সংযোগ সড়ক ভেঙে বিচ্ছিন্ন পঞ্চগড়ের ৫ ইউনিয়ন

সংযোগ সড়ক ভেঙে বিচ্ছিন্ন পঞ্চগড়ের ৫ ইউনিয়ন

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলায় ভক্তেরবাড়ি সেতুর সংযোগ সড়ক ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে পাঁচটি ইউনিয়ন। ছবি: নিউজবাংলা

জেলা সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মনিরুজ্জামান জানান, জনদুর্ভোগ নিরসনে আপাতত ভক্তেরবাড়ি সেতুর পাশে বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করা হবে।

টানা বৃষ্টিতে সংযোগ সড়ক ভেঙে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে পঞ্চগড়ের পাঁচটি ইউনিয়নের বাসিন্দারা।

অতিরিক্ত পানির চাপে শুক্রবার বিকেলে পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলা সড়কের মানিকপীর ভক্তেরবাড়ি সেতুর উত্তর পাশের সংযোগ সড়কের প্রায় ৬ মিটার অংশ ভেঙে যায়। ব্রিজের দক্ষিণ পাশের সংযোগ সড়কও ভাঙতে শুরু করেছে। এতে বন্ধ হয়ে গেছে পথচারীসহ সব ধরনের যান চলাচল। দুর্ভোগে পড়েছেন জেলার পাঁচ ইউনিয়নের হাজারো মানুষ।

স্থানীয়রা জানান, গত কয়েক দিনের বৃষ্টিতে নিম্নাঞ্চল তলিয়ে যায়। এতে ছেতনাই খালে পানির তোড়ে ভেঙে যায় ভক্তেরবাড়ি সেতুর সংযোগ সড়ক। এখন দীর্ঘ পথ ঘুরে বিকল্প সড়কে যাতায়াত করায় চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে ওই পাঁচ ইউনিয়নের বাসিন্দাদের।

সংযোগ সড়ক ভেঙে বিচ্ছিন্ন পঞ্চগড়ের ৫ ইউনিয়ন

এলাকাবাসীর অভিযোগ, অপরিকল্পিত ও নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে সড়ক নির্মাণ করায় পানির স্বাভাবিক প্রবাহে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়ে সংযোগ সড়কটি ভেঙে গেছে।

এ বিষয়ে মানিকপীর ইউনিয়নের গড়েরডাঙ্গা এলাকার বাসিন্দা আব্দুর রহমান জানান, ভক্তেরবাড়ি সেতুর সংযোগ সড়ক ভেঙে যাওয়ায় কয়েক হাজার মানুষ ভোগান্তিতে পড়েছেন। সমস্যাটি দ্রুত সমাধানের জন্য স্থানীয় প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেন তিনি।

একই দাবি জানিয়ে পথচারী হাসানুজ্জামান হাসান বলেন, ‘আমরা কয়েক কিলোমিটার ঘুরে অন্য রাস্তা দিয়ে চলাচল করছি। এতে আমাদের সময় নষ্টের পাশাপাশি অনেক কষ্ট হচ্ছে।’

সংযোগ সড়ক ভেঙে বিচ্ছিন্ন পঞ্চগড়ের ৫ ইউনিয়ন

বোদা উপজেলার বেংহারী বনগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘স্থানীয় লোকজন আমাকে বিষয়টি অবহিত করলে আমি সড়ক ও জনপথ দপ্তরকে জানিয়েছি। পরে জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম, বোদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সোলেমান আলী, সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মনিরুজ্জামান, উপসহকারী প্রকৌশলী মো. জহুরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।’

জেলা সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী মো. জহুরুল ইসলাম জানান, ২০০৯-১০ অর্থবছরে মানিকপীর ভক্তেরবাড়ি সেতুটি নির্মাণ করা হয়। গত অর্থবছরে দুই কোটি টাকা ব্যয়ে সেতুর সংযোগ সড়কটির ১১ কিলোমিটার সংস্কার করা হয়।

