দুর্যোগ সহনীয় জাতি চায় সরকার: এনামুর

দুর্যোগ সহনীয় জাতি চায় সরকার: এনামুর

নারায়ণগঞ্জে বৃহস্পতিবার রেসকিউ বোট হস্তান্তর অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা: এনামুর রহমান। ছবি: নিউজবাংলা

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষের কোনো হাত নেই, কিন্তু আমরা যদি পূর্ব প্রস্তুতি গ্রহণ করতে পারি তাহলে এসব দুর্যোগ মোকাবিলা করা অনেক সহজ হবে। আর শেখ হাসিনার সরকার সে কাজটাই করে যাচ্ছে।’

জলবায়ু পরিবর্তন ও ভৌগোলিক অবস্থানগত কারণে ঝুঁকিতে আছে বাংলাদেশ। এ জন্য দুর্যোগ সহনীয় জাতি গঠনে সরকার কাজ করে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান।

নারায়ণগঞ্জে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ নৌবাহিনী পরিচালিত নারায়ণগঞ্জ ডকইয়ার্ড অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কস লিমিটেডে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের জন্য নির্মাণাধীন রেসকিউ বোট হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘প্রাকৃতিক দুর্যোগে মানুষের কোনো হাত নেই, কিন্তু আমরা যদি পূর্ব প্রস্তুতি গ্রহণ করতে পারি, তাহলে এসব দুর্যোগ মোকাবিলা করা অনেক সহজ হবে। আর শেখ হাসিনার সরকার সে কাজটাই করে যাচ্ছে।’

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‘নতুন রেসকিউ বোটগুলো যেকোনো দুর্যোগকালে স্বল্প সময়ে ত্রাণসহ বিভিন্ন সহায়তা প্রদান করতে পারবে। বোটগুলোর ড্রাফট অত্যন্ত কম হওয়ায় দুর্গত এলাকায় উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করতে পারবে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোহসীন, বাংলাদেশ নৌবাহিনীর রিয়ার অ্যাডমিরাল এম শফিউল আজম, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আতিকুল হক ও আদর্শ প্রতিবন্ধী উন্নয়ন কেন্দ্রের সভাপতি কাজল রেখা।

নির্মাণাধীন ৬০টি বোটের মধ্যে ৮টি বোটের নির্মাণ শেষে বৃহস্পতিবার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরকে হস্তান্তর করা হয়। বাকি ৫২টি বোটের নির্মাণ আগামী বছরের মধ্যে শেষ হতে পারে।

গত বছরের ২১ জুলাই দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের সঙ্গে ডিইডব্লিউ লিমিটেড-নারায়ণগঞ্জের মধ্যে ৬০টি রেসকিউ বোট নির্মাণে চুক্তি হয়েছিল।

শেয়ার করুন

মন্তব্য

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে আনন্দ মিছিল করেছে ছাত্রলীগ। ছবি: নিউজবাংলা

মিছিল শেষে ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার জন্মদিনে তাঁর সুন্দর জীবন, সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি। ৭৫’ পরবর্তী সময়ে স্বাধীনতা বিরোধীদের পুনর্বাসন ও রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতার যে প্রক্রিয়া দেশে শুরু হয়েছিল, তার বিপরীতে শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ।’

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে আনন্দ মিছিল করেছে ছাত্রলীগ।

আনন্দ মিছিলটি মঙ্গলবার সংসদ ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এসে শেষ হয়।

ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে সংগঠনের নেতা-কর্মীরা এতে অংশ নেন।

এ সময় নেতা-কর্মীরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড প্ল্যাকার্ডের মাধ্যমে তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল
মিছিলে নেতা-কর্মীরা বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড প্ল্যাকার্ডের মাধ্যমে তুলে ধরেন।

মিছিলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন; ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান হৃদয় এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান ও সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের আহমেদসহ কেন্দ্রীয় নেতা-কর্মীরা অংশ নেন।

মিছিল শেষে তারা প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় সংগঠনের সভাপতি আল-নাহিয়ান বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার জন্মদিনে তাঁর সুন্দর জীবন, সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি। ৭৫’ পরবর্তী সময়ে স্বাধীনতা বিরোধীদের পুনর্বাসন ও রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতার যে প্রক্রিয়া দেশে শুরু হয়েছিল, তার বিপরীতে শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ।’

তিনি আরও বলেন, ‘শেখ হাসিনার রাজনৈতিক প্রজ্ঞা, বিচক্ষণতা, দেশপ্রেম, সুদক্ষ ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণে আজ বাঙালি জাতি বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের মধ্য দিয়ে গতিশীল নেতৃত্ব, মানবিক মূল্যবোধ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তিনি শুধু নিজেকেই নন, বিশ্ব দরবারে দেশকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়।’

