যুক্তরাষ্ট্র-কানাডায় দাবদাহ

যুক্তরাষ্ট্র-কানাডায় দাবদাহ

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চলের ৮৮ শতাংশ এলাকায় খরা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বলে চলতি সপ্তাহে খবর প্রকাশের পরই দাবদাহ সতর্কতা জারি হলো। অঞ্চলটির বিভিন্ন হ্রদ শুকিয়ে যাচ্ছে বলে পানি ব্যবহারে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে প্রশাসন।

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চল ও কানাডায় বাড়ছে তাপমাত্রা। এরই মধ্যে দাবদাহ শুরু হয়েছে এই দুই দেশে।

সেখানকার বাসিন্দারা সর্বোচ্চ তাপমাত্রার সাক্ষী হতে পারেন বলে সতর্ক করেছে আবহাওয়া বিভাগ।

এর মধ্যেই দাবদাহে মানুষের কষ্ট কমাতে জরুরি সেবার ব্যবস্থা নিতে শুরু করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

সিয়াটল শহরে ৯৯ ডিগ্রি ফারেনহাইটে পৌঁছেছে তাপমাত্রা। ওয়াশিংটনের অনেক এলাকায় এ সংখ্যা ১০০ ডিগ্রি ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে শঙ্কিত আবহাওয়াবিদরা।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে জানানো হয়, ওয়াশিংটন, অরিগন, ইদাহোর আংশিক, উমিং ও ক্যালিফোর্নিয়ায় সপ্তাহজুড়েই তাপমাত্রা ঊর্ধ্বমুখী ছিল বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় আবহাওয়া বিভাগ (এনডব্লিউএস)।

এনডব্লিউএস জানিয়েছে, উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের স্থল অংশে রেকর্ড সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ও দীর্ঘতম দাবদাহ পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চলের ৮৮ শতাংশ এলাকায় খরা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বলে চলতি সপ্তাহে খবর প্রকাশের পরই দাবদাহ সতর্কতা জারি হলো।

অঞ্চলটির বিভিন্ন হ্রদ শুকিয়ে যাচ্ছে বলে পানি ব্যবহারে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে প্রশাসন।

কানাডার ব্রিটিশ কলাম্বিয়া, আলবার্টা, সাসকাচোয়ান, ইউকোন ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় এলাকাগুলোতে দাবদাহবিষয়ক সতর্কতা জারি করেছে দেশটির সরকার।

পরিবেশবিদরা বলছেন, বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি ও জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে খরা আর দাবানল বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য