সংযোগ সড়ক ভেঙে বিচ্ছিন্ন পঞ্চগড়ের ৫ ইউনিয়ন

জেলা সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মনিরুজ্জামান জানান, আপাতত সেখানে বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করা হবে। সড়ক বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানাবেন।

জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম জানান, জনদুর্ভোগ নিরসনে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে দ্রুত বেইলি ব্রিজ নির্মাণের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:
সংস্কার হয়নি সংযোগ সড়ক, সাঁকো বেয়ে উঠতে হয় ব্রিজে
ভাঙা সেতুতে কাঠ বিছিয়ে চলাচল
ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ ভেঙে খালে
ব্রিজে অতিরিক্ত ওজনের ট্রাক, ভেঙে পড়ে নিহত ১
সেতু ভেঙে দুর্ভোগে ৫০ হাজার মানুষ

শেয়ার করুন

মন্তব্য

অটোরিকশায় ট্রাকের ধাক্কা, রাজমিস্ত্রি নিহত

অটোরিকশায় ট্রাকের ধাক্কা, রাজমিস্ত্রি নিহত

জামালপুরে দুর্ঘটনার পর স্থানীয়রা ট্রাকটি আটক করলেও পালিয়ে যায় ট্রাকের চালক ও হেলপার। ছবি: নিউজবাংলা

জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মো. অনিক জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত চারজনকে ভর্তি করার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুরের দিকে রকিবুল মারা যান। বাকি তিনজন চিকিৎসাধীন।

জামালপুরের মেলান্দহে অটোরিকশায় ট্রাকের ধাক্কায় একজন নিহত হয়েছেন। এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন তিনজন।

উপজেলার চরবানি পাকুরিয়া ইউনিয়নের তালতলা এলাকায় সোমবার সকাল ৮টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত রাজমিস্ত্রি রকিবুল টিকাদারের বাড়ি মেলান্দহ উপজেলার সাধুপুর গ্রামে।

আহতরা হলেন একই গ্রামের নুরু শেখ, সুরুজ মিয়া ও মিলন মিয়া। তারা সবাই জেলা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

মেলান্দহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি) এম এম মঈনুল ইসলাম জানান, সকালে মেলান্দহের ঝিনাই ব্রিজের পরে দেওয়ানগঞ্জগামী একটি ট্রাক জামালপুরগামী অটোরিকশাটিকে সামনে থেকে ধাক্কা দেয়। এতে অটোরিকশার চার যাত্রী গুরুতর আহত হন।

জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মো. অনিক জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত চারজনকে ভর্তি করার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুরের দিকে রকিবুল মারা যান। বাকি তিনজন চিকিৎসাধীন।

ওসি মঈনুল জানান, দুর্ঘটনার পর স্থানীয়রা ট্রাকটি আটক করলেও পালিয়ে যান ট্রাকের চালক ও হেলপার।

এই ঘটনায় পুলিশ কোনো অভিযোগ পায়নি বলেও জানান ওসি।

আরও পড়ুন:
সংস্কার হয়নি সংযোগ সড়ক, সাঁকো বেয়ে উঠতে হয় ব্রিজে
ভাঙা সেতুতে কাঠ বিছিয়ে চলাচল
ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ ভেঙে খালে
ব্রিজে অতিরিক্ত ওজনের ট্রাক, ভেঙে পড়ে নিহত ১
সেতু ভেঙে দুর্ভোগে ৫০ হাজার মানুষ

শেয়ার করুন

সাপের কামড়ে নারীসহ মৃত ২

সাপের কামড়ে নারীসহ মৃত ২

মৃত মোকাদ্দেস হোসেনের ছোট ভাই হাবিবুর রহমান জানান, ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে তার ভাই প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গেলে গোখড়া সাপ তাকে দংশন করে। আর দক্ষিণ মনোহরপুর গ্রামের গৃহবধূ রোকসানা বেগমকে গভীর রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় সাপ কামড় দেয়।

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় সাপের কামড়ে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে।

