জয়শঙ্কর-ওয়াং ইয়ি-মুহরিদ্দীনের সঙ্গে মোমেনের ব্যস্ত সময়

জয়শঙ্কর-ওয়াং ইয়ি-মুহরিদ্দীনের সঙ্গে মোমেনের ব্যস্ত সময়

তাসখন্দে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছয় জাতির কোভিড ভ্যাকসিন সংরক্ষণ জোট বা সিওআইডি উদ্যোগ গ্রহণের জন্য চীনকে ধন্যবাদ জানান। তিনি টিকা সংকটের কঠিন সময়ে চীন সরকারের দেয়া উপহার ও বাণিজ্যিক সরবরাহের লাইন চালু করায় কৃতজ্ঞতা জানান। এ সময় তিনি দ্রুত বাংলাদেশে করোনা টিকার যৌথ উৎপাদন শুরুর অনুরোধ করেন।

তাসখন্দে কানেক্টিভিটি সম্মেলনে যোগদান ছাড়াও ব্যস্ত একটি দিন কাটালেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন। বৃহস্পতিবার তিনি তাজিকিস্তান, চীন ও ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রীদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেছেন।

এদিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

‘মধ্য ও দক্ষিণ এশিয়া: আঞ্চলিক সংযোগ’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগ দিতে তিনি এখন উজবেকিস্তানের রাজধানী তাসখন্দে রয়েছেন।

মোমেন- জয়শঙ্কর বৈঠক

পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে এ কে আবদুল মোমেন এবং ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের মধ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক ও আঞ্চলিক যোগাযোগ, উভয় দেশের করোনা মহামারি এবং টিকাদান পরিস্থিতি, অস্থায়ীভাবে বাংলাদেশে অবস্থানরত মিয়ানমারের নাগরিকদের স্বদেশ প্রত্যাবাসন সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে উভয় দেশের মধ্যে পারস্পারিক সহযোগিতার বিষয়ে একমত হন দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

জয়শঙ্কর আবারও বাংলাদেশে টিকা সরবরাহের বিষয়ে অঙ্গীকার জানান ও বাংলাদেশের কোভিড টিকা কর্মসূচি আবারও সঠিক পথে আসায় আনন্দ প্রকাশ করেন। উভয় পক্ষ অংশীদারিত্বকে আরও জোরদার করতে এবং বহুমুখী সহযোগিতা সম্প্রসারণে তাদের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তারা উভয় দেশের কোভিড পরিস্থিতির উন্নতির পরেই বিভিন্ন যৌথ কার্যক্রম শুরু করার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন।

মোমেন-ওয়াং ইয়ি বৈঠক

জয়শঙ্করের সঙ্গে বৈঠক শেষেই চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন আবদুল মোমেন।

দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীই জাতির পিতার ১০০তম বার্ষিকী এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর যৌথ কর্মসূচি ও কমিউনিস্ট পার্টির শততম বার্ষিকী উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং এবং প্রধানমন্ত্রী হাসিনার ভিডিও বার্তাগুলি বিনিময় করার জন্য একে অপরের প্রশংসা করেন ও ধন্যবাদ জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছয় জাতির কোভিড ভ্যাকসিন সংরক্ষণ জোট বা সিওআইডি উদ্যোগ গ্রহণের জন্য চীনকে ধন্যবাদ জানান। তিনি টিকা সংকটের কঠিন সময়ে চীন সরকারের দেয়া উপহার ও বাণিজ্যিক সরবরাহের লাইন চালু করায় কৃতজ্ঞতা জানান। এ সময় তিনি দ্রুত বাংলাদেশে করোনা টিকার যৌথ উৎপাদন শুরুর অনুরোধ করেন।

জয়শঙ্কর-ওয়াং ইয়ি-মুহরিদ্দীনের সঙ্গে মোমেনের ব্যস্ত সময়
চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন।

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইয়ি এ বিষয়ে তাকে চীন সরকারের সহায়তার আশ্বাস দেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়ে আরও কাজ চালিয়ে যেতে সম্মত হন। তারা ত্রিপক্ষীয় কথোপকথন পুনরায় শুরু করার প্রয়োজনীয়তার বিষয়েও একমত হন।

তাজিক পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক

তাজিকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিরোজিদ্দিন মুহরিদ্দিনের সঙ্গেও বৈঠক করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

দ্বিপাক্ষিক এ বৈঠকে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়ানোর জন্য একটি যৌথ কার্যনির্বাহী কমিশন গঠনের প্রস্তাব করেন তিনি।

এ সময় তাজিকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুহরিদ্দিন নিপীড়িত রোহিঙ্গা জনগণকে আশ্রয় দেয়ার জন্য বাংলাদেশের প্রতি তার দেশের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এছাড়া বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বহুমাত্রিক প্রচেষ্টায় বাংলাদেশকে সমর্থন অব্যাহত রাখার প্রতিশ্রুতি দেন।

উজবেকিস্তানের প্রেসিডেন্ট শাভকাত মিরজিইয়োইয়েভের উদ্যোগে আয়োজিত কানেক্টিভিটি সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, মূলত অর্থনীতি, সংস্কৃতি ও নিরাপত্তার ক্ষেত্রে সংযুক্তির মাধ্যমে ঐতিহাসিক সম্পর্ক জোরদারের জন্য উজবেকিস্তানের প্রেসিডেন্ট এই সম্মেলনের আয়োজন করেছেন।

মধ্য ও দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সংযুক্তির সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জ বিষয়ক সম্মেলনে যোগ দিতে বুধবার সকালে মধ্য এশিয়ার দেশ উজবেকিস্তানের রাজধানী তাসখন্দ গেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন।

১৫ ও ১৬ জুলাই অনুষ্ঠেয় দুই দিনের এই সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন, পাকিস্তান ও ইইউসহ বিশ্বের অন্তত ৪০টি দেশ ও জোটের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানরা।

