20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
সেন্ট্রাল ফাইলিং: আবেদনে নাখোশ প্রধান বিচারপতি

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। ছবি: নিউজবাংলা

সেন্ট্রাল ফাইলিং: আবেদনে নাখোশ প্রধান বিচারপতি

‘সেন্ট্রাল ফাইলিং যদি হয়, তাহলে সুপ্রিমকোর্টে অনিয়ম ৫০ শতাংশ কমে যাবে।’

তথ্য গোপন করে একই বিষয়ে হাই কোর্টের দুটি আলাদা বেঞ্চে আবেদন করায় এক আইনজীবীর প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

বৃহস্পতিবার সকালে আপিল বিভাগের কার্যক্রম শুরু হলে প্রথমেই প্রধান বিচারপতি এ ঘটনায় অসন্তোষ প্রকাশ করেন।

প্রধান বিচারপতি সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সম্পাদকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, ‘আপনাদের একজন মেম্বার (সদস্য) একই বিষয়ে দুটি বেঞ্চে জামিন আবেদন করে জামিন নিয়েছেন।

‘এ ধরনের অপতৎপরতা রোধে সেন্ট্রাল ফাইলিংয়ের ব্যবস্থার কথা ভাবছি। বিষয়টি নিয়ে আমরা বসব।’

এ সময় আইনজীবী সমিতির সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস কাজল বলেন, ‘সেন্ট্রাল ফাইলিং ব্যবস্থা নিয়ে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। তবে আমাদের জন্য চয়েজ অফ কোর্ট (পছন্দসই আদালত) যাওয়ার সুযোগ থাকলে ভালো হয়।’

আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, ‘মাই লর্ড, যদি কোনো আইনজীবী এমন কোনো কাজ করে থাকেন, তার বিরুদ্ধে টেক অ্যাকশন (পদক্ষেপ নিন)।’

৭ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনে প্রয়াত অ্যাটর্নি জেনারেলের শোক সভায় প্রধান বিচারপতি বলেছিলেন, সেন্ট্রাল ফাইলিং যদি হয়, তাহলে সুপ্রিম কোর্টে অনিয়ম ৫০ শতাংশ কমে যাবে।

প্রয়াত অ্যাটর্নি জেনারেলের সেন্ট্রাল ফাইলিং সিস্টেমের চালুর ইচ্ছা অচিরেই বাস্তবায়ন করা হবে বলেও জানিয়েছিলেন প্রধান বিচারপতি।

শেয়ার করুন

মন্তব্য