উপজেলার রঘুনন্দনপুর ও দক্ষিণ মনোহরপুর গ্রামে রোববার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

মৃতরা হলেন, রঘুনন্দনপুর গ্রামের মোকাদ্দেস হোসেন ও দক্ষিণ মনোহরপুর গ্রামের আজগার আলির স্ত্রী রোকসানা বেগম।

মৃত মোকাদ্দেস হোসেনের ছোট ভাই হাবিবুর রহমান জানান, ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে তার ভাই প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গেলে গোখড়া সাপ তাকে দংশন করে। প্রথমে তাকে স্থানীয় ওঝার কাছে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সকাল ৮টার দিকে তাকে শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে চিকিৎসক মোকাদ্দেসকে মৃত ঘোষণা করেন।

শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যালের অফিসার কনক জানান, তার পায়ে দুটি দংশনের চিহ্ন রয়েছে। স্থানীয় কবিরাজ দেখিয়ে রোগীকে অনেক দেরিতে হাসপাতালে আনা হয়েছে। হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে নিত্যানন্দপুর ইউনিয়নের ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য বলাই কুমার বিশ্বাস জানান, দক্ষিণ মনোহরপুর গ্রামের গৃহবধূ রোকসানা বেগম ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। গভীর রাতে তাকে সাপ কামড় দেয়।

পরে যন্ত্রণা শুরু হলে স্বজনরা তাকেও প্রথমে গ্রাম্য ওঝার কাছে নিয়ে যান। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যান তিনি।

আরও পড়ুন:
সংস্কার হয়নি সংযোগ সড়ক, সাঁকো বেয়ে উঠতে হয় ব্রিজে
ভাঙা সেতুতে কাঠ বিছিয়ে চলাচল
ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ ভেঙে খালে
ব্রিজে অতিরিক্ত ওজনের ট্রাক, ভেঙে পড়ে নিহত ১
সেতু ভেঙে দুর্ভোগে ৫০ হাজার মানুষ

শেয়ার করুন

পিটিয়ে জখমের পর পায়ের ‘রগ কর্তন’

পিটিয়ে জখমের পর পায়ের ‘রগ কর্তন’

মান্নান বলেন, ‘চেয়ারম্যানের বোন হাসি যখন লোকজন নিয়া আমারে রাস্তায় আটকাইয়া দাড়াইছে তহন চেয়ারম্যান পল্টু হাসিরে ফোনে কইতেছিল, ওর হাত পায়ের রগ কাইট্টা দে, তাইলেই মইরা যাইবে আনে। হেইয়ার পরই মোর মাতায় পিছন দিয়া পিডান দেয়। আর কিছু মনে করতে পারছি না।’

বরগুনার পাথরঘাটায় এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে জখমের পর পায়ের রগ কেটে দেয়ার খবর পাওয়া গেছে।

পাথরঘাটা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল বাশার নিউজবাংলাকে বলেন, কাকচিড়া ইউনিয়নের বাইনচটকি গ্রামে সোমবার সকাল ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে বলে তারা জেনেছেন।

আহত আবদুল মান্নান ফকিরকে উদ্ধার করে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

মান্নান কাকচিড়া ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বাইনচটকি গ্রামের লেহাজ উদ্দীনের ছেলে। তিনি পেশায় ইজিবাইক চালক।

মান্নানের মেয়ে মুন্নি আক্তার জানান, প্রতিদিনের মতো বাড়ি থেকে বের হয়ে বাবা ইজিবাইক চালাতে কাকচিড়া বাজারে যাচ্ছিলেন। জহির জোমাদ্দারের বাড়ির সামনে পৌঁছতে কাকচিড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলাউদ্দীন পল্টুর বোন হাসি বেগমের নেতৃত্বে কয়েকজন তার গতিরোধ করেন। এ সময় একজন লাঠি দিয়ে পেছন থেকে বাবাকে আঘাত করে। এতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে হামলাকারীরা ধারাল অস্ত্র দিয়ে তার দুই পায়ের রগ কেটে দেয়।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মান্নান বলেন, ‘চেয়ারম্যানের বোন হাসি যখন লোকজন নিয়া আমারে রাস্তায় আটকাইয়া দাড়াইছে তহন চেয়ারম্যান পল্টু হাসিরে ফোনে কইতেছিল, ওর হাত পায়ের রগ কাইট্টা দে, তাইলেই মইরা যাইবে আনে। হেইয়ার পরই মোর মাতায় পিছন দিয়া পিডান দেয়। আর কিছু মনে করতে পারছি না।’

বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসক তারেক রহমান বলেন, মান্নানের মাথার পেছনে আঘাত রয়েছে। উভয় পায়ের গোড়ালিতে ধারাল অস্ত্রের জখম হয়েছে। ডান পায়ের জখম গুরুতর। রগ কেটেছে কিনা পরীক্ষা না করে বলা যাচ্ছে না।

ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দীন পল্টু বলেন, ‘মান্নাকে কে বা কারা মেরেছে আমার জানা নেই। সে বরাবরই আমার বিরোধীতা করে আসছে। এখন তাকে মারধরের বিষয়েও দোষারোপ করে ফায়দা নিতে চাইছে।’

পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল বাশার বলেন, ‘বিষয়টি আমরা জেনেছি, সেখানে আমাদের ফোর্স পাঠানো হয়েছে। খোঁজ খবর নিয়ে আমরা আইনি ব্যবস্থা নিচ্ছি। হামলার শিকার মান্নানের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে মামলার পর তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

আরও পড়ুন:
সংস্কার হয়নি সংযোগ সড়ক, সাঁকো বেয়ে উঠতে হয় ব্রিজে
ভাঙা সেতুতে কাঠ বিছিয়ে চলাচল
ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ ভেঙে খালে
ব্রিজে অতিরিক্ত ওজনের ট্রাক, ভেঙে পড়ে নিহত ১
সেতু ভেঙে দুর্ভোগে ৫০ হাজার মানুষ

শেয়ার করুন

অ্যাপেক্স কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণে

অ্যাপেক্স কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণে

ফাইল ছবি

ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘প্রথমে চারটি ইউনিট কাজ শুরু করে। আগুনের তীব্রতা বেশি হওয়ায় আরও দুই ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে যোগ দেয়। ফায়ার সার্ভিসের ৬ ইউনিটের প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।’

সাভারের আশুলিয়া অ্যাপেক্স কোম্পানির কারখানায় লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছে ফায়ার সার্ভিস।

জামগড়া এলাকার লিয়াকত আলী সড়ক এলাকায় ফ্যাশন ফোরাম কারখানার সামনে অ্যাপেক্সের ফোম তৈরির কারখানায় রোববার রাত সাড়ে ৩টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার জাহাঙ্গীর আলম সোমবার সকালে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘রাত সাড়ে ৩টার দিকে খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। তখন কারখানায় বন্ধ ছিল। কেউ না থাকায় আমরা তালা ভেঙে কারখানায় ঢুকি।

‘প্রথমে ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট কাজ শুরু করে। আগুনের তীব্রতা বেশি হওয়ায় ধামরাই স্টেশনের আরও দুই ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে যোগ দেয়। ফায়ার সার্ভিসের ৬ ইউনিটের প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।’

জাহাঙ্গীর আলম আরও বলেন, ‘কারখানাটি সেমিপাকা হওয়ায় নিমিষেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে। শর্টসার্কিট থেকেই আগুনের সূত্রপাত হয়েছিল।’

‘অগ্নিকাণ্ডে কারখানাটির প্রায় ২০ লাখ টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে কারখানার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আসলে ক্ষয়ক্ষতির সঠিক পরিমাণ জানা যাবে।’

আরও পড়ুন:
সংস্কার হয়নি সংযোগ সড়ক, সাঁকো বেয়ে উঠতে হয় ব্রিজে
ভাঙা সেতুতে কাঠ বিছিয়ে চলাচল
ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ ভেঙে খালে
ব্রিজে অতিরিক্ত ওজনের ট্রাক, ভেঙে পড়ে নিহত ১
সেতু ভেঙে দুর্ভোগে ৫০ হাজার মানুষ