জয়শঙ্কর-ওয়াং ইয়ি-মুহরিদ্দীনের সঙ্গে মোমেনের ব্যস্ত সময়
তাজিকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকেপররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন।

তাসখন্দ যাত্রার আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘মধ্য ও দক্ষিণ এশিয়ার কানেকটিভিটি বাড়ানোই এই সম্মেলনের উদ্দেশ্য। ওই সম্মেলনের ফাঁকে উজবেকিস্তানসহ আরও কয়েকটি দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের জন্য সেখানকার বাংলাদেশ দূতাবাস কাজ করছে।’

উজবেকিস্তানের সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও যাননি মোদি। সম্মেলনে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

সম্মেলনটি দুই দিনের হলেও করোনায় বিপর্যস্ত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এক দিনের জন্য উজবেকিস্তানে গেছেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, উজবেকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উন্নয়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ঢাকা-তাসখন্দ সরাসরি বিমান চলাচলের পাশাপাশি ঢাকায় কনস্যুলেট চালুর প্রস্তাব দিয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরে এ বিষয়গুলো নিয়ে আবার আলোচনার মাধ্যমে চূড়ান্ত রূপ দেয়ার বিষয়টি এগিয়ে নেয়া হতে পারে।

সম্মেলনের ফাঁকে রাশিয়া, উজবেকিস্থানসহ আরো বিভিন্ন দেশের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন ড. মোমেন। তিনি উজবেকিস্তানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

তাসখন্দের সম্মেলনে ৪০টি দেশ থেকে ২৫০ প্রতিনিধি অংশ নিচ্ছেন।

সম্মেলন শেষে ১৯ জুলাই ঢাকা ফিরবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এর আগে মঙ্গলবার রাতে মোমেন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘উজবেকিস্তান সফরকালে রাশিয়া, ভারত ও চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আমার বৈঠক হবে। এসব বৈঠকে রোহিঙ্গা, টিকা সহযোগিতা আলোচনা প্রাধান্য পাবে।’

তিনি বলেন, ‘মিয়ানমারের সেনাপ্রধান কিছুদিন আগে রাশিয়া গিয়েছিলেন। আমিও রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি তুলে ধরতে চাই।’

আরও পড়ুন:
তাসখন্দে মোমেনের সঙ্গে বৈঠক, উচ্ছ্বাস জয়শঙ্করের
ডিসেম্বরে শান্তি সম্মেলন ঢাকায়, দেয়া হবে বঙ্গবন্ধু পুরস্কার
তাসখন্দ যাচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
যুক্তরাষ্ট্রে মোমেন, দেখা হচ্ছে না ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে
মানবসম্পদ উন্নয়নে কাজ করবে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া

শেয়ার করুন

মন্তব্য

শেখ কামাল ছিলেন তারুণ্যের অহংকার

শেখ কামাল ছিলেন তারুণ্যের অহংকার

ধানমন্ডির আবাহনী ক্লাব প্রাঙ্গণে শহীদ শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। ছবি: নিউজবাংলা

শেখ কামালের ৭২তম জন্ম দিনে বনানীতে তার সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, তারুণ্যের অহংকার শেখ কামাল ছিলেন সৃষ্টিশীল মানুষ, যা এখনও তরুণেরা অনুসরণ করে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বড় ছেলে শেখ কামাল ছিলেন তারুণ্যের অহংকার; বহু প্রতিভার অধিকারী সৃষ্টিশীল মানুষ। তার সৃজনশীল প্রতিভা আজকের বাংলাদেশের কোটি তরুণের প্রেরণা।

বৃহস্পতিবার সকালে শেখ কামালের ৭২তম জন্ম দিনে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তার সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

১৯৪৯ সালের এই দিনে গোপালগঞ্জ মহকুমার টুঙ্গীপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন শেখ কামাল। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের কালো রাত্রে ২৬ বছর বয়সে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুসহ সপরিবারে নির্মম-নিষ্ঠুর বর্বরোচিত হত্যাযজ্ঞের শিকার হয়ে শাহাদাত বরণ করেন তিনি।

শেখ কামালের জন্মদিন উপলক্ষে বনানীতে তার সমাধিতে শ্রদ্ধা জানানোর পাশাপাশি কোরান পাঠ, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলেও অংশ নেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা।

এ সময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিমসহ দলের কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বনানী কবরস্থানে যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মাঈনুল হাসান নিখিলের নেতৃত্বে সংগঠনের নেতারা শেখ কামালের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যার যে কলঙ্ক জাতির কপালে কলঙ্কতিলক হিসেবে ছিল, সেই কলঙ্কের কালিমা বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার সম্পন্ন করে তার কন্যা শেখ হাসিনা আলোর পথে যাত্রা শুরু করেছেন। আজকের দিনে আমাদের অঙ্গীকার সেই আলোর পথের অভিযাত্রী আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণ করব।’

শেখ কামালকে তারুণ্যের অহংকার উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘শেখ কামাল ছিলেন তারুণ্যের অহংকার। তিনি ছিলেন বহু প্রতিভার অধিকারী একজন সৃষ্টিশীল মানুষ। তার সৃজনশীল প্রতিভা আজকের বাংলাদেশের লক্ষ-কোটি তরুণের জন্য প্রেরণা।’

শেখ কামালের জন্মদিন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন, ক্রীড়া এবং সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো নানা কর্মসূচি নিয়েছে।

বনানীতে শ্রদ্ধা জানানোর আগে ধানমন্ডির আবাহনী ক্লাব প্রাঙ্গণে শহীদ শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান আওয়ামী লীগ এবং বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।

দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে ধানমন্ডিতে আবাহনী ক্লাব মাঠে শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানোর সময় উপস্থিত ছিলেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, মির্জা আজমসহ আরও অনেকে।