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল
সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে সংগঠনের নেতা-কর্মীরা এতে অংশ নেন।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য বলেন, ‘গণতন্ত্র, মানুষের ভোট ও ভাতের অধিকার আদায়ের লড়াইয়ে অবতীর্ণ হয়ে ১৯৮১ সালের ১৭ মে বহু চড়াই-উতরাই, বাধা-বিপত্তি উপেক্ষা করে বাঙালি জাতির আলোকবর্তিকা হয়ে দেশে এসেছিলেন দেশরত্ন শেখ হাসিনা।

‘সেদিন তিনি এসেছিলেন বলেই আজ জাতির পিতার সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্নে অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করে বিশ্বসভায় আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বাঙালি জাতি। ভালোবাসা ও সহমর্মিতায় তিনি বাংলার মানুষের প্রিয় এক ভগিনী, অতি আপনজন এবং একজন মমতাময়ী মা।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশের মানুষের কল্যাণ ও উন্নতিকে রাজনৈতিক ধ্যানে-জ্ঞানে রেখে তিনি দেশ ও মানুষের কল্যাণে নিজেকে সঁপে দিয়েছেন। জাতির পিতার আদর্শকে বুকে ধারণ করে তাঁর নেতৃত্বেই বাঙালি জাতি এগিয়ে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধুর আজীবন লালিত স্বপ্ন সুখী-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে। ছাত্রলীগের একমাত্র অভিভাবক শেখ হাসিনার জন্মদিনে সুন্দর জীবন ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি।’

শেয়ার করুন

লক্ষ্যমাত্রা পূরণ না হলে বিশেষ ক্যাম্পেইন চলমান থাকবে

লক্ষ্যমাত্রা পূরণ না হলে বিশেষ ক্যাম্পেইন চলমান থাকবে

টিকাদান ক্যাম্পেইনের সময় একটি কেন্দ্রের সামনে টিকাপ্রত্যাশীদের ভিড়। ছবি: নিউজবাংলা

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউস বলেন, বিশেষ ক্যাম্পেইনের লক্ষ্যমাত্রা ৭৫ লাখ ডোজ টিকা। আজকে পূরণ না হলে কার্যক্রম চলমান থাকবে। আগামী ক্যাম্পেইনে ১ কোটি ডোজ টিকা দেয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে সারা দেশে বিশেষ টিকাদান ক্যাম্পেইন চলছে। এ কর্মসূচির মাধ্যমে ৭৫ লাখ মানুষকে টিকা দেয়া হবে।

তবে মঙ্গলবার টিকাদানের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ না হলে এ কার্যক্রম চলমান থাকবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব ড. আহমদ কায়কাউস।

রাজধানীর ধানমন্ডিতে একটি অস্থায়ী টিকাদান কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল বাশার খুরশীদ আলম, অতিরিক্ত মহাপরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা উপস্থিত ছিলেন।

আহমদ কায়কাউস বলেন, ‘বিশেষ ক্যাম্পেইনের লক্ষ্যমাত্রা ৭৫ লাখ ডোজ। আজকে পূরণ না হলে টিকা দেয়ার কার্যক্রম চলমান থাকবে।’

তিনি বলেন, বিশেষ টিকাদান কার্যক্রম শেষ হলে টিকা পাওয়া সাপেক্ষে এ ধরনের আরও বড় ক্যাম্পেইন হাতে নেয়া হবে। আগামী ক্যাম্পেইনে ১ কোটি ডোজ টিকা দেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, দেশে দুই চালানে ৩৫ লাখ ফাইজারের টিকা এসেছে, আরও আসবে। এই টিকা যেখানে নেয়া সম্ভব, সেখানেই দেয়া হবে। তবে প্রবাসীরা অগ্রাধিকার পাবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন মঙ্গলবার সারা দেশে ৮০ লাখ টিকা দেয়ার কার্যক্রম হাতে নিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

এর মধ্যে ৭৫ লাখ টিকা বিশেষ ক্যাম্পেইনে আর নিয়মিত ৫ লাখ দেয়ার লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। দেশে প্রায় ৪ হাজার ৬০০ ইউনিয়ন এবং ১ হাজার ৫৪টি পৌরসভার ৪৪৩টি ওয়ার্ডে টিকা দেয়া হচ্ছে।

