20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
জুতার ভেতরে ৫৬ ভরি সোনা

বিজিবির অভিযানে সোনার বারসহ আটক যুবক।

জুতার ভেতরে ৫৬ ভরি সোনা

বুধবার মধ্যরাতে হোয়াইক্যং সীমান্ত চৌকিতে দায়িত্বরত বিজিবি সদস্যরা হোয়াইক্যং হতে বালুখালীগামী একটি ইজিবাইকে তল্লাশি চালান। এ সময় ইজিবাইক চালক শাহ আলমের দুই পায়ের স্যান্ডেলের ভেতরে ৫৬ ভরি সোনার ৪টি বার পাওয়া যায়। জুতা কেটে সোনার বারগুলো ঢুকানো হয়েছিল।

কক্সবাজারের টেকনাফে এক ইজিবাইক চালকের জুতার ভেতর থেকে ৫৬ ভরি ওজনের চটি সোনার বার উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার রাতে হোয়াইক্যং সীমান্ত চৌকিতে দায়িত্বরত বিজিবি সদস্যরা হোয়াইক্যং এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব সোনা উদ্ধার করেন।

২ বিজিবির টেকনাফ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান জানান, বুধবার মধ্যরাতে হোয়াইক্যং সীমান্ত চৌকিতে দায়িত্বরত বিজিবি সদস্যরা হোয়াইক্যং হতে বালুখালীগামী একটি ইজিবাইকে তল্লাশি চালান। এ সময় ইজিবাইক চালক শাহ আলমের দুই পায়ের স্যান্ডেলের ভেতরে ৫৬ ভরি সোনার ৪টি বার পাওয়া যায়। জুতা কেটে সোনার বারগুলো ঢুকানো হয়েছিল।

মো. শাহ আলম (৩১) হোয়াইক্যং উত্তর পাড়ার আব্দুল মজিদের ছেলে।

লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সাল আরও জানান, বৈধ কোনো কাগজপত্র না থাকায় এবং সরকারি শুল্ক ফাঁকি দেয়ায় সোনার বারসহ শাহ আলমকে টেকনাফ মডেল থানায় সোপর্দ করা হয়। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে বিজিবি টেকনাফ মডেল থানায় একটি মামলা করেছে।

জব্দ করা ইজিবাইক পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। সোনার বারগুলো জেলা প্রশাসকের ট্রেজারি শাখায় জমা দেয়া হয়েছে।

টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান বিকেলে নিউজবাংলাকে বলেন, শাহ আলমকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে হয়েছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য