শেখ কামাল ছিলেন ক্রীড়াপ্রেমী। দেশে নান্দনিক ফুটবল ও ক্রিকেটসহ অন্যান্য দেশীয় খেলার মানোন্নয়নে অপরিসীম অবদান তার। নতুন নতুন খেলোয়াড় সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ শিবির গড়ে তুলতেন এবং তাদের সঙ্গে নিয়মিত অনুশীলন করতেন।

বাংলাদেশের শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতি অঙ্গনের অন্যতম উৎসমুখ ‘ছায়ানট’-এর সেতার বাদক বিভাগের ছাত্র ছিলেন শেখ কামাল। স্বাধীনতা উত্তর যুদ্ধ-বিধ্বস্ত বাংলাদেশের পুনর্গঠন ও পুনর্বাসন কর্মসূচির পাশাপাশি সমাজের পশ্চাৎপদ জনগোষ্ঠীর ভাগ্য উন্নয়নে সমাজ চেতনায় উদ্বুদ্ধকরণে থিয়েটার আন্দোলনের ক্ষেত্রে তিনি ছিলেন প্রথমসারির সংগঠক।

বন্ধু শিল্পীদের নিয়ে গড়ে তুলেছিলেন ‘স্পন্দন শিল্পী গোষ্ঠী’। শেখ কামাল ছিলেন ঢাকা থিয়েটারের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। অভিনয় শিল্পী হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যাঙ্গনে প্রতিষ্ঠিত ছিলেন। শৈশব থেকে ফুটবল, ক্রিকেট, হকি, বাস্কেটবলসহ বিভিন্ন খেলাধুলায় উৎসাহ ছিল তার। ছিলেন অন্যতম সেরা ক্রীড়া সংগঠন, বাংলাদেশে আধুনিক ফুটবলের প্রবর্তক আবাহনী ক্রীড়াচক্রের প্রতিষ্ঠাতা।

১৯৭৫ সালের ১৪ জুলাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ব্লু’ খ্যাতিপ্রাপ্ত দেশবরেণ্য অ্যাথলেট সুলতানা খুকুর সাথে শেখ কামালের বিয়ে হয়। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট শাহাদাত বরণের সময় তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের এম.এ শেষ পর্বের পরীক্ষার্থী ছিলেন। ছিলেন জাতীয় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন।

আরও পড়ুন:
তাসখন্দে মোমেনের সঙ্গে বৈঠক, উচ্ছ্বাস জয়শঙ্করের
ডিসেম্বরে শান্তি সম্মেলন ঢাকায়, দেয়া হবে বঙ্গবন্ধু পুরস্কার
তাসখন্দ যাচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
যুক্তরাষ্ট্রে মোমেন, দেখা হচ্ছে না ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে
মানবসম্পদ উন্নয়নে কাজ করবে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া

শেয়ার করুন

বাংলাদেশের খেলা দেখেছেন মুহিত

বাংলাদেশের খেলা দেখেছেন মুহিত

রোববার সিএমএইচে ভর্তি সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতকে দেখতে যান তার ছোট ভাই পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

ফেসবুকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী লেখেন, মুহিত ভাই গতকালের থেকে ভালো আছেন। তার অক্সিজেনের মাত্রা এখন ৯৬। তিনি ভালোভাবে রাতের খাবার খেয়েছেন এবং বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট ম্যাচও দেখেছেন। এখন তিনি ঘুমানোর চেষ্টা করছেন। দয়া করে মিথ্যে সংবাদ এড়িয়ে চলুন।

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ম্যাচ দেখেছেন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। দেশের বিজয়ে উল্লসিতও হয়েছেন। তার শারীরিক অবস্থা এখন আগের থেকে ভালো।

বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে নিউজবাংলাকে এসব তথ্য জানিয়েছেন মুহিতের দেখভালের দায়িত্বে থাকা মোহাম্মাদ বাচ্চু।

তিনি বলেন, ‘রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত আমি স্যারের মেয়েসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা স্যারের সঙ্গে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়ার খেলা দেখেছি। গল্প করেছি। বাংলাদেশ জেতায় খুব খুশি হয়েছেন স্যার।’

২৭ জুলাই আবুল মাল আব্দুল মুহিতের করোনা শনাক্ত হয়। বৃহস্পতিবার ৮৭ বছর বয়সী মুহিতকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করান স্বজনরা।

বুধবার রাত ১১টার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মুহিতের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় ক্ষোভ জানিয়েছেন তার ছোট ভাই পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

এদিন রাত সাড়ে ১১টার দিকে নিজের ফেসবুক পেজ থেকে বড় ভাইয়ের সর্বশেষ শারীরিক অবস্থার তথ্য জানান তিনি।

ফেসবুকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী লেখেন, মুহিত ভাই গতকালের (মঙ্গলবার) থেকে ভালো আছেন। তার অক্সিজেনের মাত্রা এখন ৯৬। তিনি ভালোভাবে রাতের খাবার খেয়েছেন এবং বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট ম্যাচও দেখেছেন। এখন তিনি ঘুমানোর চেষ্টা করছেন।

মোমেন ফেসবুকে আরও লেখেন, দয়া করে মিথ্যে সংবাদ এড়িয়ে চলুন।

আবুল মাল মুহিতের ঘনিষ্ঠজন হিসেবে পরিচিত আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম নাদেল বুধবার রাতে নিজের ফেসবুক পেজে লেখেন, ‘সাবেক অর্থমন্ত্রী সিলেটের কৃতি সন্তান জনাব আবুল মাল আব্দুল মুহিতের মৃত্যুর খবরটি গুজব। বর্তমানে তিনি সিএমএইচে চিকিৎসাধীন আছেন।’

৮৭ বছর বয়সী আবুল মাল আব্দুল মুহিত আওয়ামী লীগের গত দুই আমলে টানা ১০ বছর অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। এসময়ে তিনি সিলেট-১ আসনের সাংসদও ছিলেন। অর্থমন্ত্রী হিসেবে মুহিত সংসদে মোট ১২টি বাজেট উপস্থাপন করেছেন। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা কমিটির সদস্য মুহিত ১৯৩৪ সালের ২৫ জানুয়ারি সিলেটে জন্মগ্রহণ করেন।