শেয়ার করুন

ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ২

ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ২

নিহত একজন হলেন গাজীপুরের ফাউগান এলাকার ৩৫ বছর বয়সি শাহিদুল ইসলাম। অন্যজনের পরিচয় এখনও জানাতে পারেনি পুলিশ। অজ্ঞাতপরিচয় ওই ব্যক্তির পরনে জিন্স প্যান্ট ও সাদা রঙের শার্ট ছিল।

গাজীপুরে আলাদা ঘটনায় ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

রেলওয়ে পুলিশ মরদেহ দুটি উদ্ধার করে সোমবার সকালে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহত একজন হলেন গাজীপুরের ফাউগান এলাকার ৩৫ বছর বয়সি শাহিদুল ইসলাম। অন্যজনের পরিচয় এখনও জানাতে পারেনি পুলিশ। তিনি পুরুষ, তার বয়স আনুমানিক ৪৭ বছর।

জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশন পুলিশ ক্যাম্পের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. শহীদুল্লাহ জানান, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ভাওয়াল এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ রেললাইনে রোববার রাত ১১টার দিকে ঢাকাগামী একটি ট্রেনে কাটা পড়েন শাহিদুল ইসলাম। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। পরে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এদিকে কালিয়াকৈর উপজেলার হাইটেক পার্ক এলাকায় ঢাকা-উত্তরবঙ্গ রেললাইনে রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে অজ্ঞাতপরিচয় ওই ব্যক্তি ট্রেনে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। পরে মরদেহটি উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও জানান, অজ্ঞাতপরিচয় ওই ব্যক্তির পরনে জিন্স প্যান্ট ও সাদা রঙের শার্ট ছিল। তার পরিচয় শনাক্তে কাজ চলছে।

আরও পড়ুন:
সংস্কার হয়নি সংযোগ সড়ক, সাঁকো বেয়ে উঠতে হয় ব্রিজে
ভাঙা সেতুতে কাঠ বিছিয়ে চলাচল
ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ ভেঙে খালে
ব্রিজে অতিরিক্ত ওজনের ট্রাক, ভেঙে পড়ে নিহত ১
সেতু ভেঙে দুর্ভোগে ৫০ হাজার মানুষ

শেয়ার করুন

‘পর্যটন খাতে বিনিয়োগ বেশি লাভজনক’

‘পর্যটন খাতে বিনিয়োগ বেশি লাভজনক’

জেলা প্রশাসক মঞ্জরুল হাফিজ বলেন, ‘চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পর্যটনের মডেল। এখানে অপার সম্ভাবনা রয়েছে। পদ্মা, মহানন্দাসহ চারটি নদী রয়েছে, রয়েছে অসংখ্য বিল। যা নদীমাতৃক বাংলাদেশেরই প্রতিচ্ছবি। আম আমাদের গর্বের জায়গা। পর্যটনের জন্য এই আমবাগান তৈরি করতে পারে নতুন সম্ভাবনা।’

চাঁপাইনবাবগঞ্জের পর্যটন খাতে বিনিয়োগের জন্য জেলার শীর্ষ ব্যবসায়ী ও তরুণ উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক মঞ্জরুল হাফিজ।

বিশ্ব পর্যটন দিবসের আলোচনায় তিনি বলেন, ‘চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পর্যটনের মডেল। এখানে অপার সম্ভাবনা রয়েছে। পদ্মা, মহানন্দাসহ চারটি নদী রয়েছে, রয়েছে অসংখ্য বিল। যা নদীমাতৃক বাংলাদেশেরই প্রতিচ্ছবি।

