ফোনে বিরক্ত করলে শাস্তি দেবে ভ্রাম্যমাণ আদালত

ফোনে বিরক্ত করলে শাস্তি দেবে ভ্রাম্যমাণ আদালত

সাজা দেয়ার ক্ষমতা ভ্রাম্যমাণ আদালতের হাতে দিতে ‘মোবাইল কোর্ট আইন, ২০০৯’ এর তফসিলে যুক্ত করেছে সরকার। এক্ষেত্রে অপরাধ প্রমাণ হলে দোষী ব্যক্তিতে ১ লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা ছয় মাসের কারাদণ্ড দিতে পারবে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

অকারণে কোনো ব্যক্তিকে বার বার ফোন দিয়ে বিরক্ত করার অপরাধে অপরাধীকে শাস্তি দেয়ার ক্ষমতা দেয়া হয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালতকে।

বার বার ফোন দিয়ে কাউকে বিরক্ত করার শাস্তির বিধান ছিল ‘বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০০১’ এর ৭০ (১) ধারায়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের হাতে ক্ষমতা দিতে সেই ধারাটিকে এবার ‘মোবাইল কোর্ট আইন, ২০০৯’ এর তফসিলে যুক্ত করেছে সরকার।

এক্ষেত্রে অপরাধ প্রমাণ হলে দোষী ব্যক্তিতে ১ লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা ছয় মাসের কারাদণ্ড দিতে পারবে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে গত ২৯ জুন এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীনের সই করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, মোবাইল কোর্ট আইন, ২০০৯’ এর তফসিলে ‘বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০০১’-এর ধারা ৭০ (১) সংযোজিত হবে।

প্রজ্ঞাপনটি ১ জুলাই গেজেট আকারে প্রকাশিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার তা গণমাধ্যমের হাতে আসে।

২০০১ সালের টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইনের ৭০ (১) ধারায় বলা হয়েছে, ‘কোনো ব্যক্তি যুক্তিসঙ্গত কারণ ব্যতীত যদি অন্য কোনো ব্যক্তির নিকট এইরূপে বারবার টেলিফোন করেন যে, উহা উক্ত অন্য ব্যক্তির জন্য বিরক্তিকর হয় বা অসুবিধার সৃষ্টি করে, তাহা হইলে এইরূপে টেলিফোন করা একটি অপরাধ হইবে এবং উহার জন্য দোষী ব্যক্তি অনধিক এক লক্ষ টাকা অর্থদণ্ডে এবং উহা অনাদায়ে অনধিক ৬ মাস কারাদণ্ডে দণ্ডনীয় হইবেন।’

শেয়ার করুন

মন্তব্য