আরও পড়ুন:
তাসখন্দে মোমেনের সঙ্গে বৈঠক, উচ্ছ্বাস জয়শঙ্করের
ডিসেম্বরে শান্তি সম্মেলন ঢাকায়, দেয়া হবে বঙ্গবন্ধু পুরস্কার
তাসখন্দ যাচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
যুক্তরাষ্ট্রে মোমেন, দেখা হচ্ছে না ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে
মানবসম্পদ উন্নয়নে কাজ করবে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া

শেয়ার করুন

নন্দিত থেকে যেভাবে নিন্দিত

নন্দিত থেকে যেভাবে নিন্দিত

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ তোলার পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি পরীমনি (বাঁয়ে) এবং বুধবার র‌্যাবের হাতে আটকের পর বাসা থেকে বের হওয়ার পথে। ছবি: নিউজবাংলা

পরীমনি গত জুনে ঢাকা বোট ক্লাবে ধর্ষণ চেষ্টার শিকার হওয়ার অভিযোগ তোলার পর সাধারণ মানুষের ব্যাপক সহানুভূতি পান। অবশ্য সেই আলোড়ন স্থায়ী হয়নি, কয়েক দিনের মধ্যেই তার বিতর্কিত আরও কিছু কর্মকাণ্ড প্রকাশ পেলে ঘুরে যেতে থাকে জনমত।

ঢাকাই চলচ্চিত্রের পরিচিত মুখ পরীমনি বিভিন্ন সময়ে নানা কারণে হয়েছেন আলোচিত-বিতর্কিত। শো বিজে আসার অল্প সময়ের মধ্যে তিনি চলে আসেন আলোচনার কেন্দ্রে। তার অভিনীত সিনেমার বেশির ভাগ ব্যবসা সফল না হলেও ব্যক্তিগত ধনাঢ্য জীবন নিয়ে রয়েছে নানা প্রশ্ন।

তবে এর মধ্যেও গত জুনে তিনি ঢাকা বোট ক্লাবে ধর্ষণ চেষ্টার শিকার হওয়ার অভিযোগ তোলার পর সাধারণ মানুষের ব্যাপক সহানুভূতি পান। অবশ্য সেই আলোড়ন স্থায়ী হয়নি, কয়েক দিনের মধ্যেই তার বিতর্কিত আরও কিছু কর্মকাণ্ড প্রকাশ পেলে ঘুরে যেতে থাকে জনমত।

র‌্যাবের অভিযানে বুধবার আটক হয়েছেন পরীমনি। তার বাসা থেকে ভয়ংকর মাদক এলএসডি, আইসসহ বিপুল পরিমাণ মদ উদ্ধারের দাবি করেছে র‌্যাব। মাত্র দেড় মাসের ব্যবধানে নন্দিত থেকে নিন্দিত চরিত্রে পরিণত হয়েছেন আলোচিত এই অভিনেত্রী।

গত ১৩ জুন পরীমনির একটি ফেসবুক স্ট্যাটাসে আটকে যায় সারা দেশের চোখ। ওইদিন রাত ৮টায় নিজের ভেরিফায়েড পেজে তিনি অভিযোগ তোলেন, ঢাকা বোট ক্লাবে তাকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। তবে কারো নাম উল্লেখ করেননি তিনি।

এই স্ট্যাটাস মুহূর্তেই ভাইরাল হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। সংবাদ মাধ্যমকর্মীরা রাতেই ছুটে যান পরীমনির বনানীর বাসায়। এ সময়ে তিনি অভিযোগ করেন, প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী ও ঢাকা বোট ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির তখনকার সদস্য নাসির উদ্দিন মাহমুদ ৯ জুন ক্লাবে তাকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা করেন।

নন্দিত থেকে যেভাবে নিন্দিত
ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টার অভিযোগ তোলার পর বনানীর বাসায় সংবাদকর্মীদের মুখোমুখি পরীমনি


পরদিন ১৪ জুন সাভার থানায় ব্যবসায়ী ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য নাসির উদ্দিন মাহমুদের বিরুদ্ধে মামলা করেন পরীমনি। ওই দিনই পুলিশ নাসিরকে গ্রেপ্তার করে

১৫ জুন বিকেলে নিজের বক্তব্য জানাতে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) কার্যালয়ে যান আলোচিত এই অভিনেত্রী। প্রায় দুই ঘণ্টা পর ডিবি কার্যালয় থেকে বেরিয়ে আসামি গ্রেপ্তারের ঘটনায় সাংবাদিকদের কাছে নিজের স্বস্তির কথা জানান তিনি। সে সময় তার বলা ‘আমি রিফ্রেশড’ কথাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ আলোচনার জন্ম দেয়।

পরীমনির সাহসিকতার প্রশংসা করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই সরব হন। প্রবল আলোচিত হিরো আলম গানে গানে ন্যায়বিচার নিশ্চিতের আহ্বান জানান। পরীমনিকে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেন নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিনও।

ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা মামলায় গ্রেপ্তারের পর নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তার সঙ্গী তুহিন সিদ্দিকী অমিকে কয়েক দফা রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। এরপর ৩০ জুন আদালত তাকে জামিন দেয়। পরদিন ১ জুলাই কারাগার থেকে মুক্তি পান নাসির উদ্দিন আহমেদ।

শুরু থেকেই তিনি নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করছিলেন নাসির। কারাগার থেকে বের হওয়ার পর নিউজবাংলার কাছে তিনি দাবি করেন, বোট ক্লাব থেকে পরীমনি তিন লিটারের একটি ব্লু লেবেলের বোতল নিয়ে যেতে চেয়েছিলেন। আর তাতে বাধা দেয়ার কারণেই ওই রাতে তৈরি হয় ‘ঝামেলা’।