শেয়ার করুন

বিএফইউজের নির্বাচন স্থগিত

বিএফইউজের নির্বাচন স্থগিত

রিটকারীর পক্ষে আইনজীবী তীর্থ সলিল পাল জানান, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌসের নাম বিএফইউজের নির্বাচনের ভোটার তালিকায় না থাকায় হাইকোর্টে তিনি রিটটি করেন। তার নাম অন্তর্ভুক্তি চেয়েছেন। এই রিটের শুনানি নিয়ে নির্বাচন দুই মাসের জন্য স্থগিত করেছে আদালত।

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) নির্বাচন স্থগিত করেছে হাইকোর্ট।

বিচারপতি মো. মুজিবর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।

চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস নির্বাচন স্থগিত চেয়ে আবেদন করেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার তীর্থ সলিল পাল, সঙ্গে ছিলেন মো. নুরুল করিম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নওরোজ রাসেল চৌধুরী।

রিটকারীর আইনজীবী তীর্থ সলিল পাল বলেন, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌসের নাম বিএফইউজের নির্বাচনের ভোটার তালিকায় না থাকায় হাইকোর্টে তিনি রিটটি করেন। তার নাম অন্তর্ভুক্তি চেয়েছেন।

আদালত রুলের শুনানি নিয়ে তার নাম কেন অন্তর্ভুক্ত করার নির্দেশ দেয়া হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে। পাশাপাশি দুই মাসের জন্য বিএফইউজের নির্বাচন স্থগিত করেছে।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) ত্রিবার্ষিক সাধারণ সভা ও প্রতিনিধি সম্মেলন হয়। সেখানে সংগঠনটির আগামী ২৩ অক্টোবর নির্বাচনের তারিখ ঠিক করা হয়।

শেয়ার করুন

মানবিক যুবলীগের প্রশংসায় ব্যারিস্টার সুমন

মানবিক যুবলীগের প্রশংসায় ব্যারিস্টার সুমন

ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন। ছবি: সংগৃহীত

ভিডিওতে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘১০ জেলায় যুবলীগ গৃহহীন ১০টি পরিবারের কাছে ঘরের চাবি তুলে দিয়েছেন। পাশাপাশি ৩০০ আশ্রয়হীন মানুষকে ঘর দেয়ার প্রকল্প হাতে নিয়েছে। কোনো সংগঠনের পক্ষে নিজের টাকায় গৃহহীনদের ঘর দেয়ার সিদ্ধান্ত একটি ঐতিহাসিক বিষয়।’

যুবলীগের আইন সম্পাদক পদ থেকে অব্যাহতির পর যুবলীগের প্রশংসা করে ফেসবুক পেজে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন।

সংগঠনটি বিতর্কিত অবস্থান থেকে মানবিক যুবলীগে রূপান্তর হওয়ায় প্রশংসা জানিয়ে মঙ্গলবার নতুন এ ভিডিও তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করেন।

ভিডিওতে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘আমরা খারাপ কাজের প্রতিবাদ করি। পাশাপাশি যে কোনো ভালো কাজের প্রশংসা করাও আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। ভালো কাজের প্রশংসা না করলে সেগুলো টিকে থাকবে না। ভালো মানুষের পাশে না দাড়ালে এ সমাজ টিকিয়ে রাখা কঠিন হবে।’

তিনি বলেন, সোমবার আওয়ামী যুবলীগ গৃহহীন ১০টি পরিবারের কাছে তাদের ঘরের চাবি তুলে দিয়েছেন। ১০ জেলায় ১০টি পরিবারের মানুষকে আশ্রয়ের ঠিকানা দিয়েছে। পাশাপাশি ৩০০ আশ্রয়হীন মানুষকে ঘর দেয়ার প্রকল্প হাতে নিয়েছে।

ব্যারিস্টার সুমন জানান, কোনো সংগঠনের পক্ষে নিজের টাকায় গৃহহীনদের ৩০০ ঘর দেয়ার সিদ্ধান্ত একটি ঐতিহাসিক বিষয়। পূর্বে যুবলীগ বিতর্কিত অবস্থানে ছিল।

সেই অবস্থান থেকে মানবিক যুবলীগে রূপান্তর করায় যুবলীগের বর্তমান চেয়ারম্যান শেখ ফজল শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিলের প্রশংসা করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘দেশ বিরোধী ও বেআইনী কাজ হলে এর বিরোধীতা করি। ঠিক কেউ যদি ভালো কাজ করে সেটা বলাও আমার দায়িত্ব। যুবলীগের কর্মী হিসেবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে দেশকে সামনের দিকে নিয়ে যেতে চাই।

