20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
পাটকল চালুর দাবিতে পল্টন অবরোধ  বামজোটের

পাটকল চালুর দাবিতে পল্টন অবরোধ বামজোটের

আব্দুল্লাহ আল ক্বাফী বলেন, নিজেদের শ্রমিকবান্ধব দাবি করা সরকার অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্তে রাষ্ট্রীয় পাটকলগুলো বন্ধ করে দিয়েছে।

রাষ্ট্রীয় পাটকলগুলো চালু করে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে রাজধানীর পল্টনে সড়ক অবরোধ ও সমাবেশ করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট।

সোমবার সকাল সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর পৌনে ২টা পর্যন্ত এই কর্মসূচি পালিত হয়।

এ সময় পাটশিল্পে লোকসানে দায়ীদের বিচার চেয়ে পাটকলগুলোতে সর্বনিম্ন মজুরি ঘোষণার দাবি জানান জোট নেতারা।

সমাবেশে জোটের সমন্বয়ক আব্দুল্লাহ আল ক্বাফী বলেন, নিজেদের শ্রমিকবান্ধব দাবি করা সরকার অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্তে রাষ্ট্রীয় পাটকলগুলো বন্ধ করে দিয়েছে।

তিনি বলেন, ৫২ হাজার স্থায়ী ও অস্থায়ী শ্রমিকের কথা চিন্তা না করে মহামারির মধ্যে পাটকল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

বাসদের কেন্দ্রীয় সদস্য বজলুর রশিদ ফিরোজ, ইউনাইটেট কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি সমাবেশে বক্তব্য রাখেন।

খুলনায় শ্রমিকদের কর্মসূচিতে 'পুলিশের বাধা' ও কয়েকজনকে গ্রেফতারের' প্রতিবাদ জানিয়ে জোট নেতারা বলেন, এভাবে হামলা-মামলা দিয়ে পাটকল বাঁচানোর আন্দোলন দমন করা যাবে না।

এ বছরের ২৫ জুন খুলনা অঞ্চলের নয়টিসহ সারাদেশের ২৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

এরপর ২ জুলাই পাটকল বন্ধসহ গোল্ডেন হ্যান্ডশেকের আওতায় শ্রমিকদের অবসরের প্রজ্ঞাপন টানিয়ে দেয়া হয় পাটকলগুলোতে।

শেয়ার করুন