নাসির উদ্দিন মাহমুদ বলেন, ‘ওই দিন অমি সাহেব প্রথমে তাকে (পরীমনি) একটা ব্লু লেবেল খাইয়েছিল, যেটার দাম ৩৫ হাজার টাকা। সেটা সে শরবতের মতো খেয়ে ফেলছে, অল্প সময়ের মধ্যে। পরবর্তী সময়ে আরও একটা দেয়া হয়েছিল, সেটার তিন ভাগের দুই ভাগ সে খেয়ে ফেলছিল, যতটুকু আমার মনে পড়ে।

‘আর দুটা ওয়াইনের বোতল সঙ্গে থাকা একটা মেয়ের ব্যাগে ঢুকিয়ে ফেলছিল পরীমনি। এরপর ঝামেলা শুরু হয় তিন লিটারের একটা ব্লু লেবেলের বোতল নিয়ে, যেটার দাম দেড় লাখ টাকা। যেটা আমরা বিক্রি করি না। মূল ঝামেলা ওই বোতল নেয়া থেকেই শুরু।’

নাসিরের অভিযোগ, এরপরই পরীমনি ও তার সঙ্গীরা ভাঙচুর ও গালিগালাজ শুরু করেন। এরপর তোলা হয় ‘ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার’ অভিযোগ।

নন্দিত থেকে যেভাবে নিন্দিত
ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগ তুলে কান্নায় ভেঙে পড়েন পরীমনি

তবে নাসিরের এই অভিযোগ অস্বীকার করেন পরীমনি।মিডিয়া ট্রায়ালের’ পাল্টা অভিযোগ তুলে ঢাকাই সিনেমার আলোচিত এই অভিনেত্রী বলেন, ‘‘এমনকি সেই রাতে (বোট ক্লাবে) নাসির একজন ওয়েটারকেও লাথি মেরেছিল। ‘ডানাকাটা পরি’ গানের সঙ্গে নাচতে নাচতে আমার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় টাচ করছিল। তার ওই সময়ের আচরণ এত অসভ্য ছিল তা প্রকাশ করা যাবে না। শুধু তাই নয়, এসব ঘটনা তার নিজের মোবাইল ফোনে ধারণও করছিল।”

‘আমি ডানাকাটা পরি’ গানটি পরীমনি অভিনীত ‘রক্ত’ সিনেমার। সিনেমাটি ছিল বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনার।

পরীমনিকে নিয়ে আলোচনার মধ্যেই গুলশানের একটি ক্লাবে ভাঙচুরের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে জিডি করার তথ্য প্রকাশ পায় ১৬ জুন।

ক্লাব কর্তৃপক্ষ সাংবাদিকদের জানায়, ৭ জুন রাতে গুলশান-১ এলাকার অল কমিউনিটি ক্লাব ৯৯৯ নম্বরে কল করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরে গুলশান থানায় পরীমনির বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি করে বাহিনীটি।

তবে সেই অভিযোগও অস্বীকার করেন পরীমনি। তিনি দাবি করেন, ঢাকা বোট ক্লাবের ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টার অংশ হিসেবে বিষয়টিকে সামনে আনা হয়েছে।

সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে পরীমনির বিলাসী জীবন নিয়ে নতুন করে প্রশ্ন উঠতে থাকে। অভিনয় জগতের সঙ্গে যুক্তরাও বিষয়টি নিয়ে নিজেদের অস্বস্তির কথা জানান।

নন্দিত থেকে যেভাবে নিন্দিত
ঢাকা বোট ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সাবেক সদস্য নাসির উদ্দিন মাহমুদ

টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী ও পরিচালক অরুণা বিশ্বাস একটি এফএম রেডিওর সাক্ষাৎকারে পরীমনিকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘একজন শিল্পী কত টাকা ইনকাম করলে পাঁচ কোটি টাকার গাড়ি চালাতে পারে, চার কোটি টাকার বাড়ি কিনতে পারে।’

এর পাল্টা জবাবও দেন পরীমনি। নিজের ফেসবুক পেজে লেখেন, ‘বড় বড় সম্মানিত শিল্পীরাও পিছে রটানো গসিপ নিয়ে আমার দিকে আঙ্গুল তুলতেও ছাড়লেন না আজ।’ পাশাপাশি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ভূমিকা নিয়েও বেশ কয়েকবার হতাশা প্রকাশ করেন তিনি।

পরীমনি প্রশ্নে ধীরে ধীরে জনমনে বাড়তে থাকে বিভক্তি। এর মধ্যেই বুধবার বিকেলে হঠাৎ তার ফেসবুক লাইভ হতচকিত করে সবাইকে। বিকেল ৪টার দিকে লাইভে এসে তিনি জানান, তার বাসায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে কয়েকজন ঢুকতে চাইছেন।

পরীমনি বলেন, থানায় ফোন দিয়েও কোনো সাড়া পাচ্ছেন না। তিনি বলেন, ‘কাকে ফোন দেব বুঝতেছি না। থানা থেকে কেউ ফোন ধরছে না। আমি লাইভ কাটব না, যদি আমার হাত থেকে কেউ ফোন নিয়ে নেয়, বুঝবেন আমার কিছু একটা হয়েছে।’

লাইভ চলার সময়েই শোনা যাচ্ছিল, ‘দরজায় বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা ব্যক্তিরা নিজেদের আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য বলে পরিচয় দিচ্ছেন। তাদের বলতে শোনা যায়, ‘ঘরে আসতে দেন। আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোক।’

পরীমনির লাইভের মধ্যেই তার বনানীর বাসার সামনে ভিড় করতে শুরু করে গণমাধ্যমকর্মীরা। এক পর্যায়ে তিনি বাসার দরজা খুলতে রাজি হন। এরপরেই শেষ হয় প্রায় ৩২ মিনিটের লাইভ।

র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন নিউজবাংলাকে জানান, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতেই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

