রিমান্ড শেষে স্বাস্থ্যের আবজাল কারাগারে

ফাইল ছবি

রিমান্ড শেষে স্বাস্থ্যের আবজাল কারাগারে

রিমান্ডে দ্বিতীয় দফায় সাত দিনের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সোমবার আবজালকে আদালতে হাজির করে দুদক। পরে ঢাকা মহানগর জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ কে এম ইমরুল কায়েশ তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

৩৬ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী আবজাল হোসেনকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

রিমান্ডে দ্বিতীয় দফায় সাত দিনের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সোমবার আবজালকে আদালতে হাজির করে দুদক।

পরে ঢাকা মহানগর জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ কে এম ইমরুল কায়েশ তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

গত ২ সেপ্টেম্বর দুই মামলায় আবজালকে ১৪ দিনের রিমান্ডে পাঠায় আদালত।

১৩ থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর প্রথম দফায় সাত দিন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দুদক। পরে দ্বিতীয় দফায় আরো সাত দিন জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সোমবার তাকে আদালতে হাজির করে কারাগারে পাঠানোর আবেদন জানায় দুদক।

আবজাল হোসেন গত ২৬ আগস্ট আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। তবে আদালত আবেদন গ্রহণ না করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয়।

আবজালের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জন, মানি লন্ডারিং এবং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে গত বছরের ২৭ জুন দুটি মামলা করেন দুদকের উপ-পরিচালক তৌফিকুল ইসলাম। মামলার একটিতে আবজাল হোসেন একা আসামি এবং অন্যটিতে তিনি ও স্ত্রী রুবিনা খানম আসামি।

মামলায় আবজাল দম্পতির বিরুদ্ধে ৩৬ কোটি ৩০ লাখ ৬১ হাজার ৪৯৩ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ আনা হয়েছে। এছাড়া, ২৮৪ কোটি ৫১ লাখ ১৩ হাজার ২০৭ টাকার মানিলন্ডারিংয়ের অভিযোগও করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য