‘আম আমাদের গর্বের জায়গা। পর্যটনের জন্য এই আমবাগান তৈরি করতে পারে নতুন সম্ভাবনা।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখানে অনেক চালকল আছে, আমার মনে হয় চালকলে বিনিয়োগের চেয়ে পর্যটন খাতে বিনিয়োগ করলে বেশি লাভ হবে। জেলার পর্যটন খাতে বিনিয়োগের জন্য জেলার শীর্ষ ব্যবসায়ী ও তরুণ উদ্যোক্তারা এগিয়ে এলে, পর্যটনই হয়ে উঠবে এ জেলার অর্থনীতির অন্যতম খাত।‘

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জাকিউল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ শঙ্কর কুমার কুন্ডু, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, লাক্ষা গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মোখলেসুর রহমান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম, শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলামসহ আরও অনেকে।

আরও পড়ুন:
সংস্কার হয়নি সংযোগ সড়ক, সাঁকো বেয়ে উঠতে হয় ব্রিজে
ভাঙা সেতুতে কাঠ বিছিয়ে চলাচল
ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ ভেঙে খালে
ব্রিজে অতিরিক্ত ওজনের ট্রাক, ভেঙে পড়ে নিহত ১
সেতু ভেঙে দুর্ভোগে ৫০ হাজার মানুষ

শেয়ার করুন

নারীর নিথর দেহ পড়ে ছিল মেঝেতে

নারীর নিথর দেহ পড়ে ছিল মেঝেতে

বরিশালে নিজ বাড়ি থেকে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ছবি: নিউজবাংলা

ওসি আজিমুল করিম জানান, মৃতের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। এটা স্বাভাবিক মৃত্যু বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

বরিশালে নিজ বাড়ি থেকে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

নগরীর পশ্চিম কাউনিয়া হাওলাদার সড়কের বাড়ি থেকে সোমবার সকালে সালেহা বেগমের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

সালেহা সোনালী ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার ছিলেন।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার এনামুল হক এবং উপ পুলিশ কমিশনার (উত্তর) জাকির হোসেন মজুমদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

নিউজবাংলাকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কাউনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিমুল করিম।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে তিনি জানান, সালেহা বেগম সোনালী ব্যাংকে ২৫ বছর চাকরি করে তার প্রতিবন্ধী ছেলেকে দেখাশোনা করার জন্য ২০০৫ সালে স্বেচ্ছায় অবসরে যান। এরপর তিনি পশ্চিম কাউনিয়া হাওলাদার সড়ক এলাকার জমিতে বাড়ি নির্মাণ করে সেখানেই বসবাস শুরু করেন। তার স্বামী ও ছেলে মারা যাওয়ার পর দুই মেয়ে সূচি ও সুমাকে নিয়ে থাকতেন।

বড় মেয়ে সুমার বিয়ে হলে তিনি তার স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় চলে যান। আর ছোট মেয়ে সূচি মার সঙ্গে বরিশালেই থাকতেন। দুদিন আগে অফিসের কাজে সূচি ঢাকায় যান। রোববার বাসায় ফোন দিয়ে মাকে না পেয়ে প্রতিবেশী হেলেনাকে খোঁজ নিতে বলেন। হেলেনা পর দিন ওই বাসায় যান। কলিং বেল দিয়েও কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে মই এনে দেয়াল টপকে বাড়ির মধ্যে ঢুকে জানালা দিয়ে মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন। তাৎক্ষণিক তারা ৯৯৯-এ ফোন করলে পুলিশ এসে দরজা ভেঙে ভেতেরে ঢুকে সালেহার মরদেহ উদ্ধার করে।

ওসি আজিমুল করিম জানান, সকাল ৭টার দিকে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করেছে। মৃতের শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। এটা স্বাভাবিক মৃত্যু বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন:
সংস্কার হয়নি সংযোগ সড়ক, সাঁকো বেয়ে উঠতে হয় ব্রিজে
ভাঙা সেতুতে কাঠ বিছিয়ে চলাচল
ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ ভেঙে খালে
ব্রিজে অতিরিক্ত ওজনের ট্রাক, ভেঙে পড়ে নিহত ১
সেতু ভেঙে দুর্ভোগে ৫০ হাজার মানুষ

শেয়ার করুন