নন্দিত থেকে যেভাবে নিন্দিত
মাদকসহ আটকের পর পরীমনিকে নেয়া হয় র‍্যাব সদর দপ্তরে

প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা অভিযান শেষে সন্ধ্যা ৭টায় র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল খায়রুল ইসলাম পরীমনিকে হেফাজতে নেয়ার কথা নিশ্চিত করেন।

র‍্যাব জানায়, তার বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মদ, এলএসডি ও নতুন ধরনের মাদক আইস উদ্ধার করা হয়েছে।

রাত সোয়া ৮টার দিকে পরীমনিকে নিয়ে কুর্মিটোলায় র‌্যাবের সদর দপ্তরের উদ্দেশে রওনা হয় একটি গাড়ি। রাত পৌনে ৯টার দিকে গাড়িটি পৌঁছায় র‌্যাব সদর দপ্তরে।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল খায়রুল ইসলাম নিউজবাংলাকে বলেন, ‘বুধবার রাতে পরীমনিকে জিজ্ঞাসাবাদের পর বৃহস্পতিবার অভিযান সম্বন্ধে বিস্তারিত গণমাধ্যমকে জানানো হবে।’

আরও পড়ুন:
তাসখন্দে মোমেনের সঙ্গে বৈঠক, উচ্ছ্বাস জয়শঙ্করের
ডিসেম্বরে শান্তি সম্মেলন ঢাকায়, দেয়া হবে বঙ্গবন্ধু পুরস্কার
তাসখন্দ যাচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
যুক্তরাষ্ট্রে মোমেন, দেখা হচ্ছে না ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে
মানবসম্পদ উন্নয়নে কাজ করবে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া

শেয়ার করুন

ইরানে প্রেসিডেন্টের শপথে প্রথমবারের মতো ঢাকার প্রতিনিধি

ইরানে প্রেসিডেন্টের শপথে প্রথমবারের মতো ঢাকার প্রতিনিধি

বৃহস্পতিবার তেহরানের পার্লামেন্টে ইরানের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন সাবেক প্রধান বিচারপতি ইব্রাহিম রাইসি। ছবি: এএফপি

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র বলছে, মধ্যপ্রাচ্যের ভ্রাতৃপ্রতিম অন্য রাষ্ট্রগুলোর মতো ইরানের সঙ্গেও স্বাভাবিক সম্পর্ক চায় বাংলাদেশ। আর এ জন্যই দেশটির নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রাইসির শপথ অনুষ্ঠানে প্রথমবারের মতো তেহরানে প্রতিনিধি দল পাঠিয়েছে ঢাকা। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ৩ সদস্যের ওই প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রাইসির শপথের মতো এমন কোনো গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় অনুষ্ঠানে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

বুধবার নিজের ফেসবুক পেজে তিনি লিখেছেন, প্রথমবারের মতো ইরানে....

এদিকে, নিকট অতীতে এটাই বাংলাদেশের কোন মন্ত্রী বা প্রতিমন্ত্রীর ইরান সফর। কয়েক বছর আগে তখনকার পর্যটন ও বিমান মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগ দিতে দেশটি সফর করেছিলেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র বলছে, মধ্যপ্রাচ্যের ভ্রাতৃপ্রতিম অন্য রাষ্ট্রগুলোর মতো ইরানের সঙ্গেও স্বাভাবিক সম্পর্ক চায় বাংলাদেশ। আর এ জন্যই দেশটির নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রাইসির শপথ অনুষ্ঠানে প্রথমবারের মতো তেহরানে প্রতিনিধি দল পাঠিয়েছে ঢাকা।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ৩ সদস্যের ওই প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। ইরানের নতুন নেতৃত্বের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ বার্তা নিয়ে গেছেন তারা।

ইরানে প্রেসিডেন্টের শপথে প্রথমবারের মতো ঢাকার প্রতিনিধি

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রাইসির শপথের মতো এমন কোনো গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় অনুষ্ঠানে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। ছবি: নিউজবাংলা

বৃহস্পতিবার তেহরানের পার্লামেন্টে বর্ণাঢ্য এক আয়োজনে শপথ নেবেন প্রেসিডেন্ট রাইসি। এতে রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানসহ পঞ্চাশের বেশি দেশের গুরুত্বপূর্ণ অতিথিরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে সশরীরে অংশ নিচ্ছেন।

মঙ্গলবার সর্বোচ্চ নেতার কাছ থেকে দায়িত্ব পেলেও রেওয়াজ অনুযায়ী পার্লামেন্টে আনুষ্ঠানিকভাবে শপথ নেবেন প্রেসিডেন্ট।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় বিকেল ৫টায় সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রাইসি শপথ বাক্য পাঠ করবেন। শপথের কারণে আগামী সপ্তাহে ইরানের জাতীয় সংসদের অধিবেশন স্থগিত থাকছে।

গত ১৮ জুন ইরানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রাইসি ৬২ ভাগ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তিনি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির স্থলাভিষিক্ত হবেন এবং ইরানের অষ্টম প্রেসিডেন্ট হিসেবে আগামী চার বছরের জন্য দায়িত্ব পালন করবেন।

আরও পড়ুন:
তাসখন্দে মোমেনের সঙ্গে বৈঠক, উচ্ছ্বাস জয়শঙ্করের
ডিসেম্বরে শান্তি সম্মেলন ঢাকায়, দেয়া হবে বঙ্গবন্ধু পুরস্কার
তাসখন্দ যাচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
যুক্তরাষ্ট্রে মোমেন, দেখা হচ্ছে না ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে
মানবসম্পদ উন্নয়নে কাজ করবে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া

শেয়ার করুন

আগস্টে বন্যার আভাস

আগস্টে বন্যার আভাস

জুলাইয়ের শুরুর দিকে ভারী বর্ষণ ছিল। এ মাসেও তেমনই আভাস দিচ্ছে আবহাওয়া দপ্তর। ছবি: সাইফুল ইসলাম

