লকডাউন নিয়ে সরকারের মধ্যে অস্থিরতা: ইনু

লকডাউন নিয়ে সরকারের মধ্যে অস্থিরতা: ইনু

হাসানুল হক ইনু-ফাইল ছবি

জাতীয় সংসদে জাসদের সভাপতি বলেন, ‘সরকারের ভেতরে অস্থিরতা লক্ষ করছি। গত কয়েক দিনে লকডাউন-শাটডাউন নিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি এবং তা ঘন ঘন সংশোধন, কয়েক ঘণ্টার মধ্যে অদল-বদল, এ নিয়ে বিভিন্ন বক্তব্য-বিবৃতির মধ্য দিয়ে অস্থিরতাই প্রকাশ পাচ্ছে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে সরকারের মধ্যে অস্থিরতা ও সমন্বয়হীনতা কাজ করছে বলে জাতীয় সংসদে মন্তব্য করেছেন জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

জাতীয় সংসদে বাজেট অধিবেশনে সোমবার অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে ইনু বলেন, ‘লকডাউন নিয়ে বারবার প্রজ্ঞাপন ও সিদ্ধান্ত পরিবর্তনে সরকারের সেই অস্থিরতাই প্রকাশ পাচ্ছে। করোনা মোকাবিলায় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোর মধ্যে সমন্বয়হীনতা চরমে ওঠার প্রমাণ মিলেছে।’

জাসদের সভাপতি বলেন, ‘সরকারের ভেতরে অস্থিরতা লক্ষ করছি। গত কয়েক দিনে লকডাউন-শাটডাউন নিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি এবং তা ঘন ঘন সংশোধন, কয়েক ঘণ্টার মধ্যে অদল-বদল, এ নিয়ে বিভিন্ন বক্তব্য-বিবৃতির মধ্য দিয়ে অস্থিরতাই প্রকাশ পাচ্ছে।

‘প্রজ্ঞাপনে পরস্পরবিরোধী বক্তব্যও রয়েছে। এ রকম পরিস্থিতিতে এটা বাঞ্ছনীয় নয়। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়সহ ৯টি মন্ত্রণালয় সম্পৃক্ত। এই ৯টি মন্ত্রণালয়ের সমন্বয়হীনতাও লক্ষণীয়।’

গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের প্রসঙ্গ টেনে ইনু বলেন, করোনায় মৃত্যু আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে। শহরেই নয়, জেলা-উপজেলায়ও সংক্রমণ ঘটেছে। ঘরে ঘরে অনেক অসুস্থ। জেলা-উপজেলায় রোগীর জন্য বেড পাওয়া যায় না। অক্সিজেনের জন্য হাহাকার চলছে।

সাবেক এই তথ্যমন্ত্রী জানান, সংক্রমণের বিস্তার রোধে লকডাউন ও শাটডাউনের কোনো বিকল্প নেই। কিন্তু অভিজ্ঞতা বলে, দু-তিন দিনের মধ্যে খাদ্যের জন্য সাধারণ মানুষের হাহাকার শুরু হয়। সংকট দেখা দেয়। সংক্রমিত ব্যক্তির জন্য বেড, অক্সিজেনের চাহিদা ও আইসিইউর জন্য দৌড়াদৌড়ি শুরু হয়।

জেলা-উপজেলা পর্যায়ে দ্রুত হাসপাতালের শয্যা বাড়ানো, হাই ফ্লো নাজাল ক্যানুলা, অক্সিজেন সিলিন্ডার, পোর্টেবল অক্সিজেন জোগাড় করার দাবি জানান ইনু।

জাসদ সভাপতি বলেন, করোনা মোকাবিলায় যেসব চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী কাজ করছেন, তাদের গত ৯ মাসে নির্ধারিত কোনো দৈনিক ভাতা দেয়া হয়নি। তাদের জন্য বরাদ্দ রয়েছে। তাদের প্রণোদনা দেয়া দরকার। চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীদের ঝুঁকি ভাতা ও প্রণোদনা দেয়া উচিত।

আরও পড়ুন:
চট্টগ্রামে রিকশা এখন সোনার হরিণ
গরিবের জন্য ২৩ কোটি টাকা
লকডাউন শাটডাউন নয়, এবার স্ট্রিক্ট ভিউ
শাটডাউনের ঘোষণায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চাপ
পোশাকশ্রমিকের গাড়ি নেই, কারখানায় যেতে ভরসা দুই পা  

শেয়ার করুন

মন্তব্য