‘বিতর্কিত যুবলীগ থেকে মানবিক যুবলীগের রূপান্তর হওয়ার বিষয়টি ধরে রাখতে পারলে সংগঠন থেকে আদর্শ নেতা তৈরি হবে যারা আগামীতে দেশকে সোনার বাংলায় রূপান্তর করবে।’

সংগঠনের গঠনতন্ত্র বিরোধী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত থাকার অভিযোগে গত ৭ আগস্ট ব্যারিস্টার সুমনকে যুবলীগের আইন সম্পাদকের পদ থেকে অব্যাহতি দেয় সংগঠনটি।

শেয়ার করুন

এসএসসি, এইচএসসি পরীক্ষার সার্বিক প্রস্তুতি আছে: শিক্ষামন্ত্রী

এসএসসি, এইচএসসি পরীক্ষার সার্বিক প্রস্তুতি আছে: শিক্ষামন্ত্রী

প্রতীকী ছবি

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেন, ‘এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে আমাদের সার্বিক প্রস্তুতি আছে। আশা করছি প্রকাশিত রুটিন অনুযায়ী সময়মতো সব পরীক্ষা সম্পন্ন করা যাবে।’

নির্ধারিত সময়েই অনুষ্ঠিত হবে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা। এ বিষয়ে সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

আগারগাঁও মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠান শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে আমাদের সার্বিক প্রস্তুতি আছে। আশা করছি, প্রকাশিত রুটিন অনুযায়ী সময়মতো সব পরীক্ষা সম্পন্ন করা যাবে।’

চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষা শুরু হবে ১৪ নভেম্বর, চলবে ২৩ নভেম্বর পর্যন্ত। আর এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হবে ২ ডিসেম্বর, চলবে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

এবারের এসএসসি ও এইচএসসি অন্যান্য বছরের মতো হবে না। পরীক্ষা হবে শুধু নৈর্বাচনিক বিষয়ে। আবশ্যিক বিষয়ে আগের পাবলিক পরীক্ষার সাবজেক্ট ম্যাপিং করে মূল্যায়নের মাধ্যমে নম্বর দেয়া হবে।

এ ছাড়া চতুর্থ বিষয়েরও পরীক্ষা নেয়া হবে না। নির্ধারিত দিনে সকাল ১০টা থেকে ১১টা ৩০ মিনিট এবং ২টা থেকে ৩টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত পরীক্ষা চলবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আজ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন। আমরা শিক্ষা পরিবার তার এবারের জন্মদিনকে স্মরণীয় করে রাখতে শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে সারা দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে গাছ লাগানোর উদ্যোগ নিয়েছি।

‘শিক্ষার্থীরা গাছ লাগাবে, সেটির পরিচর্যাও করবে। এর মাধ্যমে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে প্রত্যয়ী হবে শিক্ষার্থীরা।’

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আজ শুধু দেশের নয়, সারা বিশ্বেরই এক নন্দিত নেতা। বাংলাদেশকে সদর্পে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ায় বিশ্বজুড়ে তিনি প্রশংসা কুড়িয়েছেন। এটি আমাদের দেশের জন্য গর্বের। আমরা সবাই মিলে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাব এবং চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের গর্বিত অংশীদার হব।’

এ সময় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হলে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়। দেড় বছর পর ১২ সেপ্টেম্বর খুলে দেয়া হয়েছে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো।

শেয়ার করুন

মরেও গিনেস রেকর্ডে ঠাঁই হলো রানির

মরেও গিনেস রেকর্ডে ঠাঁই হলো রানির

বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরু রানি

সোমবার রাত ১১টার দিকে সাভারে চারিগ্রাম এলাকার শেকড় অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের স্বত্বাধিকারী কাজী মো. আবু সুফিয়ান নিউজবাংলাকে এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

কিছুদিন আগেই ক্ষুদ্রাকৃতি দিয়ে সারা বিশ্বের নজর কেড়েছিল রানি নামের একটি গরু। ঢাকার সাভারে খর্বাকৃতির এই গরুকে নিয়ে সরব ছিল বিশ্ব মিডিয়াও। কিন্তু গত ১৯ আগস্ট হঠাৎ করেই তার মৃত্যুতে শোক নেমে আসে নেটিজেনদের মাঝে। এই মৃত্যু যেন মেনে নিতে পারছিলেন না অনেকেই।

এবার রানির বিশ্ব রেকর্ডের খবর দিয়ে সেই আক্ষেপ আরও বাড়াল গিনেস বুক কর্তৃপক্ষ। রানিকে বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরুর স্বীকৃতি দিয়েছে সংস্থাটি।

সোমবার রাত ১১টার দিকে সাভারে চারিগ্রাম এলাকার শেকড় এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের স্বত্বাধিকারী কাজী মো. আবু সুফিয়ান নিউজবাংলাকে এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