‘আমরা আগস্টেও স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত দেখব। কোনো মডেলে স্বাভাবিকের চেয়ে একটু বেশি হতে পারে। স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত বলতে আমরা বুঝিয়েছি, মূলত গত ৩০ বছরে এই মাসের সঙ্গে সমন্বয় করেই আমরা জলবায়ুর পূর্বাভাস দিয়ে থাকি।’

দেশে জুলাই মাসে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হয়েছে। মাসের শুরুতে অতিবর্ষণ হলেও মাঝের দিনগুলো বৃষ্টিহীন থাকে।

শেষ সময়ে লঘুচাপের ফলে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে ভারী বর্ষণ ও ভূমিধস দেখা দিলেও বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়নি। তবে আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আগস্ট মাসেও একই রকম বৃষ্টিপাত হতে পারে, সেই সঙ্গে বন্যাও দেখা দেবে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ আব্দুল কালাম মল্লিক নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমাদের দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে আমরা বলেছি, স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হয়েছে জুলাই মাসে। তবে সেটি -৫.১% বিচ্যুতি রয়েছে। এটাকে স্বাভাবিকের কাতারেই ধরা হয়।’

এই আবহাওয়াবিদ আরও বলেন, ‘এটাকে আমরা কম বৃষ্টি বলতে পারব না। আমাদের আবহাওয়ার ক্ষেত্রে প্লাস-মাইনাস অল্প একটু ভ্যারি করবেই। তবে এটা স্বাভাবিক।’

একই ধারা অব্যাহত থাকবে আগস্ট মাসে উল্লেখ করে এই আবহাওয়াবিদ বলেন, ‘আমরা আগস্টেও স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত দেখব। কোনো মডেলে স্বাভাবিকের চেয়ে একটু বেশি হতে পারে। স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত বলতে আমরা বুঝিয়েছি, মূলত গত ৩০ বছরে এই মাসের সঙ্গে সমন্বয় করেই আমরা জলবায়ুর পূর্বাভাস দিয়ে থাকি।’

আব্দুল কালাম বলেন, ‘দেশে এখন মৌসুমি বায়ু সক্রিয়। বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় আছে। এর ফলে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে বিশেষ করে খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম অঞ্চলে ভারী থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে।’

কেমন ছিল জুলাই মাস

জুলাই মাসে খুলনা ও বরিশাল বিভাগে স্বাভাবিকের অপেক্ষা বেশি এবং ঢাকা, ময়মনসিংহ, সিলেট, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগে স্বাভাবিকের অপেক্ষা কম বৃষ্টিপাত হয়েছে। সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে জুলাইয়ের ১ ও ২ তারিখে সারা দেশে মাঝারি ও ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হয়।

উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশ উপকূলীয় এলাকায় সৃষ্ট নিম্নচাপ ও সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে ২৭ থেকে ৩০ জুলাই চট্টগ্রাম, বরিশাল ও খুলনা বিভাগের অনেক স্থানে ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণ হয়। এ সময় এই মাসের দৈনিক সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত টেকনাফে ৩২৮ মিলিমিটার রেকর্ড করা হয়।

দীর্ঘমেয়াদি পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অতিভারী বর্ষণের কারণে চট্টগ্রাম অঞ্চলের কোথাও কোথাও ভূমিধস হয়েছে। ২৭ জুলাই বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশ উপকূলীয় এলাকায় একটি লঘুচাপের সৃষ্টি হয়, যা ২৮ জুলাই বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাংশ ও এর পার্শ্ববর্তী এলাকায় সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়। এটি ২৯ জুলাই দুপুর ১২টায় খুলনা, সাতক্ষীরা অঞ্চল ও এর পার্শ্ববর্তী এলাকায় নিম্নচাপে পরিণত হয়।

কেমন থাকবে আগস্ট মাস

আগস্ট মাসে বঙ্গোপসাগরে এক থেকে দুটি মৌসুমি লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে, যার মধ্যে একটি মৌসুমি নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। আগস্ট মাসের প্রথম সপ্তাহে দেশের প্রধান নদ-নদীগুলোর পানি সমতলে স্থিতিশীল থাকতে পারে। পরবর্তী সময়ে মৌসুমি ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চলের কয়েকটি স্থানে স্বল্প থেকে মধ্যমেয়াদি বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে। অপরদিকে উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্ব এবং দক্ষিণ-পূর্বঞ্চলীয় পার্বত্য অববাহিকার কিছু স্থানে স্বল্পমেয়াদি আকস্মিক বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।

আরও পড়ুন:
তাসখন্দে মোমেনের সঙ্গে বৈঠক, উচ্ছ্বাস জয়শঙ্করের
ডিসেম্বরে শান্তি সম্মেলন ঢাকায়, দেয়া হবে বঙ্গবন্ধু পুরস্কার
তাসখন্দ যাচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
যুক্তরাষ্ট্রে মোমেন, দেখা হচ্ছে না ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে
মানবসম্পদ উন্নয়নে কাজ করবে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া

শেয়ার করুন

পরীমনির বিরুদ্ধে মামলা করতে তৈরি নাসির

পরীমনির বিরুদ্ধে মামলা করতে তৈরি নাসির

নাসির উদ্দিন মাহমুদ নিউজবাংলাকে বলেন, ‘মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে আমাকে জনসমক্ষে সে (পরীমনি) হেয় করেছে। আমি অবশ্যই এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব, মামলা করব।’

র‍্যাবের অভিযানে আটক আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনির বিরুদ্ধে শিগগিরই মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন ঢাকা বোট ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সাবেক সদস্য নাসির উদ্দিন মাহমুদ।

পরীমনির বাসায় র‍্যাবের অভিযানের মধ্যে বুধবার বিকেলে তিনি নিউজবাংলাকে এ কথা জানান।

