ইসরায়েল ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা বহাল আছে

ইসরায়েল ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা বহাল আছে

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, 'বাংলাদেশের পাসপোর্ট থেকে “একসেপ্ট ইসরায়েল” শব্দটি তুলে নেয়া হয়েছে পাসপোর্টের আন্তর্জাতিক মান রক্ষার জন্য এবং এর মানে এই নয় যে, বাংলাদেশের মধ্যপ্রাচ্য নীতিতে কোনো পরিবর্তন করা হয়েছে। বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীদের ইসরায়েলে ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে।’

ইসরাইল নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান অপরিবর্তিত আছে এবং যতোদিন পর্যন্ত সেখানে দুই রাষ্ট্র নীতি বাস্তবায়ন না হচ্ছে, তা অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

রোববার বিকেলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ অবস্থান পরিষ্কার করেছে বাংলাদেশ।

এতে বলা হয়, সম্প্রতি বাংলাদেশের ই-পাসপোর্ট থেকে ‘একসেপ্ট ইসরায়েল’ শব্দটি তুলে নেয়ায় বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে। এ নিয়ে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতি বাংলাদেশের দৃষ্টিগোচর হয়েছে।

‘বাংলাদেশের পাসপোর্ট থেকে “একসেপ্ট ইসরায়েল” শব্দটি তুলে নেয়া হয়েছে পাসপোর্টের আন্তর্জাতিক মান রক্ষার জন্য এবং এর মানে এই নয় যে, বাংলাদেশের মধ্যপ্রাচ্য নীতিতে কোনো পরিবর্তন করা হয়েছে। বাংলাদেশি পাসপোর্টধারীদের ইসরায়েলে ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে। বাংলাদেশ সরকার ইসরায়েলের ব্যাপারে তার অবস্থান থেকে সরে আসেনি এবং এ ব্যাপারে বাংলাদেশ তার দীর্ঘদিনের অবস্থানে অটল আছে।’

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘আল-আকসা মসজিদ চত্বরে এবং গাজায় ইসরায়েলের দখলদার বাহিনী কর্তৃক সাম্প্রতিক নৃশংসতার বাংলাদেশ সরকার নিন্দা জানিয়েছে। বাংলাদেশ ১৯৬৭ সালের পূর্বের সীমান্ত এবং পূর্ব জেরুসালেমকে প্যালেস্টাইন রাষ্ট্রের রাজধানী হিসাবে স্বীকৃত জাতিসংঘের প্রস্তাবের আলোকে ফিলিস্তিন-ইসরায়েল দ্বন্দ্বের দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানের বিষয়ে তার নীতিগত অবস্থানের পুনরাবৃত্তি করে।’

পাসপোর্ট থেকে ‘একসেপ্ট ইসরায়েল’ শব্দ তুলে নেয়ায় ঢাকার প্রতি কৃতজ্ঞচিত্তে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে তেলআবিব।

রোববার এক টুইটার বার্তায় দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের উপ-মহাপরিচালক গিলাড কোহেন এ সন্তোষ প্রকাশ করেন।

বাংলাদেশের পাসপোর্ট থেকে ৫০ বছরের মাথায় ‘একসেপ্ট ইসরায়েল’ শব্দ তুলে দেয়াকে ‘অনেক বড় খবর’ বলে উল্লেখ করেন তিনি।

টুইট বার্তা তিনি বলেন, ‘অনেক বড় খবর। বাংলাদেশ ইসরায়েলেয়ের সঙ্গে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নিয়েছে। এবার বাংলাদেশ ও ইসরায়েলেরে মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করলে উভয় দেশের জনগণ লাভবান হবে। কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে আমরা বাংলাদেশকে স্বাগত জানাচ্ছি।’

বাংলাদেশের পাসপোর্টে এতদিন ধরে লেখা থাকতো ‘দিস পাসপোর্ট ইজ ভ্যালিড ফর অল কান্ট্রিজ অব দ্য ওয়ার্ল্ড একসেপ্ট ইসরায়েল’ (এ পাসপোর্ট ইসরায়েল ছাড়া সকল দেশের জন্য প্রযোজ্য)। তবে নতুন ই-পাসপোর্টে এটি সংশোধন করে লেখা হচ্ছে ‘দিস পাসপোর্ট ইজ ভ্যালিড ফর অল কান্ট্রিজ অব দ্য ওয়ার্ল্ড।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সম্প্রতি এ নিয়ে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, পাসপোর্টের আন্তর্জাতিক মান বজায় রাখতেই এ সংশোধনী আনা হয়েছে।

বাংলাদেশের সঙ্গে ইসরায়েলের কোনো কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই। বাংলাদেশকে ইসরায়েল স্বীকৃতি দিলেও তা প্রত্যাখ্যান করেছিল ঢাকা।

আরও পড়ুন:
দেশে দ্বৈত পাসপোর্টধারী ১৪ হাজার
ছয় জেলায় ই পাসপোর্ট সেবা চালু
এক বাসায় ২৭০ পাসপোর্ট, আটক ২
ডিজিটাল ভ্যাকসিন পাসপোর্টে সমাধান?

শেয়ার করুন

মন্তব্য