শাটডাউনে থাকছে না মুভমেন্ট পাস

শাটডাউনে থাকছে না মুভমেন্ট পাস

লকডাউনের সময় মানুষের জরুরি চলাফেরার জন্য ‘মুভমেন্ট পাস’ চালু করেছিল পুলিশ। যেকোনো স্থানে আসা-যাওয়ার জন্য লাগছিল দুটি পাস। আবেদনও করতে হয় আলাদা আলাদা। এ নিয়ে কড়াকড়ি করতে গিয়ে সে সময় বির্তকে পড়ে পুলিশ।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া কঠোর লকডাউন বা শাটডাউনে কোনো মুভমেন্ট পাস থাকবে না বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার শফিকুল ইসলাম।

শাটডাউন শুরুর আগের দিন ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

মানুষের চলাফেরায় কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে প্রজ্ঞাপন জারির পর মুভমেন্ট পাসের বিষয়ে জানতে চাওয়া হয় ডিএমপি কমিশনারের কাছে।

জবাবে তিনি বলেন, ‘মুভমেন্ট পাস দেয়ার সুযোগ আছে বলে মনে করি না। বিধিনিষেধ জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। সেখানে আমাদের আলাদা করে মুভমেন্ট পাস দেয়ার এখতিয়ার নেই।’

এর আগে লকডাউনের সময়ে মানুষের জরুরি চলাফেরার জন্য ‘মুভমেন্ট পাস’ চালু করেছিল পুলিশ। যেকোনো স্থানে আসা-যাওয়ার জন্য লাগছিল দুটি পাস। আবেদনও করতে হয় আলাদা আলাদা।

‘মুভমেন্ট পাস’ পেতে নির্দিষ্ট অ্যাপে রেজিস্ট্রেশন নিয়েও ভোগান্তিতে পড়েন নাগরিকরা। একপর্যায়ে চিকিৎসক, আইনজীবীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষের জরুরি চলাচলে বাধা দিয়ে বিতর্কে পড়ে পুলিশ। এরপর লকডাউন থাকলেও মুভমেন্ট পাস নিয়ে কড়াকড়ি করেনি পুলিশ।

করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সোমবার থেকেই কঠোর লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সরকার। তবে বাজেট অধিবেশন ও ব্যাংকের জুন ফাইনালের কারণে শনিবার সে অবস্থান থেকে সরে আসে কর্তৃপক্ষ।

এদিন সন্ধ্যায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সভাপতিত্বে সরকারের উচ্চপর্যায়ের এক ভার্চুয়াল সভায় সিদ্ধান্ত হয়, সোমবার থেকে দেশজুড়ে দেয়া হবে আংশিক লকডাউন। আর বৃহস্পতিবার থেকে দেয়া হচ্ছে এক সপ্তাহের কঠোর লকডাউন, যা পরিচিতি পেয়েছে শাটডাউন নামে।

আরও পড়ুন:
মুভমেন্ট পাস উধাও
মুভমেন্ট পাস পেতে ৪৬ ঘণ্টায় ১৬ কোটি হিট

শেয়ার করুন

মন্তব্য