পরীমনি গত ৯ জুন রাতে ঢাকা বোট ক্লাবে যাওয়ার পর ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যার হুমকি পাওয়ার অভিযোগ তুলে সারা দেশে তোলপাড় ফেলেন।

এরপর ১৪ জুন তিনি সাভার থানায় নাসির উদ্দিন ও অমির বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার মামলা করেন। মামলার পরপরই পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন নাসির।

১ জুলাই জামিনে কারাগার থেকে মুক্তি পান নাসির উদ্দিন মাহমুদ। শুরু থেকেই তিনি নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করছেন।

পরীমনির বাসায় বুধবার র‌্যাবের অভিযানের সময় নাসির নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমার সম্পর্কে সে (পরীমনি) মিথ্যার আশ্রয় নিয়েছিল, যা সত্য নয় তা বলেছিল। ভিডিও ফুটেজ এবং তার কথাবার্তা সবকিছুতেই অসংগতি ছিল। বাস্তবে এর কোনো মিল ছিল না।

‘এই মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে আমাকে জনসমক্ষে সে হেয় করেছে। আমি অবশ্যই এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব, মামলা করব।’

তিনি বলেন, ‘আমার মানহানি হয়েছে, আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা কথা ছড়িয়েছে, ফেসবুকে মিথ্যাচার করেছে, বোট ক্লাবে ড্রিংক নিয়ে জোরাজুরি করেছে। আমি মামলা তো করবই। তাকে তো ছাড় দেয়া যায় না। আমি আমার মতো করে লিখে রেখেছি, যেকোনো সময় বিমানবন্দর থানায় পরীমনির বিরুদ্ধে মামলা করব।’

আরও পড়ুন:
তাসখন্দে মোমেনের সঙ্গে বৈঠক, উচ্ছ্বাস জয়শঙ্করের
ডিসেম্বরে শান্তি সম্মেলন ঢাকায়, দেয়া হবে বঙ্গবন্ধু পুরস্কার
তাসখন্দ যাচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
যুক্তরাষ্ট্রে মোমেন, দেখা হচ্ছে না ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে
মানবসম্পদ উন্নয়নে কাজ করবে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া

শেয়ার করুন

বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়ার জড়িত থাকা স্পষ্ট: তথ্যমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়ার জড়িত থাকা স্পষ্ট: তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিচারের সময় সাক্ষী ও আসামিরা জবানবন্দিতে স্পষ্টভাবেই বলেছে কখন, কোথায় জিয়াউর রহমানের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। জিয়াউর রহমান কী বলেছে, কীভাবে সম্মতি দিয়েছে, তাও জানিয়েছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান জড়িত। বিচার-প্রক্রিয়ার সাক্ষ্যপ্রমাণ থেকে এ বিষয়টি দিবালোকের মতো ‘স্পষ্ট’ বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

সচিবালয়ে বুধবার দুপুরে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের (ডিএফপি) নবারুণ ও সচিত্র বাংলাদেশ মাসিক পত্রিকা দুটির মুজিববর্ষ সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন করেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে আলাপ করেন তিনি।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার তথ্য তুলে ধরে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিচারে সাক্ষ্যপ্রমাণই বলে দেয় জিয়াউর রহমান এতে যুক্ত, তার সম্পৃক্ততা দিবালোকের মতো স্পষ্ট।’

বিএনপি মিথ্যাচারে যুক্ত বলে অভিযোগ তুলে মন্ত্রী বলেন, ‘আগস্ট মাস এলেই বিএনপি নানা কথা বলে, জঘন্য মিথ্যাচার করে। বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিচারের সময় সাক্ষী ও আসামিরা যে জবানবন্দি দিয়েছে, সেগুলো তো রেকর্ডেড। তারা জবানবন্দিতে স্পষ্টভাবেই বলেছে কখন, কোথায় জিয়াউর রহমানের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। জিয়াউর রহমান কী বলেছে, কীভাবে সম্মতি দিয়েছে, তাও জানিয়েছে।’

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার সঙ্গে জিয়াউর রহমানের যুক্ত থাকার বিষয়টি আত্মস্বীকৃত খুনি কর্নেল ফারুক ও রশিদ ১৯৭৬ সালের আগস্টে যুক্তরাজ্যের একটি টেলিভিশনকে জানিয়েছে বলেও দাবি করেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘জিয়া যদি মোশতাকের আস্থাভাজনই না হয়, তাহলে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর জিয়াউর রহমানকে কেন সেনাপ্রধান করা হলো? বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের সবচেয়ে বড় সুবিধাভোগী হচ্ছে জিয়াউর রহমান এবং তার পরিবার।’

মন্ত্রী বলেন, ‘জিয়াউর রহমান মুক্তিযুদ্ধের ছদ্মাবরণে পাকিস্তানিদের দোসর ছিলেন। তিনি রণাঙ্গনে, আর তার স্ত্রী-পুত্ররা পাকিস্তানিদের কাছে মেহমানের মতো থাকে, এ থেকেই তো গোমরটা বোঝা যায়। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন জিয়াউর রহমানের কাছে পাকিস্তানি কর্নেল বেগের লেখা যে চিঠি, তাতেও অনেক বিষয় স্পষ্ট। চিঠিতে লেখা ছিল- ‘‘তুমি চিন্তা করো না, তোমার স্ত্রী-পুত্ররা ভালো আছে। তোমার কাজে আমরা সন্তুষ্ট।’’- এগুলো তো অস্বীকার করার উপায় নেই।’

আরও পড়ুন:
তাসখন্দে মোমেনের সঙ্গে বৈঠক, উচ্ছ্বাস জয়শঙ্করের
ডিসেম্বরে শান্তি সম্মেলন ঢাকায়, দেয়া হবে বঙ্গবন্ধু পুরস্কার
তাসখন্দ যাচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
যুক্তরাষ্ট্রে মোমেন, দেখা হচ্ছে না ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে
মানবসম্পদ উন্নয়নে কাজ করবে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া

শেয়ার করুন