ে মুন্নি আক্তার জানান, প্রতিদিনের মতো বাড়ি থেকে বের হয়ে বাবা ইজিবাইক চালাতে কাকচিড়া বাজারে যাচ্ছিলেন। জহির জোমাদ্দারের বাড়ির সামনে পৌঁছতে কাকচিড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলাউদ্দীন পল্টুর বোন হাসি বেগমের নেতৃত্বে কয়েকজন তার গতিরোধ করেন। এ সময় একজন লাঠি দিয়ে পেছন থেকে বাবাকে আঘাত করে। এতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে হামলাকারীরা ধারাল অস্ত্র দিয়ে তার দুই পায়ের রগ কেটে দেয়।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মান্নান বলেন, ‘চেয়ারম্যানের বোন হাসি যখন লোকজন নিয়া আমারে রাস্তায় আটকাইয়া দাড়াইছে তহন চেয়ারম্যান পল্টু হাসিরে ফোনে কইতেছিল, ওর হাত পায়ের রগ কাইট্টা দে, তাইলেই মইরা যাইবে আনে। হেইয়ার পরই মোর মাতায় পিছন দিয়া পিডান দেয়। আর কিছু মনে করতে পারছি না।’

বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসক তারেক রহমান বলেন, মান্নানের মাথার পেছনে আঘাত রয়েছে। উভয় পায়ের গোড়ালিতে ধারাল অস্ত্রের জখম হয়েছে। ডান পায়ের জখম গুরুতর। রগ কেটেছে কিনা পরীক্ষা না করে বলা যাচ্ছে না।

ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দীন পল্টু বলেন, ‘মান্নাকে কে বা কারা মেরেছে আমার জানা নেই। সে বরাবরই আমার বিরোধীতা করে আসছে। এখন তাকে মারধরের বিষয়েও দোষারোপ করে ফায়দা নিতে চাইছে।’

পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল বাশার বলেন, ‘বিষয়টি আমরা জেনেছি, সেখানে আমাদের ফোর্স পাঠানো হয়েছে। খোঁজ খবর নিয়ে আমরা আইনি ব্যবস্থা নিচ্ছি। হামলার শিকার মান্নানের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে মামলার পর তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

আরও পড়ুন:
ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধি ও দালালের দৌরাত্ম্যে অসহায় হাসপাতাল পরিচালক
মাদকসহ গ্রেপ্তার ৩ নারী
৬ আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২
বিদেশি বিয়ারসহ আটক ১
‘আপনার বাসায় অভিযানে কী পাওয়া যাবে’

শেয়ার করুন