বাংলাদেশের রায়হানের প্রশংসায় আল-জাজিরার সাংবাদিক

বাংলাদেশের রায়হানের প্রশংসায় আল-জাজিরার সাংবাদিক

পুরস্কার পাওয়া পর বাংলাদেশি শিক্ষার্থী রায়হান কবিরের সাহসিকতার প্রশংসা করলেন আল-জাজিরার সাংবাদিক ড্রিউ অ্যামরোজ। ছবি: সংগৃহীত 

পুরস্কার পাওয়ার পর প্রতিক্রিয়ায় ড্রিউ অ্যামরোজ বলেন, ‘সত্য বলার মতো সাহসী মানুষ ছাড়া নিপীড়ন প্রকাশে এমন বড় কাজ আমার পক্ষে করা সম্ভবপর ছিল না। প্রবাসী কর্মী রায়হান কবিরের ওপর মালয়েশীয় সরকারের ভয়াবহ চাপ থাকা সত্ত্বেও সত্য প্রকাশ করা থেকে পিছুপা হননি বাংলাদেশি এই যুবক।’

মালয়েশিয়ায় প্রবাসী শ্রমিকদের নির্যাতনের ওপর নির্মিত প্রামাণ্যচিত্রের জন্য পুরস্কার পাওয়া পর বাংলাদেশি শিক্ষার্থী রায়হান কবিরের সাহসিকতার প্রশংসা করলেন আল-জাজিরার সাংবাদিক ড্রিউ অ্যামরোজ।

দেশটিতে প্রবাসীদের ওপর নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরায় ২৫ মিনিটের এই প্রামাণ্যচিত্রের জন্য অস্ট্রেলিয়ার এই সাংবাদিককে শুক্রবার দেয়া হয় আন্তর্জাতিকভাবে মর্যাদাকর ওয়ান ওয়ার্ল্ড মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড। ঝুঁকিপূর্ণ প্রতিবেদন তৈরি করায় যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটি তাকে জার্নালিস্ট অব দ্য ইয়ার হিসেবে নির্বাচিত করে।

এমন পুরস্কার পাওয়ার পর প্রতিক্রিয়ায় ড্রিউ অ্যামরোজ বলেন, ‘সত্য বলার মতো সাহসী মানুষ ছাড়া নিপীড়ন প্রকাশে এমন বড় কাজ আমার পক্ষে করা সম্ভবপর ছিল না। প্রবাসী কর্মী রায়হান কবিরের ওপর মালয়েশীয় সরকারের ভয়াবহ চাপ থাকা সত্ত্বেও সত্য প্রকাশ করা থেকে পিছুপা হননি বাংলাদেশি এই যুবক।’

তিনি আরও জানান, মহামারি চলাকালীন বিশ্বের অনেক দেশে মুক্ত সাংবাদিকতার ওপর বিভিন্ন অজুহাতে চাপিয়ে দেয়া হয়েছে বিধিনিষেধ। এমন প্রতিকূলতার মাঝে সাংবাদিকতার জন্য এ পুরস্কার অর্জন সত্যিই প্রশংসনীয় ও উৎসাহজনক।

দেশটির সংবাদমাধ্যম ফ্রি মালয়েশিয়া টুডের প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এমন তথ্য।

এর আগে এই প্রামাণ্যচিত্রটি লাভ করে যুক্তরাষ্ট্রের ট্যালি অ্যাওয়ার্ড ও হংকংয়ের হিউম্যান রাইটস প্রেস অ্যাওয়ার্ড।

এরই মধ্যে এই প্রামাণ্যচিত্রটিকে ২০২০ সালের সেরা প্রতিবেদন হিসেবে সংক্ষিপ্ত তালিকায় রেখেছে গ্লোবাল ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিজম নেটওয়ার্ক।

‘লকড আপ ইন মালয়েশিয়াস লকডাউন’ ডকুমেন্টারিতে মালয়েশিয়ায় আটকে পড়া অবৈধ শ্রমিকদের বেহাল দশার কথা তুলে ধরা হয়।

আল-জাজিরা গত ৩ জুলাই এই প্রামাণ্যচিত্রটি সম্প্রচার করে।

এতে দেখানো হয়, করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে মালয়েশিয়ার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী দুই হাজারের বেশি অনিবন্ধিত অভিবাসী শ্রমিককে আটক করে। একই সময় দেশটিতে করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বগতি রোধে চলা লকডাউনের মধ্যেই তাদের বিপর্যয়কর পরিবেশে আটক রাখা হয়।

বাংলাদেশি যুবক রায়হান কবির আল-জাজিরার ওই সাংবাদিকের কাছে নিপীড়নের বিষয় ও মালয়েশিয়া সরকারের সমালোচনা করে সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন।

প্রামাণ্যচিত্রটি সম্প্রচার হওয়ার পরপরই মালয়েশিয়ার পুলিশ রায়হান কবিরকে গ্রেপ্তার করে।

আরও পড়ুন:
মালয়েশিয়ায় ফিরতে আটকে পড়া কর্মীদের মানববন্ধন
মালয়েশিয়ায় ঈদে লকডাউন

শেয়ার করুন

মন্তব্য