এর আগে বিকেল ৪টার দিকে গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষ তাকে ই-মেইলের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বলে জানান।

মরেও গিনেস রেকর্ডে ঠাঁই হলো রানির
গিনেস বুক থেকে পাঠানো রানির রেকর্ডের স্বীকৃতিপত্র

আবু সুফিয়ান বলেন, ‘রানি আমাদের সবার অনেক আদরের ছিল। প্রাণী হলেও রানিকে আমরা পরিবারের একজন করে নিয়েছিলাম। কিন্তু গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ডে যখন রানির নাম উঠতে আর কিছুদিন বাকি তখনই আমরা তাকে হারিয়েছি। রানির মৃত্যু কোনোভাবেই ওই সময় মেনে নিতে পারিনি আমরা।

‘তবে অবশেষে গিনেস বুক কর্তৃপক্ষ তাদের নিয়ম-কানুন মেনেই রানিকে বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরুর স্বীকৃতি দিয়েছে। আমরা সত্যিই অনেক আনন্দিত। তবে রানি বেঁচে থাকলে এই আনন্দের মাত্রা কয়েক গুণ বেড়ে যেত। আমাদের শেকড় ফার্মে রানিকে দেখতে ভিড় জমাতেন সাধারণ মানুষ ও সংবাদকর্মীরা। আমরা রানিকে কোলে নিয়ে ছবি তুলেই এই মুহূর্তটা উদযাপন করতে পারতাম।’

মরে যাওয়ার পরও গিনেস বুক কিভাবে রানিকে রেকর্ডের স্বীকৃতি দিয়েছে, জানতে চাইলে আবু সুফিয়ান বলেন, ‘ওদের কাছে আমরা রানির পোস্টমর্টেম রিপোর্ট পাঠিয়েছিলাম। ওরা মূলত দেখেছে, আমরা হরমোন জাতীয় ইনজেকশন পুশ করে রানিকে বামন করেছিলাম কি না? কিন্তু এ ধরনের কোনো কিছু তারা রিপোর্টে পায়নি। তিন দিন আগে ওরা রানিকে বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরুর স্বীকৃতি দিয়েছে। কিন্তু ই-মেইল করেছে আজ।’

শেয়ার করুন

শেখ হাসিনার জন্মদিনে আওয়ামী লীগের নানা কর্মসূচি

শেখ হাসিনার জন্মদিনে আওয়ামী লীগের নানা কর্মসূচি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

দল, দলের সব সহযোগী সংগঠন, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং সংস্থাসমূহের সকল স্তরের নেতা-কর্মী, সমর্থক ও সর্বস্তরের জনগণকে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুরূপ কর্মসূচি পালন করার অনুরোধ জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫ তম জন্মদিনে নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে তার দল আওয়ামী লীগ। ১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গীপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

জন্মদিনে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমসহ দেশের সব ধর্মীয় উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হবে। তবে মহামারীতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এসব কর্মসূচি পালন করা হবে বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

এ ছাড়া আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনগুলোও আলাদাভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলোচনা সভার আয়োজন করেছে আওয়ামী লীগ। এ ছাড়া জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমসহ দেশের সকল মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে জোহরের নামাজের পর।

একইভাবে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহার (মেরুল বাড্ডা), মঙ্গলবার প্রথম প্রহরে (২৭ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাত ১২.০১ মিনিট) খ্রিস্টান এসোসিয়েশন বাংলাদেশ (সিএবি), মিরপুর ব্যাপ্টিস চার্চ, সকাল ৬টায় তেজগাঁও জকমালা রাণীর গীর্জা এবং বিকাল ৫টায় ঢাকেশ্বরী মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে।

এসব কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন। একই দিনে ঢাকাসহ সারাদেশে সকল সহযোগী সংগঠন আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল, বিশেষ প্রার্থনা ও আলোকচিত্র প্রদর্শনীসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে।

জন্মদিনকে ঘিরে জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজা থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার আয়োজন করেছে ছাত্রলীগ। যুবলীগের পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় আলোচনায় অংশ নেয়া ছাড়াও সংগঠনের মহানগর শাখার (উত্তর ও দক্ষিণ) উদ্যোগে বিকেলে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

দল, দলের সব সহযোগী সংগঠন, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং সংস্থাসমূহের সকল স্তরের নেতা-কর্মী, সমর্থক ও সর্বস্তরের জনগণকে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুরূপ কর্মসূচি পালন করার অনুরোধ জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শেয়ার করুন