বন্ধই থাকছে ভারত সীমান্ত

বন্ধই থাকছে ভারত সীমান্ত

সিলেটের তামাবিল সীমান্ত পয়েন্ট। ছবি: সাইফুল ইসলাম

মন্ত্রণালয় সূত্র বলছে, ভারত সীমান্ত খোলা নির্ভর করছে সে দেশের করোনা পরিস্থিতির ওপর। আপাতত ৩১ মে পর্যন্ত বন্ধ রাখার জন্য সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বাংলাদেশে করোনার ইন্ডিয়ান ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হওয়ার পর সে দেশ থেকে বাংলাদেশে ফেরত আসাদের মধ্যে করোনা পজিটিভের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়া ও ভারতে করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় বন্ধই থাকছে দেশটির সঙ্গে বাংলাদেশের সীমান্ত।

আপাতত ভারতের সঙ্গে স্থলসীমান্ত বন্ধের মেয়াদ আরও ৮ দিন বাড়িয়েছে বাংলাদেশ। ফলে ৩১ মে পর্যন্ত সীমান্ত বন্ধ থাকবে।

বৃহস্পতিবার রাতে আন্তঃমন্ত্রণালয় ভার্চুয়াল বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পূর্ব ও দক্ষিণ এশিয়া উইং।

মন্ত্রণালয় সূত্র বলছে, ভারত সীমান্ত খোলা নির্ভর করছে সে দেশের করোনা পরিস্থিতির ওপর। সেখানে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হলে সহসাই সীমান্ত খোলার সম্ভাবনা নেই। তবে আপাতত ৩১ মে পর্যন্ত বন্ধ রাখার জন্য সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে পর্যালোচনার মাধ্যমে তা বাড়ানো হবে।

মন্ত্রণালয় বলছে, এখন পর্যন্ত ছয়টি বন্দর দিয়ে প্রায় ৫ হাজার বাংলাদেশি প্রবেশ করেছেন এবং বর্তমানে প্রতি দিন গড়ে ২৫০ জনের মতো বাংলাদেশি নাগরিক দেশে ফিরছেন।

করোনার সংক্রমণ মোকাবিলার জন্য বাংলাদেশ গত ২৬ এপ্রিল থেকে ভারতীয় সীমান্ত বন্ধ রেখেছে।

শুক্রবার ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলায় অবস্থিত বাংলা‌দেশ সহকা‌রি হাইক‌মিশন থে‌কে পাঠা‌নো এক বিজ্ঞ‌প্তি‌তে ৩১মে পর্যন্ত সীমান্ত বন্ধের তথ‌্য জানা‌নো হ‌য়ে‌ছে।

এতে বলা হ‌য়, ভার‌তের স‌ঙ্গে চলমান স্থলসীমান্ত দি‌য়ে যাত্রী‌দের চলা‌ফেরা নি‌ষে‌ধের মেয়াদ ৩১ মে পর্যন্ত বাড়া‌নো হ‌য়ে‌ছে।

তবে ভার‌তে অবস্থানরত যেসব আগ্রহী বাংলা‌দে‌শি দে‌শে ফেরার অনুম‌তি পা‌বেন, তা‌দের আগরতলা-আখাউড়া চেক‌পোস্টে কিউআরকোডসহ ক‌রোনা নে‌গে‌টিভ সনদ দেখা‌তে হ‌বে।

আরও পড়ুন:
মহেশপুর সীমান্তে নারী ও শিশুসহ আটক ৯
মহেশপুর সীমান্তে নারী ও শিশুসহ আটক ৭
অবৈধভাবে সীমানা পাড়ি দেয়ায় আটক যুবক
ভারত থেকে ফেরা যাবে আরও তিন বন্দর দিয়ে
করোনা: ভারত সীমান্তে বিজিবির রেড অ্যালার্ট

শেয়ার করুন

মন্তব্য