20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা হত্যা: চেয়ারম্যানসহ চার জন রিমান্ডে

শুভ্র হত্যা মামলার প্রধান আসামি ইউপি চেয়ারম্যান রিয়াদুজ্জামান রিয়াদ

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা হত্যা: চেয়ারম্যানসহ চার জন রিমান্ডে

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শুভ্র হত্যা মামলায় চার জনকে রিমান্ডে পেয়েছে পুলিশ। এদের মধ্যে প্রধান আসামি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান রিয়াদুজ্জামান রিয়াদকে তিন দিন আর জাহাঙ্গীর আলম, রাসেল আহমেদ ও মজিবুরকে দুই দিন হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন তদন্ত কর্মকর্তা।

বুধবার বিকেলে ময়মনসিংহ মুখ্য বিচারিক হাকিম মাহাবুবা আক্তার এই আদেশ দেন। আসামিদের সাত দিনের রিমান্ড চেয়েছিল পুলিশ।

গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বোরহান উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, আসামিদের প্রথমে ৫৪ ধারায় আটক করা হয়েছিল। পরে এই মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।

সোমবার রাত ১০টার দিকে নিহতের ছোট ভাই আবিদুর রহমান প্রান্ত রিয়াদকে প্রধান আসামি ও হত্যার পরিকল্পনাকারী হিসেবে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলামসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন।

এর আগে শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে গৌরীপুর উপজেলা সদরের একটি চায়ের দোকানে হামলায় গুরুতর আহত হন মাসুদুর রহমান শুভ্র ও তার দুই সহযোগী।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় শুভ্রকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরিবারের দাবি, গৌরীপুর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ও মইলাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান রিয়াদুজ্জামান রিয়াদের নেতৃত্বে দুটি সিএনজিতে আট থেকে ১০ জন সন্ত্রাসী তাদের ওপর এ হামলা চালায়।

এ ঘটনায় রোববার জেলার তারাকান্দার গাছা এলাকা থেকে চেয়ারম্যান রিয়াদুজ্জামান রিয়াদ ও মইলাকান্দা ইউনিয়নের কাউরাট থেকে জাহাঙ্গীর আলম, রাসেল ও মজিবুরকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মঙ্গলবার হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে গৌরীপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলামকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। রফিকুল এখন পলাতক।

শেয়ার করুন